জাতীয় স্কুল হকির লোগো ও জার্সি উন্মোচন

জাতীয় স্কুল হকির লোগো ও জার্সি উন্মোচন

মুজিববর্ষই হবে বাংলাদেশ হকির নবজাগরণের বছর। আজ বুধবার সকালে বিমানবাহিনীর ফ্যালকন হলে জাতীয় স্কুল হকির লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এ কথা বলেন। এসময় হকির উন্নয়ন এবং প্রসারে সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দেন জাতীয় স্কুল হকি কমিটি ও এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান। বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সভাপতি ‌ও বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাতের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

দেশের ৯টি ভেন্যুতে ৮০ টি স্কুল নিয়ে হবে এবারের জাতীয় স্কুল হকি প্রতিযোগিতা। আগামী ২৫ জানুয়ারী থেকে চট্টগ্রামে উদ্বাধনী অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে শুরু হচ্ছে জাতীয় স্কুল হকি প্রতিযোগীতা। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীকে স্মরনীয় করে রাখতে এই প্রতিযোগিতার সব আয়োজন ইতোমধ্যে সম্পন্ন। ফ্যালকন হলে জার্সি আর লোগো উন্মোচন শেষে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এবং ফেডারেশনের সভাপতি বলেন, ভবিষ্যতে জাতীয় দলের জন্য খেলোয়াড় বাছাই করতে স্কুল হকি অন্যতম ভুমিকা রাখবে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতার জন্মশতবর্ষকে স্মরণীয় করে রাখতে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও বিভিন্ন ক্রীড়া ফেডারেশনসমূহ নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। আমরা জাতির পিতার জন্মশতবর্ষে ১০০টি ইভেন্ট আয়োজন করছি। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন আয়োজন করছে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্কুল হকি প্রতিযোগিতা। আমি বিশ্বাস করি, এই প্রতিযোগিতার মধ্যে দিয়ে আমাদের নতুন প্রজন্ম, আমাদের ছাত্র-ছাত্রীরা বঙ্গবন্ধুকে নতুনভাবে জানার সুযোগ পাবে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, হকি অতি জনপ্রিয় খেলা। জনপ্রিয়তার দিক থেকে ক্রিকেট-ফুটবলের পরেই হকির অবস্থান। সরকার হকির উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে। মুজিব বর্ষই হবে হকির নবজাগরণের বছর। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে একাধিক টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হবে। তিনি হকির উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। প্রতিমন্ত্রী এ সময়ে ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক, ওয়ালটন ও এটিএনকে ক্রীড়ার উন্নয়নে এগিয়ে আসার জন্য ধন্যবাদ জানান।

এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে এমন আয়োজন করা হচ্ছে। আর প্রতি আসরেই পৃষ্ঠপোষকতা করেছে ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক। এদিকে, টুর্নামেন্টের সফল আয়োজনে ভূমিকা রেখে চলছেন এটিনএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমানও। তিনি জানান, হকির প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখা হবে। যা কিছুই ঘটুক না কেনো হকির প্রতি সমর্থন অটুট থাকবে তার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্পন্সর প্রতিষ্ঠান ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্হাপনা পরিচালক সৈয়দ ‌ওয়াসেক মেহাম্মদ আলী।

প্রতিটি ভেন্যুর সেরা দুই দল নিয়ে ঢাকায় হবে চূড়ান্ত পর্ব। বাছাই করা হবে প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের। তাদেরকে দীর্ঘমেয়াদী ও উন্নতমানের প্রশিক্ষণ দিয়ে জাতীয় দলের পাইপলাইনে আরো সমৃদ্ধ করার ব্যবস্থা করবে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD