সাদমান ইসলামের আক্ষেপ

সাদমান ইসলামের আক্ষেপ

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার প্রথম টেস্টে প্রথম দিন বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সাদমান ইসলামের। সাত ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় ফিফটির দেখা পান ২৫ বছর বয়সী সাদমান। ইনিংসের ৪৯তম ওভারের প্রথম বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাঁ-হাতি স্পিনার জোমেল ওয়ারিকানকে বাউন্ডারি মেরে দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি।

২০১৮ সালে মিরপুরে এই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই টেস্ট অভিষেকে হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৭৬ রান করেছিলেন সাদমান। এরপর ১০ ইনিংসে বড় স্কোর পাননি তিনি। এই ১০ ইনিংসে সাদমানের সর্বোচ্চ রান ৪১। ২০১৯ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ঐ স্কোর করেছিলেন তিনি।

অভিষেক ইনিংস বড় স্কোর করতে পারলেও, পরের দিকে নিজেকে মেলে ধরে পারেননি সাদমান। তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দীর্ঘক্ষণ উইকেটে থেকে বড় ইনিংস খেলার পরিকল্পনা ছিলো তার।

কিন্তু এবারও বড় ইনিংস খেলার পথ তৈরি করে আবারো হোচট খেয়েছেন সাদমান। ১৫৪ বল খেলে ৬টি চারে ৫৯ রান করেন তিনি। ক্রিজে ছিলেন ২৩৫ মিনিট। ১২৮তম বলে হাফ-সেঞ্চুরি পান তিনি। অবশ্য রিভিউ নিলে বেঁচে যেতে পারতেন সাদমান। কারন টিভি রিপ্লেতে দেখা গেছে, বল স্টাম্পে ছিলো না। কিন্তু রিভিউ থাকা সত্বেও তা নেননি এই বাঁ-হাতি।

নিজের আউট নিয়ে কোন সংশয় ছিলো না বলেই রিভিউ নেননি সাদমান। তিনি বলেন, ‘রিভিউ অবশ্যই নেওয়া উচিত ছিল। তবে আমার কাছে মনে হয়েছিলো, ইন-লাইন ছিল। উইকেটে হিট করবে। এজন্য রিভিউ নেইনি। পরে হতাশ হয়েছি। তবে এটা ম্যাচেরই অংশ, মেনে নিতে হবে।’

বড় ইনিংস খেলতে না পারায় দিন শেষে আক্ষেপ ঝড়েছে সাদমানের কন্ঠে। তিনি বলেন, ‘আজকের পিচ ধীর গতির ছিলো। তবে আমার কাছে ভালই মনে হয়েছে। লম্বা সময় ধরে ব্যাটিং করার পরিকল্পনায় ছিলাম। সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। দিনশেষে আমাদের দলীয় সংগ্রহ ভালো দেখাচ্ছে। আমরা ভালো শুরু করেছি, কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে আমাদের আরও বড় রান করা উচিত ছিলো এবং আরও বড় জুটির দরকার ছিলো।’

ওপেনিংএ তামিম ইকবালের সাথে ২৩ রানের জুটি গড়েন সাদমান। এরপর নাজমুল হোসেন শান্ত-অধিনায়ক মোমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিমের সাথে জুটি গড়েন তিনি। এরমধ্যে একটি হাফ-সেঞ্চুরির জুটি ছিলো। শান্তর সাথে ৪৩, মোমিনুলকে নিয়ে ৫৩ রান যোগ করেন। মুশফিকুর রহিমের সাথে ১৫ রানের বেশি যোগ করতে পারেননি তিনি।

দিন শেষে সাকিব আল হাসান ও লিটন দাসের ব্যাটিংএ স্বস্তির নিঃশ্বাস বাংলাদেশের। দলীয় ১৯৩ রানে পঞ্চম উইকেট পতনের পর ষষ্ঠ উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৪৯ রান যোগ করেন সাকিব-লিটন। ফলে দিন শেষে ৫ উইকেটে ২৪২ রান করেছে বাংলাদেশ।

সাদমানও মনে করছেন, সাকিব-লিটন ভালো ব্যাটিং করেছেন। তিনি বলেন, ‘সাকিব ভাই ও লিটন ভাল ব্যাটিং করছে। আমাদের আরও করতে হবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজও ভালো করছে।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD