বেতন পার্থক্য ভারত ‌ও পাকিস্তান ক্রিকেটে

বেতন পার্থক্য ভারত ‌ও পাকিস্তান ক্রিকেটে

ক্রিকেটারদের সঙ্গে আবার নতুন চুক্তি করলো পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। বুধবরাই ২১ জন ক্রিকেটারের সঙ্গে নতুন চুক্তির একটি নির্দেশিকা জারি করা হয়। এ. বি. সি. ক্যাটেগরি রয়েছে ক্রিকেটাররা। তাতে জানা যায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সাথে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের বেতনের পাথর্ক্য।

ক্যাটেগরি এ-তে আছেন বাবর আজম, আজহার আলী এবং শাহীন শাহ আফ্রিদির মতো প্লেয়াররা। তাঁদের বেতন অন্যদের তুলনায় বেশ কিছুটা বেশি। এ ছাড়াও প্রোমশন, ডিমোশন, প্র্যাকটিসে অপেক্ষাকৃত বেশি অনুপস্থিতির হারেও বেশ কিছুটা কমানো হয়েছে পাক ক্রিকেটারদের বেতন।

বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে পাক ক্রিকেটারদের বর্তমান বেতন 

এ ক্যাটেগরি: প্রতি মাসে ১.১ মিলিয়ন পাকিস্তানি রুপি বা ৬,৭৯৮ মার্কিন ডলার। এই হিসেবে বছরে ১৩.২ মিলিয়ন পাকিস্তানি রুপি বা ৮১,৫৭৬ মার্কিন ডলার।

বি ক্যাটেগরি: মাসিক ৭৫০.০০০ পাকিস্তানি রুপি বা ৪,৬৩৫ মার্কিন ডলার। বছরে এই হিসেবে বছরে দাঁড়াচ্ছে ৯ মিলিয়ন পাকিস্তানি রুপি বা ৫৫, ৬২৭ মার্কিন ডলার।

সি ক্যাটেগরি: প্রতি মাসে ৫৫০,০০০ পাকিস্তানি রুপি বা ৩,৪০০ মার্কিন ডলার। আর বছরের হিসেবে ৬.৬ মিলিয়ন পাকিস্তানি রুপি বা ৪০,৭৯৩ মার্কিন ডলার।

অন্য দিকে, ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের চুক্তিতে ক্রিকেটারদের মোট চারটি ক্যাটেগরিতে ভাগ করা হয়। পাকিস্তানের মতোই থাকে এ. বি.সি. তার সঙ্গে আরও একটি ক্যাটেগরি হল এ +।

 

দেখে নেওয়া যাক ভারতীয় ক্রিকেটারদের বর্তমান বেতন

গ্রেড এ+: বাৎসরিক ৭ কোটি টাকা অর্থাৎ ৯২৭,৩৩৬ মার্কিন ডলারের চুক্তি।

গ্রেড এ: এই গ্রেডে প্লেয়ারদের সঙ্গে বছরে ৫ কোটি টাকা বা ৬৬২,৩৮৩ মার্কিন ডলারের চুক্তি সাক্ষরিত হয়।

গ্রেড বি: ৩ কোটি টাকা বা ৩৯৭,৪৩০ মার্কিন ডলারের বার্ষিক চুক্তি করা হয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে।

গ্রেড সি: ১ কোটি টাকা অর্থাৎ ১৩২,৪৭৬ মার্কিন ডলারের বার্ষিক চুক্তি হয় এই সি গ্রেডের ক্রিকেটারদের সঙ্গে।

এখন এই হিসেবেই যদি পাকিস্তানের ক্রিকেট বোর্ডে এ ক্যাটেগরি এবং ভারতীয় বোর্ডে গ্রেড এ-র পরিসংখ্যান ধরা হয়, তাহলেই দুই বোর্ডের ক্রিকেটারদের বার্ষিক এবং মাসিক বেতনের তারতম্য খুব পরিষ্কার হয়ে যাবে। পাকিস্তানের এ ক্যাটেগরিতে সেরা তিন ক্রিকেটারের মোট বেতন যেখানে ২৮০,০০০ মার্কিন ডলার। ঠিক সেখানেই ভারতের এ+ গ্রেডের একজনকেই দিচ্ছে ৪০০,০০০ মার্কিন ডলার। অর্থাৎ বাবর আজম, আজহার আলী এবং শাহীন শাহ আফ্রিদির মতো প্লেয়াররা মোট যা টাকা বোর্ডের কাছ থেকে বেতন হিসেবে পান, ভারতের বিরাট কোহলি বা রোহিত শর্মা বা যশপ্রীত বুমরাহ এই তিনজনের যে কোনো একজনকে বিসিসিআই তারচেয়েও বেশি টাকা বেতন দেয়।

এ ছাড়াও আর একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক হল পিসিবি তাদের সব ক্রিকেটারদের পিছনে তিনটি ক্যাটাগোরি মিলিয়ে মোট ১৫৭ মিলিয়ন পাকিস্তানি রুপি বরাদ্দ করেছে। এ দিকে, বিসিসিআইর কাছ থেকে বিরাট কোহলি একাই তারচেয়ে বেশি টাকা বাৎসরিক বেতন হিসেবে পান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD