রুদ্ধশ্বাস জয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

রুদ্ধশ্বাস জয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

ওমান থেকে এস এম আশরাফ

টানা দুইবার পিছিয়ে থেকে‌ও শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে এশিয়ান গেমস হকির বাছাইপর্বের ফাইনালে উঠলো বাংলাদেশ। ‌ওমানের মাসকাটে সুলতান কাবুজ স্টেডিয়ামে লঙ্কানদের ৩-২ গোলে পরাজিত করে বাংলাদেশ। এই নিয়ে টানা সাত সাক্ষাতে লঙ্কানদের বিপক্ষে অপরাজিত রইলো রাসেল মাহমুদ জিমির দল। আগামী ১৭ মার্চ টুর্নামেন্টের ফাইনালে স্বাগতিক ওমানের মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ।

 

 

অবশ্য কষ্টার্জিত জয়ের আনন্দটা মিলন হোসেন গ্যালারিতে থাকা শত ভক্তের উল্লাসধ্বনি আর চিৎকার-চেচামেচিতে ভাগাভাগি করে নিলেন। ২-২ গোলে টাই থাকা ম্যাচকে খেলা শেষের ঠিক দুই মিনিট আগে ভাসালেন জয়ের আনন্দে। পাশে থাকা লঙ্কান দর্শকরা ততক্ষণে মেনে নেন শেষ হাসি আসলেই হাসার মালিক বর্তমান চ্যাম্পিয়নরাই। তাই গ্যালারি ছাড়ার আগে পরাজয়ের বেদনায় তারা মূহ্যমান। হারে কাতর।

 

 

তবে খেলার শুরুতে বোঝার কোনো উপায় ছিলো না যে, আগের ৬ ম্যাচেই বাংলাদেশের কাছে হারা লঙ্কানরা এতোটা প্রতিরোধ গড়ে তুলবে। বল দখলে রাখা আর খেলার নিয়ন্ত্রনও কথা বলছিলো জিমিদের পক্ষে। কিন্ত ৩৪ মিনিটে সাধুসিংহের গোলে উল্টো লিড শ্রীলঙ্কার। ০-১ গোলে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। এরপরের সময়টা হ্নদস্পন্দনের পরীক্ষা শুধুই বাংলাদেশীদের। সেই স্নায়ুর কাপন থামে ৩৮ মিনিটে রোমান সরকারের গোলে। ম্যাচে ১-১ এ সমতা ফেরায় বাংলাদেশ।

 

 

একদিকে শ্রীলঙ্কার জমাট রক্ষণ। অন্যদিকে দুর্বল রেফারিং। কাপন ধরাচ্ছিলো মাহবুব হারুন শিবিরে। সেই কাপন বেড়ে যায় ৫১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে বান্দারা হেরাথের দল লিড ২-১ করলে। নাগিন ড্যান্সে বাংলাদেশ শিবিরে আগুন ধরিয়ে লঙ্কানরা ভেবেই নিয়েছিলো জিততে চলেছে তারা। কিন্ত সেই আগুন যে রোমানের স্টিক থামিয়ে দেবে কিংবা একেবারেই ঠান্ডা করে দেবে তা হয়তো জানা ছিলোনা লঙ্কানদের। ম্যাচে ২-২ গোলে সমতা আনেন রোমান।

 

 

এরপর ঘড়ির কাটা এগুচ্ছিলো আর শ্বাস যেনো বন্ধ হচ্ছিলো গ্যালারিতে বাংলাদেশের খেলা দেখতে আসা প্রবাসী সমর্থকদের। এমন দোদুল্যমান থাকা ম্যাচে শেষ পর্যন্ত বিজয়ের কেতন উড়লো লাল সবুজ পতাকার। খেলা শেষের দুই মিনিট আগে মিলন হোসেন গোল করে বাংলাদেশকে নিয়ে যান ফাইনালে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD