বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ডিসেম্বরে

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ডিসেম্বরে

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ বছরের শুরু থেকে পিছিয়ে যেতে যেতে একদম শেষ মাসে গিয়ে ঠেকেছে। আর পেছানোর সুযোগ ছিল না বলেই হয়তো ডিসেম্বরে গিয়ে থেমেছে। নতুন তারিখ অনুযায়ী ১৮ থেকে ৩১ ডিসেম্বরে হবে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল।

দেশের ফুটবলের সামগ্রিক পশ্চাৎপদতার ধারা অব্যাহাত রাখছে কাজী সালাউদ্দিনের কমিটি। মাঠের খেলায় তো বটেই, সাংগঠনিকভাবেও যেকোনো খেলা পিছিয়ে নেওয়ার সহজাত গুণ বাফুফেকে অন্যদের চেয়ে আলাদা করে দেয়। আজ শনিবার নির্বাহী কমিটির জরুরি সভায় এই আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তটি সিনিয়র সহভাপতি সালাম মুর্শেদী জানিয়েছেন এভাবে, ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের আগের সূচি অনুযায়ী আমরা বিদেশি দলগুলোকে এক করতে পারছি না। তাছাড়া জাতীয় দলের বর্তমান অবস্থা, আমাদের প্রস্তুতি এবং বিদেশি দলগুলোর এই সময়ে অপরাগতা সব মিলিয়ে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ পিছিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এটি শুরু হবে আগামী ১৮ ডিসেম্বর।’

বাফুফের ‘তামাশার’ ফুটবল ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এটি ছিল মার্চে। কিছুদিন আগে তা পিছিয়ে নেওয়া হয়েছিল আগামী এপ্রিলের তৃতীয় সপ্তাহে। সেটা পাঠিয়ে দিয়েছে ডিসেম্বরে। আসলে যেকোনো ইস্যুতে বাফুফের প্রথম সূচিতে থাকতেই পারছেনা। তবে সালাম মুর্শেদীর কথাগুলো ব্যাখ্যা করলে টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেওয়ার বড় একটা কারণ হলো জাতীয় দলের সংকটাপন্ন অবস্থা। তবে ফুটবল ফেডারেশনে যখন অর্থসংকট নিত্য ব্যাপার তখন স্পন্সরের অভাবের সন্দেহটাও উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

সিনিয়র সহসভাপতি সালাম মুর্শেদী অবশ্য বেশ জোর দিয়েই স্পন্সরের নিশ্চয়তা দিয়েছেন, ‘স্পন্সর কোনো সমস্যা নয়। তাছাড়া ফিফার অনুদানও পেয়েছি, টাকার অভাব নেই। জাতীয় দলের প্রস্তুতি এ মুহূর্তে ভালো নয়। আগামী জানুয়ারিতে সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ আছে, তার আগে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ হলে সাফের প্রস্তুতিটাও ভালো হবে।’

তাহলে এটাই আপাতত বিশ্বাস করতে হবে, জাতীয় দলের পারফরম্যান্সের আশায় ডিসেম্বরে নিয়ে গেছে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ। লিগ শেষে খেলোয়াড়দের পায়ে ফুটবল থাকবে, সেই জোরেই জাতীয় দল পারফরম করবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD