চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন বাংলাদেশর

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন বাংলাদেশর

মুমিনুল হকের সেঞ্চুরি আর মুশফিকুর রহিমের ফিফটিতে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন শেষে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চালকের আসনে বাংলাদেশ। দিন শেষে তাদের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৩৭৪ রান। ১৭৫ রানে অপরাজিত আছেন মুমিনুল হক। এই ম্যাচ দিয়েই টেস্টে অভিষেক হয়েছে সানজামুল ইসলামের।

দুই বলের ঝড়েই দুর্দান্ত চলতে থাকা বাংলাদেশের ইনিংসটা শেষ পর্যন্ত হয়ে থাকলো আক্ষেপের। ৮ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিসের হতাশায় পুড়লেন মুশফিকুর রহিম। আর প্রথম বলেই এমন বোল্ড আউট হয়ে লিটন কুমার দাস সুযোগ দিলেন শ্রীলঙ্কাকে খেলায় ফেরার।

তা না হলে মুমিনুল আর মুশফিকুর রহিম যেভাবে শাসন করছিলেন লঙ্কানদের, তাতে একদিনে টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের স্কোরটা পেছনেই পড়ে যেতে পারত। শেষ পর্যন্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান যোগ করে ছাড়িয়ে যায় ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে করা ৩৮৮ রানকে।

অবশ্য এই রানের ভিত্তি গড়ে দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল এবং ইমরুল কায়েস। প্রথম ঘন্টাতেই রান উঠলো ৬৭। ৪৬ বলে ক্যারিয়ারের ২৫ নম্বর অর্ধশতক হাকালেন টাইগার ওপেনার।

৫২ রানে তার বিদায়ের পর মুমিনুলকে নিয়ে ৪৮ রান যোগ করে লাঞ্চের ঠিক আগের বলেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন ইমরুল কায়েস। দলের রান তখন ১২০।
এরপরের ৫৬ ওভার লঙ্কান বোলারদের নাভি:শ্বাস তুললেন মুমিনুল আর মুশফিকুর রহিম। বাংলাদেশের পক্ষে দ্রুততম সেঞ্চুরি তুলে মুমিনুল যোগ করেন ক্যারিয়ারে পঞ্চম শতক।

আর ১৯ নম্বর হাফসেঞ্চুরির পথে মুশফিকুর রহিম প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে পেলেন ১ হাজার রান। এ দুজনের তৃতীয় উইকেটে বাংলাদেশেল পক্ষে সর্বোচ্চ রানের জুটিতে যোগ হলো ২৩৬ রান।

৯২ রানে মুশফিক ফিরলেও, মুমিুনলে ব্যাট স্পর্শ করেছে আরো এক রেকর্ড। ২৬ টেস্টেই দু হাজার রানের মাইফলখে পৌছে তিনি পেছনে ফেললেন শচিন টেন্ডুলকার, সৌরভ গাঞ্ঙ্গুলী, অ্যাডাম গিলক্রিস্টদের মতো কিংবদন্তীদের।

এবার রিয়াদকে নিয়ে নিজের সর্বোচ্চ ১৮১ রানকে ছাড়িয়ে যাওয়ার মিশন কিং অফ কক্সবাজার মুমিনুল হকের সামনে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD