এএফসি কাপে কাল আবাহনীর প্রতিপক্ষ মাজিয়া ক্লাব

এএফসি কাপে কাল আবাহনীর প্রতিপক্ষ মাজিয়া ক্লাব

জয় দিয়েই এএফসি কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু করতে চায় আবাহনী। আর মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টসের লক্ষ্য তিন পয়েন্ট নিয়ে ঘরে ফেরা। এএফসি কাপের প্রিলিমিনারি রাউন্ডের প্লে-অফের দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম লেগের ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ার আগে বাফুফে ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান, দুই দলের কোচ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে, আগামীকাল বিকেল পাঁচটায় স্বাগতিক আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে লড়বে মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশন ক্লাব।

গত মৌসুমে এএফসি কাপের জোনাল সেমি-ফাইনালে উঠে ইতিহাস রচনা করেছিল আবাহনী লিমিটেড। তবে এই মৌসুমে তাদের মিশন ভিন্ন। নকআউট পর্বে খেলার লক্ষ্যে প্রাক-বাছাই পর্বে অংশ নিতে হচ্ছে তাদেরকে। অথচ গতবার সরাসরি ওই পর্বে অংশগ্রহনের সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশের ছয় বারের প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) চ্যাম্পিয়নরা ।

প্রাক বাছাইয়ে নীল আকাশী জার্সির জনপ্রিয় ধানমন্ডির ক্লাবটিকে এবার লড়তে হবে মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টস এন্ড রিক্রেয়শন ক্লাবের বিপক্ষে। তবে হোম ম্যাচটি আবাহনীর জন্য খুব একটা সহজ হবে না। কারণ এশিয়ার দ্বিতীয় বিভাগের ক্লাব কম্পিটিশনে প্রথম দুই প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মালদ্বীপের প্রতিপক্ষের কাছে হার মানতে হয়েছিল বাংলাদেশের ক্লাবটিকে।

ছয় বারের প্রিমিয়ার লীগ চ্যাম্পিয়ন আবাহনী এর আগে টানা তিনবার গ্রুপ পর্বে খেলার সুযোগ পেয়েছে। তবে একবার সেমি-ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। এবার বিপিএলে বসুন্ধরা কিংসের কাছে শিরোপা হাতছাড়া করায় প্রাক-বাছাই পর্বে খেলতে হচ্ছে আবাহনীকে।

২০১৮ সালে নিউ রেডিয়েন্ট ক্লাবের কাছে হোম ম্যাচে ০-১ গোলে পরাজিত হলেও এ্যাওয়ে ম্যাচে ৫-১ গোলে পরাজিত হয়েছিল আবাহনী। এর আগের বছর (২০১৭ সালে) মাজিয়ার বিপক্ষে দুই ম্যাচেই ২-০ গোলে হেরেছিল তারা।

গত বছর ফেডারেশন কাপে খুব একটা ভাল করতে পারেনি আবাহনী। কোয়ার্টার ফাইনালে টাইব্রেকারে তাদেরকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে বিদায় করে দিয়েছির রহমতগঞ্জ। এ প্রসঙ্গে আবাহনীর কোচ মারিও লেমোস বলেন, ফেডারেশন কাপের ফলাফল এএফসি কাপে তার দলের পারফর্মেন্সকে প্রভাবিত করবে না। তিনি বলেন, এটি ভিন্ন টুর্নামেন্ট এবং গত বছর এএফসি কাপে দলটি দারুন দক্ষতা প্রদর্শন করেছে। যা মালদ্বীপের ক্লাবের বিপক্ষে কালকের ম্যাচে তার শিষ্যদের বাড়তি অনুপ্রেরনা যোগাবে।’

এদিকে মাজিয়া স্পোর্টস এন্ড রিক্রিয়েশন ক্লাবের প্রধান কোচ মার্জান সেকুলোভস্কি বলেছেন, তাদের লক্ষ্য থাকে সব সময় ভাল ফুটবল খেলে জয়লাভ করার। এএফসি কাপেও সেই ধারা ধরে রাখতে চায় তার দল। তিনি বলেন,‘ আমাদের লক্ষ্য থাকে সব সময় ভাল ফুটবল খেলে জয়লাভ করা। আশা করব ছেলেরা আগামীকালও সেরাটা খেলে আবাহনীর বিপক্ষে জয়লাভ করবে।’ তিন বছর আগে অনুষ্ঠিত দুই ম্যাচে আবাহনীর বিপক্ষে ২-০ গোলে জয় পাওয়ার ঘটনাটি তাদের অনুপ্রানীত করবে নিসন্দেহে।

আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি মালদ্বীপে ফিরতি লেগে পরস্পরের মোকাবেলা করবে দল দুটি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD