মেসির অভিষেক ম্যাচে পিএসজিকে জেতালেন এমবাপে

মেসির অভিষেক ম্যাচে পিএসজিকে জেতালেন এমবাপে

লিগ ‌ওয়ানে

প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ে আর্জেন্টাইন মহাতারকা লি‌ওনেল মেসির অভিষেক ম্যাচে দলকে জেতালেন কিলেয়ন এমবাপে। রোববার মধ্যরাতে রেইমসের বিপক্ষে লিগ ওয়ানের ম্যাচে মাঠে নামে পিএসজি। আর এই ম্যাচ দিয়েই শেষ হলো অপেক্ষার প্রহর। লিওনেল মেসির অভিষেক ঘটল পিএসজির জার্সিতে। আর সেই ম্যাচেই জোড়া গোল করে প্যারিসিয়ানদের জয় এনে দেন এমবাপে।

বার্সেলোনার মেসি পিএসজির হয়েছেন অনেক আগেই। দীর্ঘ ২১ বছরের সম্পর্ক ভেঙে পিএসজিতে নাম লিখিয়েছেন লিওনেল মেসি। কিন্তু পিএসজির মেসিকে মাঠে দেখা যায়নি এর আগে। পিএসজি সমর্থকদের সেই আক্ষেপ ঘুচল অবশেষে। ফ্রান্স লিগ ওয়ানের ম্যাচে আজ রাতে রেইমসের বিপক্ষে ম্যাচের ৬৬তম মিনিটে নেইমার জুনিয়রের বদলি হিসেবে মাঠে নামেন লিওনেল মেসি।

রেইমসের মাঠে ম্যাচের ১৬ মিনিটে ডান দিক থেকে ভেসে আসা অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার ক্রস থেকে লাফিয়ে উঠে হেড করে প্রথম গোল করেন কিলিয়ান এমবাপে। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৬৩ মিনিটে আশরাফ হাকিমির অ্যাসিস্ট থেকে পিএসজির হয়ে দ্বিতীয় গোলটি করেন এমবাপে। শেষ পর্যন্ত ওই ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে প্যারিসিয়ানরা।

এই জয়ে লিগ ওয়ানের প্রথম চার ম্যাচের সবকটিতে জিতে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে নেইমার, মেসি রামোসদের দল। সমান ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে অ্যাঞ্জার্স। সমান ম্যাচে তিন ড্র আর এক হারে তিন পয়েন্ট নিয়ে ১৭ নম্বরে রেইমস।

দীর্ঘ প্রতিপক্ষার পর অবশেষে পিএসজির স্কোয়াডে লিওনেল মেসি। ধারণা করা হচ্ছিল আগেই যে রেইমসের বিপক্ষে প্যারিসিয়ানদের জার্সিতে অভিষেক ঘটবে লিওনেল মেসির। তবে  পিএসজি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো শুরুর একাদশে রাখেননি এই মহাতারকাকে। শুরুতে বেঞ্চে রেখে মেসিকে ম্যাচের শেষ দিকে নেইমারের বদলি হিসেবে মাঠে পাঠান এই আর্জেন্টাইন কোচ। তবে তার আগেই পিএসজিকে ২-০ গোলের লিড এনে দিয়েছেন ফ্রেঞ্চ তারকা কিলিয়ান এমবাপে।

ম্যাচের মাত্র ১৬ মিনিটের মাথায় ডান উইং দিয়ে বল নিয়ে দুর্বার গতিতে ছুটে ডি-বক্সের ভেতর দারুণ এক ক্রস করেন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। আর তার সে ক্রস হাওয়ায় ভেসে মাথা দিয়ে বল জালে জড়ান এমবাপে। তাতেই পিএসজি এগিয়ে ১-০ গোলের ব্যবধানে।

গোল হজম করেও দমে যায়নি রেইমস। পিএসজির বিপক্ষে বল দখলের লড়াইটা বেশ চালাচ্ছিল স্বাগতিকরা। কয়েকবার পিএসজির রক্ষণে আঘাতও হেনেছিল তারা কিন্তু ফাটল ধরাতে পারেনি। অন্যদিকে প্রথমার্ধে আর তেমন ভালো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি নেইমাররাও।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই পিএসজির ওপর বেশ চড়াও হয়ে খেলতে থাকে রেইমস। বিরতির পর মাত্র ছয় মিনিটের মাথায় দারুণ এক গোলও করে বসে স্বাগতিকরা। তবে রেফারি বেশ কিছুক্ষণ সময় ধরে পর্যালোচনা করে দেখেন গোল করার আগে রেইমসের মার্শাল মুনতেসি অফসাইডে ছিলেন। আর তাই বাতিল করা হয় গোলটি।

এরপর ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় পিএসজি। লিড বাড়ানোর লক্ষ্যে হন্যে হয়ে খেলতে থাকে প্যারিসিয়ানরা। ফলাফল আসে ম্যাচের ৬৩ মিনিটের মাথায়। রেইমসের আক্রমণ ভেস্তে দিয়ে প্রতি আক্রমণে ডান উইং দিয়ে বল নিয়ে এগোন আশরাফ হাকিমি। ডান দিকে ডি-বক্সের কোনা থেকে গোলমুখে মাটি গড়ানো দারুণ এক ক্রস করেন হাকিমি। দৌড়ে এসে দূরের পোস্টের সামনে থেকে টোকা দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে নেন এমবাপে। চলতি মৌসুমে এটি এমবাপে তৃতীয় গোল।

এমবাপের জোড়া গোল করার মাত্র তিন মিনিট পরে নেইমার জুনিয়রকে তুলে নিয়ে লিওনেল মেসিকে মাঠে নামান পচেত্তিনো। ধীরে ধীরে পিএসজির দলের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তোলার জন্যই মেসিকে এভাবে দলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সাহায্য করছেন পচেত্তিনো। তবে মাঠে নেমে খুব বেশি কারিকুরি দেখাতে পারেননি লিও। নতুন লিগ আর নতুন সতীর্থদের সঙ্গে এখনো নিজেকে মানিয়ে নিতে পারেননি মেসি। তবে ম্যাচের প্রায় ৩০ মিনিট (অতিরিক্ত সময়সহ) খেলেন মেসি।

শেষ ৩০ মিনিটে মেসি ২৬বার বল স্পর্শ করেন, ২০টি সঠিক পাস দেন আর তবে গোলমুখে শট নেননি একটিও। শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হওয়ায় ওই ২-০ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD