ইনজুরি আক্রান্ত বাংলাদেশ

ইনজুরি আক্রান্ত বাংলাদেশ

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ ক্রিকেট শুরু হতে আর বাকি ৪৯ দিন। বিশ্বকাপ নিয়েই ভাবনা থাকার কথা বাংলাদেশের। মাঠের লড়াই, রণকৌশল, প্রতিপক্ষকে ধরাশায়ী করার ভাবনা কিংবা নিজেদের দুর্বল জায়গা খুঁজে বের করে সেটা নিয়ে কাজ করার কথা। কিন্তু বাংলাদেশ দলে এখন ভাবনার নাম ইনজুরি। চোটের থাবায় জর্জরিত বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড।

বিশ্বকাপ স্কোয়াডে অটোমেটিক চয়েস হিসেবে যাদের থাকার কথা, তাদের প্রায় প্রত্যেকেই চোটের সঙ্গে লড়ছেন। পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় আছেন অনেকে, কেউ কেউ ফিরেছেন মাঠে। সুস্থ হতে অনেকের দীর্ঘদিনের সময় প্রয়োজন।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ: জাতীয় দলের নির্ভরযোগ্য ও অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ কাঁধের চোটে ভুগছেন। শেষ চার মাস টানা খেলার মধ্যে থাকার কারণে বিশ্রামের সুযোগ পাননি। গত সপ্তাহে তাকে ১৫ দিনের বিশ্রাম দিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। তবে নিয়ম মেনে অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ। জানা গেছে, মাহমুদউল্লাহর চোট গ্রেড-৩ টিয়ারের। পুরোপুরি সুস্থ হতে আরো কিছুদিন সময় প্রয়োজন।

মাহমুদউল্লাহর চোট নিয়ে বিসিবি’র চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘রিয়াদ ওর রিহ্যাব প্রোগ্রামের মধ্যেই আছে। আপাতত ও ব্যাটিং প্র্যাকটিস করছে এবং সবধরনের শটও খেলতে পারছে। কোনো অভিযোগ ওর নেই এ ব্যাপারে। আমরা আস্তে আস্তে ওর বোলিং এবং ফিল্ডিং ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করবো। এখন পর্যন্ত ওর অগ্রগতি সন্তোষজনক। ক্যাম্পে যোগ দিতে ওর কোনো সমস্যা হবে না।’

রুবেল হোসেন: সাইড স্ট্রেইনের কারণে চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলতে পারছেন না রুবেল হোসেন। বিশ্রামে আছেন জাতীয় দলের এই পেসার। গত মাসে লিগের ম্যাচ চলাকালে সাইড স্ট্রেইন চোটে পড়েছিলেন তিনি। আশার বিষয়, বিশ্বকাপের আগে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যাবেন ডানহাতি পেসার। ২২ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া ক্যাম্পেও থাকবেন তিনি। চিকিৎসক বলেছেন, ‘রুবেলের রিহ্যাব এই সপ্তাহে শেষ হতে যাচ্ছে। শনিবার থেকে ওর বোলিং প্র্যাকটিস শুরু হবে। আশা করছি পর্যাপ্ত পুনর্বাসন এবং বিশ্রাম পেয়েছে ও।’

মুশফিকুর রহিম: রিবের চোটে ভুগছেন মুশফিকুর রহিম। পাশাপাশি পাঁজরের পুরোনো ব্যথা মাঝে মধ্যেই কষ্ট দিচ্ছে উইকেটরক্ষক এই ব্যাটসম্যানকে। একাধিকবার স্ক্যান করিয়েও খারাপ কিছু পাননি মুশফিক। তার ব্যথা কমার একমাত্র ঔষুধ- বিশ্রাম। সম্প্রতি ব্যাট হাতে অনুশীলন করেছেন মুশফিক। রানিং করছেন নিয়মিত। বিসিবি চিকিৎসক জানান, ‘মুশফিকের কিছুটা রিব ট্রমার ব্যথা ছিল। যদিও খেলাধুলার সঙ্গে এটার তেমন সম্পর্ক নেই, খেলতে কোনো সমস্যা হচ্ছে না। তবে পাজরে কিছুটা ব্যথার কথা বলেছিল, তাই আমরা ওকে এমআরআই স্ক্যান করাই। স্ক্যানে ওর হাড়ে কোনো সমস্যা ধরা পড়েনি। রিপোর্টটা নরমাল এসেছে। আশা করছি ওর খেলতে কোনো সমস্যা হবে না।’

মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন: টেনিস এলবো চোটে ভুগছেন পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। যদিও ব্যথা নিয়ে প্রিমিয়ার লিগে খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন এই ক্রিকেটার। তার বোলিং কিংবা ব্যাটিংয়ে কোনো সমস্যা হচ্ছে না। ফিল্ডিংয়ে ৩০ গজের বাইরে থেকে বল থ্রো করতে সমস্যা হচ্ছে। তাইতো তার দল আবাহনী তাকে ফিল্ডিং করাচ্ছে ৩০ গজ বৃত্তের ভেতরে।

মুস্তাফিজুর রহমান: চোটের থাবায় সবশেষ আক্রান্ত ক্রিকেটার হলেন মুস্তাফিজুর রহমান। চার বছর পর প্রিমিয়ার লিগে ফিরে ভালো বোলিং করেছিলেন বাঁহাতি এই পেসার। বৃহস্পতিবারও তার মাঠে নামার কথা ছিল। কিন্তু আগের দিন অনুশীলনে বাঁ পায়ের গোঁড়ালিতে চোট পান বাঁহাতি পেসার। এই চোটে তাকে দুই সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে। স্বস্তির খবর হলো, চোট ততটা গুরুতর নয়। বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে সংশয়ও নেই। তবে তাকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিচ্ছে না দল। এরই মধ্যে এ পেসারকে দুই সপ্তাহের বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD