রাত ১০:২৫, শুক্রবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট

ইউরোপ সেরার পুরস্কার গোল্ডেন শু জিতলেন লিওনেল মেসি। আজ শুক্রবার সেটা আনুষ্ঠানিকভাবে বার্সেলোনার এই ফরোয়ার্ডের হাতে তুলে দেয়া হয়। এই নিয়ে চারবার গোল্ডেন শু জিতলেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। লা লিগায় গত মৌসুমে ৩৪ ম্যাচে ৩৭ গোল করে চতুর্থবারের মতো পুরস্কারটি জিতে নেন মেসি। এতে তিনি রিয়াল মাদ্রিদের ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর রেকর্ডে ভাগ বসালেন।

এর আগে ২০১০, ২০১২ ও ২০১৩ সালে মহাদেশীয় এই গোল্ডেন শু জেতেন মেসি। এবার এটি নিজের করে নেওয়ার লড়াইয়ে ঘরোয়া শীর্ষ লিগে গোলের তালিকায় পেছনে ফেলেন স্পোর্তিংয়ের স্ট্রাইকার বাস দাস্তকে। পর্তুগালের শীর্ষ লিগে নেদারল্যান্ডসের এই খেলোয়াড় গত মৌসুমে গোল করেন ৩৪টি।

২০০৮, ২০১১, ২০১৪ ও ২০১৬ সালে গোল্ডেন শু জেতা রোনালদো গত মৌসুমে স্পেনের শীর্ষ লিগে করেন ২৫ গোল। জায়গা হয়নি এই তালিকার শীর্ষ পাঁচে। গত নয় বছরে এই পুরস্কার জিতেছেন- মেসি, রোনালদো এবং সুয়ারেজ। ইউরোপিয়ান স্পোর্টস মিডিয়া প্রতিবছর এই গোল্ডেন শু পুরস্কার দিয়ে থাকে।

নতুন গাড়ি পেলেন রোনালদোরা

বিলাসবহুল নতুন অডি গাড়ি পেলেন রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড়রা। পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো নিয়েছেন সবচেয়ে চকচকে গিড়িটি। স্পন্সরশীপের চুক্তি অনুযায়ী বিলাসবহুল গাড়ি প্রস্তুতকারী জার্মান কোম্পানি অডি খেলোয়াড়দের গাড়ি উপহার দেয়।

রোনালদোর প্যান্থার ব্ল্যাক-৭ নামের স্পোর্টস কারটি আপনি যদি কিনতে চান তবে তার জন্য ব্যয় করতে হবে দেড় লাখ পাউন্ড। গত মঙ্গলবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অ্যাপোয়েলকে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করা ম্যাচে নিজে দুই গোল দিয়েছিলেন রোনালদো। আর তার পরই পেলেন অডি গাড়ি পা‌ওযার খবর।

এদিকে রিয়াল মাদ্রিদের ম্যানেজার জিনেদিন জিদান‌ও একটি গাড়ি পেয়েছেন সেটি‌ও দেখতে রোনালদোর গাড়িটির মতোই। তবে আলাদা ব্র্যান্ড।

রবিনহো’র নয় বছরের জেল

এক নারীকে যৌন নির্যাতন করার অপরাধে ব্রাজিলের সাবেক তারকা ফুটবলার রিবনহোকে নয় বছরের কারাদন্ড দিয়েছে ইতালির আদালত।সেদেশের সংবাদ সংস্থা এএনএসএ এ কথা জানিয়েছে।

২০১৩ সালের ২২ জানুয়ারী মিলানের একটি নাইট ক্লাবে(রবিনহো তখন এসি মিলানের পক্ষে খেলতেন) আর‌ও ৫ জন পুরুষকে নিয়ে ২২ বছর বয়সী এক নারীকে যৌন নির্যাতন করেন।

তবে এজেন্ট ও আইনজীবী মারিসা আলিজা রামোস জানান, রবিনহো এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন। তিনি আর‌ও জানান যে তার ক্লায়েন্ট এই ঘটনার কোনো অংশের সাথেই জড়িত নন।

সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ এবং ম্যানচেষ্টার সিটি তারকা রবিনহো বর্তমানে অ্যাটলেটিকো মিনেরোর জন্য নিজের দেশ ব্রাজিলেই খেলছেন। এবং জাতীয় দলের হয়ে ১০০ ম্যাচে মাঠে নেমে ২৮ গোল করেন তিনি।

জামালের কাছে আবার‌ও রাসেলের পরাজয়

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের কাছে আবার‌ও হেরেছে রাসেল ক্রীড়া চক্র। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচে ২-১ গোলে জিতেছে মাহবুব হোসেন রক্সির শেখ জামাল। প্রথম পর্বেও একই ব্যবধানে জিতেছিল ২০১৫ সালের লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার রাতে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে পাওয়া সুযোগ কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় শেখ জামাল। ইয়াসিন খানের কাছ থেকে বল পেয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড রাফায়েল ওডোইন।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে ম্যাচে জাকি সারহানের গোলে সমতায় ফেরে আগের ম্যাচে ব্রাদার্স ইউনিয়নের কাছে হেরে আসা শেখ রাসেল।

গোলরক্ষক মাকসুদুর রহমানের ভুলে ৫৩তম মিনিটে ফের এগিয়ে যায় আগের তিন লিগ ম্যাচ জেতা শেখ জামাল। ডান দিক থেকে জাহেদ পারভেজ চৌধুরীর বাঁকানো কর্নার গোলরক্ষক ঠিকঠাক পাঞ্চ করতে ব্যর্থ হওয়ায় বল জড়ায় জালে।

এই জয়ে ১৪ ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে শেখ জামাল। ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চট্টগ্রাম আবাহনী। পঞ্চম হারের স্বাদ পাওয়া শেখ রাসেল ১৯ পয়েন্ট নিয়ে আছে পঞ্চম স্থানে।

এদিকে বৃহস্পতিবার প্রথম ম্যাচে সিও জুনাপিওর জোড়া গোলে রহমতগঞ্জকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন।

শীর্ষেই জার্মানি চারধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি। এরপরই আছে পাঁচবারের বিশ্বকাপ জয়ী ব্রাজিল। কাল বৃহস্পতিবার সবশেষ প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ের প্রথম পাঁচটি স্থানে কোনো বদল হয়নি। ব্রাজিলের পরের তিনটি স্থানে যথাক্রমে আছে পর্তুগাল, আর্জেন্টিনা ও বেলজিয়াম। এদিকে, চারধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ।

দুই ধাপ এগিয়ে ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে ২০১০ সালের বিশ্বকাপ জয়ী স্পেন। এক ধাপ নেমে সপ্তম স্থানে পোল্যান্ড। আর তিন ধাপ এগিয়ে অষ্টম স্থানে উঠেছে গত সপ্তাহে বাছাইপর্বের প্লে-অফে নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপে ওঠা সুইজারল্যান্ড।

তবে নেমেছে ফ্রান্স ও চিলি। দুই ধাপ নেমে নবম স্থানে ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ীরা আর এক ধাপ নেমে দশম স্থানে আছে রাশিয়া বিশ্বকাপে উঠতে ব্যর্থ হওয়া চিলি।
এদিকে, ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে গত মাসেই ১৯৬তম স্থানে ছিলো বাংলাদেশ। তবে এবারকার র‌্যাঙ্কিংয়ে চারধাপ এগিয়ে ১৯২তম স্থানে উঠে এসেছে লাল-সবুজ পতাকাধারীরা। যৌথভাবে ১৯২তম স্থানে বাংলাদেশের সঙ্গে আছে, কুক আইল্যান্ড, সামোয়া এবং আমেরিকান সামোয়া।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে বার্সেলোনা

জুভেন্টাসের মাঠে গিয়ে এবারও জয় পাওয়া হলো না বার্সেলোনার। তবে তাদের সাথে গোলশূণ্য ড্র করেও একম্যাচ হাতে রেখেই উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্ব নিশ্চিত করেছে বার্সা। দিনের অন্যান্য ম্যাচে, পিএসজি ও চেলসি বড় জয় পেলেও হেরে গেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

গেলো বছর এই জুভেন্টাসের কাছে হেরে কোয়ার্টার ফাইনালেই থেমেছিলো বার্সেলোনার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিশন। রীতিমত প্রতিশোধের লক্ষ্যেই তুরিনোর মাঠে নেমেছিলো আর্নেস্টো ভালভারদের শিষ্যরা।

শুরু থেকেই বলের দখলে এগিয়ে থাকলেও খুব বেশি আক্রমণ করে উঠতে পারেনি বার্সা। জিয়ানলুইজি বুফনের পরীক্ষাই তারা নিতে পেরেছে গোটা ম্যাচে মাত্র একবার। তুলনায় অন্তত চারবার ভালো সুযোগ তৈরি করেও গোল পায়নি ইতালিয়ানরা। তাতে গোলশূণ্য ড্র দিয়ে পরের রাউন্ডে খেলা অন্তত নিশ্চিত হয় লিওনেল মেসিদের।

এদিকে, দিনের অন্যম্যাচে, ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার ও উরুগুয়ের তারকা এডিনসন কাভানির জোড়া গোলে সেল্টিককে ৭-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই। তবে সুইস ক্লাব বাসেলের বিপক্ষে ৬৮ ভাগ বলের দখল ধরে রেখে আর একের পর এক আক্রমণের পরও সুযোগ কাজে লাগাতে না পারার মাশুলে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে।

বড় জয় দিয়ে সি গ্র“প থেকে চেলসি নকআউট পর্ব নিশ্চিত করলেও রোমাকে ২-০ গোলে হারিয়ে পরের রাউন্ডের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে গেলোবারের সেমিফাইনালিস্ট অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে রিয়াল মাদ্রিদ

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও করিম বেনজেমার জোড়া গোলে অ্যাপোয়েল নিকোশিয়াকে ৬-০ তে বিধ্বস্ত করে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্ব নিশ্চিত করলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ন, রিয়াল মাদ্রিদ। অন্য ম্যাচে, রহিম স্টার্লিংয়ের একমাত্র গোলে এফ গ্র“পের শীর্ষস্থান ধরে রাখলো ম্যানচেস্টার সিটি। তবে তিন গোলে এগিয়ে গিয়েও সেভিয়ার সাথে ড্র করে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করতে পারেনি লিভারপুল।

অ্যাপোয়েলের মাঠে এ ম্যাচ জিতলেই নকআউট পর্বে খেলা নিশ্চিত। এমন সমীকরণে, শুরু থেকেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ ছিলো রিয়ালের হাতে। ২৩ মিনিটে তাদের গোল উৎসব শুরু করেন ক্রোয়েশিয়ান তারকা লুকা মদ্রিচ। বিরতির আগেই করিম বেনজেমার জোড়া গোলের সাথে ফার্নান্দেজ নাচোর লক্ষ্যভেদে জয় নিশ্চিত হয় স্প্যানিশ জায়ান্টদের।

বিরতির পর খেলার আকর্ষণ ছিলেন পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ৪৯ মিনিটে মার্সেলো আর ৫৪ মিনিটে বেনজেমার ক্রস থেকে পরপর দু’টি গোল করে কেবল দলের বড় জয়ই নিশ্চিত করেননি, বরং প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে এক পঞ্জিকা বছরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডও নিজের করে নেন রোনালদো। ২০১৭ সালে এই টুর্নামেন্টে এ পর্যন্ত ১৮ গোল করেছেন পাঁচবারের বিশ্বসেরা তারকা।

তবে গত দু’বারের চ্যাম্পিয়নরা এইচ গ্র“পের দ্বিতীয় দল হিসেবে পরের রাউন্ডে খেলবে। কারণ দিনের অন্য ম্যাচে, বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে শীর্ষস্থান নিশ্চিত করেছে টটেনহ্যাম।

এদিকে, প্রথমার্ধেই রবার্তো ফারমিনোর জোড়া গোল আর সাদিও মানের লক্ষ্যভেদে সেভিয়ার বিপক্ষে তিন গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল। তবে, দ্বিতীয়ার্ধে তিনটি গোলই শোধ করে ম্যাচ ড্র করে স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়া। তাতে, এখন পর্যন্ত ই গ্র“প থেকে নকআউট পর্ব নিশ্চিত হয়নি কোন দলেরই।

টানা চার ম্যাচ জিতে আগেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত করা পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি পঞ্চম ম্যাচেও জয় পেয়েছে। ৮৮ মিনিটে রাহিম স্টার্লিংয়ের গোলে ফেইনুর্ডের বিপক্ষে জিতে গ্রুপের শীর্ষস্থান পাকা করে তারা।

উয়েফার শতাব্দীর সেরা একাদশ

ইউনিয়ন অব ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনস-উয়েফার শতাব্দীর সেরা একাদশে বার্সেলোনার ছয়জন খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন। আরেক স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদের রয়েছে ৩ জন। বাকি দুজনের একজন লিভারপুলে দীর্ঘদিন খেলে এলএ গ্যালাক্সিতে যোগ দেওয়া স্টিভেন জেরার্ড। অন্যজন বায়ার্ন মিউনিখ থেকে ধারে স্টুটগার্টে খেলতে যাওয়া ফিলিপ লাম। সেরা একাদশে ফরোয়ার্ড হিসেবে আছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসি। গোলরক্ষক হিসেবে আছেন রিয়াল মাদ্রিদের প্রাক্তন গোলরক্ষক (বর্তমানে পর্তুগালের ক্লাব পোর্তো এর হয়ে খেলা) ইকার ক্যাসিয়াস।

উয়েফার শতাব্দী সেরা একাদশ

 

১. ইকার ক্যাসিয়াস (রিয়াল)
২. সার্জিও রামোস (রিয়াল)
৩. জেরার্ড পিকে (বার্সা)
৪. কার্লোস পুয়োল (বার্সা)
৫. ফিলিপ লাম (বায়ার্ন)
৬. জাভি (বার্সা)
৭. আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা (বার্সা)
৮. স্টিভেন জেরার্ড (লিভারপুল)
৯. থিয়েরি অঁরি (বার্সা)
১০. লিওনেল মেসি (বার্সা)
১১. ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (রিয়াল)।

রোনালদো উয়েফার বর্ষসেরা একাদশে ১১ বার স্থান পেয়েছেন। অন্যদিকে মেসি পেয়েছেন ৮ বার। ৬ বার করে স্থান পেয়েছেন ক্যাসিয়াস, পুয়োল, রামোস ও ইনিয়েস্তা।

এবার আর পারলো না সাইফ স্পোর্টিং

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বে নবাগত সাইফ স্পোর্টিংকে রুখে দিয়েছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। বঙ্গবন্ধধু জাতীয় স্টেডিযামে, খেলাটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে। অবশ্য এই দুদলের লিগের প্রথম পর্বে ১-০ গোলে জিতেছিল সাইফ স্পোর্টিং।

টানা দুই ম্যাচের আত্মবিশ্বাস নিয়ে সোমবার খেলতে নামা সাইফ স্পোর্টিংয়ের প্রথমার্ধের খেলায় ছিল না কোনো পরিকল্পনা। তুলনামূলক গোছালো ফুটবল খেলে আরামবাগ।

গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধের শেষ দিকে সাইফ গুছিয়ে উঠলেও গোলের নাগাল পায়নি। ৮০ মিনিটে শেরিংহ্যামের হেড লক্ষ্যে থাকেনি। দুই মিনিট পর বাঁ দিক থেকে জুয়েলের ক্রস গোলরক্ষক ফেরানোর পর ডি-বক্সের জটলার মধ্যে থেকে মতিন মিয়ার নেওয়া শট গোললাইন থেকে ফেরান ক্যামেরুনের মিডফিল্ডার ইকাঙ্গা। শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়ে দুদল।

এতে ১৩ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে সাইফ স্পোর্টিং। নবম স্থানে থাকা আরামবাগের সংগ্রহ ১১ পয়েন্ট।

ব্রাদার্সে ধরাশায়ী শেখ রাসেল

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের দ্বিতীয় পর্বে শেখ রাসেলকে ১-০ গোলে হারিয়ে দিয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। অবশ্য প্রথম পর্বে গোলশূন্য ড্রয়ে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে রুখে দিয়েছিল ব্রাদার্স।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ রোববার সিও জুনাপিওর একমাত্র গোলে ১-০ ব্যবধানে টানা সাত ম্যাচ অপরাজিত থাকা শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে হারিয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। গত অগাস্টে আবাহনী লিমিটেডের কাছে সবশেষ ম্যাচে হেরেছিল শেখ রাসেল।

লিগে টানা দুই জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে খেলতে নামা শেখ রাসেলের খেলায় গতি থাকলেও আক্রমণে ধার ছিল না। ব্রাদার্স ইউনিয়নও নিজেদের মেলে ধরতে না পারায় গোলশূন্যভাবে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।

দ্বিতীয়ার্ধে পাওয়া প্রথম সুযোগটি কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় ব্রাদার্স। ৭৬ মিনিটে মাঝমাঠের বাঁ দিক থেকে এনামুল হকের লম্বা করে বাড়ানো বলে জুনাপিওর হেড খুঁজে পায় জালের ঠিকানা।

জুনাপিওর গোলেই গত অগাস্টে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে হারানোর পর দ্বিতীয় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাদার্স। ১৩ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ১২ দলের মধ্যে দশম স্থানে আছে তারা। ১৯ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে শেখ রাসেল।

জয়ের ধারা অব্যাহত শেখ জামালের

দীর্ঘদিনের কোচ চলে যা‌ওয়াতে‌ও কোনো প্রভাব পড়েনি খেলায়। মাহবুব হোসের রক্সির অধীনে যেনো আরো উজ্জীবিত শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। জয়ের ধারা ধরে রেখেছে তারা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বে টিম বিজেএমসিকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে শেখ জামাল।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ রোববার গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর, দ্বিতীয়ার্ধে শেখ জামালের আক্রমণে ধার বাড়ে। ৫৩ মিনিটে ডান দিক থেকে খান তারার বাড়ানো ক্রসে নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড ওদোইন গোল করে দলকে এগিয়ে দেন।

৬১ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় রক্সির দল। জাহেদ পারভেজের ছোট পাস ধরে সলোমন কিংয়ের বাড়ানো ক্রস নিখুঁত প্লেসিং শটে জালে জড়িয়ে দেন ওদোইন।

৮২ মিনিটে নিজেদরর নবম জয় নিশ্চিত করে শেখ জামাল। প্রায় মাঝমাঠ থেকে শিমুলের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে আক্রমণে ওঠেন সলোমন। পোস্ট থেকে বিজেএমসি’র গোলকিপার হিমেলের বেরিয়ে আসার সুযোগ লাগিয়ে দারুণ এক গোল করেন, গাম্বিয়ার এই ফরোয়ার্ড সলোমন।

এই জয়ে ১৩ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে শেখ জামাল। পঞ্চম হারের স্বাদ পাওয়া বিজেএমসি ১৬ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে। আর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা চট্টগ্রাম আবাহনীর সংগ্রহ ৩২ পয়েন্ট।

জিততে ভুলে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ

মাদ্রিদ ডার্বিতে রিয়াল ও অ্যাথলেটিকোর মধ্যকার কোন দলই জিততে পারেনি। শনিবার রাতে ওয়ান্ডা মেট্রোপোলিটানোতে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হওয়ায় দুটি দলই টেবিলের শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার থেকে ১০ পয়েন্ট পিছিয়ে গেছে।

এর আগে দিনের শুরুতে লুইস সুয়ারেজের দুই গোলে বার্সেলোনা ৩-০ গোলে লেগানেসকে পরাজিত করে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখে। পাঁচ ম্যাচের গোলখরা কাটিয়ে শেষ পর্যন্ত উরুগুয়ের তারকা সুয়ারেজ গোলের দেখা‌ও পান।

এবারের মৌসুমে দুই মাদ্রিদই গোলবারের সামনে বারবার ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। খেলা শুরুর তিন মিনিটের মধ্যেই অ্যাথলেটিকোকে দারুন একটি গোলের সুযোগ থেকে বঞ্চিত করেন এঞ্জেল কোরেয়া।

অন্যদিকে রিয়ালের প্রথম সুযোগটা আসে কাউন্টার এ্যাটাক থেকে। কিন্তু ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর পা ঘুরে আসা বল থেকে লুকা মড্রিচ কোন সুখবর দিতে পারেননি।
খেলার বাকী সময়টাতে‌ও কোনো দল ভালো সুযোগ পাযনি। কিংবা বলা যায় গোল করতে না পারায় পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়ে রিয়াল মাদ্রিদ ‌ও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ।

জিতেই চলেছে বার্সেলোনা

জিতেই চলেছে বার্সেলোনা। লুইস সুয়ারেজ‌ও ফিরেছেন গোলের মাঝে। তাতে শনিবার বার্সেলোনা ৩-০ ব্যবধানে হারায় লেগানেসকে। দুটি গোল করেন সুয়ারেজ আর একটি করেন পাওলিনহো।

তবে প্রথম গোল পেতে তাদের অপেক্ষায় থাকতে হয় ২৮ মিনিট পর্যন্ত। পাকো আলকাসেরের ক্রস ঠিকমতো ঠেকাতে পারননি লেগানেসের গোলকিপার। ফিরতি বল জালে জড়িয়ে কাতালানদের এগিয়ে দেন সুয়ারেস।

সমতা ফেরানোর সুযোগ‌ও ছিলো লেগানেসের। কিন্তু কখনো বার্সা গোলরক্ষক টের স্টেগান আবার কখনো লেগানেসের ফরোয়ার্ডরা ব্যর্থ হলে সমতা আনা হযনি তাদের।

উল্টো ৬০ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সুয়ারেজ। এবারও স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড আলকাসেরের শট গোলরক্ষক ঠেকালে, ফিরতি শটে দলের এবং নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন সুয়ারেজ।

৮৯ মিনিটে লি‌ওনেল মেসির কাছ থেকে বল পেয়ে বদলি খেলোয়াড় পাওলিনহো দলকে ৩-০ ব্যবধানে এগিযে দেন। এই জয়ে ১২ ম্যাচে ৩৪ পয়েন্ট ।

পরাজয় পিছু ছাড়ছেনা মোহামেডানের

পরাজয় পিছু যেনো ছাড়ছেনা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বেও চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে হেরেছে মোহামেডান। এবার তাদের হার ১-০ গোলে। এ নিয়ে লিগ ও ফেডারেশন কাপ মিলিয়ে চট্টগ্রামের দলটির কাছে টানা পাঁচ ম্যাচ হারলো মোহামেডান।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শনিবার ম্যাচের ১১ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত চট্টগ্রাম আবাহনী। ডান দিক থেকে মামুনুল ইসলামের ফ্রি কিকে জাহিদের হোসেনের হেড গোলরক্ষকের গ্লাভসে জমা পড়ে।

পরের মিনিটের সুযোগ আর নষ্ট করেনি চট্টগ্রামের দলটি। মামুনুলের থ্রু পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান দিক থেকে লিওনেল সেইন্ট প্রিয়াক্সের বাড়ানো আড়াআড়ি ক্রস আলতো টোকায় জালে জড়িয়ে দেন জাহিদ। চলতি লিগে জাতীয় দলের এই ফরোয়ার্ডের এটি তৃতীয় গোল।

এরপর ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করে‌ও সফল হয়নি মোহামেডান। দ্বিতীয়ার্ধে‌ও কোনো দল গোলের দেখা না পেলে এক গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে চট্টগ্রামের দলটি।

এতে ১৩ ম্যাচে দশ জয়ে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান আরও শক্ত করলো চট্টগ্রাম আবাহনী। আর সমান ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে মোহামেডান আছে ষষ্ঠ স্থানে।

মাদ্রিদ ডার্বিতে মুখোমুখি রিয়াল-অ্যাথলেটিকো

আন্তর্জাতিক ফুটবলের বিরতি শেষে আবার মাঠে গড়াচ্ছে স্প্যানিশ লিগ। এ দিন মৌসুমের প্রথম মাদ্রিদ ডার্বিতে মুখোমুখি হচ্ছে দুই জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় আজ রাত পৌনে দুইটায়।

অ্যাথলেটিকোর নতুন মাঠ ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানো উৎসবের আমেজ। চলতি মৌসুমে নিজেদের মাঠ হেসেবে ব্যবহার করা এ মাঠেই প্রথম ডার্বি ম্যাচ। তাই জয় দিয়ে অভিষেক ম্যাচটা স্মরণীয় করে রাখতে চায় অ্যাতলেটিকো।

 

চলতি মৌসুমটা খুব একটা ভাল যাচ্ছে না বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের। লিগে ১১ ম্যাচ শেষে ৭ জয়ে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে লস ব্লাঙ্কোস। জিরোনা ও রিয়াল বেতিসের মত দলের কাছে হেরে বেশ ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়েছে জিদানের দলকে। গোল পাচ্ছেন না দলের সেরা তারকা রোনালদো।

এ ম্যাচের আগে রিয়ালের জন্য সুখবর হল আন্তর্জাতিক ম্যাচে ইনজুরিতে পড়া ড্যানি কারবাহাল ফিরছেন এ ম্যাচে। অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন ইস্কো ও কোভাচিচ। এছাড়াও ফিরছেন বেনজেমা।

প্রতিপক্ষ অ্যাথলেটিকোও যাচ্ছে নানা সমস্যা মধ্যে দিয়ে। ফুটবলার কেনাবেচায় নিষেধাজ্ঞায় দলে আসছে না নতুন মুখ। পুরোনোদের অফ ফর্মেও তাই তাদের ওপর বাড়ছে নির্ভরতা। আঁতোয়া গ্রিজম্যানের জ্বলে উঠতে না পারায় চিন্তায় আছেন সিমিওনে। এছাড়াও লিগে ১১ ম্যাচে মাত্র ৬টিতে জয় পেয়েছে রোজি ব্লাঙ্কোস। ৫ ড্র'য়ে তিক্ত সিমিওনে তাই এ ম্যাচ দিয়েই আবারো ফিরতে চান জয়ের ছন্দে। ইনজুরি আছে কোকে ও ফিলিপে লুইজের।

১৯২৮ সালে শুরু হয়ে এখনও একটুও রং হারায়নি রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের মধ্যেকার এই রোমাঞ্চকর দ্বৈরথ। এল ক্লাসিকোর মত এতটা জনপ্রিয় না হলেও দুই জায়ান্টের এ লড়াই সমর্থকদের হৃদয়ে তৈরি করে নিয়েছে আলাদা স্থান।

দু'দলের শেষ ডার্বি ছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে। প্রথম লেগে রিয়াল জিতলেও, ফিরতি লেগে জয়ের হাসি হেসেছিল অ্যাথলেটিকো। দুই লেগ মিলিয়ে শেষ পর্যন্ত ৪-২ গোলের জয় পায় রিয়ালই। তবে এখন পর্যন্ত সব ধরণের প্রতিযোগিতায় মোট ২১৭ টি মাদ্রিদ ডার্বিতে মুখোমুখি হয়েছে দু'দল। এর মধ্যে রিয়াল জিতেছে ১০৯ টি তে। অ্যাথলেটিকোর জয় আছে ৫৫ টি। ড্র হয়েছে ৫৩ টি ম্যাচ।

 

আইএসএলের জমজমাট উদ্বোধন

বলিউডের বিখ্যাত জুটি সলমন-ক্যাটরিনার নাচের মধ্য দিয়ে বেশ জাঁকজমকপূর্ণভাবে শুরু হল ইন্ডিয়ান সুপার লিগ-আইএসএলের এবারের আসর। অবশ্য ফুটবলপ্রেমীরা আগেই জেনে গিয়েছিলেন কারা কারা উপস্থিত থাকছেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। আর তা চাক্ষুষ করতেই কোচি স্টেডিয়াম হাউসফুল।

শুধু যে সলমন-ক্যাটরিনা মঞ্চ মাতালেন তা কিন্তু নয়। কেরল ব্লাস্টার্সের মালিক শচীন তেণ্ডুলকরও মাতিয়ে দিলেন দর্শকদের। না নাচে-গানে নয়, মাস্টার ব্লাস্টারের উপস্থিতিই যথেষ্ট। কেরলের অধিনায়ক সন্দেশ ঝিঙ্ঘনকে সঙ্গে নিয়ে মাঠে প্রবেশ করতেই গোটা গ্যালারি ফেটে পড়ে ‘স্যা-চি-ন, স্যা-চি-ন’ ধ্বনিতে। তবে এর আগে বিগ বি, রজনীকান্ত, বরুণ ধাওয়ান, অভিষেক বচ্চন, রণবীর কাপুর, হৃত্বিক রোশন, অর্জুন কাপুর, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন, আলিয়া ভাট, অনুষ্কা শর্মাদের দেখা গিয়েছে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের মঞ্চে। কিন্তু কখনও দেখা যায়নি সলমন-ক্যাটরিনাকে। তাও আবার একসঙ্গে। এই জুটিই শুক্রবার মাতিয়ে রাখলেন উদ্বোধনের মঞ্চ। এই প্রথম আইএসএল হচ্ছে ১০টি দল নিয়ে। গত তিনবার যোগ দেওয়া দলের সংখ্যা ছিল আট। ৭০ দিনের মধ্যেই শেষ হয়ে যেত ৬১টি ম্যাচ। এবার সেখানে লিগ চলবে পাঁচ মাস। শুধু লিগের খেলাই হবে ৯০টি। সময়সীমা বেড়ে যাওয়ায় অনেকে মনে করছেন এতে উপকৃত হবে ভারতীয় ফুটবল। এদিন উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি গতবারের চ্যাম্পিয়ন অ্যাটলেটিকো দি কলকাতা এবং রানার আপ কেরল ব্লাস্টার্স।। কিন্তু গোলশূন্য ভাবেই শেষ হয় গতবারের দুই ফাইনালিস্টের লড়াই।

সেই সঙ্গে অবশ্যই ছিল সল্লু ভাইয়ের দুর্দান্ত সঞ্চালনা, যা তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করলেন দর্শকরা। পরে মঞ্চে আসেন রিলায়েন্সের মালকিন নীতা অাম্বানি। ছিলেন মালয়ালম সুপারস্টার মামুত্তি। তাঁদের প্রত্যেকের বক্তব্যের নির্যাস ছিল একটাই, ভারতের ভবিষ্যত ফুটবল।

বিশ্বকাপের ড্র উপস্থাপনায় লিনেকার

রাশিয়া বিশ্বকাপের ড্র অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করবেন ইংলিশ ফুটবল লিজেন্ড গ্যারি লিনেকার এবং রাশিয়ার ক্রীড়া সাংবাদিক মারিয়া কোমান্ডনায়া। আগামী ১ ডিসেম্বর ক্রেমলিনের প্রাসাদে হবে বিশ্বকাপ ফুটবলের ড্র।

১৯৮৬ সালে মেক্সিকো বিশ্বকাপে ‘গোল্ডেন বুট’ পা‌ওয়া গ্যারি লিনেকারকে সহায়তা করার জন্য থাকবেন আরো আটজন সাহায্যকারী। তাদের একজন হলেন রাশিয়ার ফুটবলের জীবন্ত কিংবদন্তি নিকিতা সিমোনিয়ান। বাকী সাতজনের নাম এখন‌ও প্রকাশ করা হয়নি। ধীরে ধীরে তা প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে।
বিশ্বকাপের ড্র অনুষ্ঠান উপস্থাপনা সম্পর্কে গ্যারি লিনেকার বলেন, `একজন খেলোয়াড় হিসেবে, দু’বার বিশ্বকাপের ফাইনাল রাউন্ডে অংশ নিতে পারায় একজন খেলোয়াড় হিসেবে আমি ভাগ্যবান। এবার বিশ্বকাপের আরো একটি পর্যায়- পর্যায়ক্রমে ড্র এর ফলাফল উন্মোচন করা হবে। আর প্রতিপক্ষের স্বরূপ উন্মোচন হবে। বিষযটি দারূণ এক উত্তেজনার।’

মারিয়া কোমান্ডনায়া বলেন, অসাধারণ এক সময়ে ড্র হচ্ছে, বিশ্বকাপ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হওয়ার আগে লক্ষ লক্ষ ভক্তরা তাদের স্বপ্ন ধরে রেখেছে, আর এই ড্রতেই তাদের স্বপ্ন সত্যি হবে।’

তিনি আরো বলেন, `আমি বিশ্বাস করি যে ফুটবল একটি সার্বজনীন ভাষা, যা সারা বিশ্বের মানুষকে একসঙ্গে আনতে পারে। আমি ভক্তদের জানাতে চাই যে, আমার দেশ কতটা সুন্দর এবং আমরা বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য কতটা উত্তেজিত হয়েছি। আমরা কি করি এবং ফুটবল সম্পর্কে এতটাই উত্সাহী। আমার বিশ্বাস, এটা সত্যিই অসাধারণ ঘটনা হবে।’

বিশ্বকাপের টিকিটের দাম

রাশিয়া বিশ্বকাপের ৩২ দলের লাইনআপ ঠিক হয়ে গেছে। আগামী ১ ডিসেম্বর মস্কোর ক্রেমলিনে হবে চূড়ান্ত পর্বের ড্র অনুষ্ঠান। গত সেপ্টেম্বর মাসের ১৪ তারিখ থেকে বিক্রি শুরু হয়েছে বিশ্বকাপের টিকিটের। বেশির ভাগ টিকিট বিক্রি শেষ হয়ে গেছে ইতোমধ্যেই। তবে যা কিছু টিকিট এখন‌ও অবশিষ্ট আছে তা পা‌ওয়া যাবে FIFA.com/tickets -এ।

বিশ্বকাপের টিকিটের দাম রাখা হয়েছে বেশ চড়া। তবে রাশান নাগরিকদের জন্য অল্প দামই রাখা হয় এই সব টিকিটের।ক্যাটাগোরি চারের টিকিট শুধুমাত্র রাশিয়ান নাগরিকদের কাছে বিক্রি করার জন্যই রাখা হয়েছে। আর তুলনামূলকভাবে এই টিকিটগুলোর দামই সবচেয়ে কম। সে যাই হোক, প্রথম পর্বের টিকিট বিক্রি শেষ গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়ে গেছে দ্বিতীয় পর্বের টিকিট বিক্রি। চলবে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

সংখায় বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব

রাশিয়া বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বেও ৩২ দলে জায়গা করে নিতে মোট ৮৭১টি ম্যাচ খেলতে হয়েছে দলগুলোকে। এই দলগুলোর মধ্যে আবার চারটি এবারই প্রথম খেলে বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব। বিশ্বকাপ জয়ী দলের মধ্যে একমাত্র ইটালিই রাশিয়া বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে ব্যর্থ হয়। এবার আরো জেনে নিচ্ছি ২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের কিছু পরিসংখ্যান।

২০৯ টি দল বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের খেলায় অংশ নিয়েছিলো। এটা তো এখন সবারই জানা কোন্ ৩১টি দল চূড়ান্ত পর্বের উন্নীত হয়েছে। রাশিয়া স্বাগতিক হিসেবে সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পায়।

বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে দারুণ এক রেকর্ড গড়েছে স্পেন। তারা ৬৩টি ম্যাচে অপরাজিত থেকে এই রেকর্ডের মালিক হয়। ৩৬ ম্যাচে অপরাজিত থেকে তাদের পরেই আছে স্পেন।

২০১৮ বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব খেলে চারটি নতুন দল। সেগুলো হলো- ভূটান, জিব্রালটার, কসভো এবং দক্ষিণ সুদান।

আগের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মধ্যে ৭টি দল এবার বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে উঠেছে। তারা হলো- ব্রাজিল, জার্মানি, ফ্রান্স, স্পেন, উরুগুয়ে, আর্জেন্টিনা এবং ইংল্যান্ড। একমাত্র ইটালিই বাছাই পর্ব থেকে বিদায় নেয়।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে মোট গোল হয়েছে ২৪৫৭টি। তবে প্রথম গোল করে কিয়েটো, পূর্ব তিমুরের হয়ে। তবে সেই ম্যাচে তারা ৪-১ গোলে হেরেছিলো মঙ্গোলিয়ার কাছে। আর বাছাই পর্বের শেষ গোলটি করেন পেরুর ক্রিস্টিয়ান রামোস, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। সেই ম্যাচে ২-০ গোলে জিতে পেরু শেষ দল হিসেবে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে জায়গা পায়।

বিশ্বকাপ ফুটবলের ৩২ দল

৩২তম দল হিসেবে রাশিয়া বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ পেরু। এখন চূড়ান্ত ড্রয়ের অপেক্ষা। আগামী ১ ডিসেম্বর হবে রাশিয়া বিশ্বকাপের চূড়ান্ত ড্র। বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বের টিকিট পাওয়া দলগুলোকে চারটি পটে রেখে হবে ড্র অনুষ্ঠান, এই বিষয়টি গত সেপ্টেম্বর মাসেই ঠিক করা হয়েছিলো। গত অক্টোবর মাসের ফিফা র‌্যাংকিংয়ে সেরা দলগুলো র‌্যাংকিং বিবেচনায় স্থান পাবে।

প্রথম পটে থাকবে স্বাগতিক রাশিয়া, আগেরবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি, ব্রাজিল, পর্তুগাল, আর্জেন্টিনা, বেলজিয়াম, পোল্যান্ড ও ফ্রান্স। দ্বিতীয় পটে রাখা হবে- স্পেন, পেরু, সুইজারল্যান্ড, ইংল্যান্ড, কলম্বিয়া, মেক্সিকো, উরুগুয়ে ও ক্রোয়েশিয়া। তৃতীয় পটে থাকবে- ডেনমার্ক, আইসল্যান্ড, কোস্টারিকা, সুইডেন, তিউনিসিয়া, মিশর, সেনেগাল ও ইরান। আর চতুর্থ পটে থাকছে-সার্বিয়া, নাইজেরিয়া, অস্ট্রেলিয়া, মরক্কো, পানাম, দক্ষিণ কোরিয়া ও সৌদি আরব।

৩২তম দল হিসেবে বিশ্বকাপে জায়গা পেলো পেরু

৩২তম দল হিসেবে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিলো পেরু। প্লে অফ ম্যাচে তারা ২-০ গোলে পরাজিত করে নিউজিল্যান্ডকে। স্বাগতিক পেরুর হয়ে উভয়ার্ধে একটি করে গোল করেন ফারফান ‌ও রামোস।

নিজেদের মাঠ লিমার ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে, শুরুতেই নিউজিল্যান্ডের ‌ওপর চাপিয়ে খেলতে থাকে পেরুভিয়ানরা। তবে গোল পেতে অপেক্ষায় তাদের অপেক্ষায় থাকতে হয় খেলার ২৮ মিনিট পর্যন্ত। এ সময় জেফারসন ফারফান দারুণ এক গোল করে এগিয়ে দেন, স্বাগতিক পেরুকে।

এক গোলে এগিয়ে থাকা পেরু দ্বিতীয়ার্ধে আবার‌ও প্রতিপক্ষের‌ ওপর চাপিয়ে খেলতে থাকে। এবার দলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন ক্রিস্টিয়ান রামোস। পরে গোল পরিশোধের চেষ্টা করে‌ও সফল হয়নি নিউজিল্যান্ড। দু’দলের প্রথম লেগের খেলা গোল শূন্যভাবে ড্র হয়েছিলো। এতে ২-০ গোল গড়ে রাশিয়া বিশ্বকাপে জায়গা করে নিলো ল্যাটিন আমেরিকার দল পেরু। ১৯৮২ সালে স্পেন বিশ্বকাপের পর আবারো বিশ্বকাপ ফুটবলে দেখা যাবে পেরুভিয়ানেদর।

নেইমারদের রুখে দিল ইংল্যান্ড

স্বাগতিক ইংল্যান্ড শিবিরে একের পর এক আক্রমণ করে গেলেন নেইমার-জাসুসরা। মাঝে মাঝে পাল্টা আক্রমণ করলেন রাশফোর্ড-ভার্ডিরাও। তবে গোলের দেখা পেল না কোন দল। শেষ পর্যন্ত তাই হাইভোল্টেজ এই ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে।

লন্ডনের ওয়েম্বলিতে ম্যাচের শুরু থেকেই বলের দখল নিজেদের করে নিয়ে একটা টানা ইংলিশ শিবিরে আক্রমণ করে খেলতে থাকে। ম্যাচের ১৮ মিনিটে গোলের সুযোগও পায় ব্রাজিল। তবে নেইমারের বাড়ানো বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন ম্যানসিটি তারকা জেসুস। বিরতির আগে আর কোন নিশ্চিত কোন সুযোগ অবশ্য তৈরি করতে পারেনি নেইমাররা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই আবার গোলের সুযোগ পায় সফরকারী ব্রাজিল। তবে নেইমারের রক্ষণচেরা দারুণ পাস থেকে বল পেয়ে শট নেন আলভেজ। কিন্তু দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক জো হার্ট।

ম্যাচের ৭৫তম মিনিটে ব্রাজিলের গোলের অপেক্ষার শেষ হতে পারতো কিন্তু দুর্ভাগ্য বাধা হয়ে দাঁড়ায় পোস্ট। প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে ফার্নানদিনহোর শট গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও পোস্টে লাগে। ১০ মিনিট পর দুরুহ কোণ থেকে পাওলিনহোর আরেকটি জোরালো শট ঠেকান জো হার্ট। ফলে গোলশূন্য অবস্থায় শেষ হয় দুই দলের ম্যাচ।

এই নিয়ে দল দুটির ২৭ বারের মুখোমুখি লড়াইয়ের মধ্যে দ্বাদশবার ড্র হলো। ১১ বার জিতেছে ব্রাজিল, চারটি ইংল্যান্ড।

এদিকে জার্মানি ও ফ্রান্সের মধ্যকার অন্য প্রীতি ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। আর জাপানকে ১-০ গোলে হারিয়েছে বেলজিয়াম।

অতিরিক্ত সময়ের গোলে হার এড়াল জার্মানি

পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ফ্রান্সের বিপক্ষে ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি। মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে অতিরিক্ত সময়ের গোলে ফ্রান্সের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে জোয়াকিম লোর শিষ্যরা। এই ড্রয়ে টানা ২১ ম্যাচ অপরাজিত রইল জার্মানি

কোলোনে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে ম্যাচ জমে ওঠে। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে আন্তনি মার্শিয়ালের অসাধারণ পাস থেকে দারুণ ফিনিশিংয়ে গোল করে ফ্রান্সকে এগিয়ে নেন আর্সেনাল তারকা ল্যাকাজেতে।

বিরতি থেকে ফিরে জার্মানিকে সমতায় ফেরায় ওয়ার্নার। মেসুত ওজিলের পাস ধরে অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে দারুণ শটে সফরকারীদের সমতায় ফেরান ওয়ার্নার।

ম্যাচের ৭১ মিনিটে ফ্রান্স ফের এগিয়ে দেন ল্যাকাজেতে। কিলিয়ান এমবাপ্পের পাস থেকে দারুণ শটে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন আর্সেনালের এই তারকা। তবে ইনজুরি সময়ের শেষ মুহূর্তে কপাল পোড়ে ফরাসিদের। শেষ বাঁশি বাজার কয়েক মুহূর্ত আগে সতীর্থের পাস ধরে দারুণ শটে গোল করে জার্মানিকে সমতায় ফেরান বদলি হিসেবে মাঠে নামা স্টিন্ডল।

এদিকে ব্রাজিল ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার প্রীতি ম্যাচটি গোল শূন্য ড্র হয়েছে। আর মেসিকে ছাড়া খেলতে নেমে নাইজেরিয়ার কাছে ৪-২ গোলে হেরে গেছে আর্জেন্টিনা

লুকাকুর রেকর্ডের দিনে বেলজিয়ামের জয়

জাপানের বিপক্ষে গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর ম্যাচের ৭২ মিনিটে দলকে লিড এনে দেন লুকাকু। নাসের চ্যাডলির বাড়ানো বল জালে জড়ান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফরোয়ার্ড।

গত সপ্তাহে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে মেক্সিকোর সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র করে বেলজিয়াম। সেই ম্যাচে জোড়া গোল করে বেলজিয়ামের হয়ে সর্বোচ্চ ৩০ গোল করা বার্নার্ড বোরহোফ এবং পল ফন হিমস্টকে স্পর্শ করেন এভারটনের সাবেক তারকা। জাপানের বিপক্ষে গোল করে দুজনকেই ছাড়িয়ে এককভাবে চূড়ায় জায়গা করে নিলেন চলতি মৌসুমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেওয়া এই তারকা।

আয়ারল্যান্ডকে বিধ্বস্ত করে বিশ্বকাপে ডেনমার্ক

বাছাই পর্বের প্রথম লেগ গোল শূন্য ড্র হওয়ায় নিজেদের মাঠে সুযোগ ছিল আয়াল্যান্ডের। তবে ক্রিস্টিয়ান এরিকসনের হ্যাটট্রিকে স্বাগতিকদের ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করে আট বছর পর বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে ডেনমার্ক।

নিজেদের মাঠে ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটেই গোল করে আয়ারল্যান্ডকে লিড এনে দেন শেন ডাফি। তবে প্রথমার্ধেই মাত্র তিন মিনিটের মধ্যে দুই গোল হজম করে বসে স্বাগতিকরা। ম্যাচের ২৯ মিনিটে সাইরাস ক্রিস্টির আত্মঘাতী গোলে সমতায় ফেরে ডেনমার্ক। আর ৩২ মিনিটে অতিথিদের এগিয়ে দেন এরিকসন।

বিরতি থেকে ফিরে ১০ মিনিটের ব্যবধানে আরও দুই গোল করে নিজের হ্যাটট্রিকও পূরণ করেন টটেনহ্যাম হটস্পারের মিডফিল্ডার এরিকসেন। এর সঙ্গে সঙ্গে আয়ারল্যান্ডের ম্যাচে ফেরার আশাও শেষ হয়ে যায়। ৯০তম মিনিটে ডিফেন্ডার নিকলাসের আত্মঘাতী গোলে ডেনমার্কের জয়ের ব্যবধান আরও বাড়ে। এ জয়ে ২০১০ সালের পর আবার বিশ্বকাপে খেলবে ডেনমার্ক।

মাঠ থেকে হাসপাতালে আগুয়েরো

আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ) এক টুইট বার্তায় জানায়, ‘ বিরতির সময় আগুয়েরো ড্রেসিংরুমে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে তার শারীরিক অবস্থা পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়।’

পরে এএফএ আরও জানায়, ‘পরীক্ষা শেষে আগুয়েরোকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এখন সে পুরোপুরি সুস্থ আছে। সতীর্থদের সঙ্গে হোটেলে যোগ দিয়েছেন।’

তবে আগুয়েরোর ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি অবশ্য বলছে, ‘আগুয়েরো অজ্ঞান হননি। প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটি এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আগুয়েরো কখনোই অজ্ঞান হননি, তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্যই তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল। লেস্টার সিটির বিপক্ষে ম্যাচে র আগে ক্লাবের ডাক্তাররা তাকে আবারো পরীক্ষা করবেন।’

এদিকে এ ম্যাচের ৩৬ মিনিটে দলের হয়ে এক গোল করেন আগুয়েরো। এ গোলে হার্নান ক্রেসপোকে ছাড়িয়ে ৩৬ গোল নিয়ে আর্জেন্টিনার হয়ে এককভাবে তৃতীয় স্থানে বসেন ম্যানচেস্টার সিটির এই তারকা।

এগিয়ে থেকেও রাশিয়ার বিপক্ষে স্পেনের ড্র

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে শেষ সময়ের গোলে হারলেও স্পেনকে জিততে দেয়নি বিশ্বকাপের স্বাগতিক দল রাশিয়া। দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত স্পেনের সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে দলটি।

সেন্ট পিটার্সবাগে ম্যাচের নবম মিনিটেই স্পেনকে লিড এনে দেন জর্ডি আলবা। বাঁ দিক থেকে রিয়াল তারকা মার্কো আসেনসিওর বাড়ানো ক্রসে হেডে বল জালে জড়ান বার্সার এই তারকা।

ম্যাচের ৩৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস। ডি-বক্সের মধ্যে স্বাগতিক দলের খেলোয়াড় কুজায়েভ হাত দিয়ে বল আটকালে স্পট কিকের বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি। তবে বিরতির চার মিনিট আগেই ব্যবধাম কমায় রাশিয়া। ৪১তম মিনিটে সমোলোভের গোলে স্কোরলাইন ২-১ করে ফেলে স্বাগতিকরা।

বিরতির পরপরই সমতায় ফেরে রাশিয়া। ম্যাচের ৫১ মিনিটে মিরানচোকের গোলে স্কোরলাইন ২-২ করে ফেলে দলটি। দুই মিনিট পর আবারও লিড নেয়। স্বাগতিক দলের এক খেলোয়াড় বক্সের ভেতরে রামোসকে ফেলে দিলে রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দেন। স্পট-কিক থেকে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন রিয়াল অধিনায়ক।

তবে ম্যাচের ৭০ মিনিটে সমোলোভের দ্বিতীয় গোলে হার এড়ায় রাশিয়া। সতীর্থের বাড়ানো বল ধরে জোরালো শটে ডি গিয়াকে পরাস্ত করেন ২৭ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। বাকি সময় আর গোল না হলে ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে দুই দল।

২০১৭ সালে এখনো হারের মুখ দেখেনি স্পেন। তবে বিশ্বকাপের আগে রক্ষণের দুর্বলতা নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে স্প্যানিশদের।

প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি আর্জেন্টিনা-নাইজেরিয়া

রাশিয়া বিশ্বকাপের মূল পর্বে মাঠে নামার আগে প্রস্তুতিতে কোনো রকম ঘাটতি রাখতে চাইছে না আর্জেন্টিনা। এরই অংশ হিসেবে রাশিয়ার পর নাইজেরিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ খেলবে সাম্পাওলির শিষ্যরা। রাশিয়ার ক্রাসনোদার স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১০টায়। অবশ্য ম্যাচটি কোনো চ্যানেলই সরাসরি সম্প্রচার করবে না। ফলে ফেসবুক লাইভেই চোখ রাখতে হবে ফুটবলপ্রেমীদের।

প্রথম প্রীতি ম্যাচে রাশিয়ার বিপক্ষে লুঝনিকি স্টেডিয়ামে আগুয়েরোর শেষ মুহূর্তের গোলে জয় পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। রাশিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ শেষে জাতীয় দল ছেড়ে বার্সেলোনায় ফিরে গেছেন লিওনেল মেসি। টানা খেলার ধকল কাটিয়ে উঠতে এবং নিজেকে সতেজ রাখতেই নাইজেরিয়া ম্যাচ থেকে বিশ্রাম নিয়েছেন বার্সা ফরোয়ার্ড। তবে মেসি না খেললেও, আছেন আগুয়েরো, দিবালা, ডি মারিয়ারা। আর নিজেদের শেষ ৭ ম্যাচে অপরাজিত আর্জেন্টিনা দারুণ আত্মবিশ্বাসী হয়েই মাঠে নামবে।

অন্যদিকে আফ্রিকান অঞ্চলের গ্রুপ বি থেকে অপরাজিত থেকেই বিশ্বকাপ নিশ্চিত করে নাইজেরিয়া। আলজেরিয়ার বিপক্ষে বিশ্রামে থাকলেও আর্জেন্টিনা ম্যাচে ফিরছেন নাইজেরিয়ান অধিনায়ক মিকেল ওবি। এছাড়া দলে আরও আছেন কেলেচি ইহিয়েনাচো, ভিক্টর মোসেস, অ্যালেক্স আইয়োবির মত ফুটবলাররা। দু'দলের মুখোমুখি ৭ দেখায় আর্জেন্টিনার ৫ জয়ের বিপরীতে নাইজেরিয়া মাত্র ১টি জিতলেও ইতিহাস বলে দু'দলের দ্বৈরথ মানেই লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি।

চোখের জলে বুফনের বিদায়

রাশিয়া বিশ্বকাপের পর তুলে রাখবেন গ্লাভস ‌ও বুট ঘোষণাটা আগেই ছিলো। তবে গতকাল রাতে বাছাইপর্বের প্লে-অফে সুইডেনের বিপক্ষে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ে ইতালি। আর সাথে সাথেই ক্যারিয়ারের ইতি টানেন জিয়ানলুইগি বুফন।

আগামী জানুয়ারিতেই ৪০ বছরে পা দেবেন জিয়ানলুইজি বুফন। বয়সকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েই যেন চোখ ধাঁধানো পারফরম্যান্স উপহার দিয়ে চলছিলেন তিনি। রাশিয়া বিশ্বকাপের পর বুটজোড়া তুলে রাখার কথা জানালেও দলের হারে আগেই অশ্রুসিক্ত বিদায় বললেন তিনি।

১৯৯৭ সালে ইতালি জাতীয় দলে অভিষেক হয় বুফনের। অভিষেকের পর থেকে নানা উত্তান পতনের মধ্য দিয়ে দেশটির সেরা গোলরক্ষকের আসনে বসেন তিনি। ইতালির হয়ে ১৭৫ ম্যাচ খেলার পর গতকাল বিদায় নেন বুফন। তারকাসমৃদ্ধ দল নিয়ে ১৯৫৮ সালের পর এবার বিশ্বকাপের মূল পর্বে উঠতে ব্যর্থ হল ইতালি। আর দলের এমন ব্যর্থতার দিনেই আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় বললেন বুফন।

সান সিরোতে সুইডেনের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে ইতালিয়ান টিভিকে দেওয়া সাক্ষাতকারের সময় কেঁদে ফেলেন বুফন। সাফল্যে মোড়ানো বর্ণিল ক্যারিয়ার শেষে দলের এমন বিপর্য মেনে নিতে কষ্ট হয় তার। ম্যাচ শেষে বুফন বলেন, ‘আমার নিজের জন্য কোনো দুঃখ হচ্ছে না তবে ইতালিয়ান ফুটবলের জন্য খারাপ লাগছে। আমরা সামাজিক পর্যায়ের কিছু একটা হাতছাড়া করেছি। এভাবে শেষ হওয়ায় খুব কষ্ট হচ্ছে।’

২০০৬ বিশ্বকাপে বার্লিনে ফ্রান্সের বিপক্ষে পেনাল্টি শুটআউটে ফাইনালে জিতে বুফনের ইতালি। দলটির হয়ে ২০০২ ও ২০১২ ইউরোর ফাইনালেও ইতালি দলে ছিলেন অভিজ্ঞ গোলরক্ষক বুফন।