ঢাকাThursday , 29 February 2024
  1. অলিম্পিক এসোসিয়েশন
  2. অ্যাথলেটিক
  3. আইপিএল
  4. আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আরচারি
  7. এশিয়া কাপ
  8. এশিয়ান গেমস
  9. এসএ গেমস
  10. কমন ওয়েলথ গেমস
  11. কাবাডি
  12. কুস্তি
  13. ক্রিকেট
  14. টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ
  15. টেনিস

বড় ভাইয়ের পথ ধরে ছোট ভাইও এবার জাতীয় দলে

Sahab Uddin
February 29, 2024 6:23 pm
Link Copied!

মার্চের ফিফা উইন্ডোতে বাংলাদেশ ফুটবল দল ফিলিস্তিনের বিপক্ষে দুই লেগের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচ খেলবে। সেই ম্যাচ সামনে রেখে ২৪ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। হাভিয়ের ক্যাবরেরার এই দলে নতুন মুখ তিনজন।

আগামী ২২ ও ২৬ মার্চ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে দুই লেগের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। এই দুই ম্যাচের জন্য ঘোষিত স্কোয়াডে প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন তিন খেলোয়াড়। তারা হলেন- কাজেম শাহ, রাব্বি হোসেন ও তাজউদ্দীন।

এদের মধ্যে তাজউদ্দীনের আছে আলাদা এক পরিচয়। তিনি জাতীয় ফুটবল দলের নিয়মিত মুখ সাদ উদ্দিনের সহোদর ভাই। বয়সভিত্তিক ফুটবলে নজর কেড়ে জাতীয় দলে থিতু হওয়া সাদ উদ্দিনের মতোই তার ছোটভাই তাজ উদ্দিনও বিভিন্ন পজিশনে খেলে অভ্যস্ত।

দেশের ঘরোয়া ফুটবলে সহোদর ভাইদের খেলার উদাহরণ অনেক থাকলেও জাতীয় দলে একই সঙ্গে দুই ভাইয়ের খেলার দৃষ্টান্ত খুব বেশি নেই। বাংলাদেশ ফুটবল দলের অভিষেক ম্যাচেই আছে সহোদর দুই ভাইয়ের খেলার ঘটনা। ১৯৭৩ সালে মালয়েশিয়ার মারদেকা কাপে বাংলাদেশের আক্রমণভাগের দায়িত্ব সামলানো শরিফুজ্জামান ও নওশেরুজ্জান আপন ভাই ছিলেন।

ঘরোয়া ফুটবলে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল আবাহনী ও মোহামেডানকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন মনোয়ার হোসেন নান্নু ও শামসুল আলম মঞ্জুর কথা। সম্পর্কে এই দুজন আপন ভাই। জাতীয় দলেও একসঙ্গে খেলেছেন তারা। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আরিফ খান জয়ের এক ভাইল ডাক পেয়েছিলেন জাতীয় দলে। তবে একসঙ্গে খেলার সৌভাগ্য হয়নি তাদের।

জাতীয় দলে এক সঙ্গে দুই সহোদর ভাইয়ের খেলার শেষ ঘটনাটির সঙ্গে জড়িয়ে দেশের ফুটবলের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার জাহিদ হাসান এমিলির নাম। তিনি ও তার ভাই শাকিল জাতীয় দলের জার্সিতে একসঙ্গে ১০টির মতো ম্যাচে খেলেছেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, Bangladesherkhela.com এর দায়ভার নেবে না।