উইম্বলডনের রেকর্ড চ্যাম্পিয়ন ফেদেরার

উইম্বলডনের রেকর্ড চ্যাম্পিয়ন ফেদেরার

সেন্টার কোর্টে ফেদেরারের ভিন্টেজ শো। মারিন সিলিচকে সরাসরি সেটে উড়িয়ে রেকর্ড অষ্টমবারের জন্য উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন রজার ফেদেরার। ফেডেক্সের জয় ৬-৩, ৬-১ ও ৬-৪ গেমে। আর, এই জয়ের সঙ্গে সঙ্গেই ঘাসের কোর্টে প্রবাদ হয়ে গেলেন সুইস টেনিস কিংবদন্তী। আটবারের উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন, ১৯টি গ্রান্ডস্লাম। তিনি রজার ফেদেরার। গ্রাস কোর্টের রাজা। আবারও বুঝিয়ে দিলেন বয়সটা শুধুই একটা নম্বর। ইচ্ছে আর একাগ্রতা থাকলে বিশ্ব জয় করা যায় যে কোনও সময়।

এবার শুরু থেকেই বোঝা গিয়েছিল গ্রাস কোর্টের রাজা আবার ফিরতে চলেছেন চ্যাম্পিয়নের লক্ষ্যে। যেমন ভাবা তেমনই কাজ। মারিন সিলিচকে ৬-৩, ৬-১ ও ৬-৪-এ হারিয়ে বাজিমাত রজারের। এক ঘণ্টা ৪১ মিনিট স্থায়ী ফাইনাল শেষে উচ্ছ্বসিত ফেদেরার বলেন, “আমার পরিবার ও দলের জন্য এটা চমৎকার এক মুহূর্ত। এটা আমাদের জন্য। ধন্যবাদ উইম্বলডন, ধন্যবাদ সুইজারল্যান্ড।”
দুই জোড়া যমজ সন্তানের বাবা ফেদেরার। তাদের উদ্দেশ করে কিছুটা মজা করে বলেন, “আমার মনে হয় ছোটো যমজ ভাবছে এটা দারুণ এক দৃশ্য ও সুন্দর এক খেলার মাঠ। আশা করি একদিন তারা বুঝবে।”
‌ওপেন যুগে সবচেয়ে বেশি বয়সী (৩৫ বছর ১১ মাস ৮ দিন) পুরুষ খেলোয়াড় হিসেবে উইম্বলডন জিতলেন ফেদেরার।

রবিবার ফেদেরারকে দেখার জন্যই মুখিয়ে ছিল টেনিস বিশ্ব। উইম্বলডনের ইতিহাসে তিনিই সব থেকে বেশি বয়সী চ্যাম্পিয়ন। তাঁর ৩৫ বছরে এই সাফল্য ছাপিয়ে গেল ৩২ বছরে উইম্বলডন জয়ী আর্থার অ্যাশকে। ১৯৭৬ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত এই রেকর্ড ছিল তাঁরই দখলে। যা আজ রবিবার ভাঙলেন রজার ফেদেরার। হেরে কান্নায় ভেঙে পড়েন চিলিচ। সপ্তম বাছাই এই ক্রোয়েশিয়ানের ঝুলিতে রয়েছে ২০১৪র ইউএস ওপেন। কিন্তু হেরে টাওয়েলে মুখ ঢেকে হাউহাউ করে কেঁদে ফেলেন তিনি। টুর্নামেন্টে একটাও সেট ড্র না করে চ্যাম্পিয়ন হলেন ফেদেরার। এর আগে ২০০৩, ২০০৪, ২০০৫, ২০০৬, ২০০৭, ২০০৯ ও ২০১২ সালে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতেছিলেন তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD