বিকাল ৫:১৭, সোমবার, ২৯শে মে, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট

গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্সের সঙ্গে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ জাতীয় মহিলা ফুটবল দলের গ্রুপ লাইফ ও স্বাস্থ্য বীমা সেবা চুক্তি হয়েছে। মতিঝিলের বাফুফে ভবনে সম্পন্ন হওয়া এই চুক্তির আওতায়, বাংলাদেশ অ-১৬ জাতীয় মহিলা ফুটবল দলের সকল খেলোয়াড়, ম্যানেজার ও প্রশিকদের ২০১৭ হতে আগামী ২০২০ সাল পর্যন্ত গ্র“প লাইফ ও স্বাস্থ্য বীমা সুবিধা দেবে ‘গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স লিমিটেড’।
চুক্তি স্বার অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন, সহ-সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ মহি ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ উপস্থিত ছিলেন। গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্সে পে তপন চৌধুরী, গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্সের ডাইরেক্টর সৈয়দ আখতার হাসান উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

মৌসুমের শুরুতেই দুটি এল ক্যাসিকো

আগামী মৌসুমের শুরুতেই রিয়াল মাদ্রিদের বিপে দুটি এল ক্যাসিকোতে মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা। আর এর ফলে নতুন বার্সা কোচ আর্নেস্টো ভালভারদের সামনে মৌসুমের শুরু থেকেই কঠিন চ্যালেঞ্জ অপো করছে।
আগামী ২৯ জুলাই প্রাক মৌসুম প্রস্তুতির অংশ হিসেবে মিয়ামিতে প্রথম ক্যাসিকোতে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী মুখোমুখি হবে। কিন্তু শনিবার কাতালান জায়ান্টরা কোপা ডেল রে শিরোপা জেতায় স্প্যানিশ সুপারকোপাতেও লা লিগার চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের বিপে খেলবে বার্সেলোনা। শনিবার আলাভেসের বিপে কোপা ডেল রে’র ফাইনালে ৩-১ গোলে জয়ের মাধ্যমে কোচ হিসেবে লুইস এনরিকের সাথে সম্পর্ক শেষ হয়েছে বার্সার। তিন বছরের মেয়াদে লীগ শিরোপাটা হাতছাড়া হলেও টানা তৃতীয়বারের মত কোপা ডেল রে’র শিরোপা উপহার দিয়েছেন এনরিকে।
সম্প্রতি লীগ ম্যাচ ছাড়া দুই দলের লড়াই খুব একটা দেখা যায়নি। এর আগে ২০১০-১১ মৌসুমে পেপ গার্দিওলা ও হোসে মরিনহোর আমলে দুই স্প্যানিশ জায়ান্ট ১৭ দিনের ব্যবধানে চারবার মুখোমুখি হয়েছিল। সর্বশেষ সুপারকোপায় ২০১২-১৩ মৌসুমে মরিনহোর শেষ মেয়াদে বার্সা ও মাদ্রিদ একে অপরের মোকাবেলা করেছিল। লস ব্ল্যাঙ্কোসদের হয়ে ঐ আসরে এ্যাওয়ে গোলের সুবাদে সর্বশেষ ট্রফি জিতেছিলেন পর্তুগীজ এই বস।

জার্মানিতে বুরুশিয়ান হলুদ উৎসব

অবশেষে জার্মান কাপ জিতেছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। এবারের ফাইনালে আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টকে হারিয়েছে বুন্ডেসলিগায় তৃতীয় হওয়া দলটি। অবশ্য এরআগে টানা তিন মৌসুমে ফাইনালে উঠে শিরোপা হাতছাড়া করেছিলো দলটি।
শনিবার বার্লিনে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ২-১ গোলে পরাজিত করে তারা আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টকে। গত তিন আসরের ফাইনালে দুইবার বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ও একবার ভলফসবুর্গের কাছে হেরেছিল বুরুশিয়া ডর্টমুন্ড।
ম্যাচের ৮ মিনিটে উসমানে ডোম্বেলের গোলে এগিয়ে যায় ডর্টমুন্ড। ডি-বক্সের ডান দিক থেকে বল জালে পাঠান ফরাসি এই ফরোয়ার্ড। প্রথমার্ধেই ক্রোয়েশিয়ার উইঙ্গার আন্তে রেবিচের গোলে সমতায় ফিরে ফ্রাঙ্কফুর্ট।
৬৭ মিনিটে স্পট কিক থেকে আউবামেয়াং গোল করলে দারুণ এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ডর্টমুন্ড। চলতি মৌসুমে এই নিয়ে ফরাসি বংশোদ্ভূত গ্যাবনের এই খেলোয়াড়ের গোল হলো ৪০টি। আর শেষ বাঁশি বাজার সঙ্গে সঙ্গে হলুদের বন্যায় মেতে ওঠে বার্লিন স্টেডিয়াম।

এফএ কাপে আর্সেনালের রেকর্ড

প্রিমিয়ার লিগ না জেতার হতাশা কাটালো আর্সেনাল এফএ কাপ জিতে। শনিবার এফএ কাপের ফাইনালে তারা ২-১ গোলে হারায় চেলসিকে। এই নিয়ে এফএ কাপে সর্বোচ্চ ১৩টি শিরোপা জিতল আর্সেনাল। টুর্নামেন্টে ১২ বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।
ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে, খেলার ৫ মিনিটেই আর্সেনালকে এগিয়ে দেন লিগে দলের সর্বোচ্চ গোলদাতা আলেক্সিস সানচেস।
সানচেসের চিপ ডিফেন্ডার ডেভিড লুইস হেডে বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ফিরতি বল বুক দিয়ে নামিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে বাঁ-পায়ের টোকায় গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন চিলির এই স্ট্রাইকার। ১৯ মিনিটে আর্সেনালের বাধা হয়ে দাঁড়ায় পোস্ট। ড্যানি ওয়েলবেকের হেড পোস্টে লাগার পর ফিরতি বল র‌্যামজির বুকে লেগে আবারও পোস্টে বাধা পায়।
৬৮ মিনিটে ডাইভ দেওয়ার অপরাধে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে ভিক্টর মোজেস মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হয় চেলসি। তাতেও দমে যায়নি অল ব্ল-রা। ৭৬ মিনিটে উইলিয়ানের পাস পেয়ে ডান পায়ের ভলিতে বল জালে পাঠান কস্টা। ম্যাচে ফেরে ১-১ গোলে সমতা।
তবে চেলসির সমতায় ফেরার স্বস্তি স্থায়ী হয়নি। তিন মিনিট পরই র‌্যামজির গোলে ফের এগিয়ে যায় আর্সেনাল। বাঁ-দিকে বাইলাইনের কাছ থেকে অলিভিয়ে জিরুদের ক্রসে হেডে বল জালে পাঠান ওয়েলসের এই মিডফিল্ডার।
আর্সেনালের এই সাফল্য তীব্র সমালোচনার মুখে থাকা আর্সেন ওয়েঙ্গারের জন্য এক বিরাট স্বস্তির। এই নিয়ে রেকর্ড সাতবার এফএ কাপের শিরোপা জিতলেন ফরাসি এই কোচ।

স্প্যানিশ লিগ কাপ চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা

স্প্যানিশ কাপের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে শনিবার রাতে ৩-১ গোলে ডেপোর্টিভো লা করুনাকে হারিয়েছে বার্সেলোনা। এতে করে শিরোপা জিতেই লুইস এনরিকেকে বিদায় জানালেন মেসি-নেইমাররা।
এই নিয়ে মোট ২৯ বার লিগ কাপ শিরোপা জিতল বার্সা। তাতে বার্সেলোনার কোচ হিসেবে তিন বছরের ক্যারিয়ারে প্রতিবারই স্প্যানিশ কাপের শিরোপা জয়ের কীর্তি গড়লেন এনরিকে।
ভিসেন্তে কালদেরনে ম্যাচের শুরুতেই ধাক্কা খায় বার্সেলোনা। চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন হাভিয়ের মাসচেরানো। ২৭তম মিনিটে পিছিয়ে পড়তে বসেছিল তারা। পাল্টা আক্রমণে স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড ইবাই গোমেসের নীচু শট গোলরক্ষক ইয়াসপার সিলেসেনকে পরাস্ত করলেও পোস্টে লাগলে বেঁচে যায় কাতালান ক্লাবটি।
এর তিন মিনিট পরই দলকে এগিয়ে দেন মেসি। নেইমারের সঙ্গে একবার বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে বাঁকানো শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫৪টি গোল করলেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার মেসি।
বার্সেলোনার এগিয়ে যাওয়ার আনন্দ অবশ্য দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। ৩৩ মিনিটে অসাধারণ এক গোলে ম্যাচে সমতা ফেরান থিও হার্নান্দেজ। ২৫ গজ দূর থেকে ফরাসি এই ডিফেন্ডারের বিদ্যুৎ গতির বাঁকানো শট জালে জড়ায়। বিরতির আগে তিন মিনিট ব্যবধানে আরও দ্বুার বল জালে পাঠিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বার্সেলোনা। দুটি গোলেই গুরুত্বপূর্ণ অবদান দলের সেরা খেলোয়াড় মেসির।
৪৫ মিনিটে তার দারুণ পাস ধরে আন্দ্রে গোমেস আড়াআড়ি বল বাড়ান। তা থেকে অনায়াসে দলকে ফের এগিয়ে দেন নেইমার। এই নিয়ে কোপা দেল রেতে টানা তিন ফাইনালে গোল করলেন ব্রাজিলের এই তারকা ফরোয়ার্ড। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এ মৌসুমে তার গোল ২০টি।
ব্যবধান বাড়ানো গোলটির মূল কৃতিত্ব মেসির। বাঁ-দিক থেকে দুজনের মধ্যে দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে আরেকজনকে কাটিয়ে সামনে ফাঁকায় দাঁড়ানো আলকাসেরকে পাস দেন তিনি। সহজেই গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন স্পেনের এই ফরোয়ার্ড।
দ্বিতীয়ার্ধে শুরুতে আবারও মেসি জাদু। তবে এ যাত্রায় গোলমুখে বাড়ানো তার দারুণ পাস পেয়ে আলকাসেরের প্রচেষ্টা রুখে দেন গোলরক্ষক। ৭০ মিনিটে জটলার মধ্যে বল পেয়ে রদ্রিগোর শট ঠেকিয়ে দেন বার্সেলোনা গোলরক্ষক।
২০১৪ সালে দায়িত্ব নেওয়া এনরিকে প্রথম মৌসুমে বার্সেলোনাকে ‘ট্রেবল’ জেতানোর পরের মৌসুমে ঘরোয়া ফুটবলের ডাবল জেতান। সব মিলিয়ে নয়টি শিরোপা জিতে বার্সেলোনাকে বিদায় জানালেন স্পেনের এই কোচ লুইস এনরিকে।

মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে শেষ চারে রহমতগঞ্জ

শাহারান হাওলাদারের জোড়া গোলে শক্তিশালী মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে ৩-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ফেডারেশন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ড সোসাইটি।
বিজয়ী দলের হয়ে শাহরান দুটি এবং ঘানাইয়ান স্ট্রাইকার ইসমাইল বাঙ্গুরা এক গোল করেছেন। ইনজুরি টাইমে মুক্তিযোদ্ধার হয়ে একমাত্র গোলটি পরিশোধ করেছেন বদলী খেলোয়াড় মতিউর রহমান।
আজ শনিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত কোয়ার্টার ফাইনালের শেষ ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধাকে পাড়া মহল্লার দল বানিয়ে দাপুটে জয় নিশ্চিত করে কামাল বাবুর শিষ্যরা। এ জয়ের ফলে সেমি-ফাইনালে চট্টগ্রাম আবাহনীকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে জায়ান্ট কিলার রহমতগঞ্জ।
শুরু থেকেই নিয়ন্ত্রন প্রতিষ্ঠিত করা রহমতগঞ্জ ২৪ মিনিটে দারুন এক গোলের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয় । গোল পোস্টের সামনে জটলা থেকে ডি বক্সের ভেতর বল পেয়ে যায় দলের নাইজেরিয়ান ডিফেন্ডার মানডে ওসাগি। তার নেয়া প্লেসিং শটের বলটি ঝাপিয়ে পড়ে ফিরিয়ে দেন মুক্তিযোদ্ধার গোল রক্ষক উত্তম বরুয়া। ফিরতি বলে আবারো শট নিয়েছিলেন তিনি। তবে সেটিও গোল রক্ষকের হাতে লেগে দ্বিতীয় বারে লেগে দিক পরিবর্তন করে। এর আগেই অবশ্য অফসাইটে পড়ে যান তিনি।
ম্যাচের ৩২ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে রাশেদুল ইসলাম শুভর ক্রসের বল ডি বক্সের মধ্যে পেয়ে যান সতীর্থ মিডফিল্ডার শাহরান হাওলাদার। বল পেয়েই কৌনিক শটে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন তিনি (১-০)।
৩ মিনিট পর ফের ডি বক্সে বল পান রহমতগঞ্জের নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার ইসমাইল বাঙ্গুরা। তার নেয়া প্লেসিং শট ফের ঠেকিয়ে দেন মুক্তিযোদ্ধার গোল রক্ষক। ওয়ান টু ওয়ান পজিশনে ফিরতি বলে তিনি ফের হেড নেয়ার চেস্টা করলেও মাথার সঙ্গে বলের সংযোগ ঘটাতে ব্যর্থ হন।
দ্বিতীয়ার্ধে এক মাত্র গোলে পিছিয়ে পড়া মুক্তিযোদ্ধা গোলটি পরিশোধ করার চেস্টা করলেও উল্টো আরো দুটি গোল হজম করতে বাধ্য হয়েছে। ম্যাচের ৬১ মিনিটে শাহরান হাওলাদারের পাসের বলে জোড়ালো শটে গোল করেন বাঙ্গুরা। ফলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় রহমতগঞ্জ।
৬৭ মিনিটে শাহারান হাওলাদার ফের গোল করলে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় পুরানো ঢাকার দল।
নিরাপদ দুরত্বে পৌছে যাওয়ায় এরপর অবশ্য কিছুটা হাল্কা মেজাজে খেলতে শুরু করে রহমতগঞ্জ। এই সুযোগটি কাজে লাগানোর চেস্টা করে মুক্তিযোদ্ধা। তবে কয়েকটি নিস্ফলা আকমনেই সেটি সিমাবদ্ধ ছিল। ম্যাচের ইনজুরি টাইমে অবশ্য সান্তনার একটি গোল পরিশোধ করেছে মাসুদ পারভেজের শিষ্যরা। বদলী খেলোয়াড় মতিউর রহমান সতীর্থদের কাছ থেকে একেবারে ডি বক্সেই বল পেয়ে যান। যেটিকে জোড়ালো শটে সঠিক লক্ষ্যে পৌছাতে সক্ষম হন মতিউর।

ব্রাদার্সকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ঢাকা আবাহনী

ক্রীড়া প্রতিবেদক :

ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের সেমিফাইনালে উঠেছে দুই আবাহনী। বৃহস্পতিবার শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে টাইব্রেকারে হারিয়ে সেমিফাইনালে ওঠে চট্টগ্রাম আবাহনী। আর আজ শুক্রবার তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট পেয়েছে ঢাকা আবাহনীও। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুক্রবার তারা ব্রাদার্সকে হারিয়েছে ২-১ গোলে।

আগামীকাল শনিবার চতুর্থ ও শেষ কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হবে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র।

শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে ব্রাদার্সের জালের নাগাল পেতে বেশ সময় নেয় আবাহনী লিমিটেড। ম্যাচের ৪২ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষার পর গোলমুখ খুলতে সক্ষম হয় তারা। এ সময় আবাহনীর নাবীব নেওয়াজ জীবন গোল করে এগিয়ে নেন দলকে। তার গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় আকাশী-নীল জার্সিধারীরা।

বিরতির পর ৭৯ মিনিটে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় ঢাকা আবাহনী। এ সময় রুবেল মিয়া গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। অবশ্য ম্যাচের যোগ করা সময়ে একটি গোল শোধ করে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। সিয়ো জুনাপিওর করা গোলটি কেবল ব্যবধান কমিয়েছে মাত্র, হার এড়ানোর জন্য যথেষ্ট ছিল না।

এনরিকের বিদায়ী ম্যাচে বার্সার শিরোপা?

ক্রীড়া ডেস্ক :

কোপা ডেল রের ফাইনালে আজ রাতে আলাভেসের মুখোমুখি হচ্ছে বার্সেলোনা। বার্সেলোনার কোচ হিসেবে এটাই লুইস এনরিকের শেষ ম্যাচ। কোপার শিরোপা জিতে কোচের বিদায়টা রাঙিয়ে দিতে পারেন মেসি-নেইমাররা?

২০১৪-১৫ মৌসুমে দায়িত্ব নিয়েই বার্সাকে ট্রেবল জিতিয়েছিলেন এনরিক। পরের মৌসুমে জিতিয়েছিলেন ঘরোয়া ডাবল। তবে এই মৌসুমে লিগ বা চ্যাম্পিয়নস লিগ, কিছুই জেতা হয়নি বার্সার। আজ কোপা ডেল রে জিতলে অন্তত একটা বড় শিরোপা ঘরে উঠবে।

এনরিকের কাছে শিরোপাটা তাই বিশেষ কিছু, ‘এই শিরোপাটা হবে স্পেশাল। এই ক্লাবে যে সময়টা কেটেছে তাতে আমি খুশি, সময়টা আমি উপভোগও করেছি।’

ম্যাচটা অবশ্য বার্সার জন্য সহজ হবে না। মৌসুমের শুরুর দিকে লিগে ন্যু ক্যাম্পে এই আলাভেসের কাছেই ২-১ গোলে হেরেছিল মেসিবিহীন বার্সা। আলাভেসের কোচ মুরিসিও পেল্লেগ্রিনো বলেছেন, ‘আমরা সহজ প্রতিপক্ষ নই। আমরা আমাদের শক্তির জায়গাটা ধরেই খেলব।’

অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মাঠ ভিসেন্তে ক্যালদেরনে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত দেড়টায়।

মেসি-রোনালদোকে ছাড়িয়ে ইব্রাহিমোভিচ

ইনজুরির কারণে ইউরোপা লিগের ফাইনালে না খেললেও, আয়াক্সকে হারিয়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় নতুন এক রেকর্ডের স্পর্শ পেলেন ফরোয়ার্ড জøাতান ইব্রাহিমোভিচ। সেটি হলো, বিশ্বের তৃতীয় সর্বোচ্চ ট্রফি জয়ী খেলোয়াড় হওয়া। ইব্রাহিমোভিচের চেয়ে ট্রফি জয়ে এগিয়ে আছেন আর মাত্র দুজন খেলোয়াড়। ইব্রাহিমোভিচের জেতা ট্রফির সংখ্যা ৩৩ টি। তবে ধারণা করার কোনো কারণ নেই যে, সেই দুজন লিওনেল মেসি এবং ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো হবেন।

তবে ক্লাব পর্যায়ে ইব্রাহিমোভিচের জেতা ট্রফির সমান ৩৩টি জিতেছেন ব্রাজিলের দানি আলভেজ। জুভেন্টাসের হয়ে লিগ ও কাপ জেতার পর দানি আলভেজ ৩৩ টি শিরোপা জয়ের অধিকারী হন। এই ট্রফিগুলো জেতেন আলভেজ, বাহাই সেভিয়া, বার্সেলোনা ও জুভেন্টাসের হয়ে। ইব্রাহিমোভিচ জেতেন আয়াক্স, জুভেন্টাস, ইন্টার মিলান, বার্সেলোনা, এসি মিলান, প্যারিস সেন্ট জার্মেই এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে। তবে দানি আলভেজের সম্ভাবনা রয়েছে জøাতান ইব্রাহিমোভিচকে পেছনে ফেলার। আগামী ৩ জুন উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদকে হারাতে পারলেই জুভেন্টাস জিতবে শিরোপা আর ইব্রাকে ছাড়িয়ে যাবেন আলভেজ। তবে সেটা হবে কিনা সেটার জন্য নজর রাখতে হবে আগামী ৩ জুন কার্ডিফের দিকে।
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের লিজেন্ডারি ফুটবলার রায়ান গিগস ৩৫টি ট্রফিতে, ট্রফি জয়ের রেকর্ডে দ্বিতীয় স্থানে আছেন। মেসির দখলে ২৯টি এবং আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার পকেটে রয়েছে ৩০টি ট্রফি। ৩৬টি শিরোপা জয়ের রেকর্ডে সবাইকে ছাড়িয়ে শীর্ষে আছেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার ম্যাক্সওয়েল। ক্রুজেইরো, ইন্টার মিলান, বার্সেলোনা এবং প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের হয়ে ট্রফিগুলো জেতেন তিনি।

সেমিফাইনালে আবাহনী

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব এবং চট্টগ্রাম আবাহনীর পর তৃতীয় দল হিসেবে ফেডারেশন কাপের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। আজ শুক্রবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে, ব্রাদার্সকে ২-১ গোলে পরাজিত করে আকাশি-হলুদ শিবির।
শুরুতে প্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব দুটি পরস্পরকে বুঝে নিতে মিনিট ত্রিশেক সময় ব্যয় করলেও এরপর অনেকটাই একপেশে হয়ে ওঠে খেলাটি। বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের একচেটিয়া নিয়ন্ত্রনের সামনে বেশ অসহায় ছিল গোলাপি জার্সির দলটি। কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে হিমশিম খাওয়া আকাশি-হলুদ জার্সিধারীরা একেবারেই ভিন্ন মেজাজে খেলে আজ।
তাদের গোছানো ক্রীড়া শৈলির সামনে অনেকটাই কোন ঠাসা হয়ে পড়ে ব্রাদার্স। কয়েকটি বিক্ষিপ্ত প্রতিআক্রমন ছাড়া পুরোটা সময় আবাহনীর আক্রমণ প্রতিহত করেই কাটিয়েছে তারা। ম্যাচের ২০ মিনিটেই দারুণ একটি আক্রমণ তৈরি করে আবাহনী। এ সময় জীবনের প্রচেষ্টা দুর্ভাগ্যজনকভাবে ব্যর্থ হয়। ২৯ মিনিটেই প্রতিআক্রমণ চালায় ব্রাদার্সও। সিয়ো জুনাপিও আবাহনীর পোস্টে বল পাঠালেও এর আগমুহূর্তে রেফারি বিরুদ্ধে ফাউলের নির্দেশ দেন। ফলে গোল বঞ্চিত হয় ব্রাদার্স।
একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার করে খেললেও গোল পেতে ৪৩ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় আবাহনীকে। এসময় মাঝমাঠ থেকে ল্যান্ডিংয়ের ক্রসের বল সোহেল রানা পেয়ে গিয়ে জীনকে ঠেলে দেন। বলটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে প্লেসিং শটে গোল করেন নাবিব নেওয়াজ জীবন (১-০)।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই গোলের জন্য আরো আগ্রাসী হয়ে ওঠে আকাশি-হলুদ জার্সিধারীরা। ৫৫ মিনিটে ইমনের কর্নারের বলে নাসির উদ্দিন হেড করলে উড়ন্ত বলে ফের হেড নেন সতীর্থ জীবন। তবে বলটি ক্রসবারের উপর দিয়ে বক্সের বাইরে চলে যায়।
৭৯ মিনিটে লিটনের আত্মঘাতি গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে আবাহনী। ব্রাদার্সের ডি বক্সে ঢুকে যাওয়া রুবেল মিয়ার জোড়ালো শট প্রতিহত করতে গিয়ে গোল লাইন থেকে ব্রাদার্সের ডিফেন্ডার আক্তারুজ্জামান লিটন শট নিতে গেলে সেটি নিজেদের জালে জড়িয়ে যায়। অবশ্য আত্মঘাতি না বলে রেফারিরা গোলটির কৃতিত্ব দিয়েছে রুবেলকে (২-০)।
ম্যাচের শেষ দিকে অবশ্য গোল পরিশোধের জন্য মরিয়া ব্রাদার্সের ভাগ্য কিছুটা সহায় হয়। অতিরিক্ত সময়ে পাওয়া একটি ফ্রি কিক থেকে মাটি কামড়ানো শটে একটি মাত্র গোল পরিশোধ করেন ব্রাদার্সের কঙ্গো থেকে আসা স্ট্রাইকার সিয়ো জুনাপিও (২-১)।
প্রতিযোগিতার সেমি ফাইনালে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী লিমিটেড।

ম্যানইউ ছাড়ছেন রুনি

এবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে গুডবাই জানানোর সময় এসেছে ওয়েইন রুনির। কোথায় যোগ দিচ্ছেন এটা সঠিকভাবে জানা না গেলেও ধারণা করা হচ্ছে, এভারটন কিংবা চীনের কোনো দল অথবা যুক্তরাষ্ট্রের কোনো দলে যোগ দেবেন রুনি। স্টকহোমে আয়াক্সকে ২-০ গোলে হারিয়ে ইউরোপা লিগ জয়ের সময়ই বুঝেছেন, ওল্ডট্রাফোর্ডে সময় ফুরিয়ে এসেছে তার। পরের ইংল্যান্ডের হয়ে ১১৯ ম্যাচ খেলা রুনিকে বাদ দিয়েই ঘোষণা করা হয়েছে জাতীয় দলের নাম। জুনে স্কটল্যান্ড ও ফ্রান্সের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ খেলবে ইংলিশরা।
ইউরোপা কাপের ফাইনালের ৯০ মিনিটে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামানো হয় রুনিকে। তিনি যে আর ম্যানচেস্টারে থাকছেন না এটা নিশ্চিত। অফারও আছে অনেক। তবে কোন দলে যোগ দেবেন সেটা এখনো ঠিক করতে পারেননি তিনি। জানান, কোথায় যাচ্ছি এখনো নিশ্চিত নয়। ভাবার বহু সময় আছে। নিশ্চয়ই ব্যাপারটা নিয়ে আমার পরিবারের সঙ্গে আলোচনা করার পরে সিদ্ধান্ত নেব।
১৩ বছর আগে ১৮ বছরের তরুণ ওয়েইন রুনি ২৫.৬ মিলিয়ন পাউন্ডে এভারটন থেকে রেড ডেভিল শিবিরে যোগ দিয়েছিলেন। এদিকে, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ হোসে মরিনহো জানিয়েছেন, রুনি থেকে গেলে তিনি খুশিই হবেন। তিনি কখনোই চাননা যে সিনিয়র খেলোয়াড়রা এভাবে দল ত্যাগ করুক।

কর ফাঁকিতে এবার রোনালদো

লিওনেল মেসির পর এবার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর বিরুদ্ধেও কর ফাঁকি অভিযোগ উঠল৷ ২০১১-২০১৩ এই দু’বছর সময়কালে ছবির সত্ত্ব থেকে পাওয়া অর্থের কোন অংশ নাকি কর বাবদ স্প্যানিশ ট্যাক্স অথারিটিকে জমা দেননি রিয়াল মাদ্রিদের এই মহাতারকা৷
স্প্যানিশ সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী প্রায় ৯ মিলিয়ন ডলার অর্থ কর ফাঁকি দিয়েছেন পর্তুগালের ইউরো কাপজয়ী অধিনায়ক৷ অভিযোগ প্রমাণিত হলে বকেয়া অর্থের পাশাপাশি বড় অঙ্কের জরিমানা গুনতে হবে সিআর সেভেনকে৷৪ মিলিয়ন ডলার অর্থের কর ফাঁকি মামলায় ২১ মাসের জেলের সাজা পেয়েছেন বার্সেলোনার মহাতারকা মেসি৷ তবে স্পেনের নিয়মে জেলের পরিবর্তে জরিমানা দিয়ে মাফ পেতে চলেছেন আর্জেন্তাইন অধিনায়ক৷ তবে রোনাল্ডোর ক্ষেত্রে এই কর ফাঁকি ‘ক্রিমিনাল ওফেন্স’ হিসাবে বিবেচিত হলে চার মাসের জন্য জেলে যেতে হতে পারে পর্তুগিজ তারকার৷

রেড ডেভিলদের ছেড়ে যাচ্ছেন ইব্রা

প্যারিস সেন্ট জার্মেইঁ থেকে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেওয়ার পর দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন ইব্রাহিমোভিচ। কিন্তু আঘাতের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে যেতে হয়েছে। আপাতত জ্লাটান ইব্রাহিমোভিচ দ্রুত সেরে উঠছেন। নতুন মরশুমেই নয়া উদ্যমে নেমে পড়তে চান এই সুইডিশ তারকা স্ট্রাইকার। গত বুধবার রাতে ইব্রার নিজের দেশের মাটিতেই তাঁর ক্লাব প্রথমবার ইউরোপা লিগের খেতাব জিতল। মাঠের বাইরে বসেই তা দেখতে হয়েছে ইব্রাকে। এরমাঝেই ইতালির একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে কথাপ্রসঙ্গে বলে দিলেন, চোট সারিয়ে তাড়াতাড়িই মাঠে ফিরবেন। ইব্রার কথায়, ‘‌কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই অনুশীলনে নেমে পড়ব।’‌ এরপরেই তিনি যে মন্তব্যটি করেছেন তা যথেষ্ট ইঙ্গিতপূর্ণ। ‘‌কোথায় খেলব?‌ দেখা যাক!‌’‌ এরপরই জল্পনা ঘনিয়েছে, ম্যান ইউয়ের জার্সিতে সদ্য শেষ হওয়া ইপিএল মরশুমে শোরগোল ফেলে দেওয়া সুইডিশ ‘‌গোলমেশিন’‌ কি তাহলে ওল্ড ট্রাফোর্ডের উঠোন ছেড়ে বেরনোর কথা ভাবতে শুরু করেছেন?‌

ফ্রান্সের ভবিষ্যত কোচ জিদান: ফ্রাঙ্ক লেবুফ

রিয়াল মাদ্রিকে লিগ শিরোপা এনে দেওয়া আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে তোলায় জিনেদিন জিদান ভাসছেন প্রসংশায়। এবার তার পক্ষে বললেন, ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স দলের সদস্য ফ্রাঙ্ক লেবুফ। তিনি বিবিসিকে বলেছেন, ‘আগামীদিনে ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচ হবেন জিনেদিন জিদান’। এসময় তিনি আরো জানান, ‘দিদিয়ের দেশাম এখন ফ্রান্সের কোচ। তিনি কতদিন ফ্রান্সের কোচ থাকতে পারবেন জানি না। ওনার আমলে ফ্রান্স ফুটবলের তেমন কোনো উন্নতি হয়নি। তার পরে জিদানই হবেন ফ্রান্সের কোচ। ৪৪ বছর বয়সেই কোচ হিসাবে পরিণত জিদান।’
ফ্রান্সের প্রাক্তন এই ফুটবলার আরও বলেন,‘রিয়াল মাদ্রিদের ‘বি’ টিমের কোচ হিসেবে কাজ করেছেন জিদান। কার্লো আনচেলোত্তির প্রভাব গত দেড় বছর কোচ হিসাবে জিদানের মধ্যে দেখেছি। রিয়ালের কোচ হিসাবে জিদান গত দেড় বছর চমৎকার কাজ করেছে। রিয়াল মাদ্রিদ বিশ্বের অন্যতম সেরা দল। বিভিন্ন দেশের সেরা ফুটবলাররা সেখানে খেলেন। ড্রেসিংরুমে ছাত্র ফুটবলারদের থেকে সম্মান আদায় করা সেখানে বড় ফ্যাক্টর। জিদানের কেরিয়ার রেকর্ড অসাধারণ। ওর ট্রফির ক্যাবিনেটে বিশ্বকাপ আর ইউরো কাপ আছে ফ্রান্সের জার্সিতে খেলে। ২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত রিয়াল মাদ্রিদে খেলেছে। দু’বার জিতেছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। তিনবার ফিফার বিশ্বসেরা ফুটবলারের সম্মান পেয়েছে। দুটি বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলারও অভিজ্ঞতা আছে জিদানের। ২০০২ সালে গ্লাসগোতে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়ালকে চ্যাম্পিয়ন করাতে বড় ভূমিকা নিয়েছিল জিদান। সাইডভলিতে একটি চমৎকার গোলও করেছিল। এই রকম ব্যাকগ্রাউন্ডের একজনকে ২০১৬ সালের গোড়ায় রাফায়েল বেনিতেজের জায়গায় কোচ করে রিয়াল মাদ্রিদের শীর্ষ কর্তা ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ চমৎকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। জিদানের কোচিংয়ে গত বছর রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে। ৩ জুন কার্ডিফ সিটিতে রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়ন হলে পরপর দু’বার ক্লাব পর্যায়ে ইউরোপ সেরা হবে তারা। এই সাফল্য আর কোনও ক্লাবের নেই। জিদান যা স্পর্শ করে, তাই সোনা হয়ে যায়। তাই একদিন ও ফ্রান্সের কোচ হবে। তবে কবে হবে সেই ব্যাপারে রিয়াল বস পেরেজের একটি বড় ভূমিকা থাকবে। পাশাপাশি মনে রাখতে হবে রিয়াল মাদ্রিদের কোচের হট সিটে কেউ বেশি দিন থাকে না।’

টাইব্রেকারে জিতে সেমিতে চট্ট. আবাহনী

এবার টাইব্রেকারে বিদায় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের। বিজয়ী দলের নাম চট্টগ্রাম আবাহনী। ফেডারেশন কাপের দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে পেনাল্টি শ্যূট আউটে জিতে শেষ চার নিশ্চিত করে বন্দর নগরী চট্টগ্রামের দল আবাহনী। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে তারা ৫-৩ গোলে পরাজিত করে শেখ রাসেলকে। ১(৪)-১(২)। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলের ড্র ছিলো।
বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে শেখ রাসেল আর চট্টগ্রাম আবাহনীর ম্যাচে ১০ মিনিটে রাসেলকে লিড এনে দেন সাত নম্বর জার্সিধারী খালেকুর জামান। বক্সের বাইরে থেকে ফ্রি কিক নেন ডিফেন্ডার আতিকুর রহমান মিশু, বক্সে বল পেয়ে হেড নেন নাইজেরিয়ান ডিফেন্ডার এলিটা বেনজামিন। তাতে আচমকা শটে ল্যভেদ করেন খালেকুর জামান।
তবে এই গোলের লিড বেশিণ ধরে রাখতে পারেনি রাসেল। দু মিনিট পরই ম্যাচে সমতা ফেরান চট্টগ্রাম আবাহনীর সাত নম্বর জার্সিধারী অধিনায়ক জাহিদ হোসেন (১-১)। এরপর দুদলই রণপ্রাচীর শক্ত করায় ম্যাচে দেখা দেয় গোল খরা। প্রথমার্ধ শেষ হয়েছে ১-১ সমতায়।
দ্বিতীয়ার্ধে গোল সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা করতে থাকে চট্টগ্রামের দলটি। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় গোল পাওয়া হয়নি। ৬৯ মিনিটে গোলের সহজ সুযোগ হাতছাড়া করে বন্দর নগরীর দলটির। বা প্রান্ত থেকে মাপা শটে বক্সে বল ফেলেছিলেন জাহিদ। কিন্তু বল বাইরে মেরে সুযোগ নষ্ট করেন তৌহিদুল আলম সবুজ। ফরোয়ার্ডদের এমন ব্যর্থাতেই বার বার গোল বঞ্চিত হয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী। ৭৫ মিনিটে সব থেকে বড় সুযোগ হারিয়েছে সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যরা। প্রায় মাঝ মাঠ থেকে ডিফেন্ডার নূরুল নাঈমের পাস বক্সে ঢুকে জোড়ালো শট নেন জাহিদ। বলটা জালে না ঢুকে লাগে গোলরকের গায়ে। শুয়ে পড়ে বল গ্রিপে নেন রাসেলের গোলরক জিয়াউর রহমান। নির্ধারিত ৯০ মিনিটেও ম্যাচের ফলাফল ছিলো ১-১। ফলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে। এই সময়েও একই ফল থাকায় টাইব্রেকারে নির্ধারিত হয় ম্যাচের ভাগ্য।
টাইব্রেকারে গোল করেন চট্টগ্রাম আবাহনীর এলিসন, মাসুক মিয়া জনি, সোহেল রানা, তৌহিদুল আলম সবুজ।
শেখ রাসেলের গোল করেন দাউদা, বিশ্বনাথ ঘোষ। আর মিস করেন সজীব ও রাব্বী। আগামী ২ জুন প্রথম সেমিফাইনালে রহমতগঞ্জ বনাম মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে বিজয়ী দলের মুখোমুখি হবে চট্টগ্রাম আবাহনী।

মেসির কারাদণ্ডাদেশ বহাল

লিওনেল মেসির বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ রয়েছে। এই অভিযোগে আর্জেন্টাইন এই ফরোয়ার্ডকে ২১ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছিলেন বার্সেলোনার আদালত। একই শাস্তি পেয়েছিলেন তার বাবা হোর্হে মেসিও। এর বিরুদ্ধে স্পেনের সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেছিলেন মেসি।

কাজে দেয়নি। মেসির করা আপিল খারিজ করে দিয়েছেন স্পেনের সুপ্রিম কোর্ট। মেসি ও তার বাবার ২১ মাসের কারাদণ্ডাদেশ বহাল রেখেছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। শুধু তাই নয়, ২১ মাস কারাদন্ডের সঙ্গে বার্সেলোনা আদালত মেসিকে ২০ লাখ ইউরো ও তার বাবাকে ১৫ লাখ ইউরো জরিমানা করেছিলেন। তাও পরিশোধ করতে হবে।

তাহলে কি হাজতবাস করতে হচ্ছে মেসি ও বাবাকে? আশার খবর, স্পেনের আইন বলছে- ২ বছরের কম শাস্তি হলে দণ্ডপ্রাপ্তদের হাজতবাস করতে হয় না। বেঁচে গেলেন মেসি। বাঁচলেন তার বাবাও। কিন্তু ফর ফাঁকির মামলায় স্প্যানিশ আদালতের দেয়া এ রায়ে মেসির ভাবমূর্তিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে, এটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

প্রসঙ্গত, মেসির বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০০৭ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত প্রায় ৪৭ লাখ ইউরো কর ফাঁকি দিয়েছেন তিনি। উরুগুয়েতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সেই অর্থ বিনিয়োগ করেন মেসি ও তার বাবা! মিডিয়ায় এমন খরব প্রকাশিত হলে তাদের বিরুদ্ধে শুরু হয় তদন্ত।

মোহামেডানের বিদায়: সেমিতে শেখ জামাল

মৌসুমের প্রথম ফুটবল আসর ফেডারেশন কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই ঢাকা মোহামেডানকে বিদায় করে দিয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি কাব। আজ বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে, ১-০ গোলের জয় পায় ধানমন্ডির দলটি। জয়ের নায়ক গাম্বিয়ান মিডফিল্ডার সলুমুন কিং। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে জয় সূচক গোলটি করেন তিনি। হারের লজ্জা নিয়ে মাঠ ছাড়ায় প্তি হয়ে উঠেন সাদা-কালো শিবিরের সমর্থকরা।
বল মাঠে গড়ানোর পরই মোহামেডানের উপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে শেখ জামাল। একের পর এক আক্রমন করলেও সাফল্য আসছিল না ফিনিসিংয়ের অভাবে। তাছাড়া সাদা-কালো শিবিরের গোলরক মামুন খান নিজেও বেশ কয়েকটি আক্রমন প্রতিহত করে বড় ব্যবধানে হারের লজ্জা থেকে দলকে বাঁচান।
ম্যাচের ২৯ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে বল পেয়ে শেখ জামালের নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার রাফায়েল উদুবিন মোহামেডানের গোলরক মামুন খানকে ওয়ান বাই ওয়ান পজিশনে পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন। ছোট বক্সের সামনে থেকে তার নেয়া শট মামুনের পায়ে লেগে ফিরে আসে। এর পাঁচ মিনিট আগে আরো একবার গোলের সুযোগ পেয়েও স্কোর গড়তে পারেননি নাইজেরিয়ান এ স্ট্রাইকার।
ম্যাচের ৪০ মিনিটে প্রথম একটি আক্রমন রচনা করেছিল নাঈমুদ্দিনের শিষ্যরা। কিন্তু লিংকনের ক্রসের বল ডি বক্সে পেয়েও তা গোলে পরিনত করতে পারেননি দলটির নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার কিংসলে চিগোজি। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার দুই মিনিট আগে আরো একবার মোহামেডান শিবিরে কাঁপন ধরিয়েছিল শেখ জামাল। কিন্তু গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার মমদুর নেয়া শটটি বাঁক নিয়ে গোলপোস্টের পাশ দিয়ে বাইরে চলে যাওয়ায় আবারো হতাশ হতে হয় জোসেফ আফুসির শিষ্যদের।
অবশেষে দ্বিতীয়ার্ধে আসে সফলতা। সাদা-কালোদের হতাশায় ডুবান শেষ জামালের গাম্বিয়ান মিডফিল্ডার সলুমুন কিং। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে রাফায়েলের কাট ব্যাক থেকে বল পেয়ে এ বদলী মিডফিল্ডার সাদা-কালো শিবিরের জালে বল জড়িয়ে দেন (১-০)। ম্যাচ শেষে ভিআইপি গ্যালারীর গেট গলে মাঠে প্রবেশ করে টেন্টের দিকে যান। সমর্থকরা সেখানে কোচ নাঈমুদ্দিনকে উদ্দেশ্য করে গালাগাল করেন। পরে পুলিশ এসে উত্তেজিত সমর্থকদের সরিয়ে দেন। সমর্থকদের রোশানল থেকে বাঁচতে ম্যাচ শেষ হতে না হতেই টেন্টের পেছন দিয়ে মাঠ ত্যাগ করেন ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম বাবু।
আগামিকাল একই ভেন্যুতে সন্ধ্য ছ‘টায় দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে চট্টগ্রাম আবাহনীর মুখোমুখি হবে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র।

ইস্পি ফুটবলে শাহীন স্কুল চ্যাম্পিয়ন

ইস্পি ইন্টার স্কুল সিক্স-এ-সাইড ফুটবল টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছে বিএএফ শাহীন স্কুল। টুর্নামেন্টের ফাইনালে তারা টাইব্রকারে ৩-১ গোলে পরাজিত করে গভ: ল্যাবরেটরি হাই স্কুলকে। এর আগে, নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ের খেলা গোল শূন্য ড্র থাকে। । ফাইনালের সেরা খেলোয়াড় হন বিজয়ী দলের অধিনায়ক রাকীব।
খেলা শেষে বিজয়ী ও বিজিত দলকে পুরস্কৃত করেন এম এম ইস্পাহানি লিমিটেডের মার্কেটিং বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার ওমর হান্নান। টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন দলবিএএফ শাহীন স্কুলকে ট্রফি ও ২০ হাজার টাকা এবং রানার্স আপ গভ: ল্যাবরেটরি হাই স্কুলকে ট্রফি ও ১০ হাজার টাকা অর্থ পুরস্কার দেয়া হয়।

শিরোপা লড়াইয়ে ম্যানইউ-আয়াক্স

সুইডেনের স্টকহোমে ফ্রেন্ডস অ্যারেনায়, ইউরোপা লিগের ফাইনালে আয়াক্সের মুখোমুখি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলে দ্বিতীয় সেরা এ টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়া দুটি দলের জন্যই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। শিরোপাজয়ী দল সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আগামী মৌসুমের (২০১৭-১৮) গ্রুপ পর্বে।
চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে এবার রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে জুভেন্টাস। এ ম্যাচে বিজয়ী দলের সরাসরি খেলার সুযোগ রয়েছে আসরটির আগামী মৌসুমের গ্রুপ পর্বে। কিন্তু এর আগে ঘরোয়া লিগে ভালো (নিজ নিজ লিগে চ্যাম্পিয়ন) করে দুটি দলই আগামী মৌসুমে ইউরোপের শীর্ষ ক্লাব আসরটির গ্রুপ পর্ব নিশ্চিত করেছে। এ কারণে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে বিজয়ী দলের সরাসরি আগামী মৌসুমের গ্রুপ পর্বে খেলার যে ‘স্পট’ ছিল, তা পূরণ করা হবে ইউরোপা লিগের ফাইনালে বিজয়ী দলকে দিয়ে। অন্যথায় আজকের ফাইনালে বিজয়ী দলকে প্লে-অফ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে উঠে আসতে হতো আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে।
স্যার ম্যাট বুশবি ও স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের অধীনে মোট তিনবার ইউরোপসেরা (ইউরোপিয়ান কাপ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ) হয়েছে ম্যানইউ। এছাড়া ফার্গুসনের অধীনে ইউরোপিয়ান কাপ উইনার্স কাপও জিতেছে ‘রেড ডেভিল’রা। উয়েফা আয়োজিত বড় তিনটি ক্লাব আসরের মধ্যে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ক্লাবটির এখনো যে শিরোপাটি অধরা, তা ইউরোপা লিগ (পূর্বের উয়েফা কাপ)। আজ ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের ‘সন্স অব গডস’দের হারাতে পারলে বায়ার্ন মিউনিখ, চেলসি, জুভেন্টাস ও আয়াক্সের পর পঞ্চম ক্লাব হিসেবে উয়েফা আয়োজিত বড় তিনটি আসর জয়ের কীর্তি গড়বে ‘রেড ডেভিল’রা।
এদিকে, ডাচ ক্লাবটির স্কোয়াড তারুণ্যে ভরপুর। চলতি আসরে এ পর্যন্ত ২৮ খেলোয়াড় মাঠে নামিয়েছে আয়াক্স, যাদের গড় বয়স ২২ বছর। তারুণ্যনির্ভর এ স্কোয়াড নিয়েই ২২ বছরের মধ্যে আয়াক্সকে প্রথম মহাদেশীয় শিরোপা জেতানোর চ্যালেঞ্জ দলটির কোচ পিটার বজের সামনে। ইউরোপিয়ান কোনো আসরে আয়াক্স সবশেষ ফাইনাল খেলেছিল ১৯৯৫-৯৬ চ্যাম্পিয়ন্স লিগে। সেবার জুভেন্টাসের কাছে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলের হারে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে প্রথম ক্লাব হিসেবে শিরোপা ধরে রাখার মাইলফলক গড়তে ব্যর্থ হয় আয়াক্স। তার আগের মৌসুমেই ফাইনালে এসি মিলানকে হারিয়ে সর্বশেষ ইউরোপসেরা হওয়ার স্বাদ পেয়েছিল নেদারল্যান্ডস ফুটবলের ইতিহাসে সেরা ক্লাবটি। কাকতালীয় ব্যাপার, সেই ফাইনালের ঠিক ২২ বছর পর আজ তারা খেলতে নামবে আরেকটি ইউরোপিয়ান ফাইনাল।
উয়েফা আয়োজিত আসরে এর আগে চারবার মুখোমুখি হয়ে দুবার করে জয় তুলে নিয়েছে দুই দল। পঞ্চমবারের মুখোমুখিতে জয় তুলে নিতে মরিয়া ম্যানইউ কোচ হোসে মরিনহো। এজন্য লিগে শেষ ম্যাচে নিয়মিত খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দেন রেড ডেভিল কোচ। ঘরোয়া লিগ থেকে এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলা নিশ্চিত করতে পারেনি ম্যানইউ। টেবিলের ছয়ে থেকে মৌসুম শেষ করে তারা। স্টকহোমের ফাইনাল জিততে না পারলে টানা দ্বিতীয় মৌসুম চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার যোগ্যতা অর্জনে ব্যর্থ হবে তারা।
অন্যদিকে আয়াক্সের কোচ পিটার বজের কোচিং ক্যারিয়ারে এটাই প্রথম ইউরোপিয়ান ফাইনাল। দুই কোচের লড়াইয়ে যে-ই জিতুক না কেন, তিনি সবচেয়ে বেশি বয়সী কোচ হিসেবে গড়বেন ইউরোপা লিগ জয়ের কীর্তি।

ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল যারা

ক্রীড়া প্রতিবেদক :

ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের গ্রুপপর্বের খেলা শেষ হয়েছে। যোগ্যতার প্রমাণ দিয়ে চারটি গ্রুপ থেকে আটটি দল কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে।

‘এ’ গ্রুপ থেকে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। বিদায় নিয়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। ‘বি’ গ্রুপ থেকে শেষ আটে স্থান করে নিয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। বিদায় নিয়েছে ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাব। ‘সি’ গ্রুপ থেকে কোয়ার্টারে জায়গা করে নিয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। বিদায় নিয়েছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। ‘ডি’ গ্রুপ থেকে শেষ আট নিশ্চিত করেছে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন। বিদায় নিয়েছে টিম বিজেএমসি।

কোয়ার্টার ফাইনালে যে যার মুখোমুখি :
২৪ মে বুধবার প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হবে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে লড়বে চট্টগ্রাম আবাহনী ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। শুক্রবার (২৬ মে) তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হবে ঢাকা আবাহনী ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন। আর শনিবার (২৮ মে) শেষ কোয়ার্টার ফাইনালে লড়বে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রত্যেকটি কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ শুরু হবে বিকেল সাড়ে পাঁচটায়।

সেমিফাইনালে ওঠা চারটি দল ২ ও ৩ জুন ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে অবতীর্ণ হবে। আর ফাইনালে যাওয়া দুটি দল ৫ জুন শিরোপার জন্য লড়াই করবে।

ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের চ্যাম্পিয়ন দল ট্রফি ও ৬ লাখ টাকা প্রাইজমানি পাবে। রানার্স-আপ দল ট্রফি ও ৪ লাখ টাকা প্রাইজমানি পাবে। পাশাপাশি অংশ নেওয়া প্রত্যেক দল ২ লাখ টাকা করে অংশগ্রহণ ফি পাবে। এ ছাড়া টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় ও সর্বোচ্চ গোলদাতাকে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে ফ্রিজ দিয়ে উৎসাহিত করা হবে।

উল্লেখ্য, ফেডারেশন কাপের গেল আসরের পৃষ্ঠপোষকতায় ছিল ওয়ালটন গ্রুপ। ২০১৬ সালের ওয়ালটন ফেডারেশন কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। রানার্স-আপ হয়েছিল আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ।

এক বছরের জন্য নিয়োগ পাচ্ছেন ওর্ড

ক্রীড়া ডেস্ক :

জাতীয় ফুটবল দলে এক বছরের জন্য নিয়োগ পাচ্ছেন অ্যান্ডু ওর্ড। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটির জরুরি সভায় এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ইংলিশ বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলিয়ান কোচ অ্যান্ডু ওর্ডের সঙ্গে এখনো আনুষ্ঠানিক চুক্তি সম্পন্ন হয়নি। তবে ৩১ মে এর মধ্যে তার সঙ্গে চুক্তিটা সেরে ফেলতে আগ্রহী বাফুফে। আগামী জুনের প্রথম সপ্তাহে তার হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হবে।

ওর্ডের কোচিং ক্যারিয়ার শুরু ২০১০ সালে থাইল্যান্ডের ক্লাব বেক তেরো সাসানার কোচ হিসেবে। ২০১২ সালে দায়িত্ব নেন থাইল্যান্ডেরই আরেক ক্লাব মুয়াং থং ইউনাইটেডের ‘বি দলের।

২০১৩ সাল থেকে ওর্ড সহকারী কোচ হিসেবে ছিলেন অস্ট্রেলিয়ায় ‘এ’ লিগের পার্থ গ্লোরি দলের সঙ্গে। খেলোয়াড়ী জীবনে সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার হিসেবে দুটি সেমি প্রফেশনাল ক্লাবে খেলেন তিনি। বাংলাদেশের কোচ হওয়ার মধ্য দিয়ে এই প্রথম জাতীয় দলের দায়িত্ব পেলেন ওর্ড।

ইংলিশ লিগে বর্ষসেরা কোচ কন্তে

ক্রীড়া ডেস্ক :

ইতালিয়ান কোচ অ্যান্তেনিও কন্তের হাত ধরে আবারও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা উদ্ধার করেছে চেলসি। মৌসুমের শুরু থেকেই তার অধীনে দারুণ পারফরম্যান্সের জন্য এবার ইংলিশ লিগের বর্ষসেরা কোচের পুরস্কার পেয়েছেন তিনি।

ইংলিশ লিগে যোগ দিয়ে নিজের প্রথম মৌসুমেই শিরোপা জিতলেন কন্তে। এর ফলে ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাসের পর চেলসিতেও নিজের সেরাটা জানান দিলেন তিনি। প্রিমিয়ার লিগের বর্ষসেরা কোচের পুরস্কারের সঙ্গে এলএমএ’র (লিগ ম্যানেজার্স অ্যাসোসিয়েশন) বর্ষসেরার খেতাব নিজের করে নিয়েছেন কন্তে। ইংলিশ লিগে তৃতীয় বিদেশী কোনো কোচ হিসেবে এ পুরস্কার জিতলেন ৪৭ বছর বয়সি কোন্তে।

টটেনহামের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এবার ইংলিশ লিগ শিরোপা নিজেদের করে নিয়েছে চেলসি। ইতিহাস গড়ে লেস্টার সিটিকে চ্যাম্পিয়ন করানোয় গতবার এ গৌরব অর্জন করেন ক্লদিও রানিয়েরি। ভোটাভোটির শেষে রানিয়েরির পর দ্বিতীয় ইতালিয়ান হিসেবে এ পুরস্কার জিতলেন কন্তে। ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত ইউরো আসরের পর ইতালির দায়িত্ব ছেড়ে চেলসিতে কোচের চেয়ারে বসেন তিনি। তার অধীনে এক বছর বিরতিতেই ইংলিশ লিগ শিরোপা উদ্ধার করেছে ব্লুজরা।

কোয়ার্টার ফাইনালের প্রতিপক্ষরা

আগাকালমী বুধবার ওয়ালটন ফেডারেশন কাপ ফুটবলের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হবে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে লড়বে চট্টগ্রাম আবাহনী ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। শুক্রবার (২৬ মে) তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হবে ঢাকা আবাহনী ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন। শনিবার (২৭ মে) শেষ কোয়ার্টার ফাইনালে লড়বে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রতিটি কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ শুরু হবে বিকেল সাড়ে পাঁচটায়। সেমিফাইনালে ওঠা চারটি দল ২ ও ৩ জুন ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে নামবে। আর ফাইনালে যাওয়া দুটি দল ৫ জুন শিরোপার জন্য লড়াই করবে। ফেডারেশন কাপের চ্যাম্পিয়ন দল ট্রফি ও ৬ লাখ টাকা প্রাইজমানি পাবে। রানার্স-আপ দল ট্রফি ও ৪ লাখ টাকা প্রাইজমানি পাবে। পাশাপাশি অংশ নেওয়া প্রত্যেক দল ২ লাখ টাকা করে অংশগ্রহণ ফি পাবে। এছাড়া টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় ও সর্বোচ্চ গোলদাতাকে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে পুরস্কৃত করা হবে। উল্লেখ্য, ফেডারেশন কাপের গেল আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। রানার্স-আপ হয়েছিল আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ।

ইউরোপ সেরা একাদশে মেসি, নেই রোনালদো

ইউরোপে চলতি মৌসুমের বড় পাঁচটি লিগের খেলা এরই মধ্যে শেষ হয়েছে। স্প্যানিশ লিগ, ইংলিশ লিগ ও ফ্রেঞ্চ লিগ পেয়ে নতুন চ্যাম্পিয়ন। আর সিরি আ ও বুন্দেসলিগায় নিজেদের আধিপত্য ধরে রেখেছে আগের চ্যাম্পিয়নরাই। মৌসুম শেষে জনপ্রিয় সাইট গোল ডট কম ইউরোপের সেরা একাদশ গড়েছে। সেরা এই একাদশে মেসি জায়গা পেলেও, জায়গা হয়নি রিয়াল তারকা রোনালদোর।

৪-৩-৩ ফরমেশনের একাদশে গোলবারের নিচে জায়গা পেয়েছেন জুভেন্টাস তারকা বুফন। ডিফেন্সে জায়গা আছেন আটলান্টা তারকা আদ্রে কন্তে, চেলসি তারকা সিজার অ্যাজপিলিকুয়েতা, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের দিয়াগো গডিন ও রিয়াল তারকা মার্সেলো।

messi

মিডফিল্ডে জায়গা পেয়েছেন বায়ার্ন তারকা থিয়াগো আলকান্তারা, চেলসি তারকা এনগোলো কান্তে ও মোনাকো তারকা বেরনারদো সিলভা। আর ফরোয়ার্ড পজিশনের দুই উইংয়ে মোনাকোর উঠতি তারকা এমবেপে ও বার্সা তারকা মেসি। আর মূল ফরোয়ার্ড হেসেবে খেলবেন অ্যালেক্স সানচেজ।

মৌসুমের শুরু থেকেই দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন মেসি। দলকে শিরোপা জেতাতে না পারলেও নিজে গোল করেন ৩৭টি। লা লিগায় সর্বোচ্চ গোল দিয়ে জেতেন পিচিচি ট্রফি। সঙ্গে জায়গা করে নেন সেরা একাদশে। মেসি জায়গা পেলেও তার আর কোন সতীর্থের জায়গা হয়নি এ একাদশে।

অন্যদিকে শুরুটা ভালো ছিল না রোনালদোর। তবে শেষ দিকে ঠিকই জ্বলে ওঠেন। দলেক শিরোপা জয়ে ভূমিকা রাখেন। তবে এরপরও জায়গা হয়নি সেরা একাদশে।

স্পন্সরশিপ প্রত্যাহারের হুমকি সাইফ পাওয়ারটেকের

মাঝে পাতানো খেলার গন্ধটা কমে গিয়েছিল; কিন্তু ফুটবলের ক্যান্সার নামক এ পাতানো খেলা আবার জেঁকে বসেছে ঘরোয়া আসরগুলোতো। ভয়াবহ বিষয় হলো, এখন পাতানো খেলা বেশি হয় নিচের লিগগুলোতে। পাইওনিয়ার, তৃতীয় বিভাগ, দ্বিতীয় বিভাগ ও সিনিয়র ডিভিশনের খেলা হলে ‘পাতানো খেলা, পাতানো খেলা’র শোরগোলটা বেশি শোনা যায়।

সোমবার শেষ হওয়া সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল লিগে নাকি ন্যাক্কারজনভাবে পাতানো খেলা হয়েছে। এ অভিযোগ পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান সাইফ পাওয়ারটেকের। নির্দিষ্ট কিছু ম্যাচের কথা উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন বলেছেন, ‘যারা পাতানো ম্যাচ খেলেছে তাদের বিচার না হলে আমরা ফুটবল থেকে সব স্পন্সরশিপ প্রত্যাহার করে নেবো।’

সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল লিগের অচল চাকা সচল করতে চার বছরের জন্য পৃষ্ঠপোষকতার হাত বাড়িয়েছিল সাইফ পাওয়ারটেক। শুধু তাই নয়, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অবস্থিত ঢাকা মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটির কার্যালয়টিও এ প্রতিষ্ঠান আধুনিকায়ন করে দিয়েছে। অংশগ্রহণকারী ক্লাবগুলোর জন্য তারা একটি করে কম্পিউটারও দিয়েছে। অথচ সেই পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানই এখন ফুটবলে পাতানো খেলা হওয়ায় ক্ষুব্ধ। পাতানো খেলা অনেক হয়েছে, কিছু বিচারও হয়েছে; কিন্তু পাতানো খেলার কারণে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের সরে যাওয়ার হুমকি এটাই প্রথম।

‘আমাদের বক্তব্য স্পষ্ট। যে পাতানো ম্যাচগুলো হয়েছে, যারা খেলেছে তাদের বিচার করতে হবে বাফুফেকে। আমাদের কাছে পাতানো খেলার সন্দেহজনক ম্যাচগুলোর ফুটেজ আছে। ওয়ান্ডারার্স ও মহাখালী একাদশের ম্যাচ পাতানো হয়েছে। পাতানো হয়েছে লিগের শেষ ম্যাচ দুটোয়ও। আমরা এর বিচার চেয়ে ২/৩ দিনের মধ্যে বাফুফেকে চিঠি দেবো। বাফুফে বিচার করতে না পারলে আমরা ফুটবল থেকে সরে যাবো’- সোমবার রাতে জাগো নিউজকে বলেছেন তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন।

অভিযোগ উঠেছে সিনিয়র ডিভিশন লিগ নিয়ে। যদি বাফুফে অভিযুক্তদের বিচার না করে তাহলে সাইফ পাওয়ারটেক কি শুধু সিনিয়র ডিভিশন থেকে পৃষ্ঠপোষকতা গুটিয়ে নেবে? তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিনের জবাব, ‘না। শুধু সিনিয়র ডিভিশন থেকেই নয়, আমরা পুরো ফুটবল থেকেই পৃষ্ঠপোষকতা তুলে নেবো। এমন ফুটবলে স্পন্সর করে কি হবে?’ সাইফ পাওয়ারটেক বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগেরও পৃষ্ঠপোষক।

পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের সরে যাওয়ার হুমকি প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটির কো-চেয়ারম্যান সালেহ জামান সেলিম জাগো নিউজকে বলেছেন, ‘পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের বক্তব্যের একটা মূল্য আছে। তবে তারা পৃষ্ঠপোষকতা করুক বা না করুক আমরা পাতানো খেলার বিচার করবোই। আমরা সন্দেহজনক ম্যাচগুলোর ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করছি। প্রমানিত হলে বিচার হবেই।’

তাহলে আপনিও মনে করছেন সিনিয়র ডিভিশন লিগে পাতানো খেলা হয়েছে? ‘সেটা এখনই আমি বলবো না। অভিযোগ যেহেতু উঠেছে সেটা তদন্ত করাটা আমাদের দায়িত্ব। কারো বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমানিত হলে বিচার হবেই’- বলেছেন সালেহ জামান সেলিম।

আমি শয়তান নই : লা লিগা জিতে রোনালদো

শেষ দিন পর্যন্ত ঝুলে ছিল লা লিগার শিরোপা জিতছে কে, এ বিষয়টা? দৌড়ে ছিল রিয়ার মাদ্রিদ এবং বার্সেলোনা। রিয়াল জিতলেই শিরোপা নিশ্চিত- এমন সমীকরণ নিয়েই মাঠে নেমেছিল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোরা। ম্যাচ শুরুর পরপরই গোল করে মালাগার বিপক্ষে রিয়ালকে এগিয়ে দেন রোনালদো। এরপর লজ ব্লাঙ্কোজদের জয় নিশ্চিত করেন করিম বেনজেমা। ২-০ গোলে মালাগাকে হারিয়ে পাঁচ বছর পর লিগ শিরোপা জিতলেন সিআর সেভেন।

ক্লাবকে লিগ শিরোপা উপহার দিয়ে অন্যরকম আনন্দে মাতলেন রোনালদো এবং তার সতীর্থরা। বাধভাঙা উল্লাসের ঢেউ সঙ্গে করেই ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মিডিয়ার সামনে উপস্থিত হন সিআর সেভেন। সেখানে ছিলেন ফুরফুরে মেজাজে; কিন্তু হঠাৎ করেই এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি অফমুডে চলে যান। উত্তর দিলেন খুব গম্ভীরভাবে। কিছুটা রোষের সঙ্গেও।

প্রশ্নকর্তার প্রশ্নের জবাবে রোনালদো বলেন, ‘দেখুন, আমি সাধু নই কিংবা তেমন কেউ না; কিন্তু লোকে যে আপনাদের (সাংবাদিকদের) জন্য আমাকে শয়তান ভাবে, অবশ্যই আমি তা নই।’

সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে রিয়ালের ৪-১ গোলে জয়ের ম্যাচের পর দলটির খেলোয়াড়দের উদ্দেশ্যে রোনালদো ব্রিফকেস ভর্তি টাকা নেয়ার অঙ্গভঙ্গি করেছিলেন। যেটা তুমুল সমালোচনার ঝড় তুলে দিয়েছে ফুটবল বিশ্বে। নানা সমালোচনার পাশাপাশি মিডিয়ায় রোনালদোকে তুলে ধরা হয়েছে, একজন ‘শয়তান’রূপে।

এ বিষয়টা নিয়েই সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন উঠেছে। তার জবাবেই রোনালদো বলেন, ‘আমার সম্পর্কে না জেনেই মানুষ অনেক কিছু বলে। ব্যাপারটা কিন্তু আমাকে খুব কষ্ট দেয়। আমাকে বিব্রত করে। আপনারা যারা মিডিয়ার আছেন, তারা আমার সম্পর্কে না জেনে, পরিস্থিতি না বুঝেই অনেক আজেবাজে কথা লেখেন। দেখুন, আমি সাধু নই। তবে আমি কিন্তু শয়তানও নই।’

রোনালদো তার নিজের সম্পর্কে কোনো অপপ্রচার বিষয়ে টিভি দেখেন না। তিনি বলেন, ‘আমি টিভি দেখি না। কারণ, আমি যা করিনি তা প্রচার করা হচ্ছে। অথচ আমি যা বলছি, সেগুলো তার ঠিক উল্টো। আমি মাঠে এবং মাঠের বাইরে যেমন, তেমনটা তারা তুলে ধরতে পারে না। এটা তাদের ভুল। এ কারণে আমি খুব সুখি। কারণ, আমার সম্পর্কে যা বলা হয়, তার কিছুই সত্য নয়। এগুলো গুজব।

পরিবারের দোহাই দিয়ে নিজের বিরুদ্ধে এ ধরনের ‘অপপ্রচার’ বন্ধ করার অনুরোধ জানান রোনালদো, ‘আমি এ ধরনের অপপ্রচার একেবারেই পছন্দ করি না। আমার একটি পরিবার আছে। আমারও মা আছে, ছোট্ট একটা ছেলে আছে। আমার বিরুদ্ধে মিডিয়াতে ফালতু কথাবার্তা লেখা হলে তা তাদেরও বিব্রত করে।’

জিতেই কোয়ার্টার ফাইনালে আবাহনী

একটা ভয় ছিল আবাহনীর। যদি হেরে যায়? শঙ্কাটা অমূলক নয়। ফুটবলে যে কোনো কিছুই ঘটতে পারে। সোমবার মুক্তিযোদ্ধার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে যদি হারের শঙ্কায় থেকে থাকে আবাহনী, তাহলে একই কারণে আশায় ছিল প্রিমিয়ার লিগের নবাগত সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবও।

আবাহনী হারলে যে তাদের সামনে তৈরি হতো ফেডারেশন কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ! কিন্তু ফেডারেশন কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী সে সুযোগ দেয়ইনি নবাগত দলটিকে। ড্র করলেই নিশ্চিত হতো আবাহনীর কোয়ার্টার ফাইনাল। ড্র নয়, জিতেইে আকাশী-হলুদরা উঠে গোলে নকাউটপর্বে।

সোমবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আবাহনী ১-০ গোলে মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে শেষ দল হিসেবে নিশ্চিত করেছে কোয়ার্টার ফাইনাল। চ্যাম্পিয়নরা ফেডারেশন কাপ শুরু করেছিল সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের সঙ্গে ড্র দিয়ে। সোমবারের জয়ে তাদের ঝুলিতে পয়েন্ট হলো ৪। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় আবাহনী কোয়ার্টার ফাইনাল খেলবে ব্রাদার্সের বিপক্ষে আর মুক্তিযোদ্ধার প্রতিপক্ষ রহমতগঞ্জ।

সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়ে আগেই কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লিখিয়েছিল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। তরুণ কোচ মাসুদ পারভেজ কায়সারের দলের জন্য শেষ ম্যাচটি ছিল আবাহনীর সঙ্গে শক্তির পরীক্ষার। সে পরীক্ষায় তারা হেরে গেছে লড়াই করেই। ড্র করলেই চলতো।

কিন্তু আবাহনীকে ড্রয়ের জন্য খেলতে দেখা যায়নি। মুক্তিযোদ্ধাও ম্যাচটি জিততে আপ্রাণ চেষ্টা করেছে। দুই দলের জয়ের এ তাগিদ ম্যাচটিকেও করেছিল বেশ আকর্ষণীয়। যদিও আবাহনীর বারবার আক্রমণে এক পর্যায় মুক্তিযোদ্ধাকে বেছে নিতে হয় প্রতি আক্রমণের কৌশল।

একাধিক আক্রমণ ব্যর্থ হওয়ার পর আবাহনী লীড পায় ২৯ মিনিটে। গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড ল্যান্ডিং আর রুবেল মিয়া মুক্তিযোদ্ধার ডিফেন্স ভেঙ্গে সুযোগ তৈরি করেন। রুবেল মিয়া বল ধরে যখন ঢুকে পড়েন মুক্তিযোদ্ধার সীমানায় তখন পোস্ট ছেড়ে একটু বেরিয়ে এসেছিলেন উত্তম বড়ুয়া। সে সুযোগটাই নিয়েছেন রুবেল। আগুয়ান গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে বল জালে পাঠিয়ে দেন আবাহনীর তরুণ এ ফরোয়ার্ড।

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই কোয়ার্টারে ঢাকা আবাহনী

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই ওয়ালটন ফেডারেশন কাপ ফুটবলের শেষ আটে জায়গা করে নিলো বর্তমান চ্যাম্পয়ন ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে, তারা ১-০ গোলে হারায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে। এতে দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষস্থান ধরে রেখে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেলো ঢাকার জায়ান্টরা। সেমিফাইনালে টিকিট পেতে আগামী শুক্রবার তাদেরকে লড়তে হবে ‘ডি’ গ্রুপ রানার্সআপ ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে। আর আগেই কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করা মুক্তিযোদ্ধা লড়বে ‘এ’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন জায়ান্ট কিলার রহমতগঞ্জের সঙ্গে।
গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে নবাগত সাইফ স্পোটিংয়ের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করার কারণে কিছুটা চাপের মধ্যে ছিল আবাহনী। প্রথম ম্যাচে ড্র করায় গ্রুপের শেষ ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধার কাছে ২-০ গোলে পরাজিত হলে টুর্নামেন্ট থেকেই বিদায় নেওয়ার আশংকা ছিলে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর। আর ১-০ গোলে হারলে সাইফ স্পোর্টিংয়ের সঙ্গে পয়েন্ট সমান হয়ে যাবার কারণে টস ভাগ্যের ওপর নির্ভর করতে হতো অভিজাত এই ক্লাবটিকে।
এমন সমীকরণের ম্যাচে পথ হারায় নি আকাশি-হলুদ শিবির। রুবেল মিয়ার জয় সুচক একমাত্র গোলে গ্রুপ সেরা হিসেবেই শেষ আটে জায়গা করে নেয় আবাহনী।
বেঙ্গালুরু এফসির বিপক্ষে আবাহনীর জয়ে ভুমিকা রাখা রুবেল দারুণ এক গোল করেন। ম্যাচের ২৯ মিনিটে বক্সের মধ্যে রুবেল মিয়ার উদ্দেশ্যে বল বড়ান ল্যান্ডিং দারবোয়ে। গাম্বিয়ান এই মিডফিল্ডারের বাড়ানো বলে তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল জালে জড়ান এই তরুন মিডফিল্ডার।
এর আগে আবাহনীকে গোল বঞ্চিত করেন মুক্তিযোদ্ধার গোলরক্ষক উত্তম বড়–য়া। সোহেল রানার কার্টব্যাকে জীবনের শট ডানদিকে ঝাপিয়ে পরে কর্ণারের বিনিময়ে প্রতিহত করেন গত মৌসুমে ব্রদাার্সে খেলা এই গোলরক্ষক। ম্যাচের ৪৩ মিনিটে রুবেলের লো ক্রসে অযথা মাথা ছোঁয়াতে গিয়ে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করেন জীবন। দ্বিতীয়ার্ধে প্রচন্ড তাপাদাহে স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারেননি ফুটবলাররা। এ কারনে বিচ্ছিন্ন দু’একটি আক্রমন ছাড়া বলার মতো সুযোগ তৈরী করতে পারেনি কোনো দল। ফলে প্রথমার্ধের এক গোলেই ফয়সালা হয়েছে ম্যাচের জয় পরাজয়।

কোয়ার্টার ফাইনালের লাইনআপ:

তারিখ দল সময়

২৪-০৫-১৭ শেখ জামালÑ মোহামেডান ৫.৩০ মিনিট
২৫-০৫-১৭ চট্টগ্রাম আবাহনীÑশেখ রাসেল ৫.৩০ মিনিট
২৬-০৫-১৭ আবাহনীÑব্রাদার্স ৫.৩০ মিনিট
২৭-০৫-১৭ রহমতগঞ্জÑমুক্তিযোদ্ধা ৫.৩০ মিনিট

ভৈরবে ফুটবল প্রশিক্ষণ সমাপ্ত

তৃণমূল পর্যায়ে ফুটবলের উন্নয়নের জন্য প্রত্যেক জেলায় মাসব্যাপি প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধিনে থাকা ক্রীড়া পরিদপ্তর। কিশোরগঞ্জ জেলায় এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয় ভৈরব উপজেলার শ্রীনগর উচ্চ বিদ্যালয়ে। মোহাম্মদ নান্নু মিয়ার তত্বাবধানে এই প্রশিক্ষণ শুরু হয় ৩ এপ্রিল। যেখানে অংশ নিয়েছে তিনটি স্কুলের ৩০ জন প্রতিভাবান খেলোয়াড়। মাসব্যাপি প্রশিক্ষণের সমাপনি অনুষ্ঠানে খেলোয়াড়দের মাঝে সনদ এবং জার্সি তুলে দেন হাজী মো: ফুল মিয়া। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন শ্রীনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেন। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন কিশোরগঞ্জ জেলা ক্রীড়া অফিসার আল আমিন সবুজ। ৩০ জন অংশগ্রহণকারী থেকে সেরা প্রতিবাভান খেলোয়াড় হিসেবে নির্বাচিত হন শ্রীনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের রাজিব হোসেন।