সন্ধ্যা ৬:৩৯, শুক্রবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট

চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে হার দিয়ে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ শুরু করেছিল আফগানিস্তানের সাহিন আসমায়ে এএফসি। পরের ম্যাচেই দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে আফগান ক্লাবটি।

বুধবার চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে সাহিন আসমায়ে ৩-১ গোলে হারিয়েছে নেপালের মানাং মার্সিংয়াদি ক্লাবকে। এ জয়ে আফগানিস্তানের ক্লাবটির সেমিফাইনালে ওঠার সম্ভাবনা বেঁচে রইলো।

সাহিন আসমায়ের জয়ের নায়ক অধিনায়ক আমিরুদ্দিন শরিফী। দ্বিতীয় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে প্রথম হ্যাটট্রিক করেছেন এ আফগান যুবক। ৩৮ মিনিটে গোল করে এগিয়ে দেন দলকে। ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ৬৫ মিনিটে।

৭২ মিনিটে নেপালের ক্লাবটির বিমল বাসনেত গোল করে ব্যবধান কমালেও শেষ রক্ষা হয়নি। ৭৭ মিনিটে পেনাল্টি পায় আফগানিস্তানের ক্লাবটি। আমিরুদ্দিন হ্যাটট্রিক করে দলের জয়ও নিশ্চিত করেন।

সাহিন আসমায়ের জয়ে দুই ক্লাবের পয়েন্টই ৩ করে। রাতের ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে মোহামেডান জিতে গেলে জমে যাবে ‘বি’ গ্রুপের খেলা।

বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টকে গিনেস বুকে ওঠানোর উদ্যোগ

ছেলেদের বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টে খেলোয়াড় ১০ লাখ ৯২ হাজার ৪২০ এবং মেয়েদের বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টে খেলোয়াড় ১০ লাখ ৯১ হাজার ৩৩২ জন। দুটি টুর্নামেন্ট মিলে মোট অংশগ্রহণকারী ফুটবলার ২১ লাখ ৮৩ হাজার ৭৫২ জন।

এত বেশি সংখ্যক ফুটবলার নিয়ে কোনো টুর্নামেন্ট বিশ্বে আছে কি না তা জানা নেই কারো। অনেকের ধারণা এটা বিশ্ব রেকর্ড। সে রেকর্ড ঘাঁটা শুরু করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। যদি বিশ্বে এর চেয়ে বেশি খেলোয়াড় নিয়ে কোনো টুর্নামেন্ট না হয় তাহলে বাংলাদেশের এ বিশাল ফুটবলযজ্ঞ স্থান পাবে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকডর্সে।

বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপকে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকডর্সে যুক্ত করার উদ্যোগের কথা জানিয়ে বাফুফের সহ-সভাপতি ও ডেভেলপম্যান্ট কমিটির চেয়ারম্যান বাদল রায় বলেছে, ‘আমরা খবর নিয়েছি, বিশ্বের কোথায় এতো সংখ্যক প্রতিষ্ঠান ও ফুটবলার নিয়ে প্রতিযোগিতা আয়োজন হয় না। আমরা দুটি আয়োজনকে রেকর্ডবুকে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যেগ নিয়েছি।’

football

তৃণমুল থেকে ফুটবল উন্নয়নের এ বিশাল কাজটি করছে সরকার। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগো ২০১০ সালে যাত্রা শুরু করে ছেলেদের বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট। মেয়েদের বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের যাত্রা তার পরের বছর।

ছেলেদের বিভাগে দেশের ৬৪ হাজার ২৬০টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মেয়েদের বিভাগে ৬৪ হাজার ১৯৬টি প্রাথমিক স্কুলের প্রায় ২২ লাখ ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে যে টুর্নামেন্ট চলছে তার চূড়ান্ত পর্ব শুরু হয়েছে বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। দুই বিভাগেই অংশ নিচ্ছে ১৪টি করে স্কুল। বিভাগীয় চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল খেলছে শিরোপা নির্ধারনী এ পর্বে। ২ মার্চ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবলের ফাইনাল।

জাতীয় দল বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় খাবি খেলেও ভালো করছে বয়সভিত্তিক দলগুলো। এর পেছনে প্রধান ভূমিকা স্কুলভিত্তিক এ দুটি টুর্নামেন্টের। মেয়েদের ফুটবলে যে সম্ভাবনার হাতছানি সবকিছুর প্রধান উৎস বঙ্গমাতা ফুটবল। সরকারের এতবড় ফুটবলযজ্ঞের পরও সেটাকে কাজে লাগাতে পারছে না বাফুফে। বিশ্বের কোনো দেশের সরকার তাদের ফেডারেশনকে এভাবে প্রতিভা খোঁজার ক্ষেত্র তৈরি করে দেয় কি না সেটাও গবেষার বিষয়।

football

চূড়ান্ত পর্ব শুরুর দিন মন্ত্রণালয় ও বাফুফের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উঠে এসেছিল ক্ষুদে ফুটবলারদের পরিচর্যার প্রসঙ্গটি। বাফুফে থেকে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব পেলে এ কাজটি করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘প্রতিযোগিতা আয়োজনের পাশাপাশি প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের পরিচর্যা সংক্রান্ত প্রস্তাবে মন্ত্রণালয় সম্মত হয়েছে। বাজেটে বিষয়টি যুক্ত করার কথা জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীলরা। এটা মন্ত্রণালয়ের চমৎকার উদ্যোগ। এ আয়োজন থেকে বাংলাদেশ ফুটবল অনেক কিছু পেয়েছে। এ উদ্যোগের জন্য মন্ত্রণালয়ের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।’

এ আয়োজন থেকে উঠে আসা ছেলে-মেয়েরা আগামীতে জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, ‘চলমান আয়োজনে যে বাচ্চারা অংশগ্রহণ করছে। তারা ভবিষ্যতে জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করে দেশের ভাবিমূর্তি উজ্জ্বল করবে বলে আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।’

মোহামেডান-চট্টগ্রাম আবাহনী ম্যাচ গোলশূন্য

ম্যাচটি বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল মোহামেডানের কাছে। হার দিয়ে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব শুরু করা ঢাকার জায়ান্টদের সেমিফাইনালে ওঠার সম্ভাবনা তৈরি করতে দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের বিকল্প ছিল না চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে; কিন্তু সাদা-কালোরা সেটা পারেনি। আয়োজকদের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করায় বিদায় ঘণ্টা বাজার অপেক্ষায় তারা।

জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করা চট্টগ্রাম আবাহনী দ্বিতীয় ম্যাচ জিতলে সেমিফাইনাল প্রায় নিশ্চিত করে ফেলতো। ড্রয়ের পর এখন তাদের শেষ ম্যাচ থেকেও এক পয়েন্ট প্রয়োজন হতে পারে। গ্রুপের শেষ ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ নেপালের মানাং মার্সিয়াংদি ক্লাব।

এ ম্যাচ ড্রয়ে অনেকটা জমে গেছে ‘ডি’ গ্রুপ। অবস্থাটা এমন দাঁড়িয়েছে গ্রুপের চার দলের সামনেই আছে সেমিফাইনালে যাওয়ার সুযোগ।

ভালেন্সিয়ার কাছে রিয়ালের হার

লা লিগায় বার্সার সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান বাড়ানোর সহজ সুযোগটা নষ্ট করলো রিয়াল মাদ্রিদ। বুধবার পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা ভালেন্সিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে গেছে জিদানের শিষ্যরা।

টানা চার ম্যাচ জয়ের স্বাদ নিয়ে ভালেন্সিয়ার মাঠে খেলতে নামে রিয়াল। তবে ম্যাচের শুরুতেই গোল করে রিয়ালকে হতাশ করে দেয় ভালেন্সিয়া। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে মুনির হাদ্দাদির ক্রস থেকে হাভ-ভলিতে বল জালে জড়ান ইতালির ফরোয়ার্ড জাজা। এর পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ওরেয়ানা।

দুই গোলে পিছিয়ে থেকে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে রিয়াল। বিরতির ঠিক আগে বাঁ-দিক দিয়ে মার্সেলোর ক্রসে ১২ গজ দূর থেকে দারুণ হেডে ব্যবধান কমান রোনালদো।

riyal

বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণের ধার বাড়িয়ে দেয় রোনালদো-বেনজামা-বেলরা। তবে একের পর এক আক্রমণ করেও আর গোলের দেখা পায়নি রিয়াল। ম্যাচের শেষ দিকে রোনালদোর হেড পোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে গেলে হারের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় রিয়ালকে।

এদিকে এ ম্যাচে হারলেও রিয়ালের অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি। ২২ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষেই রয়েছে তারা। আর এক ম্যাচ বেশি খেলে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে বার্সেলোনা।

শেষ ষোলোয় ম্যানইউ

সহজ জয়ে ইউরোপা লিগের শেষ ষোলোয় নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। বুধবার ফিরতি পর্বে ফরাসি ক্লাব সাতে ইচেনাকে ১-০ গোলে হারিয়েছে ম্যানইউ। আর দুই লেগ মিলিয়ে মরিনিয়োর শিষ্যরা জিতেছে ৪-০ ব্যবধানে।

বুধবার প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়েই খেলতে থাকে ম্যানইউ। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১৬ মিনিটে গোল করে দলকে লিড এনে দেন আর্মেনিয়ার তারকা মিডফিল্ডার হেনরিখ মিখিতারিয়ান। তবে গোল করা আট মিনিট পর চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন এই তারকা। আগামী রোববার ওয়েম্বলিতে সাউথ্যাম্পটনের বিপক্ষে লিগ কাপের ফাইনালে তার মাঠে নামার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

এদিকে বিরতির পর এরিক বেইলি দুই হলুদ কার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় ম্যানইউ। তবে এর কোনো সুবিধা আদায় করতে পারেনি স্বাগতিকরা। এর আগে ঘরে মাঠে জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের হ্যাটট্রিকে ৩-০ এ জিতেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

আবারো আদালতে নেইমার-বার্সা

সান্তোস থেকে বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার প্রক্রিয়ায় জালিয়াতি ও দুর্নীতির অভিযোগে নেইমার, বার্সা ও ব্রাজিলিয়ান এই তারকার বাবার কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা চালানোর আদেশ দিয়েছে স্পেনের হাইকোর্ট। ফলে আবারো আদালতে যেতে হচ্ছে ব্রাজিল ও বার্সার এই তারকাকে।

এদিকে সান্তোস, নেইমারের মা ও ২৫ বছর বয়সী তারকার বাবার পরিচালিত কোম্পানিকেও মামলা লড়তে হবে। তারা কেউই আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবে না।

এছাড়া নেইমারের দুই বছরের কারাদণ্ড ছাড়াও প্রায় ৯৩ লাখ ইউরো জরিমানার শাস্তি চাওয়া হয়েছে। অবশ্য দোষী প্রমাণিত হলেও নেইমারকে হয়তো জেলে জেতে হবে না। স্পেনের আইন অনুযায়ী, সহিংস অপরাধ না করলে সাধারণত দুই বছরের নিচে সাজার ক্ষেত্রে জেলে যেতে হয় না। প্রসিকিউটররা বার্সেলোনারও প্রায় ৮৫ লাখ ইউরো ও সান্তোসকে ৬৫ লাখ ইউরো জরিমানার শাস্তি চেয়েছে।

গত জুলাইয়ে স্প্যানিশ আদালত নেইমারকে মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়েছিলেন আদালত। তবে স্পোর্টস ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড ডিআইসের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার নেইমারের বিপক্ষে মামলা পুনরুজ্জীবিত করেন আদালত। প্রতিষ্ঠানটি ও তাদের আইনজীবীদের অভিযোগ, ট্রান্সফারের মূল অংক গোপন করায় প্রাপ্য হিস্যা পায়নি ডিআইএস।

বুধবার মুখোমুখি মোহামেডান-চট্টগ্রাম আবাহনী

লক্ষ্য এক; কিন্তু শুরুটা তাদের দুই রকম। দ্বিতীয় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব শুরুর আগে মোহামেডান ও আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনীর কোচের মুখে ছিল একই সুর ‘প্রথম লক্ষ্য সেমিফাইনাল’। সে লক্ষ্যে এখনো অটুট মোহামেডান ও চট্টগ্রাম আবাহনী। তবে জিতে টুর্নামেন্ট শুরু করায় চট্টলার দলটির সামনে লক্ষ্য পূরণের সম্ভাবনা যতটুকু তার উল্টো মোহামেডানের জন্য। তারা যে শুরু করেছে হার দিয়ে।

এক লক্ষ্য আর দুই রকম অবস্থানে থাকা এ দুই ক্লাব বুধবার পরস্পরের মুখোমুখি হচ্ছে। চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭ টায় শুরু হবে গতবারের চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনী ও সেমিফাইনালিস্ট ঢাকা মোহামেডানের ম্যাচটি। সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে এ ম্যাচ জিততে হবে চট্টগ্রাম আবাহনীকে। আর মোহামেডানকে জিততে হবে সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে।

বিকেলে গ্রুপের অন্য ম্যাচে মুখোমুখি হবে নেপালের মানাং মার্সিয়াংদি ক্লাব ও আফগানিস্তানের সাহিন আসমায়ে এফসি। রাতের ম্যাচের মতো এ দুই দলের সমীকরণও দুই রকম। নেপালের দলটি টুর্নামেন্ট শুরু করেছে মোহামেডানকে হারিয়ে এবং আফগানিস্তানের দলটি প্রথম ম্যাচে হেরেছে চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে। মানাং মার্সিয়াংদি জিতলে নিশ্চিত হবে সেমিফাইনাল। সাহিন আসমায়ে জিতলে জাগবে সম্ভাবনা।

গ্রিজম্যানের নৈপুণ্যে অ্যাথলেটিকোর জয়

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের পথে আরও এক ধাপ এফিয়ে গেলো অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। গ্রিজম্যানের নৈপুণ্যে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে জার্মানির ক্লাব বেয়ার লেভারকুসেনকে তাদেরই মাঠে ৪-২ গোলে হারিয়েছে গতবারের রানার্সআপরা।

প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই চাপ সৃষ্টি করে খেলতে থাকে অ্যাথলেটিকো। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১৭ মিনিটে গোল করে দলকে লিড এনে দেন সাউল। গ্যাব্রিয়েল ফার্নান্দেজের পাস থেকে বাঁ-পায়ের বিদ্যুৎ গতির বাঁকানো শটে লক্ষ্যভেদ করেন স্পেনের এই মিডফিল্ডার। ম্যাচের ২৫ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন গ্রিজমান। পাল্টা এক আক্রমণে গামেইরোর পাস ফাঁকায় পেয়ে সহজেই গোল করেন ফরাসি এই ফরোয়ার্ড।

grizman
বিরতি থেকে ফিরে গোল করে স্বাগতিকদের খেলায় ফেরার ইঙ্গিত দেন কারিম বেলারাবি। তবে ম্যাচের ৫৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গামেইরো গোল করলে ৩-১ এ এগিয়ে যায় অ্যাথলেটিকো। ম্যাচের ৬৭ মিনিটে স্টেভান সাভিচের আত্মঘাতী গোলে আবারো ব্যবধান কমায় স্বাগতিক লেভারকুসেন। তবে ৮৬ মিনিটে তোরেস গোল করলে বড় জয়ের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়ে গতবারের রানার্সআপরা।

এদিকে দিনের অন্য ম্যাচে ঘরের মাঠে ফ্রান্সের দল মোনাকোকে ৫-৩ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।

মেসি জাদুতে ‘দুঃখ ভোলা’ জয় বার্সার

পিএসজির কাছে ৪-০ ব্যবধানে হারের পর সমালোচনায় কোণঠাসা বার্সেলোনা। ইউরোপীয় ফুটবলে বড় লজ্জাটাই পেয়েছে কাতালান ক্লাবটি। খাদের কিনারে পড়া বার্সা ঘুরে দাঁড়ানোর মিশনে নামবে। তার আগে কিছুটা হলেও ওই হারের দুঃখ ভোলার সুযোগ পেয়েছিল লুইস এনরিকের দল। সুয়োগটা কাজে লাগিয়েছে। লিওনেল মেসি জাদুতে লেগানেসের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জয় পেয়েছে বার্সা।

তবে ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে বার্সা খুব সহজেই জয় পায়নি। কষ্ট করতে হয়েছে বেশ। এ পর্যায়ে তো পয়েন্ট খুইয়ে মাঠ ছাড়ার উপক্রমই হয়েছিল। ভাগ্যিস, লেগানেস বড়সড় একটি ভুল করেছিল। যে সুযোগটি কাজে লাগিয়েছেন লিওনেল মেসি।

ম্যাচের অন্তিমলগ্নে (৯০ মিনিটের মাথায়) বাঁ-প্রান্ত থেকে বল নিয়ে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করেন নেইমার। তাকে রুখতে গিয়ে ফাউল করে বসেন লেগানেসের এক খেলোয়াড়। পাশে দাঁড়িয়ে থাকা রেফারি বাঁশি বাজিয়ে জানান দেন, পেনাল্টি শট নেবে বার্সা। আর সেই পেনাল্টি থেকে দুর্দান্ত এক গোল আদায় করে নেন মেসি। বার্সা মাঠ ছাড়ে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে।

এর আগে ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে বার্সাকে শুভসূচনা এনে দেন মেসি। লুইস সুয়ারেজের বাড়িয়ে দেয়া বলটি পায়ের আলতো ছোঁয়ায় লেগানেসের জালে জড়ান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ম্যাচের ৭১ মিনিটে লোপেজের গোলে সমতায় ফিরেছিল লেগানেস।

আবারও ম্যানইউর জয়ের নায়ক ইব্রা

দিন তিনেক আগে সেইন্ট এতিয়েনের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছিলেন জালাতন ইব্রাহিমোভিচ। তার অসাধারণ নৈপুণ্যে ইউরোপা লিগের শেষ ষোলোতে এক দিয়ে রেখেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইডেট। আবারও ম্যানইউর জয়ের নায়ক বনে গেলেন ইব্রা।

রোববার রাতে সুইডিশ এই স্টাইকারের ভেলকিতে ব্ল্যাকবার্ন রোভার্সের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পেয়েছে ম্যানইউ। আর তাতে এফএ কাপের শেষ আটের খেলা নিশ্চিত হয়েছে হোসে মরিনহোর দলের। পরবতী রাউন্ড তথা কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানইউ লড়বে চেলসির বিপক্ষে।

কাগজে-কলমে ব্ল্যাকবার্ন রোভার্সের চেয়ে শক্তিশালী দল ম্যানইউ। তাতে কী? শুরুতেই তো ম্যানইউর ভিত নাড়িয়ে দিয়েছিল ব্ল্যাকবার্ন। খেলার ১৭ মিনিটে ড্যানি গ্রাহামের গোলে লিড পায় স্বাগিতক ব্ল্যাকবার্ন।

দশ মিনিটের ব্যবধানে ম্যানইউ অবশ্য সমতায় ফেরে; মারকাস রাশফোর্ডের গোলে। প্রথমার্ধ এভাবে সমতায় কাটানোর পর দ্বিতীয়ার্ধে আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে সফরকারী ম্যানইউর খেলোয়াড়রা। ফলও পেয়েছে। ৭৫ মিনিটে অসাধারণ এক গোল করে মরিনহোর দলকে জয় এনে দেন ইব্রা।

সিঙ্গাপুরে দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরেছে নারী ফুটবল দল

সিঙ্গাপুরের ডেভেলপমেন্ট কাপ ফুটবলে দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরেছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। শুক্রবার বাংলাদেশ ২-১ গোলে হেরেছে মালয়েশিয়ার কাছে। দুই গোলে পিছিয়ে পড়ার পর বাংলাদেশ ব্যবধান কমিয়েছে সিরাত জাহান স্বপ্নার গোলে।

টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ৩-০ গোলে হেরেছিল স্বাগতিক সিঙ্গাপুরের কাছে। আগামী সেপ্টেম্বরে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রস্তুতি হিসেবেই এ টুর্নামেন্টে দল পাঠিয়েছে বাফুফে। যে কারণে দলে নেয়া হয়েছে মাত্র ৪ জন সিনিয়র খেলোয়াড়, বাকিরা অনূর্ধ্ব-১৬ দলের। সাবিনা-স্বপ্নাদের রোববার দেশে ফেরার কথা।

বেনাপোলে মেয়র কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে চুয়াডাঙ্গা

শীতের পড়ন্ত বিকেলে ‘মাদক একেবারেই নয়, খেলাধুলায় মিলবে জয়’- এ স্লোগান নিয়ে খুলনা বিভাগের আটটি পৌরসভার সমন্বয়ে বেনাপোল মেয়র কাপ ফুটবল ধামাকা ২০১৬-র সেমিফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার বিকালে বেনাপোল বলফিল্ড ময়দানে এই খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

সেমিফাইনাল ম্যাচে বাঘারপাড়া পৌর ফুটবল একাদশকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁাঁয় চুয়াডাঙ্গা পৌর ফুটবল একাদশ।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন, বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র শাহবুদ্দিন মন্টুসহ বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ। বেনাপোল ফুটবল মাঠে এ খেলা দেখার জন্য হাজার হাজার দর্শক উপস্থিত ছিলেন।

জেসুসকে দেখতে হাসপাতালে নেইমার

চোট থেকে দ্রুত সেরে উঠতে বার্সেলোনার একটি হাসপাতালে ম্যানচেস্টার সিটির ফরোয়ার্ড গাব্রিয়েল জেসুসের পায়ে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। আর হাসপাতালে একা সময় পাড় করা ম্যানসিটি তারকাকে দেখতে গেলেন জাতীয় দলের সতীর্থ বার্সেলোনার তারকা নেইমার।

সেখানে বসেই নেইমার তার সামাজিক মাধ্যমে দু`জনের হাসোজ্জল ছবি পোস্ট করেছেন। এতে ক্যাপশন হিসেবে লেখা, `তোমাকে ভালো দেখে আমারও বেশ লাগছে।`

গত সোমবার প্রিমিয়ার লিগে বোর্নমাউথের বিপক্ষে সিটির ২-০ গোলে জেতা ম্যাচে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন জেসুস। পরদিন এক বিবৃতিতে তার মেটাটারসাল ভেঙে যাওয়ার খবর দেয় ক্লাব। শুক্রবার সিটি কর্তৃপক্ষ হাসপাতালের বিছানায় হাস্যোজ্জ্বল জেসুসের একটি ছবি দিয়ে অস্ত্রোপচারের খবর জানিয়ে টুইট করে।

আর্সেনালের জালে বায়ার্নের গোল উৎসব

প্রতিশোধের মিশন নিয়েই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে বায়ার্ন মিউনিকের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল আর্সেনাল। উল্টো নিজেদের মাঠে আর্সেনালের জালে গোল উৎসব করলো স্বাগতিক বায়ার্ন মিউনিক। আর্সেনালকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে দিকে এক ধাপ এগিয়ে গেলো জার্মান চ্যাম্পিয়নরা।

নিজেদের মাঠ আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় ম্যাচের শুরু থেকেই আর্সেনাল শিবিরে আক্রমণ করে খেলতে থাকে বায়ার্ন। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১১ মিনিটে গোল করে দলে লিড এনে দেন রোবেন। ডগলাস কস্তার বাড়ানো বলে বাঁকানো শটে গোলটি করেন ডাচ এই তারকা।

তবে ম্যাচের ৩০ মিনিটে সানচেজের গোলে সমতায় ফেরে আর্সেনাল। লেভানডফস্কি ডি বক্সে কোসিয়েলনিকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজায় রেফারি। সানচেজের পেনাল্টি শট ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ন্যয়ার, তবে খেলোয়াড়দের জটলার মধ্যে ফিরতি বল পেয়ে কোনাকুনি শটে জালে পাঠান চিলির এই স্ট্রাইকার।

বিরতি থেকে ফিরে খেলার নিয়ন্ত্রণ নিজেদের করে নেয় বায়ার্ন। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে লামের দারুণ ক্রস থেকে হেডে বল জালে জড়ান লেভানডফস্কি। এর তিন মিনিট পর লেভানডফস্কির বাড়ানো বলে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন আলকান্তারা।

সাত মিনিট পর নিজের দ্বিতীয় গোলটি পেয়ে যান আলকান্তারা। ম্যাচের ৮৮তম মিনিটে আর্সেনালের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন মুলার। আলকান্তারার পাস থেকে গোলটি করেন জার্মানির এই ফরোয়ার্ড।

প্রথম বিদেশি দল হিসেবে চট্টগ্রামে মানাং মার্সিয়াংদি

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবলের ৫ বিদেশি দলের মধ্যে প্রথম চট্টগ্রাম পৌঁছেছে নেপালের মানাং মার্সিয়াংদি ক্লাব। বুধবার বিকেলে দলটি ঢাকা হয়ে চট্টগ্রামে পৌঁছায়। বাকি ৪ বিদেশি ক্লাবের বৃহস্পতিবারের মধ্যে এসে পৌঁছানোর কথা।

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে শুরু হবে এ টুর্নামেন্ট। চলবে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।
চট্টগ্রাম আবাহনী আয়োজিত এ আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে স্থানীয় ৩ ক্লাব খেলবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী, ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান ও আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী। টুর্নামেন্টের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন আয়োজক ক্লাবটি।

টুর্নামেন্টের অন্য চার বিদেশি ক্লাব হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার পোচেয়ন সিটিজেন ক্লাব, কিরগিজস্তানের এফসি আলগা, মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস ক্লাব ও আফগানিস্তানের শাহিন আসমায়ে।

সহজ জয়ে কোয়ার্টারের পথে রিয়াল

পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে সহজ জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ঘরের মাঠে নাপোলিকে ৩-১ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টারের পথে এগিয়ে গেছে জিদানের শিষ্যরা।

ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে রিয়াল। ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগও পেয়েছিল স্বাগতিকরা। তবে রোনালদোর বাড়ানো বল থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন বেনজামা। তবে উল্টো ধারায় ম্যাচের অষ্টম মিনিটে গোল করে সফরকারী দল নাপোলিকে লিড এনে দেন ইনসিগনে। অনেক দূর থেকে তার বাঁকানো শট ঝাঁপিয়ে ফেরাতে পারেননি এগিয়ে থাকা কেইলর নাভাস।

ম্যাচের ১২ মিনিটে গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করে বেনজামা। বা-দিকে থাকা রোনালদোকে বল না দিয়ে নিজেই শট নিলে গোল বঞ্চিত হয় স্বাগতিকরা। তবে ম্যাচের ১৮ মিনিটে স্বাগতিক সমর্থকদের উল্লাসে মাতান ফ্রেঞ্চ এই স্ট্রাইকার। কারবাহালের অসাধারণ ক্রসে হেডে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান।

ম্যাচের ২৯ মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পান দলের সেরা তারকা রোনালদো। তবে লুকা মদ্রিচের কাছ থেকে বল পেয়ে ওপর দিয়ে মেরে বসেন বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়। ম্যাচের ৪২ মিনিটে সহজ আরেকটি সুযোগ নষ্ট করেন বেনজামা। রোনালদোর ক্রসে গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোলের বাইরে মারেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার।

riyal

বিরতি থেকে ফিরে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জার্মান তারকা টনি ক্রুজ। ম্যাচের ৪৯ মিনিটে রোনালদোর বাড়ানো বলে ডি বক্সের ভেতর থেকে বুলেট গতির শটে পরাস্ত করেন রেইনাকে। এর তিন মিনিট পর কাসেমিরোর ভলি পোস্ট ঘেঁষে জালে জড়ালে ৩-১ গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল।

ম্যাচের ৬৮ মিনিটে ড্রিস মের্টেনস ক্রসবারের ওপর দিয়ে মারলে হতাশ হয় সফরকারী দর্শকরা। ম্যাচের ৭৪তম মিনিটে গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন রদ্রিগেজ। তার ফ্লিক ঠেকিয়ে নাপোলির ত্রাতা রেইনা। বাকি সময় আর গোল না হলে জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিক শিবির।

এদিকে নাপোলিকে সমর্থন দিতে গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনা। দিনের অন্য ম্যাচে আর্সেনালকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ।

এবার খেলাধুলার পৃষ্ঠপোষকতায় নভোএয়ার

সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে এবার খেলাধুলায় পৃষ্ঠপোষকতা করছে দেশের বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার। দেশি-বিদেশি ফুটবল ক্লাবগুলো নিয়ে শুরু হতে যাওয়া শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ-২০১৭ এর এয়ারলাইন পার্টনার হয়েছে দেশের শীর্ষস্থানীয় এই বিমান সংস্থাটি।

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ২ মার্চ পর্যন্ত এ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয়বারের মত আয়োজিত এ প্রতিযোগীতায় দেশের তিনটি ও বিদেশি পাঁচটি ক্লাব দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে অংশ নেবে।

বাংলাদেশের ক্লাবগুলোর মধ্যে রয়েছে- ঢাকা আবাহনী লিমিটেড, ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড ও চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেড।

বিদেশি ক্লাবগুলোর মধ্যে রয়েছে- দক্ষিণ কোরিয়ার পচেয়ন সিটিজেনস এফসি, কিরগিজস্তানের এফসি আলগা বিশকেক, আফগানিস্তানের শাহিন আসমায়ী, নেপালের মানাং মার্সিয়াংদি ও মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস ক্লাব।

এ বিষয়ে নভোএয়ার বলছে, সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকেই সব সময়ই নানা ধরনের খেলাধুলার পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে। সেই ধারাবাহিকতায় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ-২০১৭ জমজমাট ও আকর্ষণীয় এ আয়োজনে সম্পৃক্ত হয়েছে নভোএয়ার।

বার্সাকে উড়িয়ে কোয়ার্টারের পথে পিএসজি

ঘরের মাঠে বার্সাকে রীতিমত উড়িয়ে দিলো শেষ চার বছরে দু`বার কাতালান ক্লাবটির কাছে হেরে ইউরোপ সেরার মঞ্চ থেকে ছিটকে পড়া পিএসজি। মেসি-সুয়ারেজদের ব্যর্থতার দিনে ডি মারিয়া-কাভানি-ড্রাক্সলারদের দুর্দান্ত পারফরমেন্সে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের ৪-০ গোলে হারিয়েছে পিএসজি।

নিজেদের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকে বার্সার শিবিরে আক্রমণ করে খেলতে থাকে স্বাগতিক পিএসজি। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে বার্সা গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন উরুগুয়ের স্ট্রাইকার কাভানি। ম্যাচের ১৮ মিনিটে দারুণ ফ্রি-কিকে গোল করে দলে লিড এনে দেন ডি মারিয়া। ২১ গজ দূর থেকে নেওয়া আর্জেন্টাইন এই তারকার অসাধারণ ফ্রি-কিকটি দাঁড়িয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার ছিল না বার্সা গোলরক্ষক টের স্টেগেনের।

barrsa
ম্যাচের ২৭ মিনিটে সমতায় ফেরার সুযোগ পেয়েছিল বার্সা। তবে নেইমারের বাড়ানো বল ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন আন্দ্রে গোমেস। ম্যাচের ৩৪ মিনিটে ড্রাক্সলারের জোরালো শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান জার্মানির গোলরক্ষক টের স্টেগেন। তবে এর ছয় মিনিট পর মার্কো ভেরাত্তির বাড়ানো বলে কোনাকুনি শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জানুয়ারিতে ভলফসবুর্গ থেকে আসা জার্মান এই তারকা।

বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণের ধার বাড়িয়ে দেয় ডি মারিয়া-কাভানিরা। ম্যাচের ৫৫ মিনিটে একক প্রচেষ্টায় প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে বাঁ-পায়ের বাঁকানো শটে গোল করে স্কোরলাইন ৩-০ করেন ডি-মারিয়া। আর ৭১ মিনিটে বার্সা শিবিরে শেষ পেরেক ঠুকে দেন কাভানি। থমাসের বাড়ানো বলে দারুণ ক্ষিপ্রতায় প্রথম শটেই টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকার। বাকি সময় আর গোল না হলে ৪-০ গোলের বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেই। আর এ জয়ে শেষ আটের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেলো এমেরিরের শিষ্যরা।

এদিকে দিনের অন্য ম্যাচে নিজেদের মাঠে কনস্তানতিনোস মিত্রুগ্লুর একমাত্র গোলে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়েছে বেনফিকা।

অনুশীলনে ফিরেছেন গ্যারেথ বেল

গত নভেম্বর থেকেই দলের বাইরে আছেন রিয়াল মাদ্রিদের তারকা গ্যারেথ বেল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে স্পোর্টিংয়ের বিরুদ্ধে আঘাত পান এই ওয়েলস তারকা। তবে মাদ্রিদ সমর্থকদের জন্য সুখবর অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি। আগামী এক মাসের মধ্যেই মাঠে ফিরতে পারবেন বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন বেল৷ এরপর কেটে গেছে দীর্ঘ দু’মাস। গত রোববার প্রথম অনুশীলনে নামেন তিনি। প্রথম দিন মাঠে হালকা রানিং করলেও গতকাল সোমবার জিমে ভালো সময় দিয়েছেন তিনি। ধীরে ধীরে নিজেকে ফিরে পাচ্ছেন বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

তবে এখনই তাকে খেলানোর ঝুঁকি নেবেন না রিয়াল৷ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে নাপোলির বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে তাকে রাখবেন না বলেই জানিয়েছেন কোচ জিনেদিন জিদান। খুব শিগগিরই বেল ম্যাচ খেলার মত ফিট হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কোচ।

অনুশীলনে ফিরেই নিজের টুইটারে ছবি ছবি আপলোড দেন বেল। ক্যাপশনে লিখেন, ‘ছেলেদের সঙ্গে প্রথম দিন মাঠে ফিরেছি। এখন অ্যাকশনে নামার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছি।’

জানা গেছে জাতীয় দলের জার্সিতে বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইং ম্যাচে খেলবেন বেল৷ আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২৪ মার্চ নামবেন ওয়েলসের অধিনায়ক৷

এদিকে আরও একটি সুসংবাদ রয়েছে মাদ্রিদ সমর্থকদের। ওসাসুনার বিপক্ষে চোট পেয়েছিলেন দলের সেরা তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে আঘাত গুরুতর না হওয়ায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর লড়াইয়ে নাপোলির বিরুদ্ধে নামবেন এ পর্তুগিজ তারকা।

এক হাত হারিয়েও ফুটবল ছাড়েননি তুহিন

ফুটবলকে ভালো বেসেছেন ছোট্ট বয়সেই। দুরন্তপনার পাশাপাশি বল নিয়েও কাটতো তার সকাল-বিকেল। তাউফিকুল ইসলাম তুহিন দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়া অবস্থাতেই মনে বপন করেছিলেন বড় ফুটবলার হওয়ার স্বপ্নের বীজ। কিন্তু ১০ বছর বয়সে একটি দূর্ঘটনা এলোমোলে করে দেয় কুড়িগ্রাম সদরের এ তুহিনের জীবন। মারাত্মক বাস দূর্ঘটনায় হারান ডান হাত। বড় ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন উবে যায় রংপুর-বগুড়া সড়কের গোবিন্দগঞ্জ নামক জায়গায়। ডান হাতের বেশির ভাগ অংশ সেখানে ফেলে রেখেই এ কিশোরকে ভর্তি হতে হয় হাসপাতালে। হাতের অংশটা পুতে রাখা হয় ওই জায়গায়ই।

বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের যে কোচদের নিয়ে রোববার বাফুফে ভবনে শেষ হয়েছে প্রশিক্ষণ কর্মশালা সেখানে ছিলেন এক হাত হারানো তুহিন। কিশোর বয়সে হাত হারালেও ফুটবল ছাড়েননি তিনি। বড় ফুটবলার হয়ে স্বপ্ন পুরণ করতে না পারলেও এক হাত নিয়েই খেলেছেন বিভিন্ন ক্লাবে। ঢাকার বাসাবো, কদমতলায় খেলেছেন ১৯৯৪ ও ১৯৯৬ সালে। এর আগে খেলেছেন রাজশাহী আবাহনীতে। খুলনা নিউজপ্রিন্ট দলের হয়েও খেলেছেন অদম্য এ ফুটবলার।

বাফুফে ভবনে নিজের জীবনের ভয়াবহ ওই দিনের বর্ণনা জাগো নিউজকে দিয়েছেন তুহিন। ‘১৯৮৪ সালের ঘটনা। তারিখ মনে নেই। যাচ্ছিলাম রাজশাহীতে। বগুরা-রংপুর মহাসড়কের গোবিন্দগঞ্জ নামক স্থানে বাসটি দুর্ঘটনায় পড়ে। রাস্তার উপর থাকা একটি শিশুকে বাঁচাতে গিয়ে গাড়ীর নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছিলেন চালক। বাসটি খাদে পড়ে গেলে প্রাণ হারায় ৯ জন। ৩২ জন হয়েছিলেন মারাত্মক আহত। তার মধ্যে ছিলাম আমিও। আমার হাতের অংশটা ঘটনাস্থলেই বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে স্থানীয় মানুষ হাতের অংশটুকু সেখানেই মাটিতে পুঁতে রাখে। দুপুর ১২ টার দিকে দুর্ঘটনা, আমার জ্ঞান ফিরেছিল রাত ১২ টার দিকে’-বলেছেন ৩৯ বছর বয়সী তুহিন।

বিভিন্ন ক্লাব ছাড়াও তুহিন এক হাত নিয়ে নিয়মিত খেলেন উপজেলা, জেলা  ও বিভাগীয় পর্যায়ে ফুটবল। এখনো খ্যাপ খেলে যাচ্ছেন বিভিন্ন স্থানে আমন্ত্রিত হয়ে। মধ্যমাঠের খেলোয়াড় কয়েকদিন আগেই খেলেছেন তেতুলিয়ার স্থানীয় পর্যায়ের একটি টুর্নামেন্টে।

খেলার পাশপাশি খেলোয়াড় তৈরির কাজও শুরু করেছেন তুহিন। সর্বশেষ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টে কুড়িগ্রামের আশরাফিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় রংপুর বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারই প্রশিক্ষণে।

এক হাত নিয়ে খেলতে কোনো সমস্যা হয় না? ‘হাত একটা কম থাকলেও আমার মনোবল অনেক বেশি। তাই আমার কোনো সমস্যা হয় না’-বলেছেন তুহিন। পঙ্গু হওয়ার পর তেমন কোনো সহযোগিতা পাননি তিনি। ‘গত বছর কুড়িগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে ১৫ হাজার টাকা পেয়েছিলাম। এর বাইরে আর কোনো সহযোগিতা পাইনি। এখন কোচ হয়ে নিজের জীবনকে চালাতে চাই’-বলতে গিয়ে চোখ ছলছল করছিল এক হাতের এ ফুটবলযোদ্ধার।

আবাহনীর প্রথম লক্ষ্য সেমিফাইনাল

গ্রুপের অন্য তিন দলের নামই বলে দিচ্ছে আবাহনীর চ্যালেঞ্জটা কতটুকু। দ্বিতীয় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের ড্রয়ের পর আবাহনীর ফুটবল ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু গ্রুপিং নিয়ে বলেছেন, ‘যে দলগুলো আমাদের গ্রুপে পড়েছে তারা অনেক শক্তিশালী। অন্য গ্রুপের চেয়ে তাই আমাদের গ্রুপে হবে বেশি প্রতিদ্বদ্বিতা।’

গ্রুপ যতো কঠিনই হোক আবাহনী তা নিয়ে ভাবছে না। ‘আবাহনী যে কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নেয় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য। চ্যাম্পিয়ন হতে হলে টুর্নামেন্টের সব দলকে হারানোর সামর্থ্য থাকতে হয়। আমরা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়েই টুর্নামেন্টে অংশ নেবো।’

টুর্নামেন্টে যেহেতু শক্ত গ্রুপে পড়েছেন, কোনো কৌশল আছে কি? ‘টুর্নামেন্ট মানেই প্রতিটি ম্যাচ গুরুত্বপুর্ণ। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগোবো। আমাদের প্রথম লক্ষ্য- টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে পৌঁছানো। তারপর পরের চিন্তুা’-জবাব আবাহনী ম্যানেজারের।

কয়েক দিনরে মধ্যেই আবাহনীতে যোগ দেবেন লিগে খেলে যাওয়া তাদের দুই বিদেশি ঘানার সামাদ ইউসুফ ও নাইজেরিয়ার সানডে চিজোবা। আসছেন লিগে শেখ জামালে খেলা এমেকা ডার্লিংটনও। আবাহনী ম্যানেজার বলেছেন, ‘চতুর্থ বিদেশি কে আসছেন; তা জানাতে পারবো দুই/একদিন পর।’

আবাহনীর গ্রুপের অন্য ৩ দল হচ্ছে- দক্ষিণ কোরিয়ার পোয়েচন সিটিজেন ফুটবল ক্লাব, কিরগিজস্তানের এফসি আলগা, মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টিং ক্লাব।

মোনেম মুন্না ছিলেন ফুটবলের সেলিব্রেটি

এক এক করে চলে গেছে ১২ বছর। এক যুগ আগে ঠিক এই দিনে ফুটবল অঙ্গনকে কাঁদিয়ে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেছেন মোনেম মুন্না। যিনি ছিলেন বাংলাদেশের ফুটবলের অন্যতম সেরা ডিফেন্ডার। জাতীয় দল আবাহনীর জার্সি গায়ে দেশের ফুটবলকে অনন্য উচ্চতায় তুলে ধরা মোনেম মুন্না না ফেরার দেশে চলে যান ২০০৫ সালে ১২ ফেব্রুয়ারি।

তার মৃত্যুবার্ষিকীতে নারায়ণগঞ্জে মোনেম মুন্না স্মৃতি সংসদ শোকর্যা লি, কবর জিয়ারত, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে। নারায়ণগঞ্জ সোনালী অতীত ক্লাব  মিলাদ মাহফিলের পাশাপাশি  কাঙালি ভোজের আয়োজনও করেছে।

দেশের ফুটবলে মোনেম মুন্না প্রথম লাইমলাইটে আসেন ১৯৮৪ সালে প্রথম বিভাগে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রে নাম লেখিয়ে। তার আগে ঢাকার ফুটবলে তার আগমন ১৯৮১ সালে পাইওনিয়ার লিগে পোস্ট অফিস দলের হয়ে। প্রথম দুই মৌসুম মুক্তিযোদ্ধায় খেলে মুন্না যোগ দিয়েছিলেন ব্রাদার্স ইউনিয়নে। ক্যারিয়ারের শেষ পর্যন্ত খেলা আবাহনীতে মুন্না যোগ দিয়েছিলেন ১৯৮৭ সালে।

মুন্না ছিলেন বাংলাদেশের ফুটবলে অনত্যম সেলিব্রেটি। হালের ফুটবলারদের কেউ কেউ ক্লাব থেকে অর্ধকোটি টাকা পারিশ্রমিক পান। তবে মোনেম মুন্না ১৯৯১ সালে আবাহনীতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন ২০ লাখ টাকায়। ওই সময় যা ছিল অকল্পনীয়। তার ওই পারিশ্রমিক ওই সময় এ উপমহাদেশের ফুটবলে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিল। কেবল পারিশ্রমিকের দিক দিয়েই নয়, পারফরম্যান্সেও তার জনপ্রিয়তা ছিল আকাশচুম্বী।

মোনেম মুন্না জাতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন একাধিকবার। ১৯৮৬ সালে সিউল এশিয়ান গেমসে জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছিল তার। ১৯৯০ এর বেইজিং এশিয়াডে  প্রথমবারের মতো অধিনায়ক হন লাল সবুজ দলের। তা্র অধিনায়কত্বেই ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশ মিয়ানমারে চার জাতি ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ। যা ছিল আন্তর্জাতিক ফুটবলে বাংলাদেশের প্রথম ট্রফি জয়।

বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারতের পশ্চিমবঙ্গেও জনপ্রিয় ফুটবলার ছিলেন মোনেম মুন্না। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে খেলে তিনি বাংলাদেশের ফুটবলে বিজ্ঞাপন হয়েছিলেন প্রতিবেশি দেশটিতে।

মানের জাদুতে জয়ের ধারায় ফিরলো লিভারপুল

সাদিও মানের দুই মিনিটের ঝলক। তার তাতেই তাতেই পাঁচ ম্যাচ পর জয়ের ধারায় ফিরলো লিভারপুল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে এ সেনেগাল ফুটবলারের জোড়া গোলেই জয় পায় অলরেডসরা। এছাড়াও নিজ নিজ ম্যাচে জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও আর্সেনালও।

অ্যানফিল্ডে প্রথমার্ধেই দুই গোল করে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ম্যাচের ১৬ মিনিটে জর্জিনিয়ো ইউজনালদামের কাছ থেকে বলে পেয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন মানে। এর দুই মিনিট দারুণ এক ভলিতে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সেই মানে।

একই রাতে দারুণ জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নিজেদের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে হুয়ান মাতা ও অ্যান্থনি মার্সিয়ালের গোলে ওয়াটফোর্ডকে ২-০ গোলে হারায় রেডডেভিলরা।

এছাড়াও নিজেদের মাঠে হাল সিটিকে হারিয়েছে আর্সেনাল। আলেক্সিস সানচেজের জোড়া গোলে ২-০ গোলের জয় পায় গানাররা।

২৫ ম্যাচে ১৪টি জয়ে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থস্থানে আছে লিভারপুল। আর ১ পয়েন্ট কম নিয়ে পঞ্চমস্থানে রয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ৫০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয়স্থানে আছেন আর্সেনাল। তবে সমান পয়েন্ট হলেও গোল পার্থক্যে এগিয়ে দ্বিতীয়স্থানে টটেনহ্যাম। শীর্ষে থাকা চেলসির পয়েন্ট ৫৯।

নতুন চুক্তি করলেন মেসি

বার্সার সঙ্গে নতুন চুক্তি করবেন কি না তা সময়ই বলে দিবে। তবে অনেক দিন ধরেই যুক্ত থাকা স্পন্সর প্রতিষ্ঠান অ্যাডিডাসের সঙ্গে নতুন চুক্তি করেছেন মেসি। শুক্রবার নিজের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে নতুন চুক্তির জানান দেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়।

চুক্তি নিয়ে মেসি বলেন, অনেক বছর থেকেই অ্যাডিডাসের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি আনন্দিত।

এদিকে ২০১৭ সালের প্রথমেই বড় একটা চুক্তি স্বাক্ষর করলেন মেসি। তাই বার্সা সমর্থকরা আশা করতেই পারে চলতি বছরই হয়তো দলের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করবেন মেসি।

কোচিং কাজটা অনেক কঠিন’

কোচিং ক্যারিয়ার শুরু প্রায় ৩০ বছর আগে। একাডেমি, ক্লাব ও জাতীয় দল মিলে গুরুগিরির ক্যারিয়ারটা বেশ সমৃদ্ধ দ্রাগো মামিচের। অভিজ্ঞ এ ক্রোয়েশিয়ান কোচ আবার ফিরে এসেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন আবাহনীতে। মঙ্গলবার সকালে ঢাকায় পা রেখে বিকালেই ক্লাব মাঠে ছুটে গেছেন ফুটবলারদের অনুশীলন দেখতে। প্রথম বিকেলে খেলোয়াড়দের শুভেচ্ছা গ্রহণ, গল্প-গুজব আর মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলেই কাটিয়েছেন ৬২ বছর বয়সী এ কোচ।

মঙ্গলবার বিকেলে দ্রাগো মামিচ জাগো নিউজকে বলেছেন, ‘আমি প্রথমে আবাহনী সমর্থকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করছি। কারণ গত মৌসুমে এসেও থাকতে পারিনি। মাত্র ১২ দিন কাজ করে চলে যেতে হয়েছিল। আমি যেতে বাধ্য হয়েছিলাম; স্ত্রীর গুরুতর অসুস্থ থাকায়। এখন সে সম্পূর্ণ সুস্থ।’

কোচ মানেই তার কৌশল আর দর্শন নিয়ে নানা কৌতূহল। মামিচের চোখে পৃথিবীর সব কোচের কাজটাই দুরূহ। ‘কোচিং কাজটা অনেক কঠিন। আপনি যখন মেসির খেলা দেখেন তখন মনে হবে ফুটবলটা অনেক সহজ। কিন্তু আপনি যদি খেলতে নামেন তখন বুঝবেন সেটা কতটা কঠিন। কোচের বিষয়টাও তেমন। কোচ এটা কেন করলেন, ওটা কেন করলেন-এগুলো বলা সহজ। যিনি কাজটি করেন তিনিই কেবল অনুধাবন করতে পারেন কাজটা কত কঠিন’-বলেছেন আবাহনীর এ ক্রোয়েশিয়ান কোচ।

দ্রাগো মামিচ বলেছেন, ‘কোচকে কখনো কখনো সিদ্ধান্ত নিতে হয় কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে। দেরি হলেই সর্বনাশ। আর দ্রুত সিদ্ধান্ত দিতে হলে কোচকে আগে থেকেই ধারণা রাখতে হবে। তাকে জানতে হবে। শিখতে হবে। না হলে প্রয়োজনের সময় দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না। যে কোচ যেভাবেই করুন, কাজগুলো তাদের কঠিনই।’

ba

আবাহনী তাদের পুরনো কোচকে ফিরিয়ে এনেছেন আগামী মৌসুমের জন্য। তবে তিনি এসেই পেয়ে যাচ্ছেন শেখ কামাল ক্লাব কাপ। এর পর মার্চের এএফসি কাপ। তিনিও নতুন মৌসুমের পুরো সময় থাকার জন্য এসেছেন। আমি পুরো মৌসুম থাকবো। আবাহনী আমাকে সেভাবেই আমন্ত্রণ জানিয়েছে। এ ক্লাবের সঙ্গে আমার ভালো সম্পর্ক। গত মৌসুমে চলে গিয়েছিলাম আমার কিছু সমস্যা থাকার কারণে’-আবাহনী মাঠে দাঁড়িয়ে বলছিলেন মামিচ।

এ মৌসুমে কি লক্ষ্য আপনার? ‘আসলে প্রত্যেক কোচই চান আগের চেয়ে বেশি ভালো করতে। আবাহনী গত মৌসুমে দুটি ট্রফি জিতেছে। আমার চেষ্টা থাকবে সেগুলো ধরে রেখে আরো ভালো কিছু করা। আমি দলটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী। জাতীয় দলের বেশ কিছু খেলোয়াড় আছে। পাশপাশি কিছু প্রতিভাবান ফুটবলারও আছে। এখন আমার সব মনসংযোগ আবাহনীকে ঘিরে’-বলেছেন এ ক্রোয়াট।

এএফসি কাপকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে আবাহনীর কোচ বলেছেন, ‘আমি চাইবো অবশ্যই গ্রুপ পর্ব অতিক্রম করতে। তবে কাজটা সহজ নয়। কারণ এখানে অনেক ভালো ভালো দল আছে। আশা করি ৬টি ভালো ম্যাচ হবে। বিশেষ করে গ্রুপে আছে বেঙ্গালুরু এএফসি। গতবার মালয়েশিয়ার জিডিটি দলের বিপক্ষে তাদের ফাইনাল ম্যাচ দেখেছি। দলটি অনেক শক্তিশালী।’

স্ট্যালিওন এফসির না, আসছে এএফসি আলগা

দুই দিন আগে ফিলিপাইনের ক্লাব স্ট্যালিওন এফসি বাফুফেকে নিশ্চিত করেছিল তারা খেলবে চট্টগ্রাম আবাহনী আয়োজিত শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে। ৪৮ ঘণ্টা পার না হতেই ক্লাবটি না করে দিয়েছে। ফিলিপাইনের এ ক্লাবের বিকল্প পেতে বেশি দেরি হয়নি আয়োজকদের।

আগে থেকে যোগাযোগের মধ্যে থাকা কিরগিজস্তানের এএফসি আলগা টুর্নামেন্টে খেলতে সম্মতি জানিয়েছে। আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনীর ফুটবল ম্যানেজার শাকিল মাহমুদ চৌধুরী মঙ্গলবার রাতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামে শুরু হতে যাওয়া আট দলের এই টুর্নামেন্টে স্থানীয় ৩ ক্লাব বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন আবাহনী, ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান ও আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনীর পাশাপাশি খেলবে বিদেশি ৫ ক্লাব।

এফসি আলগা ছাড়া অন্য চার দল হচ্ছে-দক্ষিণ কোরিয়ার এফসি পোয়েচন, নেপালের মানাং মার্য়াংদি (মারসিয়াংদি) হবে), আফগানিস্তানের সাহিন আসমায়ে ও মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস ক্লাব।

বাফুফের চাকরি হারিয়ে হাসপাতালে

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের চাকরি হারিয়ে হাসপাতালে যেতে হয়েছে মনি বেগমকে। তিনি বাফুফের হেড অব প্রোটোকল হিসেবে কাজ করতেন। বছর দশেক আগে তিনি বাফুফেতে যোগ দিয়েছিলেন সভাপতির ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে। কিছুদিন আগে তাকে হেড অব প্রোটোকল হিসেবে পদায়ন করা হয়। সোমবার বাফুফে তাকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়ার কথা জানায়।

বাফুফের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে চাকুরিবিধি অনুযায়ী পাওনার বিষয়ে আলোচনার জন্য মঙ্গলবার বাফুফেতে যান তিনি। আলোচনার এক পর্যায়ে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে মনি বেগম হয়ে অসুস্থ পড়েন। অবস্থা খারাপের দিকে গেলে তাকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়া হয়। এখন তিনি কাকরাইলস্থ ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

রাতে যোগাযোগ করা হলে মনি বেগমের পুত্র মো. নোমান হোসেন বলেছেন, ‘আম্মুকে ভর্তি করা হয়েছে। মাঝে মাঝে জ্ঞান ফিরলেও কাউকে চিনতে পারছেন না। অফিসের বিষয় নিয়ে কথা বলেন। আমি সামনে গেলে বলেন আবুল ভাই (বাফুফের হিসাব বিভাগের কর্মকর্তা), অন্য কেউ গেলে বলেন বাদল ভাই (বাফুফের সহসভাপতি বাদল রায়)।’

মনি বেগমের ছেলে জাগো নিউজকে বলেছেন,‘সোমবার বাফুফের সাধারণ সম্পাদক মাকে ডেকে বলেন আপিন অসুস্থ। এখন আপনার পক্ষে এত পরিশ্রম সম্ভব নয়। সভাপতি (কাজী সালাউদ্দিন) বলেছেন আপনার স্থানে মানেজার নিয়োগ দিতে। তখন মা বলেছেন আমিতো ১০ বছর ধরে অসুস্থ অবস্থায় কাজ করে আসছি। সমস্যা হলে তো আমিই বলতাম। আমি সভাপতির সঙ্গে কথা বলতে চাই। তখন বাফুফে সাধারণ সম্পাদক বলেছেন ‘আমাকেই বলেন’। পরে বাফুফের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে মা বলেছিলেন, ঠিক আছে নিয়ম অনুযায়ী আমার পাওনাদি পরিশোধ করে দেন। মঙ্গলবার আমি আম্মুকে নিয়ে বাফুফেতে গেলে গেট থেকে তাকে প্রথমে ঢুকতে দেয়া হচ্ছিল না। পরে আম্মু বাদল অ্যাঙ্কেলের (বাদল রায়) সঙ্গে কথা বলে ভেতরে যান। পরে এ বিষয়ে কথা বলার সময় মা কান্নাকাটি করেন। আমি ভেতরে গিয়ে দেখি তিনি ঘামছেন। অবস্থা খারাপ থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাই।’

টানা চতুর্থ বারের মত ফাইনালে বার্সা

টানা চতুর্থবারের মত কোপা দেল রের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বার্সেলোনা। মঙ্গলবার সেমি-ফাইনালের ফিরতি লেগের ম্যাচে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে বার্সা। আর দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ ব্যবধানের জয় নিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে লুইস এনরিকের শিষ্যরা।

নিজেদের মাঠে হারের পর ফাইনালে জায়গা করে নিতে হলে বার্সার মাঠে বড় ব্যবধানে জয়ের কোন বিকল্প ছিল না অ্যাথলেটিকোর। সেই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের শুরু থেকে আধিপত্য বিস্তার শুরু করে গ্রিজমান-গামেরোরা। দারুণ নৈপুণ্যে দুবার দলকে পিছিয়ে পড়া থেকে বাঁচান গোলরক্ষক ইয়াসপার সিলেসেন।

barrsa
ম্যাচের ৩০ মিনিটে ডি-বক্সে তোরেস পড়ে গেলে পেনাল্টির আবেদন করে অ্যালেটিকো, তবে রেফারির সাড়া মেলেনি। উল্টো এক আক্রমণে ম্যাচের ৪৩ মিনিটে দারুণ এক আক্রমণে এগিয়ে যায় বার্সা। ডি বক্সের বাইরে থেকে মেসির শট গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে ঠেকালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ফিরতি বল ফাঁকায় পেয়ে লক্ষ্যভেদে কোনো ভুল করেননি সুয়ারেজ।

বিরতির পর শুরু হয় ম্যাচের নাটকীয়তা। ম্যাচের ৫৭ মিনিটে বার্সা মিডফিল্ডার রবের্তো দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় স্বাগতিকরা। ১০ জনের বার্সাকে পেয়ে চেপে ধরে সফরকারী দল। ম্যাচের ৬০ মিনিটে  গ্রিজমান বল জালে পাঠালেও অফসাইডের বাঁশিতে সফরকারীদের আনন্দ থেমে যায়।

ম্যাচের ৬৯ মিনিটে অ্যাথলেটিকো মিডফিল্ডার ইয়ানিক কারাসকো দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখলে সফরকারী দলটিও ১০ জনে পরিণত হয়। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে মেসির ফ্রি-কিক ক্রসবারে লাগলে হতাশ হয় স্বাগতিক শিবির। এর দুই মিনিট পর পেনাল্টি পায় অ্যাথলেটিকো। তবে তা থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন ফরাসি ফরোয়ার্ড গামেরো।

barrsa
তবে ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করতে দেরি করেননি গামেরো।  ম্যাচের ৮৩ মিনিটে বাঁদিক থেকে গ্রিজমানের পাস থেকে সহজেই জালে পাঠান গামেরো। এদিকে নির্ধারিত সময়ের শেষ দিকে সুয়ারেজ দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। বাকি সময় গোল না হলে ফাইনালে ওঠার আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে মেসিরা।

উল্লখ্য, হলুদ কার্ডের জন্য এই ম্যাচে খেলতে পারেননি নেইমার। আর লাল কার্ড দেখায় ফাইনালে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলতে পারবেন না লুইস সুয়ারেজ।

‘কোচিং কাজটা অনেক কঠিন’

কোচিং ক্যারিয়ার শুরু প্রায় ৩০ বছর আগে। একাডেমি, ক্লাব ও জাতীয় দল মিলে গুরুগিরির ক্যারিয়ারটা বেশ সমৃদ্ধ দ্রাগো মামিচের। অভিজ্ঞ এ ক্রোয়েশিয়ান কোচ আবার ফিরে এসেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন আবাহনীতে। মঙ্গলবার সকালে ঢাকায় পা রেখে বিকালেই ক্লাব মাঠে ছুটে গেছেন ফুটবলারদের অনুশীলন দেখতে। প্রথম বিকেলে খেলোয়াড়দের শুভেচ্ছা গ্রহণ, গল্প-গুজব আর মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলেই কাটিয়েছেন ৬২ বছর বয়সী এ কোচ।

মঙ্গলবার বিকেলে দ্রাগো মামিচ বলেছেন, ‘আমি প্রথমে আবাহনী সমর্থকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করছি। কারণ গত মৌসুমে এসেও থাকতে পারিনি। মাত্র ১২ দিন কাজ করে চলে যেতে হয়েছিল। আমি যেতে বাধ্য হয়েছিলাম; স্ত্রীর গুরুতর অসুস্থ থাকায়। এখন সে সম্পূর্ণ সুস্থ।’

কোচ মানেই তার কৌশল আর দর্শন নিয়ে নানা কৌতূহল। মামিচের চোখে পৃথিবীর সব কোচের কাজটাই দুরূহ। ‘কোচিং কাজটা অনেক কঠিন। আপনি যখন মেসির খেলা দেখেন তখন মনে হবে ফুটবলটা অনেক সহজ। কিন্তু আপনি যদি খেলতে নামেন তখন বুঝবেন সেটা কতটা কঠিন। কোচের বিষয়টাও তেমন। কোচ এটা কেন করলেন, ওটা কেন করলেন-এগুলো বলা সহজ। যিনি কাজটি করেন তিনিই কেবল অনুধাবন করতে পারেন কাজটা কত কঠিন’-বলেছেন আবাহনীর এ ক্রোয়েশিয়ান কোচ।

দ্রাগো মামিচ বলেছেন, ‘কোচকে কখনো কখনো সিদ্ধান্ত নিতে হয় কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে। দেরি হলেই সর্বনাশ। আর দ্রুত সিদ্ধান্ত দিতে হলে কোচকে আগে থেকেই ধারণা রাখতে হবে। তাকে জানতে হবে। শিখতে হবে। না হলে প্রয়োজনের সময় দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না। যে কোচ যেভাবেই করুন, কাজগুলো তাদের কঠিনই।’

আবাহনী তাদের পুরনো কোচকে ফিরিয়ে এনেছেন আগামী মৌসুমের জন্য। তবে তিনি এসেই পেয়ে যাচ্ছেন শেখ কামাল ক্লাব কাপ। এর পর মার্চের এএফসি কাপ। তিনিও নতুন মৌসুমের পুরো সময় থাকার জন্য এসেছেন। আমি পুরো মৌসুম থাকবো। আবাহনী আমাকে সেভাবেই আমন্ত্রণ জানিয়েছে। এ ক্লাবের সঙ্গে আমার ভালো সম্পর্ক। গত মৌসুমে চলে গিয়েছিলাম আমার কিছু সমস্যা থাকার কারণে’-আবাহনী মাঠে দাঁড়িয়ে বলছিলেন মামিচ।

এ মৌসুমে কি লক্ষ্য আপনার? ‘আসলে প্রত্যেক কোচই চান আগের চেয়ে বেশি ভালো করতে। আবাহনী গত মৌসুমে দুটি ট্রফি জিতেছে। আমার চেষ্টা থাকবে সেগুলো ধরে রেখে আরো ভালো কিছু করা। আমি দলটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী। জাতীয় দলের বেশ কিছু খেলোয়াড় আছে। পাশপাশি কিছু প্রতিভাবান ফুটবলারও আছে। এখন আমার সব মনসংযোগ আবাহনীকে ঘিরে’-বলেছেন এ ক্রোয়াট।

এএফসি কাপকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে আবাহনীর কোচ বলেছেন, ‘আমি চাইবো অবশ্যই গ্রুপ পর্ব অতিক্রম করতে। তবে কাজটা সহজ নয়। কারণ এখানে অনেক ভালো ভালো দল আছে। আশা করি ৬টি ভালো ম্যাচ হবে। বিশেষ করে গ্রুপে আছে বেঙ্গালুরু এএফসি। গতবার মালয়েশিয়ার জিডিটি দলের বিপক্ষে তাদের ফাইনাল ম্যাচ দেখেছি। দলটি অনেক শক্তিশালী।’