রেকর্ড গড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জয়

রেকর্ড গড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জয়

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে মেসন গ্রিনউডের দেয়া একমাত্র গোলে উলভসের মাঠ থেকে তিন পয়েন্ট আদায় করে নিলো ম্যানচস্টার ইউনাইটেড। এদিন রেড ডেভিলদের হয়ে অভিষেক ঘটে রাফায়েল ভারানের। আর অভিষেক ম্যাচেই তার অ্যাসিস্ট থেকেই গোল করে দলকে জেতালেন গ্রিনউড। 

উলভসের মাঠে ম্যাচের প্রথমার্ধে বেশ খাপছাড়া খেলে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। একসময় তো পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় জেগেছিল রেড ডেভিল শিবিরে। তবে রাফায়েল ভারানের অ্যাসিস্ট থেকে শেষ মুহূর্তে মেসন গ্রিনউডের গোল সেই শঙ্কা কাটিয়েছে। আর এই জয়ের সঙ্গে সঙ্গে অসাধারণ এক কীর্তি গড়ল ওলে গানার শোলশায়ারের দল। এই নিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের অ্যাওতে টানা ২৪ ম্যাচ অপরাজিত রেড ডেভিলরা। প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে যা সর্বোচ্চ।

এই নিয়ে টানা ২৮টি অ্যাওয়ে ম্যাচে অপরাজিত, যার মধ্যে ১৮টি জয় আর ড্র বাকি ১০ ম্যাচে। ২০০৩ সালের এপ্রিল থেকে ২০০৪ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টানা ২৭ ম্যাচে অপরাজিত থেকে রেকর্ডটি গড়েছিল আর্সেনাল।

ঘরের মাঠে শুরুতেই ইউনাইটেডের বিপক্ষে সুযোগ আসে উলভসের সামনে। তবে ত্রায়োরের দারুণ এক ক্রসে বল পেয়ে হিমিনেজ শট নিলে তা পা দিয়ে রুখে দেন ইউনাইটেড গোলরক্ষক ডেভিড ডি গিয়া। এরপর ম্যাচের ছয় মিনিটের মাথায় ত্রিনকাওয়ের দারুণ এক শট ডি গিয়াকে পরাস্ত করলেও গোললাইন থেকে বল ফেরান অ্যারন ওয়ান বিসাকা। এরপর ১১তম মিনিটে ম্যাচে প্রথম গোলের সুযোগ তৈরি করে রেড ডেভিলরা।

ব্রুনো ফার্নান্দেজের ফ্রিকিক উলভসের খেলোয়াড় ব্লক করলেও সেখান থেকে ফিরতি বলে হেড করেন হ্যারি মাগুয়ের। ইউনাইটেড অধিনায়কের হেড থেকে বল পান জেমস, এরপর শট নেন তিনি কিন্তু তার শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে গোলের চমৎকার সুযোগ হাতছাড়া হয় রেড ডেভিলদের। প্রথমার্ধের শেষ দিকে এসে আরও একটু সুযোগ হাতছাড়া করে ইউনাইটেড। এবারে বাঁ দিক থেকে ব্রুনো ফার্নান্দেজের বাড়ানো বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে শট নেন গ্রিনউড কিন্তু তার শট সামান্যের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের পরীক্ষাই নিতে পারছিল না ইউনাইটেডের খেলোয়াড়রা। ৩৮তম মিনিটে পল পগবা জালে বল পাঠালেও অফসাইডের কারণে গোল মেলেনি। বিরতির আগে গ্রিনউডের শট অল্পের জন্য বাইরে দিয়ে যায়। প্রথমার্ধে সফরকারীদের একটি শটও ছিল না লক্ষ্যে।

প্রথমার্ধ অগোছালো খেললেও দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই নিজেদের গুছিয়ে নেয় ইউনাইটেড। গোছালো ফুটবল খেলতে থাকলেও ম্যাচে দারুণ কিছু সুযোগ তৈরি করতে থাকে উলভস। ম্যাচের ৬৯তম মিনিটে ডাবল সেভ দিতে ইউনাইটেডকে ম্যাচে ধরে রাখেন ডি গিয়া। উলভস ডিফেন্ডার সাইস খুব কাছ থেকে মোতিনহোর দারুণ এক হেডার জালে জড়াতে ব্যর্থ হন। ডি গিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে সাইসের হেডার ফেরান, আর ফিরতি বলে সাইস শট নিলে সেটিও রুখে দেন এই স্প্যানিশ গোলরক্ষক।

ম্যাচের ৭৫ মিনিটে পল পগবার শট ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান গোলরক্ষক।। তবে আর বেশি সময় ইউনাইটেডকে আটকে রাখতে পারেনি উলভস। ম্যাচের ৮০ মিনিটে ডান ফ্ল্যাঙ্ক থেকে রাফায়েল ভারানের বাড়ানো বল ধরে মারক্যালকে কাটিয়ে দারুণ এক শ্তে সাঁ'কে পরাস্ত করে বল জালে জড়ান মেসন গ্রিনউড। আর তাতেই ম্যাচের মাত্র ১০ মিনিট বাকি থাকতে ১-০ গোলের ব্যবধানে লিড নেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটড।

আর শেষ পর্যন্ত কোনো গোল না হওয়ায় গ্রিনউডের একমাত্র গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে রেড ডেভিলরা। এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলে তিনে উঠে এসেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নিজেদের তিন ম্যাচের দুটিতে জয় আর একটিতে ড্র করে ৭ পয়েন্ট নিয়ে তিনে ইউনাইটেড। আর তিন ম্যাচের সবকটিতে হেরে ১৮ নম্বরে উলভস।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD