টানা ৯ম লিগ শিরোপা জয় বায়ার্নের

টানা ৯ম লিগ শিরোপা জয় বায়ার্নের

জিতলেই চ্যাম্পিয়ন, বরুসিয়া মনশেনগ্লাডবাখের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে বায়ার্ন মিউনিখের সমীকরণটা এমনই ছিলো। কিন্তু জেতার আগেই তারা চ্যাম্পিয়ন হয়ে যায়। বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের কাছে ৩-২ গোলে পরাজয়ের ফলে বায়ার্নের কাজটা একেবারে সহজ করে দেয় আরবি লাইপজিগ। তাতে মাঠে নামার আগেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যায় বাভারিয়ানরা।

অবশ্য আগের ম্যাচ শেষেই শিরোপা জয়ের উল্লাস করতে পারতো বায়ার্ন। উৎসবের প্রস্তুতিও নিয়ে ফেলেছিল। কিন্তু সহজ সমীকরণে সেদিন বাধ সাধে এফএসভি মেইনজ। পয়েন্ট তালিকার নিচের দিকে থাকা দলটি চমক দেখিয়ে হারিয়ে দিয়েছিল হ্যান্সি ফ্লিকের শিষ্যদের। অপেক্ষা ছিল পরের ম্যাচের। কিন্তু সেটার আর প্রয়োজন হয়নি। মাঠে নামার আগেই শিরোপা নিশ্চিত হয়ে যায় দলটির।

৩২ ম্যাচ শেষে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লাইপজিগের সংগ্রহ ৬৪ পয়েন্ট। তাই বায়ার্ন শেষ তিনটি ম্যাচ হারলেও তাদের টপকে যাওয়ার সুযোগ নেই লাইপজিগের।

তবে বায়ার্ন কিন্তু জিতেছে সগৌরবে। হ্যাটিট্রক করেন স্ট্রাইকার রবার্ট লি‌ওনডস্কি। মাত্র ২ মিনিটেই প্রথম গোল পায় তারা। গোলের মুখ খোলেন লি‌ওনডস্কি। ডেভিড আলাবার কাছ থেকে বল পেয়ে দলকে এগিয়ে দেন তিনি।

২৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মুলার। ৩৪ মিনিটে লিওনডস্কির পর ৪৪ মিনিটে কিংসলে কোম্যানের গোলে প্রথমার্ধেই ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় হ্যান্সি ফ্লিকের দল। দ্বিতীয়ার্ধে আবার‌ও গোল সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা করতে থাকে বায়ার্ন মিউনিখ।

৬৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে লি‌ওনডস্কি হ্যাটট্রিক পুরণ করেন। চলতি মৌসুমে বুন্দেশ লিগায় এটি তার ৩৯তম গোল। এতে করে গার্ড মুলারের গড়া এক লিগে সর্বোচ্চ ৪০ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করা থেকে মাত্র ১ গোল দূরে এখন লিওনডস্কি। ১৯৭১-৭২ মৌসুমে ৪০ গোল করেছিলেন গার্ড মুলার।

খেলা শেষের ৫ মিনিট আগে লেরয় সানে আর‌ও এক গোল করলে ৬-০ গোলের বড় জয় পায় বায়ার্ন মিউনিখ। এতে করে টানা নবম লিগ শিরোপা জিতলো বায়ার্ন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD