পর্দা নামলো শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতার

পর্দা নামলো শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতার

সমাপনী বক্তব্য ও বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে পর্দা নামলো শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস প্রতেযোগিতা ২০১৬ এর। বসুন্ধরা গ্রুপ ও বসুন্ধরা সিমেন্টের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং বাংলাদেশ টেবিল টেনিস ফেডারেশনের সহযোগিতায় ‘সকল শিশুর জন্য খেলাধুলা’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে গেল ১৮ অক্টোবর দেশের ৪১ টি স্কুলের মোট ২৬০ জন খেলোয়াড়ের অংশগ্রহণে শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ ইনডোর স্টেডিয়ামে পর্দা উঠেছিল প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই টুর্নামেন্টের।
শুক্রবার বিকেলে শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ ইনডোর স্টেডিয়াম সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ডঃ শ্রী বীরেন শিকদার এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে একই মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়ের উপস্থিত থাকার কথা ছিল। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা ডঃ সাজ্জাদ হায়দার, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের ডিরেক্টর-ইন-চার্জ ইসমত জামিল আখন্দ এবং বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের ব্যক্তিগত সহকারি মাকসুদুর রহমান।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বীরেন শিকদার বলেন, ‘বিশ্ব দরবারে দেশের সুনাম ও গৌরব অর্জনে ক্রীড়া একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুসঙ্গ হিসেবে কাজ করে। এর মাধ্যমে একটি জাতি তার নিজস্ব ভাবমূর্তিও তৈরি করতে পারে যা আমরা ইতোমধ্যেই পেরেছি। ক্রীড়ায় বাংলাদেশ আজ অনন্য এক উচ্চতায় অবস্থান করছে। শেখ রাসেল টেবিল টেনিস আয়োজনের মধ্য দিয়ে তা আরও গতিশীল হলো। এই টুর্নামেন্ট থেকে যারা সেরা হিসেবে নিজেদের প্রমাণ করতে সামর্থ্য হবে তারাই ভবিষ্যতে বড় ক্রীড়াবিদ হিসেবে গড়ে উঠবে এবং দেশের মুখ উজ্জ্বল করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।’
ডঃ সাজ্জাদ হায়দার বলেন, ‘পৃথিবীতে এমন সরকার প্রধান খুব কমই দেখা যায় যিনি মাঠে গিয়ে খেলা দেখে নিজ দেশের ক্রীড়াবিদদের অনুপ্রাণিত করে থাকেন। আমাদের প্রধানমন্ত্রী তেমনই একজন। জাতীয় উন্নয়নের পাশাপাশি ক্রীড়ার উন্নয়নে তার সুনজরের জন্যই আজ আমাদের ক্রীড়াঙ্গন বিশ্ব দরবারে দাপট দেখিয়ে চলেছে। ক্রীড়ায় প্রধানমন্ত্রীর এমন প্রয়াসে উদ্বুদ্ধ হয়ে আর ক্রীড়াঙ্গনকে আরও দাপুটে করে তুলতে বসুন্ধরা গ্রুপ শেখ রাসেলের ৫৩তম জন্মদিনে ‘শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস’ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। খেলাধুলার মধ্য দিয়েই আমরা শেখ রাসেলকে এদেশের মানুষের কাছে অমর করে রাখতে চাই।’
আমন্ত্রিত অতিথিদের সমাপনী বক্তব্য শেষে টুর্নামেন্টে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD