এসএ গেমসে ৬২১ জনের বহর বাংলাদেশের

এসএ গেমসে ৬২১ জনের বহর বাংলাদেশের

আগের চেয়ে ভালো ফলাফলের জন্য হিমালয় কন্যা নেপালের কাঠমান্ডু ও পোখরায় ১৩ তম সাউথ এশিয়ান গেমসের অংশ নিতে যাবে বাংলাদেশ। দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ থেকে ২৫ টি ডিসিপ্লিনে খেলোয়াড় ও কর্মকর্তা সহ মোট ৬২১ জন অংশ নেবেন। আগামী ১ থেকে ১০ ডিসেম্ভর দক্ষিণ এশিয়ার সাত দেশের প্রতিযোগিরা নামবেন পদকের লড়াইযে।

বিওএ ভবনে গেমস উপলক্ষে আজ শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের (বিওএ) মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা জানান, গতবারের চেয়ে ভালো ফলাফলের জন্যই যাবে বাংলাদেশ দল। ২০১৬ সালে ভারতের গৌহাটি ও শিলংয়ে চারটি স্বর্ণসহ ৭৫টি পদক জিতেছিলেন বাংলাদেশের প্রতিযোগিতরা।

বিওএ মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা জানান, এবারের এসএ গেমসে বাংলাদেশ দলের সেফ দ্য মিশন হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বিওএ’র উপ-মহাসচিব ‌ও হ্যান্ডবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কোহিনুর। ডিপুটি সেফ দ্য মিশন হিসেবে থাকবেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব ও বিওএ সদস্য ওমর ফারুক এবং বাংলাদেশ জুডো ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি এসপি সৈয়দ জান্নাত আরা। দলের সমন্বয়বারী হিসেবে থাকছেন ট্রেনিং কমিটির সদস্য সচিব একে সরকার।

উদ্বোধনী দিনে মার্চপাষ্টে বাংলাদেশ দলের পতাকা বহন করবেন ভারতে ১২ তম এসএ গেমসে দুটি স্বর্ণ পদক জয়ী সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শিলা।

শাহেদ রেজা আর‌ও বলেন, বিওএ দলগুলোকে সামর্থ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ দিয়ে প্রশিক্ষনে সহাযতা দিয়েছে। গত জুলাই থেকে দীর্ঘ ৫ মাস ধরে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে খেলোয়াড়দের। প্রযোজনে দেয়া হয়েছে বিদেশী কোচ এবং বিদেশের মাটিতে প্রস্ততির সুযোগ। ক্যাম্পে প্রতিটি খেলোয়াড়কে ৬০০ টাকা থাকা-খাওয়া ও ২৭৫ টাকা করে হাত খরচ দেয়া হয়েছে। প্রশিক্ষণ ক্যাম্প শুরু হওয়ার পরপরই ডেংগু জ্বরের প্রভাবে অনেক খেলোয়াড় আক্রান্ত হলে, বিওএ কতৃপক্ষ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় খেলোয়াড়দের সুচিকিৎসা দিয়ে ক্যাম্পে ফিরিয়ে আনে।

এসএ গেমসে বাংলাদেশ দলের বাজেট ছিল ৩০ কোটি টাকা। যার মধ্যে সাড়ে ১৯ কোটি টাকা ট্রেনিং ও সাড়ে ১০ কোটি টাকা অংশগ্রহণের জন্য। তবে এখন পর্যন্ত ক্রীড়া পরিষদ থেকে ১৫ কোটি টাকা পেয়েছে বিওএ।

মহাসচিব আরো বলেন, প্রথমবারের মত প্রতিটি ডিসিপ্লিনে মহিলা ক্রীড়াবিদদের জন্য পৃথক পৃথক মহিলা কর্মকর্তা নিয়োগ দিয়েছে। বিওএ নিজস্ব অর্থায়নই ক্যাম্প চালিয়েছে। এসএ গেমস ১ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে। ইতিমধ্যে সাঁতার দল পৌছেছে কাঠমান্ডু। কাবাডি দল ভারত থেকে সরাসরি যাবে গেমসে অংশ নিতে। বক্সার ও আরচ্যাররা আছে থাইল্যান্ডে। ভলিবল প্রতিযোগিতা আগামী ২৭ নভেম্বর শুর হবে। তাই ২৫ তারিখ নেপাল পৌঁছাবে বাংলাদেশ দল। বিভিন্ন প্রতিযোগিতা যেহেতু ভিন্ন ভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠিত হবে তাই দলকে সূচি অনুযায়ী দল প্রেরণ করা হবে এবং ধাপে ধাপে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD