বার্সেলোনার বিদায়

বার্সেলোনার বিদায়

ইতিহাসের অন্যতম নাটকীয়তার জন্ম দিয়ে, বার্সেলোনাকে বিদায় করে টানা দ্বিতীয়বারের মত উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠলো লিভারপুল। প্রথম লেগে ৩-০ গোলে পিছিয়ে থাকলোও ঘরের মাঠে, ফিরতি লেগে ‘অল রেড’রা জিতেছে ৪-০ গোলে। দুটি করে গোল করেছেন ডিভোক ওরিজি ও উইজন্যাল্ডাম।

অবিস্মরণীয়,ইতিহাসের অন্যতম সেরা ম্যাচ জিতে টানা দ্বিতীয়বারের মত উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে জায়গা করে নেয়ার পর লিভারপুলের উচ্ছ্বাস তো এমনই হওয়ার কথা।

অ্যানফিল্ড যেন এক মায়াপুরীর নাম। লিভারপুলের ঘরের এই মাঠে বিশ্বের নামিদামি সব ক্লাবকেই হোঁচট খেতে হয়েছে। তাই চার মৌসুম পর আবারো ফাইনালের টিকিট পেতে প্রথম লেগেই কাজটা বেশ এগিয়ে রেখেছিলো বার্সেলোনা। ইনজুরির কারণে সালাহ আর ফিরমিনো না থাকায় দুর্বল দল নিয়েই মাঠে নামে লিভারপুল। তারপরও এই লাল সমুদ্রের সামনে যেনো অসহায় মেসি-সুয়ারেজ-কুটিনহোরা। মাত্র ৭ মিনিটেই ঘরের সমর্থকদের আনন্দে মাতিয়ে তোলেন ডিভোক ওরিজি। প্রথমার্ধে আর গোল না পেলেও শাকিরি-মানে-ওরিজিদের শরীরি ভাষাই যেনো বলে দিচ্ছিলো, অসম্ভব কিছু করার সামর্থ্য তাদের আছে।

বিরতির পর মাঠে নেমে চমক দেখান উইজন্যাল্ডাম। ৫৪ আর ৫৬ মিনিটে তারই দুই গোলে বার্সেলোনার ফাইনাল স্বপ্ন ফিকে হয়ে যায়।
এরপর দু’দল সমানে সমান। সেরার লড়াইয়ে নাম লেখাতে চাই কেবল একটি গোল। মেসি আর সুয়ারেজকে হতাশায় ডোবান ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক অ্যালিসন; তবে ইয়ুর্গেন ক্লপের দলকে ইতিহাসের সেরা নাটকে বিজয়ী করেন ওরিজি। অ্যানফিল্ডে এ পর্যন্ত মঞ্চস্থ হয়েছে অনেক নাটক। কিন্তু ৭৯ মিনিটে ওরিজির গোলটি সেরার সেরা হওয়ার দাবি রাখে।

তবে ফাইনালে প্রতিপক্ষের নাম জানতে লিভারপুলকে অপেক্ষায় থাকতে হবে আয়াক্স-টটেনহ্যাম ম্যাচের জন্য।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD