আক্ষেপ ভোলাতে চান মিরাজ

আক্ষেপ ভোলাতে চান মিরাজ

দ্বিতীয়বারের মত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিবেন মেহেদি হাসান মিরাজ। আগামী বছরের শুরুতেই বাংলাদেশে বসছে যুব বিশ্বকাপের ১১তম আসর। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বুধবার ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।
বিসিবি’র দেওয়া স্কোয়াড পেয়ে সন্তুষ্ট অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ। আলাপকালে মিরাজ বলেন,‘আমরা এই দলটা অনেকদিন ধরে খেলে আসছি। প্রত্যেকেই প্রত্যেককে ভালোভাবে বুঝি। নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়াটাও বেশ ভালো। সবার শক্তির দিক, দূর্বলতা; এসব সম্পর্কে আমাদের বেশ ভালো ধারণা আছে।’
মিরাজসহ পাঁচজন গত বিশ্বকাপেও খেলেছেন। নাজমুল হোসেন শান্ত, জয়রাজ শেখ ঈমন, জাকির হাসান ও সাঈদ সরকার সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে খেলেছেন।
যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স তলানিতে। সর্বোচ্চ সাফল্য ২০০৬ সালে পঞ্চম হওয়া। বেশ কয়েকবার প্লেট চ্যাম্পিয়ন হলেও তার উপরে আর উঠে আসা সম্ভব হয়নি। ঘরের মাঠে নিজেদের চিরচেনা কন্ডিশনে সেই আপেক্ষ ঘোচাতে চান মিরাজ। প্রতিবাভান এ ক্রিকেটারের ভাষ্য,‘আগে অনেক খারাপ পারফরম্যান্স হয়েছে এটা সত্য। কিন্তু আমাদের এই দলটা গত এক বছর ধরে কঠোর পরিশ্রম করে আসছে। আমরা দক্ষিণ আফ্রিকাকে আমাদের মাটিতে হারিয়েছি, ওদের মাটিতেও হারিয়েছি। শ্রীলঙ্কাকে আমরা ওদের দেশে গিয়ে হারিয়েছি। সব মিলিয়ে আমাদের প্রস্তুতি বেশ ভালো। আশা করছি এবার দারুণ কিছু হবে। আমাদের প্রত্যেকে ভালো কিছু করার জন্যে মুখিয়ে আছি।’
দেশের মাটিতে খেলা হবে বলে বাড়তি অনুপ্রাণিত ১৯ বছর বয়সি এ অলরাউন্ডার। চিরচেনা উইকেট, কন্ডিশন আর পরিচিত আউটফিল্ড সবই বাংলাদেশের অনুকূলে কথা বলবে বলে বিশ্বাস তার। মিরাজের ভাষায়,‘আমাদের খেলা হবে আমাদের চেনা মাঠে, কন্ডিশনে। এটা বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাবে। একই সঙ্গে আমাদের আত্মবিশ্বাসও দ্বিগুণ বেড়ে যাবে। আমরা প্রস্তুত আছি ভালো কিছু করার। বাকিটা মাঠের পারফরম্যান্স।’
আগামী ২২ জানুয়ারি ১১তম যুব বিশ্বকাপের পর্দা উঠবে। বাংলাদেশসহ অংশ নিচ্ছে ১৬টি দেশ। সাতটি ভেন্যুতে মোট ৪৮টি ম্যাচ হবে। স্বাগতিক বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২৭ জানুয়ারি। এরপর ৩১ জানুয়ারি স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ও ২ ফেব্রুয়ারি নামিবীয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে মেহেদি হাসান মিরাজের দল।
১৫ সদেস্যের স্কোয়াড : মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল হোসেন শান্ত, জয়রাজ শেখ ঈমন, পিনাক ঘোষ, মোহাম্মদ সাইফ হাসান, জাকির হাসান, সাইফ উদ্দিন, শফিউল হায়েত, সাঈদ সরকার, মেহেদী হাসান, মোহাম্মদ আব্দুল হালিম, সঞ্জিত সাহা, সালেহ আহমেদ শাওন গাজী, আরিফুল ইসলাম জনি, জাকের আলী অনিক।
স্ট্যান্ডবাই ক্রিকেটার : মুনিম শাহরিয়ার, মোসাব্বেক হোসেন সান, রিফাত প্রাধান ও কাজী অনিক ইসলাম।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD