রাশিয়া বিশ্বকাপ: ভেন্যুর কথা-৫

রাশিয়া বিশ্বকাপ: ভেন্যুর কথা-৫

‘গ্রেটেস্ট শো অন দ্য আর্থ’ বিশ্বকাপ ফুটবল আসর শুরু হতে আর বেশি দিন বাকী নেই। বিশ্বকাপ ফুটবলকে সামনে রেখে এখন থেকেই আমরা নিয়মিত আপনাদের দিয়ে যাব টুকিটাকি খবরা-খবর। আর এই গ্রেটেস্ট শো শুরু হবে আগামী ১৪ জুন রাশিয়াতে। আগামী ১৫ জুলাই ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে বিশ্বকাপ ফুটবলের। বিশ্বকাপের ৬৪টি ম্যাচ হবে রাশিয়ার ১১টি ভেন্যুর ১২টি স্টেডিয়ামে। রাশিয়া বিশ্বকাপের ভেন্যুগুলোর কথা জানিয়ে যাচ্ছি আমরা নিয়মিত। আজ রয়েছে সামারা অ্যারেনার কথা। জানাচ্ছেন, ফারদিন আল সাজু।

রাশিয়ার রাজধানী মস্কো থেকে ১০৫৭ কিলোমিটার দূরে সামারা স্টেডিয়ামটি অবস্থিত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এই শহরটি রাশিয়ার দ্বিতীয় রাজধানী হিসেবে কাজ করতে। সামারা স্টেডিয়ামের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হলো, এর ৬৫.৫ মিটার উচ্চতা বিশিষ্ট গম্বুজাকৃতির ছাদ। এটি ৩২টি প্যানেলের সমন্বয়ে গঠিত। স্টেডিয়ামটির আসন সংখ্যা হবে ৪৫,০০০। প্রাথমিকভাবে স্টেডিয়ামটি সামারা এবং ভোলগা নদীর মিলনস্থলে একটি উপদ্বীপের উপর নির্মাণের পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু প্রয়োজনীয় অবকাঠামোর অভাবে পরবর্তীতে স্থান পরিবর্তন করা হয়। স্টেডিয়ামটি সামারা ছাড়াও সামারা অ্যারেনা এবং কসমস অ্যারেনা নামেও পরিচিত।

৩১৫ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে নির্মিত এই স্টেডিয়ামটি পুরো তৈরি হতে আর‌ও অনেক সময় বাকী। এদিকে, রাশিয়ার উপ প্রধানমন্ত্রী আর্কাডি ভোরকোভিচ জানিয়েছেন, ২৫ এপ্রিলের মধ্যে মাঠ প্রস্তুত হয়ে যাবে। রাশিয়ার সেকেন্ড টায়ারের ম্যাচ দিয়ে স্টেডিয়ামটি উদ্বোধন করার মাত্র তিনদিন আগে এই সামারা স্টেডিয়ামটি তৈরি হবে।


মোট ছয়টি বিশ্বকাপের খেলা হবে। তারমধ্যে চারটি গ্রুপ পর্বের ম্যাচ। একটি শেষ ১৬-র এবং একটি কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচ।
সামারায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD