গোলাপি বলের প্রথম দিনে ভারতের ২৩৩/৬ রান

গোলাপি বলের প্রথম দিনে ভারতের ২৩৩/৬ রান

চেতেশ্বর পূজারার ধৈর্য, বিরাট কোহলির লড়াই এবং অজিঙ্কা রাহানের আক্রমণত্মক ব্যাটিং। আর বিদেশের মাটিতে প্রথম পিঙ্ক বল টেস্টের প্রথম দিন এটাই ভারতীয় ব্যাটিংয়ের অবস্থা। অ্যাডিলেইড ওভালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৩৩ রান তুলেছে ভারত।

প্রথম দুটি সেশনে ভারতীয় ইনিংসের রান তোলার গতি কম থাকলেও তৃতীয় তথা দিনের শেষ সেশনে দ্রুত তিন উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফেরে অস্ট্রেলিয়া। কোহলির রান-আউট হওয়াটা ভারতীয় ইনিংসের জন্য দুর্ভাগ্যজনক। না-হলে পিঙ্ক টেস্টের প্রথম দিনের শেষে ভালো জায়গায় থাকত ভারত। প্রথম দু’টি সেশনে তিন উইকেট হারিয়ে ১০৭ রান তুলেছিল ভারত।

প্রথম দু’টি সেশনে ভারতের রান তোলার গতি কম থাকলেও উইকেট ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছিল কোহলি দল। কিন্তু চা-বিরতির পর অজি বোলারদের উপর আধিপত্য দেখা শুরু করেন ক্যাপ্টেন কোহলি ও ভাইস-ক্যাপ্টেন রাহানে। এই দু’জনের ব্যাটে যখন ভারত ম্যাচ জাঁকিয়ে বসতে শুরু করেছে, তখনই রাহানের ভুল কলে বিরাটের রান-আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরার বড় ধাক্কা খায় ভারত।

ইনিংসের ৭৭তম ওভারে নাথান লায়নের শেষ ডেলিভারি মিড-অফে ঠেলে রানের জন্য দৌড়ন রাহানে। কিন্তু একটু এগিয়ে যাওয়ার পরই নো কল করে পিছিয়ে আসেন রাহানে। কিন্তু ততক্ষণে দেরি হয়ে গিয়েছে৷ বিরাট ফেরার চেষ্টা করলেও শেষরক্ষা হয়নি। জো হ্যাজেলউড দ্রুততার সঙ্গে বল ধরে লায়নের হাতে দেন। বল ধরে উইকেট ভাঙতে ভুল করেন অজি স্পিনার। সেই সঙ্গে থেমে যায় ভারত অধিনায়কের বিরাট লড়াই।

ব্যক্তিগত ৭৪ রানে বিষণ মুখে প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটা লাগান ভারত অধিনায়ক। ১৮০ বলের ইনিংসে ৮টি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে যখন বড রানের ধৈর্য নিয়ে ব্যাট করছিলেন, ঠিক তখনই রাহানের ভুলে উইকেট দিতে হল বিরাটকে। এর আগে তৃতীয় উইকেটে চেতেশ্বর পূজারার সঙ্গে ৬৮ রান এবং তারপর চতুর্থ উইকেটে রাহানের সঙ্গে ৮৮ রানের দুরন্ত পার্টনারশিপ গড়েন ক্যাপ্টেন কোহলি। সেঞ্চুরির লক্ষ্যে ব্যাট করতে থাকা বিরাট এদিন তাঁর টেস্ট কেরিয়ারে ২২তম হাফ-সেঞ্চুরি করেন।

ক্যাপ্টেনকে রান-আউট করিয়ে মনসংয়োগে ব্যাঘাত ঘটে ভাইস-ক্যাপ্টেনের। বিরাট আউট হওয়ার ওভার চারেক পর হ্যাজেলউডের মিচেল স্টার্কের বলে এলবিডব্লিউ হন রাহানে। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রিভিউ নিয়েও লাভ হয়নি। ৪২ রানে থেমে যায় রাহানের ইনিংস। ৯২ বলের ইনিংসের একটি ওভার বাউন্ডারি ও তিনটি বাউন্ডারি মারেন।

রাহানের পর হ্যাজেলউড দ্রুত হনুমা বিহারীকে প্যাভিলিয়নের পথ দেখান। মাত্র ১৬ রান করে আউট হন বিহারী৷ দ্বিতীয় নতুন বলে দু’টি উইকেট তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ম্যাচে ফেরান স্টার্ক ও হ্যাজেলউড। তবে সপ্তম উইকেটে রবিচন্দ্রন অশ্বিন এবং ঋদ্ধিমান সাহার অবিভক্ত ২৭ রানের পার্টনারশিপে ২৩৩ রান তোলে ভারত। দিনের শেষে অশ্বিন ১৫ এবং ঋদ্ধিমান ৯ রানে ক্রিজে রয়েছেন।

টস জিতে এদিন শুরুটা ভালো হয়নি ভারতের। পৃথ্বী শ-কে ইনিংসের দ্বিতীয় ডেলিভারিতে শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরান স্টার্ক। অর্থাৎ স্কোর কোনও রান যোগ করার আগেই পৃথ্বীর উইকেট হারায় ভারত। অন্য ওপেনার ময়াঙ্ক আগরওয়ালকে (১৭) সঙ্গে নিয়ে ইনিংসের হাল ধরেন পূজারা (৪৩)।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD