পাকিস্তানের রেকর্ড গড়া জয়ে হারলো শ্রীলঙ্কা

পাকিস্তানের রেকর্ড গড়া জয়ে হারলো শ্রীলঙ্কা

ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিকের ধৈর্য্যশীল ১৬০ রানের সুবাদে গল টেস্টে শ্রীলংকার বিপক্ষে ইতিহাস গড়ে জয়ের রেকর্ড গড়লো সফরকারী পাকিস্তান। সিরিজের প্রথম টেস্টে লংকানদের ৪ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। ৩৪২ রানের বিশাল টার্গেটে ৬ উইকেটে ৩৪৪ রান করে রেকর্ড জয়ের স্বাদ পায় পাকিস্তান।  গল-এ সর্বোচ্চ রান তাড়া করে ম্যাচ জয়ের রেকর্ড এটি। পাশাপাশি নিজেদের টেস্ট ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জিতলো পাকিস্তান।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের অংশ এই জয়ে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বাবর আজমের দল। ৮ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট ও জয়ের শতকরা ৫৮ দশমিক ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানে উঠে এলো পাকিস্তান। আর ৯ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট ও জয়ের শতকরা ৪৮ দশমিক ১৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় থেকে টেবিলের ষষ্ঠস্থানে নেমে গেল লংকানরা।

শ্রীলংকার ছুঁেড় দেয়া ৩৪২ রানের জবাবে চতুর্থ দিন শেষে ৩ উইকেটে ২২২ রান করেছিলো পাকিস্তান। এমন অবস্থায় টেস্ট জিততে ম্যাচের পঞ্চম ও শেষ দিন পাকিস্তানের দরকার ছিলো ১২০ রান। আর শ্রীলংকার প্রয়োজন ছিলো ৭ উইকেট। ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিক ১১২ রানে অপরাজিত ছিলেন। তার সাথে ৭ রানে অপরাজিত ছিলেন মোহাম্মদ রিজওয়ান।

পঞ্চম দিনের শুরু থেকে সাবধানী ছিলেন দু’জনই। উইকেট ধরে খেলে রানের চাকা ধীরে-ধীরে ঘুড়িয়েছেন তারা। দুই প্রান্ত দিয়ে বোলার পরিবর্তন করেও সাফল্য পাচ্ছিলেন না শ্রীলংকার অধিনায়ক দিমুথ করুনারতেœ। অবশেষে দিনের ১৯তম ওভারে শফিক-রিজওয়ান জুটি ভাঙ্গেন শ্রীলংকার স্পিনার প্রবাথ জয়সুরিয়া। দলীয় ২৭৬ রানে রিজওয়ানকে লেগ বিফোর আউট করেন তিনি। ৭৪ বলে ৪০ রান করে আউট হন  রিজওয়ান। শফিক-রিজওয়ান জুটি  দলকে ৭১ রান এনে দেন।

রিজওয়ানকে শিকারের পর পাকিস্তানকে চেপে ধরতে চেয়েছিলো শ্রীলংকা। এমন অবস্থায় ১০ ওভার পর আবারও পাকিস্তান শিবিরে আঘাত হানেন জয়সুরিয়া। ছয় নম্বরে নামা আগা সালমানকে ১২ রানে বিদায় দেন জয়সুরিয়া। এ সময় শফিকের সাথে ২২ রান যোগ করেন সালমান।

সালমান ফেরার চার বল পর পাকিস্তানের ষষ্ঠ উইকেট হিসেবে ৫ রান করা হাসান আলীকে  তুলে নেন আরেক স্পিনার ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। দলীয় ৩০৩ রানে হাসানের বিদায়ে চাপ পড়ে পাকিস্তান। কারন ৪ উইকেট হাতে নিয়ে জয় থেকে ৩৯ রান দূরে পাকিস্তান। তবে সতীর্থদের যাওয়া-আসা দেখলেও ব্যাট হাতে অবিচল ছিলেন শফিক।তাকে বেকাদায় ফেলতে হিমশিম খায় লংকান বোলাররা।

পাকিস্তানকে চিন্তা মুক্ত করতে লড়াই শুরু করেন শফিক ও মোহাম্মদ নওয়াজ। সপ্তম উইকেটে শ্রীলংকার বোলারদের দক্ষতার সামলে দলকে ধীরে-ধীরে টার্গেটের দিকে নিয়ে যান তারা। ১২৫তম ওভারে বৃষ্টি কারনে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। তখন দলের স্কোর ৩৩১। পরবর্তীতে খেলা শুরু হলে দলের জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়ে এ জুটি।

৫২৪ মিনিট ক্রিজে থেকে ৪০৮ বল খেলে ১৬০ রানে অপরাজিত থাকেন ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হওয়া শফিক। ৭টি চার ও ১টি ছক্কা দিয়ে নিজের ইনিংসটি সাজান তিনি। ৩৪ বলে অপরাজিত ১৯ রান করেন নওয়াজ। সপ্তম উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৪১ রান যোগ করেন তারা। শ্রীলংকার জয়সুরিয়া ৪ ও রমেশ-ডি সিলভা ১টি উইকেট নেন।

আগামী ২৪ জুলাই থেকে গল-এ সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু করবে শ্রীলংকা-পাকিস্তান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD