রাত ৯:৪৯, মঙ্গলবার, ২৮শে মার্চ, ২০১৭ ইং

ইউরো জয়ের পর দারুণ ছন্দেই আছে পর্তুগাল। তার বড় প্রমাণ রেখে চলেছে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বেও। গত তিন বাউন্ডে ১৬ বার প্রতিপক্ষের জাল কাঁপিয়েছেন রোনালদোরা। শনিবার রাতে আরও একবার দেখা গেল পর্তুগালের ভয়ঙ্কর রূপটা। যে রূপের আবির্ভাব ওই রোনালদোর হাত ধরেই।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে হাঙ্গেরির বিপক্ষে জোড়া গোল করেছেন রোনালদো। রিয়াল মাদ্রিদ সুপারস্টারের অসাধারণ নৈপুণ্যে ম্যাচটি পর্তুগাল জিতে নিয়েছে ৩-০ গোলের ব্যবধানে। তিনটি গোলেই ছিল রোনালদোর প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ অবদান।

ম্যাচের প্রথম গোলটা আসে ৩২ মিনিটে। রোনালদো বল নিয়ে হাঙ্গেরির ডি-বক্সে ঢুকছিলেন। প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের বাধা পেয়ে বলটি ঠেলে দিলেন হোসে জুয়েরিওরেকে। বাঁ-প্রান্ত থেকে হোসে বলটি ধরিয়ে দিলেন আন্দ্রে সিলভাকে। পায়ের আলতো ছোঁয়ায় বলটি হাঙ্গেরির জালে জড়ালেন অভিষিক্ত সিলভা (১-০)।

ম্যাচের ৩৬ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে উড়িয়ে দেয়া বল আলতো টোকায় রোনালদোকে দিলেন সিলভা। আর দুরপাল্লার এক শটে লক্ষ্যভেদ করেন পর্তুগাল অধিনায়ক (২-০)। এরপর দুহাত বাড়িয়ে তার চিরচেনা ট্রেডমার্ক উদযাপন! আর হাঙ্গেরির কফিনে শেষ পেরেকটা ঠুকে দেন রোনালদোই। ৬৫ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে গোল আদায় করে নেন তিনি।

এ নিয়ে পাঁচ ম্যাচে চারটিতে জয় পেল পর্তুগাল। ১২ পয়েন্ট নিয়ে রোনালদোরা রয়েছেন ‘বি’ গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে। সুইজারল্যান্ড যথারীতি শীর্ষেই আছে। পাঁচ ম্যাচের সবকটিই জয় পেয়েছে সুইসরা; সংগ্রহ পূর্ণ ১৫ পয়েন্ট।

আইপিএলকে বাতিল করে দিল বিসিসিআই!

ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে জমজমাট আসর আইপিএল। এই আসরে খেলে থাকেন বিশ্বের নামিদামি ক্রিকেটার। বেশ জমে ওঠে এই টুর্নামেন্ট। কিন্তু এই আসর কি থাকছে? এমন প্রশ্নও অবান্তর নয়! কারণ তো আছেই।

বিসিসিআইয়ের কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটর যেসব নতুন নিয়ম-নীতি চূড়ান্ত করেছে, সেখানে উল্লেখ নেই কোনো ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির কথা। তার মানে, আইপিএলকে বাতিল বাতিল করে দিল বিসিসিআই! ভারতের আরেকটি টুর্নামেন্টও তাহলে বাদ পড়ে যায়, সেটা হলো সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফি।

বিসিসিআইয়ের নতুন সংবিধানের অধ্যায় পাঁচ ২৫ (২) বলছে, রঞ্জি, ইরানি, দিলীপ, দেওধর, বিজয় হাজারে ও বিশ্ববিদ্যালয়ের টুর্নামেন্ট বিজি ট্রফি নিয়ে কাজ করবে বিসিসিআইয়ের পাঁচ সদস্যের সিনিয়র টুর্নামেন্ট কমিটি। সেখানে উল্লেখ করা হয়নি ভারতের কোনো টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট।

ইচ্ছাকৃতভাবেই ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির কথা বাদ দেয়া হলো? নাকি ভুল করে এমনটা হলো? ভারতীয় গণমাধ্যম এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে।

প্রসঙ্গত, বিসিসিআইয়ের অধীনে এখন দুটি ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট হয়। টুর্নামেন্ট দুটি হলো- আইপিএল ও সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফি।

আগুয়েরোর গোলে শেষ চারে ম্যানসিটি

সার্জিও আগুয়েরো ও ডেভিড সিলভার গোলে সহজেই এফএ কাপের সেমি-ফাইনালে উঠেছে ম্যানচেস্টার সিটি। প্রিমিয়ার লিগের অবনমন অঞ্চলের দল মিডলসবরোকে ২-০ গোলে হারিয়েছে পেপ গার্দিওলার দল।

শনিবার মিডলসবরোর মাঠে তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় সিটি। ডান দিক দিয়ে পাবলো জাবালেতার পাস পেয়ে স্বাগতিকদের জাল কাঁপান ডেভিড সিলভা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ব্যবধান দ্বিগুণ করার বেশ কয়েকটি সুযোগ হারায় তারা। এরপর ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই প্রথমার্ধের খেলা শেষ করে ম্যানসিটি।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৬৭তম মিনিটে গোল পেয়ে যান আগুয়েরো। জার্মান মিডফিল্ডার সানের কাছ থেকে পাওয়া বল মিডলসবরোর জালে পাঠান আগুয়েরো। এর ৪ মিনিট পর আগুয়েরো আরেকবার প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠালেও তা অফসাইডের খড়গে পড়ে কাঁটা যায়। ম্যাচের বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হওয়ায় ২-০ ব্যবধানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ম্যানসিটি।

বার্সার কোচ হতে জান জাভি

বার্সেলোনার মাঝ মাঠের কাণ্ডারি ছিলেন তিনি। পেপ গার্দিওলা, টিটো ভিলানোভা কিংবা লুইস এনরিকের প্রথম মৌসুমে একের পর এক বার্সার হয়ে শিরোপা জয়ে অবদান রেখেছেন। বলা হয়, মেসির পেছনে যদি জাভি হার্নান্দেজ না থাকতেন, তাহলে হয়তো আজকের এই ‘মেসি’ই তৈরি হতে পারতেন না। বার্সার ফুটবলার ট্রেনিং ক্যাম্প লা মাসিয়ায় মেসির সতীর্থ ছিলেন তিনি। সেই জাভি বার্সার সঙ্গেও সম্পর্ক চিন্ন করেছেন দুই বছর আগে।

তবে, নাড়ির টান তো আর অস্বীকার করা যায় না। ভবিষ্যতে আবারও বার্সায় ফিরতে চান তিনি। তবে মেসিদের সতীর্থ হয়ে নয়। এবার শিক্ষকের ভূমিকায়। অথ্যাৎ কোচ হয়ে। এখনই নয়, একদিন বার্সেলোনার কোচ হওয়ার স্বপ্ন দেখেন তিনি। তখন হয়তো আর মেসিরা খেলবেন না বার্সার এই দলটিতে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম লেগে পিএসজির কাছে বিধ্বস্ত হওয়ার পর টানা সমালোচনার মুখে বার্সা কোচের পদ ছাড়েন লুইস এনরিক। এই মৌসুম শেষেই তিনি ন্যু ক্যাম্পকে বিদায় জানাবেন। তার আগেই জ্বল্পনা তুঙ্গে, কে হচ্ছেন বার্সার পরবর্তী কোচ! এমনই এক সময়ে জাভির হঠাৎ বার্সার কোচ হতে চাওয়ার পেছনে কী কারণ?

যদিও নিজেই এই জ্বল্পনাকে উড়িয়ে দিয়েছেন জাভি। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, একদিন বার্সার কোচ হতে চাই। তবে, নিকট ভবিষ্যতে অবশ্যই নয়। অথ্যাৎ, কেউ যাতে মনে না করে, আমি এনরিকের উত্তরসূরি হতে চাই।

৩৭ বছর বয়সী জাভি এখন খেলছেন কাতারের ক্লাব আল সাদে। লে প্যারিসিয়ানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘বার্সার কোচ হওয়া আমার স্বপ্ন এবং এ লক্ষ্যে আমি নিজেকে গড়ে তুলছি। আগামী দিনে কোচ হওয়ার জন্য আমি কাজ করে যাচ্ছি।’

লুইস এনরিকের পরিবর্তে কোচ হবেন কি না? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এনরিকের পরিবর্তে কোচ হওয়া অসম্ভব। কারণ, কোচ হওয়ার জন্য পরীক্ষা দিতে হয়, পাশ করতে হয়। এখনও আমি পরীক্ষা দিইনি। পাশ করা তো দুরে থাক। এখনও আমি নিজেকে ফুটবলারই ভাবছি।’

টেস্ট নয় বাংলাদেশ সফরে ওয়ানডে খেলতে চায় অস্ট্রেলিয়া

দীর্ঘ ৯ বছর পর দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা থাকলেও নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকির বিষয়টি উল্লেখ করে শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ সফর স্থগিত করে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড। তবে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফরের পর জানা যায় ১৮ আগস্ট দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে ঢাকাতে পা রাখবে স্মিথ বাহিনী। তবে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ সফরে টেস্টের পরিবর্তে ওয়ানডেতে খেলতে আগ্রহী অস্ট্রেলিয়া।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাবিত সূচি অনুযায়ী চট্টগ্রামে প্রথম টেস্ট শুরু ২৭ আগস্ট থেকে। এরপর ঈদুল আজহার বিরতির পর মিরপুরে দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর সম্ভাব্য তারিখ ৬ সেপ্টেম্বর। তবে পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামী ২৩ অক্টোবর পাঁচ ওয়ানডে ও এক টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে ভারতে আসবে অস্ট্রেলিয়া দল। আর ভারতে যেহেতু তখন শুধুই ওয়ানডে খেলবে, তাই বাংলাদেশকে দিয়েই প্রস্তুতিটা সেরে ফেলতে চাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।

এদিকে টেস্টের পরিবর্তে ওয়ানডে খেলার প্রস্তাব ক্রিকেট অস্টেলিয়া এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে না দিলেও আকারে-ইঙ্গিতে তাদের ইচ্ছার কথা জানিয়েছে বিসিবিকে। তবে প্রতিশ্রুত টেস্ট সিরিজটি বাদ দিয়ে অন্য কিছু খেলতে রাজি নয় বাংলাদেশ।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের এপ্রিলে বাংলাদেশে তিনটি ওয়ানডে খেললেও সিরিজের টেস্ট দুটি পরে কোনো একসময় খেলতে আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া দলের। দুই বোর্ডের আলোচনায় ঠিক হয়েছিল, দুই টেস্টের সিরিজটি হবে ২০১৫-এর অক্টোবরে। কিন্তু নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে অস্ট্রেলিয়া দলের বাংলাদেশে আসার ঠিক আগের দিন সিরিজ স্থগিত করে দেয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের জন্য ব্রাজিলের দল ঘোষণা

ইনজুরির কারণে ব্রাজিলের আক্রমণভাগে জায়গা পাননি গ্যাব্রেইল জেসুস। তার পরিবর্তে জায়গা পেয়েছেন দিয়েগো সুজা। রক্ষণভাগে আছেন অভিজ্ঞ তিন ডিফেন্ডার ;পিএসজির থিয়াগো সিলভা, জুভেন্টাসের দানি আলভেজ, ও রিয়াল মাদ্রিদের মার্সেলো।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে উরুগুয়ে ও প্যারাগুয়ের বিপক্ষে ব্রাজিলের ঘোষিত দলে জায়গা হয়নি চেলসির ডিফেন্ডার ডেভিড লুইসের। স্কোয়াডে ফিরেছেন রিয়াল মাদ্রিদের ক্যাসেমিরো।

আগামী ২৩ মার্চ লুইস সুয়ারেজের উরুগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে ব্রাজিল। আর ২৮ মার্চ ঘরের মাঠে প্যারাগুয়েকে স্বাগত জানাবে তিতের দল।

ব্রাজিলের স্কোয়াড :
গোলরক্ষক: এডারসন (বেনফিকা), আলিসন (রোমা), ওয়েভার্টন (আটলেটিকো পিআর)

ডিফেন্ডার: মিরান্ডা (ইন্টার মিলান), মারকুইনহোস (পিএসজি), থিয়াগো সিলভা (পিএসজি), জিল (শানদং লুয়েনং), দানি আলভেস (জুভেন্টাস), ফ্যাগনার (করিন্থিয়ান্স), মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), ফেলিপে লুইস (আটলেটিকো মাদ্রিদ)

মিডফিল্ডার: কাসেমিরো (রিয়াল মাদ্রিদ), রেনাতো আগুস্তো (বেইজিং গুয়ান), পাওলিনহো (এভারগ্রান্ড), উইলিয়ান (চেলসি), ফার্নানদিনহো (ম্যানচেস্টার সিটি), জিলিয়ানো (জেনিত), ফিলিপে কুটিনহো (লিভারপুল), দিয়েগো (ফ্লামেঙ্গো)

ফরোয়ার্ড: নেইমার (বার্সেলোনা), ডগলাস কস্তা (বায়ার্ন মিউনিখ) রবার্তো ফিরমিনো (লিভারপুল), দিয়েগো সুজা (স্পোর্ট রেসিফি)।

শ্রীলংকায় এখন তুমুল আলোচনায় হাথুরুসিংহে

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। শ্রীলংকার সাবেক এই ক্রিকেটার নিজ দেশের সহকারী কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন ২০০৮ সালে। তবে ওই সময় শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ড এবং খেলোয়াড়দের সঙ্গে বনিবনা না হওয়ার কারণে চাকরি ছাড়তে হয় তাকে এবং অস্ট্রেলিয়ায় চাকরি খুঁজে নেন বাংলাদেশের বর্তমান কোচ। এরপর এক সময় তো চলেই এলেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ হয়ে। বাকিটা ইতিহাস।

সেই চন্ডিকা হাথুরুসিংহেই এখন শ্রীলংকার মাটিতে, স্বদেশের বিপক্ষে লড়াই করার জন্য নিয়ে গেলেন বাংলাদেশের টাইগারদের। তার সঙ্গী আরও দুই লংকান। শ্রীলংকার এক সময়ের পেস বোলার মারিও ভিল্লাভারায়ন, যিনি এখন বাংলাদেশ দলের ট্রেনার এবং জাতীয় দলের ব্যাটসম্যান থিলান সামারাবিরা, যিনি ব্যাটিং কোচ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে এখন এই তিন লংকানকেই যত ভয় স্বাগতিক শ্রীলংকার খেলোয়াড়, কর্মকর্তা এবং দর্শকদের। কারণ, শ্রীলংকা দলের অন্দর মহলের খবর তো এই তিনজন খুব ভালোকরেই জানেন। তাদের দুর্বলতা, শক্তি- সবকিছুই। এ কারণেই বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের আগে শ্রীলংকাজুড়ে তুমুল আলোচনায় চন্ডিকা হাথুরুসিংহে এবং তার দুই সতীর্থ ভিল্লাভারায়ন ও থিলান সামারাবিরা।

শ্রীলংকার পত্রিকাগুলোতেও তুমুল আলোচনা। কলম্বো থেকে প্রকাশিত ‘ন্যাশন’ পত্রিকায় বিশেষ নিবন্ধই চাপানো হয়েছে আজ। ‘হাথুরুসিংহে ইনভেডস শ্রীলংকা’ শিরোনামে প্রকাশিত এই নিবন্ধটিতে বাংলাদেশ কোচের উত্থান, তার সঙ্গে শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ডের অতীত আচরণ এবং তার বর্তমান অবস্থা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, হাথুরুসিংহের অধীনে মাত্র কিছুদিন আগেই ইংল্যান্ডকে বিধ্বস্ত করেছে বাংলাদেশ।

নিজ দেশে প্রতিপক্ষ হলেও ৪৮ বছর বয়সী হাথুরুসিংহে এখানে পুরোপুরি পেশাদার। যদিও শ্রীলংকা থেকে একবার তিনি প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন। সেই প্রতিহিংসা থেকেই মনেপ্রাণ চান, শ্রীলংকাকে হারতে। জানিয়ে দিয়েছেন, তার অধীনে বাংলাদেশ যদি শ্রীলংকাকে হারাতে পারে, তাহলে এটা হবে অনেক বড় একটি অর্জন। যদিও নিজ দেশের হয়ে ক্রিকেটে কোনো ভূমিকা রাখতে না পারার আক্ষেপও পোড়ায় তাকে।

ন্যাশন পত্রিকাকে হাথুরুসিংহে বলেন, ‘হ্যাঁ আমাকে এখান থেকে (শ্রীলংকান ক্রিকেট) সরিয়ে দেয়া হয়েছিল। এবং সত্যিই আমি দেশের হয়ে ক্রিকেটে ভূমিকা রাখতে পারিনি বলে খুব হতাশ। তবে আমি এখন যা করছি এটা নিয়ে খুবই খুশি।’

সাবেক লংকান এই ওপেনার আরও স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন, ‘এখনই সময়, আমার অধীনে বাংলাদেশ কতটুকু উন্নতি করেছে সেটা দেখিয়ে দেয়ার।’

শ্রীলংকার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথ ইতিমধ্যেই নিজেদের চিন্তার কথা জানিয়ে দিয়েছে এই তিন লংকানকে নিয়ে। তিনি বলেছিলেন, ‘থিলান সামারাভিরা, চন্ডিকা হাথুরুসিংহে জানে আমাদের কোথায় দুর্বলতা। কিংবা কোথায় আমাদের শক্তি। আমি নিশ্চিত তারা এগুলো নিয়ে কাজ করবে। সুতরাং আমাদেরকে নতুন কোনো পরিকল্পনা নিয়েই মাঠে নামতে হবে।’

কোচের প্রশংসা ঝরেছে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহীদের কণ্ঠ থেকেও। তিনি বলেন, ‘গত দুই-আড়াই বছরের রেকর্ডই জানিয়ে দিচ্ছে তিনি (হাথুরুসিংহে) দলের জন্য কতটা নিবেদিতপ্রাণ। তার অধীনে অনেক উন্নতি করেছে আমাদের দল। এবং অনেক সাফল্যও এসেছে। আশা করছি এই সফরে সেগুলোরই পুনরাবৃত্তি করতে পারবো।’

‘রিয়ালকে নিয়ে চিন্তিত নয় বার্সা’

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিএসজির কাছে ৪-০ গোলে হার; এই ধকল সামলে উঠতে শুরু করেছে বার্সেলোনা। তার বড় প্রমাণ- অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মাঠে দিয়েগো সিমিওনের দলকে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত করেছে বার্সা। এই জয়ে স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপার দৌড়ে অনেকখানি এগিয়ে আসলো লুইস এনরিকের দল।

২৪ ম্যাচ খেলা বার্সার সংগ্রহ ৫৪ পয়েন্ট; অবস্থান দ্বিতীয়। রিয়াল মাদ্রিদ যথারীতি শীর্ষেই আছে। লস ব্লাঙ্কসদের ঝুলিতে জমা আছে ৫৫ পয়েন্ট। বার্সার চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলেছে জিনেদিন জিদানের রিয়াল।

২৪ পয়েন্ট নিয়ে সেভিয়ার অবস্থান তৃতীয়। বার্সার কাছে হেরে অ্যাটলেটিকো শিরোপা দৌড়ে বেশ খানিকটা পিছিয়ে পড়েছে। ২৪ ম্যাচে দিয়েগো সিমিওনির দলের পুঁজি ৪৫।

এদিকে অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে ম্যাচের পর বার্সার ফরোয়ার্ড নেইমার জানালেন, প্রতিপক্ষ নিয়ে চিন্তিত নয় বার্সা; এমনকি রিয়াল মাদ্রিদকে নিয়ে নয়। বার্সার যত সব চিন্তা ও ভাবনা নিজেদের নিয়ে। ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারের ভাষায়, ‘আমরা অন্য কোনো প্রতিপক্ষ নিয়ে চিন্তা করি না। নিজেদের নিয়েই ভাবছি। আমাদের প্রতিপক্ষ ভালো করবে কিংবা ব্যর্থ হবে; এমনই তো! আমি এই জয়ে (অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে) খুশি। আমরা জানতাম, ম্যাচটা আমাদের জন্য কঠিন হবে। দলের সবাইকে অভিনন্দন।’

আইপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজনে বিশেষ নিয়ম

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগের আসরগুলোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মতো এবার দেখা যাবে নাচে-গানে ভরপুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। তবে আগামী ৫ এপ্রিল শুরু হতে যাওয়া আইপিএলের দশম আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজনে থাকবে বিশেষ নিয়ম।

আগে যেমন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষকতা করতে কয়েকটি কোম্পানিকে নিবন্ধন দিতো বিসিসিআই। এবার আর তা থাকছে না। কেননা গত শনিবার ভারতের সুপ্রিম কোর্ট একটি সিদ্ধান্ত দিয়েছেন, কোম্পানিগুলো সংঘবদ্ধভাবে আইপিএলের দশম আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পারবে না। যে কোনো একটি কোম্পানিকে লিখিতভাবে নিবন্ধন দেয়া হবে। ওই কোম্পানি-ই দায়ী থাকবে বোর্ডের কাছে।

বিসিসিআই এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ‘কোম্পানিগুলো সম্মিলিতভাবে কোনো প্রস্তাব পেশ করতে পারবে না। বিসিসিআই থেকে একটি কোম্পানিকেই লিখিতভাবে নিবন্ধন দেয়া হবে। ওই কোম্পানি অন্যান্যদের সঙ্গে চুক্তি করতে পারবে। কিন্তু আগ্রহী কোম্পানি প্রাথমিকভাবে দায়ী থাকবে।’

এর জন্য চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। এর মধ্যে ছিলেন আইডিএফসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ভিকরম লিমাই, ক্রিকেটবিদ রামাচন্দ্র গুহা, ভারত নারী জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ডায়না উদুলজি ও বোর্ডের সাবেক অডিটর বিনোদ রায়।

নেইমারের জন্য বিশ্বরেকর্ড গড়তে চান মরিনহো

ফুটবলে ট্রান্সফার ফির ইতিহাসে সবচেয়ে দামি ফুটবলার কে? উত্তর- পল পগবা। ১১ কোটি ইউরোর (৮৯.৩ মিলিয়ন পাউন্ড) বিনিময়ে জুভেন্টাস থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে পাড়ি জমান ফরাসি এই মিডফিল্ডার। তবে নেইমারের জন্য নিজেদের দখলে থাকা এই বিশ্বরেকর্ড ভাঙতে চান ম্যানইউ কোচ হোসে মরিনহো।

ইতোমধ্যে ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে দিয়েছেন মরিনহো। ইংলিশ মিডিয়ার খবর এমনই। তবে পর্তুগিজ কোচের জন্য কাজটি কি সহজ হবে? কেননা ২০২১ সাল পর্যন্ত নেইমারের সঙ্গে চুক্তি রয়েছে বার্সেলোনার।

ব্রিটিশ দৈনিক দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট জানিয়েছে, নেইমারকে দলে টানতে তার বাই-আউট ক্লজ হিসেবে ১৮০ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করতে হবে ম্যানইউকে। যদি আরও এক বছর সময় নেয়, অর্থাৎ আগামী মৌসুমে তাকে পেতে হলে খরচ বেড়ে দাঁড়াবে ২০০ মিলিয়ন পাউন্ডে।

এর পরের বছর হলে ট্রান্সফার-ফি দাঁড়াবে ২২৫ মিলিয়ন পাউন্ড। এভাবে ২০২১ পর্যন্ত জ্যামিতিক হারে নেইমারের ট্রান্সফার-ফি বাড়তে থাকবে।

ভালেন্সিয়ার কাছে রিয়ালের হার

লা লিগায় বার্সার সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান বাড়ানোর সহজ সুযোগটা নষ্ট করলো রিয়াল মাদ্রিদ। বুধবার পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা ভালেন্সিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে গেছে জিদানের শিষ্যরা।

টানা চার ম্যাচ জয়ের স্বাদ নিয়ে ভালেন্সিয়ার মাঠে খেলতে নামে রিয়াল। তবে ম্যাচের শুরুতেই গোল করে রিয়ালকে হতাশ করে দেয় ভালেন্সিয়া। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে মুনির হাদ্দাদির ক্রস থেকে হাভ-ভলিতে বল জালে জড়ান ইতালির ফরোয়ার্ড জাজা। এর পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ওরেয়ানা।

দুই গোলে পিছিয়ে থেকে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে রিয়াল। বিরতির ঠিক আগে বাঁ-দিক দিয়ে মার্সেলোর ক্রসে ১২ গজ দূর থেকে দারুণ হেডে ব্যবধান কমান রোনালদো।

riyal

বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণের ধার বাড়িয়ে দেয় রোনালদো-বেনজামা-বেলরা। তবে একের পর এক আক্রমণ করেও আর গোলের দেখা পায়নি রিয়াল। ম্যাচের শেষ দিকে রোনালদোর হেড পোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে গেলে হারের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় রিয়ালকে।

এদিকে এ ম্যাচে হারলেও রিয়ালের অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি। ২২ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষেই রয়েছে তারা। আর এক ম্যাচ বেশি খেলে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে বার্সেলোনা।

শেষ ষোলোয় ম্যানইউ

সহজ জয়ে ইউরোপা লিগের শেষ ষোলোয় নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। বুধবার ফিরতি পর্বে ফরাসি ক্লাব সাতে ইচেনাকে ১-০ গোলে হারিয়েছে ম্যানইউ। আর দুই লেগ মিলিয়ে মরিনিয়োর শিষ্যরা জিতেছে ৪-০ ব্যবধানে।

বুধবার প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়েই খেলতে থাকে ম্যানইউ। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১৬ মিনিটে গোল করে দলকে লিড এনে দেন আর্মেনিয়ার তারকা মিডফিল্ডার হেনরিখ মিখিতারিয়ান। তবে গোল করা আট মিনিট পর চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন এই তারকা। আগামী রোববার ওয়েম্বলিতে সাউথ্যাম্পটনের বিপক্ষে লিগ কাপের ফাইনালে তার মাঠে নামার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

এদিকে বিরতির পর এরিক বেইলি দুই হলুদ কার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় ম্যানইউ। তবে এর কোনো সুবিধা আদায় করতে পারেনি স্বাগতিকরা। এর আগে ঘরে মাঠে জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের হ্যাটট্রিকে ৩-০ এ জিতেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

আগুয়েরোর জোড়া গোলে কোয়ার্টারের পথে ম্যানসিটি

দুইবার পিছিয়ে পড়েও আগুয়েরোর জোড়া গোলে শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। ঘরের মাঠে তারা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে মোনাকোকে হারিয়েছে ৫-৩ গোলে। আর এ জয়ে কোয়ার্টারের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেলো গার্দিওলার শিষ্যরা।

ঘরের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে ম্যানসিটি। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ২৬ মিনিটে স্টার্লিংয়ের গোলে লিড পায় স্বাগতিকরা। বাঁ-দিক থেকে সানের বাড়ানো পাসে বল জালে জড়ান ইংলিশ এই মিডফিল্ডার। ম্যাচের ৩২ মিনিটে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান ফালকাও। আর ৪০ মিনিটে গোল করে সফরকারী দলকে লিড এনে দেন কিলিয়ান। ব্রাজিলিয়ান তারকা ফাবিয়ানোর পাস থেকে বল পেয়ে জোরালো কোনাকুনি শটে গোল করেন ফরাসি এই তারকা।

man-city
বিরতি থেকে ফিরে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পায় ফালকাও। কিন্তু ম্যাচের ৫০ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন কলম্বিয়ান এই তারকা। ম্যাচের ৫৮ মিনিটে স্টার্লিংয়ের পাস থেকে বল পেয়ে স্বাগতকদের সমতায় ফেরায় আগুয়েরো। তবে ম্যাচের ৬১ মিনিটে আবার লিড নেয় মোনাকো। ১২ গজ দূর থেকে দারুণ এক চিপ শটে গোল করেন ফালকাও।

ম্যাচের ৭১ মিনিটে সিলভার দারুণ কর্নারে ভলি করে স্কোরলাইনে ফের সমতা আনেন আগুয়েরো। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে তোরের বাড়ানো বলে স্টোনসের গোলে লিড পায় ম্যানসিটি। আর এর পাঁচ মিনিট পর আগুয়েরোর পাসে বল জালে জড়ান সানে। এদিকে দিনের অন্য ম্যাচে জার্মানির বেয়ার লেভারকুসেনকে ৪-২ গোলে হারিয়েছে গতবারের রানার্সআপ অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ।

গ্রিজম্যানের নৈপুণ্যে অ্যাথলেটিকোর জয়

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের পথে আরও এক ধাপ এফিয়ে গেলো অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। গ্রিজম্যানের নৈপুণ্যে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে জার্মানির ক্লাব বেয়ার লেভারকুসেনকে তাদেরই মাঠে ৪-২ গোলে হারিয়েছে গতবারের রানার্সআপরা।

প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই চাপ সৃষ্টি করে খেলতে থাকে অ্যাথলেটিকো। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১৭ মিনিটে গোল করে দলকে লিড এনে দেন সাউল। গ্যাব্রিয়েল ফার্নান্দেজের পাস থেকে বাঁ-পায়ের বিদ্যুৎ গতির বাঁকানো শটে লক্ষ্যভেদ করেন স্পেনের এই মিডফিল্ডার। ম্যাচের ২৫ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন গ্রিজমান। পাল্টা এক আক্রমণে গামেইরোর পাস ফাঁকায় পেয়ে সহজেই গোল করেন ফরাসি এই ফরোয়ার্ড।

grizman
বিরতি থেকে ফিরে গোল করে স্বাগতিকদের খেলায় ফেরার ইঙ্গিত দেন কারিম বেলারাবি। তবে ম্যাচের ৫৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গামেইরো গোল করলে ৩-১ এ এগিয়ে যায় অ্যাথলেটিকো। ম্যাচের ৬৭ মিনিটে স্টেভান সাভিচের আত্মঘাতী গোলে আবারো ব্যবধান কমায় স্বাগতিক লেভারকুসেন। তবে ৮৬ মিনিটে তোরেস গোল করলে বড় জয়ের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়ে গতবারের রানার্সআপরা।

এদিকে দিনের অন্য ম্যাচে ঘরের মাঠে ফ্রান্সের দল মোনাকোকে ৫-৩ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।

মেসি জাদুতে ‘দুঃখ ভোলা’ জয় বার্সার

পিএসজির কাছে ৪-০ ব্যবধানে হারের পর সমালোচনায় কোণঠাসা বার্সেলোনা। ইউরোপীয় ফুটবলে বড় লজ্জাটাই পেয়েছে কাতালান ক্লাবটি। খাদের কিনারে পড়া বার্সা ঘুরে দাঁড়ানোর মিশনে নামবে। তার আগে কিছুটা হলেও ওই হারের দুঃখ ভোলার সুযোগ পেয়েছিল লুইস এনরিকের দল। সুয়োগটা কাজে লাগিয়েছে। লিওনেল মেসি জাদুতে লেগানেসের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জয় পেয়েছে বার্সা।

তবে ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে বার্সা খুব সহজেই জয় পায়নি। কষ্ট করতে হয়েছে বেশ। এ পর্যায়ে তো পয়েন্ট খুইয়ে মাঠ ছাড়ার উপক্রমই হয়েছিল। ভাগ্যিস, লেগানেস বড়সড় একটি ভুল করেছিল। যে সুযোগটি কাজে লাগিয়েছেন লিওনেল মেসি।

ম্যাচের অন্তিমলগ্নে (৯০ মিনিটের মাথায়) বাঁ-প্রান্ত থেকে বল নিয়ে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করেন নেইমার। তাকে রুখতে গিয়ে ফাউল করে বসেন লেগানেসের এক খেলোয়াড়। পাশে দাঁড়িয়ে থাকা রেফারি বাঁশি বাজিয়ে জানান দেন, পেনাল্টি শট নেবে বার্সা। আর সেই পেনাল্টি থেকে দুর্দান্ত এক গোল আদায় করে নেন মেসি। বার্সা মাঠ ছাড়ে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে।

এর আগে ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে বার্সাকে শুভসূচনা এনে দেন মেসি। লুইস সুয়ারেজের বাড়িয়ে দেয়া বলটি পায়ের আলতো ছোঁয়ায় লেগানেসের জালে জড়ান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ম্যাচের ৭১ মিনিটে লোপেজের গোলে সমতায় ফিরেছিল লেগানেস।

আবারও ম্যানইউর জয়ের নায়ক ইব্রা

দিন তিনেক আগে সেইন্ট এতিয়েনের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছিলেন জালাতন ইব্রাহিমোভিচ। তার অসাধারণ নৈপুণ্যে ইউরোপা লিগের শেষ ষোলোতে এক দিয়ে রেখেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইডেট। আবারও ম্যানইউর জয়ের নায়ক বনে গেলেন ইব্রা।

রোববার রাতে সুইডিশ এই স্টাইকারের ভেলকিতে ব্ল্যাকবার্ন রোভার্সের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পেয়েছে ম্যানইউ। আর তাতে এফএ কাপের শেষ আটের খেলা নিশ্চিত হয়েছে হোসে মরিনহোর দলের। পরবতী রাউন্ড তথা কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানইউ লড়বে চেলসির বিপক্ষে।

কাগজে-কলমে ব্ল্যাকবার্ন রোভার্সের চেয়ে শক্তিশালী দল ম্যানইউ। তাতে কী? শুরুতেই তো ম্যানইউর ভিত নাড়িয়ে দিয়েছিল ব্ল্যাকবার্ন। খেলার ১৭ মিনিটে ড্যানি গ্রাহামের গোলে লিড পায় স্বাগিতক ব্ল্যাকবার্ন।

দশ মিনিটের ব্যবধানে ম্যানইউ অবশ্য সমতায় ফেরে; মারকাস রাশফোর্ডের গোলে। প্রথমার্ধ এভাবে সমতায় কাটানোর পর দ্বিতীয়ার্ধে আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে সফরকারী ম্যানইউর খেলোয়াড়রা। ফলও পেয়েছে। ৭৫ মিনিটে অসাধারণ এক গোল করে মরিনহোর দলকে জয় এনে দেন ইব্রা।

আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে হবে : সুয়ারেজ

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) কাছে ৪-০ গোলে হার। বার্সেলোনাকে শেষ আটে উঠতে হলে দ্বিতীয় লেগে পাঁচ গোলের ব্যবধানে জিততে হবে। অনেকে তো চলতি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বার্সার ‘বিদায়ই’ দেখে ফেলছেন! কিন্তু লুইস সুয়ারেজ সেটা মনে করেন না। উরুগুইয়ান এই স্ট্রাইকার মনে করেন, এখনও ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব।

স্প্যানিশ মিডিয়াকে সুয়ারেজ বলেন, ‘যদি বার্সা ইতিহাস গড়তে চায়, তাহলে আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে হবে। যখন আমরা হেরে যাই, তখন আমরা দোষী। বার্সার পক্ষে এখনও ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব। আমার ট্রেবল জিতেছিলাম; সুতরাং নিজেদের নিয়ে আমরা আত্মবিশ্বাসী।’

এদিকে আর একটি বাধা পেরুলেই কোপা দেল রের শিরোপা ঘরে তুলবে বার্সা। কিন্তু কোপার ফাইনালে খেলতে পারছেন না সুয়ারেজ। সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে দুটি হলুদ কার্ড পাওয়ায় শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে তিনি নিষিদ্ধ।

সুয়ারেজের নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিল করেছিল বার্সা। কিন্তু আপিল বিভাগ সেই আপিল খারিজ করে দিয়েছেন। আলাভেসের বিপক্ষে ফাইনালে তাই দর্শক হয়ে থাকতে হচ্ছে সুয়ারেজকে। কী আর করার! আদালতের রায় মেনে নিয়েই বার্সা স্ট্রাইকার বলেন, ‘আদালত যা বলেছেন, তা-ই হবে (মানতে হবে)।’

জেসুসকে দেখতে হাসপাতালে নেইমার

চোট থেকে দ্রুত সেরে উঠতে বার্সেলোনার একটি হাসপাতালে ম্যানচেস্টার সিটির ফরোয়ার্ড গাব্রিয়েল জেসুসের পায়ে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। আর হাসপাতালে একা সময় পাড় করা ম্যানসিটি তারকাকে দেখতে গেলেন জাতীয় দলের সতীর্থ বার্সেলোনার তারকা নেইমার।

সেখানে বসেই নেইমার তার সামাজিক মাধ্যমে দু`জনের হাসোজ্জল ছবি পোস্ট করেছেন। এতে ক্যাপশন হিসেবে লেখা, `তোমাকে ভালো দেখে আমারও বেশ লাগছে।`

গত সোমবার প্রিমিয়ার লিগে বোর্নমাউথের বিপক্ষে সিটির ২-০ গোলে জেতা ম্যাচে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন জেসুস। পরদিন এক বিবৃতিতে তার মেটাটারসাল ভেঙে যাওয়ার খবর দেয় ক্লাব। শুক্রবার সিটি কর্তৃপক্ষ হাসপাতালের বিছানায় হাস্যোজ্জ্বল জেসুসের একটি ছবি দিয়ে অস্ত্রোপচারের খবর জানিয়ে টুইট করে।

আর্সেনালের জালে বায়ার্নের গোল উৎসব

প্রতিশোধের মিশন নিয়েই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে বায়ার্ন মিউনিকের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল আর্সেনাল। উল্টো নিজেদের মাঠে আর্সেনালের জালে গোল উৎসব করলো স্বাগতিক বায়ার্ন মিউনিক। আর্সেনালকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে দিকে এক ধাপ এগিয়ে গেলো জার্মান চ্যাম্পিয়নরা।

নিজেদের মাঠ আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় ম্যাচের শুরু থেকেই আর্সেনাল শিবিরে আক্রমণ করে খেলতে থাকে বায়ার্ন। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১১ মিনিটে গোল করে দলে লিড এনে দেন রোবেন। ডগলাস কস্তার বাড়ানো বলে বাঁকানো শটে গোলটি করেন ডাচ এই তারকা।

তবে ম্যাচের ৩০ মিনিটে সানচেজের গোলে সমতায় ফেরে আর্সেনাল। লেভানডফস্কি ডি বক্সে কোসিয়েলনিকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজায় রেফারি। সানচেজের পেনাল্টি শট ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ন্যয়ার, তবে খেলোয়াড়দের জটলার মধ্যে ফিরতি বল পেয়ে কোনাকুনি শটে জালে পাঠান চিলির এই স্ট্রাইকার।

বিরতি থেকে ফিরে খেলার নিয়ন্ত্রণ নিজেদের করে নেয় বায়ার্ন। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে লামের দারুণ ক্রস থেকে হেডে বল জালে জড়ান লেভানডফস্কি। এর তিন মিনিট পর লেভানডফস্কির বাড়ানো বলে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন আলকান্তারা।

সাত মিনিট পর নিজের দ্বিতীয় গোলটি পেয়ে যান আলকান্তারা। ম্যাচের ৮৮তম মিনিটে আর্সেনালের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন মুলার। আলকান্তারার পাস থেকে গোলটি করেন জার্মানির এই ফরোয়ার্ড।

সহজ জয়ে কোয়ার্টারের পথে রিয়াল

পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে সহজ জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ঘরের মাঠে নাপোলিকে ৩-১ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টারের পথে এগিয়ে গেছে জিদানের শিষ্যরা।

ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে রিয়াল। ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগও পেয়েছিল স্বাগতিকরা। তবে রোনালদোর বাড়ানো বল থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন বেনজামা। তবে উল্টো ধারায় ম্যাচের অষ্টম মিনিটে গোল করে সফরকারী দল নাপোলিকে লিড এনে দেন ইনসিগনে। অনেক দূর থেকে তার বাঁকানো শট ঝাঁপিয়ে ফেরাতে পারেননি এগিয়ে থাকা কেইলর নাভাস।

ম্যাচের ১২ মিনিটে গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করে বেনজামা। বা-দিকে থাকা রোনালদোকে বল না দিয়ে নিজেই শট নিলে গোল বঞ্চিত হয় স্বাগতিকরা। তবে ম্যাচের ১৮ মিনিটে স্বাগতিক সমর্থকদের উল্লাসে মাতান ফ্রেঞ্চ এই স্ট্রাইকার। কারবাহালের অসাধারণ ক্রসে হেডে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান।

ম্যাচের ২৯ মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পান দলের সেরা তারকা রোনালদো। তবে লুকা মদ্রিচের কাছ থেকে বল পেয়ে ওপর দিয়ে মেরে বসেন বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়। ম্যাচের ৪২ মিনিটে সহজ আরেকটি সুযোগ নষ্ট করেন বেনজামা। রোনালদোর ক্রসে গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোলের বাইরে মারেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার।

riyal

বিরতি থেকে ফিরে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জার্মান তারকা টনি ক্রুজ। ম্যাচের ৪৯ মিনিটে রোনালদোর বাড়ানো বলে ডি বক্সের ভেতর থেকে বুলেট গতির শটে পরাস্ত করেন রেইনাকে। এর তিন মিনিট পর কাসেমিরোর ভলি পোস্ট ঘেঁষে জালে জড়ালে ৩-১ গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল।

ম্যাচের ৬৮ মিনিটে ড্রিস মের্টেনস ক্রসবারের ওপর দিয়ে মারলে হতাশ হয় সফরকারী দর্শকরা। ম্যাচের ৭৪তম মিনিটে গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন রদ্রিগেজ। তার ফ্লিক ঠেকিয়ে নাপোলির ত্রাতা রেইনা। বাকি সময় আর গোল না হলে জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিক শিবির।

এদিকে নাপোলিকে সমর্থন দিতে গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনা। দিনের অন্য ম্যাচে আর্সেনালকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ।

বার্সাকে উড়িয়ে কোয়ার্টারের পথে পিএসজি

ঘরের মাঠে বার্সাকে রীতিমত উড়িয়ে দিলো শেষ চার বছরে দু`বার কাতালান ক্লাবটির কাছে হেরে ইউরোপ সেরার মঞ্চ থেকে ছিটকে পড়া পিএসজি। মেসি-সুয়ারেজদের ব্যর্থতার দিনে ডি মারিয়া-কাভানি-ড্রাক্সলারদের দুর্দান্ত পারফরমেন্সে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের ৪-০ গোলে হারিয়েছে পিএসজি।

নিজেদের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকে বার্সার শিবিরে আক্রমণ করে খেলতে থাকে স্বাগতিক পিএসজি। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে বার্সা গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন উরুগুয়ের স্ট্রাইকার কাভানি। ম্যাচের ১৮ মিনিটে দারুণ ফ্রি-কিকে গোল করে দলে লিড এনে দেন ডি মারিয়া। ২১ গজ দূর থেকে নেওয়া আর্জেন্টাইন এই তারকার অসাধারণ ফ্রি-কিকটি দাঁড়িয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার ছিল না বার্সা গোলরক্ষক টের স্টেগেনের।

barrsa
ম্যাচের ২৭ মিনিটে সমতায় ফেরার সুযোগ পেয়েছিল বার্সা। তবে নেইমারের বাড়ানো বল ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন আন্দ্রে গোমেস। ম্যাচের ৩৪ মিনিটে ড্রাক্সলারের জোরালো শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান জার্মানির গোলরক্ষক টের স্টেগেন। তবে এর ছয় মিনিট পর মার্কো ভেরাত্তির বাড়ানো বলে কোনাকুনি শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জানুয়ারিতে ভলফসবুর্গ থেকে আসা জার্মান এই তারকা।

বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণের ধার বাড়িয়ে দেয় ডি মারিয়া-কাভানিরা। ম্যাচের ৫৫ মিনিটে একক প্রচেষ্টায় প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে বাঁ-পায়ের বাঁকানো শটে গোল করে স্কোরলাইন ৩-০ করেন ডি-মারিয়া। আর ৭১ মিনিটে বার্সা শিবিরে শেষ পেরেক ঠুকে দেন কাভানি। থমাসের বাড়ানো বলে দারুণ ক্ষিপ্রতায় প্রথম শটেই টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকার। বাকি সময় আর গোল না হলে ৪-০ গোলের বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেই। আর এ জয়ে শেষ আটের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেলো এমেরিরের শিষ্যরা।

এদিকে দিনের অন্য ম্যাচে নিজেদের মাঠে কনস্তানতিনোস মিত্রুগ্লুর একমাত্র গোলে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়েছে বেনফিকা।

এবার নিষিদ্ধ নাসির জামসেদ

কয়েকদিন আগেই সব ধরনের ক্রিকেট থেকে সাময়িক নিষিদ্ধ হয়েছিলেন পাকিস্তানের দুই ক্রিকেটার শারজিল খান ও খালিদ লতিফ। এবার সে তালিকায় যুক্ত হলো আরও একটি নাম। পাকিস্তানের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে সব ধরনের ক্রিকেটে সাময়িক নিষিদ্ধ হয়েছেন নাসির জামশেদ।

দুর্নীতিবিরোধী কোড ভাঙায় জামশেদকে নিষিদ্ধ করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। সোমবার এক সংবাদ বিবৃতিতে এ তথ্য জানায় পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত ক্রিকেটার হলেও পাকিস্তান সুপার লিগে কোন দল পাননি জামসেদ। আগের আসরেও দলশূন্য ছিলেন তিনি।

পিএসএলকে সামনে রেখে এবার শক্ত অবস্থান নিয়েছে পিসিবি। সে ধারায় তদন্তের অংশ হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে ইসলামাবাদের মোহাম্মদ ইরফান এবং করাচি কিংসের জুলফিকার বাবর ও শাহজাইব হাসানকে। যদিও তাদের কারোর ওপর কোন নিষেধাজ্ঞা দেয়নি বোর্ড।

এ বিষয় নিয়ে পিসিসি প্রধান শাহরিয়ান খান বলেন, ‘আমরা খুব শীগগিরই শারজিল, লতিফ ও জামশেদকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠাবো। তবে শাহজাইব ও জুলফিকার নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছে তাই তাদের খেলতে পারবেন। তবে পর্যবেক্ষণে আছেন পেসার ইরফান।’

উল্লেখ্য, নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে ইতোমধ্যেই আরব আমিরাত থেকে দেশে পাঠানো হয়েছে ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের দুই খেলোয়াড় শারজিল ও লতিফকে।

অনুশীলনে ফিরেছেন গ্যারেথ বেল

গত নভেম্বর থেকেই দলের বাইরে আছেন রিয়াল মাদ্রিদের তারকা গ্যারেথ বেল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে স্পোর্টিংয়ের বিরুদ্ধে আঘাত পান এই ওয়েলস তারকা। তবে মাদ্রিদ সমর্থকদের জন্য সুখবর অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি। আগামী এক মাসের মধ্যেই মাঠে ফিরতে পারবেন বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন বেল৷ এরপর কেটে গেছে দীর্ঘ দু’মাস। গত রোববার প্রথম অনুশীলনে নামেন তিনি। প্রথম দিন মাঠে হালকা রানিং করলেও গতকাল সোমবার জিমে ভালো সময় দিয়েছেন তিনি। ধীরে ধীরে নিজেকে ফিরে পাচ্ছেন বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

তবে এখনই তাকে খেলানোর ঝুঁকি নেবেন না রিয়াল৷ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে নাপোলির বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে তাকে রাখবেন না বলেই জানিয়েছেন কোচ জিনেদিন জিদান। খুব শিগগিরই বেল ম্যাচ খেলার মত ফিট হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কোচ।

অনুশীলনে ফিরেই নিজের টুইটারে ছবি ছবি আপলোড দেন বেল। ক্যাপশনে লিখেন, ‘ছেলেদের সঙ্গে প্রথম দিন মাঠে ফিরেছি। এখন অ্যাকশনে নামার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছি।’

জানা গেছে জাতীয় দলের জার্সিতে বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইং ম্যাচে খেলবেন বেল৷ আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২৪ মার্চ নামবেন ওয়েলসের অধিনায়ক৷

এদিকে আরও একটি সুসংবাদ রয়েছে মাদ্রিদ সমর্থকদের। ওসাসুনার বিপক্ষে চোট পেয়েছিলেন দলের সেরা তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে আঘাত গুরুতর না হওয়ায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর লড়াইয়ে নাপোলির বিরুদ্ধে নামবেন এ পর্তুগিজ তারকা।

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে পাকিস্তানি ক্রিকেটার নিষিদ্ধ

শারজিল খান ও খালিদ লতিফের পর ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) দ্বিতীয় আসর থেকে নিষিদ্ধ হলেন পাকিস্তানি আরেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ ইরফান। পিসিবির অ্যান্টি করাপশন ইউনিট এ বিষয়ে পিসিবিকে জানালে তারা এই নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

বিস্তারিত আসছে…

মানের জাদুতে জয়ের ধারায় ফিরলো লিভারপুল

সাদিও মানের দুই মিনিটের ঝলক। তার তাতেই তাতেই পাঁচ ম্যাচ পর জয়ের ধারায় ফিরলো লিভারপুল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে এ সেনেগাল ফুটবলারের জোড়া গোলেই জয় পায় অলরেডসরা। এছাড়াও নিজ নিজ ম্যাচে জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও আর্সেনালও।

অ্যানফিল্ডে প্রথমার্ধেই দুই গোল করে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ম্যাচের ১৬ মিনিটে জর্জিনিয়ো ইউজনালদামের কাছ থেকে বলে পেয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন মানে। এর দুই মিনিট দারুণ এক ভলিতে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সেই মানে।

একই রাতে দারুণ জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নিজেদের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে হুয়ান মাতা ও অ্যান্থনি মার্সিয়ালের গোলে ওয়াটফোর্ডকে ২-০ গোলে হারায় রেডডেভিলরা।

এছাড়াও নিজেদের মাঠে হাল সিটিকে হারিয়েছে আর্সেনাল। আলেক্সিস সানচেজের জোড়া গোলে ২-০ গোলের জয় পায় গানাররা।

২৫ ম্যাচে ১৪টি জয়ে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থস্থানে আছে লিভারপুল। আর ১ পয়েন্ট কম নিয়ে পঞ্চমস্থানে রয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ৫০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয়স্থানে আছেন আর্সেনাল। তবে সমান পয়েন্ট হলেও গোল পার্থক্যে এগিয়ে দ্বিতীয়স্থানে টটেনহ্যাম। শীর্ষে থাকা চেলসির পয়েন্ট ৫৯।

টানা চতুর্থ বারের মত ফাইনালে বার্সা

টানা চতুর্থবারের মত কোপা দেল রের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বার্সেলোনা। মঙ্গলবার সেমি-ফাইনালের ফিরতি লেগের ম্যাচে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে বার্সা। আর দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ ব্যবধানের জয় নিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে লুইস এনরিকের শিষ্যরা।

নিজেদের মাঠে হারের পর ফাইনালে জায়গা করে নিতে হলে বার্সার মাঠে বড় ব্যবধানে জয়ের কোন বিকল্প ছিল না অ্যাথলেটিকোর। সেই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের শুরু থেকে আধিপত্য বিস্তার শুরু করে গ্রিজমান-গামেরোরা। দারুণ নৈপুণ্যে দুবার দলকে পিছিয়ে পড়া থেকে বাঁচান গোলরক্ষক ইয়াসপার সিলেসেন।

barrsa
ম্যাচের ৩০ মিনিটে ডি-বক্সে তোরেস পড়ে গেলে পেনাল্টির আবেদন করে অ্যালেটিকো, তবে রেফারির সাড়া মেলেনি। উল্টো এক আক্রমণে ম্যাচের ৪৩ মিনিটে দারুণ এক আক্রমণে এগিয়ে যায় বার্সা। ডি বক্সের বাইরে থেকে মেসির শট গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে ঠেকালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ফিরতি বল ফাঁকায় পেয়ে লক্ষ্যভেদে কোনো ভুল করেননি সুয়ারেজ।

বিরতির পর শুরু হয় ম্যাচের নাটকীয়তা। ম্যাচের ৫৭ মিনিটে বার্সা মিডফিল্ডার রবের্তো দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় স্বাগতিকরা। ১০ জনের বার্সাকে পেয়ে চেপে ধরে সফরকারী দল। ম্যাচের ৬০ মিনিটে  গ্রিজমান বল জালে পাঠালেও অফসাইডের বাঁশিতে সফরকারীদের আনন্দ থেমে যায়।

ম্যাচের ৬৯ মিনিটে অ্যাথলেটিকো মিডফিল্ডার ইয়ানিক কারাসকো দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখলে সফরকারী দলটিও ১০ জনে পরিণত হয়। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে মেসির ফ্রি-কিক ক্রসবারে লাগলে হতাশ হয় স্বাগতিক শিবির। এর দুই মিনিট পর পেনাল্টি পায় অ্যাথলেটিকো। তবে তা থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন ফরাসি ফরোয়ার্ড গামেরো।

barrsa
তবে ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করতে দেরি করেননি গামেরো।  ম্যাচের ৮৩ মিনিটে বাঁদিক থেকে গ্রিজমানের পাস থেকে সহজেই জালে পাঠান গামেরো। এদিকে নির্ধারিত সময়ের শেষ দিকে সুয়ারেজ দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। বাকি সময় গোল না হলে ফাইনালে ওঠার আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে মেসিরা।

উল্লখ্য, হলুদ কার্ডের জন্য এই ম্যাচে খেলতে পারেননি নেইমার। আর লাল কার্ড দেখায় ফাইনালে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলতে পারবেন না লুইস সুয়ারেজ।

বিয়ে করছেন রোনালদো!

রোনালদোর জীবনে বান্ধবীদের আনাগোনা নতুন নয়। ইরিনা শায়েকের সঙ্গে দীর্ঘ দিনের সম্পর্কের বিচ্ছেদের পর থেকে একের পর এক বান্ধবী বদলেছেন তিনি। কিন্তু কেউই বেশি দিন সঙ্গে থাকেনি। তবে নতুন বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজকে নিয়ে যে খোশমেজাজেই আছেন। আর তাই রদ্রিগেজও চাইছেন বান্ধবী থেকে স্ত্রীর পরিচয় দিতে। এই খবর জানিয়েছে পর্তুগালের দৈনিক ‘কোরেইরো দ্য মানহা’।

সর্বশেষ বান্ধবীর ২২তম জন্মদিনও উদযাপন করেছেন একসঙ্গে। মাদ্রিদের রেস্তোঁরায় দু’জনে নৈশভোজ সেরেছেন। রেস্তোঁরায় ঢোকা আর বেরোনোর আগে দুইজনকেই বেশ হাসিখুশি দেখাচ্ছিল। এদিকে জুনিয়র রোনালদোর সঙ্গেও রদ্রিগেজের সম্পর্কটা ভালো। তাই সূত্রের দাবি যদি সত্যিই হয়, তাহলে আগামী বছরই বিয়ে করতে যাচ্ছেন এই তারকা।

এদিকে চলতি বছরের ২৪ জুন শৈশবের বান্ধবী, প্রেমিকা আন্তোনেল্লা রোকুজ্জোকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন বিশ্ব ফুটবলের আরেক বিস্ময় তারকা লিওনেল মেসি।

উইজডেনের প্রচ্ছদে কোহলি

সময়টা দারুণ কাটছে ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির। ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে ৪-০ তে জয়ের পর প্রথমবারের মত নিজের অধিনায়কত্বে জিতে নিয়েছেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

এবার ক্রিকেটের বাইবেল খ্যাত ম্যাগাজিন উইজডেন এর প্রচ্ছদে জায়গা করে নিলেন ভারতীয় ক্রিকেট সেনসেশন বিরাট কোহলি। গত চার সংখ্যায় কোহলি তৃতীয় এশিয়ান হিসেবে এই সম্মান অর্জন করলেন তিনি। ও সংখ্যাটি এপ্রিলে প্রকাশ করা হবে।

উইজডেন সম্পাদক লরেন্স বুথের মতে, বর্তমান সময়ে ক্রিকেট খুবই দ্রু পরিবর্তন হচ্ছে। আর এ সময়ের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার সে। তাই কোহলিকে নির্বাচন করা মোটেও কঠিন ছিল না। গত কয়েক বছরে কোহলি খেলাটায় অন্য মাত্রা যোগ করেছে।

তিনি বলেন, কোহলি খুবই আধুনিক একজন খেলোয়াড়। উইজডেন আধুনিকভাবে সবার সামনে উপস্থাপনের জন্য তার চেয়ে ভালো কেউ হতে পারতো না।

রোমাঞ্চকর ম্যাচে লিভারপুল-চেলসির ড্র

ঘরের মাঠে টানা চার ম্যাচ জয় শূন্য থাকলো লিভারপুল। প্রিমিয়ার লিগে রোমাঞ্চকর ম্যাচে চেলসির সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে ক্লপের শিষ্যরা।

নিজেদের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই চেলসির উপর চেপে ধরে খেলতে থাকে লিভারপুল। তবে আক্রমণের প্রাথমিক ঝাপটা সামলে ম্যাচের ২৪ মিনিটে চেলসিকে এগিয়ে দেয় ডেভিড লুইস। দারুণ এক ফ্রি-কিক থেকে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রাজিলের এই ডিফেন্ডার। পাঁচ মিনিট আবারো ফ্রি-কিক পেলে এবার শট নেন উইলিয়ান। ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে বাঁচান লিভারপুল গোলরক্ষক।

বিরতি থেকে ফিরে সমতায় ফেরার সুযোগ পায় লিভারপুল। তবে ফিরমিনোর শট ক্রসবারের ওপর দিয়ে গেলে গোল বঞ্চিত হয় স্বাগতিকরা। তবে একের পর এক আক্রমণের সুফল পেতে বেশি দেরি হয়নি লিভারপুলের। জেমন মিলনারের হেডে বল পেয়ে ৫৭তম মিনিটে সমতা ফেরান ভিনালডাম।

ম্যাচের ৭৪ মিনিটে কস্তাকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় চেলসি। নিজেই শট নেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। তবে বাঁ-দিকে ঝাঁপিয়ে লিভারপুলের ত্রাতা মিগনোলেট। বাকি সময় আর গোল না হলে ১-১ গোলের ড্রতেই শেষ হয় দুই দলের লড়াই। এই ড্রয়ের পরও ২৩ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে চেলসি। ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে রয়েছে লিভারপুল।

প্রথম কোচকে হারিয়ে শোকার্ত মেসি

যার হাত ধরেই ফুটবলে হাতেখড়ি। তিনি তো সবসময়ই স্মৃতির আয়নায় থাকেন। ফুটবল জীবনের (নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজ ক্লাবে) প্রথম কোচ আর্নেস্টো ভেচ্চুইকে স্মৃতির আয়নায় ধরে রাখলেন লিওনেল মেসি। সেই কোচকে হারিয়ে শোকার্ত মেসি।

শুক্রবার না ফেরার দেশে চলে গেছেন মেসির প্রথম কোচ ভেচ্চুই। মৃত্যুর সময় এই কোচের বয়স ছিল ৬৫ বছর। প্রথম গুরুর মৃত্যুতে পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার মেসি শোক প্রকাশ করেছেন। জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে তা শেয়ার করেছেন ভক্তদের সঙ্গে।

নিজের অফিসিয়াল ফেসবুকে মেসি লিখেছেন, ‘কখনো কখনো দুঃসবাদও কিছু ভালো স্মৃতি নিয়ে আসে। আমারও আছে তেমনটাই। একজন গ্রেট মানুষের থেকে অনেক কিছুই পাওয়া যায়। তিনি আর কেউ নন; তিনি হলেন- আর্নেস্টো ভেচ্চুই। আপনার সব গ্রেট কর্মের জন্য ধন্যবাদ। আমার গভীর সমবেদনা রইলো আপনার পরিবারের সদস্যের প্রতি।’

দাপুটে জয় পেল ডি ভিলিয়ার্সের দক্ষিণ আফ্রিকা

ইনজুরি কাটিয়ে দীর্ঘ দিন পর জাতীয় দলে ফিরলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স; ফিরেছেন অধিনায়ক হয়েই। তার নেতৃত্বে জয়ে ফিরলো টি-টোয়েন্টি সিরিজ হাতছাড়া করা দক্ষিণ আফ্রিকাও। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৮ উইকেটের দাপুটে জয় পেয়েছে প্রোটিয়ারা। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ডি ভিলিয়ার্সের দল।

পোর্ট এলিজাবেথের সেন্ট জর্জ পার্কে প্রথমে ব্যাট করে ৪৮.৩ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৮১ রান তোলে লঙ্কানরা। জবাবে ৩৪.২ ওভারে মাত্র ২ উইকেট খুইয়ে জয়ের বন্দরে নোঙর ফেলে দক্ষিণ আফ্রিকা।

সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রোটিয়াদের শুভসূচনা এনে দেন দুই ওপেনার কুইন্টন ডি কক ও হাশিম আমলা। ৪০ বলে ৪টি চারে ৩৪ রান করা ডি কক শিকারের পরিণত হন সান্দাকারের। গুনারত্নের বলে তার হাতেই ক্যাচ তুলে দেন আমলা। বিদায়ে আগে ৭১ বলে পাঁচটি চার ও একটি ছক্কায় আমলা করেন ৫৭ রান।

দক্ষিণ আফ্রিকাকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন ফ্যাফ ডু প্লেসিস ও এবি ডি ভিলিয়ার্স। ৬৮ বলে পাঁচটি চারের মারে ৫৫ রান করেন ডু প্লেসিস। আর অধিনায়ক ভিলিয়ার্সের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান। তার ২৭ বলের ইনিংসটি সমৃদ্ধ তিনটি চার ও একটি ছক্কায়।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে শ্রীলঙ্কা। দলের স্কোরশিটে ১ রান যোগ হতেই ওপেনার ডিকওয়েলা ফেরেন সাজঘরে। ব্যক্তিগত ৫ রানের মাথায় বিদায় নেন আরেক ওপেনার ওয়েরাকোদিও।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে সর্বোচ্চ ৬২ রান করেছেন কুশল মেন্ডিস। ৯৪ বলে ১০টি চারের সাহায্যে ইনিংসটি সাজান তিনি। ধনঞ্জয় ডি সিলভার ব্যাট থেকে আসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৮ রান। উইকেটরক্ষক দিনেশ চান্দিমাল করেন ২২ রান। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের অনুপস্থিতিতে অধিনায়কের ভূমিকা পালনকারী উপল থারাঙ্গা ৬ রানের বেশি করতে পারেননি।

দক্ষিণ আফ্রিকার সেরা বোলার ইমরান তাহির। ১০ ওভারে ২৬ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। ওয়াইন পারনেলও নিয়েছেন তিন উইকেট। তবে ১০ ওভারে তিনি খরচ করেছেন ৪৮ রান। ক্রিস মরিস ঝুড়িতে জমা করেছেন ২টি উইকেট। আর একটি উইকেট দখলে নিয়েছেন কাগিসো রাবাদা।

এবার বার্সাকে বাঁচালেন মেসি

বছর শুরুটা ভালো হয়নি। আগের ম্যাচে ৯ জনের অ্যাটলেটিকো বিলবাওয়ের কাছে হেরেছিল বার্সেলোনা। এরপর ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষেও পূর্ণ তিন পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পারেনি। এবার বার্সাকে হারের লজ্জা থেকে বাঁচালেন লিওনেল মেসি। রোববার রাতে স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচে ভিয়ারিয়ালের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

সম্প্রতি বার্সার ত্রিফলা মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ কেন যেন একসঙ্গে জ্বলে উঠতে পারছেন না। বেশ কয়েকটি ম্যাচে গোলের দেখা পাচ্ছেন না নেইমার। সুয়ারেজও সেভাবে গোল পাচ্ছেন না। যা একটু করছেন মেসি, তাতেও তো জয় আসছে না।

বিলবাওয়ের বিপক্ষে মেসি গোল করেছিলেন। গোলটি ছিল সমতাসূচক। তবে হারের লজ্জা এড়াতে পারেনি বার্সা। এবার তুলনামূলক দুর্বল দল ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে হারের মুখ দেখার উপক্রম হয়েছিল। ম্যাচের অন্তিমলগ্নে (৯০ মিনিট) মেসি গোলটি না করতে পারলে বড় লজ্জাই পেত কাতালান ক্লাবটি।

এর আগে ম্যাচের ৪৯তম মিনিটে বার্সা কোচ লুইস এনরিকের বুকে কাঁপন ধরিয়ে দিয়েছিলেন নিকোলা সানসোনে। তার গোলেই জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল ভিয়ারিয়াল। মেসির অসাধারণ নৈপুণ্যে সেটা আর হয়নি।

এই ড্রয়ের ফলে পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থানে নেমে গেছে বার্সা। ১৭ ম্যাচে মেসিদের সংগ্রহ ৩৫ পয়েন্ট। এক পয়েন্টে এগিয়ে দ্বিতীয় স্থান দখলে নিয়েছে সেভিয়া। শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সংগ্রহ ১৬ ম্যাচে ৪০ পয়েন্ট।

শেষ মুহূর্তের গোলে চতুর্থ রাউন্ডে আর্সেনাল

ইংলিশ ফুটবলের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ প্রতিযোগিতা এফ এ কাপের তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচে দ্বিতীয় সারির দল প্রেস্টন নর্থ এন্ডের মাঠে হোঁচট খেতে বসেছিল আর্সেনাল। তবে শেষ দিকে অলিভিয়ে জিরুদের দেওয়া গোলে ২-১ ব্যবধানে স্বস্তির জয়ে এফএ কাপের চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছে আর্সেন ওয়েঙ্গারের শিষ্যরা।

প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুতেই পিছিয়ে পড়ে আর্সেনাল। ৭ম মিনিটে বাঁ-দিকে ছয় গজ বক্সের ঠিক বাইরে থেকে কোনাকুনি শটে গোলটি করেন ইংলিশ ফরোয়ার্ড ক্যালাম রবসন।

দ্বিতীয়ার্ধের ১ম মিনিটে ডি বক্সের ঠিক বাইরে থেকে জোরালো শটে দলকে সমতায় ফেরান ওয়েলসের মিডফিল্ডার অ্যারন র্যা মজি। অবশেষে ৮৯তম মিনিটে লুকাজ পেরেসের বাড়ানো বল থেকে প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়ে জয় নিশ্চিত করেন ফরাসি স্ট্রাইকার জিরুদ।

এদিকে দিনের আরেক ম্যাচে রিডিংকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে চতুর্থ রাউন্ডে ওঠে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবলো পাকিস্তান

সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে সিরিজের শেষ টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ৪৬৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানের ইনিংস গুঁটিয়ে যায় মাত্র ২৪৪ রানে। আর ২২০ রানে জিতে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবালো অস্ট্রেলিয়া।

৪৬৫ রানের পাহাড়সম টার্গেটে জিততে হলে পাকিস্তানকে রেকর্ড গড়তে হতো। অবশ্য সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ২৮৭ রানের বেশি করে চতুর্থ ইনিংসে জয়ের রেকর্ড নেই কোনো দলেরই। স্কোরবোর্ডে দলীয় রান ৫৫ রান নিয়ে পঞ্চম দিনের খেলা শুরু করে পাকিস্তান। আজহার আলী ১১ ও ইয়াসির শাহ ৩ রানে খেলা শুরু করেন।

কিন্তু ওই রানেই সাজঘরে ফিরেন আজহার (১১)। শতরান পেরুতেই পাকিস্তান আরও ৩ উইকেট হারায়। প্রথম ইনিংসে ১৭৫ রান করা ইউনিস খানকে সাজঘরে ফেরত পাঠান স্পিনার নাথান লায়ন। ইউনিস খানকে আউট করার পরই জয়ের স্বপ্ন দেখা শুরু করে অস্ট্রেলিয়া।

শফিকের(৩০), অধিনায়ক মিসবাহ (৩৮) করে আউট হলেও শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন সরফরাজ আহমেদ। নতুন বলের দ্বিতীয় বলে ইমরান খান (০) আউট হলে ৭২ রানে অপরাজিত থাকেন উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদ। বল হাতে হ্যাজেলউড ও স্টিভ ও’কেফি ৩টি করে উইকেট নেন । স্পিনার লায়ন ২টি ও পেসার স্টার্ক নেন ১ উইকেট। দুই ইনিংস মিলিয়ে ১৬৮ রান করে ম্যাচ সেরা হন ডেভিড ওয়ার্নার। আর সিরিজ সেরা হয়েছেন অসি অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ।

১৯৯৯ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তাদের মাটিতে কোনো ম্যাচে জয়ের স্বাদ পায়নি পাকিস্তান। এদিকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পাকিস্তান বছর শুরু করলেও দারুণ জয়ে বছর শুরু করেছে স্টিভেন স্মিথের দল।

জিদানের বর্ষপূর্তিতে রিয়ালের দুর্দান্ত জয়

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে বুধবার রাতে জিনেদিন জিদানের বর্ষপূর্তির দিনে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। সেভিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ৩৮ ম্যাচ অপরাজিত থাকলো মাদ্রিদের ক্লাবটি। গত বছর এই দিনে মূল কোচ হিসেবে জিদান দায়িত্ব নেওয়ার পর উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ ও সম্প্রতি ক্লাব বিশ্বকাপ জেতে ক্লাবটি।

ইনজুরির কারণে গ্যারেথ বেল আগে থেকেই দলের বাইরে ছিলেন। আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ছিলেন বিশ্রামে।এদিকে করিম বেনজেমাকেও বেঞ্চে রেখে একাদশ সাজান জিদান।  রক্ষণের দুই ভরসা রামোস ও পেপেও ছিলেন না। অনেকটা ভেবে চিন্তেই দল সাজাতে হয় জিদানকে।

তবে বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ না পাওয়া রদ্রিগেজ ছিলেন এইদিন মূল দলে। ঘরের মাঠে প্রথমার্ধের ১১ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে বল জালে পাঠান কলম্বিয়ার এই মিডফিল্ডার।

ম্যাচের ৩০ মিনিটে  ক্রুসের কর্নারে লাফিয়ে হেডে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ভারানে। প্রথমার্ধ শেষ হবার দুই মিনিট আগে ৪৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করে জয় নিশ্চিত করে ফেলেন রদ্রিগে। পরবর্তীতে ৩-০ ব্যবধানের সহজ জয় নিয়েই মাঠ ছাড়েন জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। আর এ জয়ে কোপা দেল রের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার পথে এগিয়ে গেলো ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা।

নিজেকে এখনও ‘অযোগ্য’ মনে করেন গাঙ্গুলি

খুব জোরেশোরেই শোনা যাচ্ছে, বিসিসিআইয়ের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। এই পদ থেকে বহিষ্কৃত অনুরাগ ঠাকুরের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন তিনি। তবে এখনও এই পদের জন্য নিজেকে যোগ্য মনে করছেন না টিম ইন্ডিয়ার সাবেক অধিনায়ক।

ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট রায় অনুযায়ী বিসিসিআইর প্রেসিডেন্ট পদ থেকে অনুরাগ ঠাকুর এবং সেক্রেটারির পদ থেকে অজয় শিরকেকে সরিয়ে দেয়া হয়। এর পর প্রশ্ন উঠেছে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট কে? তাকে আবার লোধা কমিটির সুপারিশক্রমে দেয়া ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনার সব যোগ্যতা পূরণ করে আসতে হবে। সে ক্ষেত্রে সৌরভ গাঙ্গুলিই সবার চেয়ে এগিয়ে।

গুঞ্জন আর যা-ই শোনা যাক নাক কেন- গাঙ্গুলি এই পদে অন্য কাউকে দেখছেন। এত বড় পদের জন্য নিজেকে এখনও ‘অযোগ্য’ মনে করছেন কলকাতা যুবরাজ। বলেন, ‘অপ্রত্যাশিতভাবেই আমার নামটা চলে আমি। আমি তো আর ওই পদের জন্য যোগ্য নই। আমি মাত্র একটি বছর পার করলাম (সিএবির প্রেসিডেন্ট হিসেবে)। সামনে আরও দুই বছর আমার মেয়াদ বাকি আছে। আমি তো এই দৌড়ে (বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট) থাকার কেউ নই!’

ক্যারিয়ারের শেষ সময়টায় এসে দাঁড়িয়েছি : গার্দিওলা

বার্নলির বিপক্ষে কঠিন এক ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলের তিন নম্বরে উঠে এসেছে ম্যানচেস্টার সিটি। এরপর হঠাৎ করেই পেপ গার্দিওলার অবসরের কথা প্রকাশিত হলো। যা শুনে রীতিমতো অবাক সবাই।

এবারের মৌসুমের শুরুতে ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির সিটির দায়িত্ব পান ৪৫ বছর বয়সী গার্দিওলা। বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখের সাবেক এই কোচের বিশ্বাস, ইংলিশ ক্লাবটিতে দায়িত্ব নেওয়া তার ক্যারিয়ারে শেষ ধাপগুলোর একটি হতে পারে।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘ম্যানসিটিতে আমি পরের তিন বছর থাকছি। আরো বেশিও থাকতে পারি। তার মানে এই নয় যে ৬০-৬৫ বছর বয়সেও আমি ডাগআউটে এসে দাঁড়াব। আমি আমার ক্যারিয়ারের শেষ সময়টায় এসে দাঁড়িয়েছি।
‘আমি আমার কোচিং ক্যারিয়ারের শেষের দিকে চলে আসছি। এ ব্যাপারে আমি নিশ্চিত।’

গার্দিওলা বার্সেলোনায় ৪ বছরের দায়িত্ব পালন করে দারুণ সফল ছিলেন। ক্লাবটি তার হাত ধরে ৪ বছরে ১৪ টি ট্রফি, তিনটি লা লিগা ও দু’টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা ঘরে তুলে। ২০১৩ সালে বায়ার্নে গিয়েও সাফল্যের রাস্তায় হাঁটেন এই কোচ। ক্লাবটিকে পরপর তিন মৌসুম বুন্দেসলিগার শিরোপা জেতান।

এগিয়ে গিয়েও জিততে পারলো না লিভারপুল

দুইবার এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত আর জেতা হয়নি লিভারপুলের। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে সোমবার সান্ডারল্যান্ডের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা।

প্রতিপক্ষের ম্যাচের ১৯ মিনিটে ড্যানিয়েল স্টারিজের গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ক্রোয়েশিয়ার ডিফেন্ডার দেইয়ান লোভরেনের ফ্লিক গোলমুখে পেয়ে হেডে বল জালে পাঠান ড্যানিয়েল স্টারিজ। কিন্তু ছয় মিনিট পরেই সমতায় ফেরে স্বাগতিকরা। ডিফেন্ডার রাগনার ক্লাভান নিজেদের ডি-বক্সে  মিডফিল্ডার দিদিয়ের এনদংকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় সান্ডারল্যান্ড।পেনাল্টিতে গোল করে দলকে এগিয়ে নিয়ে যায় ডিফো।

দ্বিতীয়ার্ধের ৭২ মিনিটে  লিভারপুলকে  আবারো এগিয়ে নেন সাদিও মানে। কিন্তু তার হ্যান্ডবলেই ম্যাচে দ্বিতীয় পেনাল্টি পায় স্যান্ডারল্যান্ড। এবারও জালে বল পাঠাতে কোনো ভুল করেননি ডিফো। ৩ পয়েন্টের আশায় শেষ সময়ে লিভারপুলের কোনো প্রচেষ্টাই আর কাজে আসেনি। ২০ ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে ক্লপের শিষ্যরা।

রিয়ালেই থাকছেন রদ্রিগেজ

সময়টা খুব বেশি ভালো যাচ্ছে না রিয়াল তারকা হামেস রদ্রিগেজ। পারফরমেন্সের কারণে প্রায়ই মূল একাদশের বাইরে থাকতে হচ্ছে এই তারকাকে। কিন্তু শিগগিরই ক্লাব ছাড়বেন না রিয়াল মাদ্রিদের এ প্লে-মেকার।

প্রিমিয়ার লিগের দুই জায়ান্ট চেলসি ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড আগ্রহ দেখায়। কিন্তু হামেসের এজেন্ট হোর্হে মেন্ডিস কয়েকদিন আগে জানান রিয়াল থেকে শিগগিরই যাবেন না তিনি। তার বাবা উইলসন একই কথা বলছেন। কলম্বিয়ান মিডিয়াকে উইলসন রদ্রিগেজ বলেছেন, `রিয়াল মাদ্রিদের কাছে সে অঙ্গীকারবদ্ধ। একটি চুক্তিও আছে। সে ওখানেই থাকছে।`

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের জুলাইয়ে মোনাকো থেকে ৮ কোটি ইউরোতে স্প্যানিশ জায়ান্টদের সঙ্গে যোগ দেন হামেস রদ্রিগেজ।

‘মেসি ছাড়া বার্সা কল্পনাই করতে পারি না’

ক্লাব ফুটবলে তার উত্থান বার্সেলোনায়। ফুটবল পাগল দেশ আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের প্রাণভোমরাও তিনি। তবে জাতীয় দলের চেয়ে ক্লাব বার্সার হয়েই কীর্তিটা বেশি। কেউ তো তাকে বলে থাকেন- আর্জেন্টিনায় নন, সর্বদা তার মন থাকে কাতালান ক্লাবটিতে!

তিনি আর কেউ নন- পাঁচবারের ব্যালন ডি`অরজয়ী লিওনেল মেসি। তাকে ছাড়া বার্সা কল্পনা করতেই পারছেন না ডেভিড ভিয়া। মেসির সঙ্গে বার্সার নতুন চুক্তি নিয়ে স্প্যানিশ এই স্ট্রাইকার বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই। তবে আমি আশাবাদী চুক্তিটা নবায়ন হবে। সেটা হতে পাবে খুব শিগগিরই কিংবা কিছুটা সময় নিয়ে। কারণ বার্সা মেসিকে ভালোবাসে। মেসিও বার্সাকে ভালোবাসে। মেসি ছাড়া বার্সা কল্পনাই করতে পারি না।’

২০১০ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত বার্সার হয়ে খেলেছেন ভিয়া। এরপর যোগ দেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের জার্সিতে। বছর খানেক দিয়েগো সিমিওনের অধীনে খেলার পর পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রের সকার লিগে। খেলেছেন নিউইয়র্ক সিটির হয়ে। এখন খেলছেন অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ফুটবল লিগে, মেলবোর্ন সিটির হয়ে।

সবুজ সংকেত পেল কালো ব্যাট

দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের সঙ্গে অভিনব কিছু দিয়ে সব সময়ই ভক্তদের চমকে দিতে চান ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা। ক্রিকেট মাঠে তাদের উদযাপনগুলোও দেখার মতো।

এবার অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া লিগের সবচেয়ে জমজমাট আসর বিগ ব্যাশে কালো ব্যাটে খেলার অনুমতি পেয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল। সিডনি থান্ডারের এ তারকাকে কালো ব্যাট দিয়ে খেলার অনুমতি দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

এর আগে চোখে ব্যাঘাত ঘটার জন্য আন্দ্রে রাসেলের কালো ব্যাটকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। তার ব্যাটের গোলাপি হাতলের পাশাপাশি নিচের অংশে কালো রঙের প্রলেপ দেওয়া ছিল। তবে নির্মাণগত দিক থেকে উন্নতি ঘটানোর জন্য তাকে কালো ব্যাটে খেলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বিগ ব্যাশের প্রধান অ্যান্থোনি এভারার্ড বলেন, ‘তার ব্যাটের ওপর একটি পরিষ্কার ফলকিত পর্দা রয়েছে। যা বলে বিবর্ণতা রোধ করবে। বিভিন্ন বিধিনিষেধ প্রয়োগ করেই তাকে এ ব্যাটে খেলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আমরা এখন সন্তুষ্ট রয়েছি। কেননা ব্যাট-বলের বিবর্ণতার মাধ্যমে খেলার অখণ্ডতাকে আপস করা হয়নি। তাই বিবিএলের সামনের ম্যাচগুলোতে আন্দ্রেকে আমরা এই ব্যাটে খেলার অনুমোদন দিয়েছি।’

বিবিএলের নিয়ম অনুযায়ী একজন খেলোয়াড় বিভিন্ন কালারের ব্যাট ব্যবহার করে খেলতে পারবেন। তবে সেটা কর্তৃপক্ষের অনুমোদন সাপেক্ষে। বুধবার রাতে ব্রিসবেন হিটের বিপক্ষে খেলবে সিডনি থান্ডার।

 

 

উগান্ডায় ফুটবলারবাহী নৌকাডুবি, নিহত ৩০

ব্রাজিলের শ্যাপেকোয়েন্সে ফুটবল ক্লাবের বিমান দুর্ঘটনায় ৭৭ জনের মৃত্যুর রেশ কাটতে না কাটতেই এবার নৌকাডুবিতে প্রাণ হারালেন ৩০ ফুটবলার-সমর্থক। উগান্ডার লেক আলবার্টের এই ঘটনায় নৌকাতে থাকা ৪৫ জন ফুটবলার ও সমর্থকদের মধ্যে ৩০ জনই মারা যান। দুর্ঘটনার পর ১৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। বড় দিনের এক প্রদর্শনী ফুটবল ম্যাচ খেলতে বুলিসা থেকে হোইমা যাচ্ছিল দলটি।
পুলিশ কমান্ডার জন রুতাগিরা বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান, ‘লেক আলবার্টের পানি সে সময় শান্তই ছিল। কিন্তু, সমস্যা হয় যখন যাত্রীরা নৌকার একপাশে জড়ো হতে থাকেন। হয়তো যাত্রীরা মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন। তাদের উল্লাসের মাত্রা বেশি থাকায় নৌকাটি ভার সইতে পারেনি, ফলে নৌকাটি কাত হয়ে ডুবে যায়।’
এর আগেও লেক আলবার্টে নৌকাডুবির একাধিক ঘটনা ঘটেছে। ২০১০ সালে লেক আলবার্টে নৌকাডুবিতে ৭০ জন প্রাণ হারান। ২০০৪ সালে নৌকাডুবিতে ৪৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছিল।

১১৭ বছরের রেকর্ড ভাঙলেন ভারতীয় ওপেনার

প্রথমশ্রেণির ক্রিকেটে ওপেনার হিসেবে সর্বোচ্চ রান করে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন ভারতীয় অখ্যাত ব্যাটসম্যান সামিত গোহেল। জয়পুরে চলমান রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে ওদিশার বিপক্ষে ৩৫৯ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন গুজরাট ওপেনার। অপর প্রান্তে থাকা জাসপ্রিত বুমরাহ ১৩ রানে আউট না হয়ে গেলে ইনিংস আরও বড় করতে পারতেন তিনি।
এর আগের রেকর্ডটি ছিল ইংল্যান্ডের সাবেক ব্যাটসম্যান ববি অ্যাবেলের। ১৮৯৯ সালে কাউন্টিতে ওপেনার হিসেবে সামারসেটের বিপক্ষে ৩৫৭ রান করেছিলেন সারের এ ব্যাটসম্যান। রঞ্জির পাঁচ দিনের চলমান ম্যাচটির আজ শেষ দিনের খেলা হচ্ছে। যেখানে ৬৭৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে গোহেলের প্রতিপক্ষ ওদিশা। দ্বিতীয় ইনিংসে ডানহাতি এ ব্যাটসম্যানের কল্যাণে ৬৪১ রান তুলেছিল গুজরাট। কিন্তু প্রথম ইনিংসে মাত্র ২৬৩ করেছিল দলটি। সে ইনিংসে চার রান করেই বিদায় নেন গোহেল।
এদিকে ২৬ বছর বয়সী তরুণ এ ব্যাটসম্যান এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত প্রথমশ্রেণির ২৭টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তার দশটি হাফসেঞ্চুরি থাকলেও সেঞ্চুরি ছিল মাত্র দুটি। আর আগের সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল ১০৪।

যুব এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন ভারত

স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে টানা তৃতীয়বারের অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হলো ভারত। শুক্রবার ফাইনালে লঙ্কানদের বিপে ৩৪ রানে জয় পায় ভারতীয় যুবারা।
কলম্বোর আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে হিমাংশু রানার ৭১ আর শুভমান গিলের ৭০ রানের উপর ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৭৩ রান করে ভারতীয় যুবারা। লঙ্কানদের পে প্রবীন জয়বিক্রম ও নিপুন রানসিকা দুই জনেই নেন ৩ টি করে উইকেট।
২৭৪ রানের ল্েয নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকলেও ওপেনার রেভেন কেলি ও অধিনায়ক কামিন্দু মেন্ডিসের ব্যাটিং শ্রীলঙ্কার জয়ের সম্ভাবনা ধরে রেখেছিল। কিন্তু দলীয় ২১১ রানে মেন্ডিস ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফিরলে সব শেষ হয়ে যায়। ২৮ রানের ব্যবধানে শেষ ৫ উইকেট হারালে ২৩৯ রানেই থামে স্বাগতিকদের ইনিংস। শ্রীলঙ্কার সর্বোচ্চ ৬২ রানের ইনিংসটি খেলেন কেলি। আর দ্বিতীয় সেরা ৫৩ রান করেন মেন্ডিস। ভারতের পে অভিষেক শর্মা ৪ ও রাহুল চাহার নেন ৩ উইকেট।

ইতালিয়ান সুপার কাপের শিরোপা জিতলো মিলান

জুভেন্টাসকে হারিয়ে ইতালিয়ান সুপার কাপ জিতলো এসি মিলান। দুই দলের নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলের সমতায় শেষ হলে শ্বাসরুদ্ধকর টাইব্রেকারে জুভেন্টাসকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে হারায় এসি মিলান।
কাতারের দোহায় জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে গত আসরের শিরোপা জয়ী জুভেন্টাস। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১৮ মিনিটে অধিনায়ক জর্জো কিয়েল্লিনির গোলে এগিয়ে যায়। ম্যাচের ৩৪ মিনিটে মিলানকে সমতায় ফেরান ইতালির মিডফিল্ডার জাকোমো বোনাভেনতুরা।
বাকি সময় দুই দল আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে চালিয়েও গোল করতে ব্যর্থ হয়। ফলে খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। জুভেন্টাসের দুই ফরোয়ার্ড মারিও মানজুকিচ ও পাওলো দিবালা ল্যভেদে ব্যর্থ হলে রোমাঞ্চকর জয় পায় মিলান। আর এ জয়ে জুভেন্টাসের সর্বোচ্চ সাতটি ইতালিয়ান সুপার জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসালো মিলান।

সোস্যাল মিডিয়ায়ও সেরা রোনালদো

লিওনেল মেসিকে ছাড়িয়ে এবার ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের সেরা স্বীকৃতি ব্যালন ডি’অর জিতেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ২০১৬ সালটি তার জন্য বলতে গেলে সাফল্যের সোনায় মোড়ানো ছিল।
তার নেতৃত্বে ফ্রান্সকে হারিয়ে মযার্দার ইউরো শিরোপা জিতে ইতিহাস গড়ে পর্তুগাল। লা লিগায় না পারলেও রিয়াল মাদ্রিদকে ইউরোপীয় শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতাতে ভূমিকা রাখেন তিনি। সবশেষ নতুন বছর পা রাখার আগে রিয়াল মাদ্রিদকে কাব বিশ্বকাপের শিরোপাও জেতান পর্তুগিজ এ সুপারস্টার।
মাঠের পারফরম্যান্সের পাশাপাশি গনমাধ্যম ও সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমেও বেশ আলোচিত তারকা অ্যাথলেট রোনালদো। ২০১৬ সালে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে সবচেয়ে হাই-প্রোফাইলের একজন অ্যাথলেট তিনি। সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেইসবুকের আলোচিত শীর্ষ তিনটি পোস্ট রোনালদোর। এছাড়া ইনস্টাগ্রামে শীর্ষ পাঁচটি পোস্ট রিয়াল মাদ্রিদ এ সুপারস্টারের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচিত পোস্ট নিয়ে বিশ্লেষণে দেখা যায় রোনালদোর ছবি ও পোস্ট নিয়ে প্রায় ৩৪ মিলিয়ন ইউজার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।
২০১৬ সালের রোনালদোর আলোচিত ফেইসবুক পোস্টগুলো হচ্ছে ইউরো শিরোপা নিয়ে পর্তুগাল দলের উদযাপন, ছেলের সঙ্গে জন্মদিন উদযাপন এবং পর্তুগাল টিমের সঙ্গে বিমানে ফটোসেশন।

শাপেকোয়েনসের জন্য খেললেন নেইমার, করলেন ৪ গোল

বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড ছাড়াও মাঠে নেমেছিলেন কাকা ও রবিনহোর মতো তারকারা। প্রদর্শনী এই ম্যাচে নেইমারের একাদশ ১৩-৯ গোলে হারিয়েছে রবিনহোর দলকে। দলের জয়ের পথে নেইমার একাই করেছেন ৪ গোল।
বিমান দুর্ঘটনায় ব্রাজিলের কাব শাপেকোয়েনসে হারিয়েছে সব। খেলোয়াড়, কর্মকর্তা, কোচিং স্টাফ মিলে ওই দুর্ঘটনায় মারা যায় ৭১ জন। পুরো ক্রীড়াঙ্গনকে কাঁদিয়ে অন্যপারের বাসিন্দা হওয়া ওই মানুষদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এবং নিঃস্ব শাপেকোয়েনসের জন্য তহবিল গঠনের ল্েয আয়োজন করা হয়েছিল প্রদর্শনী ম্যাচ। যে ম্যাচে খেলেছেন নেইমার। বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড ছাড়াও মাঠে নেমেছিলেন কাকা ও রবিনহোর মতো তারকারা। প্রদর্শনী এই ম্যাচে নেইমারের একাদশ ১৩-৯ গোলে হারিয়েছে রবিনহোর দলকে। দলের জয়ের পথে নেইমার একাই করেছেন ৪ গোল।
কলম্বিয়ায় কোপা সুদামেরিকানার ফাইনালের প্রথম লেগ খেলতে যাওয়ার সময় বিধ্বস্ত হয় শাপেকোয়েনসে দলকে বহন করা বিমানটি। ওই দুর্ঘটনার পর ফাইনালের প্রতিপ অ্যাতলেতিকো ন্যাসিওনালের ডাকে সাড়া দিয়ে টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয় ব্রাজিলিয়ান কাবটিকে। বিশ্বের প্রায় সব বড় কাবই শাপেকোয়েনসের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে। দেশের ছেলে নেইমার তাই দূরে থাকেন কী করে। বড়দিনের ছুটিতে ব্রাজিলে ফিরেই তিনি নেমে গেছেন শাপেকোয়েনসের জন্য। প্রদর্শনী ম্যাচের আয়োজন করে তহবিল সংগ্রহ করেছেন দলটির জন্য। তার এই ডাকে সাড়া দিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান দুই সতীর্থ কাকা ও রবিনহো। এ ছাড়া সামনের মাসে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দিতে যাওয়া গ্যাব্রিয়েল হেসুসও ছিলেন প্রদর্শনী ম্যাচটিতে।

মেসির নতুন চুক্তি নিয়ে মুখ খুললেন নেইমার

স্প্যানিশ মিডিয়ায় মেসির ন্যু ক্যাম্প ছেড়ে যাওয়ার গুঞ্জন উড়াউড়ি করলেও আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের বার্সেলোনা ভবিষ্যৎ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী নেইমার। ব্রাজিলিয়ান তারকা জানিয়ে রাখলেন, শিগগিরই বার্সেলোনার সঙ্গে নতুন চুক্তি করতে যাচ্ছেন মেসি।
বেশ কিছুদিন হলো বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেছেন নেইমার। তার পথ ধরে আক্রমণভাগের সঙ্গী লুই সুয়ারেসও বাড়িয়ে নিয়েছেন চুক্তির সময়। যদিও ‘এমএসএন’-এর তৃতীয় জন লিওনেল মেসির নতুন চুক্তি দুলছে সুতোয়। স্প্যানিশ মিডিয়ায় মেসির ন্যু ক্যাম্প ছেড়ে যাওয়ার গুঞ্জন উড়াউড়ি করলেও আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের বার্সেলোনা ভবিষ্যৎ নিয়ে আত্মবিশ্বাসী নেইমার। ব্রাজিলিয়ান তারকা জানিয়ে রাখলেন, শিগগিরই বার্সেলোনার সঙ্গে নতুন চুক্তি করতে যাচ্ছেন মেসি ।
বোমা ফাটানো খবরটা দিয়েছিল স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক ‘মার্কা’। মাদ্রিদ ভিত্তিক পত্রিকাটির খবর ছিল, মেসি আর বার্সেলোনায় থাকতে চাইছেন না, ২০১৮ সাল পর্যন্ত থাকা চুক্তিটা শেষ করেই ন্যু ক্যাম্প ছেড়ে দিতে পারেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। তার চুক্তি নবায়নের প্রশ্নটা তাই তখন থেকেই ঘুরপাক খাচ্ছে ফুটবল বিশ্বে। এও শোনা গিয়েছিল পাঁচবারের ব্যালন ডি’অরের নতুন ঠিকানা হতে পারে ম্যানচেস্টার সিটি। দিন দুয়েক আগে বার্সেলোনা সভাপতি হোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ অবশ্য নতুন চুক্তির বিষয়ে জানিয়েছেন, আলোচনা শুরু না হলেও তার বিশ্বাস শিগগিরই সমঝোতায় পৌঁছাতে পারবেন তারা। একই সুর নেইমারের কণ্ঠেও। বড়দিনের ছুটি কাটাতে ২৪ বছর বয়সী তারকা এখন জন্মভূমি ব্রাজিলে। সেখানেই তিনি সাংবাদিকদের কাছে মেসির চুক্তি নবায়ন প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘আমরা আশা করছি মেসি আমাদের সঙ্গে থাকবে। আমার মনে হয় শিগগিরই সে নতুন চুক্তি করবে।’
চলতি মৌসুমটা খুব একটা ভালো কাটছে না নেইমারের। লা লিগার ১৩ ম্যাচে গোল করেছেন মাত্র ৪টি, যদিও সতীর্থদের দিয়ে ঠিকই করিয়েছেন ৬ গোল। তাই পারফরম্যান্স নিয়ে খুব একটা ভাবছেন না তিনি, ‘এখন পর্যন্ত মৌসুমটা যেভাবে পার করেছি, তাতে আমি খুশি। আর সেটা মাত্র কয়েকটা গোল করার পরও।’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘(গোল) এমনিতেই এসে যাবে। আমি খুশি সতীর্থদের দিয়ে গোল করাতে পেরে, আর এভাবেই দলকে সাহায্য করে যেতে চাই।’

অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান টেস্টে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা!

মেলবোর্নে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় টেস্টকে ঘিরে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ইতোমধ্যেই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে পরিকল্পনা আঁটছেন সন্দেহে ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে মেলবোর্ন পুলিশ।
বক্সিং ডে টেস্টে মানেই বাড়তি উত্তেজনা উন্মাদনা। আর সেই টেস্টেই কিনা সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা। তাও আবার অস্ট্রেলিয়ায়! অবস্থা এমনই দাঁড়িয়েছে যে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় টেস্ট ঘিরে নেওয়া হয়েছে বাড়তি সব নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ইতোমধ্যেই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনা আঁটছেন সন্দেহে ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে মেলবোর্ন পুলিশ। যাদের ল্য মেলবোর্ন ফাইন্ডার্স স্ট্রিট রেল স্টেশন ও ফেডারেশন স্কয়ার। আর রেল স্টেশনের কাছেই মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড। ধারণা করা হচ্ছে ক্রিস্টমাস ডেতে নাশকতামূলক কাণ্ড হতে পারে। তাই আগে ভাগেই নিরাপত্তা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে ভিক্টোরিয়ার পুলিশ কমিশনার বলেছেন, ‘আমরা বিশেষ দিনটিতে বাড়তি পুলিশি ব্যবস্থা জোরদার করেছি। সঙ্গে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা তো থাকছেই। বলতে গেলে মূলত প্রাক সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবেই এমনটি করা হয়েছে।’
তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমি বলতে চাই যে আমাদের কাছে কোনও হুমকির খবর নেই। তাই সতর্ক থাকতেই এই ব্যবস্থা।’
নিরাপত্তার বিষয়ে উদ্বিগ্ন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নির্বাহী সাদারল্যান্ডও। তার মতে, ‘আমাদের নিরাপত্তা দল সব সময়েই কর্তৃপরে সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে। বক্সিং ডে টেস্টে আমরা কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি। সঙ্গে অন্যসব টুর্নামেন্টেও বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

তুরানের হ্যাটট্রিকে বার্সার গোল উৎসব

আর্দা তুরানের হ্যাটট্রিকে হারকিউলিসের বিপক্ষে গোল উৎসব করেছে বার্সেলোনা। কোপা দেল রের ফিরতি লেগে হারকিউলিসকে ৭-০ গোলে উড়িয়ে শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে লুইস এনরিকের শিষ্যরা।
মেসি-নেইমার-সুয়ারেজকে ছাড়াই বছরের শেষ ম্যাচে মাঠে নামে বার্সা। ঘরের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে। তবে নিজেদের প্রথম গোলের জন্য ৩৭ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় স্বাগতিকদের। বার্সেলোনার ফরাসি ডিফেন্ডার ডিগনির গোলে লিড নেয়। যোগ করা সময়ে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রাকিটিক।
বিরতি থেকে ফিরে ব্যবধান ৩-০ করেন রাফিনহা। ম্যাচের ৫৫ মিনিটে নিজের প্রথম গোল করে ব্যবধান ৪-০ করেন তুরান। আর ৭৩ মিনিটে বার্সার হয়ে প্রথম গোল করেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার আলকাসের। ম্যাচের ৮৬ থেকে ৮৯, এই তিন মিনিটের মধ্যে আরও ২ গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন তুরান। বাকি সময় আর গোল না হলে বড় জয়ের আনন্দে বছর শেষ করলো লুইস এনরিকের দল।

জাদেজা-জাদুতে ভারতের দুর্দান্ত জয়

চেন্নাই টেস্টটা শেষ পর্যন্ত বাঁচাতে পারল না ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে ৪০০ রান করে টানা দুই টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে হারল অ্যালিস্টার কুকের দল। রবীন্দ্র জাদেজার অসাধারণ বোলিংয়ে চেন্নাইয়ে সিরিজের শেষ টেস্ট ভারত জিতেছে ইনিংস ও ৭৫ রানে।
পঞ্চম ও শেষ দিনে শেষ দুই সেশনেই ১০ উইকেট হারিয়েছে ইংল্যান্ড। জাদেজা একাই নিয়েছেন ৭ উইকেট! আগেই সিরিজ জেতা ভারত পাঁচ ম্যাচের সিরিজ শেষ করল ৪-০ তে।
২৮২ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড চতুর্থ দিন শেষ করেছিল বিনা উইকেটে ১২ রানে। ম্যাচ বাঁচাতে শেষ দিনটা কাটিয়ে দিতে হতো ইংলিশদের। কিটন জেনিংসকে সঙ্গে নিয়ে দিনের শুরুটা ভালোই করেছিলেন কুক। দুজন মিলে লাঞ্চের আগে বিনা উইকেটে তোলেন ৯৭।
তখন মনে হচ্ছিল, অমীমাংসিতভাবেই শেষ হতে যাচ্ছে ম্যাচটি। কিন্তু লাঞ্চের পরই দৃশ্যপট পাল্টে দেন জাদেজা। ভারতীয় স্পিনার কুককে (৪৯) লোকেশ রাহুলের ক্যাচ বানিয়ে ১০৩ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন। এরপর দ্রুত জেনিংস ও জো রুটকেও বিদায় করেন জাদেজা। ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জেনিংস (৫৪)। রুট হয়েছেন এলবিডব্লিউ। দ্রুত ফিরে যান জনি বেয়ারস্টোও। এই উইকেটেও বড় অবদান জাদেজার। ইশান্ত শর্মার বলে দারুণ এক রানিং ক্যাচ নেন জাদেজা। বিনা উইকেটে ১০৩ থেকে ইংল্যান্ডের স্কোর তখন ৪ উইকেটে ১২৯!
পঞ্চম উইকেটে বেন স্টোকসকে নিয়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করেছিলেন মঈন আলী। কিন্তু পরপর দুই ওভারে এই দুজনকে ফিরিয়ে সেই প্রতিরোধও ভাঙেন জাদেজা। এরপর নিয়মিত বিরতিতে বাকি ৪ উইকেট হারিয়ে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ইনিংসে হারের লজ্জায় ডোবে ইংল্যান্ড। একই ওভারে ৪ বলের মধ্যে ইংল্যান্ডের শেষ দুই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে প্রথমবারের মতো ইনিংসে ৭ উইকেট নেন জাদেজা। ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংস থামে ২০৭ রানে। তখনো দিনের খেলা বাকি ৯ ওভার!
ভারতের জয়ে তুলির শেষ আঁচরটা জাদেজা দিলেও ম্যাচসেরা হয়েছেন ট্রিপল সেঞ্চুরিয়ান করুন নায়ার। প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডের ৪৭৭ রানের জবাবে নায়ারের অপরাজিত ৩০৩, লোকেশ রাহুলের ১৯৯, পার্থিব প্যাটেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও জাদেজার ফিফটিতে ভারত ইনিংস ঘোষণা করেছিল ৭ উইকেটে ৭৫৯ রানে। যেটি টেস্টে ভারতের সর্বোচ্চ রান।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ৪৭৭
ভারত প্রথম ইনিংস: ৭৫৯/৭ ডিক্লে.
ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস: ২০৭ (জেনিংস ৫৪, কুক ৪৯, মঈন ৪৪; জাদেজা ৭/৪৮, ইশান্ত ১/১৭, মিশ্র ১/৩০, যাদব ১/৩৬)।
ফল: ভারত ইনিংস ও ৭৫ রানে জয়ী
সিরিজ: পাঁচ ম্যাচ সিরিজ ভারত ৪-০ ব্যবধানে জয়ী
ম্যান অব দ্য ম্যাচ: করুন নায়ার
মান অব দ্য সিরিজ: বিরাট কোহলি।

‘মেসি অদ্বিতীয়’

কাতালান ডার্বিতে আরো একবার দেখা গেল লিওনেল মেসি ঝলক। তার আলো ছড়ানো ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন লুইস সুয়ারেজ। সবমিলে এস্পানিওলের বিপক্ষে ৪-১ ব্যবধানে জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। এই জয়ে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলে রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে ব্যবধান কমালো ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।
ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে এস্পানিওলের বিপক্ষে মেসির ম্যাজিক্যাল পারফরম্যান্সে খুশি লুইস এনরিক। ম্যাচ শেষে আর্জেন্টাইন এই সুপারস্টারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বার্সা কোচ। জানালেন, লিওনেল মেসি অদ্বিতীয়।
মেসি বন্দনায় এনরিক বলেন, ‘লিওনেল মেসি যা করে, তাতে আমরা অভ্যস্ত হতে পারছি না। মেসি অদ্বিতীয়। ন্যু ক্যাম্পে যা করে দেখালো, তা সত্যিই অসাধারণ। প্রতি ১৫ দিনেই এমনটা ঘটছে।’
প্রসঙ্গত, এস্পানিওলের বিপক্ষে ১৮ ও ৬৭ মিনিটে জোড়া গোল করেছেন সুয়ারেজ। ৬৮ মিনিটে একবার লক্ষ্যভেদ করেন জর্দি আলবা। এস্পানিওলের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন মেসি। ম্যাচের অন্তিমলগ্নে (৯০ মিনিট) গোল আদায় করে নেন বার্সা প্রাণভোমরা।

শেওয়াগের পাশে নাম লেখালেন ট্রিপল সেঞ্চুরিয়ান নায়ার

চেন্নাইয়ের চিপোক স্টেডিয়াম চেনালো অখ্যাত এক কারন নায়ারকে। ক্যারিয়ারে তৃতীয় টেস্ট খেলতে নেমে করে ফেললেন ট্রিপল সেঞ্চুরি! আর এই মাইলফলক তাকে নিয়ে গেল দেশটির ব্যাটিং কিংবদন্তি বিরেন্দ্র শেওয়াগের পাশে। এর আগে শেওয়াগ ছাড়া আর কোনো ভারতীয় ব্যাটসম্যানই টেস্টে ট্রিপল সেঞ্চুরির দেখা পাননি।
দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ টেস্টের চতুর্থ দিন তরুণ নায়ার একাই আলো কেঁড়ে নিলেন। তার অপরাজিত ট্রিপল সেঞ্চুরির পর ভারত নিজেদের ইতিহাসে রেকর্ড ৭৫৯ রান করে। হাতে ছিল আরও তিন উইকেট। পরে ইনিংস ঘোষণা করে বিরাট কোহলি।
দিন শেষে ইংল্যান্ড নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে বিনা উইকেটে ১২ রানে শেষ করে। দলটি এখনও স্বাগতিকদের থেকে ২৭০ রানে পিছিয়ে আছে। অ্যালিস্টার কুক বাহিনী প্রথম ইনিংসে ৪৭৭ রান করেছিল।
তৃতীয় দিন শেষে ৩৯১ রানে চার উইকেট হারানো ভারত চতুর্থ দিন যোগ করে আরও ৩৬৮ রান। আগের দিনের অপরাজিত ব্যাটসম্যান মুরালি বিজয় ২৯ রান করে আউট হয়ে যান। তবে শেষের দিকের ব্যাটসম্যানদের সঙ্গে একাই হাল ধরে লড়ে যান নায়ার।
মাঝে অর্ধশতকের দেখা পান রবিচন্দ্রন অশ্বিন (৬৭) ও রবিন্দ্র জাদেজা (৫১)। কিন্তু ধর্য হারা হলেন না নায়ার। আগের দিন মাত্র এক রানের জন্য দুই’শ রান বঞ্চিত হন ওপেনার লোকেশ রাহুল। আর চতুর্থ দিন ৭১ রান নিয়ে শুরু করা নায়ার একে একে ১০০, ২০০ ও শেষ পর্যন্ত দেখা পেলেন ৩’শ রানের।
ভারতের তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে পাঁচ নম্বর বা তার পরে ব্যাটিংয়ে নেমে ২০০ শ’র অধিক রানের ইনিংস উপহার দিয়েছেন নায়ার। এর আগে এমন কীর্তিতে সাক্ষর রেখেছিলেন ধোনি ও লক্ষণ।
শুধু এখানেই থেমে ছিলেন না এর আগে সর্বোচ্চ ১৩ রানের অধিকারী নায়ার। গড়লেন অনন্য এক রেকর্ডই। ভারতের হয়ে দুটি ট্রিপল সেঞ্চুরিয়ান শেওয়াগের পাশে নাম লেখালেন তিনি। শেওয়াগ ২০০৪ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে (৩০৯) ও ২০০৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে (৩১৯) দু’বার এমন কীর্তি গড়েছিলেন।
ডানহাতি ব্যাটসম্যান নায়ার এদিন ৩৮১ বলে ৩২টি চার ও চারটি ছক্কায় ৩০৩ রানে অপরাজিত থাকেন। তার স্ট্রাইক রেটও ছিল দারুণ (৭৯.৫২)। তার ট্রিপল সেঞ্চুরির পরই ইনিংস ঘোষণা করা হয়।

রোনালদোর হ্যাটট্রিকে রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়ন

ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে জাপানের ক্লাব কাশিমা অ্যান্টলার্সকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। এটা তাদের পঞ্চম ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা এবং গেল তিন বছরের মধ্যে দ্বিতীয় শিরোপা।
রোববার জাপানের ইয়োকোহামার নিশান স্টেডিয়ামে অতিরিক্ত সময়ে ৪-২ গোলে কাশিমা অ্যান্টলার্সকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় রিয়াল। নির্ধারিত সময়ে ম্যাচে ২-২ গোলের সমতা ছিল। অতিরিক্ত সময়ের ৯৭ ও ১০৪ মিনিটে রোনালদো গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন।
এর আগে ৬০ মিনিটের সময় পেনাল্টি থেকে আরো একটি গোল করেন রোনালদো। আর ম্যাচের ৯ মিনিটে করিম বেনজেমার গোলে লিড নিয়েছিল রিয়াল। কাশিরা অ্যান্টলার্সের গাকু শিবাসাকি ম্যাচের ৪৪ ও ৫২ মিনিটে গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান। অতিরিক্ত সময়ে রোনালদোর দুই গোলে ভাঙে সেই সমতা।
রোববার কাশিমা অ্যান্টলার্সের বিপক্ষে গোলের দেখা পেতে বেশি সময় নেয়নি রিয়াল। ম্যাচের ৯ মিনিটের মাথায় ডি বক্সের বাইরে থেকে শট নেন রিয়ালের লুকা মদ্রিচ। তার শট ফিরিয়ে দেন অ্যান্টলার্সের গোলরক্ষক। ফিরতে বলে জোরালো শট নিয়ে বল জালে জড়ান করিম বেনজেমা (১-০)।
৪৪ মিনিটে অ্যান্টলার্সের গাকু শিবাসাকি গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান (১-১)। সমতা নিয়েই শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা। বিরতির পর ৫২ মিনিটে গাকু শিবাসাকি নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করে অ্যান্টলার্সকে এগিয়ে নেন (১-২)। গোটা স্টেডিয়ামকে ভাসান আনন্দে। কিন্তু ৮ মিনিট পর পেনাল্টি পায় রিয়াল। পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (২-২)।
এই সমতা নিয়েই শেষ হয় নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা। তাই সমতা ভাঙার জন্য ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। সেখানে ম্যাচের ৯৭ মিনিটে করিম বেনজেমার থ্রো থেকে বল পেয়ে যান রোনালদো। তিনি নিশানা ভেদ করতে ভুল করেননি (৩-২)। আর ১০৪ মিনিটের মাথায় টনি ক্রুসের সহায়তায় নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন রোনালদো। তাতে রিয়ালের জয় নিশ্চিত হয় ৪-২ গোলে।

সোবার্সকে ছাড়িয়ে গেলেন শফিক

দারুণ এক সেঞ্চুরি করে ব্রিসবেন টেস্ট পঞ্চম দিনে টেনে নিয়েছেন আসাদ শফিক। আর এই সেঞ্চুরিতে গড়েছেন একটি রেকর্ডও। ছয় নম্বরে নেমে টেস্ট ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি এখন এককভাবে পাকিস্তানের এই ব্যাটসম্যানের।
ব্রিসবেনে দিবারাত্রির টেস্টে রোববার চতুর্থ দিনের শেষ ওভারে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন শফিক। এটি তার ক্যারিয়ারের দশম সেঞ্চুরি। এর মধ্যে একটি সেঞ্চুরি করেছেন চার নম্বরে নেমে। বাকি ৯টিই ছয়ে নেমে।
এতদিন ছয় নম্বরে নেমে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির রেকর্ডটি স্যার গ্যারি সোবার্সের সঙ্গে ভাগাভাগি করছিলেন শফিক। ছয়ে নেমে ৮টি সেঞ্চুরি করেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান কিংবদন্তি সোবার্স। ৯টি সেঞ্চুরি করে সোবার্সকে ছাড়িয়ে গেলেন শফিক।
ছয়ে নেমে ৭টি করে সেঞ্চুরি আছে চারজনের- ওয়েস্ট ইন্ডিজের শিবনারায়ণ চন্দরপল, ইংল্যান্ডের টনি গ্রেগ, অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিং ও শ্রীলঙ্কার হাশান তিলকারত্নের।

রোনালদো-বেনজেমা নৈপুণ্যে ফাইনালে রিয়াল

জাপানের ইয়োকোহামা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে আলো ছড়ালেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও করিম বেনজেমা। আর সেই আলোয় আলোকিত হলো রিয়াল মাদ্রিদ। রোনালদো-বেনজেমা নৈপুণ্যে ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের টিকিট পেল লস ব্লাঙ্কসরা।

ক্লাব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের লড়াইয়ে আজ বৃহস্পতিবার জিনেদিন জিদানের দল হারিয়েছে কনকাকাফ চ্যাম্পিয়ন ক্লাব আমেরিকাকে, ২-০ গোলের ব্যবধানে। আগামী রোববার ফাইনালের লড়াইয়ে জাপানের ক্লাব কাশিমা অ্যান্টলার্সের বিপক্ষে মাঠে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ।

ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে জমজমাট আসর উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। সেই আসরের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রিয়াল। জাপানে খেলতে নেমে সেই দাপটই দেখালেন রোনালদো-বেনজেমরা! নিজেদের দিনে তারা যে বেশ ভয়ঙ্কর।

তবে ‘দাপুটে’ ম্যাচটিতে রিয়ালকে গোল পেতে অপেক্ষা করতে হয়েছে প্রথমার্ধের শেষ অবধি। রেফারি যখন বিরতিতে যাওয়ার সুর (বাঁশি বাজানো) তুলবেন, ঠিক তখনই বল পায়ে ভেলকি দেখান টনি ক্রস। বলটা দখলে নিয়ে দারুণ এক পাস দেন বেনজেমাকে। আর ফরাসি স্ট্রাইকারও ভুল করেননি। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে (৪৫+২ মিনিট) আমেরিকার গোলরক্ষককে বোকা বানান বেনজেমা। তাই ১-০ গোলে এগিয়ে বিরতিতে যায় রিয়াল।

মজার বিষয়, রিয়াল দ্বিতীয় গোলটাও পায় অতিরিক্ত সময়ে (৯০+৩ মিনিট)। এবারের গোলটি রোনালদোর। ডানপ্রান্ত থেকে দুর্দান্ত এক ক্রসে রোনালদোকে বল ধরিয়ে দেন হামেস রদ্রিগেজ। অসাধারণ দক্ষতায় বলটি আমেরিকার জালে জড়ান রোনালদো (২-০)। আর তাতে রিয়াল সমর্থকদের মুখে ফোটে ফাইনালে ওঠার হাসি।

মেসির বিয়ে

তাদের বন্ধুত্বটা বাল্যকালেই। একে অপরকে বিশ্বাস করেন, ভালোবাসেন। প্রেমের সেই বন্ধনে তারা এক ঘরেই থাকছেন। তাদের রয়েছে দুটি সন্তানও, থিয়াগো (৪ বছর) এবং মাতেও (১৫ মাস)। তবে বিয়েটা এখনও বাকি! তারা আর কেউ নন, পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী লিওনেল মেসি ও তার প্রেমিকা আন্তোনেল্লা রোকুজ্জো।

ডেইলি মেইলের খরব, ২০০৮ সাল থেকে একসঙ্গে থাকছেন মেসি-রোকুজ্জো। তাদের চুটিয়ে প্রেম করার বিষয়টি মিডিয়ায় জানাজানি হয় তখনই। দারুণ বোঝাপড়া তাদের। সুখে-দুঃখে একে অপরের পাশেই থাকেন। তবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতিটা তো দরকার!

আর সেই আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি নিতে প্রস্তুত মেসি। আগামী বছরের (২০১৭) মাঝামাঝি সময়ে দীর্ঘ দিনের বান্ধবী রোকুজ্জোকে বিয়ে করছেন বার্সেলোনা সুপারস্টার। আর্জেন্টিনার মিডিয়াগুলো জানিয়েছে এমনটাই।

সবার আগে মেসির বিয়ের খরব প্রকাশ করেন রেডিও মাতরিও’র পাবলো ভারস্কি। পরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইএফই। তাদের প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, ‘মেসি এবং রোকুজ্জো ২০১৭ সালে বিয়ে করছেন। তারিখ নির্ভর করছে বার্সেলোনার ম্যাচের সূচির ওপর, বিশেষ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কাতালান ক্লাবটি কতদূর যেতে পারে।’

স্মিথের সেঞ্চুরিতে ব্যাকফুটে পাকিস্তান

দুর্দান্ত ফর্মেই আছেন স্টিভেন স্মিথ। তার ব্যাট হেসে চলেছে রীতিমতো। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে তুলে নিয়েছেন টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৬তম সেঞ্চুরি। ব্রিসবেন ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম দিন শেষে স্মিথ অপরাজিত আছেন ১১০* রানে। তার ১৯২ বলের ইনিংসটি সমৃদ্ধ ১৬টি চারে। আগামীকাল শুক্রবার দ্বিতীয় দিনে আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান পিটার হ্যান্ডস্কোপের সঙ্গে ব্যাট করতে নামবেন অসি অধিনায়ক।

স্টিভেন স্মিথের সেঞ্চুরিতে ভর করে প্রথম দিন শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ করেছে ৩ উইকেটে ২৮৮ রান। হাতে আছে ৭ উইকেট। বড় সংগ্রহের পথেই রয়েছে অসিরা। বলা অপেক্ষা রাখে না যে স্বাগতিক ব্যাটসম্যানদের দাপটে ব্রিসবেন টেস্টে ব্যাকফুটে পাকিস্তান।

এদিকে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়াকে শুভসূচনা এনে দেন দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও ম্যাট রেনশ। উদ্বোধনী জুটিতে দলের স্কোরশিটে ৭০ রান যোগ করেন তারা। এই জুটি ভাঙেন মোহাম্মদ আমির। ৩২ রান করা ওয়ার্নারকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন পাকিস্তানি এই পেসার।

তবে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্টে প্রথমবারের মতো ফিফটি তুলে নেন ম্যাট রেনশ। ওয়াহাব রিয়াজের বলে সরফরাজ আহমেদের হাতে ক্যাচ তুলে দেয়ার আগে ৭১ রানের মূল্যবান এক ইনিস দলকে উপহার দেন ২০ বছর বয়সী এই ওপেনার।

তিনে ব্যাট করতে নামা উসমান খাজা নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। ব্যক্তিগত ৪ রানের মাথায় ইয়াসির শাহর ঘূর্ণিতে পরাস্ত হন তিনি। ফিফটি তুলে নিয়েছেন পিটার হ্যান্ডস্কোপও। দিন শেষে ৬৪ রানে অপরাজিত আছেন তিনি।

পাকিস্তানের পক্ষে একটি করে উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ ও ইয়াসির শাহ।

অবশেষে হারলো আর্সেনাল

টানা ১৪ ম্যাচ আর প্রিমিয়ার লিগে চার মাস পর হারের স্বাদ পেলো আর্সেনাল। এগিয়ে থেকেও এভারটনের মাঠে ২-১ গোলে হেরে গেছে আর্সেন ওয়েঙ্গারের শিষ্যরা।

মঙ্গলবার গুডিসন পার্কে ম্যাচের ২০ মিনিটে কিছুটা ভাগ্যের ছোঁয়ায় এগিয়ে যায় আর্সেনাল। সানচেজের ফ্রি-কিকে ডিফেন্ডার উইলিয়ামসের পায়ে লেগে দিক পাল্টে বল জালে জড়ায়। বিরতির ঠিক আগে লেইটন বেইন্সের লম্বা ক্রস ছয় গজ বক্সের মুখে পেয়ে হেডে গোল করে স্বাগতিকদের সমতায় ফেরান কোলম্যান।

arsenal

বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে আর্সেনাল। ম্যাচের ৫৪ মিনিটে  সানচেজের ক্রসে অরক্ষিত অবস্থায় বল পেয়েও মেসুত ওজিলের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে হতাশ হতে হয় সফরকারীদলের সমর্থকদের। উল্টো ৮৬ মিনিটে ইংলিশ মিডফিল্ডার রস বার্কলির কর্নারে বিনা বাধায় হেডে এভারটনকে এগিয়ে দেন ওয়েলসের ডিফেন্ডার উইলিয়ামস।

বাকি সময় আর গোল না হলে হারের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় আর্সেনালকে। এদিকে দিনের অপর ম্যাচে গতবারের চ্যাম্পিয়ন লেস্টার সিটিকে ১-০ গোলে হারিয়েছে বোর্নমাউথ।

বার্সেলোনার আমন্ত্রণে খেলবে শাপেকোয়েনসে

২০১৭ সালের হোয়ান গ্যাম্পার ট্রফিতে অংশ নেবে ব্রাজিলিয়ান দলটি। প্রাক-মৌসুমের এই ইভেন্টে একমাত্র আমন্ত্রিত দল হিসেবে তারা খেলবে স্প্যানিশ জায়ান্টদের বিপক্ষে।
নভেম্বরের শেষদিকে কলম্বিয়ার মেদেলিন যাওয়ার পথে মর্মান্তিক বিমান দুর্ঘটনায় শাপেকোয়েনসের খেলোয়াড়, স্টাফসহ নিহত হন ৭১ জন। নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতেই প্রাক মৌসুম টুর্নামেন্টে আমন্ত্রণসহ আরও কিছু উদ্যোগ নেয় বার্সেলোনা। গত বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েছিল, ওই দুর্ঘটনায় ভুক্তভোগীদের শ্রদ্ধা ও ক্লাবটিকে বিপর্যয় থেকে উতরে যেতে সাহায্য করবে তারা। প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে শাপেকোকে হোয়ান গ্যাম্পারে খেলার আমন্ত্রণ পাঠায় তারা। এক দিন পরই তাদের আমন্ত্রণ গ্রহণের কথা নিশ্চিত করলেন শাপেকোয়েনসের প্রেসিডেন্ট ইভান পোজ্জো।
২৫ বছরের মধ্যে সান্তোসের পর প্রথম ব্রাজিলিয়ান ক্লাব হিসেবে হোয়ান গ্যাম্পার ট্রফিতে দেখা যাবে শাপেকোয়নসেকে। আগামী বছরের আগস্টের শুরুতে বার্সার বিপক্ষে খেলার আমন্ত্রণ পেয়ে উচ্ছ্বসিত তোজ্জো বলেছেন, ‘এটা আমাদের জন্য অনেক আনন্দের। আমাদের আমন্ত্রণ জানানোর জন্য বার্সেলোনাকে ধন্যবাদ। এটা দারুণ একটা ব্যাপার হবে। ইউরোপে গিয়ে খেলতে পারা খুবই আনন্দের।’

শাপেকোয়েনসের জন্য খেলবেন নেইমাররা

শাপেকোয়েনসের জন্য মারাকানায় একটি ম্যাচ আয়োজনের পরিকল্পনা করছে সিবিএফ। ২২ জানুয়ারি সেই ম্যাচে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ হিসেবে তারা চাইছে কলম্বিয়াকে। বিমান দুর্ঘটনায় সব হারিয়েছে শাপেকোয়েনসে। ব্রাজিলিয়ান ক্লাবটিকে ইতিমধ্যে কোপা সুদামেরিকানার চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেছে লাতিন আমেরিকার ফুটবল নিয়ন্ত্রণ সংস্থা কনমেবল। তাতে প্রাইজমানি হিসেবে প্রায় ৩ মিলিয়ন ডলারের মতো যোগ হয়েছে তাদের কোষাগারে। নিঃস্ব এই ক্লাবের উঠে দাঁড়ানোর জন্য এবার উদ্যোগ নিয়েছে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (সিবিএফ)। শাপেকোয়েনসের জন্য মারাকানায় একটি ম্যাচ আয়োজনের পরিকল্পনা করছে তারা। ২২ জানুয়ারি সেই ম্যাচে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ হিসেবে তারা চাইছে কলম্বিয়াকে।
প্রতিপক্ষ হিসেবে কলম্বিয়াকে বেছে নেওয়ার কারণও আছে। লাতিন আমেরিকার এই দেশে খেলতে যাওয়ার সময়ই বিমান দুর্ঘটনায় সব হারিয়েছে শাপেকোয়েনসে। কলম্বিয়ার ক্লাব অ্যাতলেতিকো ন্যাসিওনালের বিপক্ষে কোপা সুদামেরিকানার ফাইনালে নামার আগেই বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ব্রাজিলিয়ান ক্লাবটির ১৯ খেলোয়াড় সহ মারা যান ৭১ জন। এখন এই ক্লাবে খেলার মতো টিকে আছেন মাত্র ছয় খেলোয়াড়। ট্র্যাজেডির শিকার শাপেকোয়েনসেকে সাহায্য করতে এবার মাঠে নামবেন নেইমাররা। সিবিএফ-এর জেনারেল সেক্রেটারি ওয়ালটার ফিডম্যান জানিয়েছেন তেমনটাই, ‘আমরা ইতিমধ্যে ফিফা ও কনমেবলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। ম্যাচটা আমরা খেলতে পারি ২২ জানুয়ারি, নতুন মৌসুম শুরুর সপ্তাহখানেক আগে।’
প্রদর্শনী ম্যাচটির জন্য সিবিএফ ভেন্যু ঠিক করেছে ঐতিহ্যবাহী মারাকানা স্টেডিয়াম। আর ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ হিসেবে কলম্বিয়াকে বেছে নেওয়ার কারণ ব্যাখ্যায় ওয়ালটার বলেছেন, ‘দীর্ঘ আলোচনার পর আমাদের মনে হয়েছে সবচেয়ে ভালো হয় ব্রাজিল জাতীয় দল খেললে। আর প্রতিপক্ষ হিসেবে শাপেকোয়েনসের শুভাকাঙ্খী-বন্ধুদের বিবেচনা করলেও আমরা বেছে নিয়েছি কলম্বিয়াকে, এই মুহূর্তে দেশটি আমাদের দলই।’

পিকের বিশ্বাস ঘুরে দাঁড়াবে বার্সেলোনা

লা লিগার কেবল ১৪ ম্যাচ শেষ হয়েছে। শীর্ষ দল রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে বার্সেলোনার ব্যবধানও বেড়ে গেছে চোখে পড়ার মতো। কিন্তু এখনই হাল ছেড়ে দিতে রাজি নন কাতালান জায়ান্টদের এই ডিফেন্ডার।
সের্হিয়ো রামোসের শেষ মুহূর্তের হেডে বার্সেলোনার জয়ের স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হলো ন্যু ক্যাম্পে। শীর্ষ দল রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে কমানো হলো না পয়েন্ট ব্যবধান, ড্র করায় সেটা আগের মতো ৬ এ থাকল। তবে ১৪ ম্যাচ শেষে পয়েন্ট টেবিলের এই অবস্থা দেখে মোটেও নিরাশ নন বার্সার ডিফেন্ডার জেরার্দ পিকে। সতীর্থ ও ভক্তদের শান্ত থাকতে বললেন এই স্প্যানিশ তারকা।
ন্যু ক্যাম্পে ১-১ গোলে ড্রর পর আতঙ্কিত হওয়ার কারণ দেখছেন না পিকে, ‘যা ঘটল সেটা কখনও চাইনি। কিন্তু আমি মনে করি আমাদের শান্ত থাকতে হবে। আমরা ঘুরে দাঁড়াতে পারি, এজন্য আজকের (শনিবার) মতো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে যেটা আমরা দীর্ঘদিন ধরে করছি। এখনও অনেক সময় বাকি।’
সময় বাকি দেখে পিকে আশাবাদী হলেও সতর্ক থাকছেন রামোস। ২০১২ সালের পর রিয়ালকে প্রথম লা লিগা জিততে হলে আত্মতৃপ্তিতে ভোগা চলবেন না মনে করেন তিনি। বার্সার সঙ্গে এই পয়েন্ট ব্যবধান ধরে রাখতে দলকে আহবান করলেন রামোস, ‘পয়েন্টের এই পার্থক্য কঠোর পরিশ্রমের পুরস্কার। মৌসুমের শুরু থেকে আমরা অনেক খাটছি। এখনই আত্মতৃপ্তিতে ভোগা যাবে না, কারণ লা লিগা শেষ হওয়ার এখনও অনেক বাকি।’ জয় না পাওয়ায় কিছুটা আক্ষেপ এই ডিফেন্ডারের, কিন্তু ড্রকেও কম প্রাপ্তি মনে করছেন না, ‘কিছু না পাওয়ার থেকে একটি পয়েন্ট বেশ ভালো। বার্সেলোনার সঙ্গে এই পয়েন্ট ব্যবধান বজায় রাখতে হবে আমাদের।’

অনবদ্য স্মিথে অস্ট্রেলিয়ার বড় জয়

অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক ব্যাটিংয়ের পর ফিল্ডিংয়েও ছিলেন দুর্দান্ত। এক কথায় তার অনবদ্য পারফরম্যান্সে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রশংসনীয় শুরু করল স্বাগতিকরা।
এই মৌসুমে প্রথমবার স্টিভেন স্মিথ কোনও ভুল করলেন না। অথচ গত কয়েক ম্যাচ ধরে সবকিছু তার বিরুদ্ধে ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে একবারও জেতেননি টস, ছিল না কোনও সেঞ্চুরি। সিরিজ হাতছাড়া হওয়া পর্যন্ত জেতেননি কোনও ম্যাচ। কিন্তু ফরম্যাট ও প্রতিপক্ষ বদলে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্মিথের ভাগ্য বদলে গেল। টস জিতলেন, সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে করলেন সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান। এরপর অবিশ্বাস্য এক ক্যাচ ধরলেন; চ্যাপেল-হ্যাডলি সিরিজে অস্ট্রেলিয়া এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে।
রবিবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার ৬৮ রানের প্রথম ওয়ানডে জয়ের দিনে উল্লেখযোগ্য ঘটনা আরও ছিল। সব ধরনের ফরম্যাট মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪১ ম্যাচে প্রথম সেঞ্চুরি পেলেন কিউই ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল। অজিদের ৮ উইকেটে ৩২৪ রানের সংগ্রহে ফিফটি পেলেন ট্রাভিস হেড। জোশ হ্যাজলউড নিলেন তিন উইকেট। ৪৯ রান করে শেষদিকে নিউজিল্যান্ডের আশা জাগালেন কলিন মুনরো। কিন্তু সবকিছু ছাপিয়ে গেছে স্মিথের অবদান।। ক্যারিয়ার সেরা রান করার পর ফিল্ডিংয়ে অসাধারণ ছিলেন তিনি। ২৫তম ওভারে মিচেল মার্শের তৃতীয় বলে ডানদিকে কাট করলেন বিজে ওয়াটলিং, ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকা স্মিথ গোলরক্ষকের মতো বাঁ দিকে ঝাপিয়ে পড়ে শুধু বাঁ হাতে বল কজ্বা করলেন। বল হাতে নিয়ে নিজেই অবাক হয়ে গেছেন তিনি।
এর আগে স্মিথ গ্যালারিতে উপস্থিত দর্শকদেরও অবাক করেছেন ব্যাট হাতে। সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ১৫৩ ওয়ানডে ম্যাচে এসে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক হলেন স্মিথ। ট্রেন্ট বোল্টের বলে মুনরোর তালুবন্দি হওয়ার আগে অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক করেন ১৫৭ বলে ১৬৪ রান। ১৪টি চার ও ৪টি ছয়ে সাজানো তার রেকর্ডময় এই ইনিংস। সিডনির মাঠে আগের সর্বোচ্চ রান ছিল এবি ডি ভিলিয়ার্সের। দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে করেছিলেন ১৬২ রান। এই মাঠে এর আগে অস্ট্রেলিয়ার সেরা ব্যাটসম্যান ছিলেন এন্ড্রু সাইমন্ডস, ২০০৫-০৬ মৌসুমে ১৫১ রান করেন।
এছাড়া স্মিথ অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান করার তালিকায় সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিংয়ের সঙ্গে যৌথভাবে সপ্তম স্থানে। মূলত তার এই অনবদ্য ইনিংসে দুই দলের পার্থক্য গড়ে দেন অজি অধিনায়ক। অবশ্য ১৩ রানেই তাকে সাজঘরে ফিরতে হতো। বোল্টের ওভারে ডাউন লেগে বল মেরেছিলেন তিনি, উইকেটরক্ষক বিজে ওয়াটলিং বাঁ দিকে ঝুকে পড়েও বল গ্লাভসে নিতে পারেননি। কিউইরা আরেকবার ব্যর্থ ফিল্ডিংয়ের মাশুল দিয়েছে। মাত্র ৭ রানে জীবন পান হেড। এই দুটি উইকেট তুলে নিতে পারলে সফরকারীরা এগিয়ে থাকতে পারত। কারণ ৯২ রানে অজিরা ৪ উইকেট হারালে পঞ্চম উইকেটে স্মিথ ও হেডের জুটিতে যোগ হয় ১২৭ রান। ব্যক্তিগত ৫২ রানে হেড সাজঘরে ফিরলে ম্যাথু ওয়েডকে (৩৮) নিয়ে ৮৩ রানের আরেকটি শক্ত জুটি গড়েন স্বাগতিক অধিনায়ক।
ম্যাট হেনরি, বোল্ট ও জিমি নিশাম ২টি করে উইকেট নিলেও অস্ট্রেলিয়ার রানের পাহাড় গড়ায় বাধা হতে পারেনি তাদের বোলিং।
বড় লক্ষ্যে নেমে হ্যাজলউডের বোলিংয়ে তটস্থ হয়ে পড়ে নিউজিল্যান্ড। ৩৪ রানের মধ্যে এই পেসারের কাছে দুই উইকেট হারায় তারা। এরপর নিশামকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন গাপটিল। তৃতীয় উইকেটে তাদের জুটি সর্বোচ্চ ৯২ রানের। এরপর গাপটিল একাই লড়াই চালিয়ে গেলেও অপর প্রান্তের ব্যাটসম্যানদের কাছ থেকে সহায়তা পাননি। ১০২ বলে ১০ চার ও ৬ ছয়ে ১১৪ রানের ইনিংস সেরা পারফরম্যান্স করে অ্যাডাম জাম্পার বলে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে (বদলি) ক্যাচ তুলে দেন তিনি। এর আগে মুনরোর সঙ্গে ৪৫ রানের জুটি গড়েন এই ওপেনার। শেষদিকে কিউই ব্যাটসম্যানদের আসা যাওয়া আবার শুরু হলে হেনরিকে নিয়ে ৫০ রানের প্রতিরোধমূলক জুটি গড়েন মুনরো। কিন্তু প্যাট কুমিন্সের নবম ওভারের জোড়া আঘাতে সফরকারীদের সব আশা ভেস্তে যায়। নিউজিল্যান্ড শেষ ৩ উইকেট হারায় মাত্র ৩ রানের ব্যবধানে।
হ্যাজলউডের তিন উইকেটের পাশাপাশি দুটি করে উইকেট তুলে নিয়ে কিউইদের ২৫৬ রানে গুটিয়ে দেন মার্শ, কুমিন্স ও জাম্পা।
তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেটি হবে আগামী মঙ্গলবার, ভেন্যু ক্যানবেরা।

চেলসিতে বিধ্বস্ত ম্যানসিটি

ম্যানচেস্টার সিটি লাল কার্ড দেখা আগুয়েরো ও ফের্নান্দিনিয়োকে হারানোর আগেই অবশ্য নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিল ইতিহাদের ম্যাচের ফল। যেখানে চেলসির কাউন্টার অ্যাটাকিং ফুটবলে খেই হারানো ম্যানসিটি বিধ্বস্ত ৩-১ গোলে।
ব্যর্থতার ষোলো কলা পূর্ণ হলো ম্যাচ শেষ হওয়ার আগ মুহূর্তের দুই লাল কার্ডে। দাভিদ লুইজকে বাজেভাবে ফাউল করায় সরাসরি লাল কার্ড দেখলেন সের্হিয়ো আগুয়েরো, আর ওই ফাউলের সময় হাতাহাতিতে জড়িয়ে আগুয়েরোর মতো একই পরিণতি বরণ মাঠ ছাড়েন সতীর্থ ফের্নান্দিনিয়ো। ম্যানচেস্টার সিটি দুই খেলোয়াড়কে হারানোর আগেই অবশ্য নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিল ইতিহাদের ম্যাচের ফল। যেখানে সফরকারী চেলসির কাউন্টার অ্যাটাকিং ফুটবলে খেই হারানো ম্যানসিটি বিধ্বস্ত ৩-১ গোলে। তাতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানটা সুসংহত হলো চেলসির। ১৪ ম্যাচ শেষে ব্লুদের পয়েন্ট ৩৪, সমান ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে ম্যানসিটি।
উত্তেজনাকর লড়াইয়ে প্রথমার্ধের পারফরম্যান্সে এগিয়ে ছিল ম্যানসিটি। বলের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের কাছে নিয়ে বারবার পরীক্ষা নিচ্ছিল চেলসির রক্ষণের। বিপরীতে সফরকারীরা উঠে আসছিল প্রতি আক্রমণে। যদিও সুবিধা করতে পারছিল না সুযোগ নষ্ট করায়। সের্হিয়ো আগুয়েরো যেমন নষ্ট করেছেন দুটো ভালো সুযোগ। ও দিকে চেলসিও গোল পায়নি এডেন হ্যাজার্ডের ভুলে। অবশ্য বিরতিতে যাওয়ার আগ মুহূর্তে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরাই। যদিও তাতে ম্যানসিটির কৃতিত্বের চেয়ে অবদান বেশি গ্যারি কাহিলের। চেলসির এই ডিফেন্ডারের আত্মঘাতি গোলেই তো লিড নেয় সিটিজেনরা।
বিরতি থেকে ঘুরে এসেও বেশ কয়েকবার চেলসির রক্ষণের পরীক্ষা নিয়েছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা। তারা সফল না হলেও চেলসি ঠিকই ঘুরে দাঁড়ায় ৬০ মিনিটে, যখন ডিয়েগো কোস্তার লক্ষ্যভেদে সমতায় ফেরে সফরকারীরা। মিনিট দশেক পর তো এগিয়েই যায় চেলসির। প্রতি আক্রমণে কোস্তার পাস থেকে ডান প্রান্ত থেকে আড়াআড়ি শটে বল জালে জড়িয়ে দেন উইলিয়াম। পিছিয়ে পড়া স্বাগতিকরা ম্যাচে ফেরার চেষ্টা চালিয়ে তো পারেইনি, উল্টো নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে ধাক্কা খায় এডেন হ্যাজার্ড জাল খুঁজে পেলে। এই গোলটাও ছিল প্রতি আক্রমণ থেকে। নিজেদের অর্ধ থেকে মার্কোস আলোনসোর বাড়ানো লম্বা পাস থেকে দুর্দান্ত এক গোল করেন বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড।
হারতে বসা এই ম্যাচের শেষ দিকে মেজাজ আর ধরে রাখতে পারেনি ম্যানসিটির খেলোয়াড়রা। সে কারণেই হয়তো আগুয়েরোর অমন পাগলাটে ফাউল আর ফের্নান্দিনিয়োর ‘শিশুসুলভ’ আচরণ।

রেকর্ড ষষ্ঠবার বর্ষসেরা অ্যাথলেট বোল্ট

নয়বারের অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন উসাইন বোল্ট রেকর্ড ষষ্ঠবার আইএএএফ বর্ষসেরা পুরুষ অ্যাথলেটের মর্যাদা পেলেন।
রিও অলিম্পিকে ১০ হাজার মিটারে ১৪ সেকেন্ডের ব্যবধানে রেকর্ড ভেঙে স্বর্ণজয়ী আলমাজা আয়ানা হয়েছেন বর্ষসেরা মেয়ে অ্যাথলেট। ১৯৯৩ সালে চীনের ওয়াং জুনজিয়ার গড়া রেকর্ডকে পেছনে ফেলেন এই ইথিওপিয়ান।
রিওতে ১০০ মিটার, ২০০ মিটার ও ৪*১০০ মিটারে তৃতীয়বার অলিম্পিক স্বর্ণ জিতে ‘ট্রিপল ট্রিপল’ নিশ্চিত করেন ৩০ বছর বয়সী বোল্ট। ষষ্ঠবার পুরস্কার হাতে ২০০৮, ২০০৯, ২০১১, ২০১২ ও ২০১৩ সালের বর্ষসেরা অ্যাওয়ার্ডজয়ী জ্যামাইকান বলেছেন, ‘এটা অবশ্যই একটা বিশাল পাওয়া।’ আগামী বছর লন্ডনে বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপের পর অবসর নিতে যাওয়া বোল্ট আরও যোগ করেন, ‘বর্ষসেরা অ্যাথলেট হওয়ার মানে হলো আপনার পরিশ্রম ফলপ্রসূ হচ্ছে। ছয় বছর এটা জেতা মানে আরও বড় কিছু।’
গত অলিম্পিকে ২৯ মিনিট ১৭.৪৫ সেকেন্ডে ফিনিশিং লাইন ছুঁয়ে ২৩ বছর আগের রেকর্ড ভাঙেন আয়ানা। ২৫ বছর বয়সী এই দূরপাল্লার দৌড়বিদ ৫ হাজার মিটারেও জেতেন ব্রোঞ্জ। ডায়মন্ট রেসটাও নিজের করে নেন তিনি।
পুরুষ বিভাগের বর্ষসেরা উদীয়মান তারকার মর্যাদা পেয়েছেন কানাডার আন্দ্রে ডি গ্রাসে। রিওতে ২০০ মিটারে রৌপ্য ও ১০০ মিটারে ব্রোঞ্জ জেতেন এই ২২ বছর বয়সী। উদীয়মান নারী তারকার পুরস্কারটি হাতে পেয়েছেন অলিম্পিক হেপটাথলনের চ্যাম্পিয়ন নাফিসাতু থিয়াম।

ইনিয়েস্তাকে ছাড়াই নামছে বার্সেলোনা

ন্যু ক্যাম্পে এল ক্ল্যাসিকো। রিয়াল মাদ্রিদ আর বার্সেলোনার মধ্যকার এই এক ক্ল্যাসিকো জ্বরে এখন কাঁপছে ফুটবল বিশ্ব। বাংলাদেশ সময় সোয়া ৯টায় শুরু হওয়ার কথা মৌসুমের প্রথম এল ক্ল্যাসিকো লড়াই। তবে জমজমাট এই ম্যাচ শুরুর আগেই বার্সা সমর্থকদের জন্য দুঃসংবাদ। দলটির মাঝ মাঠের কাণ্ডারি আন্দ্রে ইনিয়েস্তাকে ছাড়াই মাঠে নামছে কাতালানরা। লুইস এনরিকে তাকে রেখেছেন সাইড বেঞ্চে।
অক্টোবর থেকেই হাঁটুর ইনজুরিতে ভুগছেন আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা। এল ক্ল্যাসিকোর সপ্তাহখানেক আগেই কিন্তু ইনজুরি থেকে ফিরেছিলেন বার্সা অধিনায়ক। যোগ দিয়েছিলেন অনুশীলনেও। তবুও লুইস এনরিকে তাকে রেখে দিচ্ছেন রিজার্ভ বেঞ্চে। হয়তো দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামাবেন।
রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান একাদশ সাজাতে গিয়ে লুকাস ভাসকুয়েজকে রেখেছেন অ্যাটাকিং মিডফিল্ডে। তার সঙ্গে আক্রমণ সাজাবেন ইসকো এবং ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। একেবারে আক্রমণে, অর্থ্যাৎ ফরোয়ার্ড লাইনে থাকবেন করিম বেনজেমা।
বার্সেলোনা
টার স্টেগান, জেরার্ড পিকে, ইভান র‌্যাকিটিক, সার্জিও, সুয়ারেজ, মেসি, নেইমার, মাচেরানো, আলবা, এস রবার্তো, গোমেজ।
রিয়াল মাদ্রিদ
কেইলর নাভাস, কার্বাজল, সার্জিও রামোস, রাফায়েল ভারানে, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, করিম বেনজেমা, মার্সেলো, কোভাসিস, লুকাস ভাজকুয়েজ, লুকা মডরিচ, ইসনকো।

শীর্ষেই থাকছে আর্জেন্টিনা, দ্বিতীয় স্থানে ব্রাজিল

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ভালো সময় যাচ্ছে না আর্জেন্টিনার। কলম্বিয়ার বিপে সবশেষ ম্যাচ জিতলেও টানা চার ম্যাচ হেরে কিংবা ড্র করে ছাড়তে হয়েছে মাঠ। এমন পারফরম্যান্সের পরও ২৪ নভেম্বর প্রকাশ হতে যাওয়া ফিফার নতুন র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকছে আলবিসেলেস্তেরা। তাদের ঠিক পরেই থাকছে ব্রাজিল, দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে যারা নিঃশ্বাস ফেলছে আর্জেন্টিনার ঘাড়ে।
নতুন র‌্যাংকিংয়ে ব্রাজিল শীর্ষেই উঠে যেত যদি কলম্বিয়ার বিপে হেরে যেত আর্জেন্টিনা। কিন্তু হয়নি তা, ঘরের মাঠে কলম্বিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে জয়ে ফেরার সঙ্গে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থানটাও ধরে রাখল লিওনেল মেসিরা। তিতের ব্রাজিল ২০১০ বিশ্বকাপের আগে সবশেষ ছিল র‌্যাংকিংয়ের চূড়ায়। এর পর পারফরম্যান্সের গ্রাফ নিচে নামার সঙ্গে র‌্যাংকিংয়েও পেছাতে শুরু করে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। টানা ছয় ম্যাচ জিতে সামনের র‌্যাংকিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও খুব কাছে থাকবে শীর্ষস্থানের।
ব্রাজিল দ্বিতীয় স্থানে উঠে যাওয়ার তিন নম্বরে নেমে যেতে হচ্ছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে। চতুর্থ স্থান ধরে রাখছে বেলজিয়াম। তবে কলম্বিয়াকে ষষ্ঠস্থানে নেমে যেতে হচ্ছে চিলি পাঁচে উঠে যাওয়ায়। সেরা দশের বাকি জায়গাগুলো থাকছে আগের মতোই। ইএসপিএন
নতুন ফিফা র‌্যাংকিংয়ে সেরা দশ :
১. আর্জেন্টিনা
২. ব্রাজিল
৩. জার্মানি
৪. বেলজিয়াম
৫. চিলি
৬. কলম্বিয়া
৭. ফ্রান্স
৮. পর্তুগাল
৯. উরুগুয়ে
১০. স্পেন

বিশাখপত্তমে দ্বিতীয় দিন ভারতের

রাজকোট টেস্টে ইংল্যান্ড ও ভারতের মধ্যকার ব্যাটিং তান্ডব দেখেছে ক্রিকেটবিশ্ব। দু’দলের ব্যাটসম্যানদের দারুণ নৈপুণ্যে শেষপর্যন্ত ওই টেস্টটি ড্রয়ের মুখ দেখে।
ইংল্যান্ডের বিপে দ্বিতীয় টেস্টে টস জিতে ব্যাটিং নেমে ধারাবাহিকতা ধরে রাখে ভারত। অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও চেতশ্বর পূজারার সেঞ্চুরিতে ভর করে প্রথম ইনিংসেই বড় সংগ্রহ দাড় করায় স্বাগতিকরা।
জবাবে ব্যাটিং নেমে শুক্রবার দ্বিতীয় দিনে উল্টোচিত্র ইংল্যান্ড শিবিরে। প্রথম ইনিংসে ভারতের করা ৪৫৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে বিপর্যয়ে অ্যালিস্টার কুকের দল। গতকাল দ্বিতীয় দিনেই ১০৩ রান তুলতেই মূল্যবান ৫টি উইকেট হারায় ইংলিশরা।
টস জিতে ব্যাট করতে নামা টিম ইন্ডিয়া প্রথম দিন শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে তোলে ৩১৭ রান। দ্বিতীয় দিনে গতকাল অলআউট হওয়ার আগে তারা তোলে ৪৫৫ রান।
বিশাখাপত্তমে টস জিতে ব্যার্টিংয়ে নেমে ভারতীয় ওপেনার মুরালি বিজয় ২০ ও লোকেশ রাহুল ০ রানে আউট হন। তবে, তিন নম্বরে নামা চেতস্বর পুজারা আর চার নম্বরে নামা দলপতি বিরাট কোহলির ব্যাটে দারুণ জবাব দিতে থাকে স্বাগতিকরা। এই জুটি তুলে নেন ২২৬ রান। ২০৪ বলে ১২টি চার আর দুটি ছক্কায় ১১৯ রান করে অ্যান্ডারসনের দ্বিতীয় শিকারে দলীয় ২৪৮ রানের মাথায় বিদায় নেন পুজারা।
এরপর জুটি গড়েন কোহলি-রাহানে। দলীয় ৩১৬ রানের মাথায় রাহানের বিদায়ে চতুর্থ উইকেট হারায় ভারত। রাহানে অ্যান্ডারসনের তৃতীয় শিকারে বিদায় নেওয়ার আগে করেন ২৩ রান।
কোহলি ৪০১ বলে ১৮টি বাউন্ডারিতে ১৬৭ রান করে বিদায় নেন। এছাড়া রবীচন্দ্রন অশ্বিন ৫৮ ও জয়ন্ত যাদব ৩৫ রান করে আউট হন।
ইংলিশদের হয়ে তিনটি করে উইকেট তুলে নেন জেমস অ্যান্ডারসন এবং মঈন আলি। দুটি উইকেট লাভ করেন আদিল রশিদ।
জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ইংলিশ ওপেনার অ্যালিস্টার কুক বিদায় নেন ২ রান করে। আরেক ওপেনার হাসিব হামিদ করেন ১৩ রান। তিন নম্বরে নামা জো রুট করেন ৫৩ রান। বেন ডাকেট আর মঈন আলি দ্রুত বিদায় নেন। ১২ রানে অপরাজিত বেন স্টোকস এবং জনি বেয়ারস্টো (১২)।
বল হাতে ভারতের হয়ে রবীচন্দ্রন অশ্বিন ২টি উইকেট পান। এছাড়া মোহাম্মদ সামি ও উমেশ যাদব একটি করে উইকেট নেন।

আর্জেন্টিনাকে উড়িয়ে শীর্ষেই ব্রাজিল

বিশ্বকাপে জার্মানির কাছে যে মাঠে লজ্জায় ডুবেছিল ব্রাজিল, সে মাঠেই আর্জেন্টিনাকে উড়িয়ে দিয়েছে স্বাগতিকরা। টানা পঞ্চম জয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের দণি আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে শীর্ষেই থাকলো তিতের দল।
অন্য দিকে টানা চার ম্যাচ জয় না পাওয়া এদগার্দো বাউসার দল বাছাইপর্ব পার হতে না পারার শঙ্কায় পড়েছে। গত তিন ম্যাচে চোটের জন্য ছিলেন না দলের সবচেয়ে বড় তারকা মেসি। কিন্তু ফিরেও দলের ভাগ্য ফেরাতে পারলেন না পাঁচ বারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার। বেলো হরিজন্তের মিনেইরাও স্টেডিয়ামে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপে ৩-০ গোলের এই জয়ে প্রথমার্ধে ল্যভেদ করেন ফিলিপে কৌতিনিয়ো ও নেইমার। দ্বিতীয়ার্ধে ব্যবধান বাড়ান পাওলিনিয়ো। বিরতির পর একতরফা খেলা স্বাগতিকদের বেশ কয়েকটি সুযোগ নষ্ট না হলে ব্যবধান আরও বড় হতো।
‘সুপার কাসিকোর’ উত্তাপ অবশ্য বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোর পৌনে ছয়টায় শুরু হওয়া এই ম্যাচের প্রথম ২০ মিনিটে পাওয়া যায়নি। এ সময় বল দখলে এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনাই।
২৩তম মিনিটে লিওনেল মেসির পাস থেকে লুকাস বিগলিয়ার জোরালো শট ডানে ঝাঁপিয়ে ঠেকান ব্রাজিল গোলরক আলিসন।
আর্জেন্টিনা প্রথম সুযোগটা কাজে লাগাতে না পারলে কি হবে, দুই মিনিট পর নিজেদের প্রথম সুযোগেই কৌতিনিয়োর দুর্দান্ত গোলে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। নেইমারের পাস পাওয়ার পর আড়াআড়ি দৌড়ে দুই খেলোয়াড়কে এড়িয়ে ডি-বক্সের একটু বাইরে থেকে বুলেট গতির শট নেন লিভারপুলের এই তারকা। বল জালে জড়ায় ওপরের ডান কোণা দিয়ে; ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পাননি গোলরক সের্হিও রোমেরো।
৩৭তম মিনিটে মেসির ফ্রি-কিক রণ দেয়ালে প্রতিহত হয়। পরের মিনিটে পাল্টা আক্রমণে বল নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া নেইমার দুরূহ কোণ থেকে শট নিয়েছিলেন; তবে বল লাগে পোস্টের বাইরের দিকে।
৪২তম মিনিটে সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিল অতিথিরা। তবে আনহেল দি মারিয়ার বাড়ানো বলে ডি-বক্সের ভেতর থেকে ডিফেন্ডার এমানুয়েল মাসের নীচু শট দূরের পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়।
বিরতির ঠিক আগে দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে ব্যবধান বাড়ান নেইমার। গাব্রিয়েল জেসুসের বাড়ানো বল ডি-বক্সে নিয়ন্ত্রণে নিতে একেবারে ঠিক সময়ে দৌড় দিয়েছিলেন বার্সেলোনার এই তারকা ফরোয়ার্ড। গোলরক রোমেরোর পাশ দিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় বল জালে পাঠিয়ে তুলে নেন জাতীয় দলের হয়ে তার ৫০তম গোলটি।
বিরতির পর ম্যাচের পুরো নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় স্বাগতিকরা। দ্বিতীয়ার্ধে অনুজ্জল মেসি সুযোগ তৈরি করতে পারেননি। ম্যাচে তার প্রভাব কমানোর কৌশল নেওয়ার কথা আগেই জানিয়েছিলেন ব্রাজিল কোচ তিতে। তাতে পুরোপুরি সফল স্বাগতিকরা। আর বিরতির পরপরই বদলি হিসেবে নামা সের্হিও আগুয়েরো ছিলেন বিবর্ণ।
৫৫তম মিনিটে ডিফেন্ডারদের ভুলে বল নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে গোলরককে কাটিয়ে প্লেসিং শট নিয়েছিলেন পাওলিনিয়ো। গোললাইন থেকে বল বিপদমুক্ত করে সে যাত্রা ব্যবধান বাড়াতে দেননি পাবলো সাবালেতা। পাল্টা আক্রমণে দি-মারিয়ার শট সাইড নেটে জড়ায়।
তবে তিন মিনিট পর ডিফেন্ডারদের বোঝাপড়ার ঘাটতিতে জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলে ব্রাজিল। মার্সেলোর ক্রস বিপদমুক্ত করতে পারেননি মাস। রেনাতো আগুস্তোর কাটব্যাকে পাওলিনিয়োর শট ফুনেস মোরির পায়ে লেগে জালে জড়ায়।
৬৮তম মিনিটে নেইমার ডি-বক্সে বিপজ্জনক জায়গায় বল পেয়েছিলেন। সাবালেতা কর্নারের বিনিময়ে সে যাত্রা দলকে বিপদমুক্ত করেন।
৭৯তম মিনিটে পাওলিনিয়োর বাড়ানো বলে আবারও ডি-বক্সে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন নেইমার। এবার গোলরক এগিয়ে এসে বলে কোনোরকমে হাত ছুঁইয়ে কর্নারের বিনিময়ে বিপদমুক্ত করেন।
৮৫তম মিনিটে ডান দিক থেকে রেনাতোর ক্রসে খুব কাছ থেকেও বদলি হিসেবে নামা ফিরমিনো পা ছোঁয়াতে না পারায় ব্যবধান আর বাড়েনি।
দুই বছর আগে বেলো হরিজন্তেতেই বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে উড়ে গিয়েছিল ব্রাজিল। তবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের হারিয়ে সেই ভরাডুবির তে কিছুটা প্রলেপ দিতে পারলো স্বাগতিকরা।
দুর্দান্ত এই জয়ে ১১ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই থাকল ব্রাজিল। তিতে দায়িত্ব নেওয়ার পর এ নিয়ে টানা ৫ ম্যাচ জিতল পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানেই থাকল আর্জেন্টিনা।
দণি আমেরিকা অঞ্চল থেকে শীর্ষ চারটি দল সরাসরি খেলবে রাশিয়া বিশ্বকাপে। পঞ্চম দলটিকে প্লে-অফ খেলতে হবে ওশিয়ানিয়া অঞ্চলের সেরা দলের সঙ্গে।
অন্য ম্যাচে একুয়েডরকে ২-১ গোলে হারানো উরুগুয়ে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে। চিলির সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করা কলম্বিয়া তৃতীয় ১৮ পয়েন্ট নিয়ে।
চিলির সমান ১৭ পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে একুয়েডর।
পেরুর কাছে ৪-১ গোলে হারা প্যারাগুয়ে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে আর্জেন্টিনার ঠিক পেছনেই আছে। চতুর্থ জয় পাওয়া পেরু ১৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে অষ্টম স্থানে।
বলিভিয়াকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে এবারের বাছাইপর্বে প্রথম জয় পেয়েছে ভেনেজুয়েলা। ৪ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে থাকা বলিভিয়ার চেয়ে ১ পয়েন্ট এগিয়ে দেশটি।

আর্জেন্টিনাকে একতাবদ্ধ থাকার আহবান মেসির

ব্রাজিলের কাছে হারে সব কিছু শেষ হয়ে যায়নি – আর্জেন্টিনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি দলকে এই বার্তাই দিয়েছেন। নেইমারদের কাছে উড়ে যাওয়ার পর সতীর্থদের সংঘবদ্ধ থাকার আহবান জানিয়েছেন তারকা এই ফরোয়ার্ড। ফিলিপে কৌতিনিয়ো, নেইমার ও পাওলিনিয়োর গোলে বেলো হরিজন্তের মিনেইরাও স্টেডিয়ামে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের ৩-০ ব্যবধানে হারায় ব্রাজিল। এ নিয়ে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে টানা চার ম্যাচ জয়হীন থাকল আর্জেন্টিনা।
ম্যাচ শেষে মেসি বলেন, “আমরা এই ফল আশা করিনি। প্রথম গোলের আগে পর্যন্ত ম্যাচটি সমানে সমান ছিল, আমরা ভালো খেলছিলাম।”
“আমাদের শক্তিশালী হতে হবে আর এই পরিস্থিতি থেকে বের হতে হবে। আজ আমাদের অন্য যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি একতাবদ্ধ হতে হবে। আমরা সবাই একই জিনিস চাই: বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়া।”
এই হারের পর ১১ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে আর্জেন্টিনা। তিতে দায়িত্ব নেওয়ার পর এ নিয়ে টানা ৫ ম্যাচ জেতা ব্রাজিল ২৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে।
মেসি অবশ্য ব্রাজিলের কাছে হেরে যাওয়া নিয়ে না ভেবে কলম্বিয়া ম্যাচে মনোযোগ দিতে চান।
“আমাদের এখন কলম্বিয়া নিয়ে ভাবতে হবে আর যে ভুলগুলো আমরা করে আসছি তার পুনরাবৃত্তি করা যাবে না।”
“এই সব খারাপের মধ্যে ভালো বিষয় এই যে (বিশ্বকাপের মূল পর্বে যাওয়ার েেত্র) আমরা আমাদের উপরই নির্ভরশীল, কিন্তু আমরা আর পয়েন্ট হারাতে পারব না।”
দেশের মাটিতে বাংলাদেশ সময় আগামী বুধবার ভোর সাড়ে ৫টায় কলম্বিয়ার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা।

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা, বিশ্বকাপ বাছাইয়ে কে কোথায়?

লাতিন আমেরিকার বিশ্বকাপ বাছাইয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা চার দল সরাসরি সুযোগ পাবে মূল পর্বে। রাশিয়া বিশ্বকাপে পঞ্চম দলেরও খেলার সুযোগ থাকবে, তবে সেটা প্লে অফ বাধা পেরোতে পারলে। শেষ হয়েছে ১১ রাউন্ডের খেলা, বাকি থাকা সাত ম্যাচ আগে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ব্রাজিল। আর আর্জেন্টিনা রয়েছে ষষ্ঠ স্থানে।
চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনাকে ঘরের মাঠে উড়িয়ে দিয়ে শীর্ষস্থানটা ধরে রেখেছে ব্রাজিল। ১১ ম্যাচ শেষে ৭ জয়, ১ হার ও ৩ ড্রতে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার চূড়ায় নেইমাররা। পিছু ছাড়ছে না উরুগুয়ে। ঘরের মাঠে ইকুয়েডরকে হারিয়ে ব্রাজিলের সঙ্গে ব্যবধান রেখেছে আগের মতোই ১ পয়েন্টের। ৭ জয়, ২ হার ও ২ ড্রতে তাদের পয়েন্ট ২৩। তৃতীয় স্থানে কলম্বিয়া, যারা চিলির সঙ্গে গোল শূন্য ড্র করেছে এই রাউন্ডে। ১১ খেলায় তাদের পয়েন্ট ১৮। ১ পয়েন্ট কম নিয়ে চতুর্থ স্থানে ইকুয়েডর। তাদের সমান ১৭ পয়েন্ট চিলিরও, কিন্তু গোল ব্যবধানে ইকুয়েডরের (+৩) চেয়ে পিছিয়ে আছে চিলিয়ানরা (+২)।
এর পরের জায়গাতেই আর্জেন্টিনা। দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের পয়েন্ট ১৬। ১১ খেলায় ৫ জয়ের বিপরীতে তারা হেরেছে ৪টি, ড্রও করেছে ৪ ম্যাচে। তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট পিছিয়ে সপ্তম স্থানে প্যারাগুয়ে। অষ্টম স্থানে থাকা পেরুর পয়েন্ট ১৪।
পয়েন্ট টেবিলে কে কোথায় :
দল ম্যাচ জয় ড্র হার পয়েন্ট
ব্রাজিল ১১ ৭ ৩ ১ ২৪
উরুগুয়ে ১১ ৭ ২ ৩ ২৩
কলম্বিয়া ১১ ৫ ৩ ৩ ১৮
ইকুয়েডর ১১ ৫ ২ ৪ ১৭
চিলি ১১ ৫ ২ ৪ ১৭
আর্জেন্টিনা ১১ ৪ ৪ ৩ ১৬
প্যারাগুয়ে ১১ ৪ ৩ ৪ ১৫
পেরু ১১ ৪ ২ ৫ ১৪
ভেনিজুয়েলা১১ ১ ২ ৮ ৫
বলিভিয়া ১১ ১ ১ ৯ ৪

মেসির জন্যই বার্সায় নেইমার

বার্সেলোনায় লিওনেল মেসির সঙ্গে দারুণ জুটি বেঁধে খেলছেন নেইমার। তাদের বন্ধুত্বও অসাধারণ। আর কাতালান কাবটিতে নেইমারের খেলার পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান আর্জেন্টাইন অধিনায়কেরই। জানালেন স্বয়ং নেইমারের বাবা।
২০১৩ সালে ব্রাজিলিয়ান কাব সান্তোস ছেড়ে বার্সায় যোগ দেন নেইমার। এরপর দলের হয়ে দুটি লা লিগা ট্রফি সহ ২০১৪-১৫ চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতাতেও দারুণ ভূমিকা রাখেন এ সেলেকাও তারকা।
পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী সবসময় নেইমারকে অনুপ্রেরণা দিয়ে আসছে জানিয়ে ২৪ বছর বয়সী এ তারকার বাবা বলেন, ‘আমরা সবাই জানি মেসি কে? সে আমার ছেলের আইডল। নেইমার তার সঙ্গে খেলাটা উপভোগ করে আর মেসির জন্যই নেইমার এখানে খেলছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘আসলে মেসি ও রোনালদো যদি না থাকতো আজকের নেইমার তৈরি হতো না। একই ভাবে পেলে ও ম্যারাডোনা অসংখ্যা ফুটবলারের অনুপ্রেরণা ছিলেন।’ সেই সঙ্গে মেসি এবারের ব্যালন ডি’অরের যোগ্য বলেও দাবি করেন তিনি।
গত সপ্তাহের স্প্যানিশ জায়ান্ট দলটির হয়ে পাঁচ বছরের নতুন চুক্তি করেছেন নেইমার। ফলে ২০২১ সাল পর্যন্ত এখানেই থাকবেন তিনি। এছাড়া এবারের ব্যালন ডি’অরের প্রাথমিক তালিকাতেও রয়েছেন তরুণ এ সেনসেশন।
এদিকে ২০১৬ সালের ব্যালন ডি’অর পুরস্কারটি অবশ্য রিয়াল মাদ্রিদ তারকা রোনালদোর দিকেই হেলে আছে। কারণ তিনি গ্যালাকটিকোদের গত চ্যাম্পিয়নস লিগ ও জাতীয় দল পর্তুগালকে ইউরো ২০১৬ জিতিয়েছেন।

মেসির প্রস্থান পিতা হারানোর মতোই!

দু’জনই বেড়ে উঠেছেন বার্সেলোনার একাডেমি লা মেসিয়ায়। দু’জনের বয়সই ২৯। লিওনেল মেসিকে যে কয়জন খুব কাছ থেকে দেখেছেন তার মধ্যে অন্যতম জেরার্ড পিকে। বার্সা থেকে মেসিকে হারানোটা বাবা হারানোর সঙ্গে তুলনা করছেন স্প্যানিশ তারকা।
সময়ের পরিক্রমায় নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন আর্জেন্টাইন আইকন। পিকের মাঝে যেন প্রিয় সতীর্থকে হারানোর ভয়ই কাজ করছে। বিশ্বকাপজয়ী এ ডিফেন্ডার সতর্কই করে দিয়েছেন, মেসির প্রস্থানে গভীর প্রভাব পড়বে, শোকাবহ পরিস্থিতির মুখে পড়বে বার্সা।
২০০৪ সালে কাতালানদের একাডেমি থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে পাড়ি জমিয়েছিলেন পিকে। রেড ডেভিলসদের হয়ে ওই বছরই পেশাদার ফুটবলে পা রাখেন। ওল্ড ট্রাফোর্ডে চার মৌসুম কাটিয়ে ফিরে আসেন ন্যু ক্যাম্পে।
বার্সার জার্সিতে এখন পর্যন্ত মেসির সঙ্গে ২৪টি শিরোপা উঁচিয়ে ধরেছেন পিকে। এ সময়ের মধ্যে পাঁচবার বিশ্বসেরা খেলোয়াড়ের খেতাব ফিফা ব্যালন ডি’অর ট্রফি জিতেছেন বিশ্ব ফুটবলের ুদে জাদুকর।
এক সাাৎকারে মেসিকে নিয়ে নিজের অভিমত তুলে ধরেন পিকে, ‘মেসি সম্পূর্ণরূপে অনন্য… যেদিন সে বার্সা ছেড়ে যাবে ওইদিনটি হবে কারো বাবা হারানোর মতোই। আমরা সবাই এখন লিওকে (মেসি) নিয়ে কথা বলছি, কিন্তু একদিন সে এখানে থাকবে না এবং আমরা শূণ্য হয়ে যাব। তবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বজায় রাখতে আমাদের আবারো নতুন করে শুরু করতে হবে।’
লা মেসিয়ার সোনালি প্রজন্মের একজন মেসি। যেখান থেকে উঠে এসেছেন পিকে, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, জাভি হার্নান্দেজ, কার্লোস পুয়োল ও সার্জিও বুসকেটসের মতো তারকা ফুটবলাররা।
ভবিষ্যতে এমন প্রজন্মের দেখা মিলবে না বলেও সতর্কতা ব্যক্ত করেছেন পিকে, ‘এখানে আর কোনো মেসি থাকবে না। আমরা তা প্রত্যাশাও করছি না। লা মেসিয়া থেকে জাভি, বুসকেটস, পুয়োল, ইনিয়েস্তা ও আমার মতো কেউ বেরিয়ে আসবে না। আশা করা যাক, এমনটি হতে পারে, কিন্তু আমি মনে করি না এমনটি হবে।’
১৩ বছর বয়সে নিওয়েলস ওল্ড বয়েজ (১৯৯৪-২০০০) ছেড়ে স্পেনে উড়াল দেন মেসি। ২০০৪ সালে তার বার্সার মূল দলে অভিষেক ঘটে। এরপর তো সবই ইতিহাস। কাতালানদের হয়ে নিজেকে সর্বকালের সেরাদের কাতারে নিয়ে যান বিশ্ব ফুটবলের এ ুদে জাদুকর। কাবের জার্সিতে এরই মধ্যে ২৯টি শিরোপা জিতেছেন।
এদিকে, ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে নামার জন্য তর সইছে না মেসির। অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের বিপে গত ২২ সেপ্টেম্বরের ম্যাচটিতে (১-১) ডান পায়ের পেশীতে চোট পেয়েছিলেন। এরপর থেকেই তিনি খেলার বাইরে।
সব ঠিক থাকলে শনিবারের (১৫ অক্টোবর) দেপোর্তিভো লা করুণ ম্যাচে মেসিকে মাঠে দেখতে পারেন ফুটবলপ্রেমীরা। ন্যু ক্যাম্পে বাংলাদেশ সময় রাত সোয়া ৮টায় ম্যাচটি শুরু হবে। চারদিন পর (বুধবার দিবাগত রাত পৌনে ১টা) চ্যাম্পিয়নস লিগের হাইভোল্টেজ ম্যাচ ম্যানচেস্টার সিটিকে আতিথ্য দেবে বার্সা।

পর্তুগাল দলে ডাক পেলেন রোনালদো

ইউরোর ফাইনালের পর ইনজুরি কাটিয়ে কাবের হয়ে মাঠে নামলেও জাতীয় দলের হয়ে আর মাঠে নামা হয়নি রোনালদোর। ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের প্রথম ম্যাচে দলে ছিলেন না পর্তুগালের এই অধিনায়ক। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে আবারো দলে ডাক পেলেন রিয়াল মাদ্রিদ এই তারকা।
২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের কাছে ২-০ গোলে হেরে যায় পর্তুগাল। এরপর পরবর্তী ম্যাচের আগেই পর্তুগালের কোচ ফার্নান্দো সান্তোস দলে ডাক দিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ তারকা রোনালদোকে। তার সঙ্গে স্কোয়াডে আছেন রিয়াল মাদ্রিদে রোনালদোর সতীর্থ পেপেও।
উল্লেখ্য, বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে ৭ অক্টোবর অ্যান্ডোরার বিপে মাঠে নামবে পর্তুগাল। এরপর ১০ অক্টোবর তৃতীয় ম্যাচে ফারো আইসল্যান্ডের বিপে মাঠে নামবে তারা।

হেনরি-ঝড়ে কঠিন দিন পার করলো ভারত

সবশেষ চার টেস্টে নেই কোনও হাফসেঞ্চুরি। সর্বোচ্চ ৪৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দ্বিতীয় টেস্টে। বিরাট কোহলির ফর্মহীনতার উদাহরণ দেওয়ার জন্য অতদূরে যাওয়ার দরকার নেই, নিউজিল্যান্ডের বিপে ঘরের মাঠের সিরিজটাই তো রাজসাী!
প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসে তার রান যথাক্রমে ৯ ও ১৮। ইডেন গার্ডেনেও সেই ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরোতে পারলেন না ভারতীয় টেস্ট অধিনায়ক। এবার আউট হয়েছেন ৯ রান করে। অধিনায়কের ব্যর্থতার দিনে উজ্জ্বলতা ছড়িয়েছেন অবশ্য চেতশ্বর পূজারা ও আজিঙ্কা রাহানে। এই দুই ব্যাটসম্যানের হাফসেঞ্চুরিতেই আসলে মুখরা হয়েছে ভারতের। নইলে ম্যাট হেনরি যে তাণ্ডব শুরু করেছিলেন, তাতে ৭ উইকেটে ২৩৯ রান নিয়েও হয়তো দিন শেষ করা হতো না স্বাগতিকদের!
সকালে জোড়া আঘাতে হেনরি ফেরান টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ভারতের দুই ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও মুরালি বিজয়কে। দলীয় ১ রানে মাথায় ধাওয়ান (১) বোল্ড হয়ে ফেরেন কিউই পেসারের বলে। খানিক পর আবারও আঘাত হেনরির। এবার ৯ রান করা বিজয়কে উইকেটরক বিজে ওয়াটলিংয়ের গ্ল্যাভসবন্দি করান তিনি। মাত্র ২৮ রান ২ উইকেট হারিয়ে ধুকতে থাকা ভারতকে চাপ থেকে টেনে তুলতে মাঠে আসেন অধিনায়ক কোহলি। কিন্তু পারেনি, উল্টো আরও একবার ব্যর্থতার অধ্যায় খুলে চাপটা বাড়িয়ে যান তিনি। ট্রেন্ট বোল্টের বলে ধরা পড়েন টম ল্যাথামের হাতে।
এর পরই আসলে দেখা মেলে আসল ভারতের। টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপর্যয় কাটানোর দায়িত্বটা দারুণভাবে সেরেছেন পূজারা ও রাহানে। প্রথম টেস্টেও ফর্মে থাকা পূজারা দেখা পান টানা তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি। ৬২ ও ৭৮ রানের পর ইডেন টেস্টের প্রথম ইনিংসে খেলেছেন কার্যকরী ৮৭ রানের ইনিংস। এর পরও আফসোসে পুড়ছেন নিশ্চয়, কঠিন পরিস্থিতিতে ক্রিজে সেট হয়ে যাওয়ার পরও যে পূরণ করতে পারলেন না সেঞ্চুরি। একই কষ্ট রাহানেরও। তিনিও যে ৭৭ রানের ইনিংস খেলে আশা জাগিয়েছিলেন সেঞ্চুরির। যদিও চতুর্থ উইকেটে তাদের ১৪১ রানের জুটিতে ভারত কিন্তু তৃপ্তই। রাহানে আউট হওয়ার আগেই অবশ্য ফিরে যান রোহিত শর্মা। মাত্র ২ রান করে ফেরেন তিনি জিতেন প্যাটেলের বলে। আর সবশেষ রবিচন্দ্রন অশ্বিনের (২৬) আউটে সপ্তম উইকেট হারায় ভারত। দিনের শুরুর মতো শেষের আঘাতটাও হেনরির। সারা দিনই ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের কঠিন পরীা নেওয়া এই পেসারের ৩৫ রানে শিকার ৩ উইকেট। প্যাটেল নিয়েছেন ২ উইকেট।

বাংলাদেশের কাছে সেই হার এখনো পোড়াচ্ছে ধোনিকে

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর বিশ্বব্যাপী মুক্তি পাচ্ছে মহেন্দ্র সিং ধোনির বায়োপিক এমএস ধোনি: ‘দ্য আনটোল্ড স্টোরি’। ধোনির ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। নিউইয়র্কে তার বায়োপিক রিলিজ সম্পর্কিত এক অনুষ্ঠানে খেলোয়াড়ী জীবনের সবচেয়ে তিক্ত অভিজ্ঞতাই জানালেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। কী সেই বাজে অভিজ্ঞতা? ২০০৭ সালে বাংলাদেশের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়েছিল ভারত। সেই হারের দুঃস্মৃতি এখনো পোড়াচ্ছে ধোনিকে।

রাহুল দ্রাবিড়ের নেতৃত্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজে মাটিতে ২০০৭ বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডেই বিদায় নিয়েছিল ভারত। গ্রুপপর্বে বারমুডার বিপক্ষে জয় পেয়েছিল তারা। কিন্তু শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের কাছে হেরেছিল টিম ইন্ডিয়া। দেশে ফেরার পর সমর্থকের রোষের কবলে পড়তে হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেটারদের। দ্রাবিড় ও ধোনির বাড়িতে ঢিল ছুঁড়েছিলেন ক্ষুব্ধ সমর্থকরা। ঘটনার স্মৃতিচারণ ধোনি করলেন এভাবে, ‘ভারত ক্রিকেট ম্যাচ হারলে সমর্থকরা এমন আচরণ করেন মনে হয়, আমরা কোনো বড় অপরাধ করেছি। আমরা খুনি কিংবা আমরা আতঙ্কবাদী।’

দিল্লি বিমানবন্দরে নামার পর ভারতীয় ক্রিকেটারদের কী অবস্থা হয়েছিল? তার বর্ণনা দিতে গিয়ে ধোনি বলেন, ‘দিল্লিতে নামার পর দেখি, প্রচুর মিডিয়া অপেক্ষা করছিল। আমাদের পুলিশ ভ্যানে করে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। গাড়িতে আমি ঠিক শেবাগের পাশে বসেছিলাম। গাড়ির গতি ছিল ৬০-৭০ কিমি। রাস্তাটা ছিল সরু। মিডিয়ার গাড়িও আমাদের পেছনে চলছিল। তাদের ক্যামেরা ও লাইট আমাদের গাড়ির উপর পড়ছিল। মনে হচ্ছিল আমরা কোনো বড় অপরাধ করেছি। কিছুটা যাওয়ার পর পুলিশ স্টেশনে আমাদের নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানে আমরা প্রায় ১৫-২০ মিনিট বসেছিলাম। তার পর আমাদের গাড়ি ছেড়েছিল। এই ঘটনা আমার জীবনে বিরাট প্রভাব ফেলেছিল। অনেকে মনে করেন, আমাদের কোনো আবেগ নেই। কিন্তু খেলোয়াড়দেরও আবেগ থাকে, সেটা বুঝতে পারে না। তবে এমন নয় যে সাংবাদিক বৈঠক ডেকে আমরা কান্নাকাটি করব।’

প্রসঙ্গত, ২০০৭ সালে ১৭ সেপ্টেম্বর পোর্ট অব স্পেনে বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের ম্যাচে টাইগারদের মুখোমুখি হয়েছিল ভারত। ওই ম্যাচে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছিল টাইগাররা। টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়। সৌরভ গাঙ্গুলির ফিফটিতে (৬৬ রান) ভর করে ১৯১ রান তুলেছিল ভারত। জবাবে তামিম ইকবাল (৫১), সাকিব আল হাসান (৫৩) ও মুশফিকুর রহিমের (৫৬*) ব্যাটিং নৈপুণ্যে ৯ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন মুশফিক ও আশরাফুল (৮*)।

রোনালদোহীন পর্তুগালের বড় জয়

ইউরোর শিরোপা ঘরে তোলার পর নিজেদের প্রথম ম্যাচেই বড় জয় পেয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়া খেলতে পর্তুগাল। বৃহস্পতিবার জিব্রাল্টারকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বর্তমান ইউরো চ্যাম্পিয়নরা।

পোর্তোয় ম্যাচের শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের রক্ষণে চাপ ধরে রেখে খেলতে থাকে পর্তুগাল। এরই ধারানাহিকতায় ম্যাচের ২৭ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন নানি। প্রথমার্ধের বাকি সময় প্রতিপক্ষের রক্ষণে চাপ ধরে রাখলেও আক্রমণভাগের ব্যর্থতায় বিরতির আগ পর্যন্ত আর গোলের দেখা পায়নি পর্তুগিজরা।

বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচের ৫৫ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন অধিনায়ক নানি। ম্যাচের ৭৩তম মিনিটে ডিফেন্ডার জোয়াও কানসেলো ব্যবধান আরও বাড়ান। এর তিন মিনিট পর দলের চতুর্থ গোলটি করেন মিডফিল্ডার বের্নার্দো সিলভা। আর ৭৯তম মিনিটে স্কোরলাইন ৫-০ করেন রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার পেপে।

আগামী মঙ্গলবার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে পর্তুগিজরা। ‘বি’ গ্রুপে তাদের অন্য চার প্রতিপক্ষ হলো হাঙ্গেরি, ফারো আইল্যান্ডস, লাটভিয়া ও অ্যান্ডোরা।

৩৩ বছর পর ব্রাজিলের জয়

পেলে-রোমারিও-রোনালদো-রোনালদিনহোরা যা পারেননি অলিম্পিকে তা করে দেখিয়েছেন নেইমার। এবার ইকুয়েডরের রাজধানী কিতোয় ৩৩ বছর জয়শূন্য থাকার হতাশাটাও কাটালেন ব্রাজিলের এই তারকা। নিজে গোল করে ও করিয়ে দলকে এনে দিলেন ৩-০ গোলের দুর্দান্ত এক জয়।

বৃহস্পতিবার রাতে প্রথমার্ধে কোন দলই নিশ্চিত কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। সময়ের অন্যতম সেরা তারকা নেইমারসহ ব্রাজিলের কেউই এই অর্ধে নিজেকে মেলে ধরতে পারেনি। ফলে গোল শূন্য অবস্থায় বিরতিতে যায় দুই দল।

বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে ব্রাজিল। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ৬৫ মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পায় ব্রাজিল; কিন্তু ১০ গজ দূরে ফাঁকায় বল পেয়েও ক্রসবারের উপর দিয়ে বল উড়িয়ে মারেন মিডফিল্ডার রেনাতো অগুস্তো। ম্যাচের ৭২ মিনিটে ক্ষিপ্র গতিতে বল পায়ে ডি বক্সে ঢুকে পড়া জেসুসকে গোলরক্ষক আলেক্সান্দার দোমিনিগেস ফাউল করায় পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি। পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্রাজিলকে এগিয়ে দেন নেইমার।

ম্যাচের ৮৭তম মিনিটে চমৎকার গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জেসুস। মার্সেলোর বাড়ানো বলে অসাধারণ ব্যাক-হিলে লক্ষ্যভেদ করেন ১৯ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। আর যোগ করা সময়ে বাঁ দিক থেকে নেইমারের বাড়ানো বল ধরে ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে জোরালো শটে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন জেসুস। বাকি সময় আর গোল না হলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল। আর নতুন কোচ তিতের অধীনে ব্রাজিলের শুরুটাও হল দুর্দান্ত।

মেসির গোলে আর্জেন্টিনার জয়

অবসর ভেঙ্গে দলে ফিরলেন পুরনো রূপে। দলের সেরা তারকা মেসির দেওয়া গোলেই বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে লাতিন আমেরিকার পয়েন্ট তালিকার সবার উপরে থাকা উরুগুয়েকে হারিয়ে শীর্ষে উঠে এলো দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা।

ঘরের মাঠে আগে থেকেই ছিলেন না হিগুয়েন। ইনজুরির কারণে দলে ছিলেন না আগুয়েরো ও পাস্তোরে। তবে আক্রমণভাগ ও মাঝমাঠের গুরুত্বপূর্ণ তিন খেলোয়াড় না থাকলেও অবসর ভেঙে ফেরা মেসির নৈপুণ্যে শুরু থেকেই উরুগুয়ের রক্ষণে চাপ বাড়ায় আর্জেন্টিনা। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ৩২মিনিটে অনেকটা দূর থেকে দিবালার নেওয়া শট লাগে ডান পোস্টে লাগলে হতাশ হয় স্বাগতিক দর্শকরা।

ম্যাচের ৪২ মিনিটে দলকে এগিয়ে দেন মেসি। প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের মাঝে বাঁ পায়ে দারুণ ছোঁয়ায় বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এক জনকে কাটিয়ে জোরালো শট নেন বার্সেলোনা তারকা। বল প্রতিপক্ষের এক জনের পায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়ায়। ম্যাচের ৪৫ মিনিটে গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন সফরকারী দলের খেলোয়াড় সুয়ারেজ। বল পায়ে বাঁদিক দিয়ে ডি বক্সে ঢুকে পড়লেও শট নিতে দেরি করে ফেলায় গোল করতে ব্যর্থ হন এই তারকা।

এদিকে প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে বড় এক ধাক্কা খায় স্বাগতিকরা। লাল কার্ড দেখে দিবালা মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হয় মেসির দল। এ অবস্থায় বিরতিতে যায় দুই দল।

বিরতি থেকে ফিরে গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে ওঠে উরুগুয়ে। উল্টো ম্যাচের ৫৪ ২৫ গজ দূর থেকে মেসির জোরালো শট জালে ঢোকার মুহূর্তে কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান গোলরক্ষক মুসলেরা। বাকি সময়ে সুয়ারেজ বেশ কবার স্বাগতিক রক্ষণ ভেঙে ঢুকে পড়লেও ফিনিশিংয়ে অভাবে গোলের দেখা পাননি। বাকি সময় কোন গোল না হলে জয় দিয়েই নিজের প্রত্যাবর্তন করেন মেসি।

৩ বছরের ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুর জন্য অলিম্পিক পদক বিক্রি!

একেই বলে মানবতা! ৩ বছরের ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুর জন্য অলিম্পিক পদকটাই বিক্রি করে দিলেন পিয়ত্র মালাচোয়াস্কি। সদ্য সমাপ্ত রিও অলিম্পিকে রৌপ্য পদক জিতেছিলেন ৩৩ বছর বয়সী পোল্যান্ডের এই অ্যাথলেট।
আর্থিক সমস্যার কারণে ৩ বছরের শিশুটির চিকিৎসা ঠিকমতো চলছিল না। পিয়ত্র মালাচোয়াস্কির কাছে আর্থিক সাহায্য চেয়েছিল শিশুর মা। তাই নিজের সবচেয়ে বরপ্রাপ্তিই (অলিম্পিকে রৌপ্য পদক) বিক্রি করে মানবতার সেবায় অংশ নিলেন তারকা এই খেলোয়াড়।
নিজের ফেসবুক পেজে পিয়ত্র মালাচোয়াস্কি লিখেছেন, ‘আমি অলিম্পিকে সোনার জন্য লড়াই করেছি। তবে এই লড়াই অলিম্পিকে সোনার থেকেও বড়। আমার রৌপ্য পদকের মূল্য আরো বাড়িয়ে দেওয়ার সুযোগ এটাই (মানবতার সেবায় অংশ নেয়া)।’

উয়েফা বর্ষসেরা রোনালদো

ইউরোপের বর্ষসেরা ফুটবলার হিসেবে পুরস্কার জিতলেন পর্তুগালের অধিনায়ক ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তিন জনের সংপ্তি তালিকায় আরও ছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকার কাব সতীর্থ ওয়েলস তারকা গ্যারেথ বেল এবং স্প্যানিশ জায়ান্ট অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের ফরাসি তারকা অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যান।
মোনাকোতে শুরু হয় চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বের ড্র অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানেই ঘোষণা করা হয় বিজয়ীর নাম। দ্বিতীয়বারের মতো রোনালদোর হাতে উঠলো এই পুরস্কার। এর আগে ৩১ বছর বয়সী রোনালদো ২০১৪ সালে প্রথমবারের মতো এই পুরস্কার হাতে নিয়েছিলেন। ইউরোপের সাংবাদিকদের ভোটে প্রতি বছর মহাদেশের কাবগুলোয় খেলা ফুটবলারদের মধ্যে এই পুরস্কার দেওয়া হয়। সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করার েেত্র আগের মৌসুমে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক দুই পারফরম্যান্সই বিবেচনা করা হয়।
উয়েফার বর্ষসেরার হওয়ার দৌড়ে রোনালদো এগিয়ে থাকবেন এটা অনেকটা নিশ্চিতই ছিল। ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের আসরে পর্তুগালকে শিরোপা জিতিয়েছেন তিনি। কাবের হয়ে জিতেছেন গতবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা। এমন দুর্দান্ত পারফর্মে মৌসুম শেষ করা রোনালদো ফেভারিট হিসেবেই ছিলেন তালিকায়।
রোনালদোর কাব সতীর্থ বেলকেও পিছিয়ে রাখা যায়নি। রোনালদোর সঙ্গে গত মৌসুমে রিয়ালকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতিয়েছেন তিনি। আর নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ইউরোয় খেলতে নেমে ওয়েলসকে সেমি-ফাইনালে তুলতে দেশকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন বেল। এদিকে, কাবের হয়ে গ্রিজমান কোনো শিরোপা না জিতলেও জাতীয় দল ফ্রান্সের হয়ে খেলেছেন দুর্দান্ত। ইউরোতে স্বাগতিকদের ফাইনালে উঠতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন গ্রিজম্যান। আসরের সর্বোচ্চ ৬টি গোল করেন তিনি। গত মৌসুমে কাবের হয়ে সর্বোচ্চ গোলও করেন তিনি। অ্যাতলেতিকোকে ফাইনালে তোলেন এই ফরাসি। তবে, জাতীয় দল আর কাবের হয়ে দুই মেজর শিরোপায় তাকে রানার্স আপের দলে থাকতে হয়। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে রোনালদো-বেলের রিয়ালের বিপে হেরে যায় গ্রিজম্যানের অ্যাতলেতিকো। আর ইউরোতে রোনালদোর পর্তুগালের বিপে ফাইনালে হেরে রানার্স আপ হতে হয় তার দেশ ফ্রান্সকে।
ইউরোপীয় ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা উয়েফার ১০ জনের সংপ্তি তালিকা থেকে মেসির সঙ্গে বাদ পড়েন তার কাব সতীর্থ উরুগুয়ের স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। আগেই এই তালিকায় ছিলেন না ব্রাজিলের অধিনায়ক নেইমার। তবে, ১০ জনের তালিকায় থাকা ইতালিয়ান গোলরক জুভেন্টাসের বুফন, রিয়াল মাদ্রিদের জার্মান তারকা টনি ক্রুস, বায়ার্ন মিউনিখের জার্মান তারকা থমাস মুলার, গোলরক মানুয়েল ন্যুয়ের, পর্তুগালের রিয়াল তারকা পেপে বাদ পড়েন।

উয়েফার মৌসুম সেরা গোল মেসির

উয়েফার ২০১৫-১৬ মৌসুমের সেরা গোলের পুরস্কার জিতেছেন বার্সেলোনার ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি। উয়েফার বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের সেরা তিনে জায়গা না পাওয়া মেসির হাতেই উঠলো গত মৌসুমের ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতার সেরা গোলের পুরস্কার।
চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে গত বছরের নভেম্বরে ইতালিয়ান কাব এএস রোমাকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দেয় বার্সেলোনা। ঘরের মাঠ ন্যু-ক্যাম্পে সে ম্যাচে দলের হয়ে অসাধারণ গোলটি করেছিলেন মেসি। রোমার গোলরকের মাথার উপর দিয়ে বল জালে পাঠিয়েছিলেন তিনি।
নেইমার ও সুয়ারেজের সঙ্গে বল দেয়া-নেয়া করে রোমার ডি-বক্সের ভেতর ঢুকে দর্শনীয় এক ফিকে বল জালে পাঠান আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। আর দৃষ্টিনন্দন সেই গোলের জন্য সেরা গোলের পুরস্কার উঠলো আর্জেন্টিনার অধিনায়কের হাতে।
উয়েফার বর্ষসেরা গোল নির্বাচনে ভোটাভুটিতে অংশ নেন ফুটবলভক্তরা। সর্বোচ্চ ৩৪ শতাংশ ভোট পেয়ে মেসি এই পুরস্কার জেতেন। ফুটসাল ইউরোতে দুর্দান্ত এক গোল করা পর্তুগালের রিকার্ডিনহো দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩ শতাংশ ভোট পান। ২০১৬ ইউরোতে পোল্যান্ডের বিপে অসাধারণ এক বাইসাইকেল কিক থেকে করা সুইজারল্যান্ডের জেরদান শাকিরির গোলটি তৃতীয় স্থান পায়।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বর্ষসেরা ক্রিকেটার স্যামুয়েলস

তাকে বলা হয় বড় ম্যাচের ক্রিকেটার। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যে দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে জয়লাভ করেছে সেগুলোতেই ছিল তার অসাধারণ পারফরম্যান্স। দুটি ফাইনালেই হয়েছিলেন ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ। এমন ক্রিকেটারের হাতে ওঠেনি উইন্ডিজ বর্ষসেরা ক্রিকেটার পুরষ্কার সেটি শুনতে বেমানান লাগারই কথা। এবার সেটিই পূরণ হলো। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বর্ষসেরা ক্রিকেটার হলে মারলন স্যামুয়েলস।

শুধু বর্ষসেরা ক্রিকেটারই হননি সঙ্গে হয়েছেন ওয়ানডেরও সেরা খেলোয়াড়। মঙ্গলবার এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তার হাতে পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়। ২০১৬ সালে তিনটি শিরোপার মুখ দেখেচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যুব ক্রিকেট বিশ্বকাপ নিজেদের করে নেওয়ার পাশাপাশি নারী এবং পুরুষ উভয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে অন্যদের ছাড়িয়ে গেছে ক্যারিবীয়রা।

২০১৫ সালের পর থেকে ২২টি ওয়ানডে ম্যাচে ৮৫৯ রান করেছেন স্যামুয়েলস। এর ভেতর ছিল তিনটি সেঞ্চুরি। কিন্তু তার সেরা মুহূর্তটি ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল। ফাইনালের মঞ্চে ৬৬ বলে ৮৫ রান করে দলকে ১৫৬ রান টপকাতে সহায়তা করেন এই ক্রিকেটার।

স্যামুয়েলস ছাড়াও এদিন নারী ক্রিকেটারদেরও সেরা খেলোয়াড়ের নাম প্রকাশ করা হয়। বরাবরের মত স্টেফানি টেলর ওয়ানোডে এবং টি-টোয়েন্টির সেরা খেলোয়াড় হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

বার্সা ছাড়ার কথা ভাবছেন মেসি!

বার্সেলোনার প্রতি তার কৃতজ্ঞতার কথা বহুবার বহু মঞ্চে বলেছেন তিনি। এমনও বলেছেন, পেশাদার ফুটবলের শেষ পর্যন্ত তিনি স্পেনের এই ক্লাবের সঙ্গেই থাকবেন। তবে কর ফাঁকি মামলায় মেসির ২১ মাসের জেল হওয়ায় ২০১৮ সালে চলতি চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার পর প্রাণের ক্লাব বার্সেলোনা ছাড়তে পারেন মেসি।

কোপার শতবর্ষী আসরে টাইব্রেকারে চিলির কাছে শিরোপা হারানোর পরেই কর ফাঁকি মামলায় মেসির ২১ মাসের জেল হওয়ার পর থেকেই কঠিন সময় পার করছে ২৯ বছর বয়সী মেসি। সোমবার `এল পার্টি দে লাস 12` এর কর্মসূচিতে লক্ষ্য করা যায়, এই বিষয়গুলো তাকে বিধ্বস্ত ও হয়রানি করেছে। তিনি এতটাই কঠিন সময় পার করছেন যে বর্তমান ও ভবিষ্যত সম্পর্কে চিন্তা-ভাবনা গভীর চিন্তা করছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে #WeAreAllLeoMessi হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে মেসিকে সমর্থন জানিয়ে সকল বার্সা সমর্থকদের অনুরোধ করে বার্সেলোনা। কিন্তু এতেই ঘটে বিপত্তি। কিছু বার্সা সমর্থক একাত্মতা প্রকাশ করলেও বেশিরভাগ সমর্থকই এর বিরোধিতা করেন। এসব নিয়েও কিছুটা উদাসীন মেসি।

রিও অলিম্পিকে অংশ নিতে পারছেন না শারাপোভা

সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালতে ডোপ পাপের অভিযোগে দু’বছরের জন্য নিষিদ্ধ মারিয়া শারাপোভার শুনানি দু’মাস পিছিয়ে আগামী সেপ্টেম্বরে নির্ধারণ করা হয়েছে। এরফলে রিও অলিম্পিকে অংশ নিতে পারছেন না রাশিয়ান এই তারকা।
চলতি বছরের জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ডোপ পরীক্ষায় ব্যর্থ হন শারাপোভা। এই অপরাধে শারাপোভাকে দু’বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন। এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধেই সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালতের শরণাপন্ন হয়েছিলেন তিনি।
কোর্ট অব আরবিট্রেশন ফর স্পোর্টস (সিএসএ) এক বিবৃতিতে জানায়, শারাপোভা ও আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন আমাদের সিদ্বান্তকে মেনে নিয়েছেন। ১৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে এই শুনানি।
উল্লেখ্য, নিষিদ্ধ থাকার পরও রিও অলিম্পিকের জন্য শারাপোভাকে দলে রেখেছিল রাশিয়ার টেনিস ফেডারেশন। ফেডারেশন ভেবেছিল অলিম্পিকের আগেই শেষ হবে শুনানি!

রোনালদো যখন কোচ

ইউরো ফাইনালের মঞ্চে ২০ মিনিটে ইনজুরির কারণে ম্যাচে নেই তিনি। চোখের জলে সতীর্থ নানির হাতে অধিনায়কের আর্মব্যান্ড পরিয়ে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়লেন। রোনালদো দমে যাননি। খোঁড়া পা নিয়ে চলে আসলেন বদলি খেলোয়াড়দের সঙ্গে। কিন্তু যার রক্তে ফুটবল মিশে আছে সে কি বসে থাকার পাত্র! মাঠে খেলতে পারেননি তার খায়েশ মেটালেন কোচের ডাগআউটে দাঁড়িয়ে কোচিং করিয়ে। অবশ্য কোচের ভূমিকায় শতভাগ মার্ক দিতে তাকে বাধ্য হবেন নিন্দুকেরা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠে চলে আসেন রোনালদো। ডাগআউটে বসেছিলেন। পর্যবেক্ষণ করছিলেন দলের গতিবেগ। গোলশূন্য থাকা ম্যাচ গড়ালো অতিরিক্ত সময়ে। আর তখনই দেখা গেল রোনালদোরকে কোচের ভূমিকায়। দলের একের পর আক্রমণে উত্তেজিত হয়ে পড়ছিলেন রোনালদো। সতীর্থদের দিক নির্দেশনা দিচ্ছিলেন কীভাবে কী করলে ফল আসতে পারে।

কোচ সান্তোসের সঙ্গে তার যুগল বেশ আলো ছড়িয়েছে মাঠের খেলার বাইরেও। ক্যামেরাম্যানরাও অবাক হয়ে বারবার রোনালদোর কোচিংয়ের দিকেই ক্যামেরা নিচ্ছিলেন। প্রথম অতিরিক্ত সময়ের বিরতির সময় দলের সকলের কানে ম্যাচ জয়ের মন্ত্র যপে দিলেন সিআরসেভেন। আর তাতেই কি না ফল এসে গেল।

১০৯ মিনিটে এডারের একমাত্র গোলে ম্যাচে এগিয়ে যায় রোনালদোর পর্তুগাল। ফ্রান্সের সমতায় ফিরে আসা রুখতে রোনালদোর উত্তেজিত দিক নির্দেশনাগুলো কোচ সান্তোসের ভূমিকাকেও হার মানিয়েছে। দিন শেষে ইউরো জিতেই মাঠ ছাড়লেন রোনালদো। খেলোয়াড় হিসেবে তো জিতেছেনই। রোনালদো ভক্তরা চাইলে বলতেই পারে কোচ হিসেবেও ইউরো জিতে ফেলেছেন রোনালদো। কেননা, সত্যিকারের নেতার মত দলকে মাঠের বাইরে থেকেও দলকে একসুতোয় গাঁথার মত কঠিন কাজটি তিনি করেছেন।

ইউরোর সেরা খেলোয়াড় গ্রিজম্যান

হ্যাটট্রিকবার স্বাগতিক দেশ হিসেবে ফ্রান্সের সুযোগ ছিল ইউরো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার। কিন্তু সেটি আর হতে দেয়নি রোনালদোর পর্তুগাল। ইউরোর ফাইনালে পর্তুগালের কাছে ১-০ গোলে হারে তারা। ফাইনাল হারলেও ব্যক্তিগত পুরষ্কারের দিক দিয়ে সবাইকে ছাড়িয়ে গেছে তারা। ইউরোর সেরা খেলোয়াড়, শীর্ষ গোলদাতা দুটি পুরষ্কারই জিতেছে ফ্রান্সের ফুটবলাররা।

টুর্নামেন্টে ৬ গোল করে ইউরো কাপের গোল্ডেন বুট জিতেছেন অ্যান্থনিও গ্রিজম্যান। ৩ গোল এবং ৩টি গোলে সহযোগিতা করে সিলভার বুট জিতেছেন রোনালদো। ব্রোঞ্জ বুট জিতেছেন ফ্রান্সের স্ট্রাইকার অলিভার জিরুড। দলের হয়ে ৩ গোল এবং ২টি গোলে সহযোগিতা করেন তিনি।

অন্যদিকে ইউরোর সেরা খেলোয়াড়ের তকমাটাও জুটেছে গ্রিজম্যানের কপালে। মঙ্গলবার উয়েফার টেকনিক্যাল অফিসার লোয়ান লুপেস্কু টুর্নামেন্টের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে বলেন, ‘অ্যান্থনিও গ্রিজম্যান প্রত্যেক ম্যাচেই বিপক্ষ দলের জন্যে একটি আতঙ্ক ছিল। সে তার দলের জন্য পুরো টুর্নামেন্টে খেলে গেছে।’

পর্তুগালও খালি হাতে বিদায় নেয়নি। টুর্নামেন্টের সেরা উদীয়মান ফুটবলারের পুরষ্কার জিতেছেন মাত্র ১৮ বছর বয়সী রেনাতো সানচেজ। তার একমাত্র গোলেই পোল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে টাইব্রেকারে ম্যাচে যেতে পর্তুগাল। এছাড়াও ইউরোর সেরা গোলকিপার হয়েছেন জার্মানির ম্যানুয়েল নয়্যার।

রাজনীতিতে নাম লেখাচ্ছেন আফ্রিদি!

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোধকরি আর ফেরা হচ্ছে না আফ্রিদির। সেজন্যেই হয়তো আগেভাগেই নিজের ভবিষ্যৎ ঠিক করতে চাইছেন আফ্রিদি। ভবিষ্যতে রাজনীতিতে নামার আশা প্রকাশ করেছেন আফ্রিদি। কিন্তু বর্তমানে দাতব্য কাজের দিকেই মনোযোগ দিতে চাচ্ছেন সাবেক এই টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।

রোববার বিবিসি উর্দুকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আফ্রিদি বলেন, ‘আমি রাজনীতিতে যোগ দেয়ার আশা রাখি। তবে কেউ কেউ তাতে না জড়ানোর পরামর্শও দিয়ে থাকেন। আমার দৃষ্টিতে রাজনীতিবিদরা হলেন জনগণের সেবক। আমি চাই জনগণের সেবা করতে।’

বর্তমানে ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট খেলতে ইংল্যান্ডে রয়েছেন আফ্রিদি। সেখানেই বিভিন্ন দাতব্য সংস্থার কাজে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি। আফ্রিদি বলেন, তিনি দাতব্য ও সামাজিক কাজের মাধ্যমেও জনগণের সেবা করতে চান। কল্যাণমূলক সংগঠনের মাধ্যমে রাজনীতিতে প্রবেশ না করেও আমি জনগণের সেবা করতে পারি। এছাড়াও তার আফ্রিদি ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য একটি স্কুল প্রতিষ্ঠা করতে চান বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ভরাডুবির দরুন অধিনায়কত্বের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় আফ্রিদিকে। এমনকি টি-টোয়েন্টি দলও থেকেও তাকে ছেটে ফেলা হয়। তবে এখনো জাতীয় দলের হয়ে খেলে যেতে চান তিনি।

ন্যানিকে সিলভার বুট উপহার দিলেন রোনালদো

দলের সতীর্থদের সঙ্গে তার বোঝাপড়াটা চরমে। খারাপ সময়েও একে অপরকে সহযোগিতা করে পেয়েছেন সাফল্য। রোনালদোর এমন পারস্পরিক বোঝাপড়ারই ফসল প্রথমবারের মত ইউরো কাপ জয়। নিজের ফুটবল অধ্যায়ের সেরা মুহূর্তটিকে আরো সুন্দর করে দিয়েছে তার সিলভার বুট জয়। কিন্তু সেটিই কি না দিয়ে দিলেন বন্ধু ন্যানিকে।

ইউরো কাপে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ায় সিলভার বুট জেতেন রোনালদো। রোনালদো যখন ২০ মিনিটে ইনজুরির কারণে মাঠ ছেড়ে উঠে যান তখন অধিনায়কের আর্মব্যান্ডটা ন্যানির হাতেই পরিয়ে দিয়েছেন রোনালদো। হয়ত তখন ম্যাচ জয়েরও মন্ত্র যপে দেন তার কানে।

সেই স্পোর্টিং লিসবন থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড পর্যন্ত একই সঙ্গে খেলে আসছেন। টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে ওয়েলসের বিপক্ষে রোনালদোর বাড়ানো বলেই পা ছুঁইয়ে এবারের ইউরোতে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন ন্যানি। একে অপরের এই অসাধারণ বন্ধুসুলভ আচরণ নজর কেড়েছে সবার।

পর্তুগালের হয়েই কিছু জেতা বাকী ছিল, সেটিই জিতে ফেলেছেন রোনালদো। তার আর কিচ্ছু চাই না। তাই নিজের সিলভার বুটটি ন্যানিকে উপহার দিয়েছেন রোনালদো।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ন্যানি বলেন, ‘রোনালদো তুমি অধিনায়কের থেকেও অনেক বড় কিছু। তুমি চ্যাম্পিয়ন। তোমার উপহারের জন্য ধন্যবাদ। আমরা সবাই চ্যাম্পিয়ন।’

রাওনিচের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে উইম্বলডন মারের

লড়াকু টেনিস উপহার দিলেও মিলোস রাওনিচের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের স্বপ্ন এ যাত্রায় পূরণ হলো না। দাপুটে জয়ে রাওনিচের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে তৃতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের উচ্ছ্বাসে ভেসেছেন অ্যান্ডি মারে। লন্ডনে রোববারের পুরুষ এককের জমজমাট ফাইনালে কানাডার রাওনিচকে ৬-৪, ৭-৬ ৭-৬ গেমে হারিয়েছেন স্কটল্যান্ডের মারে।
২০১৩ সালে উইম্বলডন ও ২০১৬ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেনের পর তৃতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যামের স্বাদ পেলেন পুরুষ এককে র‌্যাংকিংয়ের দ্বিতীয় মারে। রজার ফেদেরারকে হারিয়ে প্রথমবার গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে ওঠায় রাওনিচকে নিয়ে কানাডার টেনিসপ্রেমীদের প্রত্যাশার পারদ উচুঁতেই ছিল। তবে চেনা আঙিনায় খেলতে নামা মারে ৬-৪ গেমে প্রথম সেট জিতে লক্ষ্যের পথে এগিয়ে যান এক ধাপ।
Andy-01
দ্বিতীয় সেট লড়াই জমিয়ে তোলেন ষষ্ঠ বাছাই হিসেবে উইম্বলডন শুরু করা রাওনিচ। তবে টাইব্রেকারে হেরে যাওয়ার ২-০ সেটে পিছিয়ে পড়েন তিনি। প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতার আশাও কঠিন হয়ে যায় বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে সপ্তম স্থানে থাকা এই খেলোয়াড়ের। তৃতীয় সেটের খেলাও গড়িয়েছিল টাইব্রেকারে; সেখানে ৭-৬ গেমের জয় নিয়ে শিরোপা উৎসবে মাতেন দ্বিতীয় বাছাই হিসেবে উইম্বলডনের এবারের আসর শুরু করা মারে।

কেরবারের বিপক্ষে প্রতিশোধ নিয়ে স্টেফিকে ছুঁলেন সেরেনা

উইম্বলডনের ফাইনাল জিতে একই সঙ্গে দুটো প্রাপ্তি হয়ে গেলো সেরেনা উইলিয়ামসের। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অ্যাঞ্জেলিক কেরবারের কাছে হারের প্রতিশোধ নেওয়া হলো। টেনিসের উন্মুক্ত যুগে স্টেফি গ্রাফের গড়া রেকর্ডও ছুঁলেন যুক্তরাষ্ট্রের এই তারকা।
শনিবারের ফাইনালে সেরেনার বিপক্ষে কেরবার যা একটু লড়েছিলেন প্রথম সেটে। কিন্তু প্রথম সেট ৭-৫ গেমে হারের পর দ্বিতীয় সেটে ৬-৩ গেম ব্যবধানে উড়ে যান জার্মানির এই খেলোয়াড়।
দাপুটে টেনিস খেলে উইম্বলডনে নিজের সপ্তম শিরোপাটি জিতলেন সেরেনা। উন্মুক্ত যুগে কিংবদন্তি স্টেফি গ্রাফের জেতা ২২টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের রেকর্ডও ছুঁলেন মেয়েদের টেনিসের বর্তমান বিশ্বসেরা। সেরেনার জেতা এককের বাকি শিরোপার মধ্যে ৬টি অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, ৩টি ফ্রেঞ্চ ওপেন ও ৬টি ইউএস ওপেন।
হারের হতাশা নিয়েই সেরেনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন কেরবার, “সব কিছুর আগে আমি সেরেনাকে অভিনন্দন জানাব। তুমি আসলেই এটার যোগ্য, তুমি দারুণ একজন চ্যাম্পিয়ন, দারুণ একজন মানুষ এবং সব সময় তোমার বিপক্ষে খেলাটা সম্মানের।”

ঐতিহাসিক শিরোপার দ্বারপ্রান্তে রোনালদো

২০০৪ ইউরোর ফাইনালে গ্রিসের কাছে ঘরের মাঠে স্বপ্নভঙ্গের স্মৃতিটা হয়তো এখনো ভুলতে পারেননি। তখন ছিলেন ১৯ বছর বয়সী এক উদীয়মান তারকা। সময়ের পরিক্রমায় এখন তিনি বিশ্বসেরাদেরই একজন। এক যুগ পর আরেকটি শিরোপা হাতছাড়া করার চিন্তাই করতে চান না ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পর্তুগালকে প্রথম বড় কোনো ট্রফি এনে দিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তিনবারের ফিফা বর্ষসেরা।

ইউসেবিও-লুইস ফিগোদের মতো স্বদেশী কিংবদন্তিরা যেটা পারেননি তাই করে দেখানোর দ্বারপ্রান্তে রোনালদো। পারবেন তো পর্তুগিজদের আক্ষেপ ঘোঁচাতে? এ যে হবে ঐতিহাসিক শিরোপা।

ইউরোর শিরোপা লড়াইয়ে স্বাগতিক ফ্রান্সকে ফেভারিটই ভাবছেন স্বয়ং রোনালদো নিজেই। কিন্তু সিআর সেভেন এর বিশ্বাস, পর্তুগালই জয়ী হবে। দেশের হয়ে শিরোপা জেতার মিশনে সম্ভবত এটিই তার শেষ সুযোগ!

রোববার (১০ জুলাই) ফ্রান্সের ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১টায় হাইভোল্টেজ ম্যাচটি শুরু হবে। গ্যারেথ বেলের ওয়েলসকে ২-০ গোলে পর্তুগাল ও বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে একই ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে পা রাখে ফ্রান্স।

উয়েফার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রোনালদো বলেন, ‘এটার মানে অনেক কিছুই দাঁড়ায়। এমন কিছু যা আমার সব সময়ের স্বপ্ন। ন্যাশনাল টিমের হয়ে কিছু জিততে চাই। ক্লাব ও ব্যক্তিগত পর্যায়ে সবকিছুই জিতেছি। পর্তুগিজ টিমের হয়ে কিছু জিততে পারাটা হবে বিরাট অর্জন।’

‘আমি মনে করি এটা সম্ভব। সতীর্থ এবং গোটা দেশের ভাবনাটাও তাই। আমাদের ইতিবাচক চিন্তা করতে হবে কারণ আমার বিশ্বাস, রোববারের ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্তুগাল প্রথমবারের মতো বড় কোনো ট্রফি জিতবে।’-যোগ করেন ৩১ বছর বয়সী রোনালদো।

ফাইনাল সামনে রেখে রোনালদোর চোখে, ফ্রান্স ফেভারিট হতে পারে। কিন্তু লিসবনে ২০০৪ সালে তিনি শিখেছেন এটা কতটা কঠিন, হোম কন্ডিশনের সুবিধা সব সময় জয়ের নিশ্চয়তা এনে দেবে না, ‘আমাদের চেয়ে ফ্রান্স খানিকটা ফেভারিট, কিন্তু পর্তুগালের জয়ের ব্যাপারে আমি আশাবাদী।’

গুলশান হামলা: কালো আর্মব্যান্ড পড়ে মাঠে নামবে ইতালি

গুলশানে হামলায় নিহতদের স্মরণে ও শ্রদ্ধায় ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালের খেলায় কালো আর্মব্যান্ড পড়ে মাঠে নামবে ইতালি। আজ শনিবার দিবাগত রাত ১টায় শুরু হওয়া ম্যাচে জার্মানির বিপক্ষে মাঠে নামবে আজ্জুরিরা।
ইতালিয়ান ফুটবল টিমের ভেরিফাইড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে করা এক পোস্টে বলা হয়েছে, ঢাকা অ্যাটাকে নিহতদের স্মৃতিতে কালো আর্মব্যান্ড পড়ে মাঠে নামবে আজ্জুরিরা।
শুক্রবার রাতে গুলশানের ক্যাফে হলি আর্টিজানে হামলা চালায় জঙ্গিরা। তারা বেশ কয়েকজন বিদেশি নাগরিককে জিম্মি করে। ওই হামলায় মোট নিহতের সংখ্যা ২৮ জন। এর মধ্যে আজ শনিবার সকালে ২০ বিদেশির লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত বিদেশিদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ইতালিয়ান। এছাড়া ওই কমান্ডো অভিযানে নিহত হয় ৬ জঙ্গি। এর আগে শুক্রবার রাতে জঙ্গিদের গুলি ও বোমার আঘাতে ২ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হন।

অবসরের পর আর্জেন্টিনায় মেসির মূর্তি

আর্জেন্টিনার জাতীয় দল থেকে দুদিন হল অবসর নিয়েছেন। তাকে হারিয়ে উন্মাতাল আর্জেন্টিনার মানুষ। মেসিকে ফিরিয়ে আনতে বিভিন্ন রকম পদক্ষেপ নিচ্ছে সবাই। প্রেসিডেন্ট থেকে শুরু করে কিংবদন্তি ফুটবলাররা সবাই মেসিকে দ্ব্যর্থহীন ভাষায় অনুরোধ করেছেন ফিরে আসতে। এতসবের মাঝেই আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্সে মেসির মূর্তি স্থাপন করা হলো।
Messi-large2
বুয়েন্স আয়ার্সের মেয়র লারেতা রদ্রিগেজ মেসির মতই দেখতে ব্রোঞ্জের তৈরি একটি মূর্তি স্থাপন করেন বুয়েন্স আয়ার্সে। এ সময় এক বিবৃতিতে মেসিকে আবারো জাতীয় দলে ফিরে আসার জন্য অনুরোধ জানান তিনি।

মেসির অবসরের ঘোষণার ঠিক পরের দিনই এমন মূর্তি উন্মোচনে অনেকের রোষানলে পড়েছেন বুয়েন্স আয়ার্সের মেয়র। এই বুয়েন্স আয়ার্সেই আসছে শনিবার মেসিকে ফিরিয়ে আনতে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। ইতোমধ্যে ক্যাম্পেইনও শুরু করে দিয়েছে দেশটির মেসিপাগল ভক্তরা।

‘সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবেন মেসি’

যুক্তরাষ্ট্রের মেটলাইফ স্টেডিয়াম একটা ট্র্যাজেডির নাম হয়ে থাকবে ফুটবল ইতিহাসে। সেটা চিলির কাছে আর্জেন্টিনার দুঃখজনক পরাজয়ের জন্য নয়। বরং চিলির কাছে হেরে শিরোপা জিততে না পারার দুঃখ থেকে লিওনেল মেসির অবসরের ঘোষণা দেয়ার কারণে।

মেসির হঠাৎ এই অবসর ঘোষণা যেন বাজ ভেঙে পড়ার মত বিশ্বব্যাপী তার ভক্তদের জন্য। সাবেক এবং বর্তমান থেকে শুরু করে বিশ্বের প্রায় সব ফুটবলার, নেতা, সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন, রাজনীতিবিদ এমনকি দিন-দুনিয়ার খবর না রাখা প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক- সবারই আকুল আবেদন, ‘মেসি এমন সিদ্ধান্ত নিও না। সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে আবার ফিরে এসো।’

বিশ্বব্যাপী মেসির সমর্থকরা হয়তো এটা উপলব্ধি করতে পারছেন যে, এই মুহূর্তে সত্যিই তার হৃদয়ের অবস্থা কী। তবে অন্যদের চেয়ে যেন মেসির মনের অবস্থাটা বেশি উপলব্ধি করতে পারছেন তার ক্লাব সতীর্থ, ঘনিষ্ঠ বন্ধু, উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। মেসির বার্সা সতীর্থ তার ইচ্ছাকে সম্মান জানিয়ে বলেন, ‘মেসি কী সিদ্ধান্ত নেবেন সেটা বাছাই করার এখতিয়ার তার নিজের রয়েছে।’

তবে সুয়ারেজ মেসির সিদ্ধান্ত মেনে নিতে না পারলেও তার বিশ্বাস, সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবেন মেসি। উরুগুইয়ান এই স্ট্রাইকার বলেন, ‘মেসির এভাবে চলে যাওয়াটা ফুটবলের জন্যই যেন লজ্জার। তবে আমি নিশ্চিত, তিনি অবশ্যই মত পরিবর্তন করবেন। প্রতিপক্ষ এবং সমালোচনাকারীরা যাই বলুক, আমি তো নিজে জানি, বিশ্বের সেরা ফুটবলার মেসি।’

সুয়ারেজ মনে করেন অবসরের ঘোষণাটা মেসি হতাশা এবং আবেগ থেকেই দিয়েছেন। সুতরাং, হতাশা যখন কেটে যাবে, তখন তিনি এ নিয়ে চিন্তা করবেন। বার্সার উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার বলেন, ‘তিনি অবশ্যই হতাশা এবং দুঃখ থেকেই এই ঘোষণা দিয়েছেন। আশা করি তিনি তার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করবেন এবং নিজের মত পরিবর্তন করবেন।’

মেসিকে থাকার অনুরোধ জানিয়ে প্রেসিডেন্টের ফোন

আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট মাউরিসিও মাক্রি। ফাইল ছবিসাধারণ মানুষের আকুতি তো আছেই। গতকাল সোমবার খবরটা আসার পর থেকেই বিশ্বজুড়ে ফেসবুক-টুইটারে লিওনেল মেসিকে চরম সিদ্ধান্ত না নেওয়ার আকুল আবেদন জানাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। শুধু আর্জেন্টিনার সমর্থকেরা নন, তাতে যোগ দিয়েছেন সবাই। মেসির কাছে সরাসরি ফোন গেছে আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্টেরও। মাউরিসিও মাক্রি মেসির সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেছেন। অনুরোধ জানিয়েছেন, এখনই হুট করে সিদ্ধান্ত নেওয়ার দরকার নেই। মেসিকে যে আর্জেন্টিনার ভীষণ প্রয়োজন।

আর্জেন্টিনার রোজারিওতে জন্ম নেওয়া মেসি সেই শৈশবেই চলে গিয়েছিলেন দেশ ছেড়ে। বেড়ে ওঠা, বড় হওয়া বার্সেলোনাতেই। কিন্তু জাতীয় দল হিসেবে মেসিকে আর্জেন্টিনাকেই বেছে নেন; স্পেন যদিও তাঁকে পেতে প্রাণপণ চেষ্টা করেছিল। এমনকি স্পেনের বয়সভিত্তিক দলের হয়ে মেসিকে খেলানোর আয়োজন প্রায় করেই ফেলেছিল দেশটির ফুটবল সংস্থা। মেসি ​যদি স্পেনের হয়ে খেলত? নামের পাশে একটি বিশ্বকাপ আর দুটি ইউরো থাকত!
কিন্তু নিজ দেশের নাড়ির টান কেইবা অস্বীকার করতে পারে? নিজ দেশের সবচেয়ে বড় সম্পদটাকে আর্জেন্টিনাও এভাবে হারিয়ে ফেলতে চায় না। আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্টের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, মেসি আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নিচ্ছেন জানার পর প্রেসিডেন্ট নিজে থেকে ফোন করেন মেসিকে। অনুরোধ করেন জাতীয় দলের সঙ্গে থেকে ​যেতে। সেই মুখপাত্র বলেছেন, তিনি মেসিকে ফোন করে বলেছেন জাতীয় দলের পারফরম্যান্সে কতটা গর্ব তিনি অনুভব করেন। বলেছেন, মেসি যেন সমালোচনায় কান না দেন। সূত্র: এএফপি

মেসি যেন ট্র্যাজেডির নায়ক

লিওনেল মেসির চোখের শূন্য দৃষ্টিটার দিকে তাকানো যাচ্ছিল না। কোপা আমেরিকার শতবর্ষী ট্রফিটা যখন পোডিয়ামে তোলা হচ্ছিল, তখন সেই শূন্য দৃষ্টিতে ভেস উঠছিল হাহাকার। টানা তিনটি বড় টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠার পরও মেসির এই দৃশ্যটার পরিবর্তন হলো না। এত কাছে, অথচ কত দূরে!

‘ইতিহাস বদলাতে চাই’- মেসির এই কথাটা দিয়েই পুরো বিশ্বের সংবাদ মাধ্যম শিরোনাম করেছিল আগের দিন। মেসির ইতিহাস বদলানো দেখতে আজ ভোর থেকেই টিভি সেটের সামনে বসেছিল কোটির ওপরেও বেশি ভক্ত। যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির মেটলাইফ স্টেডিয়ামে উপস্থিত ৮২ হাজার ২৬ জন দর্শক। কিক অফের বাঁশি বাজার সঙ্গে সঙ্গে উম্মাতাল হয়ে উঠেছিল পুরো মেটলাইফ। মেসি মেসি রবই যেন সবচেয়ে বেশি।

সেই মেসি এতটা হতাশ করবেন কোটি কোটি ভক্ত-সমর্থককে, সেটা কে ভেবেছিল! পুরো ম্যাচেই বোতলবন্দী হয়ে ছিলেন- এটা ঠিক। তবে তার মাপের ফুটবলারের একটি মুভমেন্টই পাল্টে দিতে পারে ম্যাচের চেহারা। এই আত্মবিশ্বাস ছিল মেসি ভক্তকুলের।

কিন্তু কোথায় সেই মুভমেন্ট? মার্কোস রোহোকে লাল কার্ড দেয়ার কারণে মেসিকে নেমে যেতে হলো আরও নীচে। দু’একবার বল নিয়ে বেরোনোর চেষ্টা করেছেন ঠিক, তবে সেটা চিলির ডিফেন্ডারদের কড়া মার্কিংয়ের কারণে পারেননি।

একটি শট নিয়েছিলেন। বাম পায়ের ট্রেডমার্ক শট। চলে গেলো পোস্টেও অনেক বাইরে দিয়ে। পুরো ম্যাচে মেসির অন টার্গেট শট বলতে ওটাই। ফ্রি কিক পেয়েছিলেন কয়েকটা। কিন্তু ম্যাজিকাল ফ্রি কিকের শট নিতে যেভাবে পরিচিত মেসি, সেটার দেখা পাওয়া গেলো না একবারও।

মেসি ঠিক ফাইনালে এসে মেসি হয়ে উঠতে পারলেন না। টুর্নামেন্টের শুরুতে ছিলেন ইনজুরিতে আক্রান্ত। দ্বিতীয় ম্যাচে বদলি হিসেবে নেমেই করলেন হ্যাটট্রিক। এরপর সেমিফাইনাল পর্যন্ত যে জাদু দেখালেন, তাতে সংবাদমাধ্যমগুলো শিরোনাম করতে বাধ্য হয়েছিল, ‘এই আর্জেন্টিনাকে রুখেেব কে?’

কিন্তু হায়! এভাবেই বার বার হতাশায় ডুবতে হয় আর্জেন্টিনা সমর্থকদের! সেই ১৯৯৩ সালের পর থেকে টানা ২৩ বছর। কোন শিরোপা নেই। কোন সাফল্য নেই। ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সই যা আর্জেন্টাইনদের সম্বল।

২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনাল, ২০১৫ এবং ২০১৬ কোপা আমেরিকার ফাইনালে এসেও মেসি ব্যর্থ। পারলেন না শিরোপা খরা ঘোচাতে। পারলেন না নিজের নামের পাশে একটি আন্তর্জাতিক শিরোপা কৃতিত্ব স্থাপন করতে। আর কী কখনও সুযোগ পাবেন তিনি?

নিউজার্সির মেটলাইফ স্টেডিয়ামে মেসি জীবনে দ্বিতীয়বার আসতে চাইবেন কি না সন্দেহ। এখানেই যে ট্র্যাজেডির নায়ক হয়ে রইলেন তিনি। টাইব্রেকারের মত ভাগ্য নির্ধারনী পর্বে এসে এভাবে হতাশা উপহার দেবেন তিনি, নিজের ক্যারিয়ারের সব অর্জন জলাঞ্জলি দেবেন, কে ভেবেছিল? স্বপ্নেও কী কখনও কল্পনা করতে পেরেছিলেন মেসি?

নির্ধারিত ৯০ মিনিট শেষ হওয়ার পর খেলা গড়ালো অতিরিক্ত সময়ে। মেসি বের হতে পারলেন না গোলে একটি শট নিতে। এরপর টাইব্রেকার। শুরুতেই শট নিতে আসেন চিলির মিডফিল্ডার আরতুরো ভিদাল। তার শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকিয়ে দিলেন আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরো।

উল্লাসে ফেটে পড়লো পুরো আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশি সমর্থকরাও কম যায় না। গগনবিধারি চিৎকারে প্রকম্পিত করে তুলেছিল আশপাশের পরিবেশ। কিন্তু এই উল্লাসের আড়ালেই যে চূড়ান্ত দুঃখটা লুকিয়ে রয়েছে, তা কে জানতো? আর্জেন্টিনার হয়ে প্রথম শটটি নিতে এলেন মেসি। চিয়ার্স চিয়ার্স, ভামোস ভামোস মেসি- চিৎকারে পুরো মেটলাইফ যেন কাঁপছিল।

কিন্তু এভাবে হতাশা উপহার দেবেন মেসি? প্রথমার্ধে সহজ সুযোগ পেয়েও গোল করতে না পেরে যে অপরাধ করেছিলেন হিগুয়াইন, তার চেয়েও যে বড় অপরাধ করে ফেললেন মেসি! বলটা যে তিনি মেরে দিলেন পোস্টের ওপর দিয়ে। তার মতো এমন স্পট কিক মাস্টারের কাছ থেকে এমন বাজে শট কল্পনাও করা যায় না। বল উড়িয়ে দেয়ার সঙ্গে সঙ্গেই যেন আর্জেন্টিনার শিরোপাকে উড়িয়ে দিলেন তিনি!

এরপর আর্জেন্টিনার পরাজয় ছিল শুধু সময়ের ব্যবধান মাত্র। কারণ, চিলির পোস্টের নীচে যে মেসিরই ক্লাব সতীর্থ বার্সেলোনার ক্লদিও ব্রাভো! নাকি তাকে দেখেই আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ওভাবে শট উপরে মেরে দিলেন মেসি! সে যাই হোক, আর্জেন্টিনার চতুর্থ শটটা ঠেকিয়ে দিয়ে শেষ মুহূর্তের নায়ক হয়ে রইলেন ব্রাভো এবং মেসিদের কাঁদিয়ে আরও একটি কোপা আমেরিকার শিরোপা উপহার দিলেন তিনি চিলিকে।

‘আবেগের বশে অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেসি’

হতাশ লিওনেল মেসি। আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে না জিতেছেন বিশ্বকাপ না কোপা আমেরিকার ট্রফি। সোমবার ভোরে কোপা-আমেরিকায় চিলির বিরুদ্ধে ফাইনালে টাইব্রেকারে গোল ফস্কান তিনি। খেলার শেষে কান্নায় ভেঙে পড়েন ফুটবলের এই মহাতারকা। এরপরই ফুটবল বিশ্বকে হতাশ করে দিয়ে লিওনেল মেসির ঘোষণা, তিনি অবসর নিতে চলেছেন। সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার ক্যারিয়ার শেষ। তাকে আর দেখা যাবে না দেশের হয়ে খেলতে।
মেসি বলেন, ‘ম্যাচের পর ড্রেসিং রুমে ফিরে আমি ভাবলাম জাতীয় দলের হয়ে আমার সময় শেষ। এটা আমার জন্য নয়!’

মেসির এই সিদ্ধান্ত হতাশ তার সতীর্থরা। সার্জিও রোমেরো বলেন, ‘আমার মনে হয় হারের আকস্মিকতায় মেসি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এটা তার আবেগী সিদ্ধান্ত।’

সার্জিও আগুয়েরো বলেন, ‘আমাদের ড্রেসিং রুমের অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। পেনাল্টি মিসের কারণে লিও এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে না।’

এর আগেও মেসি একবার অনানুষ্ঠানিকভাবে দেশের জার্সি গায়ে না তোলার কথা জানিয়ে দিয়েছিলেন। সেই সময় আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশনের কিছু কর্তার মধ্যস্থতায় মেসি দেশের হয়ে খেলতে ফের রাজি হয়েছিলেন। কিন্তু, এবার কি সত্যি সত্যি মেসির অবসরের ঘোষণাকে প্রত্যাহার করানো যাবে? আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশন কোন পথে হাঁটবে? এখন সেই দিকেই তাকিয়ে মেসির ভক্তকূল।

আর্জেন্টিনার ‘দুঃখ’ ফাইনাল

লিওনেল মেসি তার ক্যারিয়ারে আর্জেন্টিনার হয়ে তিনটি ফাইনাল খেলেছেন। দুটি কোপা আর ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনাল। তিনবারই তার কপালে জুটেছে হারের লজ্জা। তবে পরিসংখ্যানে দেখা যায় শুধু মেসি নয় ‘ফাইনাল’ আসলে আর্জেন্টিনারই বড় ‘দুঃখের’ নাম। কোপা আমেরিকা হোক আর বিশ্বকাপ ফুটবল। দুই প্রতিযোগিতারই বেশির ভাগ ফাইনাল ম্যাচে কাঁদতে হয়েছে আলবেসিলেস্তদের।

বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে পুরনো আসর কোপার শুরু সেই ১৯১৬ সালে। প্রথম আসরেই ফাইনালে উঠেছিল আর্জেন্টিনা। প্রথমবারেই হার। পরের বছর ফাইনালেও হারল তারা। এখন পর্যন্ত ১৩ বার ফাইনালে হেরেছে আর্জেন্টিনা।

১৯৯৩ সালে সর্বশেষ দক্ষিণ আমেরিকায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল দলটি। তারপর তিনবার ফাইনালে খেলেছে। একবারও জিততে পারেনি। ২০০৪ ও ২০০৭ টানা দু’বার হেরেছিল। ২০১১ সালে বিরতি দিয়ে ২০১৫ সালে ফের ফাইনালে। সেবারও হার।

বিশ্বকাপেও হারের রেকর্ড আর্জেন্টিনার। ১৯৩০ সালে প্রথমবার বিশ্বফুটবলের আসর বসে। প্রথমবারই ফাইনালে খেলে। কিন্তু রানার্স-আপ হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হলো। বিশ্বকাপে মোট পাঁচবার ফাইনালে খেলেছে আর্জেন্টিনা। তিনবারই হেরেছে। ১৯৯০ সালের পর ২০১৪ সালের ফাইনালে উঠেছিল। দু’বারই হেরেছিল!

মেসি কাঁদলেন, কাঁদালেন

বার্সেলোনার মেসি আর আর্জেন্টিনার মেসির মধ্যে পার্থক্য কী? উত্তর, বার্সার হয়ে মেসির পায়ে যেন ভর করেন ফুটবল ‘ঈশ্বর’। কিন্তু আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে শুধুই ‘ফাইনালিস্ট’ তকমা তার। দেশের হয়ে মাঠে নামলেই মেসি যেন গ্রিক মিথোলজির কোনও ট্র্যাজিক হিরো। সর্বশেষ কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেও সেই ‘অভিশাপ’ কাটাতে পারলেন না মেসি। চতুর্থবারের মতো ফাইনাল তার কাছে হয়ে থাকল এক দুঃখগাঁথার ইতিহাস।
হতাশাল লুটিয়ে পড়লেন মেসি

২০১৪ সালের ১৩ জুলাই মারাকানার বিজয় মঞ্চে এসে পরাজিতের মেডেল গ্রহণ করেন মেসি। তার পাশেই শোভা পাচ্ছিল বিশ্বকাপ ট্রফি। কিন্তু ওটা জার্মানির সম্পদ! ঠিক এক বছর পর ২০১৫ সালে সান্তিয়াগোর এস্তাদিও ন্যাসিওনেলের বিজয়মঞ্চে সিলভার মেডেল নিতে এলেন মেসি। পাশেই শোভা পাচ্ছিল লাতিনের সেরা, কোপা আমেরিকার ট্রফি। সেবার ওটার দখল গেল ‘রেড হট’ চিলির হাতে! এত কাছে, তবু কত দূরে। একবারও ওই ট্রফি দুটি ছুঁয়ে দেখার যোগ্য হতে পারলেন না মেসি।

আবারও ২০১৬ সাল যুক্তরাষ্ট্রের মেটলাইফ স্টেডিয়াম। সেখানে টাইব্রেকারে পেনাল্টি মিস করে পরাজয়ের খলনায়ক মেসি। ২৯ বছরে এসেও একটিমাত্র শিরোপার জন্য এমন মাথা কুটে মরতে হচ্ছে তাকে। চিলির বিপক্ষে ফাইনালেই সবাই চেয়েছিল মেসি গোল করুক। তার গোলেই শিরোপা জিতুক আর্জেন্টিনা। কিন্তু হলো উল্টোটা।

পেপ গার্দিওলার অধীনে বার্সেলোনায় মেসির ফুটবলশিল্পের বিকাশ। রাত জেগে ভিডিও দেখতে দেখতেই নাকি মেসিকে নিয়ে সেই বিখ্যাত ‘ফলস নাইন’ পজিশন তৈরি করেছিলেন পেপ। একবার লা লিগায় একটি দুর্বল ম্যাচের আগে বার্সা কোচকে সাংবাদিক সম্মেলনে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, ‘কাল মেসিকে খেলাবেন?’ পেপ এক লাইনে উত্তর দিয়ে দিলেন, ‘আপনি মেসির খেলা দেখতে চান না?’

পরবর্তীকালে এই পেপ-ই হয়েছিলেন মেসির প্রতিপক্ষ। কিন্তু প্রাক্তন ছাত্রের মুখে পড়ে হার মানলেন ফুটবলের সেরা কোচও। কে ভুলবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গার্দিওলার বায়ার্ন মিউনিখকে একা মেসির ধ্বংস করে দেওয়া!

এই কোপায় মেসি ক্লাব এবং দেশের হয়ে সর্বোচ্চ স্কোরার হয়ে গেলেন। কিন্তু ওই যে শিরোপাটি জেতা হলো না। অনেকেই মনে করেন মেসি বিশ্বকাপ বা কোপা আমেরিকা না জিতলেও জনমানসে তার প্রভাব পাল্টাবে না। কাপ না জিতলেও তিনি পেলে বা ম্যারাডোনার সঙ্গে তুলনীয়। মেসি বুট পায়ে ব্যালে নৃত্য করেন। আর তা দেখতে দেখতে মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে বসে থাকে গোটা বিশ্ব। তাকে সামলাতে কুলি-কিনারা না পেয়ে কী দেশের জার্সিতে, কী ক্লাবের জার্সি, বল ছেড়ে তার পা’কেই বেশি টার্গেটে করেছে সমস্ত প্রতিপক্ষ।

ভেনেজুয়েলা ম্যাচে মেসি গোল করেছেন, করিয়েছেন। কখনও তিনি কাউকে কোলে তুলে নিচ্ছেন, কখনও তিনি অন্য কারও কোলে! মাঠের বাইরের বয়স ২৮ হতে পারে। মাঠের মধ্যে এখনও তিনি রোজারিও থেকে ফুটবলের নেশায় বার্সেলোনার লা মাসিয়া অ্যাকাডেমিতে পা রাখা সেই উৎসাহী, কৌতূহলী কিশোর!

অথচ সেই মেসির কিনা জাতীয় দলের হয়ে সাফল্যে জন্য কী আকুতি-মিনতি! একবার মেসি বলেছিলেন, ‘জাতীয় দলের হয়ে এই একটিমাত্র শিরোপার জন্য প্রয়োজন হলে ক্লাবের সব ব্যক্তিগত অর্জন সমর্পন করতে পারি। তবুও যে কোনও মূল্যে ট্রফি জিততে চাই।’ কিন্তু তা আর হলো কই। তিনটি কোপা, একটি বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলে প্রতিবারই হতাশা নিয়ে ফিরতে হয়েছে গ্রহের সেরা ফুটবলারকে! নিয়তিই যেন ঠিক করে দিল- ট্র্যাজেডি মেসির পিছু ছাড়বে না। সেই ট্র্যাজেডি আর কান্নাতেই তাই শেষ হলো লিওনেল মেসির কোপা আমেরিকা। মেসি কী শুধু একাই কাঁদলেন, সঙ্গে কাঁদালের বিশ্বব্যাপী তার কোটি ভক্ত-অনুরাগীদের!

‘সাধ্যমত চেষ্টা করেছি কিন্তু…’

কোপা আমেরিকা ফাইনালে ট্রাইবেকারে চিলির কাছে হেরে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন লিওনেল মেসি। সংবাদ সম্মেলনে মেসি বলেন, ‘আমি সাধ্যমত চেষ্টা করেছি। কিন্তু চারটা ফাইনাল খেলেও চ্যাম্পিয়ন হতে না পারা কষ্টের।’

আবেগআপ্লুত মেসি বলেন, ‘এটা আমার ও দলের জন্য খুবই কঠিন সময়। এটা বলা খুব কষ্টের তারপর বলতে হচ্ছে, জাতীয় দলের হয়ে আমার খেলার সময় শেষ।’

রোববার কোপা আমেরিকার ফাইনালে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে চিলির বিপক্ষে হেরে যায় আর্জেন্টিনা। ২৯ বছর বয়সী বার্সেলোনার এই খেলোয়ার কোপা আমেরিকার ফাইনালে চিলির বিপক্ষে টাইব্রেকারে গোল মিস করার পরই অবসরে যাওয়ার এই ঘোষণা দেন।

২০০৫ সালে তার অভিষেকের পর আর্জেন্টিনার হয়ে তিনি ১১২ বার খেলেছেন। আর্জেন্টিনার হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনি।

ফিফার পাঁচবারের বর্ষসেরা খেলোয়ার মেসির চ্যাম্পিয়নস লীগ এবং স্প্যানিশ লা লিগায়ও উল্লেখযোগ্য সফলতা রয়েছে। কিন্তু আর্জেন্টিনার জাতীয় দলের হয়ে তিনি বড় একটা সফলতা নিয়ে আসবেন এমনটাই প্রত্যাশা ছিল দেশটির ফুটবলপ্রেমীদের।

অবসর নিচ্ছেন আর্জেন্টিনার ৭ ফুটবলার!

এ কী হল আর্জেন্টিনার! টানা তিন ফাইনালের হারে যেন ধ্বসে পড়লো আর্জেন্টিনার ফুটবল। সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মেসির অবসরের পর অবসর নিয়েছেন আর্জেন্টিনার ‘যোদ্ধা’ খ্যাত মাসচেরানো। তাছাড়া অবসর নেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে মেসির খুব কাছের বন্ধু সার্জিও অ্যাগুয়েরোরও।

চারটি ফাইনালে দলকে হারতে দেখেছেন মেসি। আর কতবার হারলে একবার দলের হয়ে তিনি শিরোপা জিততে পারবেন তা তার জানা নেই। মেসি নিজেই বলেছেন, যখন আমি ড্রেসিং রুমে তাকাই তখন মনে হয় এই দলটা আমার না। বন্ধু অ্যাগুয়েরোও মেসির সঙ্গে সাফাই গেয়ে দলের কিছু প্লেয়ারের জন্য মেসির আজ এই হাল বলে উল্লেখ করে তিনি।

মেসির অবসরের পরপর অবসরের রব উঠেছে আর্জেন্টিনা শিবিরে। ইএসপিএন আর্জেন্টিনার মতে, আজ বা আগামীকালের ভেতর জাতীয় দল থেকে অবসর নিতে পারেন লুকাস বিলিয়া, বানেগা, ডি মারিয়া এবং হিগুয়েনও।

বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালি দল থেকে সবথেকে খর্ব শক্তির দলে পরিণত হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা। চিলির বিপক্ষে হারের ক্ষত জেতে না জেতেই আর্জেন্টিনার সমর্থকদের জন্য আরো বড় ক্ষত মেসির অবসর। কীভাবে এই শোক কাঁটিয়ে উঠবে আর্জেন্টাইনরা? তা হয়তো তারাও জানে না।

গোল্ডেন বল সানচেজের বুট ভারগাসের

কোপা আমেরিকার শতবর্ষী আসরের ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে ট্রাইবেকারে ৪-২ গোলে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় বারের মত শিরোপা নিজেদের করে নিয়েছে চিলি। আর এ জয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন সানচেজ-ভার্গাসরা। পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করে গোল্ডেন বল জিতে নিয়েছেন চিলির আর্সেনাল তারকা সানচেজ আর টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ৬ গোল করে গোল্ডেন বুট জিতেছেন ভারগাস। আর সেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার গোল্ডেন গ্লাভস জিতেছেন চিলি অধিনায়ক ক্লাদিও ব্রাভো।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ২-১ গোলের হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করে চিলি। কিন্তু পরের ম্যাচ থেকে ঘুরে দাড়ায় তারা। ফাইনালের আগ পর্যন্ত মোট ১৬ গোল করে দলটি। এর মধ্যে ভারগাস একাই করেন সর্বোচ্চ ৬ টি গোল। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫ গোল আসে মেসির পা থেকে।

আর নিজে গোল করে ও করিয়ে টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করেছেন অ্যালেক্সেস সানচেজ। আর এর স্বীকৃতি স্বরূপ গোল্ডেন বল পেয়েছেন আর্সেনাল এই তারকা। আর গোল বারের নিচে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করা ব্রাভোর হাতে উঠেছে গোল্ডেন গ্লাভস।

এদিকে টানা তৃতীয় ফাইনালে উঠে ইতিহাস বদলানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েই মাঠে নেমে ছিলেন মেসি। কিন্তু আবারো ব্যর্থ বিশ্বসেরা এই ফুটবলার। আর ফাইনালে তার এই ব্যর্থতায় শিরোপা ঘরে তোলে চিলি। আর ২৩ বছরের শিরোপা খরার যন্ত্রণা আরও বাড়ল মেসিদের।

কোপার শিরোপাই আমার জন্মদিনের সেরা উপহার : মেসি

জন্মদিনের দু দিন পরেই শতবর্ষী কোপা আমেরিকার ফাইনাল। জন্মদিনটাও ঠিক মত পালন করতে পারেননি মেসি। চিলির বিপক্ষে নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার লড়াইয়ে বাংলাদেশ সময় সোমবার ভোরে মাঠে নামবে মেসির আর্জেন্টিনা। জন্মদিনের উপহার হিসেবে কোপার শিরোপাকেই চাচ্ছেন আর্জেন্টিনার ক্ষুদে যাদুকর মেসি।

২৯ বছরে পা দেওয়া মেসি নিজের জন্মদিনের দিন বলেন, ‘কোপার শিরোপাটাই হতে পারে আমার জন্মদিনের সেরা উপহার। শুধু আমার জন্যেই নয় পুরো দলের জন্যে এটি সেরা উপহার। এটি আমাদেরই প্রাপ্য।’

শতবর্ষী কোপা আমেরিকায় ইতোমধ্যে একটি হ্যাটট্রিকসহ করেছেন ৫ গোল। ১ ম্যাচ না খেলেই তার এমন অসামান্য কীর্তি আরো বড় হয়ে উঠতে পারে যদি কোপা জিততে পারেন তিনি।

‘কোপা জেতাটা আমার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। শুধু আমার ব্যক্তিগত কারণেই নয় আমি আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে কোপা আমেরিকা জিততে অনেক পছন্দ করি।’

আর্জেন্টিনার হয়ে টানা দুটি ফাইনাল খেললেও শিরোপা জেতা হয়নি মেসির। তিনবারের বেলায় কি পারবেন মেসি আর্জেন্টিনাকে অধরা ট্রফির স্বাদ পাইয়ে দিতে? জানতে সোমবার সকালের ফাইনালে চোখ রাখতে হবে ফুটবল অনুরাগীদের।

ক্রোয়েশিয়াকে সমীহ করছেন রোনালদো

ইউরোয় শুরুটা একেবারেই নিষ্প্রভ। শুধু নিষ্প্রভ হলে তো কথা ছিল। অস্ট্রিয়ার মত দেশের বিপক্ষে পেনাল্টি মিস করে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হতে শুরু করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। সমালোচকরা বলছিলেন, জাতীয় দলের হয়ে রোনালদো সব সময়ই নিষ্প্রভ। তার মন খেলায় নেই, অন্য জায়গায় পড়ে আছে; কিন্তু হাঙ্গেরির বিপক্ষে রোনালদো ফিরেছেন নিজের স্বরূপে। জোড়া গোল করে পর্তুগালকে নিয়ে গেলেন দ্বিতীয় রাউন্ডে।

কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার জন্য রোনালদোদের সামনে এখন বাধা ক্রোয়েশিয়া। এই ম্যাচের আগে প্রতিপক্ষকে সমীহ ঝরছে রোনালদোর কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘শেষ ষোলোয় পৌঁছেছি। এবার আমাদের খেলতে হবে, এমন এক দলের বিরুদ্ধে, যারা খুব ভাল। ক্রোয়েশিয়া সত্যিই কঠিন প্রতিপক্ষ। ওদের দলে ভাল, ভাল ফুটবলার আছে। ভুলে যাবেন না, গ্রুপপর্বে ওরা স্পেনকে হারিয়েছে! সব দল কিন্তু স্পেনকে হারাতে পারে না। হ্যাঁ, হ্যাঁ ওদের সমীহ করছি।’

নিজেদের ওপরও বিশ্বাস রয়েছে রোনালদোর। তিনি বলেন, ‘নিজেদের দলের শক্তি কেমন, সেটা আমরা জানি। মাঠে যখন দেখা হবে, ক্রোয়েশিয়ার ফুটবলারদের চোখে-চোখ রাখব। জানি, গ্রুপের খেলায় আপনারা পর্তুগালকে দেখে অবাক হয়েছেন; কিন্তু মনে হয় না, ইউরোয় আমাদের দেখে আপনারা আর অবাক হবেন। কে এগিয়ে, কে পিছিয়ে- অতশত ব্যাখ্যায় যাব না। এটুকু বলতে পারি, ম্যাচটা ৫০-৫০।’

জিতবই, এই কথাটা জোর দিয়ে কি তবে বলা যাচ্ছে না? রোনালদো সঙ্গে সঙ্গে বলেছেন,‘পর্তুগাল এই চ্যালেঞ্জের জন্য তৈরি। পর্তুগালের বেশ কয়েকজন ফুটবলার বিশ্বের বড় বড় ক্লাবে খেলে। বিশ্বের সেরা লিগে খেলে। তা হলে কেন পারব না আমরা? এখন এক হয়ে থাকাটা খুব জরুরি। নিজেদের ওপর আস্থা থাকাটাও দরকার। আমাদের ফুটবলাররা ভাল। কোচও খুব ভাল। নিজেদের সবটুকু উজাড় করে দেব। ফুটবল জীবনে অনেক বড় বড় ট্রফিই জিতেছি। দেশের হয়েও জিততে চাই। অনেক, অনেক দিনের স্বপ্ন এটা। আশা করি, পূর্ণ হবে।’

রোনালদো যখন নিজেকে সংযমে বেঁধেছেন, তখন পর্তুগালের কোচ ফার্নান্দো সান্তোস কোনও রাখঢাক না করেই বলেছেন, ‘ক্রোয়েশিয়া হল হাঙরের মতো। চেয়েছিলাম, ওদের এড়িয়ে যেতে। স্পেন যে গ্রুপে ছিল, সেই গ্রুপের শীর্ষস্থান দখল করেছে ওরা! এর থেকেই প্রমাণিত, ওরা কেমন দল।’

রোনালদোর ওপর যে তার অগাধ আস্থা, সে কথাও বুঝিয়ে দিয়েছেন সান্তোস, ‘এমনিতেই রোনালদো আত্মবিশ্বাসী। জোড়া গোল করার পর, সেই আত্মবিশ্বাস আরও বেড়ে গিয়েছে!’ এদিকে ক্রোয়েশিয়ার ইভান পেরিচিস বলেছেন, ‘গ্রুপপর্বে আমরা ভাল খেলেছি; কিন্তু এ তো সবে শুরু। পর্তুগালের বিরুদ্ধে হেরে গেলে, কেউ এ সব মনে রাখবে না। ধারাবাহিক থাকতে হবে আমাদের। লড়তেও হবে।’

রিয়ালের সঙ্গে রোনালদোর নতুন চুক্তি

অনেকেই হয়তো ভেবেছিলেন রোনালদো দীর্ঘ দিন রিয়ালে থাকবেন না। তবে সে সব ভাবনায় পানি ঢেলে দিলেন রোনালদো নিজেই। রিয়ালের সঙ্গে দুই বছরের নতুন চুক্তির ঘোষণা দিলেন পর্তুগিজ এই তারকা।

রিয়ালের সঙ্গে রোনালদোর বর্তমান চুক্তির মেয়াদ রয়েছে ২০১৮ সাল পর্যন্ত। নতুন এই চুক্তির হিসেবে ২০২০ সাল পর্যন্ত রোনালদো রিয়ালেই থাকছেন। অবশ্য চুক্তির বাইরেও এক বছর বাড়ানোর সুযোগ থাকছে। নতুন করে চুক্তি হলেও আর্থিক সুবিধাদি আগের মতোই মৌসুমে ২১ মিলিয়ন ইউরো পাবেন পর্তুগীজ তারকা।

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালের আগে রোনালদো এক টেলিভিশনে সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘রিয়াল মাদ্রিদ কর্তৃপক্ষ যদি বুদ্ধিমান হয়, তাহলে আমার সঙ্গে তারা নতুন চুক্তি করবে। রোনালদোর দেয়া ইঙ্গিত মিস হতে দেয়নি ক্লাবটি। তাইতো তাদের সর্বকালের অন্যতম সেরা গোলদাতার সঙ্গে নতুন করে চুক্তি করার সব প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করেছে তারা।

কোপার ফাইনালে ফিরছেন মারিয়া

কোপা আমেরিকার ফাইনালের আগেই সুখবর পেলো আর্জেন্টিনা। ইনজুরি কাটিয়ে চিলির বিপক্ষে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ফিরছেন দলের তারকা উইঙ্গার অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া। বিষয়টি নিজেই নিশ্চিত করেছেন আর্জেন্টিনা কোচ জেরার্ডো মার্টিনো।
কোপার ফাইনালে ফিরছেন মারিয়া

গত ১০ জুন পানামার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথমার্ধেই ইনজুরি আক্রান্ত হয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন ডি মারিয়া। এরপর থেকেই তিনি দলের বাইরে।

এ প্রসঙ্গে মার্টিনো বলেন, ‘শারীরিক দিক থেকে গাইতানের চেয়ে ভালো অবস্থানেই রয়েছে ডি মারিয়া। সেমিফাইনালে খেলার জন্য সে প্রস্তুত ছিল।’

মূলত পুরোপুরি ফিটনেস না থাকাতেই তাকে নিয়ে ঝুঁকি নিতে চায়নি আর্জেন্টিনা। সে হিসেবে সোমবার পুরোপুরি ফিট থাকা সাপেক্ষেই মাঠে নামবেন ডি মারিয়া।

উল্লেখ্য, আগামী সোমবার টানা দ্বিতীয়বারের মতো কোপা আমেরিকার ফাইনালে মুখোমুখি হবে চিলি-আর্জেন্টিনা। নিউ জার্সিতে বাংলাদেশ সময় ম্যাচটি শুরু হবে সকাল ৬টায়।

ভারতের নতুন কোচ কুম্বলে

বেশ কয়েকদিন ধরেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল ভারতের কোচ হচ্ছেন অনিল কুম্বলে। অবশেষ বৃহস্পতিবার ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) আনুষ্ঠানিকভাবেই জানালো ভারতের নতুন কোচ সাবেক ভারতীয় এই অধিনায়ক।
ধর্মশালায় বোর্ডের সভা শেষেই এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। তবে এই পদের জন্য কুম্বলেকে পেছনে ফেলতে হয়েছে রবি শাস্ত্রীকে। তিনিও এই পদের জন্য ফেভারিট ছিলেন।
২০১৫ বিশ্বকাপের পর ফ্লেচারের সঙ্গে চুক্তি শেষ হওয়ার পর এই পদটি খালি ছিল। তবে রবি শাস্ত্রীকে টিম ডিরেক্টর হিসেবে রেখে এই পদের কাজ চালানো হয়।
কুম্বলেকে কোচ করানোর সুপারিশ বিসিসিআই-এর কাছে প্রেরণ করেন শচীন টেন্ডুলকার, ভিভিএস লক্ষণ ও সৌরভ গাঙ্গুলীর ক্রিকেট উপদেষ্টা কমিটি। তবে কোচ নির্বাচনে তাদের সঙ্গে ছিলেন সঞ্জয় জাগদালে।

কোচ হওয়ার ফলে কুম্বলে আগামী ২১ জুলাই শুরু হতে যাওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সফর দিয়েই দায়িত্ব পালন করবেন।

উল্লেখ্য, ২০০০ সালে কপিল দেবের সরে দাঁড়ানোর পর পূর্ণাঙ্গরূপে এই প্রথম ভারতীয় কোচ হিসেবে দায়িত্ব পেলেন কুম্বলে।

ফাইনালে চিলিকেই পেলো আর্জেন্টিনা

শতবর্ষের কোপার বিশেষ আসরে টানা দ্বিতীয় বারের মত ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে চিলি। বৃহস্পতিবার আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে কলম্বিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়েছে সানচেজ-ভার্গাসরা।

শিকাগোর সোলজার ফিল্ড স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের সপ্তম মিনিটেই এগিয়ে যায় তারা। ডান দিক থেকে হোসে পেদ্রো ফুয়েনসালিদার ক্রসে বল চলে যায় চার্লেস আরানগিসের পায়ে। জোরালো শটে গোল করে দলকে লিড এনে দেন বায়ার লেভারকুজেনের এই মিডফিল্ডার।

চার মিনিট পরই ব্যবধান দ্বিগুণ করে চিলি। দুর্দান্ত গতিতে বাঁ দিক থেকে দুই ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে জোরালো শট নেন সানচেস। বল পোস্ট কাঁপিয়ে ফিরলে গোল করতে তাতে সামান্য একটু টোকার দরকার হয় ফুয়েনসালিদার।

ম্যাচের ২৩ মিনিটে ক্লাওদিও ব্রাভো হতাশ করে কলম্বিয়াকে। হামেস রদ্রিগেসের পাস থেকে রজার মার্তিনেসের শট দক্ষতার সঙ্গে ঠেকান বার্সার এই গোলরক্ষক। এর নয় মিনিট পর আবারও চিলির ত্রাতা ব্রাভো। আরাইয়াসের চিপ হাত দিয়ে ঠেকিয়ে দেন বিপদ মুক্ত করেন। ফলে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় সানচেজ-ব্রাভোরা।

বিরতির পর প্রবল বৃষ্টি আর সঙ্গে বজ্রপাতের শঙ্কায় আড়াই ঘণ্টার বেশি বন্ধ থাকে খেলা। দুই ঘণ্টা ৪০ মিনিটের বিরতির পর খেলা শুরু হলে দাপট ছিল চিলির। এর মধ্যে ৫৭তম মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে কালোর্স সানচেস মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া কলম্বিয়ার জন্য ম্যাচে ফেরা আরও কঠিন হয়ে পড়ে। বাকি সময় আর কোন দল গোল করতে না পারলে টানা দ্বিতীয় বারের মতো ফাইনালে ওঠার আনন্দে ভাসে চিলি। আর ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ মেসির আর্জেন্টিনা।

বুধবার সেমির লড়াইয়ে মেসিদের মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র

কোপা আমেরিকায় সেমিফাইনালের ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশ সময় বুধবার সকাল ৭টায় মুখোমুখি হবে দু’দল। এমন ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে কাগজে-কলমে শক্তিশালীই ভাবছেন যুক্তরাষ্ট্রের অধিনায়ক মাইকেল ব্র্যাডলি।
ম্যাচের আগে তিনি বলেছেন, ‘কাগজে-কলমে ওরা এমন একটি দল যারা ম্যাচটি জিতবে বলেই সবার ধারণা।’
তবে পরিসংখ্যান যাই থাকুক ভিন্নভাবে আর্জেন্টিনাকে হুমকি দিয়ে রেখেছেন ব্র্যাডলি। তার মতে, ‘অবশ্য তাতেও সমস্যা দেখছি না। কারণ বাঁশি বাজার পর প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য ৯০ মিনিট সময় থাকে।’

যদিও এটি বিশ্বকাপ নয় কিন্তু ৩১ র‌্যাংকিংধারী যুক্তরাষ্ট্র শতবর্ষী কোপা আমেরিকার ফাইনালে পৌঁছানোকে বিশেষ পাওনাই মনে করছে। ম্যাচকে ঘিরে দলটির কোচ ইয়ুর্গেন ক্লিন্সম্যান বলেন, ‘পরিণত হতে গেলে কিছু কষ্টের মধ্য দিয়েই যেতে হয়। আর কিছু চেষ্টারও প্রয়োজন পড়ে। তাহলেই কিছু শেখা সম্ভব।’

এদিকে ম্যাচটিকে ঘিরে প্রতিপক্ষকে হালকাভাবে নিচ্ছে না র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা আর্জেন্টিনা। প্রতিপক্ষকে নিয়ে নিজের উদ্বিগ্ন হওয়ার কথাই বলেছেন কোচ মার্টিনো, ‘একুয়েডরের বিপক্ষে ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের প্রথমার্ধের খেলো দেখে আমি বেশি উদ্বিগ্ন।’

তবে এখন পর্যন্ত ১০ বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে বেশি জয়ের পাল্লাটা মেসির আর্জেন্টিনার দিকেই ভারি। যেখানে ছয়বার জিতেছে দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। আর দু’বার জয় পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বাকি দুটি ম্যাচ ড্র।

প্রথমবার ভারত জিতলো ১০ উইকেটে

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দুই রানের ব্যবধানে হেরে গেলেও দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়ে জয় তুলে নিয়েছে সফরকারী ভারত। মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে স্বাগতিক জিম্বাবুয়েকে ১০ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। ফলে, তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-১ এ সমতা রইল।

হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে আগে ব্যাট করে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৯৯ রান সংগ্রহ করে। জবাবে, ১৩.১ ওভার ব্যাট করে কোনো উইকেট না হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারী ভারত।

ভারতীয় পেসারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে নাকাল হয়ে জিম্বাবুয়ের কোনো ব্যাটসম্যান বড় স্কোর দাঁড় করাতে পারেননি। ইনিংস সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন উইকেটরক্ষক পিটার মুর। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৪ রান আসে ম্যালকম ওয়ালারের ব্যাট থেকে। এছাড়া চিবাভা ১০, মাসাকাদজা ১০ আর তিরিপানো ১১ রান করেন।

ভারতের হয়ে এ ম্যাচে অভিষেক ঘটে ধাওয়াল কুলকার্নি ও বারিন্দ্রার স্রানের। অভিষেক ম্যাচেই দারুণ বল করেন স্রান। ভারতীয় কোনো বোলারের অভিষেক ম্যাচে এটিই সেরা বোলিং ফিগার। ৪ ওভারে মাত্র ১০ রান খরচায় চারটি উইকেট তুলে নেন তিনি। ৪ ওভারে ১১ রানের বিনিময়ে তিনটি উইকেট পান জাসপ্রিত বুমরাহ।

মাত্র ১০০ রানের টার্গেটে খেলতে নামেন ভারতের দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল এবং মানদীপ সিং। রাহুল ৪০ বলে ৪৭ রান করে অপরাজিত থাকেন আর ৪০ বলে ৫২ রান করে মানদীপ অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

১০ উইকেটের বড় জয় ভারতের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে এটিই প্রথমবার।

রোমাঞ্চের অপেক্ষায় চার সেমি-ফাইনালিস্ট

নির্ধারণ হয়ে গেছে কোপা আমেরিকার শত বার্ষিকীর চার সেমি-ফাইনালিস্ট। শেষ চারের টিকিট কেটেছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র, লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা, জেমস রদ্রিগেজের কলম্বিয়া আর ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন চিলি।

রোববার আর্জেন্টিনা ৪-১ গোলে ভেনেজুয়েলাকে এবং চিলি ৭-০ গোলে মেক্সিকোকে হারিয়ে শেষ চার নিশ্চিত করে। এর আগেই শেষ চারের টিকটি নিশ্চিত করে যুক্তরাষ্ট্র ও কলম্বিয়া।

আগামী ২২ জুন (বুধবার) হিউস্টনের প্রায় সাড়ে ৭২ হাজার দর্শকধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন রিলায়ান্ট স্টেডিয়ামে প্রথম সেমিফাইনালে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে খেলবে ১৪ বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। কোয়ার্টার ফাইনালে ইকুয়েডরকে হারানোর পরই যুক্তরাষ্ট্র প্রায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল, সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনাই পড়ছে সামনে। দীর্ঘ ২৩ বছরের শিরোপা খরা কাটানোর লক্ষ্যে মাঠে নামবে মেসির দল। বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টায় শুরু হবে হাইভোল্টেজ ম্যাচটি।

একদিন পর ২৩ জুন (বৃহস্পতিবার) শিকাগোর সোলজার ফিল্ড স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে কলম্বিয়া ও চিলি। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে মাঠে নামবে চিলিয়ানরা। শিরোপা নিজেদের কাছে রেখে দেওয়ার জন্য মুখিয়ে আছে দলটি। অপরদিকে, বিশ্ব ফুটবলের মানচিত্রে নিজেদের নতুন করে চেনানো কলম্বিয়া ছেড়ে কথা বলবে না। বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

আগামী রোববার (২৬ জুন) দুই সেমির পরাজিত দল মুখোমুখি হবে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে। বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি। আর সোমবার (২৭ জুন) মেটলাইফ স্টেডিয়ামে ফাইনালের মঞ্চে নামবে দুই সেমির জয়ী দল।

দুটো ম্যাচই জমবে বলেই মনে করছেন ফুটবল বোদ্ধারা। রোমাঞ্চের হাতছানি থাকায় বাংলাদেশের ফুটবল প্রেমীরাও টেলিভিশন পর্দায় চোখ রাখবেন তা নিশ্চিত।

তুরস্ককে উড়িয়ে ইউরোর শেষ ষোলোতে স্পেন

তুর্কির জালে ৩ গোল ঢুকিয়ে ইউরো’র দ্বিতীয় পর্ব নিশ্চিত করেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন স্পেন। জোড়া গোল করেছেন স্প্যানিশ ও জুভেন্টাসের তারকা স্ট্রাইকার আলভারো মুরাতা।

অন্য গোলটি করেন ম্যানুয়েল নোলিতো। এই জয়ে ম্যাচ হাতে রেখেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে ২০১০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

খেলার প্রথমার্ধের মাত্র ১০ মিনিটের মাথায় এমনিতেই এগিয়ে যেতো স্পেন। গোল বাঁচাতে আরেকটু হলে নিজেদের জালেই বল পাঠিয়ে দিচ্ছিলেন তুরস্কের হাকান বালতা। তবে গোল পোস্ট ছিলো বলে রক্ষা পায় সে যাত্রা।

এরপর ৩৪ তম মিনিটে নোলিতোর বাড়ানো বলে হেড করে গোল রক্ষককে পরাস্ত করেন জুভেন্টাস ফরোয়ার্ড মুরাতা।

তবে দ্বিতীয় গোলটির জন্য যতোটা না বাহবা পাবে স্পেন তার চেয়ে বেশি তিরস্কার শুনবে তুরস্ক। কারণ তুকি রক্ষণভাগের ভুলেই আরেকটি গোল হজম করতে হয় তাদের।

রক্ষণভাগের ভুলকে পুরোদমে কাজে লাগান স্ট্রাইকার নোলিতো। মুরাতার দ্বিতীয় এবং স্পেনের তৃতীয় গোলে দ্বিতীয়ার্ধে শুরুতেই নিজেদের ইউরো আধিপত্যের জানান দেয় স্পেন। এই গোলের ঠিক দুই মিনিট পরেই হ্যাটট্রিকের সুযোগ পেয়েছিলেন মুরাতা। এবারও হেড,তবে লক্ষ্যভ্রষ্ট বল পোস্টের একটু বাইরে দিয়ে চলে যায়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেখা যাবে না বিলি বাউডেনকে!

তর্জনি উঠছে। বাঁকানো আঙুলে জানিয়ে দিলেন ব্যাটসম্যান আউট। কিংবা ছক্কার পর ব্যতিক্রমী সংকেত। সবকিছু মিলিয়ে ক্রিকেটে দর্শকদের জন্য যেন বাড়তি বিনোদনের পসরা নিয়েই হাজির থাকতেন আম্পায়র বিলি বাউডেন।

তবে ক্রিকেট মাঠে তার দৃষ্টিনন্দন আম্পায়ারিং হয়তো আর দেখা যাবে না। অনেক ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে পাঠানো বাউডেন এবার নিজেই ছিটকে পড়ছেন মাঠের বাইরে। খ্যাতিমান এই কিউই আম্পায়ারকে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট কর্তৃপক্ষ চুক্তি থেকে বাদ দিয়েছে। বৃহস্পতিবার ঘোষিত নিউজিল্যান্ডের আন্তর্জাতিক আম্পায়ার প্যানেলে বাউডেনকে রাখা হয়নি।
বিলি বাউডেন

৮৪টি টেস্ট ও ২০০টি আন্তর্জাতিক ওয়ানডে পরিচালনা করার অভিজ্ঞতা তার। শেষবার গত ফেব্রুয়ারিতে ওয়েলিংটনে চ্যাপেল-হ্যাডলি ট্রফি ওয়ানডে সিরিজে দেখা গিয়েছিল তাকে। ২১ বছর শীর্ষ পর্যায়ে আম্পায়ারিং করার পর ওখানেই সম্ভবত শেষ হলো তার। প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ বাউডেন পরিচালনা করেছিলেন ১৯৯৫ সালে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হ্যামিল্টনে। তারপর ধীরে ধীরে উঠে যান খ্যাতির শীর্ষে।

৫৩ বছরের বাউডেনই একমাত্র নন। নিউজিল্যান্ডের ইন্টারন্যাশনাল আম্পায়ার প্যানেল থেকে বাদ পড়েছেন ডেরেক ওয়াকার ও ফিল জোন্স। আইসিসি নিউজিল্যান্ডের আন্তর্জাতিক আম্পায়ারিংয়ের মান নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করায় বাউডেনের কপাল পুড়ল বলে ধারণা করা হচ্ছে। অকল্যান্ডের এই আম্পায়ার অবশ্য ফার্স্ট ক্লাসের ম্যাচ পরিচালনা করে যেতে চান। নিউজিল্যান্ডের ন্যাশনাল আম্পায়ার প্যানেলে রাখা হয়েছে তাকে। কিন্তু আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ফেরা পুরোপুরি অনিশ্চয়তায়। ২০১৩ সালে আইসিসির এলিট প্যানেল থেকে বাদ পড়েন বাউডেন। এক বছর পর আবার প্যানেলে ফিরলেও ২০১৫ সালে আবার বাদ পড়েছেন।

জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিল ভারত

প্রথম দুই ম্যাচেরই যেন পুনরাবৃত্তি দেখল হারারে স্পোর্টস ক্লাব। প্রথম ম্যাচে ৯ উইকেটে হার এবং দ্বিতীয় ম্যাচে ৮ উইকেটের হারে সিরিজ নিশ্চিত করেছিল ভারত। বাকি ছিল হোয়াইটওয়াশ। সেটিও করে ফেলল ধোনির দল। তৃতীয় ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে তাদের হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিল তরুণ এই ভারত দলটি।

তৃতীয় ওয়ানডেতে সিরিজে প্রথমবারের মত টস জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক গ্রায়েম ক্রেমার। এ ম্যাচেও শুরুতে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। ব্যক্তিগত ৮ রানে ফিরে গেলে শুরুতেই হোঁচট খায় জিম্বাবুয়ে।

দলীয় ৫৫ রানে চিবাবা ফিরে গেলে দ্বিতীয় উইকেট হারায় ক্রেমারের দল। ভালোভাবেই এগোচ্ছিল জিম্বাবুয়ে। ১০৩ রানে ৩ উইকেট হারালেও ওই ১০৩ রানেই বুমরাহর বোলিং তোপে তারা পরিণত হয় ৭ উইকেটে! শেষ পর্যন্ত ৪২.২ ওভারে ১২৩ রানেই গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। বুমরাহ ২২ রানে নেন ৪ উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে অভিষিক্ত ফাইজ ফজলকে নিয়ে উড়ন্ত সূচনা করেন লোকেশ রাহুল। অভিষেক ওয়ানডেতেই দ্বিতীয় ভারতীয় ওপেনার হিসেবে অর্ধশতক তুলে নেন ফজল। এর আগেই সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে প্রথম ভারতীয় ওপেনার হিসেবে সেঞ্চুরি করার কৃতিত্ব দেখান লোকেশ রাহুল। রাহুল এবং ফজলের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে কোন উইকেট না হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ভারত। রাহুল ৬৩ এবং ফজল ৫৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

আর কোনও সহিংসতা হলে ইউরো থেকে বহিষ্কার হবে রাশিয়া

ইংল্যান্ডের সঙ্গে শনিবারের ম্যাচে গ্যালারিতে সহিংসতার জন্য চলতি ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ ইউরো-২০১৬ থেকে রাশিয়াকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে উয়েফা। তবে আপাতত উয়েফার এই সিদ্ধান্ত স্থগিত রাখা হচ্ছে। রাশিয়ার আগামী ম্যাচগুলোতে এ ধরণের ঘটনা ঘটলেই কেবল এই শাস্তি কার্যকর করা হবে।

উল্লেখ্য ওই ম্যাচের আগে ও পরে এমনকি ম্যাচ চলাকালীন সময়ে স্টেডিয়ামের ভেতরে ইংলিশ সমর্থকদের সঙ্গে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন রাশিয়ান সমর্থকরা। রুশ সমর্থক ও ইংলিশ হুলিগানদের মধ্যকার ওই সহিংসতা থামাতে হিমশিম খায় ফরাসি পুলিশ।

উয়েফার গভর্নিং বডি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ড্র হওয়া ম্যাচে সহিংসতার জন্য রাশিয়াকে দেড়লাখ ইউরো জরিমানা করেছে। একইসঙ্গে বলা হয়েছে ইউরো থেকে রাশিয়াকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আবারও কোনও সহিংসতার ঘটনা ঘটলেই কেবল এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হবে।

পিকের গোলে চ্যাম্পিয়ন স্পেনের শুভ সূচনা

ইনিয়েস্তার পায়ে বল। ঘড়ির কাঁটায় তখন ৮৭ মিনিট। ডি বক্সের বাইরে থেকে দুর্দান্ত এক ক্রসে মাথা ছুঁয়ে যেন স্পেনকে লজ্জার হাত থেকেই বাঁচালেন সমালোচিত পিকে। এর আগেও বহুবার এমন করেই তার ক্লাব বার্সাকে বাঁচিয়েছেন। এবার দলের হয়ে শেষ সময়ে গোল করে দলের প্রাণ ফিরিয়ে দিলেন। ইউরোর প্রথম ম্যাচে পিকের দেওয়া শেষ সময়ের গোলে চেক রিপাবলিককে হারিয়ে শুভ সূচনা করলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ন স্পেন।

হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের স্বপ্নে ফ্রান্সের মাটিতে পা দিয়েছিল দেল বস্ক শীষ্যরা। ক্যাসিয়াসকে একাদশের বাইরে রেখে নারী সম্পর্কিত সমালোচনায় জর্জরিত ডে গিয়াকে নিয়ে একাদশ সাজান দেল বস্ক। ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণের পসরা সাজিয়ে বসে স্পেন।

১৫ মিনিটেই সিলভার ক্রস থেকে মোরাতা শট করলে রুখে দেন চেক। এদিন যেন নিজের সেরাটা দিতেই মাঠে নেমেছিলেন চেক। ২৯ মিনিটে আবারো সেই মোরাতা গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। গোলবারের সামান্য বাইরে দিয়ে শট করলে গোল বঞ্চিত হয় স্পেন। ৩৯ মিনিটে আবারো চেক রিপাবলিকের ত্রাণকর্তা হিসেবে আবির্ভাব হয় চেকের। মোরাতার আরো একোটি দূরপাল্লার শট রুখে দেন এই আর্সেনাল গোলকিপার। প্রথমার্ধের শেষ সময়ে চেক রিপাবলিক ফুটবলারের করা একমাত্র শটটি রুখে দেন ডে গিয়া।

বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য আরো মরিয়া হয়ে পরে স্পেন। স্পেনের পজিশন নির্ভর ফুটবলের বিপরীতে ৫৭ মিনিটে অসাধারণ একোটি সুযোগ পায় চেক রিপাবলিক। কিন্তু ক্রেজেসির শট রুখে দেন ডে গিয়া। ৬৪ মিনিটে একদম গোলমুখের সামনে থেকে বল ক্লিয়ার করে দলকে ম্যাচে টিকিয়ে রাখেন সেস ফ্যাব্রিগাস। ম্যাচ যখন ড্রয়ের দিকে যাচ্ছিল ঠিক তখনই ৮৭ মিনিটে হেডে গোল করে দলকে উল্লাসে মাতিয়ে তোলেন বার্সা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। এই জয়ে গ্রুপ ‘ডি’ তে ক্রোয়েশিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে অবস্থান করছে স্পেন।

মদ্রিচের গোলে ক্রোয়েশিয়ার জয়

রিয়াল মাদ্রিদ ত‌‌‌ারকা লুকা মদ্রিচের একমাত্র গোলে তুরস্ককে হারিয়েছে ক্রোয়েশিয়া। এ জয়ে ইউরোতো শুভসূচনা করলো মদ্রিচ-রাকিতিচ-মানজুকিচদের ক্রোয়েশিয়া।

এদিন ম্যাচের শুরু থেকে তুর্কি রক্ষণভাগে চাপ সৃষ্টি করে ক্রোয়েশিয়া। খেলার ২২ মিনিট দারুণ এক সুযোগ নষ্ট করেন ব্রোজোভিচ। মানজুকিচের দারুণ একটি ক্রসে হেডে জালে বল জড়াতে ব্যর্থ হন তিনি। খেলার ৪৩ মিনিটে মদ্রিচের গোলে এগিয়ে যায় ক্রোয়াটরা। গোলপোস্টের ২৫ গজ দূর থেকে দারুণ এক শটে জালে বল জড়ান তিনি। ওই গোলটি ম্যাচের জয়-পরাজয় নির্ধারণ করে দেয়।

খেলার ৫১ মিনিটে দারিজোর শক্তিশালী একটি শট ক্রসবারে লাগলে গোলবঞ্চিত হয় ক্রোয়েশিয়া। এর তিন মিনিট পর আবারও হতাশ হন তিনি।

খেলার ৭৩ মিনিটে মানজুকিচের দারুণ একটি ক্রসে হেড করেছিলেন ইভান পেরেসিচ। কিন্তু তার হেডটি গিয়ে আঘাত হানে ক্রসবারে। ফলে ফের হতাশ হতে হয় ক্রোয়াট শিবিরকে। পুরো সময় দুর্দান্ত খেলে বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করে ক্রোয়েশিয়া। তবে ভাগ্য সহায় না হওয়ায় গোলের দেখা পায়নি তারা। শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয় নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের।

এদিকে এই ম্যাচকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা ব্যাপক পরিমাণে বাড়িয়েছে ফ্রান্স সরকার। জঙ্গি হামলার আশঙ্কার পাশাপাশি আয়োজকদের মাথা ব্যথার বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সর্মথক গোষ্ঠির সংর্ঘষ। ম্যাচ-পূর্ব ও পরবর্তী সহিংসতা সামলাতে ব্যাপক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হচ্ছে ফ্রান্সকে।

মেসি একটা ‘দানব’

ইনজুরি থেকে ফিরেই বদলি হিসেবে মাঠে নেমে কোপা আমেরিকার শতবর্ষী বিশেষ আসরে পানামার বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছেন লিওনেল মেসি। তার হ্যাটট্রিকে ৫-০ গোলের বড় জয় পায় আর্জেন্টিনা।

মেসি মাঠে নামার আগে আর্জেন্টিনার সঙ্গে বলা যায় সমান তালে পাল্লা ‌‌দিচ্ছিল পানামা। ১০ জনের দল নিয়ে ৬১ মিনিট পর্যন্ত মাত্র এক গোল হজম করে তারা। কিন্তু মেসি মাঠে নামার পর সব পাল্টে গেল। মাত্র ১৯ মিনিটের মধ্যে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন তিনি। খেলার ৬৮, ৭৮ আর ৮৭ মিনিটের মাথায় গোল করেন বার্সা তারকা।

ম্যাচ শেষে তাই মেসিকে ‘দানব’ বলে মন্তব্য করেছেন পানামার কোচ হার্নান দারিও গোমেজ।

তিনি বলেন, ‘মেসি নামার আগে ম্যাচে তেমন কোনও পার্থক্য ছিল না। সে একটা দানব। আপনি যদি ভুল করেন আর মেসি আপনার কাছে থাকে, তাহলে এর কঠিন মূল্য দিতে হবে। আমরা এমনিতে দশজনের দল নিয়ে খেলছিলাম, তার ওপর তারা মেসিকে নামিয়ে ম্যাচটি আমাদের জন্য আরও কঠিন বানিয়ে দেয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রথমার্ধ আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কিন্তু, মেসির গোল করার পরপরই সব এলোমেলো হয়ে যায়। আর্জেন্টিনা পানামাকে যে কোনও স্থানেই হারাতে পারবে। কারণ তাদের আছে মেসির মতো অসাধারণ ফুটবলার।’

এই ম্যাচে হ্যাটট্রিকের ফলে জাতীয় দলে মোট ৫৩টি গোলের মালিক হলেন মেসি। আর মাত্র ৩টি গোল করলেই আর্জেন্টিনার সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতাকে ছুঁয়ে ফেলবেন তিনি।

বোলারদের সুবিধা দিতে আইন পরিবর্তন করছে আইসিসি!

`বেনিফিট অব ডাউট` প্রথা সাধারণত ব্যাটসম্যানদের পক্ষে যায়। কিন্তু এবার বোলারদের সুবিধার কথা চিন্তা করে বিতর্কিত এই আইন পরিবর্তন করার চিন্তা করছে আইসিসি।

বর্তমান নিয়মানুযায়ী, রিভিউতে বোলারের পক্ষে রায় যেতে হলে বলের অন্তত ৫০ শতাংশ স্টাম্পে লাগার সম্ভাবনা থাকতে হবে। বলের অন্তত ৫০ শতাংশ স্টাম্পে আঘাত না করলে আম্পায়াররা ব্যাটসম্যানদের পক্ষে রায় দেন। তবে এবার বোলারদের কথা চিন্তা করে এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে চাচ্ছে আইসিসি।

আইসিসির বর্তমান কমিটিতে থাকা শ্রীলঙ্কান সাবেক অধিনায়ক মাহেলা জয়াবর্ধনে এ নিয়ম নিয়ে আলোচনা করে এটি পরিবর্তন করার জন্য আইসিসির পরিচালনা কমিটির কাছে সুপারিশ করেছে। রিভিউয়ের পর যদি দেখা যায় বলের ২৫ শতাংশও স্টাম্পে লাগার সম্ভাবনা ছিল, তাহলে এলবিডব্লু দেওয়ার একটা প্রস্তাব তোলা হয়েছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটির সভায়।

ইএসপিএন দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আমরা পিচে অন্তত পঁচিশ ভাগ বল থেকে স্টাম্পে আঘাত করলে তার সিদ্ধান্ত যেন বোলারদের পক্ষে যায় এ নিয়ে একটি সুপারিশ করেছি।

আলীর জানাজায় মানুষের ঢল : শেষকৃত্যে থাকবেন ক্লিনটন

কিংবদন্তির মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মাদ আলীর নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকির লুইভিলের ফ্রিডম হলে এই জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এই ফ্রিডম হলেই ১৯৬০ সালে তিনি প্রথম পেশাগত ভাবে বক্সিং প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন।
জানাজায় উপস্থিত হয়েছিলেন মুসলমান, ইহুদি, খ্রিষ্টান এমনকি নাস্তিকেরাও। ব্রিটিশ সংবাদমধ্যম ডেইলি মেইল জানিয়েছে, জানাজায় ১৪ হাজারেরও বেশি মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এতে ইমামতি করেন গবেষক জাইদ সাকির। জানাজায় পুরুষ ও নারীরা পৃথকভাবে অংশ নেন। মোহাম্মদ আলীর চতুর্থ স্ত্রী লনিসহ পরিবারের সকল সদস্যই এসময় উপস্থিত ছিলেন। এমনকি আলীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়া তার দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্ত্রী এসময় উপস্থিত ছিলেন।
জানাজার আগে জাইদ সাকির বলেন, ‘ আজ আমরা আপনাদের সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি। আমরা মুসলমান, অন্য ধর্মে বিশ্বাসী মানুষ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে স্বাগত জানাচ্ছি।’
aliতিনি বলেন, ‘মোহাম্মদ আলী এতো মানুষের হৃদয় ছুঁতে পেরেছিলেন এ কারণে যে, তিনি তার নীতি ও আদর্শের জন্য খ্যাতি, অর্থ সবই ছাড়তে প্রস্তুত ছিলেন।’
আমেরিকান মুসলিম কমিউনিটির সদস্য শেরম্যান জ্যাকসন বলেন, ‘আলী ছিলেন সাধারণ মানুষের চ্যাম্পিয়ন এবং মানুষের জন্যই তিনি চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন।’
শুক্রবার কেন্টাকি এক্সপোজিশন সেন্টারে মোহাম্মদ আলীর স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগানসহ অনেক বিশ্ব নেতা অংশগ্রহণ করবেন। অনুষ্ঠানে সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন স্তুতিপত্র পাঠ করবেন। এই স্মরণসভায় অংশ নেওয়ার জন্য ১৫ হাজার ৫০০ টিকিটের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। তবে মাত্র এক ঘন্টার মধ্যে সব টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। আয়োজকরা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার বিকালেই ১৫ হাজার টিকিট নিঃশেষিত! লুইভেল শহরের মানুষ এই অনুষ্ঠান নিয়ে উচ্ছ্বসিত। অধিকাংশ মানুষ আলির শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের সঙ্গে নিজেদের যুক্ত হতে চান। শহরের অ্যাটর্নি জেসিকা মুর বলেছেন, ‘আলি শুধু কিংবদন্তি বক্সার ছিলেন না। মানুষ হিসাবেও অসাধারণ ছিলেন। আসলে তিনি ছিলেন জনসাধারণের চ্যাম্পিয়ন। তাই তাঁর শহরের নাগরিক হিসাবে আমরা প্রত্যেকে গর্বিত।’
প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার ‘গ্রেটেস্ট’ মোহাম্মদ আলী অ্যারিজোনার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। তিনি শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন।

ধারাভাষ্যকার হলেন মাশরাফিদের বোলিং কোচ

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং কোচ থেকে পদত্যাগ করেছেন হিথ স্ট্রিক। উদ্দেশ্য ছিল, ভারতে ক্রিকেট একাডেমীতে কোচিং করানো। কিন্তু আপাতত মাশরাফিদের সাবেক এই বোলিং কোচকে দেখা যাবে ধারাভাষ্যকার হিসেবে। শনিবার শুরু হতে যাওয়া ভারত-জিম্বাবুয়ে সিরিজে টেন স্পোর্টসের ধারাভাষ্য কক্ষে অতিথি ধারাভাষ্যকার হিসেবে হিসেবে যোগ দিচ্ছেন হিথ স্ট্রিক।

এ নিয়ে স্ট্রিকসংবাদ মাধ্যমে বলেন, আমি এর আগেও জিম্বাবুয়ের চারটি সিরিজে অতিথি ধারাভাষ্যকার হিসেবে কাজ করেছি। কাউন্টি খেলার সময় স্কাই স্পোর্টসের হয়ে স্টুডিওতেও কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে।

নতুন দায়িত্ব নিয়ে স্ট্রিকের অভিমত, আমি জানি না টেন স্পোর্টসে ধারাভাষ্যকার হিসেবে কারা কাজ করছে। আমি মনে করি সাবেক ক্রিকেটার ও ক্রিকেটের বাইরের ধারাভাষ্যকারদের মধ্যে ভাল মিশ্রণ হয়।কারন সাবেক ক্রিকেটার হলেই সবাই ভাল ধারাভাষ্যকার হয় না।

ভারত সফরে জিনেদিন জিদান

সদ্যই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন। রয়েছেন ফুরফুরে মেজাজেও। নেই কোন খেলার সূচিও। ফুটবল থেকে বাইরে এসে এবার একটি নির্মানকারী সংস্থার কাজে এক দিনের জন্য ভারত সফরে আসলেন রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান।

ভারতের মুম্বাই এয়ারপোর্টে নামার পরেই তাকে একপলক দেখতে ভিড় জমায় উৎসুক জনতা। বিশ্বকাপ জয়ী এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী এই ফুটবলার মুম্বাইতে বান্দ্রা কুরলা কমপ্লেক্সের একটি প্রোজেক্টে অংশ নিবেন। প্রোজেক্টির নাম দেয়া হয়েছে ‘কানাকিয়া প্যারিস’।

শুক্রবার এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এই প্রোজেক্টের উদ্বোধন করা হবে। এর আগে মে মাসেই কানাকিয়া গ্রুপের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন জিদান। অনুষ্ঠান চলার এক পর্যায়ে ইউরো নিয়ে ফ্রান্সের সম্ভাবনার কথা জানতে চাইলেন জিদান বলেন, ‘আমাদের ভালো একটি দল রয়েছে এবং স্বাগতিক হওয়ার আলাদা সুবিধাও রয়েছে।’

পর্দা উঠছে ইউরো কাপের

প্রথমবারের মতো ২৪ দল নিয়ে আজ ফ্রান্সে শুরু হচ্ছে ইউরোপিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের ১৫তম আসর। সম্ভাব্য জঙ্গি হামলার আশংকায় নজিরবিহীন নিরাপত্তার মধ্যেই শুরু হতে যাচ্ছে ইউরো-২০১৬।
মাসজুড়ে চলবে ইউরোপসেরার এই লড়াই। এবারই প্রথম এই মহাদেশীয় আসরে অংশ নিচ্ছে ২৪টি দেশ। ৩২ বছর আগে আটটি দেশকে নিয়ে ইউরো ১৯৮৪-র আসর বসেছিল ফ্রান্সে। এবারও স্বাগতিক মিশেল প্লাতিনির দেশ। এ-গ্রুপে আজ তার দেশ ফ্রান্স মুখোমুখি হবে রোমানিয়ার। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়। এই ম্যাচে প্যারিসের স্তাদে দে ফ্রান্সে বেনজেমাকে ছাড়াই খেলতে নামবে স্বাগতিকরা।
স্বাগতিক ফ্রান্সসহ জার্মানি, পর্তুগাল, ইংল্যান্ড এবং বর্তমান চ্যাম্পিয়ন স্পেন এবারের আসরে ফেভারিট।

এদিকে উদ্বোধনী ম্যাচকে ঘিরে ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশম বলেছেন, ‘এই ১০ জুনের জন্য গত ২ বছর ধরে প্রস্তুতি নিয়ে আসছি। আমাদের সর্বশেষ অফিসিয়াল খেলা ছিল ২০১৪ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল। বাকিসবগুলো প্রীতি ম্যাচ ছিল। তাই এই ম্যাচটি আমাদের জন্য বিশেষ কিছুই। আর এটাই টুর্নামেন্টের টোন সেট করে দেবে।’

এদিকে রোমানিয়ার কোচ লোর্দানেস্কু বলেছেন, ‘আমরা অন্যতম সেরা দলের বিপক্ষেই খেলতে নামছি; যারা ফেভারিট। আমি আশা করছি আমার খেলোয়াড়রা তাদের সেরাটাই দিতে পারবে।’

পানামার বিপক্ষে ফিরছেন মেসি

অবশেষে চোট কাটিয়ে পানামার বিপক্ষে ফিরছেন আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। তার ফেরার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোচ জেরার্ডো মার্টিনো।
কোপা আমেরিকায় শনিবার সকালে পানামার বিপক্ষে খেলবে আর্জেন্টিনা। এ প্রসঙ্গে মার্টিনো বলেন, ‘মেসি কোনও ঝামেলা ছাড়াই অনুশীলন করেছে। এসময় বাড়তি কোনও ঝামেলা হয়নি। তাই সে এই ম্যাচে খেলতে পারবে।’
মেসির ফিটনেস নিয়ে তিনি বলেন, ‘দলের সঙ্গে গতকাল থেকেই সে অনুশীলন করেছে। তবে এ সময় মেসি কোনও ব্যথা অুনভব করেনি।’
উল্লেখ্য, গত ২৭ মে হন্ডুরাসের বিপক্ষে খেলতে গিয়ে খেলার দ্বিতীয়ার্ধে চোট পান মেসি। এরপর থেকেই মাঠের বাইরে রয়েছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। আর তাকে ছাড়াই কোপা আমেরিকায় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চিলির বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পায় আর্জেন্টিনা।

মেসির ব্যক্তিত্ব নেই: ম্যারাডোনা

আক্রমণ করে কথা বলতে জুড়ি নেই কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনার। এবার মেসিকে লক্ষ্য করেই আক্রমণ করলেন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি। এক অনুষ্ঠানে পেলের সঙ্গে আলাপচারিতায় ম্যারাডোনা বলেন, ‘নেতা হতে যা প্রয়োজন সেগুলো মেসির নেই।’
বৃহস্পতিবার প্যারিসে এক অনুষ্ঠানে জনসম্মুখে মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই কিংবদন্তি পেলে ও ম্যারাডোনা।
সেখানে এক প্রশ্নের জবাবে ম্যারাডোনা বলেন, ‘সে (মেসি) মানুষ হিসেবে ভালো। কিন্তু তার কোনও ব্যক্তিত্ব নেই। নেতা হতে যা প্রয়োজন সেগুলো ওর নেই।’

তখন পেলে এর উত্তরে বলেন, ‘আমি বুঝতে পেরেছি। আমরা অতীতে যেরকম ছিলাম মেসি ঠিক তেমন নয়।’

উল্লেখ্য, কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার উদ্বোধনী ম্যাচে চোটের কারণে ছিলেন না মেসি। সেই ম্যাচে চিলির বিপক্ষে ২-১ গোলে জেতে তারা।

নতুন টুর্নামেন্ট আনলেন শ্রীনিবাসন

তামিল নাড়ুতে স্থানীয় প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের তুলে আনতে নতুন উদ্যোগ নিয়েছেন বিতর্কিত সাবেক আইসিসি চেয়ারম্যান ও বিসিসিআই সভাপতি শ্রীনিবাসন। বৃহস্পতিবারই তামিল নাড়ু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ঘোষণা দেন চেন্নাইসহ আরও দুটি ভেন্যুতে শুরু হচ্ছে তামিল নাড়ু প্রিমিয়ার লিগ (টিএনপিএল)।
আট দল নিয়ে শুরু হতে যাওয়া এই টুর্নামেন্ট চলবে তিন সপ্তাহ। ম্যাচ হবে মোট ২৭টি। টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে আগস্টের শেষ দিক থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।
এ প্রসঙ্গে শ্রীনিবাসন বলেন, ‘তামিল নাড়ুর জেলাতে ক্রিকেট ছড়িয়ে দিতেই এই আয়োজন। এখান থেকেই স্থানীয় প্রতিভা তুলে আনা হবে।’

এ সময় শ্রীনিবাসন জানান আইপিএল থেকে নিষিদ্ধ হওয়া তার দল চেন্নাই সুপার কিংসকে ফের দেখা যাবে ২০১৮ সালে!

ব্রাজিলে বসছে ২০১৯ কোপা আমেরিকা

ক্রীড়াঙ্গনে একটির পর একটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করেই চলেছে ব্রাজিল। ২০১৪ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ সফলভাবে আয়োজনের পর ২০১৬ সালেই পৃথিবীর সবথেকে বড় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অলিম্পিকেরও আয়োজন করছে ব্রাজিল। এবার সে তালিকায় যুক্ত হলো কোপা আমেরিকাও। ২০১৯ সালের কোপা আমেরিকার আসর বসছে সাম্বার দেশ ব্রাজিলে।
ল্যাটিন আমেরিকার ফুটবল সভাপতি আলেহান্দ্রো ডোমিঙ্গুয়েজ ব্রাজিলের আয়োজন করার খবর নিশ্চিত করেছেন। ২০১৫ সালের কোপা আমেরিকাও ব্রাজিলের আয়োজন করার কথা ছিল কিন্তু ২০১৩ সালের ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ এবং ২০১৪ সালেই বিশ্বকাপ আয়োজন করায় পরপর তিনটি বড় টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য প্রস্তুত ছিল না নেইমারের ব্রাজিল। যে কারণেই ব্রাজিল থেকে সরিয়ে চিলিতে নেওয়া হয় কোপা আমেরিকা।
মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে সভাপতি বলেন, ‘আমেরিকা স্বাগতিক দেশ হিসেবে দারুণ। চিলি গতবছর সুন্দরভাবে আয়োজন করেছিল এবং ব্রাজিল ২০১৯ সালে আয়োজন করবে। মানুষ এই টুর্নামেন্টকে উপভোগ করছে। আশা করি ফুটবলের মান এবং দর্শক সমাগম দিনদিন বৃদ্ধি পাবে।’
২০১৯ সালের আগে ৪ বার কোপা আমেরিকা আয়োজন করে ৪ বারই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দারুণ রেকর্ড রয়েছে ব্রাজিলের। ১৯১৯, ১৯২২, ১৯৪৯ এবং ১৯৮৯ সালে স্বাগতিক দেশ হিসেবে কোপা আমেরিকা জিতেছিল ব্রাজিল।

মরিনহোর দলে যোগ দিচ্ছেন গেইল

নতুন ম্যানেজার হিসেবে মাত্র কয়েক দিন হলো ম্যানইউদর দায়িত্ব নিয়েছেন হোসে মরিনহো। কাবটাকে হারানো পথ থেকে টেনে এনে সাফল্যের পুরনো পথে ফেরানো তার উদ্দেশ্য। তাই বলে ক্রিকেটে বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান হিসেবে যার এক নামে পরিচিতি সেই গেইলকে দলে টানবেন? গেইল মজাও করতে জানেন বটে! কাবের সামনে ছবি তুলে নিজের ঘোষণাটিকে সত্যের রূপ দেওয়ার মতো জোরালো করেছেন।
গেইল সবশেষ আইপিএলের আসরে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে ১০ ম্যাচে করেন ২২৭ রান। বাজে মৌসুম কাটানো গেইল সম্প্রতি ইংল্যান্ডে রয়েছেন। সেখানে ফুটবলের জনপ্রিয় কাব ম্যানইউ সফরে যান তিনি। এক ব্রিটিশ রিপোর্টারকে ড্যাশিং এই ওপেনার জানান, ক্রিকেট ছেড়ে ম্যানইউয়ের হয়ে ফুটবল খেলবেন তিনি।
রিপোর্টারদের সঙ্গে মজা করাটা গেইলের নতুন কিছু নয়। এবারও তিনি মজার ছলেই ক্রিকেট ছেড়ে দেবার কথা জানালেন কি না তা নিশ্চিত নয়। তবে, গেইল তার ইন্সট্রাগ্রামে ম্যানইউয়ের জার্সি গায়ে কাবের বাইরে দাঁড়িয়ে তোলা একটি ছবি পোস্ট করেছেন। সেখানে তার হাতে ম্যানইউ ফুটবল কাবের স্কার্ফ ছিল।

কোপার কোয়ার্টারে কলম্বিয়া

টানা দুই ম্যাচ জিতে প্রথম দল হিসেবে শতবর্ষী কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে কলম্বিয়া। আজ বুধবার গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে প্যারাগুয়েকে ২-১ গোলে হারায় হামেস রদ্রিগেজের দল।
নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে কার্লোস বাক্কা-হামেস রদ্রিগেজরা। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১২ মিনিটে কর্নার থেকে আসা বলে হেড করে ম্যাচের প্রথম গোল করে দলকে লিড এনে দেন কার্লোস বাক্কা। আর ৩০ মিনিটে ম্যাচের দ্বিতীয় গোলটি করেছেন কলম্বিয়ার তারকা ফুটবলার রদ্রিগেজ। ফলে ২-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় কলম্বিয়া।
দ্বিতীয়ার্ধে গোলশোধের জন্য মরিয়া হয়ে মাঠে নেমেছিলেন প্যারাগুয়ের খেলোয়াড়রা। শেষ ৪৫ মিনিটের বেশির ভাগ সময়ই কলম্বিয়ার রণভাগকে তটস্থ করে রেখেছিলেন তারা। ম্যাচের ৭১ মিনিটে গোলপোস্টের অনেক দূর থেকে জোরালো এক শটে কলম্বিয়ার জালে বল জড়িয়ে দিয়েছিলেন ভিক্টর আয়ালা।
শেষ ২০ মিনিটে আরেকটি গোল করার সর্বাত্মক চেষ্টাও চালিয়েছিল প্যারাগুয়ে।উলটো ম্যাচের ৮১ মিনিটে তারা পরিণত হয় ১০ জনের দলে। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন মিডফিল্ডার অস্কার রোমেরো। আর ম্যাচের ৮৩ মিনিটে গোল ব্যবধান বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ এসেছিল কলম্বিয়ার সামনে। কিন্তু এডউইন কারদোনার শট ফিরে আসে গোলপোস্টে লেগে। ব্যবধান বাড়াতে না পারলেও শেষ পর্যন্ত অবশ্য ২-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে কলম্বিয়া।
দিনের অপর ম্যাচে কোস্টারিকাকে ৪-০ গোলে হারিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দাপুটে এই জয় দিয়ে শেষ আটের পথেও একধাপ এগিয়ে গেছে স্বাগতিকরা। ‘এ’ গ্রুপ থেকে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে কলম্বিয়া। ৩ পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরেই আছে যুক্তরাষ্ট্র।

৪ বছর পর শ্রীলঙ্কা দলে মাহরুফ

২০১২ এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার হয়ে খেলেছিলেন পারভেজ মাহরুফ। এরপর আর আন্তর্জাতিক ম্যাচে খেলা হয়নি তার। অবশেষে চার বছর পর আবার জাতীয় দলে ফিরলেন এই অলরাউন্ডার। আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের বিপে ওয়ানডে সিরিজের জন্য শ্রীলঙ্কা দলে ডাক পেয়েছেন তিনি।
মাহরুফের সঙ্গে ইংল্যান্ডে শ্রীলঙ্কার বর্তমান দলের সঙ্গে যোগ দিতে উড়াল দেবেন আরো চারজন- অলরাউন্ডার ধানুস্কা গুনাথিলাকা, লেগ স্পিনার সেকুগে প্রসন্ন, অফ স্পিনার সুরাজ রানদিভ ও ব্যাটসম্যান উপুল থারাঙ্গা।
ওয়ানডে দলে নেই স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ, পেসার ধাম্মিকা প্রসাদ ও দুসমান্থা চামিরা। হেরাথ গত এপ্রিলে সীমিত ওভারের ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন। চোটের কারণে ছিটকে পড়েছেন প্রসাদ ও চামিরা।
২০১৫-১৬ মৌসুমে শ্রীলঙ্কার লিস্ট ‘এ’ প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি ছিলেন মাহরুফ। ৫ ম্যাচে নেন ১৬ উইকেট। ব্যাট হাতে ৭৭ রানও করেন। এর পুরস্কার হিসেবেই চার বছর পর আবার জাতীয় দলে ডাক পেলেন ৩১ বছর বয়সি এই অলরাউন্ডার। শ্রীলঙ্কার হয়ে ১০৪ ওয়ানডে খেলে ১৩৩ উইকেট নিয়েছেন মাহরুফ।
ইংল্যান্ডের বিপে বৃহস্পতিবার শুরু তৃতীয় টেস্টের পর আগামী ১৬ ও ১৮ জুন ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপে দুটি ওয়ানডে খেলবে শ্রীলঙ্কা। এরপর তারা ইংল্যান্ডের বিপে খেলবে পাঁচটি ওয়ানডে, যেটি শুরু ২১ জুন।

ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ৭ বছর নিষিদ্ধ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার ক্যাভন ফুবলারকে ৭ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে বারমুডা ক্রিকেট বোর্ড। তার অপরাধ! বারমুডা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের একটি ম্যাচে তাকে আম্পায়ার এলবিডব্লিউ আউট দেন। তাতে প্তি হয়ে তিনি স্টাম্প ভেঙেছেন। আম্পায়ারকে লাঞ্ছিতও করেছেন। আর সেই অপরাধেই তাকে ৭ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
এই ফুটবলার এর আগেও নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। সেটা অবশ্য ২০১১ সালে। তখন সামারসেট ক্রিকেট কাবের হয়ে তিনি খেলেছিলেন।
এবার তিনি খেলছেন উইলো কাটসের হয়ে। সেদিন আউট হওয়ার পর এমন আচরণ করেন। এরপর বল হাতে ৬.৩ ওভার বলও করেছিলেন। ম্যাচ শেষে আম্পায়াররা তার বিরুদ্ধে রিপোর্টে বিষয়টি উল্লেখ করেন। আর সেই রিপোর্ট অনুযায়ী বারমুডা ক্রিকেট বোর্ড তাকে ৭ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে। তিনি ক্রিকেট আইনের ৪ নম্বর ধারা লঙ্ঘন করেছেন।

নাইজেরিয়ান কিংবদন্তি কেশি আর নেই

খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে আফ্রিকান নেশনস কাপ জয়ের স্বাদ পাওয়া দ্বিতীয় ব্যক্তি তিনি। নাইজেরিয়ার সেই কিংবদন্তি ফুটবলার ও কোচ স্টিফেন কেশি মারা গেছেন।
বুধবার হঠাৎ করেই হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান ৫৪ বছর বয়সি কেশি। নাইজেরিয়া ফুটবল ফেডারেশন (এনএফএফ) খবরটি নিশ্চিত করেছে।
১৯৯৪ সালে আফ্রিকান নেশনস কাপে চ্যাম্পিয়ন নাইজেরিয়া দলের অধিনায়ক ছিলেন কেশি। একই বছর তার নেতৃত্বে ফিফা বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালেও খেলেছিল নাইজেরিয়া।
২০ বছরের খেলোয়াড়ী জীবনে ৬৪টি আন্তর্জাতিক ম্যাচের পাশাপাশি ফ্রান্স, বেলজিয়াম ও যুক্তরাষ্ট্রের কাবেও খেলেছেন তিনি।
খেলোয়াড়ী জীবন শেষে কোচিং পেশায়ও সফলতার সার রাখেন কেশি। তার অধীনে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ২০০৬ বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে টোগো।
২০১১ সালে নাইজেরিয়া জাতীয় ফুটবল দলের কোচের দায়িত্ব নেন কেশি। দুই বছর পরই নাইজেরিয়াকে নেশনস কাপ জিতিয়ে গড়েন ইতিহাস।
কেশির আগে খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে নেশনস কাপ জয়ের কৃতিত্বটি এককভাবে ছিল মিসরের মোহামেদ এল গোরারির দখলে। ১৯৫৯ সালে খেলোয়াড় ও ১৯৯৮ সালে কোচ হিসেবে নেশনস কাপ জিতেছিলেন গোরারি।
২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের পর নাইজেরিয়া ফুটবল ফেডারেশনের (এনএফএফ) সঙ্গে ম্যাচ বাই ম্যাচ চুক্তি নবায়ন করেন কেশি। কিন্তু পরের বছর নেশনস কাপে নাইজেরিয়ার ব্যর্থতার কারণে তাকে বরখাস্ত করে এনএফএফ।

লো-স্কোরিং ম্যাচেও অস্ট্রেলিয়ার লজ্জা

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী দণি আফ্রিকাকে হারিয়ে দিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পরের ম্যাচে উইন্ডিজদের হারায় অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু একই সিরিজে এবার লো-স্কোরিং ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৪৭ রানে হারিয়ে জয় তুলে নিয়েছে দণি আফ্রিকা।
মঙ্গলবার রাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের গায়নায় অস্ট্রেলিয়ার বিপে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় দণি আফ্রিকা। প্রথমে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৮৯ রান করে দণি আফ্রিকা। জবাবে মাত্র ৩৪.২ ওভারে ১৪২ রানে তুলতেই অলআউট হয়ে বড় লজ্জায় পড়ে স্টিভেন স্মিথের দল।
শুরুতে ব্যাটিং করতে নেমে অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের তোপের মুখে পড়েন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা। দলীয় ২৯ রানে ওপেনার ডি কক আউট হওয়ার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে তারা। দলের পে সর্বোচ্চ ৬২ রান করে ৬ নম্বরে নামা ফারহান বেহার্দিন। ৩৫ রান করেন হাশিম আমলা। ২২ রান করেন ভিলিয়ার্স।
বল হাতে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২টি করে উইকেট নেন যশ হ্যাজেলউড, কল্টার নাইল ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।
টার্গেট ছোট হওয়ায় জয়ের জন্য আশাবাদী ছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু জয়ের জন্য ১৯০ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি অসিদের। মাত্র ১ রানে ফিরে যান ডেভিড ওয়ার্নার (১)। দলীয় ১০ রান আউট হন উসমান খাজা (২)। দলীয় ২১ রানে সাজঘরে ফেরেন স্টিভেন স্মিথ (৮)। অ্যারন ফিঞ্চ ছাড়া প্রোটিয়া বোলারদের সামনে দাঁড়াতে পারেননি আর কেউ। সর্বোচ্চ ৭২ রান করেন তিনি। ৩০ রান করেছেন নাথান লায়ন। ১১ রানে অপরাজিত ছিলেন যশ হ্যাজেলউড। এছাড়া আর কেউ দুই অঙ্কে যেতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ১৪২ রানে অল আউট হয় অস্ট্রেলিয়া।
প্রোটিয়াদের হয়ে তিনটি উইকেট নেন কাগিসো রাবাদা। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন পারনেল, ইমরান তাহির ও অ্যারন ফাঙ্গিসো।
বোনাস পয়েন্ট সহ জয়ের সুবাদে এক লাফে পয়েন্ট টেবিলের এক নম্বরে উঠে গেছে দণি আফ্রিকা (৫)। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া (৫) এবং ৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার শেষে রয়েছে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ব্রাজিলের ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই

ইকুয়েডরের বিপে গোলশূন্য ড্র দিয়ে শতবর্ষী কোপা আমেরিকার আসর শুরু করেছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। নেইমারবিহীন সেলেকাওদের সামনে এবার হাইতি। কোয়ার্টার ফাইনালের দৌড়ে টিকে থাকতে জয় ছাড়া ভিন্ন কিছুই ভাবছে না কার্লোস দুঙ্গার শিষ্যরা। বৃহস্পতিবার ফোরিডার অরলান্ডোতে ক্যাম্পিং ওয়ার্ল্ড স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৫টায় হাইতির মুখোমুখি হবে ব্রাজিল।
সবশেষ ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ৭৪তম স্থানে থাকা হাইতির বিপে জিতে ঘুরে দাঁড়ানো ব্রাজিলের জন্যও কঠিন হওয়ার কথা নয়। এর আগে দুবার ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের এই দলের মুখোমুখি হয়ে দুটি ম্যাচেই জেতে ব্রাজিল। এই দুই ম্যাচে হাইতিকে ১০টি গোল দেওয়ার বিপরীতে নিজেদের জাল অত রেখেছে সেলেকাওরা।
ইনজুরির কারণে ইকুয়েডরের পর এ ম্যাচেও অভিজ্ঞ সেন্টার ব্যাক মিরান্ডাকে পাচ্ছে না ব্রাজিল। তার অনুপস্থিতিতে সেন্ট্রাল রণভাগ সামলাবেন মারকুইনহস।
ইকুয়েডরের বিপে লিড নেওয়ার বেশ কয়েকটি সুযোগ হাতছাড়া করে ব্রাজিল। হাইতি ম্যাচে একই ভুল করা যাবে না বলে সতীর্থদের সতর্কই করে দিয়েছেন মারকুইনহস, ‘ইকুয়েডরের বিপে আমরা বল দখলে এগিয়ে ছিলাম। কয়েকটি গোলের সুযোগ পেলেও তা হাতছাড়া হয়েছে। হাইতির বিপে একই ভুল করা যাবে না। নিজেদের সেরাটা দিয়েই পূর্ণ পয়েন্ট অর্জন করতে হবে।’
সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে সবশেষ পাঁচ ম্যাচের মধ্যে দু’টি জয়ের বিপরীতে তিন ম্যাচে ড্র করে ব্রাজিল। অন্যদিকে, জয়ের দেখাই পায়নি হাইতি। চার ম্যাচেই হার। প্রথমবারের মতো কোপায় অংশ নেওয়া হাইতি ব্রাজিলের তুলনায় অনভিজ্ঞও বটে।

দাদি এই গোলটা তোমার জন্য : ডি মারিয়া

গত বছর কোপা আমেরিকার ফাইনালে স্বাগতিক চিলির কাছে টাইব্রেকারে হেরেছিল আর্জেন্টিনা। তাই আজকের ম্যাচটি ডি মারিয়া-হিগুয়েনদের জন্য ছিল প্রতিশোধের। আর প্রতিশোধের এই ম্যাচে ভালো ভাবেই উৎরে গেল টাটা মার্টিনোর দল। কোপা আমেরিকার শতবর্ষী আসরে চিলির বিপক্ষে ম্যাচে ২-১ গোলে জয় পেয়েছে মেসিবিহীন আর্জেন্টিনা।

তবে এ ম্যাচের আগে এক দুঃসংবাদ শুনেই মাঠে নামে অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া। আগের দিন রাতেই খবর পান ছোটবেলা থেকে যাঁর কোলে-পিঠে মানুষ হয়েছেন, সেই প্রাণপ্রিয় দাদি আর নেই। কিন্তু মা তাকে মনে করিয়ে দিলেন, দাদির জন্য হলেও তাকে মাঠে নামতে হবে। আর মাঠে নামলেন এবং গোলও করলেন।

গোল করেই ছুটে গেলেন ডাগ–আউটের দিকে। একটা সাদা টি–শার্ট উঁচিয়ে ধরলেন। সেখানে স্প্যানিশ ভাষায় লেখা কথাটা বাংলা অনুবাদ করলে দাঁড়ায়, মদাদি, এই গোলটা তোমার জন্য।

দাদির মৃত্যুর পর ডি মারিয়া ইনস্টাগ্রামেও একটা পোস্ট দিয়েছেন। দাদির সঙ্গে নিজের ছবিতে লিখেছেন, ‘আমার প্রিয় বুড়ি মা, এবার তোমার বুড়োর পাশে শান্তিতে ঘুমাও। যেসব শিক্ষা আমাকে দিয়েছ, সেগুলো ধরে রাখতে পারার জন্য আমি গর্বিত। তোমার জন্য হৃদয়ের গভীর থেকে ভালোবাসা।

ভারতের কোচ হতে রবি শাস্ত্রীর আবেদন

২০১৫ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপ শেষে কোচ ডানকান ফ্লেচার চলে যাওয়ার পর থেকেই কোচ নেই মহেন্দ্র সিং ধোনি-বিরাট কোহলিদের। তার প্রস্থানের পর তারকাখচিত দলটির দায়িত্ব সামলেছেন হিসেবে রবি শাস্ত্রী। তবে কোচ হিসেবে নয়, টিম ডিরক্টর হিসেবে। এই সময় তিনি যথেষ্ট সুনামের সঙ্গেই দায়িত্ব পালন করে গেছেন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর শাস্ত্রীর মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে আবারও কোচের খোঁজে নামে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

এরই মধ্যে বিসিসিআই কোচ হতে আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন জমা দেওয়ার বিজ্ঞাপন দেয়। সেই পদে আবেদন করলেন শাস্ত্রী। তার আগেই আবেদন করেছেন এককালে ভারতের কোচের দায়িত্ব পালন করা সন্দ্বীপ পাতিল।

রবি শাস্ত্রী বলেন, ‘আজ (সোমবার) আমি প্রধান কোচের পদে আবেদন করেছি। বিজ্ঞাপনে যা যা চাওয়া হয়েছিল সেগুলোও দিয়েছি। এরপর বিসিসিআই যা চাইবে দেব। তবে যদি জানতে চান আমি দায়িত্ব পাওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী কি না তাহলে বলব, আমার কাজ ছিল আবেদন করা আমি করেছি। এর বেশি কিছু আমি জানি না।’

শাস্ত্রীর আমলে ভারত অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে অসিদের হোয়াইটওয়াশ করে। ইংল্যান্ডের মাটিতেও জিতেছিল ওয়ানডে সিরিজ। ২২ বছর পর শ্রীলঙ্কায় গিয়ে টেস্ট সিরিজ জিতেছিলেন ধোনিরা। ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকাকে পর্যদুস্ত করাকেও শাস্ত্রীর বড় সাফল্য হিসেবে দেখা হচ্ছে। সে হিসেবে ধোনি-কোহলিদের কোচ হিসেবে এগিয়ে আছেন তিনি।

চিলিকে হারিয়ে কোপা শুরু আর্জেন্টিনার

গতবার কোপা আমেরিকার ফাইনালে চিলির কাছে হেরেই শিরোপা খুইয়েছিল লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। কোপার শতবর্ষী আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মঙ্গলবার সকালে ‌‌‌সেই চিলির মুখোমুখি হয়েছিল আলবেসিলেস্তরা। এদিন চিলিকে ২-১ গোলে হারিয়ে ‘প্রতিশোধ’ নিয়েছে আর্জেন্টিনা। তবে বেঞ্চে থেকেই দলের জয় দেখতে হলো লিওনেল মেসিকে। পুরোপুরি ফিট না হওয়ায় এ ম্যাচে মাঠে নামেননি তিনি। তার বদলে মাঠে নামেন বেনিফিকায় খেলা নিকোলাস গাইতান।
আর্জেন্টিনার জয়ে যথারীতি উজ্জ্বল অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। এদিন একটি করে গোল ও অ্যাসিস্ট করেছেন ডি মারিয়া ও এভারে বানেগা।

ক্যালিফোর্নিয়ার সান্তা ক্লজে ম্যাচের ৩ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। মার্কোস রোহোর পাস থেকে দারুণ শট নিয়েছিলেন মেসির বদলি হিসেবে নামা নিকোলাস গাইতান। তবে তার শটটি বারে লেগে ফিরে আসে। খেলার ৯ মিনিটে গাইতান দারুণ এক পাস দেন ডি মারিয়াকে। কিন্তু বল পোস্টের বাইরে মারেন পিএসজি ফরোয়ার্ড।

আর্জেন্টাইন রক্ষণের ভুলে ২৯ মিনিটে গোলের সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছিলেন অ্যালেক্সিস সানচেজ। রক্ষণভাগের খেলোয়াড় ফুনেস মোরি সানচেজকে ব্লক না করে গোলে শট নেওয়ার সুযোগ করে দেন। দুর্দান্ত শটও নিয়েছিলেন সানচেজ। তবে কোনওরকম ঝাপিয়ে আলতো করে হাত ছুঁইয়ে আর্জেন্টিনাকে সে যাত্রায় বাঁচিয়ে দেন গোলরক্ষক রোমেরো।

৩৩ মিনিটে আবারও সানচেজের একটি প্রচেষ্টা রুখে দেন রোমেরো। গোল পোস্টের ৩০ গজ বাইরে ‌‌‌থেকে ফ্রি কিক নিয়েছিলে সানচেজ। দারুণ প্লেসমেন্টও করেছিলেন। তবে বলের গতিপথ রুখে দেন রোমেরো।

৪১ মিনিটে আবারও গোলবারের ওপর দিয়ে বল মারেন গাইতান। রোহো ও গাইতান একে অন্যের সঙ্গে ওয়ান টু ওয়ানে মেক্সিকোর রক্ষণে হানা দেন। শেষ পর্যন্ত তার শটটি গোলবারের ওপর দিয়ে গেছে। ফলে ০-০ স্কোর নিয়ে বিরতিতে যায় উভয় দল।

বিরতির পরই যেন অন্য আর্জেন্টিনার দেখা মেলে। ৫০ মিনিটে সমর্থকদের আনন্দে ভাসান পিএসজি ফরে‌‌‌ায়ার্ড ডি মারিয়া। মাঝমাঠে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়ের কাছ থেকে দারুণ দক্ষতায় বল কেড়ে নেন এভার বানেগা। কিছুটা লম্বা পাস বাড়ান ডি মারিয়ার দিকে। গোলপোস্টের কাছকাছি জায়গায় বল পেয়ে যান ডি মারিয়া। সেখান থেকে নিখুঁত শটে জলে বল জড়ান তিনি।
বেঞ্চে মেসি

৫৯ মিনিটে ২-০ গোলের লিড নেয় আলবেসিলেস্তরা। আবারও বানেগা-ডি মারিয়া জুটি। তবে এবার গোলদাতা বানেগা। এসিস্ট করেন ডি মারিয়া। ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে একটি গোল শোধ করেন চিলির ফ্যাবিয়েন অ্যারিয়েল ফুয়েনজালিদা। ফলে ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্জেন্টিনা।

চিলির বিপক্ষে প্রতিশোধের ম্যাচে খেলতে পারবেন না মেসি

ইনজুরির কারণে লিওনেল মেসিকে নিয়ে ঘোর ধোঁয়াশা। চিলির বিপক্ষে তিনি খেলতে পারবেন কি না তা নিয়ে চলছে নানা জ্বল্পনা-কল্পনা। বলা হচ্ছিল, চিলির বিপক্ষে প্রতিশোধের ম্যাচে সম্ভবত খেলতে পারবেন না মেসি। বরং, তার পরিবর্তে নিকো গাইতানকেও ভেবে রেখেছেন কোচ জেরার্ডো মার্টিনো।

আর্জেন্টিনা সমর্থকদের জন্য দুঃসংবাদ। জ্বল্পনা-কল্পনা শেষ করে এবার সত্যি সত্যি জানা গেলো মেসি খেলছেন না চিলির বিপক্ষে এই ম্যাচে। বিষয়টা নিশ্চিত করেছেন আর্জেন্টিনার এক ক্রীড়া সাংবাদিক। রয় নেমার নামে ওই সাংবাদিক টুইট করে জানিয়েছেন, চিলির বিপক্ষে খেলছেন না মেসি। তবে পরের ম্যাচে পানামার বিপক্ষে মাঠে নামছেন- এটা শতভাগ সত্যি।

গত কোপা আমেরিকার ফাইনালে চিলির কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত থাকতে হয়েছিল লিওনেল মেসিদের। এবারের কোপায়ও নিজেদের প্রথম ম্যাচে সেই চিলিকেই পেলো আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচটিকে সবাই প্রতিশোধের ম্যাচ হিসেবেই ধরে রেখেছে।

প্রতিশোধের ম্যাচে চিলির মুখোমুখি আর্জেন্টিনা

গতবছর কোপা আমেরিকার ফাইনালে পরস্পর মুখোমুখি হয়েছিল। এবার শতবর্ষী কোপার বিশের আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি চিলি-আর্জেন্টিনা। শিরোপা হারানোর ক্ষত এখনো শুকোয়নি আলবিসেলেস্তেদের। তাই জেরার্ডো ‍মার্টিনোর শিষ্যদের সামনে প্রতিশোধের হাতছানি!

মঙ্গলবার (৭ জুন) ক্যালিফোর্নিয়ার লিভাইস স্টেডিয়ামে হাইভোল্টেজ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। খেলা শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টায়। ভোর পাঁচটায় ‘ডি’ গ্রুপের অপর ম্যাচে পানামার মুখোমুখি হবে বলিভিয়া।

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দলের সেরা অস্ত্র লিওনেল মেসির খেলা নিয়ে রয়েছে সংশয়। গত সপ্তাহের হন্ডুরাসের বিপক্ষে পিঠের ইনজুরিতে ভোগেন বার্সেলোনা তারকা। তবে মেসির ব্যাপারে আশাবাদী আর্জেন্টিনা।

এক সাক্ষাৎকারে আর্জেন্টাইন কোচ জেরার্ডো মার্টিনো বলেন, ‘মেসির খেলার ব্যাপারে আমরা আশাবাদী। তাকে মাঠে নামানোর বিষয়ে শেষ মুহূর্তে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কোপায় ভালো সময় কাটিয়ে শিরোপা জিততে মুখিয়ে আছে সে। তার মধ্যে আমি সেরকম মনোভাবই দেখছি, তাই মেসিকে নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন নই।’

অন্যদিকে, মিডফিল্ডার আর্তুরো ভিদালের ইনজুরি চিলির জন্য উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মেক্সিকোর বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে পায়ে আঘাত পান বায়ার্ন মিউনিখ তারকা। তবে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ভিদালের খেলার সম্ভাবনা রয়েছে।

কোপা শিরোপা ধরে রাখার লক্ষ্যে চিলির সবচেয়ে বড় উদ্বেগের কারণ তাদের সাম্প্রতিক ফর্ম। জর্জ সাম্পাওলির স্থলাভিষিক্ত হওয়ার পর জুয়ান অ্যান্তোনিওর অধীনে সবশেষ পাঁচ ম্যাচের মধ্যে চারটিতেই হারের লজ্জায় ডোবে চিলিয়ানরা। এর মধ্যে গত মার্চে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ঘরের মাঠেই ২-১ গোলে হারের দুঃস্মৃতি রয়েছে। অপরদিকে, ছয় ম্যাচ ধরে অপরাজেয় আর্জেন্টাইনরা শেষ চার ম্যাচেই জয়োল্লাসে মাতে।

পেনাল্টি শুটআউটের ফলাফল বাদ দিলে কোপা অামেরিকায় চিলির বিপক্ষে সবশেষ ২৫ বারের দেখায় অপরাজেয় আর্জেন্টিনা। ১৯ ম্যাচে জয় ও বাকি ছয় ম্যাচ ড্র হয়। ১৯৫৯ আসরে ৬-১ গোলে জেতার পর থেকে সাতবারের মুখোমুখি লড়াইতেই ক্লিন শিট (ম্যাচে গোল হজম না করা) বজায় রাখে ১৪ বারের চ্যাম্পিয়নরা।

কমে যাচ্ছে ব্যাটের সাইজ!

ক্রিস গেইল, এবি ডি ভিলিয়ার্স কিংবা বিরাট কোহলি। ক্রিকেট মাঠে তারা যেন বলকে ফুটবলের মতো দেখেন। তাইতো একের পর এক বল আছড়ে ফেলেন গ্যালারিতে। তাদের নির্দয় ব্যাটের সামনে বোলাররা তখন অসহায়। যে বোলার অন্যান্যদের বেলায় অসাধারণ বল করেছেন তারাও গেইল-ডি ভিলিয়ার্সদের মতো ব্যাটসম্যানদের সামনে পড়লে খরুচে বোলার হয়ে যান।

বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছে অনেককে। তাদের মধ্যে রয়েছেন ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার অনীল কুম্বলে। আইসিসির ক্রিকেট কমিটির চেয়ারম্যান কুম্বলে প্রস্তাব দিয়েছেন ব্যাটের সাইজ কমানোর। বিষয়টি ইতিবাচকভাবে নিয়েছে আইসিসি। পাশাপাশি ব্যাটের সাইজ কমানোর ব্যাপারে বৈজ্ঞানিক ও যান্ত্রিক উপায়ে বিচার বিশ্লেষণ করে দেখছে এমসিসি (ম্যারিলেবন ক্রিকেট ক্লাব)। তারা ব্যাটের জন্য একটি স্ট্যান্ডার্ড সাইজ তৈরি করে আইসিসিকে দিবে।

এ বিষয়ে অনীল কুম্বলে বলেন, ‘আইসিসির দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী এমসিসি নতুন আকৃতির ব্যাট তৈরি বিষয়টি বিচার-বিশ্লেষণ করে দেখছে। আসলে আমরা ব্যাট ও বলের মধ্যে একটি সামঞ্জস্যতা তৈরি করতে চাচ্ছি। আইসিসির ক্রিকেট কমিটি এমসিসির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে একটি গবেষণাপত্র হাতে পেয়েছে। সেখানে দেখা গেছে সাম্প্রতিক সময়গুলোতে বলের চেয়ে ব্যাট বেশি শক্তিশালী হয়ে গেছে। তবে কমিটি এমসিসিকে ব্যাটের জন্য সামঞ্জস্য ও স্ট্যান্ডার্ড সাইজ নির্ধারণ করতে জোর দিয়ে বলেছে। যাতে করে বল ও ব্যাটের লড়াইয়ে কাঙ্খিত সামঞ্জস্য আসে।’

তবে শেষ পর্যন্ত ক্রিকেট ব্যাটের সাইজ বেসবলের ব্যাটের সাইজের মতো না হয়ে গেলেই হয়!

কর ফাঁকির মামলায় আদালতে মেসি

কর ফাঁকির মামলায় বার্সেলোনার আদালতে হাজিরা দিয়েছেন বার্সার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনও কথা না বলে দ্রুত আদালতে ঢুকে যান মেসি আর তার বাবা হোর্হে হোরাসিও মেসি।

গত মঙ্গলবার থেকে শুনানি শুরু হলেও বৃহস্পতিবার এতে অংশ নেন মেসি। ২০০৭ ও ২০০৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে মেসি ও তার বাবা ৪২ লাখ ইউরো কর ফাঁকি দেন বলে অভিযোগ এনেছিল স্পেনের কর কর্তৃপক্ষ।

তবে মেসির আইনজীবীদের দাবি, চুক্তির বিষয়গুলো সবসময়ই মেসির বাবা কিংবা মেসির ভাই দেখতেন। মেসি শুধু স্বাক্ষর করতেন। তারা জানান, মেসির বাবা চুক্তি সম্পর্কে কিছু জেনে থাকতে পারেন তবে মেসি নয়। কর ফাঁকিতে মেসি কোনওভাবেই জড়িত ছিলেন না।

উল্লেখ্য, দোষী সাব্যস্ত হলে ২২ মাস করে কারাদণ্ড হতে পারে মেসি ও তার বাবার। তবে স্পেনে সহিংস অপরাধ না করলে দুই বছরের নিচে সাজার ক্ষেত্রে কারাবাস হয় না।

আদালতে হাজিরা দিলেও মেসি শিগগিরই আর্জেন্টিনার কোপা আমেরিকার দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। যুক্তরাষ্ট্রে আগামী শুক্রবার শুরু হবে কোপা আমেরিকার শতবর্ষী আসর।

বরখাস্ত হলেন মাসাকাদজা ও হোয়াটমোর

কিছুদিন আগেই ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের হয়ে খেলে গেছেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। দেশে ফিরে যাওয়ার কয়েকদিন পরই অধিনায়কত্বের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে মারকুটে এই ক্রিকেটারকে। একই সঙ্গে কোচ ডেভ হোয়াটমোরকেও বরখাস্ত করেছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড।
গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ব্যর্থতা যাচাই বাছাই করার পরই এমন সিদ্ধান্ত নিলো জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড। অন্তর্বর্তীকালীন নতুন অধিনায়ক মনোনীত হয়েছেন লেগ স্পিনার গ্রায়েম ক্রেমার। এছাড়া আপাতত মূল কোচের কাজ চালাবেন সহকারী কোচ দক্ষিণ আফ্রিকান সাবেক পেসার মাখায়া এনটিনি।

সঙ্গে এনটিনির সাবেক এক সতীর্থকে স্থায়ী চুক্তিতে নিয়োগ দিয়েছে জিম্বাবুয়ে। দুই বছরের চুক্তিতে ব্যাটিং কোচ হচ্ছেন সাবেক অলরাউন্ডার ল্যান্স ক্লুজনার। শুধু তাই নয় নির্বাচক কমিটিতেও ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে। যেখানে আহবায়ক করা হয়েছে সাবেক জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক টাটেন্ডা টাইবুকে। এই প্যানেলে থাকবেন হেড কোচ ও সহকারী কোচ।

ইউরো কাপে আইএস হামলার আশঙ্কা

ফুটবলের অন্যতম সেরা আসর ইউরো কাপ টুর্নামেন্ট শুরু হতে যাচ্ছে আগমী ১০ই জুন। আর ফ্রান্সে শুরু হতে যাওয়া এ চ্যাম্পিয়নশিপে শীর্ষ জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) হামলা হতে পারে বলে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর জানিয়েছে, গ্রীষ্মের ছুটিতে টুর্নামেন্ট চলার সময় ইউরোপজুড়ে কমপক্ষে ১০ লাখ মানুষ ওই খেলা দেখতে যাবে। বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র, হোটেলসহ বাণিজ্যিক ভবন ও পরিবহন ব্যবস্থার উপরও হামলা হতে পারে। ওই সময়ে ইউরোপ ভ্রমণে মার্কিন নাগরিকদের সতর্ক করা হয়েছে।

এদিকে ১১ জুন ইংল্যান্ড বনাম রাশিয়ার ম্যাচে আইএস জঙ্গিরা হামলা চালাতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হয়েছে। দ্য সান পত্রিকা এ খবর দিয়েছে। প্যারিস হামলা সন্দেহে আটক সালাহ আবদেসলামের জব্দ ল্যাপটপ থেকে এই তথ্য পাওয়া যায় বলে জানা গেছে।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র দপ্তর থেকেও সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কার কথা জানানো হয়েছে। পূর্ব সতর্কতা হিসেবে এরই মধ্যে ড্রোন প্রতিরোধ প্রযুক্তি এবং ৯০ হাজার সেনা ও পুলিশ মোতায়েন করেছে ফ্রান্স সরকার।

ইতিহাসের সঙ্গে প্রতিদানও দিলেন জিদান

খেলোয়াড় ও কোচ দুই ভূমিকাতেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতে ইতিহাসন গড়েছেন। বিশ্বের সপ্তম ব্যক্তি হিসেবে এই কীর্তি গড়েন তিনি। শুধু ইতিহাসই নয়, ইউরোপ সেরার ট্রফি জিতে রিয়াল প্রেসিডেন্ট ফ্লরেনটিনো পেরেজের আস্থার প্রতিদানও দিয়েছেন ফরাসি এই কিংবদন্তী।

২০০২ এ রিয়ালকে খেলোয়াড় হিসাবে চ্যাম্পিয়নন্স লিগ জিতিয়েছিলেন ফ্রেঞ্চ লিজেন্ড জিদান, এবার কোচ হিসাবে প্রথম বছরই ইউরোপ-সেরার খেতাব জেতালেন।

এর আগে ১৯৫৬-৫৭ মৌসুমে খেলোয়াড় হিসেবে এবং ১৯৬০ ও ১৯৬৬ সালে কোচ থাকা অবস্থায় রিয়ালের হয়ে ট্রফি জেতে ম্যানুয়েল মুনোজ। খেলোয়াড় হিসেবে এসি মিলান এবং কোচ হিসেবে জুভেন্টাসের হয়ে এই কৃর্তি গড়েন জিওভান্নি ক্রাপাতোন্নি। সদ্য প্রয়াত ডাচ কিংবদন্তী জোহান ক্রুয়েফ আয়াক্সের হয়ে খেলোয়াড় ও বার্সেলোনার হয়ে কোচের ভূমিকায় চ্যাম্পিয়্স লিগ শিরোপা জিতেছেন।

সাবেক রিয়াল কোচ কার্লোস আনচেলত্তি তো আরো এগিয়ে। খেলোয়াড় হিসেবে দুই বার এবং কোচ হিসেবে তিনবার জিতেছেন এই শিরোপা। ১৯৮৯ ও ১৯৯০ সালে এসি মিলানের জার্সি গায়ে শিরোপা জেতেন আনচেলত্তি। আর কোচ হিসেবে ২০০৩ ও ২০০৭ সালে এবং রিয়ালের মাদ্রিদের হয়ে ২০১৪ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতেন এই ইতালিয়ান কোচ।

আরেক ডাচ তারকা ফ্রাঙ্কা রাইকার্ড খেলোয়াড় হিসেবে তিনবার ও কোচ ভূমিকায় একবার জিতেছেন এই শিরোপা। এসি মিলানের হয়ে ১৯৮৯, ১৯৯০ ও আয়াক্সের ১৯৯৫ এবং কোচ হিসেবে ২০০৬ সালে বার্সেলোনাকে শিরোপা জেতান রাইকার্ড।

আর সাবেক বার্সা ও বায়ার্ন মিউনিখ কেচা পেপ গার্দিওলা খেলোয়াড় হিসেবে একবার ও কোচ হিসেবে দুইবার এই শিরোপা জেতেন। ১৯৯২ সালে কাতালান জার্সিতে এবং ২০০৯ ও ২০১১ সালে কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জেতেন বর্তমানে ম্যানচেস্টার সিটির এই কোচ।

আর প্রতিদানের কথা যদি বলি, সেটা এখন দিনের মতো পরিস্কার। গত জানুয়ারির গোড়ায় রাফায়েল বেনিতেজকে যখন বরখাস্ত করা হয়, লিগে রিয়াল মাদ্রিদের অবস্থা বেশ খারাপ। ১৮ ম্যাচের ১১টি জয়, ৪ ড্র আর ৩ হারে নড়বড়ে অবস্থা। লিগ জেতা তো দূরের কথা, তখন হিসেব ছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা ও নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের চেয়ে কত কম পয়েন্ট নিয়ে লিগ শেষ করে রিয়াল।

কিন্তু সেখান থেকে দায়িত্ব নেওয়ার পর রিয়াল মাদ্রিদকে বাকি ২০ ম্যাচের ১৭টিতে জিতিয়ে আনেন জিদান, ড্র ২টি, একমাত্র হারটি ছিল এই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কাছেই। নগরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে ওই হারের পরই অবশ্য লিগে টানা ১২ ম্যাচ জিতেছে রিয়াল। যেটি লা লিগার নতুন রেকর্ড। এর আগে অন্য কোনো দল লিগে টানা শেষ ১২টি ম্যাচ জিততে পারেনি। আর লা লিগা শিরোপা নির্ধারণে শেষ ম্যাচ পর্যন্ত চরম প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছে জিদানের দল।

আর বেনিতেজ যখন বরখাস্ত হন তখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপপর্ব চলছে। সেখান থেকে দলকে চ্যাম্পিয়ন করলেন জিদান।

তাই তো শিরোপা জয়ের পর ক্লাব প্রেসিডেন্ট পেরেজ বলেছেন, ‘জিদান আমার জন্যে, মাদ্রিদের জন্যে এবং ক্লাবের ইতিহাসের জন্যে গুরুত্বপূর্ণ। ২০০২ সালে খেলোয়াড় হিসেবে এটি জিতে(চ্যাম্পিয়ন্স লিগ) ইতিহাস বদল করেছিল, আজ কোচ হিসেবেও সেটা করলো।’

পুরো ম্যাচের অচেনা নায়ক রোনালদো

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সর্বকালের সেরা গোলমেশিন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। কিন্তু তা হওয়া সত্ত্বেও অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে ফাইনালের পুরো সময় অচেনাই লেগেছে সিআর সেভেনকে। তবে পাহাড়সম চাপের মধ্যে দলের শেষ পেনাল্টি শট থেকে গোল করে পুরো একশো ভাগ ফিট না থাকা রোনালদোই নায় বনে গেছেন।

নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের টাইব্রেকারে হারিয়ে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবলে ১১তম শিরোপা জেতে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। মিলানের সানসিরোতে নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়েও ফল না আসায় খেলা গড়িয়েছিলো টাইব্রেকারে। সেখানে প্রতিবেশিদের ৫-৩ ব্যবধানে হারিয়ে দেয় রিয়াল।

হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট থাকায় ফ্রি-কিক মাস্টার রোনালদো এ দিন সেট পিসে শটই নিতে পারেনি। ম্যাচের এক ঘণ্টার পর থেকে প্রায় দাঁড়িয়ে ছিলেন। তার মতো সুপারস্টারের এমন খেলায় ছাপ পড়েছে দলেও। সেই সঙ্গে এদিন ক্লিক করেনি রিয়ালের বিশ্বখ্যাত জুটি বিবিসিও (বেল-বেনজামা-রোনালদো)।

খেলার শেষদিকে রোনাল্ডো, বেল, মার্সেলোদের গতি ওই সময় অর্ধেকে নেমে গিয়েছিল। আর সেই সুযোগে আটলেটিকো যেমন গতি বাড়িয়ে কারাস্কোর গোলে সমতা ফেরায়। গ্রিজম্যান আগে মোক্ষম সময়ে পেনাল্টি নষ্ট করে আটলেটিকোকে বিপদে না ফেললে ফলাফল নিশ্চিত অন্য রকম হতে পারতো।

তবে আসলটা হল প্রবল চাপ। এত বড় মঞ্চে পারফর্ম করা অসহনীয় চাপ। সেই চাপ জয় করে ম্যাচের পুরো সময় প্রায় অচেনা রোনালদোই হয়ে যান নায়ক।

টাইব্রেকারে প্রথম তিনটি শটেও ছিল সমতা। কিন্তু পুরো ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা হুয়ানফ্রান চতুর্থ শট নিতে গিয়ে ব্যর্থ হন। তার শট ফিরে এসেছে সাইডবারে লেগে। পঞ্চম ও শেষ শটটি বরফঠাণ্ডা মাথায় জালে জড়িয়ে রিয়ালকে আনন্দের সাগরে ভাসান সিআর সেভেন।

আবারও নগরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের কাঁদিয়ে চ্যাম্পিয়ন রিয়াল

নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ’কে টাইব্রেকারে হারিয়ে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবলে ১১ তম শিরোপা জিতেছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। মিলানের সানসিরোতে নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়েও ফল না আসায় খেলা গড়িয়েছিলো টাইব্রেকারে। সেই পর্বে ৫-৩ ব্যবধানে বাজিমাৎ করে রিয়াল। আর অ্যাটলোটিকোর জন্য এবারও শিরোপা জয় অধরাই থেকে যায়।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে প্রথম ফাইনালের আগে ছোট তবে মন ছুঁয়ে যাওয়া আনুষ্ঠানিকতা হয়। সেই অনুষ্ঠান আলো করতে সানসিরো স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে ছিল মহারথীদের মেলা। নাঁচ-গানের আয়োজনের মতোই প্রথম মিলানের সানসিরো স্টেডিয়ামে রিয়াল মাদ্রিদের সাফল্যের পথে যাত্রা। ৬ মিনিটেই রিয়ালকে এগিয়ে দিতে পারতো সেটপিসে অধিনায়ক র‌্যামোসের গোল।

সেই গোল এলো আরো নয় মিনিট পর। সেটপিসে ক্রুজ’র ফ্রিকিক বেল’র মাথা ছুঁয়ে মাটিতে পড়তেই র‌্যামোসের শটে রিয়ালের লিড। ২০১৪’র ফাইনালে র‌্যামোসের গোলে সমতা ফিরিয়েছিলো লস ব্ল্যাঙ্কোস। এবার তার গোলে এগিয়ে যাওয়া।

এরপর রিয়াল খেলেছে হিসেবি ফুটবল। পিছিয়ে পড়া সিমিওনের অ্যাটলেটিকো চড়াও হয়েছিলো রিয়াল ডিফেন্সে। ফেঞ্চম্যান গ্রিজম্যান রিয়াল ডিফেন্স’কে চাপেই রেখেছিলেন।

নিস্প্রাণ প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই অ্যাটলেটিকো ফরোয়ার্ড তোরেস’কে ডিফেন্ডার পেপে নিজেদের বক্সে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় অ্যাটলেটিকো। সেই পেনাল্টি কিকে গোলের সুযোগ নষ্ট করেন গ্রিজম্যান। রিয়ালের বিপক্ষে এটি মৌসুমের দ্বিতীয় পেনাল্টি মিস ফ্রেঞ্চ তারকার।

তবে খেলায় ঠিকই ফিরেছে অ্যাটলেটিকো । ৭৯ মিনিটে জুয়ানফ্রাঙ্ক’র ক্রসে পা ছুঁইয়ে অ্যাটলেটিকোকে সমতায় ফেরান বদলী খেলোয়াড় কারাসকো। ২০১৪’র মতো দুই মাদ্রিদ’র চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল ডার্বি নির্ধারিত সময়ে ১-১ সমাপ্তি।

এবার ১২০ মিনিটে নিস্পত্তি না হওয়ায় টাইব্রেকারে ইউরো-সেরা ক্লাবের স্বীকৃতি আদায়। স্নায়ুক্ষয়ী সেই লড়াইয়ে রিয়াল পাঁচটি সুযোগই কাজে লাগিয়েছে।অ্যাটলেটিকোর জুয়ানফ্রাঙ্কোর শট আছড়ে পড়লো সাইড পোস্টে। রোনাল্ডোর গোলেই রিয়ালের বিজয় উৎসব। সানসিরো স্টেডিয়ামে ১৪ ম্যাচ খেলার পর রিয়ালের প্রথম জয়।

২০০২ এ রিয়াল’কে খেলোয়াড় হিসাবে চ্যাম্পিয়নন্স লিগ জিতিয়েছিলেন ফ্রেঞ্চ লিজেন্ড জিদান,এবার কোচ হিসাবে প্রথম বছরই ইউরোপ-সেরার খেতাব জেতালেন জিজু। মুনোজ, ক্রাপাতোন্নি, জোহান ক্রুয়েফ, কার্লোস আনচেলত্তি, ফ্রাঙ্কা রাইকার্ড, পেপ গার্দিওলার পর খেলোয়াড়-কোচ হিসাবে জিদান গড়লেন সপ্তম কীর্তি।

রিয়েল মাদ্রিদ: ১ (৫) (র‌্যামোস)
টাইব্রেকার: লুকাস (গোল), মার্সেলো (গোল), বেল (গোল), রামোস (গোল), রোনাল্ডো (গোল)

আটলেটিকো মাদ্রিদ: ১ (৩) (কারাসকো)
টাইব্রেকার: গ্রিজম্যান (গোল), গাবি (গোল), সল (গোল), জুয়ানফ্রান (মিস)

অফিসিয়াল দায়িত্ব পেলেন ‘স্পেশাল ওয়ান’

ইংলিশ প্রিমিয়ারের জায়ান্ট দল চেলসি থেকে বরখাস্ত পর্তুগিজ কোচ হোসে মরিনহোকে প্রধান কোচের অফিসিয়াল দায়িত্ব দিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ম্যানইউয়ের বরখাস্ত হওয়া কোচ লুইস ফন গালের স্থলাভিষিক্ত হলেন ৫৩ বছর বয়সী মরিনহো।

গত সোমবার ফন গালকে বরখাস্ত করলেও তখন আনুষ্ঠানিকভাবে মরিনহোর নাম ঘোষণা করেনি ম্যানইউ। শুক্রবার (২৭ মে) ক্লাবের ওয়েবসাইটে মরিনহোর সঙ্গে তিন বছরের চুক্তির কথা জানানো হয়।

বিশ্ব ফুটবলে ওপরের সারির কোচদের মধ্যে অন্যতম মরিনহো। স্পেশাল ওয়ান খ্যাত এ তারকা পোর্তো ও ইন্টার মিলানের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জিতেছেন। এছাড়া চেলসির হয়ে তিনটি প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা ও রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে লা লিগা জিতেছেন।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সফলতম ক্লাব ম্যানইউর এক্সিকিউটিভ ভাইস-চেয়ারম্যান এড উডওয়ার্ড মরিনহোর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বর্তমান ফুটবলে মরিনহো সেরা কোচ। দলকে শিরোপা জেতাতে আর শিষ্যদের অনুপ্রেরণা দিতে তিনি দারুণভাবে সক্ষম। ইউরোপের অনেক শিরোপা তার হাত ধরে ক্লাব অর্জন করেছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের আসর সম্পর্কে তিনি বেশ ভালো করেই জানেন।

চুক্তির পর অনুভূতি জানাতে গিয়ে মরিনহো জানান, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ হওয়াটা বিশেষ সম্মানের। বিশ্বের সেরাট একটি ক্লাব হিসেবে ম্যানইউ পরিচিত। আগামী বছরগুলোতে এই ক্লাবের ভক্তদের সমর্থন প্রত্যাশা করছি।

গোললাইন প্রযুক্তি থাকছে কোপা আমেরিকায়

প্রথমবারের মত গোললাইন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে কোপা আমেরিকাতে। শতবর্ষী কোপা আমেরিকাকে আরো নিখুঁত ও সুন্দর করে তুলতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোপা কর্তৃপক্ষ। এটি ছাড়াও থাকছে হক আই`র মাধ্যমে রিপ্লে সিস্টেম প্রযুক্তিও।

ল্যাটিন আমেরিকার দশটি এবং উত্তর আমেরিকার ছয়টি দেশ মিলে মোট ১৬ দল মিলে হচ্ছে কোপা আমেরিকার এবারের আসর। মূলত চার বছর পরপর কোপা আমেরিকার হওয়ার কথা থাকলেও এ বছরেই শতবর্ষে পা দিচ্ছে পৃথিবীর সব থেকে পুরাতন এই ফুটবল টুর্নামেন্টটি। লিওনেল মেসি, সুয়ারেজ, আগুয়েরো, হামেশ রড্রিগেজের মত তারকারা এবার মাঠ মাতাবেন।

আমেরিকায় ৩ জুন থেকে শুরু হওয়া এ টুর্নামেন্টে গোললাইন প্রযুক্তি ব্যবহারের আগে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, বুন্দেসলিগা, ইতালিয়ান লিগ এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও এই প্রযুক্তির ব্যবহার দেখে ফুটবল বিশ্ব। ইউরো কাপেও থাকছে গোললাইন প্রযুক্তি। এতে বেশি উপকার পেয়েছেন ফুটবলাররা। অন্যদিকে হক আই প্রযুক্তিটি গত বছর মহিলা বিশ্বকাপে প্রথমবারের মত ব্যবহার করা হয়।

উল্লেখ্য, চিলির বিপক্ষে ৬ তারিখ ম্যাচ দিয়ে কোপা আমেরিকা শুরু করবে আর্জেন্টিনা। গত বছরের দুই ফাইনালিস্ট এবার শুরুতেই মুখোমুখি। তবে রেফারি বিতর্কে কিছুটা শংকায় রয়েছে কোপা কর্তৃপক্ষ। মার্ক গিয়েগার গত বছরের গোল্ড কাপ সেমি ফাইনালে মেক্সিকো এবং পানামার মধ্যকার ম্যাচটিতে বাজে রেফারিং করে সমালোচিত হন। তাকেও রেফারি প্যানেলে রাখায় মেক্সিকো দল প্রতিবাদও জানিয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দলে ফিরলেন হেনরিকস

শ্রীলংকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজকে সামনে রেখে ১৫ সদস্যের অস্ট্রেলিয়া দল ঘোষণা করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এ বছরের জুলাইতে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলংকা পাড়ি জমাবে স্টিভেন স্মিথের দল। নতুন দলে তেমন কোন চমক না থাকলেও আইপিএলে ভালো খেলার প্রতিদান হিসেবে অসি দলে আবারো সুযোগ পেলেন ময়সেস হেনরিকস।

২০১৩ সালে ভারতের মাটিতে তিনটি টেস্ট খেলার পর টেস্ট দলে জায়গা পাননি হেনরিকস। কিন্তু সম্প্রতি ভারতের মাটিতে তার পারফর্মেন্স তাকে দলে নিতে বাধ্য করেছে। এ মাসের শুরুতে তাকে অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলে নেয়া হয়। কিন্তু ‘এ’ দলের পরিবর্তে এবার সোজা জাতীয় দলেই সুযোগ পেলেন এই ক্রিকেটার।

বহুদিন পর অসি দলে ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেছেন মিচেল স্টার্ক। তাছাড়া আইপিএল খেলতে গিয়ে ইনজুরিতে পড়লেও মিচেল মার্শ এবং শন মার্শ টেস্ট দলে জায়গা করে নিয়েছেন। কিন্তু ইনজুরির কারণে দলে জায়গা হয়নি জেমস প্যাটিনসনের। অ্যাডাম জাম্পাকে নিয়ে অনেক জল্পনা কল্পনা থাকলেও তাকে দলে রাখেনি অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়া ১৫ সদস্যের দলঃ
স্টিভেন স্মিথ (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার, জ্যাকসন বার্ড, জো বার্নস, ন্যাথান কুল্টার-নাইল, জশ হ্যাজেলউড, ময়সেস হেনরিকস, উসমান খাজা, ন্যাথান লায়ন, মিচেল মার্শ, শন মার্শ, পিটার নেভিল, স্টিভেন ও’কেফে, মিচেল স্টার্ক, অ্যাডাম ভোজেস

এক ওভারে ছয় ছক্কা মারলেন কিউই ক্রিকেটার

এ বছরের শুরুতেই অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলতে বাংলাদেশে এসেছিলেন কিউই ক্রিকেটার গ্লেন ফিলিপস। টুর্নামেন্টে ৮৯ রানের ঝলমলে একটি ইনিংস খেলার পরেও তেমন ভালো খেলতে পারেননি তিনি। এবার ক্রিকেট ইতিহাসে নিজেকে অন্যভাবে চেনালেন এই ডান হাতি ব্যাটসম্যান। ইংলিশ ঘরোয়া ক্রিকেটে ডিউক অব নরফোক একাদশের বিপক্ষে এক ওভারে ছয় ছক্কা মেরে সাড়া ফেলে দিয়েছেন ফিলিপস।

অকল্যান্ডের এই ক্রিকেটার ইংল্যান্ডের ‘মারলিবোনে ক্রিকেট ক্লাব’ স্টেডিয়ামে এই কীর্তি গড়েন। ছয় ছক্কা মারার ম্যাচে করেছেন ডাবল সেঞ্চুরিও। ১২৩ বলে ২০১ রানে অপরাজিত থেকে ইনিংস ঘোষণা করে তার দল।

দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম হলেও ছোটবেলা থেকেই নিউজিল্যান্ডে বেড়ে উঠেছেন ফিলিপস। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে ম্যাচ খেলা ছাড়াও অকল্যান্ডের হয়ে সীমিত ওভারের ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন। ২০১৫-১৬ মৌসুমে ওটাগোর বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে দলকে ৩১৪ রান টপকাতেও সাহায্য করেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কেবল দুবারই ঘটেছে এক ওভারে ছয় ছক্কা মারার ঘটনা। প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যুবরাজ সিং স্টুয়ার্ড ব্রডের বলে ছয় ছক্কা মারেন। ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকার হার্শেল গিবস ২০০৭ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে এক ওভারে ছয় ছক্কা হাঁকান।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেও দুবার এমন অসাধারণ কীর্তি হয়েছে। ১৯৬৮ সালে ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে ম্যালকম ন্যাশের এক ওভারে ছয়টি ছক্কা মেরেছিলেন এই ক্যারিবিয় কিংবদন্তি গ্যারি সোবার্স। এছাড়া ১৯৮৫ সালে ভারতের রঞ্জি ট্রফিতে বরোদার স্পিনার তিলক রাজের বলে একই কীর্তি গড়েছিলেন সেই সময়ের বোম্বের হয়ে খেলা রবি শাস্ত্রী।

পেলেকে ছাড়িয়ে অনন্য উচ্চতায় মেসি

বিশ্বকাপ জিততে পারেননি কিন্তু ক্লাব ফুটবলে মেসি যে অন্য সবার থেকে সেরা সেটিতে হয়ত ফুটবল বোদ্ধারাও দ্বিমত পোষণ করবেনা। কোপা দেলরের ফাইনালে সেভিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়ে রেকর্ড ২৮ তম কোপা শিরোপা জেতে বার্সেলোনা। ম্যাচে গোল না পেলেও তার সহযোগিতাতেই আসে দুটি গোল। ব্যক্তিগত রেকর্ডেও তিনি ছাড়িয়ে গেলেন ফুটবল কিংবদন্তি পেলেকে।

ইয়হান ক্রুইফ, পেলে, ম্যারাডোনার মত ফুটবলারকে টপকে সবথেকে বেশি ট্রফি জয়ের স্বাদ পেলেন পাঁচ বারের বর্ষসেরা ফুটবলার মেসি। কোপা দেলরের ট্রফি জয়ের মাধ্যমে ৩০টি ট্রফি জিতে অনন্য রেকর্ড গড়েছেন এই আর্জেন্টাইন ফুটবলার। যেখানে পেলের শিরোপা সংখ্যা ছিল ২৯টি।

মেসির ৩০টি শিরোপার ভেতর ক্লাবের হয়েই রয়েছে ২৮টি। মাত্র ২৮ বছর বয়সে একটি ক্লাবের হয়ে ২৮টি শিরোপা জেতাটাও একটি রেকর্ড বটে। বার্সেলোনার জার্সি গায়ে ৮টি লা লিগা শিরোপা, ৪টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা, ৬টি স্প্যানিশ সুপার কোপা, ৪টি কোপা দেল রে, ৩টি ইউরোপিয়ান সুপার কাপ এবং ৩টি ক্লাব বিশ্বকাপের ট্রফি রয়েছে।

এছাড়া জাতীয় দলের হয়ে অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ এবং অলিম্পিকে সোনা জিতেছিলেন মেসি। এতকিছু জয়ের পরেও মেসির অপূর্ণতার তালিকায় রয়ে গেছে বিশ্বকাপ এবং কোপা আমেরিকা। আর্জেন্টিনার প্রধান দলের হয়ে এখন পর্যন্ত কোন শিরোপার মুখ দেখেননি মেসি। অবশ্য এদিক দিয়ে তিনটি বিশ্বকাপ জিতে অনেক এগিয়ে রয়েছেন পেলে।

কোপা দেলরের ২৮তম শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা

ঘড়ির কাঁটায় তখন ১২৩ মিনিট। মেসির বাড়ানো পাস থেকে গোল করে হাত উঁচু করে বুঝিয়ে দিলেন ম্যাচের ফলাফল। ২-০ গোলে ইউরোপা লিগ চ্যাম্পিয়ন সেভিয়াকে হারিয়ে কোপা দেলরের রেকর্ড ২৮তম শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা। ১৯৯৮ সালের পর প্রথম দল হিসেবে টানা দু’বার কোপা দেলরের শিরোপা জিতলো কোনদল। দু দলের সামনেই ছিল মৌসুমে দ্বিতীয় শিরোপা জেতার সুযোগ কিন্তু হাড্ডাহাড্ডি এবং পেশী শক্তির লড়াইয়ের এই ম্যাচে শেষ পর্যন্ত বার্সারই জয় হয়।
রেফারিকেও বেশ বেগ পেতে হয়েছে ম্যাচ পরিচালনা করতে গিয়ে। ১১টি হলুদ কার্ড এবং ৩টি লাল কার্ড দেখিয়ে ফুটবলারদের কাছে রীতিমত খলনায়কে পরিণত হন রেফারি। ম্যাচের শুরু থেকেই দু দল পজিশন নির্ভর ফুটবল উপহার দিতে থাকে কিন্তু বার্সেলোনার সাথে অতটা পেড়ে উঠছিল না উনাই এমরির দল। মাত্র ১০০ ঘন্টার ভেতরেই টানা দ্বিতীয় ফাইনাল খেলতে নেমেও তাদের অদম্য মানসিকতার কাছে বারবার পরাস্ত হচ্ছিলেন মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা।
প্রথম ৩০ মিনিটে কোন দলই তেমন কোন সুযোগ সৃষ্টি করতে পারেনি। ৩৬ মিনিটেই ম্যাচের উল্লেখযোগ্য মুহূর্তে সেভিয়ার স্ট্রাইকার গ্রামেরোকে ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন মাসচেরানো। আর এতেই দশ জনের দলে পরিণত হয় বার্সা। ডি বক্সের বাইরে থেকে বানেগার করা ফ্রি কিক রুখে দেন বার্সা গোলকিপার টের স্টেগান। একজন কমে যাওয়াতেই বার্সাকে চেপে ধরে সেভিয়া কিন্তু প্রথমার্ধ গোলশূন্য ড্র থেকেই শেষ হয়।
বিরতি থেকে ফিরে যেন আরো নাজেহাল হয়ে পড়ে বার্সা। তার উপর রেফারির একের পর একে হলুদ কার্ডে দুদলই ম্যাচ থেকে মনোযোগ হারিয়ে পেশী শক্তির দিকেই বেশি মনযোগ দিচ্ছিল। ৫০ মিনিটে বানেগার করা শট গোলবারে লেগে ফিরে এলে গোল বঞ্চিত হয় সেভিয়া। বার্সেলোনার বড় ধাক্কাটি আসে ৫৭ মিনিটে। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ে মাঠ ছাড়তে হয় গোল্ডেন বুট জয়ী লুইস সুয়ারেজকে। তার পরিবর্তে রাফিনহা নেমেও তেমন কোন সুবিধা করতে পারেননি। ম্যাচের একদম অন্তিম মুহূর্তে সেভিয়ার বানেগা নেইমারকে ফাউল করলে রেফারি তাকে লাল কার্ড দেখান। দু’দলই পরিণত হয় দশজনের দলে। নির্ধারিত সময়ে আর কোন গোল না হলে খেলা গড়ায় অতিরক্তি সময়ে।
অতিরিক্ত সময়ের শুরুতেই মেসির মাঝমাঠ থেকে মাথার উপর দিয়ে বাড়ানো বলে গোল করে দলকে উল্লাসে মাতিয়ে তোলেন জর্দি আলবা। মৌসুমে এটিই তার প্রথম গোল। আর প্রথম গোলটি করে বসলেন দলের যখন গোল দরকার ঠিক তখন। গোল খেয়ে যেন মরিয়া হয়ে ওঠে সেভিয়া। একের পর এক বার্সেলোনার ডিফেন্সে আক্রমণ চালালেও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পাচ্ছিলনা দলটি। উল্টো ম্যাচের ১২১ মিনিটে সেভিয়ার ফুটবলার কারিকো দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখলে তাকেও লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয়। ৯ জনের সেভিয়াকে পেয়ে ম্যাচের ১২২ মিনিটে গোল করে দলের শিরোপা নিশ্চিত করেন নেইমার।

আবারও নারী ঝামেলায় ক্রিস গেইল

আবারও নারী বিষয়ক ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ছেন ক্রিস গেইল। সবশেষ এক নারী সাংবাদিককে কু-মন্তব্য করায় ফের শিরোনামে আসলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং দানব।

গত জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির আসর বিগ ব্যাশে এক নারী সাংবাদিককে সরাসরি বাজে মন্তব্য করায় ১০ হাজার মার্কিন ডলার জরিমানা গুনতে হয় গেইলকে। মেলবোর্ন রেনেগার্ডসের হয়ে খেলা চলাকালীন নারী সাংবাদিক মেল ম্যাকলঘলিনকে ডিনারের প্রস্তাব করেছিলেন। সেই সঙ্গে বলেছিলেন ‘ডোন্ট ব্লাশ বেবি’(লজ্জা পেও না)।

সম্প্রতি প্রথমবারের মতো কন্যা সন্তানের বাবা হন গেইল। মেয়ের নামও রাখেন ‘ব্লাশ’।

ঐ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও শিরোনামে চলে এলেন গেইল। অভিযোগ উঠেছে দ্য টাইমস ম্যাগাজিনের নারী সাংবাদিক শার্লোট এডওয়ার্ডসের সঙ্গে সাক্ষা‍ৎকারের সময় অরুচিকর কথা বলেছেন গেইল।

গেইল পুরো ব্যাপারটিকে ‘মজা’ হিসেবে চালিয়ে দিলেও বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে দিয়েছেন ওই নারী সাংবাদিক। তিনি গেইলের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে বলেন, ‘গেইল আমাকে জিজ্ঞেস করেন যে আমার সঙ্গে কতজন কৃষ্ণাঙ্গ পুরুষের সম্পর্ক রয়েছে। আমি কোনো উত্তর না দিলে তিনি ফের বলেন, এ ব্যাপারগুলোয় জ্যামাইকান নারীরা বেশ খোলামেলা।’

গেইলের বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ করে নারী সাংবাদিক জানান, ‘গেইল আমাকে আরও বলেছেন আমার চুলের রং কোথা থেকে করিয়েছি।’

সাক্ষাৎকার শেষে গেইল আরও বলেন, ‘মেয়েদের সব সময় ছেলেদের প্রতি অনুগত থাকা উচিৎ। যখন সে ঘরে আসবে, টেবিলে তখন তার খাবার রাখা থাকবে। তুমি বিশ্বাস না হলে তোমার পুরুষ সঙ্গীকে জিজ্ঞেস করো।’

একের পর এক ঝামেলায় জড়িয়ে পড়া গেইল অবশ্য মাঠের পারর্ফমে সবার ওপরেই রয়েছেন। পুরো বিশ্বব্যাপি টি-২০ টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া এ তারকা এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১৭টি সেঞ্চুরি করেছেন।

অলিম্পিকের ছাড়পত্র পেলেন না মেরি কম

তার পুরো নাম মাঙ্গতে চুংনেইঝাং মেরি কম। বিশ্ব চেনে এমসি মেরি কম নামে। ৩৩ বছর বয়সী ভারতের এই নারী বক্সার এখন পরিচিত ‘ম্যাগনিফিসিয়েন্ট মেরি কম’ নামে। তবে, ভারতের হয়ে রিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণের শেষ সুযোগটি হাতছাড়া করে ফেলেছেন মেরি কম।

কাজাখস্তানের আস্তানায় অনুষ্ঠিত মহিলাদের বিশ্বকাপ বক্সিংয়ে সেমিফাইনালে উঠতে না পারলে ৫১ কেজি বিভাগে আসন্ন রিও অলিম্পিকে যাওয়ার ছাড়পত্র পাবেন না ভারতের কিংবদন্তি মহিলা বক্সার মেরি কম। এমন সমীকরণ নিয়ে বিশ্ব মহিলা বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে জয় দিয়ে শুরু করা পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন মেরি কম দ্বিতীয় রাউন্ডে হেরে বসেন।

প্রথম রাউন্ডে তিনি সুইডেনের জুলিয়ানা সোডারস্ট্রমকে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠেন। ৫১ কেজি বিভাগে সুইডেনের প্রতিপক্ষকে ৩-০ উড়িয়ে দেন ভারতীয় এই মহিলা বক্সার। শনিবার (২১ মে) দ্বিতীয় রাউন্ডের খেলায় জার্মানির আজিজ নিমানির বিপক্ষে রিংয়ে নামেন তিনি।

তবে, দুর্ভাগ্যই বলতে হবে মেরির। জার্মান তারকার বিপক্ষে সুবিধা আদায় করতে না পারায় অলিম্পিকের স্বপ্ন আপাতত স্বপ্ন থেকে গেল এই ভারতীয়র।

এই প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ১২ জন বক্সার রিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন।

আর্জেন্টিনার কোপা দলে নেই তেভেজ-দিবালা

দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কোন শিরোপার মুখ দেখেনি আর্জেন্টিনা। সেই শিরোপা খরা ঘোচাতে শতবর্ষী কোপা আমেরিকার জন্য আর্জেন্টিনার ২৩ সদস্যের দল ঘোষণা করলেন আর্জেন্টিনার কোচ টাটা মার্টিনো। দল থেকে বাদ পড়েছেন অভিজ্ঞ তেভেজ। এছাড়া ফর্মের তুঙ্গে থাকা দিবালাকেও দলে রাখেননি টাটা মার্টিনো।

দুদিন আগেই তেভেজের অসাধারণ নৈপুণ্যে কোপা লিবারতোদরেসের সেমিফাইনালে ওঠে বোকা জুনিয়র্স। কিন্তু সে পারফরম্যান্সও নজর কাড়তে পারেনি কোচের। কিন্তু জুভেন্টাস তারকা দিবালার দলে না থাকাটা বেশি বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছে।

২২ বছর বয়সী দিবালা এই মৌসুমে জুভেন্টাসের হয়ে ৪৫ ম্যাচে ২৩ গোল করেছেন। দলকে টানা পঞ্চম ইতালিয়ান লিগ জিততেও তার ভূমিকা ছিল অপরিসীম। কিন্তু শুক্রবার ঘোষিত আর্জেন্টিনা দলে তার না থাকাটা অনেকটা অপ্রত্যাশিত। কোপার দলে না থাকলেও আর্জেন্টিনার অলিম্পিক দলে ঠিকই রয়েছেন দিবালা।

মেসিকে অধিনায়ক করে ঘোষিত আর্জেন্টিনা দলে সম্ভাব্য সব তারকাই রয়েছেন টাটা মার্টিনোর দলে। চাইনিজ লিগে খেলতে যাওয়ার পরেও ইজিকুয়েল লাভেজ্জির উপর ভরসা রেখে তাকে দলে নিয়েছেন কোচ।

আর্জেন্টিনা স্কোয়াডঃ

গোলকিপার: সার্জিও রোমেরো, নাহুয়েল, গুজম্যান, মারিয়ানো আন্দুজার

ডিফেন্ডার: ফাকুন্ডো রংকাগলিয়া, মার্কস রোহো, নিকোলাস ওটামেন্ডি, রামিরো ফিউনেস মুরি, গাব্রিয়েল মার্কাদো, জোনাথন মাইদানা, ভিক্টর কুয়েস্তা

মিডফিল্ডার: হাভিয়ের মাসচেরানো, আগুস্তো ফার্নান্দেজ, মাতিয়াস ক্রানাভিত্তর, এভার বানেগা, লুকাস বিলিয়া, এরিক লামেলা, হাভিয়ের পাস্তোরে, এঞ্জেল ডি মারিয়া

ফরোয়ার্ডঃ লিওনেল মেসি, গঞ্জালো হিগুয়েন, সার্জিও আগুয়েরো, নিকোলাস গাইতান, ইজিকুয়েল লাভেজ্জি।

১৭ বছর পর ফেদেরারের বিরতি

টেনিস ইতিহাসের সেরা তারকা বলা হয় তাকে। সেই কিংবদন্তি টেনিস তারকা রজার ফেদেরার যখন কোন টুর্নামেন্টে খেলছেন না তখন সে টুর্নামেন্ট আক্ষরিক অর্থেই মানুষের কাছে জৌলুশ হারিয়ে ফেলেছে। ১৭ বছর পর কোন গ্রান্ড স্লাম টুর্নামেন্টে খেলছেন না ৩৪ বছর বয়সী টেনিস কিংবদন্তি রজার ফেদেরার।

১৯৯৯ সালে শেষবার কোন গ্রান্ডস্লাম টুর্নামেন্ট মিস করেছিলেন ফেদেরার। তারপর কেটে গেছে ১৭ বছর। এ দীর্ঘ সময়ে কোন বাঁধাই তাকে দূরে ঠেলে দিতে পারেনি গ্রান্ডস্লাম থেকে। কিন্তু ইনজুরির কারণে অনেকটা বাধ্য হয়েই এবার ফ্রেঞ্চ ওপেন থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিলেন ফেদেরার।

রেকর্ড ১৭ গ্রান্ডস্লামের মালিক ফেদেরার এই সিদ্ধান্ত নিতে গিয়ে কিছুটা আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। ‘সিদ্ধান্তটি নেয়া আমার জন্য সহজ ছিল না কিন্তু আপনাদের আশ্বস্ত করছি যে, মৌসুমের অন্যান্য ম্যাচগুলো খেলে আমার ক্যারিয়ার আরো দীর্ঘায়িত করবো।’

নিজের ইনজুরি সম্পর্কে ফেদেরার বলেন, ‘এখনো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে কিন্তু আমি শতভাগ সুস্থ নই। যদি খেলতাম তাহলে অহেতুক ঝুঁকি নেয়া হবে কিন্তু আমি এটা চাই না।’

আন্দ্রে আগাসি-পিট সাম্প্রাসের সময়কালে প্রথম গ্রান্ডস্লাম মিস করার সময় ফেদেরার বয়স ছিল মাত্র ১৮। তারপর টানা ৬৫টি গ্রান্ডস্লাম খেলেছেন সাবেক এক নম্বর এই তারকা। বর্তমানে তিন নম্বরে থাকলেও তার ফর্ম নিয়ে কখনো ভাবতে হয়নি। ফেদেরার অনুপস্থিতিতে ফ্রেঞ্চ ওপেনের রাজা রাফায়েল নাদালের জন্য কিছুটা সহজ হয়ে গেল শিরোপা জেতাটা। কিন্তু নোভাক জোকোভিচ-অ্যান্ডি মারের মত বর্তমান সময়ে বিশ্ব কাঁপানো তারকাদের ভিড়ে সেটা কতটুক সম্ভব হবে সময়েই বলে দিবে।

টেনিসে আর ফিরবেন না শারাপোভা!

ইঙ্গিত দিয়েছিলেন আবারো টেনিসে ফিরে আসবেন তিনি। টেনিসের ‘গ্লামারগার্ল’ বলা হয় তাকে। কিন্তু কয়েকমাস আগেই তার এই উপমাতে কালিমা লেপে দিয়েছে নিষিদ্ধ ‘মেলডোনিয়াম’। ডোপ টেস্টে পজিটিভ প্রমাণিত হওয়ায় টেনিস থেকে সাময়িক নিষিদ্ধ রয়েছেন মারিয়া শারাপোভা। কিন্তু রুশ টেনিস ফেডারেশনের দিল অশনি বার্তা।

বৃহস্পতিবার রাশিয়ান টেনিস ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘হয়তো আর কখনো খেলায় ফিরতে পারবেন না শারাপোভা। তার বিষয়টি খারাপ অবস্থার মধ্যেই আছে।’

তাহলে কি আর টেনিসে ফিরবেন না শারাপোভা? এ সম্পর্কে অবশ্য তেমন কিছু বলেননি শারাপোভা। ডোপ টেস্টে শারাপোভার দেহে নিষিদ্ধ মেলডোনিয়াম পদার্থের উপস্থিতি প্রমাণ পাওয়া যায়। যে কারণে ১২ই মার্চ থেকে টেনিস থেকে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করা হয় শারাপোভাকে।

তবে এর আগে এ বছরের জানুয়ারিতে নিজের ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ার কথা স্বীকার করেছিলেন শারাপোভা। ‘আমি ডোপ টেস্টে ধরা পড়েছি। এর পুরো দায়-দায়িত্ব আমার। আমি আসলে ভুল করেছি। ভক্তদের হতাশ করেছি। যে শাস্তি দেয়া হবে তা আগেই মেনে নিচ্ছি। আশা করি, দ্রুতই আবার কোর্টে ফিরে আসবো।’ এখন সময়েই বলে দিবে শারাপোভা আদৌ টেনিসে ফিরবে কি না।

বোমাতঙ্কে ম্যানইউ’র খেলা পরিত্যক্ত

আজ রাতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচে বোর্নমাউথের বিপক্ষে মাঠে নামার কথা ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। তবে নিরাপত্তাজনিত কারণে ম্যাচটি বাতিল হয়েছে।
খেলা শুরু আগে ওল্ড ট্রাফোর্ড স্টেডিয়ামের পশ্চিম কর্নারে বোমাসদৃশ সন্দেহজনক বস্তু চিহ্নিত করার পর খেলাটি বাতিল করা হ‌‌য়। পুলিশ ওই সন্দেহজনক বস্তুটি সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করছে।
ইতোমধ্যে খেলা দেখতে আসা দর্শকদের স্টেডিয়াম থেকে বেরিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বোর্নমাউথ তাদের টুইটারে জানিয়েছে, ‘নিরাপত্তা ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা হয়েছে।’
এর আগে গত শুক্রবার ইরাকে রিয়াল মাদ্রিদ সমর্থকদের ক্লাবে আইএস-এর হামলায় ১২ মাদ্রিদিস্তা সমর্থক নিহত হন।

ফিফায় প্রথম নারী সেক্রেটারি

প্রথম নারী হিসেবে ফিফা সেক্রেটারি পদে নিয়োগ পেলেন সেনেগালের ফাতমা সাম্বা দিওফ সামৌরা। মেক্সিকোতে হতে যাওয়া ৬৬তম ফিফা কংগ্রেসের সভায় ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো ফাতমার নিযুক্ত হওয়ার ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন।

ফাতমা সম্পর্কে ইনফান্তিনো বলেন, ‘তার মত আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিজ্ঞ মানুষদেরই দরকার যারা বরাবরই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে পছন্দ করে। তার দল গঠনের অসম্ভব ক্ষমতা রয়েছে।’

২১ বছর ধরে জাতিসংঘের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত রয়েছেন ফাতমা। ১৯৯৫ সালে জাতিসংঘে যোগ দেয়ার পর এখন পর্যন্ত ছয়টি ভিন্ন দেশে কাজ করেছেন তিনি। মাতৃভাষা ফ্রেঞ্চ ছাড়াও তিনি ইংলিশ, ইতালিয়ান এবং স্প্যানিশে দক্ষ।

তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় ফাতমা বলেন, ‘আজকের এই দিনটি আমার জন্য বিশেষ একটি দিন। আমি গর্বিত ফিফার সেক্রেটারি জেনারেল পদে নিযুক্ত হতে পেরে। আমি বিশ্বাস করি ফিফার এই পদটি আমার দক্ষতা এবং কর্মক্ষমতাকে যাচাই করতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে। যেটিকে আমি বিশ্ব ফুটবলের উন্নয়নে কাজে লাগাতে পারবো। ’

বার্সাই বিশ্বের সেরা দল

দু’দিন আগে ফোর্বস সাময়িকীর তালিকায় আবারও বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবল কাবের মর্যাদা পায় রিয়াল মাদ্রিদ। তবে লুইস সুয়ারেজের চোখে, বর্তমান বিশ্বের ‘সেরা টিম’ বার্সাই। টানা দ্বিতীয়বারের মতো লা লিগার শিরোপা জয়ের ব্যাপারেও প্রবল আত্মবিশ্বাসী উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার।
লিগ টেবিলে রিয়ালের চেয়ে এক পয়েন্টে এগিয়ে থেকে মৌসুমের শেষ ম্যাচে স্বাগতিক গ্রানাদার মুখোমুখি হবে বার্সা। অপর ম্যাচে দেপোর্তিভো লা করুনার মাঠে নামবে গ্যালাকটিকোরা। দু’টি ম্যাচই বাংলাদেশ সময় শনিবার (১৪ মে) রাত ৯টায় শুরু হবে। ৩৭ ম্যাচ শেষে কাতালানদের সংগ্রহ ৮৮। লেভান্তের কাছে হেরে আগের ম্যাচেই শিরোপা দৌড়ে ছিটকে যায় অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ (৮৫)।
গ্রানাদার বিপে কিন শিটই (গোল হজম না করা) বার্সার প্রথম অগ্রাধিকার থাকবে বলে জানান সুয়ারেজ, ‘কিন শিট ধরে রাখাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গ্রানাদা নিজেদের মাঠে মান রার জন্য জিততে চাইবে। তবে ম্যাচ জেতার জন্য আমাদের যথেষ্ট সমতা আছে। আমরা জানি, কিছু কঠিন সময় অপো করছে, যেমনটা সবসময়ই লিগের এই স্টেজে হয়ে থাকে।’
উরুগুইয়ান তারকা যোগ করেন, ‘আমরা দু’টি শিরোপা জিততে পারি (লিগ ও সেভিয়ার বিপে কোপা দেল রের ফাইনাল) অথবা হারতেও পারি। আমার চোখে, বার্সাই বিশ্বের সেরা টিম এবং জানি এর জন্য চাপ আসে। কিন্তু আমাদের নিজেদের ওপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে।’
বার্সার জার্সি গায়ে মৌসুমটা দারুণ উপভোগ করছেন ২৯ বছর বয়সী সুয়ারেজ। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৬১ ম্যাচে ৫৬ বার গোল উদযাপনে মেতেছেন সাবেক লিভারপুল তারকা। যেখানে গত মৌসুমে তার গোল সংখ্যা ছিল ৪৩ ম্যাচে ২৫টি।
সতীর্থদের ভূয়সী প্রশংসাতেও মাতেন সুয়ারেজ, ‘আমার বেশিরভাগ সতীর্থ যেমন মেসি বা নেইমার আমাকে গোল করার অধিক সুযোগ তৈরি করে দেয়। বার্সায় এদের মতো খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলতে পারাটা সম্মানের। এই মৌসুমে আমরা দেখিয়ে দিয়েছি যে, আমরা গ্রেট টিম-মেটস।’

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ফুটবল ক্লাবের তালিকা থেকে রিয়াল মাদ্রিদকে সরাতে পারলো না কেউ। টানা চতুর্থবারেরমত সবচেয়ে ধনী ফুটবল ক্লাব নির্বাচিত হলো স্প্যানিশ জায়ান্টরা। সবচেয়ে ধনী ক্লাবের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রিয়ালেরই প্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা। আমেরিকান ম্যাগাজিন ফরবেসের জরিপে উঠে এসেছে এ তথ্য।

রিয়াল মাদ্রিদের সম্পদের পরিমান ৩.৬৪৫ বিলিয় ডলার (টাকার অংকে প্রায় ২৮ হাজার ৫০০ কোটি)। তাদের বাৎসরিক রাজস্ব আয় ৬৯৪ মিলিয়ন ডলার। দুই ক্যাটাগরিতেই তারা এগিয়ে আছে বার্সেলোনার চেয়ে।

বার্সার মোট সম্পদের পরিমাণ ৩.৫৪৯ বিলিয়ন ডলার (টাকার অংকে প্রায় ২৭ হাজার ৮০০ কোটি টাকা।)। তৃতীয়স্থানে রয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তাদের সম্পদের পরিমাণ ৩.৩১৭ বিলিয়ন ডলার।

সেরা দুই স্থানে দুই স্প্যানিশ ক্লাব থাকলেও সেরা ১০টি ক্লাবের মধ্যে ৬টিই হচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ক্লাব। ম্যানইউ ছাড়াও এই ক্লাবে রয়েছে আর্সেনাল, ম্যানসিটি, চেলসি, লিভারপুল এবং টটেনহ্যাম হটস্পার।

তবে পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ক্লাব কিন্তু রিয়াল কিংবা বার্সা নয়। আমেরিকান ফুটবল ক্লাব ডালাস কাউবয়। তাদের মোট সম্পদের পরিমাণ ৪ বিলিয়ন ডলার।

সবচেয়ে ১০ ধনী ফুটবল ক্লাব

১. রিয়াল মাদ্রিদ : ৩.৬৪৫ বিলিয়ন ডলার
২. বার্সেলোনা : ৩.৫৪৯ বিলিয়ন ডলার
৩. ম্যানইউ : ৩.৩১৭ বিলিয়ন ডলার।
৪. বায়ার্ন মিউনিখ : ২.৬৭৮ বিলিয়ন ডলার
৫. আর্সেনাল : ২.০১৭ বিলিয়ন ডলার।
৬. ম্যানচেস্টার সিটি : ১.৯২১ বিলিয়ন ডলার।
৭. চেলসি : ১.৬৬১ বিলিয়ন ডলার।
৮. লিভারপুল : ১.৫৪ বিলিয়ন ডলার।
৯. জুভেন্টাস : ১.৫৪৮ বিলিয়ন ডলার।
১০. টটেনহ্যাম : ১.০১৭ বিলিয়ন ডলার।

আইসিসির প্রথম ‘স্বাধীন’ চেয়ারম্যান হলেন মনোহর

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) প্রথম ‘স্বাধীন’ চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন শশাঙ্ক মনোহর। এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। কোনো প্রকার বাধা ছাড়াই সর্বসম্মতিক্রমে তাকে সমর্থন দেয় আইসিসি বোর্ড।

গত এপ্রিলে আইসিসির বোর্ড সভায় প্রস্তাবের ভিত্তিতে গঠনতন্ত্র সংশোধনীর (স্বাধীন চেয়ারম্যান নির্বাচন ইস্যু) অনুমোদন দেয় সংস্থাটির পূর্ণাঙ্গ কাউন্সিল। লক্ষ্য ছিল এমন কাউকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা যিনি বর্তমানে কোনো ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে জড়িত নন। তারই ধারাবাহিকতায় নির্বাচিত প্রথম স্বাধীন চেয়ারম্যান পেল আইসিসি।

গত মঙ্গলবার (১০ মে) ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্টের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়ে ক্রিকেট বিশ্বকেই চমকে দেন মনোহর। একই সঙ্গে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসিতে ও এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলে বিসিসিআইয়ের প্রতিনিধি হিসেবেও পদত্যাগ করেন। এবার আইসিসির ইতিহাসে প্রথম স্বাধীন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন ৫৮ বছর বয়সী মনোহর। যার মেয়ার দুই বছর।

আগামী ২৩ মে আইসিসির চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। নির্বাচন প্রক্রিয়া অনুযায়ী, আইসিসির পরিচালকগণ (বর্তমান বা সাবেক) প্রত্যেকে একজন করে প্রার্থীকে মনোনীত করতে পারবেন।

কেউ যদি দুই বা তার বেশি পূর্ণ সদস্য পরিচালক কর্তৃক মনোনীত হন তবে নির্বাচনে লড়ার যোগ্যতা অর্জন করবেন। কিন্তু, সবাই সর্বসম্মতিক্রমে মনোহরকেই সমর্থন দেওয়ায় পূর্ব নির্ধারিত ২৩ মে’র নির্বাচনের প্রয়োজন পড়েনি! নির্বাচন প্রক্রিয়া দেখভালের দায়িত্বে থাকা স্বাধীন অডিট (নিরীক্ষা) কমিটির চেয়ারম্যান আদনান জাইদি মনোহরকে বিজয়ী ঘোষণা করে পুরো প্রক্রিয়ার সমাপ্তি টেনেছেন।

ভারতের বিশিষ্ট আইনজীবী শশাঙ্ক মনোহর ২০০৮ সাল থেকে ২০১১ পর্যন্ত বিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট পদে ছিলেন। জগমোহন ডালমিয়ার মৃত্যুর পর গত বছরের অক্টোবরে তিনি দ্বিতীয় মেয়াদে এই পদে নির্বাচিত হন। শ্রীনিবাসন অপসারিত হওয়ার পরই আইসিসির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়েছিলেন তিনি। এবার তো ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার স্বাধীন চেয়ারম্যান হিসেবে কোনো বাধা ছাড়াই নির্বাচিত হলেন। বর্তমানে কোনো বোর্ডের প্রতিনিধিত্ব করছেন না বলেই তো আইসিসির চেয়ারম্যান পদকে ‘স্বাধীন’ বলা হচ্ছে। শেষ পর্যন্ত স্বাধীন থাকতে পারবেন তো মনোহর?

নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে মনোহর বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হওয়াটা সম্মানের এবং এর জন্য আমি আইসিসি পরিচালকদের কাছে কৃতজ্ঞ। তারা আমার সামর্থ্যের ওপর বিশ্বাস ও আস্থা রেখেছেন। এই সুযোগ পাওয়ায় বিসিসিআই’র সহকর্মীদেরকেও ধন্যবাদ জানাতে চাই। তারা আমাকে বিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময়ও সমর্থন দিয়ে গেছেন।’

‘আমার সবচেয়ে বড় লক্ষ্য হচ্ছে, ক্রিকেটকে বিশ্বব্যাপী আরও ছড়িয়ে দেওয়া। নতুন প্রজন্মকে ক্রিকেটের সঙ্গে আরও সম্পৃক্ত করতে চাই। ক্রিকেটের অতীত ইতিহাস সব সময়ই গৌরবের, ভবিষ্যতে ক্রিকেটকে আরও সুন্দর করে তুলতে আইসিসির সব পক্ষের সঙ্গে মিলে কাজ করতে মুখিয়ে আছি।’-যোগ করেন মনোহর।

লিভারপুল-লেস্টারের মুখোমুখি বার্সা

ইউরোপিয়ান ফুটবলের চলতি মৌসুম প্রায় শেষের পথে। নতুন মৌসুম শুরু হওয়ার আগে ইউরোপিয়ান দলগুলো নিজেদের ঝালাই করে নেওয়ার লক্ষ্যে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। প্রস্তুতির অংশ হিসেবে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে এ মৌসুমে রূপকথা জন্ম দেওয়া লেস্টার সিটি ও লিভারপুলের। সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে বার্সা কর্তৃপক্ষ।
প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতিতে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে লেস্টার লিভারপুল ছাড়াও স্কটিশ চ্যাম্পিয়ন সেল্টিকের মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা। জুলাইয়ের শেষে শুরু হয়ে আগস্টের প্রথম দিকে টুর্নামেন্ট শেষ হবে।
সূচি অনুযায়ী, আগামী ৩০ জুলাই ডাবলিনে সেল্টিক ম্যাচ দিয়ে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপ মিশন শুরু করবে বার্সেলোনা। এরপর ৩ আগস্ট স্টকহোমে লেস্টারের বিপক্ষে খেলবে লুইস এনরিকের দল।

পাকিস্তানের নতুন কোচ মিকি আর্থার

অনেক নাটকীয়তার পর অবশেষে বিদেশি কোচ নিয়োগ দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ক্রিকেটার মিকি আর্থারকে প্রধান কোচের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পিসিবি।
ওয়াকার ইউনুসের স্থলাভিষিক্ত হলেন ৪৭ বছর বয়সী আর্থার। গত এপ্রিলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসরের পর বাজে পারফর্ম করায় পাকিস্তানের কোচের পদ ছেড়ে দেন ওয়াকার ইউনুস। এরপর থেকেই বিদেশি কোচের খোঁজে নামে পিসিবি।
এর আগে আর্থার ২০০৫ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার কোচের পদে ছিলেন। ২০১১ সালে অস্ট্রেলিয়ার দায়িত্ব পালন করেন তিনি। তবে ২০১৩ সালে তিনি অসি কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান। অসিরা তার অধীনে ১৯টি টেস্টের দশটিতেই জিতেছিল। সম্প্রতি আর্থার পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ পিএসএল-এ করাচি কিংসের কোচ ছিলেন।

ব্রাজিলের কোপা আমেরিকার চূড়ান্ত দল ঘোষণা

কোপা আমেরিকার শতবর্ষ পূর্তি। টুর্নামেন্টটাও হবে লাতিন আমেরিকার বাইরের দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। আর এ আসরকে সামনে রেখে ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করেছে ব্রাজিল কোচ কার্লোস দুঙ্গা।
প্রাথমিকের পর চূড়ান্ত দলেও চমক দেখিয়েছেন এই কোচ। কোপার চূড়ান্ত এই দলে জায়গা হয়নি অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার রিকার্ডো কাকার। চেলসির মিডফিল্ডার অস্কারও চূড়ান্ত দলে জায়গা পাননি। আরও বাদ পড়েছেন লিভারপুলের রবার্তো ফিরমিনো, পিএসজির লুকাস মৌরিও।
এর আগে ৪০ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষনায় সবচেয়ে বড় চমক উপহার দিয়েছিলেন দুঙ্গা। তার এই দলে তো নেইমার নেই’ই। সঙ্গে তিনি বাদ দিয়েছিলেন দলের অভিজ্ঞ তিন ফুটবলার ডেভিড লুইজ, থিয়াগো সিলভা এবং রিয়াল মাদ্রিদ তারকা মার্সেলোকে।

ব্রাজিলের কোপা আমেরিকার চূড়ান্ত দল:
গোলরক্ষক: অ্যালিসন, দিয়েগো আলভেজ, ইডারসন।

ডিফেন্ডার: মিরান্ডা, গিল, মার্কুইনস, রদ্রিগো ক্যায়িও, দানি আলভেজ, ফিলিপে লুইস, ফ্যাবিনহো, ডগলাস সান্তোস।

মিডফিল্ডার: লুইজ গুসতাভো, এলিয়াস, রেনাতো আগাস্টো, কুতিনহো, লুকাস লিমা, উইলিয়ান, ক্যাসেমিরো, রাফিনহা।

ফরোয়ার্ড: ডগলাস কস্তা, হাল্ক, গ্যাবিগল, রিকার্ডো অলিভিয়েরা।

১০ উইকেট নিয়ে ১৮ বছরের তরুণের রেকর্ড

অনিল কুম্বলের এক ইনিংসে ১০ উইকেট পাওয়ার ঘটনা আজও সবার মনে গেঁথে রয়েছে। তারও অনেক আগে অসি বোলার জিম লেকারের এক ইনিংসে ১০ উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন ক্রিকেটে। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটাঙ্গনে না হলেও আন্তঃজেলা ক্রিকেট টুর্নামেন্টে একাই ১০ উইকেট নিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন ভারতের কান্নুরের বোলার ‘নাজিল সিটি’।
অনুর্ধ্ব-১৯ আন্তঃজেলা ক্রিকেট টুর্নামেন্টের প্রথম দিনেই সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন নাজিল। তার বিধ্বংসী বোলিংয়ে মালাপ্পুরাম মাত্র ২৬ রানেই অলআউট হয়ে যায়। দুদিনের এই ম্যাচের প্রথম দিনেই ১৮ বছর বয়সী নাজিল ৯.৪ ওভার বল করে ১২ রান দিয়ে নেন বিপক্ষ দলের সবকটি উইকেট। তার বোলিং ফিগারটি ছিল ৯.৪-৪-১২-১০!
তার ১০টি উইকেটের ভেতর চারটি ছিল বোল্ড এবং তিনটি ছিল এলবিডাব্লিউ। কেরালার কান্নুরের হয়ে খেলা এই বোলার মূলত সুইংয়ের সাহায্যেই বেশি উইকেট পেয়েছেন। নিজেও হতে চান একজন সুইং পেস বোলার। ভুবনেশ্বর কুমারকে নিজের আদর্শ ভাবছেন নাজিল। প্রথম দিন শেষে নাজিল বলেন, ‘আমি একজন ইনসুইং বোলার এবং আমি বেশি পেস দিতে পারিনা। এ কারণেই আমার বল সকালের দিকে বেশি সুইং করছিল।’
নাজিলের পরিবারেও রয়েছে অনেক ক্রিকেটার। তার চাচা ফাবিদ ফারুকের গত মৌসুমে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল। প্রথম দিন শেষে নাজিলের দল কান্নুর ১৭৬ রানে অলআউট হয়।

হুমকিতে দেশ ছাড়লেন ‘পলিথিন মেসি’

আফগানিস্তানের এক প্রত্যন্ত গ্রামে পলিথিন দিয়ে জার্সি বানিয়ে পেছনে মেসির নাম লেখে প্রায় সময়েই পরে থাকতেন মুর্তাজা আহমাদি। তার এই জার্সি পরার ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে স্বয়ং মেসি তার জন্য নিজের অটোগ্রাফ দেয়া জার্সি পাঠান। কিন্তু ‘পলিথিন মেসি’ খ্যাত সেই ক্ষুদে বালকটির পরিবার হুমকিতে দেশ ছেড়ে পালিয়ে চলে এসেছেন পাকিস্তানে।

পাঁচ বছর বয়সী এই আফগান ক্ষুদে শিশুকে মেসির বার্সেলোনার জার্সি উপহার দেয় বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ। মেসির অন্ধ ভক্ত মুর্তাজা। কিন্তু বেশ কয়েকদিন ধরেই এলাকার সন্ত্রাসীদের হুমকি পেয়ে আসছিলেন তারা। তার বাবা মোহাম্মদ আরিফ আহমাদি জানান, তাদেরকে নানাভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে এবং টাকা দাবি করা হচ্ছে। এমনকি স্থানীয় সন্ত্রাসীরাও তার কাছে টাকা চান বলে দাবি করেন আরিফ আহমাদি।

আহমাদির ছেলে মুর্তাজাকে অপহরণ করা হতে পারে এমন আশঙ্কার জের ধরেই আফগানিস্তান ছেড়ে পাকিস্তান চলে আসেন তার পরিবার। পাকিস্তানের কোয়েটাতে নতুন ব্যবসাও শুরু করেছেন তারা।

মুর্তাজার ইচ্ছে তার স্বপ্নের নায়ক বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় মেসির সাথে একদিন দেখা করবেন। মেসিও আশ্বাস দিয়েছিলেন একদিন তার সাথে দেখা করবেন।
সে আশাতেই দিন গুণে যাচ্ছেন মুর্তাজা।

রিও অলিম্পিকের শুভেচ্ছা দূত শচীন

বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনের সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণ আসর অলিম্পিক গেমস। আগামী ৫ আগস্ট থেকে ২১ আগস্ট পর্যন্ত ব্রাজিলের রিও অলিম্পিকে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের শুভেচ্ছা দূত হতে রাজি হয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার।
এ নিয়ে কিংবদন্তি এই ব্যাটসম্যান বলেন, রিওতে যাওয়ার আগে আমাদের দেশের বিশ্বমানের অ্যাথলেটদের সঙ্গে দেখা করাটা আমার কাছে দারুণ আনন্দের ব্যাপার। অ্যাথলেটদের উদ্বুদ্ধ করার কোনও উদ্যোগে সামিল হতে পারলেও আমার খুব ভাল লাগবে। ওদের সাফল্যের কথা আমার টুইটার-ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ছড়িয়ে দেওয়া তো থাকবেই।
এক বিবৃতিতে আইওএ-র সেক্রেটারি জেনারেল রাজীব মেহতা বলেছেন, শচীন টেন্ডুলকার আমাদের অনুরোধ গ্রহণ করেছেন। অলিম্পিকে ভারতীয় শিবিরের শুভেচ্ছা দূত হতে রাজি হয়েছেন তিনি। এ ব্যাপারে তার কাছ থেকে সরকারিভাবে সম্মতি বার্তা পেয়েছি আমরা। তার মতো আইকন, সুপারস্টার আমাদের প্রস্তাবে রাজি হওয়ায় খুবই খুশি আমরা। তার প্রতি কৃতজ্ঞ। আশা করি, তার ও অন্য শুভেচ্ছা-দূতদের সঙ্গ, সান্নিধ্যের স্পর্শে ভারতের ক্রীড়া দুনিয়া সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।
এর আগে অলিম্পিকে শুভেচ্ছাদূত হিসেবে সলমনের নাম ঘোষণা হওয়ার পরই সারা দেশজুড়ে সমালোচনা শুরু হয়। কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন তারকা কুস্তিগীর যোগেশ্বর দত্ত এবং ক্রীড়াবিদ মিলখা সিং।

নেপালের উপর আইসিসির নিষেধাজ্ঞা

দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের উপর সরকারের হস্তক্ষেপের জের ধরে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব নেপালের (সিএএন) ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ইন্টার ন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। মঙ্গলবার আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
আইসিসি এক বিবৃতিতে জানায়, কোড অব কন্ডাক্টের আর্টিক্যাল ২.৯ লঙ্ঘন করায় সিএএন’র সদস্যপদ স্থগিত করা হয়েছে। এটি (আর্টিকেল ২.৯) ক্রিকেট বোর্ডে সরকারের হস্তক্ষেপ সমর্থন করে না এবং অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন এতে আবশ্যক। আর সরকারের প্রভাবমুক্ত না হওয়া পর্যন্ত সিএএন’র ওপর স্থগিতাদেশ বলবৎ থাকবে। অবশ্য, আইসিসির ইভেন্টে নেপাল জাতীয় দলের অংশগ্রহণে কোনো বাধা থাকছে না।
এর আগে গত বছরের ডিসেম্বরে সিএএন পরিচালনার জন্য অ্যাডহক (বিশেষ) কমিটি গঠন করে নেপালের জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি)। এরপর বির্তকিত বার্ষিক জেনারেল মিটিংয়ে সিএএন’র প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন চাতুর বাহাদুর চাঁদ। যেখানে অনুপস্থিত থাকেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট তানকা আংবুহাং। পরে বোর্ডের মধ্যে দলাদলির বিষয়ে কোর্টে মামলা দায়ের করে চাতুর বাহাদুরের নেতৃত্বাধীন সিএএন। যা এখনো নিষ্পত্তি হয়নি।

ধোনির অবসর অপ্রত্যাশিত :‌ শাস্ত্রী

প্রায় দেড় বছর হলো টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন ধোনি। তার বিদায়টা ছিলো আচমকা। তাতে ক্রিকেট মহলের অনেকেই অবাক হয়েছেন। অবাক হয়েছেন ধোনির বিদায়ের সময় ভারতীয় দলের ডিরেক্টর থাকা শাস্ত্রীও।

তিনি বলেন, ধোনি অবসরের কথা শুনে আমি অবাক হয়েছিলাম। তিন ফরম্যাটে খেলার মতো সামর্থ্য তার ছিলো। ধোনি যে অবস্থায় খেলা ছেড়েছেন, সেই অবস্থায় অন্য কোনো খেলোয়াড়রা অনায়াসে আরো কয়েক বছর খেলে যেতে পারতো। ধোনির চলে যাওয়ায় হঠাৎ শুন্যতা সৃষ্টি হয়েছিলো। সেই শূন্যতা এখনো পূরণ হয়নি।আমার বিশ্বাস ফের যদি টেস্ট দলে কামব্যাক করে তাহলে আগের মতই সফল হবে ধোনি। ওর ফিটনেস, ধারাবাহিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার সাহস পাবে না কেউ।

ধোনির অবসরের স্মৃতি এখনো নাড়া দেয় শাস্ত্রীকে। তবে ধোনি ছিলেন চ্যাম্পিয়ন খেলোয়াড়, বললেন শাস্ত্রী, ধোনি চ্যাম্পিয়ন খেলোয়াড়। সে সত্যিকারের লিজন্ড। দলকে এক সুতোয় গেথে রেখেছিলো সে। খেলোয়াড়দের কাছ থেকে পারফরমেন্স বের করে আনতো সে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কাঠামোতে আসছে নতুন পরিবর্তন

আগামী ২৫ এপ্রিল দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত হবে আইসিসির চলতি বছরের দ্বিতীয় সভা। আগামী ২৫ এপ্রিল দুবাইয়ে আইসিসি’র সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত হবে চলতি বছরের দ্বিতীয় সভা। সভায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের নতুন পয়েন্ট কাঠামো নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে।
স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠতে পারে কেমন হতে পারে এই কাঠামো। প্রস্তাবিত এই কাঠামো অনুযায়ী সিরিজে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে আলাদা করে বিজয়ী নির্ধারণ না করে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজে তিন ফরম্যাট মিলিয়ে জয়-পরাজয়ের ভিত্তিতে পয়েন্টের হিসাবে বিজয়ী নির্ধারণ করা হবে। যেটা ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড আগে থেকেই ভাবছে। তারা এ নিয়ে ইতোমধ্যেই পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে আলোচনা করেছে। যদিও এ ব্যাপারে কোনও কিছুই জানায়নি দুই বোর্ড।
এখানে বলে রাখা প্রয়োজন প্রস্তাবটি নতুন হলেও আগেও এমন কাঠামোতে ক্রিকেট হয়েছে। মেয়েদের অ্যাশেজে এই পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়েছে। ২০১৩ সালে পয়েন্টের হিসাবে মেয়েদের অ্যাশেজে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল।
এছাড়া সভায় আরও বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম অলিম্পিক ও কমনওয়েলথ গেমসে অংশগ্রহণ, দুর্নীতি দমন ও অ্যান্টি-ডোপিং বিষয়ে আরও কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ।

ছেলের বাবা হলেন গেইল

প্রথম সন্তানের বাবা হচ্ছেন খবরটা আগে থেকেই জানতেন। সে জন্য একদিন আগেই স্ত্রী নাতাশা বেরিজকে সঙ্গ দিতে আইপিএল থেকে নিজ দেশ জ্যামাইকায় ফিরে যান টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেরা বিনোদনদাতা ক্রিস গেইল। অবশেষে আজ ছেলে সন্তানের বাবা হলেন গেইল। মা এবং ছেলে দুইজনই সুস্থ রয়েছে বলে জানা যায়।
মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে পরবর্তী ম্যাচে নামার আগে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে গেইলের সতীর্থ সরফরাজ খান সাংবাদিকদের বলেন, ‘গেইল আজ বাবা হয়েছে। সে তার পরিবার এবং ছেলে সন্তানের সাথে সময় কাটাতে জ্যামাইকা রয়েছে’।
ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে দুটি ম্যাচ খেলতে পারবেন না গেইল। ২৪ তারিখের পরেই আবার আইপিএল খেলার জন্য ফিরে আসবেন গেইল। এবারের আইপিএলে এখন পর্যন্ত নামের প্রতি তেমন সুবিচার করতে পারেননি গেইল। দুই ম্যাচ খেলে মাত্র এক রান করেছেন এই দানবীয় ব্যাটসম্যান।

মন্টে কার্লো শিরোপা জিতলেন নাদাল

আন্তর্জাতিক র‍্যাঙ্কিংয়ে সাবেক শীর্ষ টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল আরেকটি শিরোপা জিতেছেন। সোমবার এটিপি ওয়ার্ল্ড ট্যুরে নিজের শততম ফাইনালে রাফায়েল মনফিলসকে হারিয়ে নবম মন্টে কার্লো মাস্টার্স শিরোপা ঘরে তুলেছেন এই স্প্যানিশ টেনিস তারকা।

২৯ বছর বয়সী নাদাল এই টুর্নামেন্টের শেষ চারের লড়াইয়ে অ্যান্ডি মারেকে পরাজিত করে ফাইনালের টিকিট পেয়েছিলেন। আর শিরোপার স্বাদ নিয়েছেন মনফিলসকে দুই ঘণ্টা ৪৫ মিনিটের লড়াইয়ে ৭-৫, ৫-৭, ৬-০ সেটে হারিয়ে। ফরাসি টেনিস তারকা মনফিলস এই নিয়ে তৃতীয়বার মাস্টার্স ফাইনালে পরাজিত হলেন।

২০১৬ সালে প্রথম শিরোপার স্বাদ পাওয়ার পর নাদাল বলেছেন, ‘সপ্তাহটা আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। এই জয়টা প্রমাণ করে, অন্যদের চেয়ে আমি ভালো করছি।’

উল্লেখ্য, গত বছর মাত্র ৩টি শিরোপার স্বাদ পেয়েছেন ১৪টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক নাদাল। সোমবারের জয়টি ছিল তার ২৮তম মাস্টার্স শিরোপা। এর মাধ্যমে সার্বিয়ান টেনিস তারকা নোভাক জোকোভিচের রেকর্ড স্পর্শ করলেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত মেসির ৫০০

একের পর এক ম্যাচ যাচ্ছে, একের পর এক হতাশা উপহার দিচ্ছিলেন লিওনেল মেসি। দর্শকরা মাঠে আসেন ইতিহাসের স্বাক্ষী হবেন বলে; কিন্তু হতাশা নিয়েই ফিরতে হচ্ছিল তাদেরকে। অপেক্ষার প্রহর যে এতটা দীর্ঘ হবে কে ভেবেছিল! একে একে ৫টি ম্যাচ। ৫০০ মিনিট। এত দীর্ঘ সময় মেসি গোলবিহীন, এ যেন ভাবতেই অবাক লাগছিল ভক্ত এবং গুণমুগ্ধদের।
অবশেষে অপেক্ষের প্রহর ভাঙলেন লিওনেল মেসি। ৫১৫ মিনিট পর পেলেন ৫০০তম গোলের দেখা। ন্যু ক্যাম্পে প্রতিপক্ষ ভ্যালেন্সিয়ার জালে ৬৩ মিনিটে ঐতিহাসিক মাইলফলকটি স্পর্শ করলেন আর্জেন্টাইন ক্ষুদে যাদুকর। ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকার পর মেসির এই গোল তার ভক্তদের স্বস্তি দিলেও, বার্সেলোনা সমর্থকদের মোটেও খুশি করতে পারেনি। কারণ এই গোল সত্ত্বেও নিজেদের মাঠে বার্সা হেরেছে ২-১ গোলের ব্যবধানে।
ম্যাচ শেষে বার্সেলোনার ফুটবলারদের চোখেমুখে ছিল হতাশার ছাপ। মেসি এক গোল করার পরেও অন্তত ড্রয়ের দেখা পেতে ভ্যালেন্সিয়ার ডিফেন্সে একের পর এক আক্রমণ করেও চীনের প্রাচীর ভাঙতে পারেননি মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা। ৫০০তম গোল পেলেও দলের হারে যে মেসি একদমই খুশি নন সেটি তার সতীর্থরা ভালো করেই জানে। ব্যক্তিগত নৈপুণ্যের চেয়ে দলীয় সাফল্যকেই বেশি মূল্যায়ন করেন মেসি।
২০০৪ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে অভিষেক হয়েছিল বার্সেলোনা মূল দলের জার্সি গায়ে। প্রথম গোল পেয়েছিলেন পরের বছরেই। এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি মেসিকে। ৫০০ গোল করতে খেলেছেন ৬৩১টি ম্যাচ। এর ভেতর বার্সেলোনার হয়ে করেছেন ৪৫০টি ম্যাচ এবং আর্জেন্টিনার হয়ে করেছেন ৫০টি গোল। বার্সেলোনা তথা লা লিগার সর্বোচ্চ গোলের মুকুটও অনেক আগে নিজের করে নিয়েছেন এই ক্ষুদে যাদুকর। আর্জেন্টিনার সর্বোচ্চ গোলদাতা হতে আর মাত্র ৭ গোল বাকি। সেটাও যে অনেক সন্নিকটে, তা বোঝাই যাচ্ছে।

এক নজরে দেখে নেয়া যাক মেসির ৫০০ গোল সম্পর্কিত কিছু রেকর্ড
* ২৮ বছর ২৯৮ দিন বয়সে মেসি ক্লাব এবং দেশের হয়ে তার ৫০০তম গোলটি করেছেন। ৫০০ গোল করতে মেসি খেলেছেন ৬৩১টি ম্যাচ।
* ৫০০ গোলের ভেতর রয়েছে ৩৮টি হ্যাটট্রিক, ২৫টি ফ্রি কিক থেকে নেয়া এবং ৬৪টি পেনাল্টি থেকে নেয়া গোল।
* ৫০০ গোলের পাশাপাশি তার রয়েছে ২০১টি এসিস্ট।
* এই ৫০০ গোলের ভেতর ৪০৬টি বাম পা দিয়ে, ৭১টি ডান পা দিয়ে, ২১টি হেড দিয়ে, ১টি বুক দিয়ে, ১টি হাত দিয়ে গোল করেন।
* এই ৫০০ গোলের ভেতর ৩০৯টি করেন লা লিগায়, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ৮৩টি, কোপা ডেল রেতে ৩৯টি, সুপার কোপায় ১১টি, উয়েফা সুপার কাপে ৩টি, ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপে ৫টি, আর্জেন্টিনার হয়ে ৫০টি।
* বার্সেলোনার হয়েও করেন ৪৫০তম গোল। এ গোলগুলো করতে মেসি খেলেছেন ৫২৫টি ম্যাচ।
* সবচেয়ে কম বয়সে এক ক্লাবের হয়ে ৪৫০ গোল করার রেকর্ড গড়লেন লিও মেসি।
* ৭ম ফুটবলার হিসেবে এক ক্লাবের হয়ে ৪৫০ গোল করার রেকর্ড গড়লেন মেসি।

আফগান কোচের চাকরি ছাড়লেন ইনজামাম

দুটো চাকরি তো আর এক সঙ্গে করা যাবে না। তারওপর জাতীয় দলের দায়িত্ব। দেশের একটা ব্যাপার-সেপার আছে। ইনজামাম-উল হক একটা মধুর সমস্যাতেই পড়ে গিয়েছিলেন। আফগান ক্রিকেটে তিনি যে স্বপ্নের রূপকথার জন্ম দিচ্ছিলেন, সেটা আর দীর্ঘায়িত করতে পারলেন না শুধুমাত্র দেশের টানে। স্বপ্ন ভেঙে দিয়ে পাকিস্তানেই ফিরতে হচ্ছে দ্য বিগ ম্যানকে। সুতরাং, আফগানিস্তানের কোচের চাকরি ছাড়তেই হলো ইনজামাম-উল হককে।
নানা জ্বল্পনা-কল্পনার পর পাকিস্তান জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব পেলেন ইনজামাম-উল হক। তবে তার নিয়োগ নিয়ে যখন আলোচনা হচ্ছিল, তখন বিষয়টা আফগান ক্রিকেট বোর্ডকে জানিয়ে রেখেছিলেন ইনজি। আফগান বোর্ডও সায় দিয়েছিল- যদি তিনি জাতীয় দলের কোন দায়িত্বভার পান, তবে তারা তাকে ছেড়ে দেবে। সেই সায় পেয়েই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব নিতে রাজি হলেন ইনজামাম।
সুতরাং, নিয়মরক্ষার্থে আফগান ক্রিকেট বোর্ডের চাকরি থেকে ইস্তফা দিতে হয়েছে তাকে। আফগান ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকেই জানানো হয়েছে এই তথ্য। সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আফগানদের সুপার টেনে নিয়ে যাওয়া এবং সুপার টেনে তাদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্স ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারানোর পথে ইনজির অবদান সবচেয়ে বেশি।
আফগান ক্রিকেট বোর্ডের মুখপাত্র ফারুক হোতাক ইনজামামের পদত্যাগের খবর নিশ্চিত করে বলেন, ‘আজ (রোববার) পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান আফগান ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট শফিক স্টানিজাইকে ফোন করেন এবং তিনি অনুরোধ করেন ব্যাটিং গ্রেট ইনজামাম-উল হককে চুক্তি থেকে রিলিজ দেয়ার জন্য।’
আফগান ক্রিকেট বোর্ডের সাথে এক বছরের চুক্তি ছিল ইনজামামের। সেই চুক্তির মেয়াদ শেষ হতে এখনও বেশ কয়েকমাস বাকি ছিল। পাকিস্তানের হয়ে ৩৭৮টি ওয়ানডে এবং ১২০টি টেস্ট ম্যাচ খেলেন ইনজামাম।

অলিম্পিকে আলাদা গ্রুপে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

পাঁচবার বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ নিলেও অলিম্পিকে কখনও সোনার পদক জেতেনি ব্রাজিল। এবার ঘরের মাঠে অলিম্পিক। তাই অধরা সেই স্বপ্ন পূরণে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ নেইমাররা। এর মধ্যে হয়ে গেছে ২০১৬ অলিম্পিক ফুটবলের ড্রও। এ ড্রতে দুই গ্রুপে পড়েছে লাতিন আমেরিকার দুই পরাশক্তি ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত অলিম্পিকে ব্রাজিল পড়েছে ‘এ’ গ্রুপে। এই গ্রুপে তাদের সঙ্গী ডেনমার্ক, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইরাক। আর ২০০৪ ও ২০০৮ সালের সোনা জয়ী আর্জেন্টিনার ‘ডি’ গ্রুপে পড়েছে পর্তুগাল, হন্ডুরাস ও আলজেরিয়া। ‘বি’ গ্রুপে ১৯৯৬ অলিম্পিকের সোনা জয়ী নাইজেরিয়ার সঙ্গী হয়েছে সুইডেন, কলম্বিয়া ও জাপান। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মেক্সিকো পড়েছে ‘সি’ গ্রুপে। এই গ্রুপে তাদের সঙ্গে আছে দক্ষিণ কোরিয়া, জার্মানি ও ফিজি।
উল্লেখ্য, আগামী ৪ অগাস্ট ইরাক-ডেনমার্ক ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ২০১৬ অলিম্পিক ফুটবল।

সেমিতে রিয়ালের প্রতিপক্ষ ম্যানচেস্টার সিটি

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথমবারের মতো সেমিফাইনালে উঠেছে ম্যানচেস্টার সিটি। অন্যদিকে নাম কিংবা খ্যাতি কিংবা ট্রফি জয়ের দিক দিয়ে অনেকখানি এগিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। কোয়ার্টার ফাইনালে ২-০ গোলে প্রথম লেগ পিছিয়ে থেকেও দ্বিতীয় লেগে উলফসবার্গের বিপক্ষে ৩-০ গোলের জয়ে প্রমাণ করেছে তাদের কেন বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্লাব বলা হয়। এবার এ দু দল মুখোমুখি হচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে।
২০১৫-১৬ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের ড্র অনুষ্ঠিত হয় নিয়নে। সেখানে প্রথমেই উঠে আসে ম্যানচেস্টার সিটির নাম। তারপরই ওঠে রিয়াল মাদ্রিদের নাম। ড্রয়ের নিয়ম অনুযায়ী প্রথম দুই দল একে অপরের মুখোমুখি হবে। আর প্রথমে সিটির নাম ওঠায় প্রথম লেগ হবে ম্যানচেস্টার সিটির মাঠে।
এর আগে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে কেবল দুবার খেলেছে ম্যানচেস্টার সিটি। দুই ম্যাচের একটি ড্র হয়েছে এবং অন্যটিতে জয় পেয়েছে রিয়াল।
অন্যদিকে বায়ার্ন মিউনিখ এবং অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ মুখোমুখি হবে অন্য সেমিফাইনালে। বার্সেলোনাকে দ্বিতীয় লেগে ২-০ গোলে হারিয়ে সেমিতে উঠে বেশ চাঙ্গা রয়েছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। অন্যদিকে বেনফিকার বিপক্ষে কোনোমতে ২-২ গোলে ড্র করে সেমির টিকিট নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন।
২৬ এপ্রিল প্রথম সেমি ফাইনালে মুখোমুখি হবে সিটি এবং রিয়াল। পরদিনই অ্যাটলেটিকোর মাটিতে খেলবে বায়ার্ন মিউনিখ। ফিরতি লেগ হবে ৩ এবং ৪ মে।

লংকানদের প্রধান নির্বাচক হলেন জয়সুরিয়া

আবারো শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক হতে যাচ্ছেন জয়সুরিয়া। লংকান ক্রিকেট বোর্ড মৌখিক ভাবে জয়সুরিয়াকে প্রধান নির্বাচক ঘোষণা করেছে। এর আগে এ পদ থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল।
লঙ্কান ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহান ডি সিলভা জানান, জয়সুরিয়ার সঙ্গে নির্বাচক কমিটিতে আরও থাকছেন, সাবেক উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান রোমেশ কালুভিতারানা ও সাবেক অফস্পিনার রঞ্জিত মাদুরাসিংহা।
এখন দেশটির ক্রীড়া মন্ত্রীর অফিসিয়ালি ঘোষণার জন্য বোর্ড অপেক্ষা করছে। লঙ্কান সাবেক ব্যাটিং কিংবদন্তি জয়সুরিয়া, আরবিন্দ ডি সিলভার স্থলাভিষিক্ত হলেন। ডি সিলভা সদ্য শেষ হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে ঘিরে দুই মাসের জন্য নির্বাচক প্রধান ছিলেন। আর জয়সুরিয়ার মেয়াদ ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত হতে পারে।

রোনালদোর ‘অন্তর্বাস-কাণ্ড’র সমালোচনায় কান

গত সপ্তাহে এল ক্লাসিকোতে জয়ের পর রিয়াল মাদ্রিদের ড্রেসিং রুমের সেই ছবিটির কথা মনে আছে?

 

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, জয়ের আনন্দে উল্লসিত রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড়েরা। যে ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল।

 

আর ওই ছবিতে একটি ব্যাপার অনেকের কাছেই দৃষ্টিকটু লেগেছিল। যেখানে দেখা যায় উদম শরীরে শুধু অন্তর্বাস পরে ছবিতে পোজ দিয়েছেন রিয়ালের সেরা খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

 

ড্রেসিং রুমে পর্তুগিজ মহাতারকার অমন ‘কাণ্ডের’ কড়া সমালোচনা করেছেন জার্মানির প্রাক্তন গোলরক্ষক অলিভার কান।

 

এ ব্যাপারে জার্মান টিভি চ্যানেল ‘জেডডিএফ’কে কান বলেন, ‘ইদানীং ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর উদর আমার স্ত্রীর বক্ষের চেয়ে বেশি দেখতে পাচ্ছি!’

 

অলিভার কান

 

কদিন আগে চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলতে জার্মানি গিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে জার্মান ক্লাব ভলফসবুর্গের কাছে ২-০ গোলে হেরে যায় রোনালদো, গ্যারেথ বেলরা।

 

জার্মানিতে রিয়ালের খেলোয়াড়দের আচরণ ঠিক ছিল না বলে মনে করেন কান। রিয়ালের খেলোয়াড়দের সেখানে বিক্ষুব্ধ দেখাচ্ছিল বলে মন্তব্য করেন জার্মানির জার্সিতে ৮৬টি ম্যাচ খেলা প্রাক্তন এই গোলরক্ষক।

 

তথ্যসূত্র : গোল ডটকম।

 

 

 

রিয়াল সোসিয়াদের কাছে বার্সার হার

এল ক্লাসিকোর পর রিয়াল সোসিয়েদাদের কাছে আরেকটি ধাক্কা খেল মেসির বার্সেলোনা। প্রতিপক্ষের মাঠে ১-০ গোলে হেরে যায় বর্তমান চ্যম্পিয়নরা। আর এ হারে শিরোপার লড়াইয়ে বড় ধাক্কাই খেলো এনরিকের শিষ্যরা।

মৌসুমের শুরু থেকে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলা বার্সেলোনা আরেকটি ধাক্কা খেলো। লা লিগায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারের পর শনিবার রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠে একমাত্র গোলে হেরে গেছে বর্তমান চ্যম্পিয়নরা।

লিগে বার্সেলোনার টানা দুই হারের সুযোগে ব্যবধান কমিয়ে শিরোপা লড়াই জমিয়ে ফেলেছে রিয়াল মাদ্রিদ ও আতলেতিকো মাদ্রিদ। লুইস এনরিকের দলের চেয়ে আতলেতিকো ৩ ও রিয়াল ৪ পয়েন্ট পিছিয়ে; হাতে আছে আরও ছয়টি ম্যাচ।

প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের শুরুতেই গোলের সুযোগ নষ্ট করে সুয়ারেসের বদলে খেলতে নামা মুনির এল হাদ্দাদি।  ডি-বক্সের ভেতর অনেকটা ফাঁকায় বল পেয়েও গোল করতে পারেননি এই তারকা। তবে এর পরের মিনিটেই প্রথম সুযোগেই গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে নেন মিকেল ওইয়ারসাবাল।

messi

ম্যাচের ২২ মিনিটে মেসির ফ্রি-কিক রক্ষণ দেয়ালে ফিরলে হতাশায় ডুবে বার্সা। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে মুনিরের পাস থেকে আর্দা তুরানের জোরাল শট এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে ফিরলে সমতায় ফেরার আরেকটি সুযোগ হারায় বার্সেলোনা। ফলে ১-০ গোলে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় বার্সা।

বিরতি থেকে ফিরে একের পর এক আক্রমণে উঠে আসে গোলের জন্য মরিয়া বার্সেলোনা। ম্যাচের ৫৬ মিনিটে ইনিয়েস্তার শট দারুণ দক্ষতায় ঠেকান গোলরক্ষক। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে খুব কাছ থেকে গোল করতে পারেননি মেসি। আর ৮৫ মিনিটে মেসির হেড ঠেকিয়ে স্বাগতিক গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দিলে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় মেসির বার্সাকে।

উল্লেখ্য, সোসিয়েদাদ ২০১১ সালে আবার স্পেনের শীর্ষ লিগে ফেরার পর তাদের মাঠে কোনো ম্যাচ জিততে পারল না বার্সেলোনা। সান সেবাস্তিয়ানে সবশেষ ছয় ম্যাচের পাঁচটিতেই হারল মেসিরা।

কোপার প্রথম ম্যাচেই অনিশ্চিত মেসি

কর ফাঁকির মামলার তারিখ পরিবর্তন করে ৩১ মে থেকে ৭ জুন করায়  ঐতিহ্যবাহী টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকার প্রথম ম্যাচেই আর্জেন্টিনার হয়ে খেলা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে লিওনেল মেসির। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৬ জুন চিলির মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। ৭ জুন যদি মেসিকে আদালতে উপস্থিত থাকতেই হয় তবে বড় ধরনের বিপদে পড়তে পারে আলবিসেলেস্তে শিবির।

অবশ্য এর আগে বলা হয়েছিল আদালতে মেসির উপস্থিত না হলেও চলবে। তবে মঙ্গলবার আদালত নির্ধারিত সময়ের কোনো একদিন মেসিকে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দেন। যে কারণে কোপা আমেরিকার প্রথম ম্যাচে আর্জেন্টাইন অধিনায়কের খেলা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। গত বছর চিলির কাছে হেরে এই শিরোপা হাতছাড়া হয়েছিল তাদের। এক বছরের ব্যবধানে সুযোগ এসেছে তা পুনরুদ্ধার করার।

প্রসঙ্গত, কোপা আমেরিকার বিশেষ টুর্নামেন্টে গ্রুপ ‘ডি’তে আর্জেন্টিনার ও চিলির পাশাপাশি পানামা ও বলিভিয়া রয়েছে। ৬ জুন চিলির বিপক্ষে খেলার পর ১০ ও ১৪ তারিখ যথাক্রমে পানামা ও বলিভিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ দুটিতে খেলবে মেসির দল।

দশ জনের অ্যাটলেটিকোকে হারালো বার্সা

ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে জয় পেয়েছে বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখ। ক্যাম্প ন্যুয়ে মেসি, সুয়ারেজ আর নেইমারের নৈপুণ্যে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে ২-১ গোলে হারিয়েছে কাতালানরা। সুয়ারেজ করেন জোড়া গোল। একজন কম নিয়ে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই রক্ষণাত্মক খেলতে থাকে অ্যাটলেটিকো।
১-০ তে পিছিয়ে থাকা বার্সেলোনা ৬৩ মিনিটে সুয়ারেজের গোলে সমতায় ফেরে। ৭৪ মিনিটে সুয়ারেজের দ্বিতীয় গোলে জয় নিশ্চিত করে স্বাগতিকরা। মঙ্গলবার রাতের অন্য ম্যাচে বেনফিকাকে নিজেদের মাঠে একমাত্র গোলে হারিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। খেলার শুরুতেই স্বাগতিক দলকে এগিয়ে নেন ভিদাল। হুয়ান বের্নাতের ক্রস ছয় গজের বক্সের মাথায় লাফিয়ে উঠে হেডে বল জালে জড়ান চিলির এই মিডফিল্ডার।

পাকিস্তানের অধিনায়ক হলেন সরফরাজ

রোববার অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন শহীদ আফ্রিদি। পরদিন কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান ওয়াকার ইউনুস। আজ মঙ্গলবার টি-টোয়েন্টি দলের নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেটে অধিনায়ক করা হয়েছে সরফরাজ আহমেদকে।
গেল বছর সরফরাজকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের সহ-অধিনায়ক করা হয়েছিল। গেল এশিয়া কাপে পাকিস্তানের হয়ে সবচেয়ে ভালো পারফর্ম করেছিলেন সরফরাজ। তাই পরবর্তী অধিনায়ক হওয়ার দৌঁড়ে তাকেই এগিয়ে রেখেছিল পিসিবি। শেষ পর্যন্ত ২৮ বছর বয়সী উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদকেই পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক করা হল।
এ বিষয়ে পিসিবি চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান বলেন, ‘আজ সকালে আমি সরফরাজের সঙ্গে কথা বলেছি। আমি তাকে জানিয়েছি যে সে আমাদের নিরপেক্ষ পছন্দ। অধিনায়ক হিসেবে তাকে নিয়োগ দেওয়াটা সময়ের ব্যাপার মাত্র। নতুন দায়িত্বে তার জন্য শুভকামনা থাকল।’

বার্সেলোনার পূর্ণ সমর্থন পাচ্ছে মেসি

পানামার আইনি প্রতিষ্ঠান মোওস্যাক ফনসেকার ফাঁস হওয়া নথিগুলো ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। ফাঁস হওয়া নথিতে যাদের নাম উঠে এসেছে তাদের মধ্যে বেশিরভাগই বিশ্বে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন। এদের মধ্যে নাম রয়েছে বার্সেলোনার প্রাণ ভোমরা লিওনেল মেসির।

এদিকে পানামা পেপার্স নামক ফাঁস হওয়া নথিতে লিওনেল মেসির নাম আসার পর, বার্সেলোনা ক্লাবের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই ইস্যুতে মেসির প্রতি পূর্ণ সমর্থন দিয়ে যাবে ক্লাবটি। ফুটবল বিষয়ক ওয়েবসাইট গোল ডট কম এই খবর দিচ্ছে।

পানামা ভিত্তিক আইনি প্রতিষ্ঠান মোসাক ফনসেকার বিরুদ্ধে সারা বিশ্বজুড়ে অবৈধ আর্থিক লেনদেনে সহায়তা দেয়ার যে বোমা ফাটানো খবর বেরিয়েছে, সেখানে দেখা যাচ্ছে লিওনেল মেসিও কর ফাঁকি দিতে এই প্রতিষ্ঠানটির সেবা নিয়েছিলেন। তবে মেসির পরিবারের তরফ থেকে এই খবরের সত্যতা উড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন ওয়াকার

শেষ পর্যন্ত পাকিস্তান ক্রিকেট দলের কোচের পদ থেকে স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ালেন ওয়াকার ইউনুস। সংবাদ সম্মেলন ডেকেই পদত্যাগের ঘোষণা দেন ওয়াকার ইউনুস। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে ওয়াকার অভিযোগ আনেন পিসিবির বিপক্ষেও।
মূলতঃ সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর চারদিক থেকেই সমালোচনার তীর ধেয়ে আসছিল। যেখানে বিদ্ধ করা হচ্ছিল কোচ ওয়াকার ইউনুসকেও। বলা হচ্ছিল এই ভরাডুবির জন্য কোচও অনেকটা দায়ী। এমনকি পিসিবি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে কোচের পদে আর ওয়াকারকে রাখবে না তারা। বিভিন্ন পর্যায় থেকে তাকে স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ানোর আহ্বানও জানানো হয়েছিল। কিন্তু ওয়াকারের ইচ্ছা ছিল অন্তত ইংল্যান্ড সফরটা পর্যন্ত পাকিস্তানের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করার।
শেষ পর্যন্ত নিজেই পদত্যাগের সিদ্ধান্তের কথা জানালেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘২০১৫ বিশ্বকাপের পর আমি পিসিবিকে বেশ কিছু সংস্কারের প্রস্তাব দিয়েছিলাম। একটি পর্যালোচনামূলক রিপোর্টও পেশ করেছিলাম। যেখানে সুপারিশ আকারে সংস্কার প্রস্তাব দেয়া হয়। আমার সেই প্রস্তাবগুলো গ্রহণ করলে আজ এতটা বাজে অবস্থা হতো না পাকিস্তানের। আমার হতাশার সবচেয়ে বড় কারণেই হলো এটা।’
এছাড়া বিশ্বকাপের পর তিনি যে রিপোর্ট জমা দিয়েছিলেন বোর্ডের কাছে, সেটা ফাঁস হয়ে যাওয়াও এই পদত্যাগের আরেকটা কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন ওয়াকার। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের পর আমি বোর্ডের কাছে যে গোপন রিপোর্ট জমা দিয়েছিলাম, সেটা ফাঁস হয়ে যাওয়াও পদত্যাগের অন্যতম কারণ।’

ওবামা কন্যাদের মেসির জার্সি উপহার

ওবামা কন্যাদের আর্জেন্টাইন তারকা মেসি ভক্তির বিষয়টি এখন আর কারো অজানা নয়। সম্প্রতি মেসির সাথে দেখা করতে চেয়ে খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন তারা। যদিও মেসি দেশে না থাকায় তাদের মেয়ের সেই আবদার পূরণ করতে ব্যর্থ হন বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। সেই খবর কানে পৌঁছালে দেরি না করে মালিয়া ও সাশার জন্য নিজের স্বাক্ষর করা জার্সি পাঠিয়ে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন তারকা।

এর আগে ওমাবার কন্যাদের সাথে দেখা না হওয়ায় এক প্রতিক্রিয়া মেসি বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন, সত্যিই আমি খুব অবাক হয়েছি। যদিও বিষয়টি বিপরীতভাবে হয়েছে, তবুও বিষয়টি নিয়ে আমি হতাশ। কারণ আমার জন্য ওবামার পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোটা দারুণ গর্বের ব্যাপার হতো। ওবামার সাক্ষাত পেলে ‘গর্বিত’ হবেন উল্লেখ করে মেসি।

এদিকে আর আগামী জুনে যুক্তরাষ্ট্রে কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনা খেলতে যাবে। হয়ত ওবামা কন্যাদের সঙ্গে সেখানে দেখাও হতে পারে পঞ্চমবার ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসির সঙ্গে।

প্রতিশোধ-উৎসর্গের ম্যাচে মুখোমুখি বার্সা-রিয়াল

বিশ্বের সেরা ফুটবল মহারণগুলোর মধ্যে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার দ্বৈরথটি বোধ হয় সবার চেয়ে এগিয়ে। মর্যাদার এই লড়াইয়ের পোশাকি নাম ‘এল ক্লাসিকো’। রিয়াল ও বার্সা মুখোমুখি হওয়া মানে পুরো ফুটবল বিশ্ব দুই ভাগ হয়ে উত্তেজনার পারদ চরমে ওঠা । স্প্যানিশ তথা ইউরোপের সেরা দুই ক্লাবের এই দ্বৈরথ উপভোগ করতে মাঠের বাইরেও টিভি পর্দার সামনে হাজির হয়ে থাকেন কোটি ফুটবল ভক্ত।

এল ক্লাসিকোর সর্বশেষ ম্যাচে রিয়ালকে ৪-০ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে লস ব্ল্যাঙ্কোসদের সেই হারের ক্ষতটি এখনো দগদগে। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে ঘরের মাঠে এমন হারে লজ্জা আর অপমানে পুড়েছে লাখো রিয়াল ভক্ত। তাই বার্সেলোনার ঘরের মাঠে আজ কঠিন প্রতিশোধ নেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে রোনালদো-বেল-বেনজেমারা।
গত নভেম্বরে বার্সার বিপক্ষে মর্যাদার এল ক্লাসিকোতে হারের কারণে অনেক অপমান সহ্য করতে হয়েছে রিয়ালের প্রাক্তন কোচ রাফায়েল বেনিতেজকে। এরপর থেকে গ্যালাকটিকোদের নিয়ে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেননি তিনি। একের পর এক  ব্যর্থতার জন্য শেষ পর্যন্ত তাকে বরখাস্ত করে রিয়ালে কোচের চেয়ারে বসানো হয় জিনেদিন জিদানকে। বলা যায়, নতুন কোচের অধীনেও ছন্নছাড়া মাদ্রিদের অন্যতম সেরা ক্লাবটি। তাই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সার বিপক্ষে আজকের ম্যাচটি ফরাসি এই কোচের জন্যও বড় পরীক্ষা।

কোচ হিসেবে বার্সায় নিজের প্রথম মর্যাদার লড়াইটা রাঙিয়ে রাখতে চাইবেন জিদান, এটা বলার অপেক্ষা রাখে না। সে জন্য শিষ্যদের ভালোভাবেই প্রস্তুত করে রেখেছেন তিনি। তা ছাড়া রিয়ালের কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর জিদানের অধীনে ১৪ ম্যাচের মধ্যে ১১টিতে জিতেছে রিয়াল। এই পরিসংখ্যানও লস ব্লাঙ্কোসদের অনুপ্রেরণা দেবে চরমভাবে। কেউ কেউ মনে করছেন, এই এল ক্লাসিকো জিদানের কোচিং ক্যারিয়ারটা নির্ধারণ করতে পারে। তবে শিষ্যদের নিয়ে আশাবাদী রয়েছেন জিদান। তিনি মনে করছেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সার বিপক্ষে জ্বলে উঠবেন তার শিবিরের সেরা তিন অস্ত্র রোনালদো, বেল ও বেনজেমা।

 


রিয়ালের অধিনায়ক সার্জিও রামোসের কণ্ঠেও প্রতিশোধের সুর। ক্যাম্প ন্যুতে বার্সার বিপক্ষে প্রতিশোধের হুমকি দিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রথম ক্লাসিকোর ফলটা ছিল বাজে। তবে ফুটবল আপনাকে প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ করে দেয়। শনিবার আমাদের সামনে থাকছে এমন সুযোগই। আমরা জানি, বার্সার বিপক্ষে আমাদের ভালো ফুটবল খেলতে হবে। আমাদের বর্তমান দলটি বেশ শক্তিশালী। দলের সবার ইতিবাচক মানসিকতা রয়েছে। লক্ষ্য থাকবে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার।’

রিয়ালের জন্য এই ক্লাসিকো প্রতিশোধের হলেও বার্সার জন্য ব্যবধান বাড়ানোই মূল উদ্দেশ্য নয়। সপ্তাহ খানেক আগে তারা হারিয়ে ফেলেছেন বার্সার প্রাক্তন খেলোয়াড় ও কোচ কিংবদন্তি ইয়োহান ক্রুইফকে। সুখে-দুঃখে তিনি বার্সার পাশে থাকতেন। ফুসফুসের ক্যানসারের সঙ্গে লড়াইয়ে হার মেনে গত ২৪ মার্চ পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন ইয়োহান ক্রুইফ। সদ্য প্রয়াত এই ডাচ কিংবদন্তির জন্য মেসি-নেইমার-ইনিয়েস্তাদের কাছে এবারের এল ক্লাসিকোটা আবেগের। তাই ক্রুইফকে উৎসর্গ করতেই এই ম্যাচে জয়ের কথা জানিয়েছেন কাতালানরা।