ব্রুনোর হ্যাটট্রিকে বড় জয় টেরেঙ্গানুর

ব্রুনোর হ্যাটট্রিকে বড় জয় টেরেঙ্গানুর

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবলে উড়ন্ত সূচনা করেছে মালয়শিয়ার দল টেরেঙ্গানু এফসি। আজ মঙ্গলবার নিজেদের প্রথম ম্যাচেই ভারতের চেন্নাই সিটি এফসিকে ৫-৩ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে তারা। দলের হয়ে হ্যাটট্রিকসহ চার গোল করেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড ব্রুনো সুজুকি। চলতি এ আসরে এটাই প্রথম হ্যাটট্রিক। অপর গোলটি করেন রহমত বিন মাকাসুফ।

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে বিকেলে শুরু হওয়া ম্যাচের প্রথম থেকেই আক্রমনাত্মক হয়ে উঠে টেরেঙ্গানু। কম যায়নি ভারতের দলটিও। কিন্তু তিন মিনিটেই গোল করে ম্যাচ জয়ের আভাস দেয় মালয়শিয়ার দলটি। অসাধরণ সংঘবদ্ধ আক্রমণে গোল করে এগিয়ে যায় টেরেঙ্গানু। মাঝমাঝ থেকে আসা বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে লি টাক পাঠিয়ে দেন ডান পাশে ব্রুনো সুজোকিকে। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এই ফরোয়ার্ড বাড়িয়ে দেন ডান দিকে থাকা মিডফিল্ডার মোহাম্মদ রহমত বিন মাকাসুফের উদ্দেশ্যে। ঠান্ডা মাথায় কোনাকুনি শটে বল পাঠিয়ে দেন জালে (১-০)।

গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে উঠা ভারতের দলটি ম্যাচের ২৪ মিনিটে সমতায় ফেরে। এক ডিফেন্ডারের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন জাপানী মিডফিল্ডার কাটসুমি ইউসা (১-১)। অবশ্য তার আগেই সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিল চেন্নাই। কিন্তু ১৬ মিনিটে পাওয়া সুযোগটি কাজে লাগাতে পারেননি অধিনায়ক পেড্রো জ্যাভিয়ের।

দশ মিনিট পর আবারো এগিয়ে যায় চেন্নাই। টেরেঙ্গানুর গোলরক্ষক মোহাম্মদ আমিরুল্লাহর ভুলেই গোল হজম করতে হয়। চেন্নাইয়ের ফরোয়ার্ড মাশহুর শেরিফ বল নিয়ন্ত্রণে নিতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। কর্ণার বাঁচাতে গিয়ে গোলরক্ষক মোহাম্মদ আমিরুল্লাহ বল তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হন। বল কেড়ে নিয়ে জালে জড়িয়ে দেন মাশহুর শেরিফ (২-১)।

পিছিয়ে পড়া টেরেঙ্গানু এরপর যেনো জ্বলে উঠে। প্রথম গোলে সাপোর্ট দেয়া মালয় কাবটির ফরোয়ার্ড ব্রুনো ভেঙ্গে চূড়মার করে দেন প্রতিপক্ষের রক্ষণ দেয়াল। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার আগেই স্কোর লাইন ৩-২-এ নিয়ে যান এই ফরোয়ার্ড। ৩৮ মিনিটে দলের দ্বিতীয় ও নিজের প্রথম গোল করেন ব্রুনো। সানজার শাকমেদভের ক্রসে নিচু হেডে বল জালে জড়ান স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড ব্রুনো সুজুকি (২-২)। ইনজুরি টাইমে আবারও গোল উৎসব করে টেরেঙ্গানু। এবার বামপ্রান্ত থেকে বল নিয়ে আগুয়ান গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে জালে জড়িয়ে দেন ব্রুনো (৩-২)।

বিরতির পরপরই এবং ৫২ মিনিটে দু’টি সহজ সুযোগ হাতছাড়া হয় চেন্নাইয়ের। তবে সুযোগ হাতছাড়া করেনি টেরেঙ্গানু। ৬৯ মিনিটে দলের চতুর্থ ও নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ব্রুনো (৪-১)। আবারো টেরেঙ্গানুর ঝলক দেখে চিটাগংবাসী। ম্যাচ শেষ হওয়ার ১০ মিনিট আগে স্কোর লাইন ৫-২-এ নিয়ে যান ব্রুনো।

আর ম্যাচের ৮৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কিছুটা কমিয়ে আনেন পেদ্রো (৫-৩)। তবে দলের পরাজয় ঠেকাতে পারেননি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD