করোনায় ৩০০ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতি বার্সেলোনার

করোনায় ৩০০ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতি বার্সেলোনার

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে এ পর্যন্ত প্রায় ৩০০ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতি হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। সেজন্য নতুন মৌসুমকে সামনে রেখে এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে তাদের বাজেটকে বিভিন্নভাবে সমন্বয় করতে হচ্ছে।

প্রথম ফুটবল ক্লাব হিসেবে তাদের বার্ষিক রাজস্ব ১ বিলিয়ন ইউরোতে উন্নীত করার আশা করেছিল বার্সা। মার্চ পর্যন্ত সে পথে তারা দারুণভাবে এগিয়েও যাচ্ছিল। কিন্তু করোনার থাবায় তিনমাস সবকিছু থমকে যাওয়ায় উল্টো আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে কাতালানরা।

রাজস্ব আয়ে এটা বড় প্রভাব ফেলেছে। একই সাথে প্রতিদিনকার আয় থেকেও ক্লাবটি মারাত্মকভাবে বঞ্চিত হয়েছে। প্রতিবছর মিলিয়ন ইউরো আয় আসতো যে, ক্লাব যাদুঘর ও ক্লাব দোকানগুলো থেকে সেগুলোও এখন বন্ধ রয়েছে। টেলিভিশন স্বত্ব এবং স্পন্সর চুক্তি থেকে এখন আরো ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এ কারণে গত মৌসুমের তুলনায় ক্লাবকে বাধ্য হয়েই এখন বাজেট ৩০ শতাংশ কমাতে হচ্ছে। ২০২১ সালের শুরুতে ক্লাবের স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু করার আশা করা হচ্ছে। তার আগে বিভিন্নভাবে ব্যয় কমানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। যদিও সেই খাতগুলো প্রকাশ করেনি বার্সেলোনা।

মহামারীর সময় আর্থিক এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে খেলোয়াড়রা তাদের বেতনের ৭০ শতাংশ কেটে নিতে রাজি হয়েছে। এই ক্ষতির কারণে ট্রান্সফার মার্কেটেও প্রভাব পড়েছে। নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান বেশ কিছু খেলোয়াড়ের প্রতি আগ্রহ দেখালেও কোন খেলোয়াড়কে বিক্রি না করা পর্যন্ত নতুন কাউকে নেয়া সম্ভব নয়। এখনো পর্যন্ত তারা শুধুমাত্র ইভান রাকিটিচকে সেভিয়ার কাছে ছেড়ে দিতে পেরেছে। এই তালিকায় ঝুলে আছে লুইস সুয়ারেজ, স্যামুয়েল উমতিতি ও আরতুরো ভিদাল।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD