বিশ্বকাপে বাংলাদেশের কাছে অজেয় নিউজিল্যান্ড

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের কাছে অজেয় নিউজিল্যান্ড

নিউজিল্যান্ডের কাছে ২ উইকেটে হেরে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচেই হোঁচট খেলো বাংলাদেশ। আগে ব্যাট করা বাংলাদেশের ২৪৪ রান, মুশফিকের কল্যাণে জীবন পাওয়া টেলর-উইলিয়ামসনের শতরানের জুটির সুবাদে ১৭ বল বাকি থাকতেই ৮ উইকেট খরচায় পেরিয়ে যায় কিউইরা। ম্যাচসেরা হন নিউজিল্যান্ডের রস টেলর।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপে জয় অধরাই রইল বাংলাদেশের। ৫ বারের মোকাবেলায় কিউইদের কখন‌ও হারাতে পারেনি লাল-সবুজের দল। আশা জাগিয়েও হতাশ হয়ে মাঠ ছাড়তে হয় টাইগার ভক্তদের। অবশ্য এই পরাজয়ে উইকেটের পেছেনে মুশফিকুর রহিমের কয়েকটি ভুলকেই দায়ী করা যায়। পরে মুশফিকের কল্যাণে জীবন পাওয়া রস টেলর ‌ও কেন উইলিয়ামসন জুটি হারিয়ে দেন বাংলাদেশকে।

এমনিতেই ২৪৫ রানের মামুলি টার্গেট। তবু দশ ওভারের মধ্যে দুই ওপেনার গাপ্টিল ও মুনরোকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে আশার আলোই দেখান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। কিন্তু ১২তম ওভারে মুশফিকের কল্যাণে প্রথমে কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন, পরে জীবন উপহার পান রস টেলর।

এই দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানই পরে হতাশা বাড়িয়েছেন সাকিব-মুস্তাফিজদের। ম্যাচটা নাগালের বাইরে নিয়ে যান তারা। তাতে নয় বাউন্ডারিতে ৮২ রানের দারুণ এক ইনিংসে দলের জয় প্রায় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন রস টেলর। আর শেষ দিকে সাইফুদ্দিন-মোসাদ্দেকের সাফল্য, কেবল আফসোসই বাড়ায় বাংলাদেশি সমর্থকের। শ্রীলংকার পর বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ে সেমির স্বপ্নটা এখন বেশ উজ্জ্বল কিউইদের।

এই উইকেটে রান তাড়া করে জেতা সহজ। টস জেতায়, ঢেকে রাখা উইকেট আর বাতাসকে দারুণভাবে কাজে লাগিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে তুলে নেন নিউজিল্যান্ডের বোলার ম্যাট হেনরি আর গ্র্যান্ডহোমরা।

তবে বোলারদের কৃতিত্বের চেয়ে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসার দায়ই বেশি। প্রথম ছয় ব্যাটসম্যানই উইকেট সেট হয়েও নিজের স্কোরকে বড় করতে পারেন নি। সাকিব ক্যারিয়ারের চুয়াল্লিশতম ফিফটির দেখা পেলেও তিনশো’র বেশি স্কোরের আশায় খেলতে নামা বাংলাদেশের ঝুলিতে আড়াইশ’ রানও জমা পড়েনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD