ফেডারেশন কাপ শিরোপা অক্ষুন্ন বসুন্ধরার

ফেডারেশন কাপ শিরোপা অক্ষুন্ন বসুন্ধরার

মৌসুমের প্রথম ফুটবল আসর ফেডারেশন কাপ ফুটবলের শিরোপা অক্ষুন্ন রেখেছে বসুন্ধরা কিংস। আর রোববার শিরোপা নির্ধারনী ম্যাচে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে ১-০ গোলে পরাস্ত করে টানা দ্বিতীয়বারের ফেডারেশন কাপে চ্যাম্পিয়ন হলো দলটি। 

সেই সাথে ল্যাটিব ঝলকে মৌসুমের প্রথম আসরের শিরোপার স্বাদ‌ও পায় বসুন্ধরা। ফাইনালে একমাত্র গোলটি করেন বসুন্ধরার আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড অস্কার বেজেরা। অন্যদিকে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠেও ট্রফি জিততে না পারার কষ্ট নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় সাইফকে। একাধিক আক্রমন করেও গোল না পাওয়ার যন্ত্রণা অনেকদিন পোড়াবে সাইফকে। প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকু এদিন "চীনের প্রাচীর" হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তাদের সামনে। জিকু একাই পাঁচটি আক্রমণ প্রতিহত করেন। ম্যাচ শেষে বিজয়ী দলের হাতে ট্রফি তুলে দেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। এসময় উপস্থিত ছিলেন ফুটবল ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি সালাম মুর্শেদী।  

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিকেল চারটায় শুরু হওয়া ম্যাচে দু'দলই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে। তবে প্রথমার্ধে আক্রমণে এগিয়ে ছিল সাইফ এসসি।  ১৮ মিনিটে ওকোলি দারুণ থ্রু বাড়ান কেনেথকে। সুবিধা করতে না পেরে আবার বল ফেরত দেন ওকোলিকে। কিন্তু এই নাইজেরিয়নের দূরপাল্লার শট গোলবারের উপর দিয়ে যায়। পরের মিনিটে ওকোলির পাস ধরে দ্রুত বক্সে ঢুকে জোড়ালো শট নেন ফয়সাল আহমেদ ফাহিম। বসুন্ধরার গোলক্ষক আনিসুর রহমান জিকো দারুণভাবে প্রতিহত করে দলকে বাচান। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে বক্সের ঠিক বাম দিক থেকে রহমত মিয়া’র নিচু ফ্রি-কিক গোলরক্ষক জিকু বাদিকে ঝাঁপিয়ে রক্ষা করেন।

দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমেই গোলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে দুই দল। তবে আক্রমণে এগিয়ে ছিল সাইফ স্পোর্টিং। ৪৮ মিনিটে আবারো বসুন্ধরার ভিত নাড়িয়ে দেয় তারা। এবার প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে রহমত মিয়ার জোড়ালো শট ঝাঁপিয়ে রক্ষা করেন জিকু। উল্টো ৫২ মিনিটে গোল করে সাইফকে হতাশ করে বসুন্ধরার আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড বেসেরা। ব্রাজিলিয়ান রবসনের বাড়ানো বলটি দারুভাবে প্লেস করে দলকে লিড এনে দেন এই ল্যাটিন ফরোয়ার্ড (১-০)। আনন্দে মেতে উঠেন দলটির সমর্থকরা।

ম্যাচের ৬৯ মিনিটে গোলরক্ষক জিকুর দক্ষতায় আবারো বেঁচে যায় বসুন্ধরা। এবার বক্সের ঠিক বাইরে থেকে ক্যানেথের জোড়ালো শট প্রতিহত করেন গোলবারের এই প্রহরী। ৭৩ মিনিটে অল্পের জন্য লক্ষ্য ভ্রষ্ট হয় সাইফের। এবারো মিস করেন কেনেথ। তার নেয়া শটটি সাইডবার ঘেঁষে বাইরে চলে যায়। 

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ফেডারেশন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১১বার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে ঢাকা আবাহনী। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১০বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। তিনবার করে শিরোপা জিতে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, ব্রাদার্স ইউনিয়ন এবং মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। দুইবার বসুন্ধরা আর একবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD