ইচ্ছাকৃত কাশির জন্য লাল কার্ড

ইচ্ছাকৃত কাশির জন্য লাল কার্ড

করোনাভাইরাস মাহামারি চলাকালে কোন ফুটবলার যদি বিরোধী পক্ষের খেলোয়াড় বা কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য করে ইচ্ছাকৃতভাবে কাশি দেন তাহলে রেফারি তার শাস্তি হিসেবে লাল কার্ড দেখাতে পারবেন। ক্রীড়া আইন প্রণেতা ও ইংল্যান্ডের ফুটবল এসোসিয়েশন এ কথা জানিয়েছে।

আন্তর্জাতিক ফুটবল এসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি) বলেছে, বিষয়টি রেফারির সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করছে। তিনি যদি মনে করেন বিষয়টি কাউকে উত্যক্ত করার জন্য করা হয়েছে তাহলে এই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। আইএফবিএ বিষয়টি আরো খোলাসা করে বলেছে, উদ্দেশ্যমূলকভাবে কাশি দেয়াকে আপত্তিকর, অপমানজনক বা অবমাননাকর ভাষা কিংবা অঙ্গভঙ্গি করার সামিল।

এসোসিয়েশন বোর্ড জানায়, ‘সব ধরনের অপরাধের মত রেফারিকে অন্যান্য অপরাধের ধরন বুঝে রায় দিতে হবে। বিষয়টি যদি স্পষ্টত দুর্ঘটনা বশত হয়ে থাকে, কিংবা বেশ কিছুটা দূরত্বে কাশি দেয়া হয়, তাহলে রেফারি ওই কাশির জন্য কোন শাস্তি দিবেননা। তবে যদি সেটি কাছ থেকে ঘটে এবং আক্রমনাত্মক হিসেবে পরিলক্ষিত হয় তাহলে ব্যাবস্থা নিতে পারবেন রেফারি।

ইংল্যান্ডের তৃণমুল ফুটবলেও এফএ’র তত্ত্বাবধানে এই আইন অবিলম্বে কার্যকর করা হবে। তবে বিষয়টি যদি লাল কার্ড প্রদর্শনের মত গুরুতর মনে না হয়, তাহলে অখেলোয়াড়সূলভ আচরণের দায়ে রেফারি সতর্ক করে দিতে পারেন এবং সেটি ডকুমেন্ট হিসেবে লিপিবদ্ধ করতে পারবেন।

এতে আরো বলা হয়, তবে কেউ যদি স্বাভাবিক কাশি দেয় কিংবা সেটি উদ্দেশ্যমুলক ভাবে না হয়, তাহলে রেফারি শাস্তি দেয়া থেকে বিরত থাকতে পারবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD