ক্লাব সতীর্থ এরিকসনকে গোল উৎসর্গ লুকাকুর

ক্লাব সতীর্থ এরিকসনকে গোল উৎসর্গ লুকাকুর

তখনও ফুটবল বিশ্বের উৎকণ্ঠা কাটেনি ক্রিশ্চিয়ান এরিকসনকে নিয়ে। তবে হাসপাতালে স্থিতিশীল ডেনমার্ক তারকা এবং সাড়া দিচ্ছেন চিকিৎসায়। এমন খবর পেয়েই ক্রেস্তোস্কি স্টেডিয়ামে দিনের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছিল বেলজিয়াম। ফ্রন্টলাইনে বেলজিয়ামের প্রধান ভরসা রোমেলু লুকাকু আবার ক্লাব ফুটবলে এরিকসনের সতীর্থ। স্বাভাবিকভাবেই একরাশ উৎকণ্ঠাকে সঙ্গী নিয়েই মাঠে নেমেছিলেন ইন্টার স্ট্রাইকার।

প্রত্যাশা মতোই ম্যাচে শুরু থেকে দাপট দেখাতে থাকে ‘রেড ডেভিল'রা। তাতে ১০ মিনিটেই রাশিয়ার জালে প্রথম গোল, লুকাকুর সৌজন্যেই। রাশিয়া রক্ষণে বোঝাপড়ার অভাবে টুর্নামেন্টে তাঁর প্রথম গোলটা তুলে নিয়ে কর্নার ফ্ল্যাগের কাছাকাছি ক্যামেরার দিকে ছুটে যান লুকাকু। কোপেনহাগেনের হাসপাতালের বেডে শুয়ে থাকা ক্লাব সতীর্থকে বার্তা দিয়ে তিনি বলেন, ‘ক্রিস ক্রিস তোমায় ভালোবাসি।’ সঙ্গে লেন্সে স্নেহের চুম্বন।

পালটা রাশিয়া বিক্ষিপ্ত আক্রমণে যাচ্ছিল বটে কিন্তু সেগুলো থেকে তেমন কোনও বিপদের সম্ভাবনা ছিল না। রাশিয়া রক্ষণে চাপ বজায় রেখে ম্যাচের ৩৪ মিনিটে বরং দ্বিতীয় গোলটি তুলে নেয় বিশ্বের এক নম্বর দলটি। রাশিয়া গোলরক্ষকের দস্তানায় একটি প্রয়াস প্রতিহত হলে বক্সে অরক্ষিত থমাস মুনিয়ের ফাঁকা গোলে বল ঠেলে ব্যবধান ২-০ করেন। দ্বিতীয়ার্ধে নিজের দ্বিতীয় গোলটি তুলে নেন লুকাকু। ম্যাচ শেষের দু’মিনিট আগে ইন্টার স্ট্রাইকারকে গোলের বলটি বাড়ান মুনিয়ের।

কেভিন ডি ব্রুইন হীন বেলজিয়ামের এই দাপুটে জয় টুর্নামেন্টের বাকি দলগুলোর কাছে হুমকির মতোই। তবে পরিবর্ত হিসেবে দ্বিতীয়ার্ধে নেমেছিলেন এডেন হ্যাজার্ড। ম্যাচ জয়ের পর লুকাকু জানান, ‘আজ আমার পক্ষে খেলাটা কঠিন ছিল কারণ মন ছিল ক্রিশ্চিয়ানের সঙ্গেই। আজ আমি আতঙ্কে প্রচুর কেঁদেছি। খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুক ওঁ।’ 

আগামী ১৭ জুন কোপেনহ্যাগেনে ডেনমার্কের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচ গত বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থানের দল বেলজিয়াম মুখোমুখি হবে।

ডেনমার্ক-ফিনল্যান্ড ম্যাচ

এদিকে, শনিবার ডেনমার্ক-ফিনল্যান্ড ইউরোর তৃতীয় ম্যাচের প্রথমার্ধ এক ভয়ানক ঘটনার সাক্ষী থাকে। ম্যাচের ৪২ মিনিটের মাথায় হঠাতই বল ধরতে গিয়ে মাটিতে সংজ্ঞাহীন হয়ে লুটিয়ে পড়েন ক্রিশ্চিয়ান এরিকসন। অক্সিজেন সাপোর্টের মাধ্যমে স্টেডিয়াম থেকে বের করে নিয়ে যাওয়া হয় ইন্টার মিলান ফুটবলারকে। অধিনায়ক সাইমন কায়ের এবং মেডিক্যাল টিমের প্রত্যুৎপন্নমতিত্বে মাঠেই প্রাথমিক শুশ্রূষায় বিপদ কাটিয়ে ওঠেন ডেনমার্ক তারকা। ঘটনার ভয়াবহতায় সাময়িক ম্যাচ স্থগিত করে দেয় উয়েফা। প্রায় একঘন্টা পর তাঁর স্থিতিশীল হওয়ার খবরে হাঁফ ছেড়ে বাঁচে ফুটবল বিশ্ব।

পরবর্তীতে ডেনমার্ক বনাম ফিনল্যান্ড ম্যাচ প্রায় দেড় ঘন্টা পর ফের চালু হয়। গোটা ম্যাচে পজেশন নির্ভর ফুটবল খেলেও হারতে হয় ডেনমার্ককে। একমাত্র গোলে জিতে ইউরো আত্মপ্রকাশের প্রথম ম্যাচে জয় তুলে চমক দেখায় ফিনল্যান্ড।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD