ঢাকাWednesday , 5 April 2023
  1. world cup cricket t20
  2. অলিম্পিক এসোসিয়েশন
  3. অ্যাথলেটিক
  4. আইপিএল
  5. আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরচারি
  8. এশিয়া কাপ
  9. এশিয়ান গেমস
  10. এসএ গেমস
  11. কমন ওয়েলথ গেমস
  12. কাবাডি
  13. কুস্তি
  14. ক্রিকেট
  15. টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

আয়ারল্যান্ডকে বিপদে রেখে দ্বিতীয় দিন শেষ করল বাংলাদেশ

Sahab Uddin
April 5, 2023 12:09 pm
Link Copied!

আয়ারল্যান্ডের প্রথম ইনিংসের ২১৪ রানের জবাবে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস থামে ৩৬৯ রানে। ১৫৫ রানে পিছিয়ে থেকে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই ৪ উইকেট হারিয়ে মহাবিপদে পড়ে আইরিশরা। দ্বিতীয় দিন শেষে আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৪ উইকেটে ২৭ রান। বাংলাদেশ থেকে এখনও তারা পিছিয়ে ১২৮ রানে।

যেখানে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৩ ওভার বোলিং করেছিলেন সাকিব, আজ বুধবার (৫ এপ্রিল) আয়ারল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই বোলিং করতে আসেন সাকিব আল হাসান। আর বোলিংয়ে এসেই নিজের চমক দেখালেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। প্রথম ওভারেই তুলে নেন উইকেট।

এরপর তাইজুলও ওই একই কারিশমা দেখালেন। তার স্পিন ঘূর্ণিতে নাজেহাল হয় আইরিশ ব্যাটাররা। ইনিংসের শুরুতে ১৩ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে আয়ারল্যান্ড। তবে দিনশেষে আর উইকেট পড়েনি তাদের। মোড় ও টেক্টরের ১৪ রানের ছোট্ট জুটি গড়েছেন।

এদিকে, বুধবার শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ৩৬৯ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসান ১৩ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করলেও ক্যারিয়ারের দশম টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন মুশফিকুর রহিম। আয়ারল্যান্ডের পক্ষে ৬ উইকেট শিকার করেছেন অ্যান্ডি ম্যাকব্রাইন। প্রথম ইনিংস শেষে বাংলাদেশের লিড ১৫৫ রান।

দিনের শুরুতেই মুমিনুল হকের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। স্কোরকার্ডে তখন জমা পড়েছে মোটে ৪০ রান। মার্ক আডায়ারের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ১৭ রান করেন টাইগারদের সাবেক টেস্ট অধিনায়ক।

বিপর্যয়ে পড়া বাংলাদেশকে টেনে তুলতে প্রতিআক্রমণের পথে হাঁটে সাকিব-মুশফিক। ১৫৯ রানের জুটিতে টাইগাররা ম্যাচে ফেরে। এদিন মাত্র ৪৫ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করেন সাকিব। অর্ধশতক হাঁকানোর পথে হাঁকান ৯টি চার।

২০১৭ সালে টেস্টে সবশেষ সেঞ্চুরি হাঁকানো সাকিব এদিন এগিয়ে যাচ্ছিলেন টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু সেঞ্চুরি থেকে ১৩ রান দূরে থাকতে ম্যাকব্রাইনের স্টাম্পের অনেক বাইরের বল তাড়া করে উইকেট বিসর্জন দিয়ে আসেন তিনি। ৯৪ বলে ১৪ চারে ৮৭ রান করেন টাইগার অধিনায়ক। সাকিব যখন আউট হন টাইগারদের রান তখন ১৯৯। লিড পেতে তখনও দরকার ১৬ রান। লিটন দাস এসে যোগ দেন মুশফিকের সঙ্গে।

শুরু থেকেই লিটন সাবলীল ছন্দে ব্যাট করতে থাকেন। দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছিলেন অর্ধশতকের দিকে। কিন্তু তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে হোয়াইটের বলে উইকেট বিসর্জন দিয়ে এসেছেন তিনি। ৪১ বলে ৮ চারে ৪৩ রান করে টাকারের হাতে ধরা পড়েন তিনি।

ব্যাট হাতে আক্রমণাত্মক ছিলেন মুশফিকও। ৬৯ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করা মুশফিক ১৩৫ বলে পূর্ণ করেছেন সেঞ্চুরি। এটি তার দ্বিতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি। ১২৬ রান করে মুশফিকও ফিরেছেন ম্যাকব্রাইনের হাতেই। ১৬৬ বলে খেলা নান্দনিক ইনিংসটিতে ১৫টি চারের সঙ্গে ছিল ১টি ছক্কাও।

দলের ষষ্ঠ ব্যাটার হিসেবে মুশফিক যখন আউট হয় বাংলাদেশের রান ৩৩১। তখনো বড় লিডের স্বপ্নই দেখছে টাইগাররা। কিন্তু বাধ সাধেন ম্যাকব্রাইন। দ্বিতীয় আইরিশ বোলার হিসেবে টেস্টে এক ইনিংসে পাঁচ উইকেট শিকারের কৃতিত্ব দেখান তিনি। স্পিনারদের মধ্যে অবশ্য তিনিই প্রথম। এই স্পেলে তিনি একে একে ফেরান তাইজুল, শরিফুল ও এবাদতকে।

একদিকে উইকেট পড়তে থাকলেও মেহেদী হাসান মিরাজ দলের সংগ্রহ বাড়িয়ে নিতে থাকেন। এরই মধ্যে তুলে নেন টেস্ট ক্যারিয়ারের চতুর্থ অর্ধশতক। শেষ ব্যাটার হিসেবে বেন হোয়াইটের বলে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হওয়ার আগে ৬ চার ও ২ ছয়ে খেলেন ৫৫ রানের দারুণ ইনিংস।

আয়ারল্যান্ডের পক্ষে ম্যাকব্রাইন ২৮ ওভার বল করে ২ মেডেনসহ ৬ উইকেট পান ১১৮ রানের বিনিময়ে। বাকি চারটি উইকেট সমানভাবে ভাগ করে নিয়েছেন আডায়ার ও হোয়াইট।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, Bangladesherkhela.com এর দায়ভার নেবে না।