সকাল ৮:৪৮, শুক্রবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট

দিল্লিতে অনুষ্ঠিত সুব্রত কাপ আন্তর্জাতিক ফুটবলের অনূর্ধ্ব-১৭ বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হওয়া বিকেএসপির মেয়েদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। বুধবার বিকেলে বিকেএসপি দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্থাটির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সামছুর রহমান।

বিকেএসপি টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বে ৫-০ গোলে ত্রিপুরাকে, একই ব্যবধানে দিল্লিতে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠে। শেষ চারে ওঠার লড়াইয়ে তারা ২-১ গোলে হারায় আগের বারের চ্যাম্পিয়ন হরিয়ানাকে। সেমিফাইনালে মেঘালয়কে ৩-১ গোলে এবং ফাইনালে এনএসসি মিজোরাম দলকে ১-০ গোলে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়। স্ট্রাইকার মুক্তা সরকার ১টি হ্যাটট্রিকসহ গোল করেছেন ৮ গোল।

গত বছর এ টুর্নামেন্টে প্রথমবার অংশ নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিল বিকেএসপি। দ্বিতীয় অংশগ্রহণেই কোচ জয়া চাকমার নেতৃত্বে চ্যাম্পিয়ন হয় দেশের প্রতিনিধিত্ব করা বিকেএসপি।

মেয়েদের সংবর্ধনার বিকেলে দিল্লি থেকে এসেছে ছেলেদের গ্রুপ থেকে বিদায়ের খবর। বুধবার আমদেকার স্টেডিয়ামে আফগানিস্তান ও পাঞ্জাবের মধ্যেকার ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হওয়ায় বিদায় নিশ্চিত হয় বিকেএসপির। এর আগে এ টুর্নামেন্টের অনূর্ধ্ব-১৪ বিভাগে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিল বিকেএসপির ছেলেরা।

প্রস্তুতি ম্যাচে দুপুরে মাঠে নামবে বাংলাদেশ

ক্রিকেট

বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশ
প্রস্তুতি ম্যাচ
দুপুর ২টা 
ভারত-অস্ট্রেলিয়া
দ্বিতীয় ওয়ানডে
সরাসরি, দুপুর ২টা
স্টার স্পোর্টস ১
ইংল্যান্ড-উইন্ডিজ
দ্বিতীয় ওয়ানডে
সরাসরি, বিকাল ৫.৩০ মি.
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি ২

ফুটবল

লা লিগা
ভিয়ারিয়াল-এস্পানিওল
সরাসরি, রাত ১২টা
লেভান্তে-সোসিয়েদাদ
সরাসরি, রাত ২টা
সনি টেন ২

কাবাডি

ইন্ডিয়ান প্রো কাবাডি লিগ
জয়পুর-হারিয়ানা
সরাসরি, রাত ৮.২০ মি.
পাটনা-যোদ্ধা
সরাসরি, রাত ৯.৩০ মি.
স্টার স্পোর্টস ২

রোনালদোর ফেরার ম্যাচে রিয়ালের হার

পাঁচ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা শেষে রিয়ালের হয়ে মাঠে নামলেন রোনালদো। গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন অনেক। তবে বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন এই তারকা। উল্টো শেষ সময়ের গোলে রিয়াল বেটিসের কাছে ১-০ গোলের হারের স্বাদ নিয়ে মাঠ ছেড়েছে জিদানের শিষ্যরা।

ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারতো সফরকারী বেটিস। পাল্টা আক্রমণে একজনকে কাটিয়ে আন্তোনিও সানাবিরার নেওয়া শট গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও কারভাহালের পায়ে লেগে ফিরলে গোল বঞ্চিত হয় সফরকারীরা।

ম্যাচের দশম মিনিটে গোলের সুযোগ পান রোনালদো। জটলার মধ্যে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি। তবে ব্যকহিলে চেষ্টা করেছিলেন কিন্তু বল একজনের গায়ে লেগে বাইরে চলে যায়। ম্যাচের ২৯ মিনিটে রোনালদোর নেওয়া শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক। ম্যাচের ৪২ মিনিটে ইসকোর কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান বেটিস গোলরক্ষক। আর বিরতির ঠিক আগে আরেকটি সুযোগ নষ্ট করেন রোনালদো।

বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৫১ মিনিটে গোলেরও সুযোগ পেয়ে যান রোনালদো। তবে বাঁ-দিক থেকে বেলের দারুণ ক্রসে বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন চারবারের বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়।

একের পর এক মিসে দিশেহারা রিয়াল একাদশে ম্যাচের ৬৭ মিনিটে মিডফিল্ডার ইসকোকে বসিয়ে আসনসিওকে নামান জিদান। খানিক পর ডিফেন্ডার মার্সেলো ও লকা মদ্রিচের জায়গায় নামেন দুই ফরোয়ার্ড ভাসকেস ও মায়োরাল। ফলে রিয়ালের আক্রমণের ধার আরও বাড়ে। ৭৫ মিনিটে বেলের দুর্দান্ত এক ব্যাকহিল গোলরক্ষক ঠেকানোর পর বল লাগে পোস্টে। যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে মায়োরালের হেড ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক।

উল্টো ম্যাচের যোগ করা সময়ের শেষ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন সানাবিরা। স্বদেশি ডিফেন্ডার আন্তোনিও বারাগানের ক্রসে হেডে নাভাসকে পরাস্ত করেন ২১ বছর বয়সী স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড আন্তোনিও সানাবিরা। ফলে হারের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় রিয়ালকে। এ হারে ৮ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে নেমে গেছে তারা। শীর্ষস্থানধারী বার্সেলোনার চেয়ে ৭ পয়েন্টে পিছিয়ে।

লিভারপুলের বিপক্ষে মাঠে বাংলাদেশের হামজা

ফুটবলে বাংলাদেশের সেই রমরমা অবস্থা এখন আর নেই। ফিফা র‍্যাংকিংয়ে জাতীয় দলের অবস্থান ডাবল সেঞ্চুরির কাছাকাছি। তবে এরই মধ্যে ইংলিশ লিগ কাপে উঠে এলো বাংলাদেশের নাম।

লিভারপুল-লেস্টার সিটির ম্যাচে অভিষেক হলো হামজার। আর তার পরিচয় দিতে গিয়েই ধারাভাষ্যকারের কণ্ঠে উঠে এল ‘বাংলাদেশ’। হামজা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত!

লিগ কাপের তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচটা ২-০ গোলে জিতে লিভারপুলকে বিদায় করে দিয়েছে লেস্টার। আর এ ম্যাচে মাঠে নেমে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ স্তরের ফুটবলে কোনো ক্লাবে খেলা প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফুটবলার হয়ে গেলেন হামজা চৌধুরী।

উল্লেখ্য, উইলফ্রেড এনদিদির পরিবর্তে ম্যাচের ৮৪ মিনিটে মাঠে নামেন হামজা। ততক্ষণেই অবশ্য ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল লেস্টার।

মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার গোলবন্যা (ভিডিও)

খেলা শুরুর ৯ মিনিটে দুটি আক্রমণ হয়। দুটি আক্রমণই সামাল দিতে হয় বার্সা গোলকিপার মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন। এরপর আর ম্যাচে তেমন একটা পাওয়া যায়নি স্প্যানিশ দল এইবারকে। পুরোটা সময় জুড়ে ম্যাচটা নিয়ন্ত্রণ করেছে বার্সেলোনা। এইবারকে ৬-১ গোলে বিদ্বস্ত করে মাঠ ছাড়ে কাতালানরা। আর মেসি একাই করেন চার গোল।

মেসির দিনে গোল পেয়েছেন গেতাফের বিপক্ষে বদলি নেমে গোল করা পাওলিনিয়ো ও দেনিস সুয়ারেস। এইবারের জালে বল পাঠানোর পাশাপাশি মেসির গোলেও অবদান রাখেন এই দু'জন।

খেলার ২০তম মিনিটে ডিফেন্ডার আলেক্স গালভেজ ডি-বক্সে নেলসন সেমেদোকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। আর স্পটকিক থেকে সরাসরি বল জালে জড়িয়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে যান মেসি।

৩৭ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারতো; কিন্তু মেসির ট্রেডমার্ক শট ডানদিকে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক। গেতাফের বিপক্ষে হোঁচট খেতে বসা ম্যাচের শেষ দিকে জয়সূচক গোল করা পাওলিনিয়ো ৩৮ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। দেনিস সুয়ারেসের কর্নারে হেড করে গোলটি করেন ব্রাজিলের এই মিডফিল্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে ব্যবধান বাড়ান দেনিস সুয়ারেস। ডি-বক্সের মধ্যে ডান পায়ের শটে গোলটি করেন স্পেনের এই মিডফিল্ডার। গোলটিতে বড় অবদান ছিল মেসির; মাঝমাঠের কাছ থেকে ছুটে একজনকে কাটিয়ে তার নেওয়া শট গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে ঠেকানোর পর ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন ২৩ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার। চার মিনিট পর স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড এনরিচ ব্যবধান কমিয়ে লড়াইয়ে ফেরার আশা জাগান।

এরপর ক্যাম্প ন্যু'য়ের ম্যাচটি হয়ে যায় কেবলই মেসিময়। ৫৯ ও ৬২ মিনিটে দুই গোল করে লা লিগায় নিজের ২৮তম হ্যাটট্রিক করেন এই আর্জেন্টাইন। কাতালান ক্লাবটির হয়ে সব মিলিয়ে করলেন ৩৯তম আর জাতীয় দল মিলিয়ে ক্যারিয়ারে ৪৩তম হ্যাটট্রিক।

ম্যাচ শেষ হওয়ার আগ মুহূর্ত বদলি নামা আলেইশ ভিদালের কাটব্যাক পেয়ে ৮৭তম মিনিটে নিজের চতুর্থ ও দলের শেষ গোলটি করেন মেসি। এবারের লিগে এখন পর্যন্ত ৯ গোল করে তালিকার শীর্ষে আছেন মেসি।

শেষ দিকে অতিথিদের দুটি প্রচেষ্টা পোস্টে বাধা পেলে বিশাল জয়ের আনন্দেই মাঠ ছাড়ে শীর্ষস্থানধারী বার্সেলোনা। টানা পাঁচ জয়ে তাদের পয়েন্ট ১৫।

চার ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে সেভিয়া। দিনের প্রথম ম্যাচে মালাগাকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়া ভালেন্সিয়া পাঁচ ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয়। এক ম্যাচ কম খেলা রিয়াল সোসিয়েদাদের পয়েন্টও সমান ৯।

১ পয়েন্ট কম নিয়ে পঞ্চম স্থানে গতবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ।

মেসির হ্যাটট্রিকসহ চার গোলে বার্সার বড় জয়

চলতি মৌসুমে লিওনেল মেসির দ্বিতীয় হ্যাটট্রিকে ঘরের মাঠে এইবারকে ৬-১ গোলে বিধস্ত করেছে বার্সেলোনা। দলের নিয়মিত খেলোয়াড়দের বিশ্রামে রাখলেও তরুণদের নিয়ে জয়যাত্রা অব্যাহত রেখেছেন পাচবারের বিশ্ব সেরা এই ফুটবলার। ম্যাচের শুরুতে ঝলক দেখানো এইবার সময়ের সঙ্গে সঙ্গে খেই হারায়। নিখুঁত পাসিং, দ্রুত প্রতি-আক্রমণ আর দারুণ ফিনিশিংয়ে এইবারকে ধরাশায়ী করে কাতালানরা।

বার্সেলোনা একাদশে ছিল ছয়টি পরিবর্তন। প্রথম একাদশে ছিলেন না লুইস সুয়ারেজ ও ইভান রাকিতিচ। ইনজুরির কারণে উসমানে ডেম্বেলে চার মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাওয়ায় মেসির সঙ্গী হন ডেনিস সুয়ারেজ ও জেরার্ড ডেলোফু। পাউলিনহো, সেমেদো, মাচেরানো ও দিনিয়েও ছিলেন শুরুর একাদশে।

খেলা শুরুর তৃতীয় মিনিটেই কাঁপিয়ে দিয়েছিল এইবার। একা পেয়েও টের স্টেগানকে পরাস্ত করতে পারেননি এইবার ফরোয়ার্ড সার্জি এনরিচ। ১০ মিনিটে আবারও এইবারের আক্রমণ, এবারে জাপানি অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ইনুই। সেই ইনুই, যাঁর গোলে গেল মৌসুমে ন্যু ক্যাম্পে, বার্সাকে হারিয়েছিল এইবার। তবে এবার সুবিধা করতে দেননি বার্সা গোলরক্ষক।

২০ মিনিটে বার্সা ডিফেন্ডার নেলসন সেমেদোকে ফাউল করেন আলেহান্দ্রো গালভেজ। পেনাল্টি স্পট থেকে মৌসুমে নিজের ষষ্ঠ গোল করেছেন মেসি। ৩৭ মিনিটে কর্নার থেকে গোল করেছেন শুরুতেই বার্সা–সমর্থকদের আস্থা হারানো পাউলিনহো। ডেনিস সুয়ারেজের কর্নার থেকে হেডে গোল করেন ব্রাজিলীয় মিডফিল্ডার। বহুদিন পর মাঠে শারীরিকভাবে শক্তিশালী এক মিডফিল্ডারের অস্তিত্ব টের পাচ্ছে বার্সেলোনা। প্রথমার্ধ শেষে ২-০–তে এগিয়ে ছিল বার্সা।

দ্বিতীয়ার্ধের আট মিনিটে বিদ্যুতগতির এক প্রতি–আক্রমণে এইবার রক্ষণ ছিঁড়ে ফেলেন মেসি। তিন ডিফেন্ডার যখন মেসির শট আটকাতে ব্যস্ত, তখন গোলরক্ষকের ঠেকিয়ে দেওয়া বলে কাছের পোস্টে গোল করেছেন ডেনিস সুয়ারেজ। বাঁ প্রান্তে অনেকটাই অপ্রতিরোধ্য ছিলেন বার্সার এই তরুণ ফরোয়ার্ড।

চার মিনিট পর সফরকারীদের হয়ে এক গোল শোধ করেছিলেন এনরিচ। জুনকা রেনের ক্রস থেকে দর্শনীয় ফিনিশিং দেখিয়েছেন। কিন্তু পাঁচ মিনিট পর আবারও মেসি-ঝলক। তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল ঠেলেছেন পোস্টের বাঁ প্রান্তে। হ্যাটট্রিক পূর্ণ করতে আর মাত্র ১২০ সেকেন্ড সময় নিয়েছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। নিজেদের অর্ধে বল পেয়ে কাউন্টারে উঠেছেন দ্রুত। তারপর পাউলিনহোর সঙ্গে ওয়ান-টু করে দ্রুত শট নিয়েছেন। তিন ডিফেন্ডার আর গোলরক্ষক মিলেও শেষ রক্ষা হয়নি এইবারের।

তবে ভাগ্যকে দুষতেই পারেন পেনা। তাঁর শটে বল গোললাইনের হাওয়া গায়ে লাগিয়েও পোস্টে যায়নি। এক মিনিট পরই বদলি খেলোয়াড় অ্যালেক্স ভিদালের ক্রস থেকে নিজের চতুর্থ গোল করেন লিওনেল মেসি। লিগে এই নিয়ে ৫ ম্যাচে ৯ গোল করেছেন মেসি, সব মিলিয়ে মৌসুমে ১৬ গোল। এই জয়ে ৫ ম্যাচে পূর্ণ ১৫ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষ স্থান ধরে রাখলো কাতালানরা।

দ্বিতীয় ম্যাচে আজ সন্ধ্যায় বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ মালদ্বীপ

সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ সন্ধ্যায় মালদ্বীপের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এবারের টুর্ণামেন্টে টানা দ্বিতীয় জয় পেতে মুখিয়ে আছে বাংলাদেশের বয়সভিত্তিক এই দলটি।

প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে তিন গোলে পিছিয়ে থাকার পরও, জাফর ইকবালের জোড়া গোলে ৪-৩ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশের কিশোর ফুটবলাররা। অপ্রত্যাশিত এই জয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশের কিশোররা। বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে মালদ্বীপও বাংলাদেশের চেয়ে বেশ এগিয়ে। তারপরও জয়ের ব্যাপারে প্রত্যয়ী লাল-সবুজের দল।

দলের হেড কোচ মাহবুবুর রহমান রক্সি জানান, ‘মালদ্বীপ অনেক ভালো দল। তাদেরকে আমরা ছোট করে দেখছি না। কিন্তু এই ম্যাচটি আমরা জিততে চাই। ম্যাচ বাই ম্যাচ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। তবে আমাদের মূল লক্ষ্য সাফ চ্যাম্পিয়ন হ‌ওয়া।’

বাংলাদেশ সময় আজ সন্ধ্যা ৭টায় ভূটানের রাজধানী থিম্পুতে শুরু হবে ম্যাচটি। এর আগে, দিনের প্রথম ম্যাচে বিকেল চারটায় স্বাগতিক ভূটানের বিপক্ষে লড়বে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নেপাল।

বাংলাভিশন চ্যাম্পিয়ন ‌এবং জিটিভি রানার্স-আপ

মিনিস্টার ফ্রিজ-ডিআরইউ মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাভিশন এবং জিটিভি রানার্স-আপ হয়েছে। টুর্নামেন্টের সমাপনী দিনে আজ মঙ্গলবার শহীদ (ক্যাপ্টেন) এম. মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে ফাইনাল খেলায়, বাংলাভিশন ২-০ গোলে জিটিভিকে পরাজিত করে টানা দ্বিতীয়বার শিরোপা জিতলো।

চ্যাম্পিয়ন দলকে ট্রফি ছাড়াও ৪০ হাজার টাকা এবং রানার্স-আপ দল ট্রফিসহ ২০ হাজার টাকা অর্থ পুরস্কার দেয়া হয়্। পরাজিত দুই সেমিফাইনালিস্ট ৫ হাজার টাকা করে অর্থ পুরস্কার লাভ করে। ফাইনাল ম্যাচে সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন বাংলাভিশন দলের মিজানুর রহমান সবুজ। টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন রেডিও টুডের আব্দুল্লাহ শাফি। ফেয়ার প্লে ট্রফি পায় বাংলা নিউজ ২৪ ডট কম।

এরআগে, প্রথম সেমিফাইনালে জিটিভি ২-০ গোলে রেডিও টুডেকে এবং দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বাংলাভিশন ১-০ গোলে আরটিভিকে পরাজিত করে ফাইনালে ওঠে।

ফাইনাল খেলা শেষে বিজয়ী ‌ও বিজিত দলকে পুরস্কৃত করেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান মিনিস্টার হাই-টেক পার্ক (মিনিস্টার ফ্রিজ)-এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও গড়ব বাংলাদেশের প্রধান সম্পাদক ডা. উজ্জ্বল কুমার রায়, ডিআরইউ সহ-সভাপতি আবু দারদা যোবায়ের, সাধারণ সম্পাদক মুরসালিন নোমানী ‌ও ক্রীড়া সম্পাদক মজিবুর রহমান।

রাতে মাঠে নামবে মেসির বার্সেলোনা

ক্রিকেট

ইংল্যান্ড-উইন্ডিজ
প্রথম ওয়ানডে
সরাসরি, বিকাল ৫.৩০ মি.
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি ২

ফুটবল

লা লিগা
ভ্যালেন্সিয়া-মালাগা
সরাসরি, রাত ১২টা
বার্সেলোনা-এইবার
সরাসরি, রাত ২টা
সনি টেন ২
সিরি'আ
বোলোগনা-ইন্টার মিলান
সরাসরি, রাত ১২.৪৫ মি.
সনি টেন ১
বুন্দেসলিগা
শালকে-বায়ার্ন মিউনিখ
সরাসরি, রাত ১২.৩০ মি.
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি ১

কাবাডি

ইন্ডিয়ান কাবাডি লিগ
পুনেরি-হারিয়ানা
সরাসরি, রাত ৮.২০ মি.
পাটনা-ব্যাঙ্গালুরু
সরাসরি, রাত ৯.৩০ মি.
স্টার স্পোর্টস ২

স্ত্রীসহ কনসার্টে উপস্থিত মেসি-সুয়ারেজ

চলতি মৌসুমের শুরু থেকেই দুর্দান্ত ফর্মে আছেন মেসি। কখনো নিজে গোল করে, আবার কখনো সতীর্থদের দিয়ে গোল করিয়ে দলকে এনে দিচ্ছেন দুর্দান্ত সব জয়। এবার গেটাফের বিপক্ষে জয় উদযাপনে নিজের স্ত্রীসহ সতীর্থ সুয়ারেজকে নিয়ে কনসার্টে গেলেন লিওনেল মেসি। পরে তারা দুজন ওই গায়কের সঙ্গে ছবিও ওঠান।

মেসির শেয়ার করা ছবিতে এক পাশে কলম্বিয়ান গায়ক রয়েছেন অপরপাশে আর্জেন্টাইন তারকা। মাঝখানে রয়েছেন মেসির স্ত্রী আন্তানেল্লা রোকুজ্জা। একইভাবে সুয়ারেজও গায়ক মালুমার সঙ্গে ছবি ওঠান মাঝে স্ত্রী সোফিয়া বালবিকে রেখে।পরে দুজনই সেই ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন।

এদিকে গায়ক মালুমাকেও কনসার্টে বার্সেলোনার জার্সি পড়তে দেখা যায়। পরে সেই ছবি নিজ ইনস্টাগ্রামেও শেয়ার করেছেন এই গায়ক।

এক মাসেই নেইমারের লাখো জার্সি বিক্রি

ট্রান্সফার ফি’র বিশ্বরেকর্ড গড়ে গ্রীষ্মকালীন দলবদলে ২২২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে নাম লেখান নেইমার। আর নতুন এই ক্লাবে যোগ দেওয়ার পর মাত্র এক মাসেই ব্রাজিলিয়ান এই তারকার এক লাখ ২০ হাজার জার্সি বিক্রি করেছে ক্লাবটি। আর জার্সি বিক্রি থেকে প্রায় ৮.৮ মিলিয়ন ইউরো আয় করেছে পিএসজি।

এদিকে নেইমারের পর মোনাকো থেকে এমবাপের পিএসজিতে যোগ দেয়ার পর জার্সি বিক্রির পরিমাণ আরও বেড়ে যায়। সব মিলিয়ে গত মৌসুমের চেয়ে এবার পিএসজির জার্সি বিক্রি প্রায় ৭৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, যে হারে জার্সি বিক্রি হচ্ছে তাতে আগামী দুই মাস সমর্থকদের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব নয়।

উল্লেখ্য, বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর এখন পর্যন্ত ফরাসি ক্লাবটির হয়ে পাঁচ গোল করার পাশাপাশি সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেনও সমান পাঁচটি।

ভারতকে হারিয়ে শুভ সূচনা বাংলাদেশের

তিন গোলে পিছিয়ে থেকেও সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে ভারতকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে শুভ সূচনা করলো বাংলাদেশ। দলের পে দুটি গোল করেন জাফর ইকবাল।

ভূটানের রাজধানী থিম্পুতে, সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশীপে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে, প্রথমার্ধেই তিন গোল হজম করে বাংলাদেশের জুনিয়র টিম। ১৮ মিনিটের মাথায় ভারতকে এগিয়ে দেন লালামপুইয়া। এই গোলের রেশ না কাটতেই খেলার ৩২ মিনিটে এডমন্ড আরো এক গোল করে ভারতকে ২-০ তে এগিয়ে দেন। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে আর্নল্ড ভারতের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন। আরো একটি বড় পরাজয়ের সামনে তখন ক্রমেই নিমজ্জমান বাংলাদেশের ফুটবল।

কিন্তু কে জানতো দ্বিতীয়ার্ধেই পাল্টে যাবে বাংলাদেশের করুণ-হতশ্রী চেহারা? বিরতি থেকে ফিরেই উজ্জ্বীবিত খেলা উপহার দেয় বাংলাদেশের তরুণ ফুটবলাররা। তাদের আক্রমনের সামনে দাঁড়াতেই পারে নি ভারতের রণভাগ। যেন মাঠে নামে যেনো অন্য এক বাংলাদেশ।

৫৫ মিনিটে গোলের শুরু লাল-সবুজের পতাকাধারীদের। জাফর ইকবাল একটি গোল শোধ করেন। জাফর ইকবালের দেখানো পথে হাটেন অন্যরা। ৬০ মিনিটে রহমত মিয়া ব্যবধান ৩-২ এ নামিয়ে আনেন। এই গোলের ১০ মিনিট পর ম্যাচে সমতা ফেরান মাহবুব। নির্ধারিত সময়ের মিনিটখানেক আগে জাফর ইকবালের গোলে সাফ চ্যাম্পিয়নশীপে দারুণ এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে, বাংলাদেশের তরুণ ফুটবলাররা।
আগামী ২০ সেপ্টেম্বর নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ মালদ্বীপ।

ডিআরইউ মিডিয়া কাপ ফুটবলের ফাইনাল আগামীকাল

মিনিস্টার ফ্রিজ-ডিআরইউ মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালের ৪টি খেলা আজ সোমবার, সোমবার শহীদ ক্যাপ্টেন এম. মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। কোয়ার্টার ফাইনালে জয়ী হয়ে সেমি-ফাইনালে উঠেছে জিটিভি, আরটিভি, রেডিও টুডে ও বাংলাভিশন। প্রথম কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে জিটিভি ২-১ গোলে আমাদের সময়কে পরাজিত করে। ম্যাচ সেরা হয়েছেন জিটিভির অতিথি খেলোয়াড় এম এম সেকান্দার।

দ্বিতীয় ম্যাচে আরটিভি টাইব্রেকারে ৩-২ গোলের ব্যবধানে এটিএন বাংলাকে হারিয়েছে। ম্যান অব দ্য ম্যাচ বিজয়ী হন বিজয়ী দলের রাজীব খান।

তৃতীয় ম্যাচে রেডিও টুডে ১-০ গোলে বাংলা নিউজ ২৪ ডটকমকে পরাজিত করে। ম্যাচ সেরা হয়েছেন রেডিও টুডের আব্দুল্লাহ শাফি।

দিনের চতুর্থ ম্যাচে বাংলাভিশন ২-০ গোলে এনটিভিকে পরাজিত করে। ম্যাচ সেরা হয়েছেন বাংলাভিশনের অতিথি খেলোয়াড় মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল।

আগামীকাল মঙ্গলবার টুনরআমেন্টের সেমি-ফাইনাল ও ফাইনাল খেলা হবে।

প্রথম সেমি-ফাইনাল – সকাল ০৯:০০ টায় : জিটিভি বনাম রেডিও টুডে
দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল – সকাল ০৯:৪৫ টায় : আরটিভি বনাম বাংলভিশন

দুই সেমি-ফাইনালে বিজয়ীরা ফাইনালে মুখোমুখি হবে সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে।

দুই ম্যাচ পর রিয়ালের জয়

স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা ধরে রাখার মিশনে অবশেষে জয়ের দেখা পেল রিয়াল মাদ্রিদ। টানা দুই ম্যাচে পয়েন্ট হারানোর রিয়াল সোসিয়েদাদকে ৩-১ হারিয়েছে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা।

পাঁচ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞায় ছিলেন না রোনালদো আর ইনজুরিতে মাঠের বাইরে করিম বেনজেমা। তবে প্রতিপক্ষের মাঠে দলের সেরা দুই তারকাকে ছাড়াই দুর্দান্ত শুরু করে রিয়াল। ম্যাচের ১৯ মিনিটেই দলে এগিয়ে দেন বোরহা মায়োরাল। বাঁ দিক থেকে কাসেমিরোর বাড়ানো বল ঠিকমত নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি রামোস। ছুটে এসে জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন ফ্রান্সের এই ফরোয়ার্ড।

তবে ম্যাচের ২৮ মিনিটে রিয়াল গোলরক্ষক নাভাসের ভুলে সমতা ফেরায় সোসিয়েদাদ। কেভিন রদ্রিগেজের শট গোলরক্ষকের হাতে লেগে জালে ঢুকে যায়। ম্যাচের ৩৬ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। তবে রদ্রিগেজের শট লাগে ক্রসবারে। উল্টো পাল্টা আক্রমণে আবার এগিয়ে যায় রিয়াল। মায়োরালের শট ঠেকাতে গিয়ে নিজেদের জালেই ঠেলে দেন রদ্রিগেজ।

বিরতি থেকে ফিরে ব্যবধান বাড়াতে মরিয়া হয়ে ওঠে রিয়াল। ম্যাচের ৬১ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে ব্যবধান বাড়ান বেল। ইসকোর লম্বা পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে একক প্রচেষ্টায় ছুটে আসা গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে জালে পাঠান ওয়েলসের এই ফরোয়ার্ড।

ম্যাচের ৭৬ মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন লুকাস ভাসকেস। বাকি সময় আর গোল না হলে জয়ের আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে রিয়ালের শিষ্যরা।

টানা গোলের বিশ্ব রেকর্ড রিয়ালের

টানা দুই ম্যাচে পয়েন্ট হারানোর পর অবশেষে জয়ের দেখা পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। প্রতিপক্ষ রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠ থেকে ৩-১ গোলের জয় পেয়েছে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। আর এ জয়ের দিনে টানা ৭৩ ম্যাচে গোল করে পেলের সান্তোসের রেকর্ড স্পর্শ করলো জিদানের রিয়াল মাদ্রিদ।

রেকর্ডটা এত দিন এককভাবে দখলে রেখেছিল পেলের সান্তোস। ১৯৬৩ সালে পেলেকে নিয়ে ব্রাজিলিয়ান ক্লাবটি গোল করেছিল টানা ৭৩ ম্যাচে। আর এ ম্যাচে গোল করলেই সান্তোসের সেই রেকর্ডে ভাগ বসাত রিয়াল। ম্যাচের ১৯ মিনিটে মায়োরাল গোল করলে সান্তোসের সেই বিশ্ব রেকর্ডে ভাগ বসায় রিয়াল। আর এতেই টানা ৭৩ ম্যাচে গোলের বিশ্ব রেকর্ড গড়ার চক্রপূরণ হল।

বিশ্ব রেকর্ড গড়ার পথে প্রথমে বার্সেলোনার গড়া টানা ৪৪ ম্যাচে গোলের স্প্যানিশ রেকর্ড ভেঙেছে রিয়াল। এরপর বায়ার্ন মিউনিখের গড়া টানা ৬১ ম্যাচে গোলের ইউরোপিয়ান রেকর্ডও ভাঙে জিদানের দল।

নেইমারদের টানা ষষ্ঠ জয়

ফরাসি লিগে টানা ষষ্ঠ জয় তুলে নিল পিএসজি। নেইমার, এমবাপে ও কাভানিরা কেউ গোল করতে না পারলেও দুটি আত্মঘাতী গোলের সুবাদে লিওঁকে ২-০ ব্যবধানে হারায় এমেরির দল।

আগের ম্যাচগুলোতে দুর্দান্ত খেলা নেইমার-এমবাপে জুটি ঘরের মাঠে ছিলেন কিছুটা ম্লান। ম্যাচের শুরু থেকেই গোলের জন্য মরিয়া হলে খেললেও কেউ বল জালে জড়াতে পারেনি। প্রথমার্ধের শেষ দিকে গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন নেইমার।

দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলের আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলার গতি বাড়ে। ৫৭তম মিনিটে ২১ মিটার দূর থেকে নেওয়া নেইমারের ফ্রি-কিক ডানে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন লোপেজ। ম্যাচের ৬৭ মিনিটে নদমবেলের জোরালো শটে বল ক্রসবার কাঁপিয়ে ফিরলে গফল বঞ্চিত হয় লিওঁ।

অবশেষে ৭৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। বাঁ দিক থেকে আর্জেন্টিনার মিডফিল্ডার সেলসোর ক্রসে কাভানি পা লাগালে মার্সেলোর গায়ে লেগে দূরের পোস্ট দিয়ে জালে ঢুকে যায়।

একটু পর ডি-বক্সে এমবাপেকে ফেলে দেওয়া হলে পেনাল্টি পায় পিএসজি। তবে কাভানির স্পটকিক ঠেকিয়ে দেন লোপেজ। কিন্তু ৮৫ আবারও মিনিটে আরেকটি আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায় লিওঁর। এ জয়ে টানা ছয় জয়ে শীর্ষে থাকা পিএসজির পয়েন্ট ১৮।

এভারটনের বিপক্ষে ম্যানইউয়ের বড় জয়

শেষ সাত মিনিটের তাণ্ডবে এভারটনের বিপক্ষে বড় জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ঘরের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে রেড ডেভিলরা জয় পেয়েছে ৪-০ গোলের ব্যবধানে। এর ফলে ম্যানচেস্টার সিটির সমান পয়েন্ট ও গোল ব্যবধান হলেও, টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে আছে হোসে মরিনহোর দল।

নিজেদের মাঠে ফেভারিট হয়েই মাঠে নামে রেড ডেভিলসরা। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে অ্যান্তোনিও ভ্যালেন্সিয়া দুর্দান্ত এক গোল করলে লিড পায় স্বাগতিকরা। ম্যাচের ২১ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিল ওয়েইন রুনি। তবে চলতি মৌসুমে ইউনাইটেড ছেড়ে এভারটনে ফেরা স্ট্রাইকার শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি।

পাঁচ মিনিট পর হতাশ করেন এ মৌসুমে এভারটন থেকে ইউনাইটেডে যোগ দেওয়া লুকাকু। হুয়ান মাতার কাছ থেকে বল পেয়ে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি বেলজিয়ান এই ফরোয়ার্ড।

বিরতি থেকে ফিরে আবারও গোলের সুযোগ পায় রুনি। তবে তার নেওয়া শট ডি গিয়া ফিরিয়ে দেন। পাঁচ মিনিট পর হুয়ান মাতার ফ্রি-কিকে বল পোস্টে লাগলে হতাশ হয় স্বাগতিক দর্শকরা।

তবে ম্যাচের শেষ দিকে জ্বলে ওঠে ইউনাইটেড। ৮৩ মিনিটে আর্মেনিয়ান প্লে মেকার হেনরিখ মাখতারিয়ানের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে ইউনাইটেড। এরপর ম্যাচের ৮৯ মিনিটে রোমেলু লুকাকু এবারের আসরে ৫ম গোল করলে ব্যবধান দাঁড়ায় ৩-০। ম্যাচের যোগ করা সময়ে স্পট কিক থেকে অ্যান্থনি মার্শিয়াল গোল করলে ৪-০ ব্যবধানে জয় নিশ্চিত হয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের।

পেনাল্টি-ফ্রি কিক নিয়ে নেইমার ও কাভানির ঝগড়া

ফরাসি লিগে টানা ষষ্ঠ জয় পেয়েছে পিএসজি। নেইমার, এমবাপে ও কাভানিরা কেউ গোল করতে না পারলেও দুটি আত্মঘাতী গোলের সুবাদে লিওঁকে ২-০ ব্যবধানে হারায় এমেরির দল। তবে ম্যাচে ফ্রি কিক ও পেনাল্টি নেওয়া নিয়ে সেরা দুই তারকা নেইমার ওঁ কাভানির মধ্যে মৃদু কথা কাটাকাটি হয়।

ম্যাচের ৫৭ মিনিটে ফ্রি কিক পায় পিএসজি। কাভানি ফ্রি কিক নিতে গেলে তার হাত থেকে বল নিয়ে নেইমারকে দেন আলভেজ। ২১ মিটার দূর থেকে নেইমারের নেওয়া ফ্রি-কিক ডানে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন লোপেজ।

ম্যাচের ৭৯ মিনিটে এমবাপেকে ডি বক্সে ফেলে দিলে পেনাল্টি পায় পিএসজি। আর ওই স্পট কিক নিয়ে রীতিমত ঝগড়ায় লিপ্ত হন কাভানি ও নেইমার। তবে শেষ পর্যন্ত কাভানি নেওয়া শট ঠেকিয়ে দেন লোপেজ।

মাহমুদার প্রশংসা অস্ট্রেলিয় কোচের

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশীপে বাংলাদেশের গোলরক্ষক মাহমুদা নিজের জাত চিনিয়েছেন। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে সেরা একাদশে জায়গা হয়নি তার। ৬১ মিনিটে বদলী হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন। তিনি মাঠে নামার আগেই সাত গোল হজম করেছিল লাল-সবুজরা। বাকী ২৯ মিনিটে মাত্র দুই গোল খায় গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।
বদলী হিসেবে মাঠে নেমেই নিজের দক্ষতা প্রমান করেছিলেন মাহমুদা। ঐ ম্যাচে গুনে গুনে তিনবার প্রতিপক্ষের আক্রমন দারুনভাবে প্রতিহত করেছিলেন। এরপর আর সাইড লাইনে বসে থাকতে হয়নি মাহমুদাকে। জাপানের বিরুদ্ধে সেরা একাদশে ঠাঁই পেয়েই নিজেকে আবারো প্রমান করেন বাংলাদেশের গোলবারের এ অতন্দ্রপ্রহরী। ৩-০ গোলে হারের ঐ ম্যাচেও মাহমুদা আরো একবার নিজেকে প্রমান করেছিলেন। জাপানের চারটি নিশ্চিত গোলের আক্রমন প্রতিহত করে সেদিন জাপানিজ কোচের প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন। আর আজ পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান কোচ রয় ডায়ারের প্রশংসা।

গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে আজ শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে শুরু থেকেই নিজেকে মেলে ধরেন মাহমুদা। একের পর এক আক্রমন প্রতিহত করে প্রতিপক্ষকে মানসিকভাবে দূর্বল করে দিচ্ছিলেন তিনি। বাংলাদেশ যখন ২-১ গোলে এগিয়ে, তখন ম্যাচে ফিরে আসতে পুরোপুরি চাপ প্রয়োগ করেছিল ক্যাঙ্গারুরা। কিন্তু মাহমুদার গড়ে তোলা ‘চীনের প্রচীর’ ভেদ করতে পারছিলেন না কোনভাবেই। ৭৮ থেকে ৮৩ মিনিটে যে দু’টি গোল আদায় করে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া, সে দু’টি গোলই এসেছে কর্ণার থেকে। এখানে মাহমুদার কিছুই করার ছিল না। ম্যাচে অজিরা ৫-২ গোলে জিতলেও অবাক হওয়ার কিছুই ছিল না। কিন্তু গোলবারের এ অতন্দ্রপ্রহরীর কারনে সেটা সম্ভব হয়নি।

তাই ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের এ গোলরক্ষকের প্রশংসা করতে ভুলেননি অস্ট্রেলিয়ার কোচ রয় ডায়ার। বলেন, ‘গোলরক্ষক খুব  ভালো খেলছে। ও (মাহমুদা) বিশ্বমানের গোলরক্ষক।’ শেষ ৫৮ মিনিট দশ জনের দল নিয়ে লড়াই করে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে সমতায় ফেরা এবং এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এ ম্যাচের পুরো কৃতিত্ব বাংলাদেশের। তারা গেম প্ল্যান নিয়ে এসেছিল। দশ জনের দল হওয়ার পরও তারা হাল ছাড়েনি। বাংলাদেশের কমপ্যাক্ট ডিফেন্স ছিল।’
 

 

দলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছোটন

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হারলেও তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলছেন অনূর্ধ্ব-১৬ মহিলা দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। হারের ম্যাচে অনেক প্রাপ্তি দেখছেন তিনি। ৩-২ গোলের ব্যবধানে হারের পরও মেয়েদের কৃতিত্ব দিলেন ভুল করেননি তিনি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে নিজ দলকে প্রশংসায় ভাসালেন ছোটন।

বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ৬ নম্বরে থাকা দলটির ফুটবলাররা এমনিতে দীর্ঘদেহী। তাদের সাথে কোনভাবেই কুলিয়ে উঠান কথা নয় কৃষ্ণা-স্বপ্না-মৌসুমীদের। কিন্তু অজিদের বিরুদ্ধে ভয়-ডরহীন ম্যাচ খেলে দশজনের দল নিয়ে মাত্র ৩-২ গোলে হেরেছে লাল-সবুজরা। আর তাতেই সন্তুষ্ঠ ছোটন, ‘মেয়েরা আজ খুব ভালো খেলছে। মাঠের লড়াইয়ে নিজেদের উজার করে দিয়েছে। দশ জন নিয়ে যে দুর্দান্ত ফুটবল উপহার দিয়েছে, তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। কৃষ্ণা লাল কার্ড দেখে না বের হলে আজ আমরা ম্যাচ জিততেও পারতাম। অনেক এক্সাইটিং একটা ম্যাচ ছিল।’

অস্ট্রেলিয়ার মতো বিশ্বসেরা দলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সমান তালেই লড়াই করে যাচ্ছিল। মহিলা ফুটবলের ইতিহাসে এটা সেরা ম্যাচ বলে মনে করেন ছোটন, ‘মহিলা ফুটবলের এটা সেরা গেম। ৬ নম্বরে থাকা দলের বিরুদ্ধে ১০৬ নম্বরে থাকা দলের লড়াই। আমরা গত এক বছর কঠোর অনুশীলন করেছি। মেযেরা যে কতোটা উন্নতি করেছে তা ম্যাচ বাই ম্যাচ প্রমান হয়েছে। প্রত্যেক খেলোয়াড়ের মধ্যে প্রতিভা আছে। এরা যে কোনো কিছু করতে পারে। আগামি এক/দুই বছর পর এই দল আরো ভালো হবে।’

ম্যাচের ৭৭ মিনিট পর্যন্ত এগিয়ে থাকার পরও ম্যাচটি জিততে না পারায় কিছুটা হতাশ তিনি। জয়ের সুযোগ হাতছাড়া হওয়ার কারন হিসেবে তিনি বলেন, ‘ম্যাচটা আমাদের দিকেই যাচ্ছিল। শেষ পনের মিনিট ছোটখাটো ভুল হয়েছে আমাদের। মনোযোগে ঘাটতি ছিল। সেই সুযোগটা নিয়েই কাজে লাগিয়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া ।’

 

হারের ম্যাচেও প্রাপ্তি বাংলাদেশের

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : কিছু হারের মধ্যেও থাকে তৃপ্তি। কিছু হারের মধ্যেও থাকে অনেক প্রাপ্তি। তেমনি এক হারের ম্যাচে অনেক প্রাপ্তি খুঁজে পেয়েছে বাংলাদেশ। এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশীপে আজ গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল লাল-সবুজরা। বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ৬ নম্বরে থাকা দলটির বিরুদ্ধে ৩-২ গোলে হারলেও দারুন লড়াই করেছে বাংলার মেয়েরা। লড়াকু এ হারেও উন্নতিটা স্পষ্ট হয়েছে টিম বাংলাদেশের। গত এক বছরে মহিলা ফুটবল যে কতোটা উন্নতি করেছে, সেটা আজকের ম্যাচে প্রমান হয়েছে। বড় দলগুলোর বিরুদ্ধে বাংলাদেশ যে লড়াই করতে পারে, সেটা প্রমানীত হয়েছে।

বিশ্ব ফুটবলে বাংলাদেশ মহিলা দলের অবস্থান ১০৬ নম্বরে। সেই হিসেবে অজিদের কাছে পাত্তাই পাওয়ার কথা ছিল না। কিন্তু ম্যাচের শুরুতে কিছুটা অগোছালো দেখা গেলেও সময়ের সাথে সাথেই নিজেদের খোলস থেকে বেড়িয়ে আসতে শুরু করে মার্জিয়া-স্বপ্নারা। অস্ট্রেলিয়াকে নাকানি-চুবানি খাইয়ে ফেলে ম্যাচে। ম্যাচ শুরুর ৯ মিনিটেই পিছিয়ে পড়েছিল লাল-সবুজরা। এরপর ৩২ মিনিটে কৃষ্ণার লাল কার্ড দেখে মাঠছাড়ার ঘটনা যেনো দলের ফুটবলারদের মনে ক্ষোভের আগুন জ্বলে উঠেছিল। সেই আগুনে অজি শিবিরকে ছাড়খাড় করে তুলেছিল গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। প্রথমার্ধে সমতায় ফিরে আসা টিম বাংলাদেশ দ্বিতীয়ার্ধের ৫ মিনিটেই এগিয়ে গিয়েছিল। সেই লিড ৭৮ মিনিট পর্যন্ত ধরেও রেখেছিল। কিন্তু মাঝে একটি ৫ মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায় লাল-সবুজ শিবির। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে জিততে না পারলেও ৩-২ গোলের এ হার অনেক বড় সম্মানের বাংলাদেশের জন্য। কারন শুধু মহিলা ফুটবলই নয়, দেশের ফুটবলের ইতিহাসে এখনো পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার জালে বল পাঠানে পারেনি কোন দল।  

আজ গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া মুখোমুখি হয়। স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় ইন্সটিটিউট অব ফিজিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার গ্রাউন্ডে শুরু হওয়া এ ম্যাচে ৭ মিনিটেই দলকে নিশ্চিত গোল হজমের হাত থেকে দলকে রক্ষা করেন গোলরক্ষক মাহমুদা। বাঁম দিক থেকে সথীর্থের লম্বা পাসে বল পেয়ে যান অস্ট্রেলিয়ান ফরোয়ার্ড জুলিয়া। দীর্ঘদেহী এ ফুটবলার বল নিয়ে ক্ষিপ্রগতিতে এগিয়ে যাচ্ছিলেন গোলবারের দিকে। রক্ষণভাগ ছিল পুরোপুরি ফাঁকা। ওয়ান বাই ওয়ান পজিশনে থাকা গোলরক্ষক মাহমুদা দৌড়ে সামনে এসে জুলিয়াকে প্রতিহত করেন। তবে দ্ইু মিনিট পরই মাহমুদা ও রক্ষভাগের ফুটবলারদের ভুলে গোল হজম করতে হয়। বক্সের ভেতরে থাকা বল শিউলি আজিম-শামসুন্নাহার ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে, গোলরক্ষক মাহমুদা ডি বক্স ছেড়ে বাইরে চলে আসলে লরা এমিলি সুযোগ কাজে লাগিয়ে দারুন এক শটে গোল আদায় করে নেন (১-০)।

৩২ মিনিটে লাল কার্ড দেখে মাঠের বাইরে চলে আসতে হয় অধিনায়ক কৃষ্ণাকে। বল নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া কৃষ্ণা রানীকে প্রথেমে ট্যাকল করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান এক ফুটবলার। রেফারি হিয়ুন জিয়ং ফাউলের নির্দেশ দিলেও কৃষ্ণা ‘অফ দ্যা বল’ ঐ ফুটবলারকে উদ্দেশ্য করে কিছু বলেছিলেন। আর তাতেই রেফারি তাকে লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ ছাড়ার নির্দেশ দেন। দশ জনের দলে পরিনত হয়ে যায় লাল-সবুজ শিবির। এরপরই যেনো তেঁতে উঠে টিম বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে গোল আদায়ের লক্ষ্যে ক্ষিপ্র হয়ে উঠে।

অবশেষে সেই কাঙ্খিত গোলের দেখা পায় টিম বাংলাদেশ। স্পট কিক থেকে গোলটি করেন ডিফেন্ডার শামসুন্নাহার (১-১)। ম্যাচের ৪৩ মিনিটে ডানদিক দিয়ে অজি শিবিরে আক্রমনে যাওয়া সিরাত জাহান স্বপ্নাকে বক্সের ভেতরে রাফ ট্যাকল করেন ডিফেন্ডার ম্যাটিক। রেফারি হিয়ুন জিয়ং সাথে সাথেই পেনাল্টির নির্দেশ দেন। স্পট কিক থেকে দারুন এক গোল করেন শামসুন্নাহার। সাথে সাথেই উল্লাসে মেতে উঠে লাল-সবুজ শিবির। সমতা নিয়েই প্রথমার্ধে মাঠ ছাড়ে লাল-সবুজরা।

দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামার পর অন্য এক বাংলাদেশকে দেখতে পায় প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। একের পর এক আক্রমনে কোনঠাঁসা করে ফেলেছিল তাদের। সেই আক্রমনের ফল পেতেও দেরী হয়নি। মাত্র ৫ মিনিটের মধ্যেই এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। মাসুরার লং পাসে পাওয়া বল স্বপ্না শট নিয়েছিলেন গোলমুখে। কিন্তু আগুয়ান গোলরক্ষক গ্রোভের পায়ে লেগে ফিরে আসে বল। ফিরতি বলে বক্সের ঠিক ভেতর থেকে দারুন এক শটে নিশানা ভেদ করেন মনিকা চাকমা (২-১)। উল্লাসে ফেটে পড়ে বাংলাদেশ শিবির।

ম্যাচের প্রায় ৭৮ মিনিট পর্যন্ত লিড ধরে রেখেছিল গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। অবশেষে ম্যাচে সমতায় ফিরে আসে বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে থাকা ৬ নম্বর দলটি। কর্ণার কিক থেকে সরাসরি বল জালে পাঠান কোনি ক্রস (২-২)। ৫ মিনিট পরেই আবারো কর্ণার থেকে গোল আদায় করে নেয় অজিরা। এবার গোলের নায়ক বদলী ফুটবলার জুলিয়া (৩-২)। জুলিয়ার কর্ণার প্রথমে গোলরক্ষক মাহমুদা গোল লাইন থেকে প্রতিহত করলেও ফিরতি বলে ট্যাব করে গোল আদায় করে নেন এ মিডফিল্ডার। শেষ পর্যন্ত ৩-২ গোলের সম্মানজনক হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে লাল-সবুজরা।

 

সুভ্যিনির ফ্লাগ ছাড়াই টিম মাঠে!

 কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচে স্যুভিনির ফ্ল্যাগ বিনিময় করা সৌহার্দ্যরে প্রতীক। দুই দলের জাতীয় সংগীন শেষে টসের পর দুই অধিনায়ক স্যুভিনির ফ্লাগ বিনিময় করেন। কিন্তু আজ বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে ঘটেছে ব্যতিক্রম ঘটনা। স্যুভিনির ফ্ল্যাগ ছাড়াই মাঠে চলে আসে টিম বাংলাদেশ! টসের পর যখন দুই অধিনায়ক যখন কর্মর্দন করতে যান, তখনই বিষয়টি চোখে পড়ে সবার। অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলিকো বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকারের হাতে নিজ দেশের ফ্ল্যাগ তুলে দিলেও কৃষ্ণা ছিলেন নির্লিপ্ত। ফ্ল্যাগ ছাড়াই কর্মর্দন পর্ব শেষ করে আসতে হয় তাকে।

মাঠ থেকে ফ্ল্যাগ বিনিময়ের সময় কৃষ্ণা রানী সরকারকে ডাক আউটের দিকে তাকিয়ে স্ব-জোড়ে বলতে শোনা যায়, ‘আমাদের ফ্ল্যাগ কই’? বিষয়টি নিয়ে টিমের মিডিয়া ম্যানেজার হাসান মাহমুদের কাছে জানতে চাইলে বলেন, ‘ফ্ল্যাগ নিয়ে আসার দায়িত্বটা টিমের যে কোনো একজনের। এখন এককভাবে কাউকে দোষারোপ করতে চাই না। এটা আমাদের ভুল।’ মাঠে স্যুভিনির নিয়ে আসার দায়িত্ব মূলত টিম ম্যানেজারের। কিন্তু ম্যানেজার জাকির চৌধুরী ফ্ল্যাগ নিয়ে না আসায় লজ্জা পেতে হয় লাল-সবুজ শিবিরকে।

 

অস্ট্রেলিয়ার জালে বাংলাদেশের গোল প্রথমার্ধে ১-১ গোলে সমতা

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশীপে প্রথম গোলের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ মহিলা দল। শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের ৯ মিনিটে পিছিয়ে পড়লেও ৪৩ মিনিটে ম্যাচে ফিরে আসে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। স্পট কিক থেকে গোল করেছেন শামসুন্নাহার। ম্যাচের প্রথমার্ধে (৩২ মিনিটে) বাংলাদেশের অধিনায়ক অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকারকে লাল কার্ড দেখে মাঠও ছাড়তে হয়েছে।

আজ গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া মুখোমুখি হয়। স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় ইন্সটিটিউট অব ফিজিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার গ্রাউন্ডে শুরু হওয়া এ ম্যাচে ৭ মিনিটেই দলকে নিশ্চিত গোল হজমের হাত থেকে দলকে রক্ষা করেন মাহমুদা। বাঁম দিক থেকে সথীর্থের লম্বা পাসে বল পেয়ে যান অস্ট্রেলিয়ান ফরোয়ার্ড জুলিয়া। দীর্ঘদেহী এ ফুটবলার বল নিয়ে ক্ষিপ্রগতিতে এগিয়ে যাচ্ছিলেন গোলবারের দিকে। রক্ষণভাগ ছিল পুরোপুরি ফাঁকা। ওয়ান বাই ওয়ান পজিশনে থাকা গোলরক্ষক মাহমুদা দৌড়ে সামনে এসে জুলিয়াকে প্রতিহত করেন। তবে দ্ইু মিনিট পরই মাহমুদা ও রক্ষভাগের ফুটবলারদের ভুলে গোল হজম করতে হয়। বক্সের ভেতরে থাকা বল শিউলি আজিম-শামসুন্নাহার ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে, গোলরক্ষক মাহমুদা ডি বক্স ছেড়ে বাইরে চলে আসলে লরা এমিলি সুযোগ কাজে লাগিয়ে দারুন এক শটে গোল আদায় করে নেন (১-০)।

৩২ মিনিটে লাল কার্ড দেখে মাঠের বাইরে চলে আসতে হয় অধিনায়ক কৃষ্ণাকে। বল নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া কৃষ্ণা রানীকে প্রথেমে ট্যাকল করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান এক ফুটবলার। রেফারি হিয়ুন জিয়ং ফাউলের নির্দেশ দিলেও কৃষ্ণা ‘অফ দ্যা বল’ ঐ ফুটবলারকে উদ্দেশ্য করে কিছু বলেছিলেন। আর তাতেই রেফারি তাকে লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ ছাড়ার নির্দেশ দেন। দশ জনের দলে পরিনত হয়ে যায় লাল-সবুজ শিবির।
অবশেষে গোলের দেখা পায় টিম বাংলাদেশ। স্পট কিক থেকে গোলটি করেন ডিফেন্ডার শামসুন্নাহার (১-১)। ম্যাচের ৪৩ মিনিটে ডানদিক দিয়ে অজি শিবিরে আক্রমনে যাওয়া সিরাত জাহান স্বপ্নাকে বক্সের ভেতরে রাফ ট্যাকল করেন ডিফেন্ডার ম্যাটিক। রেফারি হিয়ুন জিয়ং সাথে সাথেই পেনাল্টির নির্দেশ দেন। স্পট কিক থেকে দারুন এক গোল করেন শামসুন্নাহার। সাথে সাথেই উল্লাসে মেতে উঠে লাল-সবুজ শিবির।

 

বার্সাকে রক্ষা করলেন পওলিনহো

ঘরের মাঠে আগের দুই ম্যাচেই এস্পানিওল এবং জুভেন্তাসকে বিধ্বস্ত করেছিল বার্সেলোনা। এবার অ্যাওয়ে ম্যাচে গিয়ে হোঁচট খেতে খেতে অল্পের জন্য রক্ষা পেলো স্প্যানিশ জায়ান্টরা। কলোসিয়াম আলফনসো পেরেজে গিয়ে স্বাগতিক গেটাফেকে ২-১ গোলে হারিয়ে এসেছে বার্সা। শেষ মুহূর্তে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার পওলিনহোর গোলে কোনমতে পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে ঘরে ফিরেছে লিওনেল মেসি অ্যান্ড কোং।

আগের দুই ম্যাচে মাঠ কাঁপিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। এস্পানিওলের বিপক্ষে করেছিলেন হ্যাটট্রিক। এরপর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জুভেন্তাসের বিপক্ষে করেছিলেন জোড়া গোল। এবার তিনি গোল করতে না পারলেও, শেষ মুহূর্তে পওলিনহোর যে গোলে রক্ষা পেলো বার্সা, সেটি বানিয়ে দিয়েছিলেন মেসিই। পওলিনহো ছিলেন শুধুমাত্র ফিনিশার। এই জয়ে চার ম্যাচ থেকে পূর্ণ ১২ পয়েন্ট নিয়ে বার্সাই রয়েছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। ৩ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট মাত্র ৫। তারা রয়েছে ১১তম স্থানে।

বার্সার জন্য দুঃখ হয়ে দেখা দেয় ওসমান ডেমবেলের ইনজুরি। খেলার ২৯ মিনিটেই হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ে মাঠ থেকে বেরিয়ে যেতে হয়েছে নেইমারের পরিবর্তে কেনা এই ফরাসি ফুটবারকে। এরপর ৩৯ মিনিটেই ধারার বিপরীতে গোল হজম করে বসে বার্সা। মার্কেল বারগারা হেড পাসে বল এগিয়ে দেন গাকু শিবাশাকিকে। বাম পায়ের দুর্দান্ত শটে বার্সার জাল কাঁপিয়ে দেন তিনি।

প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মিনিটে গোলের ব্যবধান দ্বিগুণ করে ফেলতে পারতো গেটাফে। ফেইকাল ফাজরের ডান পায়ের শটটি বার্সার পোস্টে লেগে ফিরে আসে। তবে এর খানিক পরই দারুণ একটি গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। কিন্তু তার নেয়া ফ্রি কিকের দারুণ শটটি ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক ভিসেন্তে গুয়াইতা।

গোল হজম করার পর বার্সা যেন আরও মরিয়া। সেই গোল পরিশোধ করে জয়ের রাস্তায় আসতে হবে। এ লক্ষ্যে আক্রমণ আর প্রতি আক্রমণে ব্যস্ত করে তোলে গেটাফের রক্ষণভাগ। ৫৬ মিনিটেই ফিরতে পারতো সমতায়। জেরার্ড পিকের কাছ থেকে বল পেয়ে দুর থেকে লম্বা শট নেন সার্জিও রবার্তো। কিন্তু তার শট ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক।

তবে আক্রমণের ধারাবহিকতায় ৬২ মিনিটে এসে গোলের দেখা মেলে বার্সার। ৪৫ মিনিটে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার পরিবর্তে মাঠে নামা ডেনিস সুয়ারেজ গোল করেন বার্সার হয়ে। সার্জি রবার্তোর কাছ থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের শট নেন ডেনিস সুয়ারেজ।

১-১ সমতায় আসার পর বার্সার চিন্তায় অন্তত আরও একটি গোল। কিন্তু সেটি যেন আসবেই না। অবশেষে খেলার ৮৪তম মিনিটে গিয়ে বার্সার ত্রাণকর্তার ভুমিকায় আসেন পওলিনহো। মেসির পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে একজন ডিফেন্ডারকে ডস দেন তিনি। এরপর ডান পায়ের শটে বল জড়ান গেটাফের জালে। বার্সার জার্সি গায়ে এই ব্রাজিলিয়ানের এটা প্রথম গোল। খানিক পরই মেসি ব্যবধান আরও বাড়াতে পারতেন। কিন্তু, তার নিখুঁত শটটি চলে গেলো গেটাফের গোল পোস্টের ওপর দিয়ে।

আত্ববিশ্বাসে টইটুম্বুর মেয়েরা

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : বিশ্ব ফুটবলে অস্ট্রেলিয়া মহিলা দলের অবস্থান ৬ নম্বরে, আর বাংলাদেশের অবস্থান ১০৬ নম্বরে! র‌্যাংকিংয়ের এ পার্থক্যই দু’দলের শক্তির বিচারের জন্য যথেষ্ট। কিন্তু র‌্যাংকিংয়ের এ পার্থক্য নিয়ে মোটেও ভীত নয় টিম বাংলাদেশ। নিজেদের চেয়ে একশত সিঁড়ি উপরে থাকা দলটির বিরুদ্ধে নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটাই লক্ষ্য মেয়েদের। ফুটবল অনিশ্চয়তার খেলা। যে কোনো মুহুর্তে পাল্টে যেতে পারে ম্যাচে দৃশ্যপট।  

আগামিকাল অজিদের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে গতকাল বিশ্রামে ছিল কৃষ্ণার দল। তবে আজ সকালে প্রায় দেড় ঘন্টা ম্যাচ গ্রাউন্ডে অনুশীলন করেছে স্বপ্না-মৌসুমীরা। ঘাম ঝড়ানো অনুশীলনে অস্ট্রেলিয়াকে রুখার কৌশল শিখিয়েছেন কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। গতকাল রাতেই নিজের শিষ্যদের অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচ ভিডিও দেখিয়েছেন। সে ভিডিও দেখে ফুটবলাররাও প্রতিপক্ষ দল সম্পর্কে ধারনা নিয়েছেন। বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ৬ নম্বরে থাকা দলটির বিরুদ্ধে এর আগে কখনো খেলার অভিজ্ঞতা নেই লাল-সবুজ শিবিরের। এবারই প্রথম মহিলা দল খেলবে অজিদের বিরুদ্ধে। অপরিচিত দলটির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামার আগে মোটেও ভীত নয় বাংলাদেশ শিবির।

জাপানের বিরুদ্ধে যে পারফর্ম্যান্স করেছিল দল, সেটাই ধরে রাখা মূল লক্ষ্য এখন তাদের সামনে- জানালেন দলের অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকার, ‘জাপানের বিপক্ষে আমরা ভালো খেলেছি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও লক্ষ্য থাকবে তার ধারাবাহিকতা ধরে রাখার। চেষ্টা থাকবে যেন এ ম্যাচে আমরা আরও ভালো খেলতে পারি।’ র‌্যাংকিংয়ে নিজেদের চেয়ে একশত সিঁড়ি উপরে থাকা দলটির বিপক্ষে সুযোগ কাজে লাগিয়ে বড় কিছু অর্জনের লক্ষ্যের কথা জানান তিনি।

দলের আক্রমনভাগে ফুটবলার সানজিদা জানান, ‘আমাদের প্রথম ম্যাচটা খারাপ হয়েছিল। দ্বিতীয় ম্যাচটা একটু ভালো হয়েছে। কালকে আমরা চেষ্টা করব আরও ভালো খেলার জন্য। আরও এফোর্ট দেওয়ার জন্য। নিজেদের সর্বোচ্চটা দেয়ার জন্য।’ বিশ্ব ফুটবল দাপিয়ে বেড়ালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ভালো কিছুই প্রত্যাশা করছেন সানজিদারা-শামসুন্নাহাররা। জাপান ম্যাচের ফলাফলটাই আত্ববিশ্বাসী করে তুলেছে টিম বাংলাদেশকে। অস্ট্রেলিয়ার খেলার ধরন-কৌশল এরই মধ্যে রপ্ত করেছেন। এখন মাঠে নিজেদের সর্বোচ্চটা দিতে প্রস্তুত- জানালেন সানজিদা, ‘অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে ভিডিও কোচ আমাদের দেখিয়েছেন। আজকের অনুশীলনেও ওরা কোন স্টাইলে খেলে, কোচ সেটা আমাদের বুঝিয়ে দিয়েছেন। কোচ আমাদের যেভাবে বুঝিয়েছেন, আমরা যদি সেভাবে করতে পারি, তাহলে ইনশাল¬াহ আমরা পারব। নিজেদের সর্বোচ্চটা উজার করে দিতে প্রস্তুত আমরা।’

 

 

 

স্বাভাবিক খেলার পরামর্শ ছোটনের

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশীপে নিজেদের শেষ ম্যাচে আগামিকাল রোববার শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। চলতি এ আসরে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচেই হেরেছে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। প্রথম ম্যাচে উত্তর কোরিয়ার কাছে ৯-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পর জাপানের কাছে পরাস্ত হয়েছে মাত্র ৩-০ ব্যবধানে। দ্বিতীয় ম্যাচের ফলাফলটাই এখন আত্ববিশ্বাসটা উর্ধ্বমূখী করেছে মেয়েদের। র‌্যাংকিংয়ে যোজন-যোজন এগিয়ে থাকা দলগুলোর বিরুদ্ধেও যে প্রতিরোধ গড়ে তোলা সম্ভব, সেটা জাপানের বিরুদ্ধেই প্রমান হয়েছে। ভয় না পেয়ে নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা খেললেই যে কোনো দলের বিরুদ্ধে ভালো করা সম্ভব। আর তাই নিজের শিষ্যদের অজিদের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে স্বাভাবিক খেলার পরামর্শ দিয়েছেন গোলাম রব্বানী ছোটন।

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আগামিকাল স্থাণীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় ইন্সটিটিউট অব ফিজিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারের এক নম্বর গ্রাউন্ডে মুখোমুখি বাংলাদেশের মেয়েরা। এ মাঠেই জাপানের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিল কৃষ্ণাবাহিনী। তাই মাঠের গতি-প্রকৃতি অনেকটাই ধাতস্ত ছোটন শিষ্যদের। চলতি এ আসর থেকে এরই মধ্যে বাংলাদেশ দলের বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। তবুও নিয়মরক্ষার এ ম্যাচটি কম গুরুত্বপূর্ণ নয় লাল-সবুজদের কাছে। এ ম্যাচে যদি অন্তত্য ড্র করা যায়, সেটাই বা কম প্রাপ্তি কিসের।  

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে শিষ্যদের নিজেদের স্বাভাবিক খেলার পরামর্শ দিয়েছেন কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ‘প্রতিপক্ষ দলগুলোর সঙ্গে আমাদের ব্যবধানের বাস্তবতা এখানে এসে বেশি উপলব্ধি করতে পেরেছি আমরা। প্রথম ম্যাচে (উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে) মেয়েরা নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারেনি। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে (জাপানের বিপক্ষে) তারা পেরেছে। তারা নিজেদের খেলায় ফিরে আসতে পেরেছে। আগামিকালও নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটার পরামর্শ দিয়েছি আমি। কার বিরুদ্ধে খেলছি, সেটা মাথায় না রাখার পরামর্শ দিয়েছি। যদি স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারে, তাহলে ভালো কিছু করা সম্ভব।’

থাইল্যান্ডের আবহাওয়ার সঙ্গে এরই মধ্যে বাংলাদেশ দল নিজেদের মানিয়ে নিয়েছে। তাই অজিদের বিরুদ্ধে ভালো কিছুরই প্রত্যাশা করছেন কোচ, ‘এ ক’দিনে এখানকার আবহাওয়ার সঙ্গে মেয়েরা নিজেদের মানিয়ে নিয়েছে। আমি মনে করি, কাল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তারা ভালো একটা খেলা উপহার দিবে। সর্বোচ্চটাই দেবে। এটা আসলেই একসাইটিং ম্যাচ। আশাকরি এটা উপভোগ্য একটা ম্যাচ হবে এবং আমাদের জন্য ভালো কিছু হবে।’
জয়-পরাজয় নিয়ে খুব একটা ভাবছেন না গোলাম রব্বানী ছোটন, ‘এ ম্যাচে জয়-পরাজয় নিয়ে খুব একটা ভাবছি না আমি। আমার লক্ষ্য ভালো ফুটবল উপহার দেয়া। মেয়েদের সেটাই বলেছি। ম্যাচে সুযোগ আসবে। যারা সুযোগ কাজে লাগাতে পারবে, তারাই ভালো ফল পাবে।’

 

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধেও ভালো করার প্রত্যাশা মেয়েদের

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে : জাপানের বিরুদ্ধে ৩-০ গোলের হারের পরও আত্ববিশ্বাসটা বেশ উর্ধ্বমূখী বাংলাদেশ মহিলা ফুটবল দলের। এশিয়ার পরাশক্তি জাপানের কাছে মাত্র এক যুগ আগেও দুই ডজন গোলের ব্যবধানে হারতে হয়েছিল লাল-সবুজদের। যে জাপানের সামনে একটা সময় দাঁড়াতেই পারতো না বাংলাদেশ, সে দলটির বিরুদ্ধেই এখন লড়াই করে। ছোট ছোট পাসে নান্দনিক ফুটবল খেলা জাপানকে তিন গোলে আঁটকে রাখা সত্যিই উন্নতির লক্ষ্যন বাংলাদেশ দলের জন্য। ৩-০ গোলের এ পরাজয়টাই এখন অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে ‘টনিক’ হিসেবে কাজ করবে বলে মনে করেন কৃষ্ণা-মৌসুমী-শামসুন্নাহাররা।

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশীপে আগামি রোববার স্থাণীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। ঐ ম্যাচের আগে আজ শুক্রবার বিশ্রামে থাকবেন কৃষ্ণাবাহিনী। জাপানের বিরুদ্ধে লড়াকু ফুটবল উপহার দেয়ায় দলের ম্যানেজার জাকির চৌধুরী বোনাস দিয়েছেন ফুটবলারদের। বোনাসের সেই টাকা দিয়ে আজ কেনাকাটা করতে বের হবেন দলের ফুটবলাররা। দুপুর দুইটায় চনবুড়ির একটি মার্কেটে নিয়ে যাওয়া হবে তাদের। নিজেদের মনমতো কেনাকাটা সেখানেই সেরে নিবেন তারা।  

উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে ৯-০ গোলে বড় ব্যবধানে হারের পর মন বেশ খারাপ ছিল তাদের। তবে জাপানের কাছে ৩-০ গোলে হারের পর বেশ ফুরফুরা হয়ে উঠেছেন ফুটবলাররা। আত্ববিশ্বাসটাও বেশ উর্ধ্বমূখী এখন। জাপানের বিরুদ্ধে দলের গোলরক্ষক মাহমুদু ও ডিফেন্সে থাকা শামসুন্নাহার-শিউলি আজিমরা দূর্দান্ত পারফর্ম করেছেন। তাদের কারনেই জাপান ম্যাচের শেষ ৫১ মিনিট আর গোলের দেখা পায়নি। উত্তর কোরিয়ার কাছে বিধ্বস্ত হওয়ার রাতে ঠিক মতো ঘুমাতে না পারলেও বৃহস্পতিবার রাতটা বেশ ভালোই কেটেছে তাদের। শান্তির একটা ঘুম দিয়েছেন বলেই জানালেন দলের গোলরক্ষক মাহমুদা। এখন তাদের লক্ষ্য অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে কৌশলী ফুটবল খেলে আরো ভালো রেজাল্ট বয়ে আনা।

সকালে নাস্তা পর্ব সেরে হোটেলের বাইরে বেনসেন বিচের সামনে সংবাদ মাধ্যমের সাথে আলাপকালে বাংলাদেশ দলের এ গোলরক্ষক বলেন, ‘কোরিয়ার কাছে আমরা নয় গোলে হারছি-এটায় আমাদের তো খারাপ লাগছে। যদি ওই ম্যাচটা নিয়ে আমরা চিন্তা করতাম, তাহলে জাপানের বিপক্ষে ভালো করতে পারতাম না। সবকিছু ভুলে আমারা নতুন ম্যাচ নতুন করে খেলার চেষ্টা করেছি। এ কারণে আমরা জাপানের বিপক্ষে ভালো করে খেলতে পেরেছি।’ প্রথম ম্যাচে বদলী হিসেবে মাঠে নামতে হয়েছিল মাহমুদাকে। ৫৯ মিনিটে মাঠে আসার পর মাত্র দু’টি গোল হজম করেছিলেন তিনি। বদলী হিসেবে নেমেই নিজেকে মেলে ধরেন এবং নিজের সেরাটা দিয়েছেন মাঠে। তাই জাপানের বিরুদ্ধে সেরা একাদশে ঠাঁই করে নিয়েছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেরা একাদশে থাকতে পারলে আরো ভালো করবেন বলেন জানান তিনি।

গোলবারে দাঁড়িয়ে বৃহস্পতিবার অন্তত্য জাপানের চারটি নিশ্চিত গোল আঁটকিয়ে দিয়েছিলেন মাহমুদা। তাই কুড়িয়েছেন প্রতিপক্ষ দলের কোচের প্রশংসা। সে প্রশংসা সামনের ম্যাচে আরো ভালো খেলতে উৎসাহ দেবে বলে মনে করেন মাহমুদা।
দলের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় শামসুন্নাহার বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ‘টনিক’ হিসেবে কাজ করবে জাপান ম্যাচের ফলাফল। গ্রুপ পর্বে অস্ট্রেলিয়া দুই ম্যাচে ১২ গোল হজম করেছে, আমরাও সমান গোল খেয়েছি। তবে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আমরা নিজেদের সেরা খেলাটা খেলতে পারিনি। এখন আমাদের আত্ববিশ্বাস বেড়েছে। তাই আশাকরছি অজিদের বিরুদ্ধে আমরা ভালো কিছু করতে পারবো।’

 

 

 

রেফারি মারধরের শাস্তি পেল ইয়ংমেন্স ক্লাব

ম্যাচ হেরে রেফারি জিএম চৌধুরি নয়নকে মারধর করার শাস্তি পেল বাংলদেশ চ্যাম্পিয়শিপ লিগের দল ফকিরেরপুল ইয়ংমেন্স ক্লাব। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) ডিসিপ্লিনারি কমিটি শুক্রবার সভা করে ইয়ংমেন্স ক্লাবকে ২ লাখ টাকা জরিমানা এবং মারধরের নেতৃত্ব দেয়া ক্লাবটির সহকারী ম্যানেজার এম এইচ পিপুলকে ১ বছর সাসপেন্ড করেছে। জরিমানার ২ লাখ টাকা ১৪ অক্টোবরের মধ্যে জমা দেয়ার নির্দেশও দিয়েছে বাফুফে।

গত ১২ সেপ্টেম্বর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়নশিপের উত্তর বারিধারা ও ইয়ংমেন্স ক্লাবের খেলা শেষে ফকিরেরপুলের একটি হোটেলের সামনে এম এইচ পিপুলর নেতৃত্বে কয়েকজন মারধর করে রেফারি নয়নকে। ম্যাচে ইয়ংমেন্স ক্লাব ১-০ গোলে হারে উত্তর বারিধারার কাছে।

একই দিন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আরামবাগের বিপক্ষে ম্যাচ চলাকালীন ফরাশগঞ্জের সহ-সভাপতি সারোয়ার হাসান আলো শ’দুয়েক সমর্থক নিয়ে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করায় ক্লাবটিকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছে বাফুফে। শনিবারের মধ্যে ক্লাবটির কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দেয়ার সময় বেধে দিয়েছে বাফুফে।

পাঁচ পরিবর্তন নিয়ে ব্রাজিল দল ঘোষণা

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে সবার আগে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত হয়েছে ব্রাজিলের। তাই বাছাই পর্বের শেষ দুটি ম্যাচকে সামনে রেখে বড় ধরনের পরিবর্তন এনে দল ঘোষণা করেছে পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াডে নতুন করে জায়গা করে নিয়েছেন পাঁচজন।

শাখতার দোনেৎস্কের মিডফিল্ডার ফ্রেড এবং ম্যানচেস্টার সিটির দানিলো জায়গা করে নিয়েছেন তিতের স্কোয়াডে। এছাড়া বিস্ময়করভাবে ফ্লেমেঙ্গোর মিডফিল্ডার ডিয়েগো ব্রাজিল দলে ডাক পেয়েছেন। ৩২ বছর বয়সী ডিয়েগো তারদেল্লিকেও ডেকেছেন তিতে। আর বাদ পড়েছেন তাইসন, রদ্রিগো কাইয়ো, ফাগনার, গুইলিয়ানো ও লুয়ান। তবে নেইমার, ফিলিপে কুতিনহো, মার্সেলো এবং উইলিয়ানের মতো তারকা খেলোয়াড়রা যথারীতি স্কোয়াডে রয়েছেন।

আগামী ৫ অক্টোবর লাপাজে স্বাগতিক বলিভিয়ার মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। এরপর ১০ তারিখে ঘরের মাঠে চিলিকে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের শেষ ম্যাচে আতিথ্য দেবে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

ব্রাজিল স্কোয়াড:
গোলরক্ষক: অ্যালিসন, ক্যাসিও ও এডারসন।
ডিফেন্ডার: মার্কুইনোস, মিরান্দা, থিয়াগো সিলভা, জেমারসন, দানি আলভেজ, দানিলো, মার্সেলো, ফিলিপে লুইস
মিডফিল্ডার: ফ্রেড, আর্থার, দিয়েগো, কাসেমিরো, ফার্নান্দিনহো, পাওলিনহো, রেনাতো অগাস্তো, ফিলিপে কৌতিনহো, উইলিয়ান
ফরোয়ার্ড: দিয়েগো তারদেল্লি, নেইমার, গ্যাব্রিয়েল জেসুস ও রবার্তো ফিরমিনো