এবার ব্যাঙ্গালুরুর কাছে আবাহনীর হার

এবার ব্যাঙ্গালুরুর কাছে আবাহনীর হার

http://https://www.youtube.com/watch?v=NI1R7YlxlE8

ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে‌ও পারলো না আবাহনী। নিউ রেডিয়েন্টের মতো ব্যাঙ্গালুরু এফসি বিপক্ষেও পা‌ওয়া সুযোগগুলোর সঠিক ব্যবহার করতে না পারায় পরাজয় নিয়েই দেশে ফেরার টিকিট কাটতে হয় সাইফুল বারী টিটুর দলের। এএফসি কাপের ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে শ্রী কান্তেরাভা স্টেডিয়ামে ব্যাঙ্গালুরুর কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয় বাংলাদেশর দল আবাহনী।

নিজেদের মাঠ এএফসি কাপে গত নয় ম্যাচে আট জয় ও এক ড্রয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলতে নামা ব্যাঙ্গালুরু শুরু থেকে বলের নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে ছিল। কিন্তু পোস্টে শট নেওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে ছিল গত এএফসি কাপে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ভারতের দলটিকে ২-০ গোলে হারানো আবাহনী।

খেলার ১৪ মিনিটে ৪০ গজেরও বেশি দূর থেকে নেওয়া মামুন মিয়ার জোরালো শট অল্পের জন্য ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়। দুই মিনিট পর মামুনের ক্রসে জাপানি মিডফিল্ডার সেইয়া কোজিমার হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে আবাহনীর হতাশা বাড়ে।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে ওয়ালী ফয়সালের ক্রসে আবাহনীর নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এমেকা ডারলিংটনের হেড গোলের ঠিকানা খুঁজে পায়নি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে আবাহনীর রক্ষণে চাপ দিতে থাকে ব্যাঙ্গালুরু। ৪৯ মিনিটে ড্যানিয়েল লালহিলিমপুইয়ার শট ফেরান গোলরক্ষক শহিদুল ইসলাম সোহেল। ৫৩ মিনিটে ভিক্টর পেরেসের প্রচেষ্টা‌ও সফল হয়নি।

এলিসন উডোকার দুটি হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে আবাহনীর হতাশা আরও বাড়ে। ৫৮ মিনিটে ওয়ালীর ক্রসে এবং ৬৩ মিনিটে রুবেল মিয়ার বাড়ানো বলে হেড করেছিলেন নাইজেরিয়া এই ডিফেন্ডার।

৭২ মিনিটের সুযোগ কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় ব্যাঙ্গালুরু। ড্যানিয়েল সেগোভিয়ার হেড করে বাড়ানো বল ডান পায়ের শটে জালে জড়িয়ে দেন ২০ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড লালহিলিমপুইয়া। শেষ পর্যন্ত এ গোলেই এএফসি কাপে শুভসূচনা করে ব্যাঙ্গালুরু। এর আগে, মালদ্বীপের দল নিউ রেডিয়েন্টের কাছে নিজেদের প্রথম ম্যাচে‌ও ১-০ ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশের জায়ান্ট আবাহনী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD