‌ওভালে ইংল্যান্ডের ঐতিহাসিক জয়

‌ওভালে ইংল্যান্ডের ঐতিহাসিক জয়

হ্যাটট্রিক করলেন মঈন আলি । গড়র হলো ইতিহাস। আর তাতে ওভাল টেস্ট ২৩৯ রানের বিশাল ব্যবধানে জিতে নিলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড। সোমবার শেষদিনে তুলে নেওয়া এই জয়ে চার ম্যাচের এই সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২-১ এ এগিয়ে গেলো জো রুটের দল। ইংলিশদের সামনে থাকলো সিরিজ জয়ের সুযোগ। তবে প্রোটিয়াদের সামনে থাকছে সিরিজ ড্র করার সুযোগও। শেষ টেস্টে জিতলেই সিরিজ ড্র।
অফ স্পিনার মঈন আগেই ক্রিস মরিসের উইকেট নিয়েছিলেন। নিজের ১৫তম ওভারে রুখে দাঁড়ানো ডিন এলগার তার হ্যাটট্রিকের প্রথম শিকার। অষ্টম সেঞ্চুরি করা এলগার আগের দিন থেকে দলকে টেনে নিয়ে যাচ্ছিলেন প্রোটিয়াদের। অফ স্টাম্পের বাইরে ঝুলিয়ে দেওয়া ডেলিভারিটাকে ড্রাইভ করতে গিয়ে ফার্স্ট স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন এলগার। এই ক্যাচ নেওয়া বেন স্টোকসেরর হাতেই জমেছে পরের বলটি। কাগিসো রাবাদাকে শিকার করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনার সামনে দাঁড়ান মঈন। পরের ওভারের জন্য অপেক্ষা।
এমন পরিস্থিতিতে অনেক হ্যাটট্রিক হয় না। কিন্তু রিভিউ সিস্টেমের কারণে বঞ্চিত হতে হয় না মঈনকে। নাটকীয় এক পরিস্থিতিতে হ্যাটট্রিকটা তুলে নেন তিনি। মঈনের ১৬তম ওভারের প্রথম বল। জোরের ওপর দেওয়া ডেলিভারিটি মিডল-লেগ স্টাম্প বরাবর ছিল। মরনে মর্কেল খেলতে পারলেন না। সোজা তার প্যাডে আঘাত করলো। ইংল্যান্ডের প্রবল আপিল। কিন্তু আম্পায়ার জোয়েল উইলসন আউট দিলেন না। ইংলিশরা রিভিউ নিল। রিপ্লেতে দেখা গেল বল লেগ স্টাম্পে আঘাত করছে। সিদ্ধান্ত পাল্টায়। মঈনের হ্যাটট্রিকে তাকে ঘিরে স্বাগতিকদের উৎসব শুরু হয়। এর সাথেই শেষ খেলা। ২৫২ রানে শেষ প্রোটিয়াদের দ্বিতীয় ইনিংস।
ঐতিহাসিক ওভালে এটি শততম টেস্ট। কিন্তু এর আগে ওভাল কখনো হ্যাটট্রিক দেখেনি। মঈন সেটা দেখালেন। স্টুয়ার্ট ব্রডের টেস্টে দুবার হ্যাটট্রিকের কীর্তি আছে। ১৯৩৮ সালের পর এই প্রথম কোনো ইংলিশ স্পিনার হ্যাটট্রিক করলেন। সেই বছর দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে হ্যাটট্রিক করেছিলেন টম গডার্ড।
৪৯১ রানের লক্ষ্য ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার। ৪ উইকেটে ১১৭ রান নিয়ে এই দিন শুরু তাদের। সামনে কঠিন পথ। জিততে আরো ৩৭৫ রান দরকার। হার এড়াতে টিকে থাকতে হবে ৩ সেশন। কিন্তু এদিন ৪০ ওভারের আগেই সব শেষ তাদের। এলগার জেদি ১৩৬ রানের ইনিংস খেলেছেন। ৩২ রান বাভুমার। এরপর মরিস ২৪ এবং মাহরাজ অপরাজিত ২৪ রানের ইনিংস খেলেন। ইংল্যােন্ডর ৩৫৩ রানের জবাবে প্রথম ইনিংসে দিক্ষণ আফ্রিকা ১৭৫ রানে অল আউট হয়েছিল। দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশরা ৮ উইকেটে ৩১৩ রানে ইংনিংস ঘোষণা করে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD