আট জেলার খেলোয়াড় নিয়ে জাতীয় তায়কোয়নদো

আট জেলার খেলোয়াড় নিয়ে জাতীয় তায়কোয়নদো

বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক তায়কোয়নদো ফেডারেশনের আয়োজনে ও দেশের স্বনামধন্য ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস, অটোমোবাইস ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স প্রস্তুকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের পৃষ্ঠপোষকতায় মঙ্গলবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ‘ওয়ালটন সপ্তম জাতীয় তায়কোয়নদো প্রতিযোগিতা-২০১৫’। যা চলবে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত।
এ বিষয়ে সোমবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের ফার্স্ট সিনিয়র এডিশনাল ডিরেক্টর এফ.এম. ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক তায়কোয়নদো ফেডারেশনের মহাসচিব মো. সোয়ালমান শিকদার, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য চঞ্চল মাহমুদ ও বিচারক কমিটির চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন আনুসহ অন্যান্যরা।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবারের প্রতিযোগিতায় ৮টি জেলার মোট ১৫০ জন খেলোয়াড় ১৮টি ওজন শ্রেণিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। মোট ৫টি বিভাগে প্রতিদ্বন্দ্বিতা অনুষ্ঠিত হবে। বিভাগগুলো হল- শিশু বিভাগ, মহিলা বিভাগ জুনিয়র, মহিলা বিভাগ সিনিয়র, পুরুষ বিভাগ জুনিয়র ও পুরুষ বিভাগ সিনিয়র।
সংবাদ সম্মেলনে এফ.এম. ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘ওয়ালটন গ্রুপ সব ধরনের খেলাধুলার সঙ্গেই সম্পৃক্ত হওয়ার চেষ্টা করে। এর আগেও আমরা তায়কোয়নদো ফেডারেশনের সঙ্গে কাজ করেছি। কাজ করেছি জুডো, কারাতের সঙ্গেও। আশা করছি ক্রিকেট ফুটবলের মতো এই ছোট ছোট ফেডারশনগুলোও এগিয়ে যাবে। এই ধরনের খেলাধুলার মাধ্যমেও দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে। তারা দেশের জন্য সম্মান বয়ে নিয়ে আসবে। আমি ওয়ালটন সপ্তম জাতীয় তায়কোয়নদো প্রতিযোগিতার সাফল্য কামনা করছি।’
শিশু বিভাগের ওজন শ্রেণিগুলো হলো- অনূর্ধ্ব ৩০ কোজি, অনূর্ধ্ব-৪০ কেজি ও অনূর্ধ্ব-৪৫ কেজি। মহিলা জুনিয়র বিভাগের ওজন শ্রেণিগুলো হলো- অনূর্ধ্ব ৪৫ কোজি, ৫০-৬০ কেজি ও ৭০-৭৫ কেজি। পুরুষ জুনিয়র বিভাগের ওজন শ্রেণিগুলো হলো- অনূর্ধ্ব ৪৫ কোজি, অনূর্ধ্ব-৫০ কেজি ও অনূর্ধ্ব-৭৫ কেজি। সিনিয়র পুরুষ বিভাগের ওজন শ্রেণিগুলো হলো- অনূর্ধ্ব-৫০ কোজি, অনূর্ধ্ব-৫৫ কেজি, অনূর্ধ্ব-৬০ কেজি, ৬১-৭০ কেজি, ৭১-৮০ কেজি ও ৯০-৯৫ কেজি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD