সানিয়া মির্জার গুটিয়ে যা‌ওয়া

সানিয়া মির্জার গুটিয়ে যা‌ওয়া

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে কয়েক দিনের জন্য নিজেকে গুটিয়ে নিলেন ভারতীয় টেনিস সুন্দরী সানিয়া মির্জা। কারণ অনেক সময় মাঠের উত্তাপ বাইরে‌ও বেশ আলোচনা ছড়ায় সোশ্যাল মিডিয়ার কথকথা। ক্রীড়া অনুরাগীদের সেইসব উত্তপ কথা মাথা ঠান্ডা রেখে সামাল দিতে হয় ক্রীড়াব্যক্তিত্বদের। এই সবের কেন্দ্রে আছেন ভারতের টেনিস সুন্দরী সানিয়া মির্জা। সোশ্যাল মিডিয়ায় মাঝে মধ্যেই নেটিজেনদের টার্গেটই তিনি। যেকোন ইস্যুতে তাঁকে ট্রোলড করতে পিছপা হন না ফলোয়াররা।

উন্মাদনার পারদ চড়িয়েছে আজ দুবাইয়ে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচ। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই হাইভোল্টেজ ম্যাচের উত্তাপ যে এসে পড়বে সেটাই স্বাভাবিক। তাই খেলার ফল যাই হোক না কেন, পাকিস্তানের বউ হওয়ায় সানিয়া মির্জাকে নেটিজেনরা ট্রোল বা সমালোচনায় বিদ্ধ করবেনই। ব্যাপারটা বেশ ভালোই জানা, টেনিস সুন্দরীর। আপাতত মাতৃত্বকালীন ছুটিতে কোর্ট থেকে দূরে আছেন তিনি। কিন্তু ক্রিকেটে ভারত-পাক মহারণ এলেই শোয়েব মালিক জায়া অচিরেই সামিল হয়ে যান সেই যুদ্ধে। তবে এবার নেটিজেনদের সেই সুযোগ দিচ্ছেন না টেনিস সুন্দরী।

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের আগে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে নিজেকে কয়েকদিনের জন্য সরিয়ে নিলেন সানিয়া। অতীতে ভারত-পাক ম্যাচের আগে বা পরে এমন অনেক অনভিপ্রেত ঘটনার সাক্ষি থাকতে হয়েছে তাঁকে। তাই এবার অনুরাগী বা সমালোচকদের আর সেই সুযোগটাই দিতে চান না এই হায়দরাবাদী। অনুরাগীদের গেম স্পিরিটের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে নিজের টুইটারে তিনি লিখলেন, ‘ম্যাচ শুরু হতে ২৪ ঘন্টার চেয়েও কম সময় বাকি। সোশ্যাল মিডিয়ার বোকা লোকজনদের থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার এটাই সঠিক সময়। সমালোচনা বা ট্রোল এইসময় একজন সন্তানসম্ভবাকে আরও দুর্বল করে দিতে পারে। তাই এই সময় একা থাকাই ভাল। তবে মনে রাখবেন এটা শুধুমাত্র একটা ক্রিকেট ম্যাচ।’

স্বভাবতই সানিয়ার টুইটার ঘিরে শোরগোল শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই। এর আগে পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়ে রোষের মুখে পড়তে হয়েছিল সানিয়াকে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD