ইতালিয়ান ওপেনের ফাইনালে জকোভিচ ‌ও হালেপ

ইতালিয়ান ওপেনের ফাইনালে জকোভিচ ‌ও হালেপ

দুই বিভাগের দুই শীর্ষবাছাই নোভাক জকোভিচ ও সিমোনা হালেপ ইতালিয়ান ওপেন টেনিসের ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন।

পুরুষ বিভাগে বিশ্বের এক নম্বর খেলোয়াড় জকোভিচ নরওয়ের কাসপার রুডকে সেমিফাইনালে ৭-৫ ‌ও ৬-৩ গেমে পরাজিত করে ফাইনালে ‌ওঠেন। শিরোপা লড়াইয়ের ম্যাচের তার প্রতিপক্ষ আর্জেন্টাইন দিয়েগো শোয়ার্জম্যান। রোমে এই নিয়ে পঞ্চম শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে কোর্টে নামবেন জকোভিচ।

অন্যদিকে নারী বিভাগের শীর্ষ বাছাই সিমোনা হালেপ এই নিয়ে তৃতীয়বার রোমের ফাইনালে খেলতে যাচ্ছেন। যেখানে তার প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ক্যারেলিনা প্লিসকোভা। ২০১৭ ও ২০১৮ সালে অল্পের জন্য শিরোপা পাওয়া হয়নি হালেপের। বিশ্বের দুই নম্বর এই রোমানিয়ার তারকা সেমিফাইনালে গারবিন মুগুরুজাকে ৬-৩, ৪-৬ ‌ও ৬-৪ গেমে পরাজিত করে ফাইনাল নিশ্চিত করেন। আরেক সেমিফাইনালে প্লিসকোভা চেক প্রজাতন্ত্রের মার্কেটা ভনড্রুসোভাকে ৬-২ ‌ও ৬-৪ গেমে সরাসরি সেটে সহজইে পরাজিত করে ফাইনলে উঠেছেন।

রোলা গাঁরোতে ফ্রেঞ্চ ওপেন শুরু হবার মাত্র এক সপ্তাহ আগে জকোভিচ ক্লে কোর্টের রাজা নাদালের সাথে আরো একটি ফাইনাল খেলার প্রায় দ্বারপ্রান্তে ছিলেন। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালে শোয়ার্জম্যান নয়বারের বিজয়ী নাদালকে পরাজিত করে সেমিফাইনালে উঠেন। শেষ চারে তিনি কানাডিয়ান ডেনিস শাপোভালভকে ৬-৪, ৫-৭ ‌ও ৭-৬ (৭/৪) গেমে হারিয়ে ফাইনালে উঠেন।

রোমে নয়টি ফাইনালের মধ্যে জকোভিচের প্রতিপক্ষ হিসেবে পাঁচটিতেই খেলেছেন নাদাল। সেমিফাইনালে জয়ের পর জকোভিচ বলেছেন, ‘অবশ্যই নাদালকে সহ এবং নাদালকে ছাড়া ফাইনালের মধ্যে বিশাল পার্থক্য আছে। সে কারনে এবার তাকের পাচ্ছিনা বলে কিছুটা হলেও অবাক লাগছে। কিন্তু একইসাথে ফাইনালের প্রতিপক্ষকে আমি মোটেই খাটো করে দেখছি না।’

ফাইনালে জিততে পারলে এটি হবে সার্বিয়ান তারকার ক্যারিয়ারের ৩৬তম মাস্টার্স শিরোপা। বর্তমানে তিনি নাদালের সাথে সমান ৩৫টি করে শিরোপা জিতেছেন। রোমে চারটি শিরোপার মধ্যে সর্বশেষ জিতেছিলেন ২০১৫ সালে। ২০১৬, ২০১৭ ও ২০১৯ সালের ফাইনালে জকোভিচকে রানার্স-আপ শিরোপা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD