ক্রিকেট, শিশু এবং আচরণবিধি

ক্রিকেট, শিশু এবং আচরণবিধি

আইসিসি অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে সোমবার বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল এবং এক দল সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির উপর একটি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখানে শুধু ক্রিকেট খেলায় ‘আচরণবিধি’ নয় বরং আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের শিশুদের সাথে ভাল ও সম্মানজনক ব্যবহার করার বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
অনূর্ধ্ব-১৯ বাংলাদেশ দলের সাথে এই আলোচনাটি হয়, ক্রিকেটারদের সাথে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ক্রিকেট অনুশীলনের পর। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সহযোগিতায়, আইসিসি ও ইউনিসেফের মধ্যকার ‘ভালর জন্য ক্রিকেট’ বা ‘ক্রিকেট ফর গুড’ কার্যক্রমের অংশ হিসাবে এই আয়োজন করা হয়।
“আইসিসি এবং বিসিবি উভয়ের কাছেই আমরা কৃতজ্ঞ শিশুদের এই সুযোগটি দেয়ার জন্য। বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় খেলার মাধ্যমে পাওয়া এ ধরণের সহযোগিতা এবং পদক্ষেপ আমাদেরকে শিশুদের ভাল ও সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য আরো বেশী কিছু করার প্রেরণা দিচ্ছে”- ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি এডওয়ার্ড বেগবেদার বলেন।
“আমি খুবই আশাবাদী যে, আইসিসি অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের সাথে শিশুদের এই অনুশীলন এবং ‘আচরণবিধি’-এর উপর তাদের আলোচনা, ঐ শিশুদেরকে ক্রিকেটের সব ভালদিক সম্পর্কে উদ্বুদ্ধ করবে যেখানে কঠোর পরিশ্রম, অধ্যবসায়, একাগ্রতা এবং নিয়মানুবর্তিতা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ”-বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেন।
২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে, আইসিসি এবং ইউনিসেফ আগামী পাঁচ বছর বিশ্বের সবচেয়ে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য একসাথে কাজ করা ঘোষণা দেয়। প্রতি বছর বিশ্বের প্রায় ৫৯ লক্ষ শিশু বিভিন্ন প্রতিরোধযোগ্য কারণে তাদের পাঁচ বছর বয়স হওয়ার আগেই মারা যায়; বিশ্বের প্রায় ৫০ কোটি শিশু চরম দারিদ্রের মধ্যে বাস করছে; এবং প্রায় ৫৯ কোটি স্কুলে যাওয়ার উপযোগী শিশু শিক্ষার সুযোগ পাচ্ছে না।
আইসিসি এবং ইউনিসেফের মধ্যকার ‘ভালোর জন্য ক্রিকেট’ উদ্যোগের মাধ্যমে এইসব বিষয়গুলো সম্পর্কে সবার সচেতনতা তৈরী এবং ক্রিকেট অনুরাগীদের এইসব শিশুদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অনুপ্রানিত করা হবে। এই উদ্যোগের অংশ হিসাবেই আজকের এই বিশেষ অনুশীলনের আয়োজন করা হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD