বড় সংগ্রহে চোখ বাংলাদেশের

বড় সংগ্রহে চোখ বাংলাদেশের

রানের পাহাড়ের দিকেই ছুটছিলো বাংলাদেশ। কিন্তু দ্বিতীয় দিনের শেষ সেশনে প্রতিকূল আবহাওয়ায় তা আর হয়নি। পাল্লেকেলেতে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ২৫ ওভার আগেই থেমে যায় দিনের খেলা। দুই দিনে ১৫৫ ওভার ব্যাট করে বাংলাদেশ ৪ উইকেটে সংগ্রহ করে ৪৭৪ রান। ৪৩ রানে অপরাজিত আছেন মুশফিকুর রহিম। আর ২৫ রানে আছেন লিটন কুমার দাস। তৃতীয় দিনে দ্রুত রান করার লক্ষ্য থাকবে তাদের।

শেষ সেশনে এর আগে হালকা বৃষ্টিতে কয়েক মিনিট খেলা বন্ধ থাকে। কয়েক ওভার খেলার পর ঘনকালো মেঘ জড়ো হয় আকাশে। আলো কমে গেলে খেলা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। শেষ সেশনে তাই ১০ ওভারের বেশি খেলা হয়নি।

দিনের আগের সময়টায় রাঙিয়ে যান প্রথম দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত আর মুমিনুল হক। প্রথম সেশনে ৭৬ রান তুলে কোন উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। আগের দিন এলোমেলো বল করা শ্রীলঙ্কান বোলাররা এদিন শুরু থেকে ছিলেন নিয়ন্ত্রিত। শান্ত-মুমিনুলও তা বুঝে হননি অস্থির।

পরিণত ব্যাটে এগিয়ে চলে শান্তর পথচলা। মুমিনুল নির্বিঘ্নে দিনের প্রথমভাগ পার করে খোলস ছেড়ে বের হন। সাবলীল ব্যাটে দেশের বাইরে মুমিনুল পেয়ে যান তার প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি। সব মিলিয়ে অভিজাত সংস্করণে এগারোতমবারের মতো তিন অঙ্কের দেখা পান তিনি। প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিকেই দেড়শো ছাড়িয়ে নেন শান্ত।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে বাংলাদেশের হয়ে রেকর্ড ২৪২ রান আসে এই দুজনের ব্যাট থেকে। মুশফিক ও মোহাম্মদ আশরাফুলের (৫১৮ বল) পর জুটিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫১৪ বল খেলার রেকর্ডও আসে। ৩৭৮ বলে ১৬৩ রান করে শান্ত লাহিরু কুমারার স্লোয়ারে কাবু হলে ভাঙ্গে ম্যারাথন এই জুটি।

পাঁচে নেমে মুশফিক শুরুতে বেশ ভুগতে থাকেন। ওয়েইন্দু হাসারাঙ্গার বলে অল্পের জন্য রক্ষা পান দুবার। এর রেশেই মন্থর হয়ে যায় মুশফিকের ব্যাট। থিতু হতে বেশ খানিকটা সময় নিয়ে নেন তিনি। ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বেশি বলের ইনিংস খেলা মুমিনুল হক সেঞ্চুরির পর কিছুটা গুটিয়ে যান। রানের গতিও কমে আসে বেশ খানিকটা। সেই চাপ থেকেই ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে ড্রাইভ করতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দেন ৩০৪ বলে ১২৭ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলে বাংলাদেশ অধিনায়ক।

এরপর ক্রিজে এসেই দ্রুত রান আনতে থাকেন লিটন। চা-বিরতির আগে করেন ১৫ বলে ১২। চা-বিরতির পর নেমে মুশফিকও রান বের করার চেষ্টা করলে স্কোরবোর্ড ফের সচল হয়। পঞ্চম উইকেটে দুজনের জুটিতে এসেছে ৩৪ রান। তৃতীয় দিনে এই দুজনের ব্যাট থেকে কেবল দ্রুত রান তোলার চাহিদাই থাকবে বাংলাদেশের।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD