নারী টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিং প্রকাশ

নারী টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিং প্রকাশ

নারীদের ওয়ানডে ক্রিকেটে আগেই র‌্যাংকিং চালু ছিলো। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট র‌্যাংকিং ছিল না। তবে নারীদের টি-টোয়েন্টিতেও র‌্যাংকিং চালু করার ব্যাপারে ভাবছিল আইসিসি। অবশেষে শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে নারী টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেই র‌্যাংকিং প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি। ৪৬ দলের এই র‌্যাংকিং তালিকায় শীর্ষস্থানে রয়েছে তিনবার নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জেতা অস্ট্রেলিয়া। আর বাংলাদেশের অবস্থান নবম স্থানে।

গত জুন মাসে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপ থেকেই আইসিসি সদস্য দেশগুলোর সব টি-টোয়েন্টি ম্যাচই পাচ্ছে আন্তর্জাতিক ম্যাচের মর্যাদা। আইসিসির বিশ্বাস, নতুন এই র‌্যাংকিং সিস্টেম নারী ক্রিকেটের প্রতিদ্বন্দ্বিতা আরও বাড়িয়ে দেবে। এক বিবৃতিতে সংস্থার প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন বলেন, ‘নতুন এই র‌্যাংকিং পদ্ধতি নারীদের ক্রিকেটে একটা বাড়তি উদ্দীপনা যোগ করবে, সেইসঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও বাড়বে। এখন সব দলই নিজেদের অবস্থান জেনে যেতে পারবে এবং নিজেদের খেলার উন্নতির দিকে আরও মনোযোগী হবে। এটা ক্রিকেটের প্রসারেও ভূমিকা রাখবে বলে আমরা মনে করি। আমি সব দলকে শুভকামনা জানাচ্ছি।’

র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থানে থাকা অস্ট্রেলিয়ার রেটিং পয়েন্ট ২৮০। ২৭৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে নিউজিল্যান্ড, তিনে থাকা ইংল্যান্ডের রেটিং পয়েন্ট ২৭০। ১৯৩ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশ আছে নবম স্থানে। টি-টোয়েন্টির মতো ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়েও বাংলাদেশের অবস্থান নবম, সেখানেও শীর্ষস্থানে আছে অসি নারীরাই।

৬৮২ পয়েন্ট নিয়ে নারী টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষস্থানে রয়েছেন নিউজিল্যান্ডের সুজি বেটস। বোলারদের র‌্যাংকিংয়ে সবার উপরে আছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার মেগান শাট। বাংলাদেশের রুমানা আহমেদ সপ্তম ও নাহিদা আক্তার নবম স্থানে আছেন। অলরাউন্ডারদের র‌্যাংকিংয়েও আছেন বাংলাদেশের দু’জন- অষ্টম স্থানে রুমানা ও নবমস্থানে সালমা খাতুন। অলরাউন্ডারদের তালিকায় সবার ওপরে আছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্টেফানি টেলর।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD