ঢাকাWednesday , 24 January 2024
  1. অলিম্পিক এসোসিয়েশন
  2. অ্যাথলেটিক
  3. আইপিএল
  4. আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আরচারি
  7. এশিয়া কাপ
  8. এশিয়ান গেমস
  9. এসএ গেমস
  10. কমন ওয়েলথ গেমস
  11. কাবাডি
  12. কুস্তি
  13. ক্রিকেট
  14. টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ
  15. টেনিস

একপেশে ফাইনালে বিগ ব্যাশ চ্যাম্পিয়ন ব্রিসবেন

Sahab Uddin
January 24, 2024 10:13 pm
Link Copied!

অস্ট্রেলিয়ার জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট বিগ ব্যাশ লিগের (বিবিএল) ত্রয়োদশ আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ব্রিসবেন হিট। অনেকটা একপেশে ফাইনাল ম্যাচে তারা সিডনি সিক্সার্সকে ৫৪ রানে হারিয়েছে। যা বিবিএলে তাদের দ্বিতীয় শিরোপা এবং প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়ার এগার বছর পর একই স্বাদ পেল ব্রিসবেন। এদিন ব্যাট হাতে জস ব্রাউন এবং বোলিংয়ে স্পেনসার জনসন চ্যাম্পিয়দের নেতৃত্ব দিয়েছে। অন্যদিকে, ১৬৭ লক্ষ্য তাড়ায় ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ সিডনি গুটিয়ে যায় মাত্র ১১২ রানে।

সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডের ৪৩ হাজারেরও অধিক দর্শকের সামনে আজ (বুধবার) বিবিএল ফাইনালটা ঠিক জমেনি। মূলত এতে স্বাগতিক সিডনিরই দায়টা বেশি। ২০২০-২১ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন দলটি চতুর্থ বিবিএল শিরোপা জয়ের আশায় মাঠে নামলেও, আশানুরুপ পারফর্ম করতে পারেনি। ফাইনালে টস জিতে শুরুতে ফিল্ডিং নিয়েছিল সিডনি।

আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ব্রিসবেনের। দলীয় পাঁচ রানেই তারা প্রথম ওভারে উইকেট হারায়। জিমি পিয়ারসন মাত্র ৪ রানে ফেরার পর মাটি কামড়ে জুটি বাধেন আগের ম্যাচের রেকর্ড সেঞ্চুরিয়ান জস ব্রাউন ও নাথান ম্যাকসউইনি। দুজন গড়েন ৮৫ রানের জুটি। যদিও ম্যাকসউইনির ব্যাটিং ছিল ধীরস্থির, নইলে আরও বড় পুঁজি পেতে পারত ব্রিসবেন। দলের এই অধিনায়ক ৩২ বলে ৩৩ রান করেন। ফিফটি করা ব্রাউন বিদায় নেন পরপর। তার আগে ৩৮ বলে ৫টি চার ও ৩ ছক্কায় ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ৫৩ রান করেন।

এছাড়া শেষদিকে ম্যাট রেনশ ও ম্যাক্স ব্রায়ান্ট মিলে আরেকটি পঞ্চাশোর্ধ (৫৭) জুটি গড়েন। তবে তাদের বিদায়ের পাশাপাশি শেষ ২০ রানে ৫ উইকেট হারায় ব্রিসবেন। ফলে তারা আশানুরূপ বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি। রেনশ ৪০ (২২ বল) এবং ব্রায়ান্ট ২৯ রান (১৯ বল) করেন। সিডনির হয়ে সর্বোচ্চ চার উইকেট নেন পেসার শন অ্যাবট।

ফাইনালের চাপ এমনিতেই ছিল স্বাগতিক সিডনির মাথায়, দর্শকদেরও উৎসবে শামিল করার তাড়না ছিল। কিন্তু উল্টো শুরু থেকেই তারা ব্যাকফুটে চলে যায়। তৃতীয় বলে ড্যানিয়েল হিউজ ফেরার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় দলটি। সিডনির হয়ে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন অধিনায়ক মইসেস হেনরিকস। এছাড়া জস ফিলিপে ২৩, শন অ্যাবট ও জ্যাক অ্যাডএয়ার্ডস সমান ১৬ রান করে করেন। ব্যাটিং ব্যর্থতায় শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে কোনো আশা-ই জাগাতে পারল না স্বাগতিকরা।

ব্রিসবেনের জয়ের নায়ক স্পেনসার জনসন চার ওভারে মাত্র ২৬ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট। জাভিয়ার বার্টলেট ও মিচেল সুয়েপসন ধরেন দুটি করে শিকার। আর এর মাধ্যমে ২০১২-১৩ মৌসুমে পার্থ স্কর্চার্সকে হারানোর পর দ্বিতীয় শিরোপা জিতল ব্রিসবেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, Bangladesherkhela.com এর দায়ভার নেবে না।