ইউএস ওপেন নিয়ে সিদ্ধান্তের আশা থিয়ামের

ইউএস ওপেন নিয়ে সিদ্ধান্তের আশা থিয়ামের

অস্ট্রিয়ান গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাতকারে বিশ্বের তিন নম্বর খেলোয়াড় ডোমিনিক থিয়াম বলেছেন, ইউএস ওপেন আয়োজিত হলে সেখানে খেলার জন্য তিনি মুখিয়ে আছেন।

বৈশ্বিক করোনা মহামারীতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ দেশ হিসেবে ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষে রয়েছে। প্রতিদিনই সেখানে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে চলেছে। যদিও এর মধ্যেই আগামী ৩১ আগস্ট থেকে বছরের তৃতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম ইউএস ওপেন আয়োজনের ব্যপারে আশাবাদী যুক্তরাষ্ট্রের আয়োজক সংস্থা। আগামী মাস থেকে এটিপি ও ডব্লিউটিএ ট্যুরগুলোও শুরু হচ্ছে। একমাস পর কোর্টে গড়াবে স্থগিত হয়ে যাওয়া ফ্রেঞ্চ ওপেন।

থিয়াম অবশ্য বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের আয়োজকরা এ ব্যপারে সঠিক সিদ্ধান্ত নিবে বলেই তার বিশ্বাস। এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমার মনেহয় আগামী পাঁচ থেকে সাতদিনের মধ্যে এ ব্যপারে একটা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে। অবশ্যই আমি চাই এটা অনুষ্ঠিত হোক। তবে নিরাপত্তাই প্রথম ও প্রধান বিষয়। আমাদের অবশ্যই সরকারের নীতিমালা মেনে চলতে হবে। তারা যদি মনে করে কোন ধরনের বিপদ আসতে পারে তবে টুর্নামেন্ট বন্ধ করে দিতে পারে। বিশেষ করে ইউএস ওপেনের মত বড় টুর্নামেন্ট এই পরিস্থিতিতে আয়োজন কিছুটা কঠিনও বটে।’

২৬ বছর বয়সী থিয়াম পরিকল্পনা করছেন, পশ্চিম অস্ট্রিয়ায় কিটজবুয়েলে একটি প্রদর্শনী ইভেন্টে অংশ নিবেন। এই ইভেন্টটির যৌথ আয়োজকও তিনি। এরপর যাবেন বার্লিনে। সিনসিনাটি মাস্টার্স ও ইউএস ওপেনকে সামনে রেখে কঠোর অনুশীলনের বিকল্প নেই বলেও তিনি মনে করেন।

নোভাক জকোভিচের আয়োজনে গত মাসে অনুষ্ঠিত আদ্রিয়া ট্যুরে তিনি খেলেছেন। ঐ টুর্নামেন্টে বিশ্বের এক নম্বর খেলোয়াড় জকোভিচসহ আরো তিনজন খেলোয়াড় কোভিড-১৯’ এ আক্রান্ত হওয়ায় তা বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়। ম্যাচগুলোতে সামাজিক দূরত্বের বিষয়টি কঠোরভাবে মানা হয়নি। স্টেডিয়ামে প্রতিদিন হাজার খানেক দর্শকও উপস্থিত ছিলেন। পরবর্তীতে টুর্নামেন্টটি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। যদিও থিয়াম জানিয়েছেন, ভুল থেকে শিক্ষা নেয়াটাই গুরুত্বপূর্ণ। নিজের টুর্নামেন্ট শুরু করার আগে সম্ভাব্য সবদিকই তারা বিবেচনা করে দেখবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন থিয়াম।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD