নতুন কোচের সন্ধানে ক্রিকেট বোর্ড

নতুন কোচের সন্ধানে ক্রিকেট বোর্ড

বড় কোনো টুর্নামেন্ট শেষে সব দলেই পারফরমেন্সের মূল্যায়ন হয়। তখন কোন কোন দল ভালো খেলার পুরস্কার হিসেবে কোচিং স্টাফদের নানা রকম পুরস্কারে ভূষিত করে থাকে। আবার খারাপ ফলের জন্য তিরস্কারও করা হয়। তাতে করে দলের কোচের ভাগ্যে জোটে বরণমালা। আবার কারো ভাগ্যে জোটে অপমান আর অপদস্ত হওয়া। এই সকল কারণে কোনো কোনো কোচ বা কোচিং স্টাফ বোনাস পেলেও, কেউ কেউ আবার চাকুরী থেকেই পান অব্যাহতি। তেমনি ধারা হয়েছে সেমিফাইনালের আশায় বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া বাংলাদেশের কোচিং স্টাফদের ক্ষেত্রে। সেমিফাইনালের আশায় ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে খেলতে গেলেও হতাশার মধ্যদিয়ে শেষ হয় বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয় টাইগারদের। উল্টো দশ দলের এই টুর্নামেন্টে অষ্টম হয়ে ফেরে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার দল। আশার সলতেটা জ্বলেনি। উল্টো হতাশা আর ব্যর্থতার কালিতে নিভে গেছে, প্রত্যাশার বাতি। তাতে করে কপাল পোড়ে বাংলাদেশ দলের কোচিং স্টাফের। সবারই বিদায় হয়ে যায় দল থেকে। পাল্টে যায় একটি দলের খোল-নলচে।

এমনই প্রভাব পড়েছে অন্য দলগুলোর উপরও। বাংলাদেশের কোচের পদ শূন্য। চুক্তি শেষের আগেই বিদায় করে দেয়া হয়েছে ইংলিশ কোচ স্টিভ রোডসকে। এরইমধ্যে ভারত কোচ চেয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছে। পাকিস্তানও বসে নেই, তারাও সন্ধানে আছে নতুন কোচের। অবশ্য আফগানিস্তানের কোচ তো আগেই ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন যে, বিশ্বকাপের পর আর দায়িত্বে থাকছেন না তিনি। এদিকে, বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় শ্রীলংকার কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের ভাগ্যও দুলছে পেন্ডুলামের মতো। সবমিলিয়ে বিশ্বকাপের পর উপমহাদেশের সব দেশেই কোচ বদলের হাওয়া। বাংলাদেশ দলের কোচের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে স্টিভ রোডসকে। ব্যাটিং কোচ দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ব্যাটসম্যান নেইল ম্যাকেঞ্জি চুক্তি নবায়ন করেননি। পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশও থাকছেন না।

পাকিস্তান ক্রিকেটও বড় রদবদলের অপেক্ষায়। বিশ্বকাপ পাকিস্তান শেষ করেছে পাঁচ নম্বরে থেকে। ইংল্যান্ডে থাকতেই তাদের দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ মিকি আর্থারকে জানিয়ে দেয়া হয়েছিল, তার চুক্তি আর নবায়ন হচ্ছে না। ফলে বিজ্ঞাপন বের হলে নতুন করে আবেদন করতে হবে তাকে। জানা যায়, পাকিস্তানের সম্ভাব্য নতুন কোচের তালিকায় আছেন জিম্বাবুয়ের সাবেক ক্রিকেটার অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার। এদিকে, রবি শাস্ত্রীর একাধিপত্যের দিন শেষ। বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পর বিরাট কোহলিদের কোচ হিসেবে আর নাও দেখা যেতে পারে তাকে। বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে ভারতের বিদায়ের পরেই নতুন কোচ ও সাপোর্ট স্টাফ খুঁজতে বিজ্ঞাপন দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তবে বর্তমান কোচ রবি শাস্ত্রীসহ ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গার ও বোলিং কোচ ভরত অরুণের ক্ষেত্রে একটা সুবিধা রাখা হয়েছে। তাদের আর নতুন করে আবেদন করতে হবে না।

এদিকে গত চার বছর ধরে যে দলটাকে হাতে করে তৈরি করেছিলেন কোচ সিমন্স, বিশ্বকাপে সেই আফগানিস্তান ভেঙে চুরমার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো দলকে টানা চারবার হারিয়েছিল আফগানিস্তান। বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে হারায় পাকিস্তানকেও। কিন্তু বিশ্বকাপের একটি ম্যাচও জিততে পারেনি তারা। আগেই জানিয়েছিলেন, বিশ্বকাপের পর আফগানিস্তানের কোচের দায়িত্বে আর থাকবেন না সিমন্স।

গত মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পরপরই খবর বের হয় বরখাস্ত হতে পারেন শ্রীলংকার কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। তখন বেঁচে গেলেও বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্সের পর, এবার বরখাস্ত হতে পারেন বাংলাদেশের সাবেক কোচ। তবে হাথুরু নিজে বলেছেন, দায়িত্ব থেকে যেতে পারেন তিনি। হাথুরুসিংহে বললেও লংকান বোর্ড কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বড় পরিবর্তন আনতে চান তারা। সেজন্য হাথুরুসিংহেকে সরে দাঁড়াতে বলবে বোর্ড।

উপমহাদেশের পাঁচ দলের বাইরে কোচ বদল হবে বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ডের। ইংলিশদের হেড কোচ ট্রেভর বেলিস আগেই জানিয়েছেন, আসন্ন অ্যাশেজ সিরিজ শেষেই তিনি দায়িত্ব ছাড়বেন। ইতোমধ্যেই তিনি আইপিএলের দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে নাম লিখিয়েছেন। যাই হোক, এসব দেশের কোচেরা এখন দেশে ফেরার জন্য বাক্স-পেটরা গোছাতে শুরু করেছেন ইতোমধ্যে। নতুন কোচের সন্ধানে সেদেশের ক্রিকেট বোর্ডগুলো। লেখক: ক্রীড়া সম্পাদক, এটিএন বাংলা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD