বাংলাদেশে ব্রাজিলিয়ান লিজেন্ড

বাংলাদেশে ব্রাজিলিয়ান লিজেন্ড

বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীতে বাংলাদেশে আসাটা আমার জন্য গর্বের ব্যাপার, বাফুফে ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ব্রাজিল বিশ্বকাপ দলের সাবেক গোলকিপার জুলিও সিজার। একদিনের সফরে গতকাল তিনি বাংলাদেশে আসেন। এ সময় সিজার জানান, এখানকার খেলোয়াড়দের সঙ্গে সময় কাটিয়ে তার ভালো লেগেছে। প্রায় ত্রিশ ঘন্টার সফর শেষে আজ রাতে ঢাকা ছেড়ে যান জুলিও সিজার।

জুলিও সিজার তার সময়ে গোলবারের নিচে ছিলেন সবচেয়ে সেরা। পেনাল্টি শট ঠেকানোতে ছিলেন সিদ্ধহস্ত। প্রতিপক্ষে নামী-দামী ফরোয়ার্ডরাও সিজারের বিপক্ষে স্পটকিক নেওয়ার আগে, ভাবনায় পড়ে যেতেন। কিন্তু ২০১৪ সালে ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পরাজয়ের লজ্জা, তার র্বণাঢ্য উজ্জ্বল ক্যারিয়ারেই কালিমা লেপে দেয়। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সেই জুলিও সিজার বাংলাদেশে আসেন ফুটবলারদের উদ্দীপ্ত করতে। বলেন, বাংলাদেশকে তার ভালোলাগার কথা। তিনি বলেন, বাফুফেকে ধন্যবাদ আমাকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীতে এখানে আসলে পারাটা আমার জন্য অনেক গর্বের ব্যাপার। আরো বেশিদিন এখানে থাকতে পারলে এই দেশ সম্পর্কে অনেক বেশি জানা যেতো।

অল্পসময়ের জন্য বাংলাদেশে এলেও জুলিও সিজার ঠিকই মাঠের খেলায় অংশ নেন, এদেশের গোলকিপারদের সঙ্গে। দারুণ আনন্দ পেয়েছেন তিনি। তবে এদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ সম্পর্কে আরো জানার চেষ্টা থাকবে বলে জানান সিজার। জানিয়েছেন, যারা দেশকে মুক্ত করার জন্য স্বাধীনতা যুদ্ধে লড়েছেন, সেইসব সাবেক খেলোয়াড়দের সঙ্গ পাওয়াটা খুবই গর্বের। তাদের সঙ্গে কথা বলতে পারাটাও অনেক আনন্দের। আমি এদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানতে আরো বেশি পড়াশোনা করবো।

রোনালদো এবং রোনলদিনহোর সাথে খেলা এই কিংবদন্তি গোলকিপার মনে করেন তার সময়ের সেরা ফুটবলার হলেন, স্বদেশী রোনালদিনহো।
এরআগে, সকালে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু জাদুঘরে, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, ২০১৮ সালের এপ্রিলে অবসর নেওয়া কিংবদন্তি গোলকিপার জুলিও সিজার।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD