ব্রাজিলকে বিদায় করে সেমিতে বেলজিয়াম

ব্রাজিলকে বিদায় করে সেমিতে বেলজিয়াম

ব্রাজিলকে কোয়ার্টার ফাইনালেই ছিটকে দিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে বেলজিয়াম। কাজান এরেনায় সেলেসাওদের কাঁদিয়ে ২-১ গোলের জয়ে শেষ চারে রেড ডেভিলরা। তাতে ১৯৮৬ সালের পর আবারও বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠলো বেলজিয়াম। সেখানে তাদের অপেক্ষায় দারুণ ছন্দে থাকা ফ্রান্স। অন্যদিকে, রক্ষণভাগের ব্যর্থতায় এবার কোয়ার্টার ফাইনালেই আটকে গেলো ব্রাজিলের হেক্সা জয়ের স্বপ্ন।

https://www.youtube.com/watch?v=oLoALAqDDhM

বাস্তবতাও যে কখনও কখনও কল্পনার চেয়ে বেশী সুন্দর। ব্রাজিলকে হারিয়ে এবার সেই অনুভূতিটাই পেল সোনালি প্রজন্মের দল বেলজিয়াম। অন্যদিকে টানা চারবার ইউরোপিয়ান কোনো দলের কাছে হেরেই হেক্সা জয়ের মিশন থমকে গেলো ব্রাজিলের।

অথচ খেলার শুরুতেই বেলজিয়ামের ওপর আধিপত্য বিস্তার করে সেলেসাওরা। কিন্তু ভাগ্য বিধাতা যে ব্রাজিলের সঙ্গে নেই তা বোঝা গেলো খেলার আট মিনিটেই। থিয়াগো সিলভার প্রচেষ্টা রুখে দেয় গোলবার। আর অপয়া সময়েই গোল খেয়ে বসে ব্রাজিল। ১৩ মিনিটে ফার্নান্দিহোর আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ে সেলেসাওরা। চলতি বিশ্বকাপে এটি ১১তম আত্মঘাতি গোল।

গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে ওঠে নেইমার-কুতিনহোরা। কিন্তু পাল্টা আক্রমনে ব্যবাধন দ্বিগুণ করে বেলজিয়াম। ৩১ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের দুর্দন্ত শটে সেমিফাইনালের স্বপ্নটা যেন হাতের মুঠোয় পেয়ে যায় বেলজিয়ামের। আর ২-০ গোলে পিছিয়ে চাপে পড়ে তিতের দল।

৭৬ মিনিটে কুতিনহোর দুর্দান্ত পাস থেকে গোল করে ব্রাজিলকে ম্যাচে ফেরার আশা জাগান আগুস্তো। পরের সময়টুকু একের পর এক আক্রমন চালিয়েও বেলজিয়ামের রক্ষণপ্রাচীর ভাঙ্গতে পারেনি নেইমার-কুতিনহোরা।

তাতে পুরো ম্যাচে ভালো খেলেও বিদায় নিতে হয় ব্রাজিলকে। আর একের পর এক বিশ্বকাপ থেকে বিদায় ঘন্টা বাজে ফেভারিটদের। এই জয়ে টানা ২৪ ম্যাচে অপরাজিত থাকা ‘সোনলি প্রজন্মের দল বেলজিয়াম’ ২০০২ সালে ব্রাজিলের কাছে পরজয়ের প্রতিশোধ নিলো।

" class="prev-article">Previous article

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD