চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ৭ উইকেটে জয় রাজস্থানের

চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ৭ উইকেটে জয় রাজস্থানের

টার্গেট মাত্র ১২৬ রানের। তবু ২৮ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে রাজস্থান রয়্যালস। কিন্তু অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ও জস বাটলারের জুটি বাধা হয়ে দাড়ালো। চতুর্থ উইকেটে দু’জনে ৯৮ রান তুলে ১৫ বল বাকি থাকতে রাজস্থানকে ৭ উইকেটে জিতিয়ে ফিরলেন। আর এই জয়ে ১০ ম্যাচে ৮ পয়েন্টে নিয়ে লিগ টেবিলের পাঁচে উঠে এল স্মিথের দল। অন্য দিকে ১০ ম্যাচে ৬ পয়েন্টে সবার শেষে চলে গেল মহেন্দ্র সিং ধোনীর দল চেন্নাই।

১২৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ২৬ রানে প্রথম উইকেট হারিয়েছিল রাজস্থান। তৃতীয় ওভারে দীপক চাহারের বলে বোল্ড হন বেন স্টোকস (১১ বলে ১৯)। পরের ওভারে জশ হ্যাজলউডের বলে মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন রবিন উথাপ্পা (৯ বলে ৪)। ২৮ রানেই উথাপ্পার পর সঞ্জু স্যামসনকে হারায় রাজস্থান। পঞ্চম ওভারে চাহারের বলে স্যামসনের ক্যাচ অসাধারণ দক্ষতায় লেগ সাইডে ঝাঁপিয়ে ধরেছিলেন ধোনি। আইপিএলে কিপার হিসেবে ধোনির শিকার এখন ১৫০।

প্রথম দিকের সেই সাফল্য আর বজায় থাকেনি ধোনীর দলের। রাজস্থান অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ও জোস বাটলার চতুর্থ উইকেটে টানলেন দলকে। জুটিতে ৪৩ বলে উঠল পঞ্চাশ। তার মধ্যে বাটলারেরই ৪০। বাটলার ফিফটি করেন ৩৭ বলে। উল্টোদিকে, স্মিথ ধীরে ধীরে গতি বাড়ান।

আইপিএলে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ২০০তম ম্যাচে ব্যাট হাতে বড় রান পেলেন না মহেন্দ্র সিংহ ধোনী। ২৮ বলে ২৮ করে রান আউট হলেন। চেন্নাই সুপার কিংসও বড় রানে পৌঁছতে পারল না। রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে তুলল ১২৫। এ বারের আইপিএলে প্রথমে ব্যাটিং করে এটাই সর্বনিম্ন স্কোর। ৩০ বলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন রাবিন্দু জাদেজা।

প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএলে এটা ধোনীর ২০০তম ম্যাচ। সেই ম্যাচ তিনি স্মরণীয় করে রাখুন, এমনই চাইছিলেন ভক্তরা। কিন্তু এ দিনও মনে রাখার মতো স্কোর এল না তাঁর ব্যাটে। এ বারের আইপিএলে ৮ ইনিংসে একবারও পঞ্চাশের গণ্ডি পার করতে পারেননি তিনি। চেনা মেজাজে ম্যাচ জিতিয়ে ফিরতেও পারছিলেন না। তবে ধোনি ২০০তম ম্যাচ নিয়ে যথারীতি নির্বিকার ছিলেন। টস জিতে তিনি বরং পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছিলেন, “১৯০ ও ২০০ ম্যাচের মধ্যে কী তফাত?”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD