চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল আজ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল আজ

আজ শনিবার রাতে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদের দখল নেবে ইংরেজ ফুটবলপ্রেমীরা। আথলেতিকো স্টেডিয়াম ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানোয় উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা লড়াইয়ে ফেভারিট হিসেবেই মাঠে নামবে লিভারপুল। তবে আশঙ্কা একটাই, ‘অল রেড’দের কোচ জার্গেন ক্লপের ট্রফি ভাগ্য ভালো নয়। সাত বছরে তিনটি মেজর ট্রফির ফাইনালে উঠেও ক্লপের দল শিরোপা ছুঁতে পারেনি। এরমধ্যে রয়েছে দু’বার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল। আর একটি ইউরোপা ফাইনাল‌ও।

টটেনহ্যাম হটস্পারের কোচ মরিসিও পোচেত্তিনো এই মৌসুমে কোনও নতুন খেলোয়াড় কেনেন নি। তা সত্ত্বেও তাঁর দল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠেছে। ক্লপ ও পোচেত্তিনো দু’জনেই আক্রমণাত্মক ফুটবলে বিশ্বাসী। তবে টটেনহ্যামের সাম্প্রতিক ফর্ম খুবই খারাপ। শেষ পাঁচ ম্যাচে টটেনহ্যাম হেরেছে তিনটিতে, ড্র এবং জয় একটি করে। ইপিএলে ৩৮টি ম্যাচে তারা গোল হজম করেছে ৩৯টি। অর্থাৎ ম্যাচ পিছু এক গোলের বেশি। আর ইপিএলে তাদের হারের সংখ্যা ১৩। রানার্স লিভারপুলের তুলনায় ২৬ পয়েন্ট পিছিয়ে থেকে টটেনহ্যাম ইপিএলে পেয়েছে চতুর্থ স্থান।

গতবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে উঠেও লিভারপুলকে হারতে হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদের কাছে। কিন্তু এবার জার্গেন ক্লপ পচা শামুকে পা না কাটতে চান না। গত সাত বছরে কোনও ট্রফি জেতেনি লিভারপুল। টটেনহ্যাম শেষ ট্রফি জিতেছিল ১১ বছর আগে। সেটা ২০০৮ সালে এফএ কাপ। ফলে দুটি দলই ইউরোপ সেরা এই প্রতিযোগিতা জেতার জন্য ক্ষুধার্ত। ২০০৫ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে এসি মিলানের বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে তিন গোলে পিছিয়ে পড়েও বিরতির পর লিভারপুল ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে এনে পেনাল্টি শ্যুট আউটে জিতে পঞ্চমবার ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। তারপর তাদের ট্রফি বলতে ২০০৬ সালে এফএ কাপ এবং ২০১২ সালে লিগ কাপ জয়।

লিভারপুলের আক্রমণভাগের ত্রিফলা সাদিও মানে, রবার্তো ফারমিনো এবং মোহাম্মদ সালাহ গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সম্মিলিতভাবে ২৯টি গোল করেছিলেন। এছাড়া আপফ্রন্টে রিজার্ভ প্লেয়ার ডিভক ওরিগি এবং জেরদান শাকিরি যে কোনও মুহূর্তে মাঠে নেমে খেলার মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন।

সদ্য চোটমুক্ত হয়ে অনুশীলনে নজর কেড়েছেন হ্যারি কেন। এই ইংরেজ স্ট্রাইকারটিকে কি ফাইনালে শুরু থেকে খেলাবেন কোচ পোচেত্তিনো? যদি হ্যারি কেন প্রথম একাদশে না থাকেন তবে আপফ্রন্টে শুরু করবেন গোলের মধ্যে থাকা ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার লুকাস মউরা। এই ছেলেটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমি-ফাইনালে আয়াখসের বিরুদ্ধে একাই হ্যাটট্রিক করে টটেনহ্যামকে ফাইনালে তুলেছিলেন।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD