কক্সবাজারে জাতীয় আর্চারি শুরু

কক্সবাজারে জাতীয় আর্চারি শুরু

বঙ্গবন্ধু ১২তম তীর জাতীয় আরচ্যারী চ্যাম্পিয়নশিপের উদ্বোধন হলো আজ। বিকেলে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চারদিনের এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন যুব ‌ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। উদ্বোধনকালে তিনি জানান, পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারকে বিশ্ববাসীর কাছে নতুন করে তুলে ধরতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (ক্রীড়া-১) আব্দুল করিম, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ, সিটি গ্রুপের সিনিয়র ডেপুটি ব্র্যান্ড ম্যানেজার রুবাইয়াত আহমেদ, বাংলাদেশ আরচ্যারী ফেডারেশনের সভাপতি লে: জেনারেল মইনুল ইসলাম (অব:) ও ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজীব উদ্দীন আহমেদ চপল। 

খেলার প্রথম দিনে কোয়ালিফিকেশন রাউন্ডে রিকার্ভ পুরুষ এককে রামকৃষ্ণ সাহা (বাংলাদেশ বিমান বাহিনী) ৬৫৭ স্কোর করে ১ম, শাকিব মোল্লা (বাংলাদেশ আনসার) ৬৫৪ স্কোর করে ২য়, তামিমুল ইসলাম (বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব) ৬৫৩ স্কোর করে ৩য়, আব্দুর রহমান আলিফ (বিকেএসপি) ৬৪৭ স্কোর করে ৪র্থ এবং সাগর ইসলাম (ঢাকা জেলা ক্রীড়া সংস্থা) ৬৪৬ স্কোর করে ৫ম স্থান অর্জন করেন।

রিকার্ভ মহিলা এককে মেহেনাজ আক্তার মনিরা (ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব) ৬১৫ স্কোর করে ১ম, ইতি খাতুন (বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব) ৬০৭ স্কোর করে ২য়, বিউটি রায় (বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব) ৬০৫ স্কোর করে ৩য়, দিয়া সিদ্দিকী (বিকেএসপি) ৬০৪ স্কোর করে ৪র্থ এবং নাসরিন আক্তার (ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব) ৫৯৩ স্কোর করে ৫ম স্থান অর্জন করেন।

রিকার্ভ পুরুষ দলগতভাবে ১৬টি দলের মধ্যে বাংলাদেশ আনসার (রোমান সানা, শাকিব মোল্লা ও ইমদাদুল হক মিলন) ১৯২৪ স্কোর করে ১ম, বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব (তামিমুল ইসলাম, হাকিম আহমেদ রুবেল ও আল আমিন) ১৯১৩ স্কোর করে ২য় এবং বিকেএসপি (আব্দুর রহমান আলিফ, প্রদীপ্ত চাকমা ও শেখ সজিব) ১৯০৩ স্কোর করে ৩য় স্থান করে।

রিকার্ভ মহিলা দলগতভাবে ৬টি দলের মধ্যে ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব (মেহেনাজ আক্তার মনিরা, রাবেয়া আক্তার ও নাসরিন আক্তার) ১৭৫৬ স্কোর করে ১ম, বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব (বিউটি রায়, ইতি খাতুন ও রাদিয়া আক্তার শাপলা) ১৭১৯ স্কোর করে ২য় এবং বিকেএসপি (দিয়া সিদ্দিকী, ফাহমিদা সুলতানা নিশা ও উম্যাচিং মার্মা) ১৬৮৫ স্কোর করে ৩য় স্থান করে।

রিকার্ভ মিশ্র দলগত ইভেন্টে ১৫টি দলের মধ্যে বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব (তামিমুল ইসলাম ও ইতি খাতুন) ১২৬০ স্কোর করে ১ম, বিকেএসপি (আব্দুর রহমান আলিফ ও দিয়া সিদ্দিকী) ১২৫১ স্কোর করে ২য় ও বাংলাদেশ আনসার (শাকিব মোল্লা ও নাজমিন খাতুন) ১২২৯ স্কোর করে স্কোর করে ৩য় স্থান অর্জন করে।

কম্পাউন্ড পুরুষ এককে অসীম কুমার দাস (বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব) ৬৮৪ স্কোর করে ১ম, আশিকুজ্জামান (বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব) ৬৮১ স্কোর করে ২য়, মিঠু রহমান (ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব) ৬৮১ স্কোর করে ৩য়, সোহেল রানা (ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব) ৬৮০ স্কোর করে ৪র্থ ও হিমু বাছাড় (বিকেএসপি) ৬৮০ স্কোর করে ৫ম স্থান অর্জন করেন।

কম্পাউন্ড মহিলা এককে রোকসানা (ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব) ৬৯০ স্কোর করে ১ম, সুস্মিতা বনিক (ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব) ৬৭১ স্কোর করে ২য়, তানিয়া রীমা (ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব) ৬৬৬ স্কোর করে ৩য়, বন্যা আক্তার (বাংলাদেশ আনসার) ৬৬৫ স্কোর করে ৪র্থ এবং সুমা বিশ্বাস (বাংলাদেশ আনসার) ৬৬২ স্কোর করে ৫ম স্থান অর্জন করেন।

কম্পাউন্ড পুরুষ দলগতভাবে ৮টি দলের মধ্যে ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব (জাবেদ আলম, মিঠু রহমান ও সোহেল রানা) ২০২৭ স্কোর করে ১ম, বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব (অসীম কুমার দাস, আশিকুজ্জামান ও ভানরুম বম) ২০২১ স্কোর করে ২য় এবং বিকেএসপি (আব্দুল্লাহ আল শোয়েব, হিমু বাছাড় ও আসিফ মাহমুদ) ১৯৯৯ স্কোর করে ৩য় স্থান অর্জন করে।

কম্পাউন্ড মহিলা দলগতভাবে ৫টি দলের মধ্যে ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব (রোকসানা আক্তার, সুস্মিতা বনিক ও তানিয়া রীমা) ২০২৭ স্কোর করে ১ম, বাংলাদেশ আনসার (সুমা বিশ্বাস, বন্যা আক্তার ও লামিয়া ইসলাম) ১৯৬৬ স্কোর করে ২য় এবং বাংলাদেশ পুলিশ আরচ্যারী ক্লাব (রিতু আক্তার, শিউলি আক্তার ও হুমায়রা খাতুন) ১৯৪০ স্কোর করে ৩য় স্থান অর্জন করে।

কম্পাউন্ড মিশ্র দলগতভাবে ৭টি দলের মধ্যে ঢাকা আর্মি আরচ্যারী ক্লাব (মিঠু রহমান ও রোকসানা আক্তার) ১৩৭১ স্কোর করে ১ম, বাংলাদেশ আনসার (ঐশ্বর্য্য রহমান ও বন্যা আক্তার) ১৩৪৫ স্কোর করে ২য় ও বাংলাদেশ পুলিশ (অসীম কুমার দাস ও হুমায়রা খাতুন) ১৩৩৮ স্কোর করে ৩য় স্থান অর্জন করে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD