আইপিএল খেলতে ভারত গেলেন সাকিব

আইপিএল খেলতে ভারত গেলেন সাকিব

কিছুদিন আগে সাকিব আল হাসানের বক্তব্যকে ঘিরে ঝড় উঠেছিল দেশের ক্রীড়াঙ্গনে। বাংলাদেশের হয়ে শ্রীলঙ্কা সফর নাকি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) অংশগ্রহণ, এ নিয়ে ফের তৈরি হয়েছিল তুমুল বিতর্ক। আলোচনা-সমালোচনার মাঝে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট পরিচালনা প্রধান আকরাম খান বলেছিলেন, সাকিবের আইপিএলে খেলার অনাপত্তিপত্র নিয়ে তারা নতুন করে ভাববেন।

তবে ভাবনা-চিন্তা যা-ই হোক না কেন, আগের সিদ্ধান্তের কোনো হেরফের হয়নি। বোর্ডের অনাপত্তিপত্র নিয়ে শনিবার সকাল নয়টায় ভারতে উড়ে গেছেন সাকিব। বাঁহাতি এই তারকা অলরাউন্ডার কলকাতা হয়ে পৌঁছাবেন চেন্নাইতে। আইপিএলে তার দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রথম ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে সেখানকার এমএ চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে।

চেন্নাইতে এক সপ্তাহ কোয়ারেন্টিনে থাকার পর কলকাতা দলের সঙ্গে যোগ দিবেন সাকিব। আইপিএলের ১৪তম আসর মাঠে গড়াবে আগামী ৯ এপ্রিল। কলকাতার প্রথম ম্যাচ আগামী ১১ এপ্রিল। সেদিন তারা মুখোমুখি হবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের। অর্থাৎ কোয়ারেন্টিন শেষে অনুশীলনের মাধ্যমে নিজেকে তৈরি করে নেওয়ার সময় পাবেন সাকিব।

তৃতীয় সন্তানের জন্মের সময় স্ত্রীর পাশে থাকতে সাকিব বাংলাদেশের চলমান নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছুটি নেন। তাছাড়া, চোট সমস্যাও ছিল তার। যুক্তরাষ্ট্র থেকে তিনি দেশে ফেরেন গত সোমবার রাতে। এরপর বুধবার তার ৩৪তম জন্মদিন থাকলেও সকাল থেকে তাকে অনুশীলনে পাওয়া যায় মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে। আইপিএলের জন্য প্রস্তুত হতে পরবর্তীতে নিজের নামে প্রতিষ্ঠিত একাডেমিতে আরেক দিন ঘাম ঝরান তিনি।

আইপিএলের সবশেষ নিলামে পুরনো দল কলকাতা ৩ কোটি ২০ লাখ রুপিতে টেনে নিয়েছে সাকিবকে। তাকে নিতে শাহরুখ খানের মালিকানাধীন দলের সঙ্গে চেষ্টা চালায় পাঞ্জাব কিংসও। কিন্তু পেরে ওঠেনি। ফলে আবার সাকিবের ঠিকানা হয়েছে কলকাতা। এই ফ্র্যাঞ্চাইজিটির হয়ে আগেও ছয় মৌসুম খেলেছেন তিনি।

২০০৯ সালে প্রথম আইপিএলের নিলামে নিজের নাম উঠিয়েছিলেন সাকিব। সেবার কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি আগ্রহী হয়নি তার ব্যাপারে। ২০১১ আসরে তাকে ৪ লাখ ২৫ হাজার ডলারে দলে নেয় কলকাতা। এরপর ২০১৮ সালে ২ কোটি রুপিতে তাকে নিয়েছিল হায়দরাবাদ। তবে জুয়াড়ির সঙ্গে আলাপের তথ্য গোপন করে নিষিদ্ধ থাকায় এই ক্রিকেটার খেলতে পারেননি সবশেষ আসরে। ফলে তাকে ছেড়ে দেয় হায়দরাবাদ।

সাকিব যখন ব্যস্ত থাকবেন আইপিএলে, তখন বাংলাদেশ থাকবে শ্রীলঙ্কায়। আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুটি ম্যাচ খেলতে আগামী ১২ এপ্রিল লঙ্কায় পৌঁছাবে টাইগাররা। দুটি টেস্টই অনুষ্ঠিত হবে ক্যান্ডির পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD