টিকে থাকার লড়াই আজ বাংলাদেশের

টিকে থাকার লড়াই আজ বাংলাদেশের

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ ফুটবলে জর্ডানের মুখোমুখি হবে আজ বাংলাদেশ ফুটবল দল। মূল পর্বের আশা বাঁচিয়ে রাখতে যে ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই তাদের। এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের মূলপর্বে নাম লেখানোর লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু বাছাইপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই স্বাগতিক বাহরাইনের কাছে ৩-০ গোলের হারে সেই স্বপ্নটা কঠিন হয়ে গেছে লাল-সবুজদের। আজ বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭.১৫ মিনিটে জর্ডানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ জাতীয় ফুটবল দল।

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের মূলপর্বে বাংলাদেশ খেলেছিল প্রায় ১৭ বছর আগে। সেটি ছিল ২০০২ সালে। সদ্য সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপের রানার্স আপ দলের অধিকাংশ ফুটবলার নিয়ে গঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ দলটিকে নিয়ে সেই ১৭ বছরের না পাবার আক্ষেপ ঘোচানোর লক্ষ্য ছিল কোচ এন্ড্রু পিটার টার্নারের। কিন্তু প্রথম ম্যাচেই স্বাগতিক বাহরাইনের সঙ্গে লড়াই করেও বড় ব্যবধানের হারে মূলপর্বে যাবার রাস্তাটা কঠিন হয়ে গেছে বাংলাদেশের। কারণ মূল পর্বে খেলতে হলে তাদেরকে হতে হবে গ্রম্নপ ‘ই’ এর চ্যাম্পিয়ন বা রানার্সআপ। গ্রম্নপে দ্বিতীয় হলেও সেরা চার রানার্স আপের একটি হয়ে খেলার সুযোগ থাকছে। কিন্তু বাংলাদেশ দলের জন্য তা মোটেই সহজ হচ্ছে না।

কারণ ইতোমধ্যে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ৩-০ গোলে হারিয়ে দিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে আছে জর্ডান। অন্যদিকে বাহরাইন ৩-০ গোলে বাংলাদেশকে হারিয়ে টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে। বুধবার রাতে মানামায় খলিফা স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে স্বাগতিক দলটির বিপক্ষে কঠিন প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল বাংলাদেশের যুবারা। কিন্তু বিরতির ২ মিনিট আগে আব্দুল রহমান সৈয়দ মোহামেদের গোলে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ (১-০)। দ্বিতীয়ার্ধেও লড়াই চালিয়ে গেছে বাংলাদেশ। যে কারণে পরের গোলের দেখা পেতেও বেশ বেগ পেতে হয়েছে বাহরাইনকে। ম্যাচের শেষ দিকে এসে আর পেরে ওঠেনি বাংলাদেশ। ৯০তম মিনিটে মোহামেদ দ্বিতীয় গোল করেন (২-০)। যোগ করা সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে আবদুলস্নাহ নেমের আল মাসায়েদ নাম লিখেন গোলদাতার খাতায় (৩-০)।

প্রথম ম্যাচে বড় হারের কারণে পয়েন্ট শূন্য বাংলাদেশকে এখন মূল পর্বের আশা বাঁচিয়ে রাখতে জর্ডানের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই। এর আগে ২০১৮ আসরের বাছাইপর্বে বাংলাদেশ আর জর্ডান ছিল দুই গ্রম্নপে। যে কারণে তাদের দেখা হয়নি। ২০১৬ সালেও দুই দল খেলেছে দুই গ্রম্নপে। একই কারণে এর আগের দুই বাছাই পর্বেও মুখোমুখি হয়নি এই দুই দল। তাই আজ এক অচেনা প্রতিপক্ষকেই মোকাবিলা করবে এন্ড্রু পিটারের শিষ্যরা। যে ম্যাচে জয়ের বিকল্প ভাবার অবকাশও নেই। গ্রম্নপের শেষ ম্যাচে আগামী ১০ নভেম্বর ভুটানের মুখোমুখি হবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

গত বাছাইপর্বে অংশ নিয়ে গ্রম্নপে ৫ দলের মধ্যে তৃতীয় হয়েছিল বাংলাদেশ। এর আগের দুই আসরেও গ্রম্নপপর্ব উৎরানো সম্ভব হয়নি তাদের পক্ষে। বাছাই পর্বের ১১ গ্রম্নপের চ্যাম্পিয়ন ছাড়াও সেরা চার রানার্স আপ দল খেলবে ২০২০ সালের এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপের মূলপর্বে। ১৬ দলের ওই টুর্নামেন্টের অন্য দলটি স্বাগতিক উজবেকিস্তান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD