দুপুর ১:৩০, শুক্রবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং
/ ক্রিকেট

ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচের টিকিটে বাংলাদেশ বানান ভুল লেখার কারণে দু:খ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। চলমান ত্রিদেশীয় সিরিজে শুক্রবার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা। এই ম্যাচের জন্য গতকাল ছাড়া টিকিটে ইংরেজি লেখা সব বানান ঠিক থাকলেও বাংলাদেশ বানানে ‘বি’-এর পর একটি ‘এন’ বেশি লেখা হয়। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সমালোচনার ঝড় ওঠে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বিসিবির পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এই ভুলের জন্য বিসিবি অনুতপ্ত। সেই সঙ্গে জানানো হয়, অবিক্রিত টিকিট প্রত্যাহার করে, বানান ঠিক করা হয়েছে। এ ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে বলে ঐ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

ইংল্যান্ডের কাছে বাংলাদেশের হার

অধিনায়ক হ্যারি ব্রুকের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউনে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ২৮ রানের মধ্যে প্রথম চার ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ।

তবে এরপর শেষ দিকের ব্যাটসম্যানদের নিয়ে ছোট ছোট জুটি গড়ে দলকে ফাইটিং স্কোরের আশা জাগান আফিফ হোসেন। আফিফের ৬৩ রানে শেষ পর্যন্ত ১৭৫ রানের মান বাঁচানো স্কোর পায় টাইগাররা। ইংলিশদের পক্ষে ইথান ব্যাম্বার ও ইউয়ান উডস ৩টি করে উইকেট নেন।

জবাবে, ম্যাচ সেরাহ্যারি ব্রুকের ৮৪ বলে অপরাজিত ১০২ রানের ইনিংসে মাত্র ২৯ ওভার ৩ বলেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছায় ইংলিশরা। উডস অপরাজিত থাকেন ৪৮ রানে। বাংলাদেশের তরুনদের মধ্যে হাসান মাহমুদ, কাজী অনিক এবং নাঈম হাসান একটি করে উইকেট তুলে নেন।

এতে আগামী ২৬ জানুয়ারি কুইন্সটাউনের জন ডেভিস ‌ওভালে সুপার লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশের তরুণদেরকে লড়তে হবে ভারত কিংবা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

রেকর্ডের পাতায় মিরপুর স্টেডিয়াম

বাংলাদেশ, শ্রীলংকা ও জিম্বাবুয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজেই এক দিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে ‘সেঞ্চুরি’ করেছে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম। বাংলাদেশের প্রধান এই ভেন্যুতে ২০০৬ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত মোট রান হয়েছে ৪২, ৩২৭ এবং উইকেট পড়েছে ১৪৭৭টি।

ভেন্যুর উল্লেখযোগ্য বিষয়

সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ: মিরপুরের এ মাঠে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ ভারতের। বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ২০১১ বিশ্বকাপ মিশন শুরু করে ভারত। দুই ওপেনার শচিন টেন্ডুলকার ও গৌতম গম্ভীর বিশেষ কিছু করতে না পারলেও বিরেন্দার শেবাগের ১৪০ বলে ১৭৫ এবং বিরাট কোহলির ৮৩ বলে অপরাজিত ১০০ রানে বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করায় ভারতীয়রা। চার উইকেটে ৩৭০ রানের বিশাল স্কোর গড়ে তারা। এ ম্যাচ দিয়ে অভিষেক ঘটে কোহলির। তাদের এ দুধর্ষ ব্যাটিংই বাংলােেদশর আত্মবিশ্বাসে চির ধরাতে যথেষ্ঠ ছিল। তামিম ইকবালের ৭০ এবং সাকিব আল হাসানের ৫৫ রান সত্বেও টাইগাররা শেষ পর্যন্ত ৮৭ রানে ম্যাচটি হেরে যায়।

ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ স্কোর: এ মাঠে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়াটসন। ২০১৫ সালে দলের বাংলাদেশ সফওে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে ১৮৫ রান করেন তিনি। ১৫টি করে চার ছক্কায় ৯৬ বলে তার করা ১৮৫ রানের ইনিংসটি আজও এ মাঠের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস।

ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ রান: এ ভেন্যুতে এ পর্যন্ত ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ রানের মালিক তামিম ইকবাল। এ পর্যন্ত ৭১ ইনংসে ৩৪.৬২ গড়ে তার মোট রান ২৩৮৯।

সেরা বোলিং স্পেল: ২০১৪ সালে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসে ভারতীয় দল। প্রতিটি ম্যাচেই বাগড়া দেয় বৃস্টি। তাসকিন আহমেদের ২৮ রানে ৫ উইকেট শিকারে দ্বিতীয় ম্যাচে মাত্র ১০৫ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। কিন্তু তারপর ভেল্কি দেখান ভারতের স্টুয়ার্ট বিনি। তিনি মাত্র ৪ রানে ৬ উইকেট শিকার করে দলের জয় এনে দেন। বিনির ৪ রানে ৬ উএকট শিকারই এ মাঠে সেরা বোলিং স্পেল। এ মাঠে তাই সেরা বোলিং স্পেলও তার।

ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ উইকেট: ওয়ানডে ক্যারিয়ারে এ মাঠে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী সাকিব আল হাসান। এ পর্যন্ত মোট ৭৪ ইনংসে তার ২৪.৯৩ গড়ে তার মোট উইকেট ১০৪টি।

উইকেটরক্ষক হিসেবে সর্বোচ্চ ডিসমিসাল: শেরে-বাংলা স্টেডিয়ামে উইকেটরক্ষক হিসেবে সর্বোচ্চ ৮১টি ডিসমজিাল করেছেন বাংলাদেশের মুশফিকর রহিম। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন শ্রীলংকার কুমার সাঙ্গাকারা(২১)।

মাঠের সর্বোচ্চ ক্যাচ: বাংলাদেশ দলের অন্যতম সেরা ফিল্ডার মাহমুদুল্লঅহ রিয়াদ। এ মাঠে সর্বোচ ক্যাচ নেয়ার মালিক তিনি। এ পর্যন্ত তিনি ক্যাচ নিয়েছেন ২২টি।

আবার‌ও কিউইদের কাছে ধরাশায়ী পাকিস্তান

চতুর্থ ওয়ানডেতে পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ৪-০ তে এগিয়ে গেলো নিউজিল্যান্ড। এতে একদিনের ম্যাচে টানা এগার জয়ের নতুন রেকর্ড গড়লো কিউইরা। তাছাড়া পাকিস্তানকে হোয়াইট ‌ওয়াশের লজ্জায় ডোবানোর অপেক্ষায় এখন কেন উইলিয়ামসনের দল।

শোয়েব মালিকের মতোই যেনো পড়ে গেলো পাকিস্তান দল

লড়াইটা ছিলো পাকিস্তানের বোলার আর নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের। হ্যামিল্টনে ২৬৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে, ১৫৪ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে কিছুটা ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিলো কিউইরা। প্রথম ধাক্কায় বেশ সফল পাকিস্তানের বোলাররা।

তবে ষষ্ঠ উইকেটে হেনরি নিকোলস আর কলিন ডি গ্রান্ডহোম পাকিস্তানের বোলারদের সেই সুখ আর দীর্ঘ হতে দিলেন না। তারা মাত্র ৬৫ বলে ১০৯ রানের জুটি গড়ে, দলকে ২৫ বল হাতে রেখেই জয় এনে দেন। ৪০ বলে ৭৪ রানের ইনিংস খেলেন গ্রান্ডহোম। নিকোলসের ব্যাটে আসে ৫২ রান।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে, ৯৭ রানে তিন উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়েছিলো পাকিস্তান। তবে মোহাম্মদ হাফিজের ৮১, আর ফখর জামান, হারিস সোহেল এবং সরফরাজ আহমেদের হাফসেঞ্চুরিতে, ৮ উইকেটে ২৬২ রান তোলে পাকিস্তান।

আগামী শুক্রবার ‌ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভ পার্কে হবে সিরিজের পঞ্চম ‌ও শেষ ‌ওয়ানডে ম্যাচটি।

বড় জয়ে শুরু বাংলাদেশের

মিরপুরে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে হারিয়ে নতুন বছরে শুভসূচনা করলো বাংলাদেশ। স্বাগতিকদের বোলিং তোপে আগে ব্যাট করা সফরকারী দল অলআউট হয় মাত্র ১৭০ রানে। জবাবে, ২১ ওভার তিন বল হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। বল হাতে ৩ উইকেট আর ব্যাটে ৩৭ রান করে ম্যাচ সেরা সাকিব আল হাসান।

অগণিত ভক্তের প্রত্যাশাই পুরন করলেন তামিম, সাকিব, মুশফিকরা। ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ের চেয়ে বাংলাদেশ যে ভালো দল, এর প্রমান দিলেন, মিরপুরে এমন এক দাপুটে জয় দিয়ে।

অবশ্য ‘মর্নিং শোজ দ্যা ড্য’ এই প্রবাদ অনুযায়ী, ইনিংসের শুরুতেই বাংলাদেশের জয় তারা দেখে ফেলেছিলেন, যখন প্রথম ওভারেই সাকিবের তিন বলে বিদায় নেন জিম্বাবুয়ের দুই ব্যাটসম্যান।

যাদের নিয়ে ভরসা ছিলো কোচ হিথ স্ট্রিকের। সেই হ্যামিল্টন মাসাকাদজা এবং ব্রেন্ডন টেইলরও পারেননি মাশরাফি, মুস্তাফিজদের বোলিংয়ে বাধা হয়ে দাঁড়াতে। আর তাই ইনিংসের মাঝপথেই ৮১ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ধ্বংসস্তুপে পরিনত হয় সফরকারীদের ব্যাটিং লাইনআপ।

তবু মান বাঁচলো সিকান্দার রাজার ৫২ রানের ইনিংসে। ১৩১ রানে তার বিদায়। দেশের হয়ে পঞ্চম বোলার হিসেবে শততম উইকেট শিকারীর ক্লাবে নাম লেখান রুবেল হোসেন।

আর ২ উইকেট পেলেও, কাটার মাস্টার মুস্তাফিজ যেনো মনে করিয়ে দিলেন তার ক্যারিয়ারের শুরুর দিনগুলোর কথা। ১০ ওভারে তার ৪১ বলেই কোন রান পাননি জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা।

১৭১ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারায় দুই বছর পর ওয়ানডে ক্রিকেট খেলতে নামা এনামুল হক বিজয়ের।

তবে দ্বিতীয় উইকেটে ৭৮ রান যোগ করে জয়ের পথটা সহজ করে দেন তামিম ইকবাল এবং সাকিব আল হাসান। ৩৭ রান করে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ফিরলেও, ৮৪ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়েন তামিম। সব মিলিয়ে ৩৩৬ নম্বর ওয়ানডেতে যা ছিলো বাংলাদেশের ১০৬ তম জয়।

বাংলাদেশের জয়ের টার্গেট ১৭১ রান

প্রথম ‌ওভারে দুই উইকেট তুলে নিয়ে ত্রিদেশীয় ক্রিকেটের উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশের বোলাররা রীতিমতো ব্যাকফুটে ঠেলে দেয় জিম্বাবুয়েকে। সেই ধাক্কা আর সামলাতে পারেনি তারা। সিকান্দার রাজা একটু প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করলে‌ও ১৭০ রানে অল আউট হয় তারা। তাতে জয়ের জন্য মাত্র ১৭১ রানের টার্গেট পায় মাশরাফি বিন মর্তুজার দল।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দলের ২ রানেই সুলেমান মিরে এবং ক্রেইগ আরভিনের উইকেট তুলে নেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সেই বিপর্যয় আর সামলে ‌ওঠা হয়নি তাদের। দলীয় ৩০ রানে ১৫ রান করা মাসাকাদজাকে প্যাভিলিয়নে ফেরান অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়লে‌ও পিটার মুরকে নিয়ে দলের সংগ্রহে ৫০ রান যোগ করেন জিম্বাবুয়ান ইনিংসের একমাত্র ফিফটি করা সিকান্দার রাজা। ৯৯ বলে দুই চার আর দুই ছক্কায় ৫২ রান করে সিকান্দার রাজা যখন সাজঘরে ফেরেন তখন জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৩১ রান।

পরে জিম্বাবুয়েকে অল আউট করার বাকী কাজ সারেন কাটার মাস্টার মুস্তািফজ ‌ও পেসার রুবেল হোসেন। তাতে ১৭০ রানে অল আউট হয় তারা। বাংলাদেশী বোলারদের মধ্যে সাকিব ৪৩ রানে ৩টি এবং রুবেল ২৪ রানে ২টি ‌ও মুস্তাফিজ ২৯ রানে ২টি উইকেট তুলে নেন।

সিকান্দার রাজা রান আউট

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস হেরে স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে ব্যাট করছে জিম্বাবুয়ে। শেষ খবর পা‌ওয়া পর্যন্ত তাদের সংগ্রহ, ৪৬ ‌ওভারে ৭ উইকেটে ১৬৩ রান।

দলের ৮১ রানে ৫ উইকেট হারানোয় ধারণা করা হচ্ছিলো তাড়াতাড়িই অলআউট হবে জিম্বাবুয়ে। কিন্তু সিকান্দার রাজার লড়াকু ইনিংস থেলেন। অবশেষে থামেন তিনি রান আউট হয়ে।

নাসির হোসেনের বল স্কয়ার লেগে ঠেলে সিঙ্গেল নিতে ছুটেছিলেন রাজা। কিন্তু নন স্ট্রাইকে থাকা পিটার মুর ফিরিয়ে দেন রাজাকে। বল ধরে দ্রুত মুশফিকের হাতে দেন সাকিব। মুশফিক ভেঙে দেন স্টাম্প, ততক্ষণে রাজা আর ফিরতে পারেননি। ৯৯ বলে ২টি করে চার ও ছক্কায় ৫২ রান করেন রাজা। তাতে ১৩১ রানে ৬ উইকেটে পরিণত হয় সফরকারীরা।

দ্বিতীয় ম্যাচে কানাডাকে ৬৬ রানে হারালো বাংলাদেশ

নিউজিল্যান্ডে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে কানাডাকে ৬৬ রানে হারিয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে বাংলাদেশ। টস হেরে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রিত বাংলাদেশ ২৯ রানের মধ্যে পিনাক ঘোষ ও অধিনায়ক সাইফ হাসানের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে।

তবে প্রথমে মোহাম্মদ নাইম ও পরে আফিফ হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে দলকে বড় সংগ্রহ এনে দেন তৌহিদ হৃদয়। আফিফ ৫০ ও নাইম ৪৭ রান করলেও হৃদয়ের ব্যাট থেকে আসে ১২২ রান। ফয়সাল জামকান্দির ৫ উইকেট শিকারে ৮ উইকেট ২৬৪ রান তোলে বাংলাদেশ।

জবাবে আফিফ হোসেন ৫ উইকেট তুলে নিলে শুরু থেকেই বিপাকে পড়ে কানাডা। অধিনায়ক আর্সলান ৬৩ রান করলেও ১৯৮ রানেই গুটিয়ে যায় কানাডার ইনিংস।

ব্যাটিং বিপর্যয় কাটিয়ে ‌ওঠার চেষ্টা জিম্বাবুয়ের

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের বিপক্ষে ব্যাটিং বিপর্যয় কাটিয়ে ‌ওঠার চেষ্টা করতে সফরকারী জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে, শেষ খবর পা‌ওয়া পর্যন্ত তাদের সংগ্রহ, ‌৩৩ ওভারে ৫ উইকেটে ১০৯ রান।

বোলিংয়ে শুরুটা দুর্দান্ত হয়েছে বাংলাদেশের। ওপেনিংয়ে বোলিংয়ে এসে প্রথম তিন বলের মধ্যে ২ উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। বাঁহাতি স্পিনারের দ্বিতীয় বলটা ছিল ওয়াইড, আর সেই বলে মুশফিকুর রহিমের হাতে স্টাম্পড হন সলোমন মিরে। তৃতীয় বলে মিড উইকেটে সাব্বির রহমানকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ক্রেইগ আরভিন। জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ তখন ২ উইকেটে ২ রান।

সাকিবের পর জিম্বাবুয়ে শিবিরে আঘাত হানেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। অষ্টম ওভারে ডানহাতি পেসারের অফ স্টাম্পের বলে খেলতে গিয়ে উইকেটকিপার মুশফিকের গ্লাভসবন্দি হন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। তখন তার সংগ্রহ ১৫ রান। জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ তখন ৩ উইকেটে ৩০ রান।

এর আগে তিন পেসার নিয়ে মাঠে নামে বাংলাদেশ। মাশরাফির সঙ্গে দুই পেসার রুবেল ও মুস্তাফিজ। সাকিবের সঙ্গে বাঁহাতি স্পিনার হিসেবে নেওয়া হয়েছে সানজামুল ইসলামকে। একাদশে রয়েছেন সাত বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান।

তিন বছর পর দলে ফেরানো হয়েছে এনামুল হক বিজয়কে। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছিলেন ২০১৫ সালের মার্চে বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, সানজামুল ইসলাম, মাশরাফি বিন মুর্তজা, রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান।

জিম্বাবুয়ে দল: হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, সলোমন মিরে, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেলর, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, ম্যালকম ওয়ালার, গ্রায়েম ক্রেমার (অধিনায়ক), ব্লেসিং মুজারাবানি, টেন্ডাই চাতারা, কাইল জার্ভিস।

জ্যাসন রয়ের রেকর্ডের ম্যাচে ইংল্যান্ডের জয়

পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শুরুতে আজ রবিবার ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। মেলবোর্নে দিবা-রাত্রির ওয়ানডে ম্যাচে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ৩০৪ রান করে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে ব্যাট করতে নেমে জেসন রয়ের ১৮০ রানের রেকর্ড ইনিংসে ৫ উইকেটে ৪৮.৫ ওভারে জয় তুলে নেয় জো রুটের দল।

ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডেতে কোনো ব্যাটসম্যানের এটাই সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। জেসন রয়ের আগে ২০১৬ সালের আগস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৭১ রানের সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলেছিলেন অ্যালেক্স হেলস। আজ ১৫১ বল মোকাবিলা করে ১৬ চার ও ৫ ছক্কায় ১৮০ রানের রেকর্ড ইনিংসটি খেলেন জেসন রয়।

রয়ের রেকর্ড ইনিংসে এক প্রকার বৃথা গেল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চের সেঞ্চুরি। আগে ব্যাট করতে নেমে ১১৯ বলে ১০ চার ৩ ছক্কায় ১০৭ রান করেছিলেন স্বাগতিক এ ব্যাটসম্যান। তার সঙ্গে ৬০ রানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলেন মার্কোস স্টয়নিস। এছাড়া মিচেল মার্শ ৫০, টিম পাইন ২৭, ও স্টিভেন স্মিথের ২৩ রানে ভর নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ৩০৪ রানের পুঁজি পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ডের বোলারদের মধ্যে লিয়াম প্লাঙ্কিত ৩টি ও আদিল রশিদ ২টি উইকেট নেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে এক জেসন রয়ই ইল্যান্ডের জয়ের ভিত গড়ে দেন। তার সঙ্গে ৯১ রানে অপরাজিত ছিলেন অধিনায়ক জো রুট। ওয়ান ডাউনে নেমে ১৪ রানে আউট হন জনি বেয়ারস্টো। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২টি করে উইকেট নেন মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্স।

দেশে বাংলাদেশ অনেক ভালো দল: হাথুরুসিংহে

বাংলাদেশ দলে আলাদা কোন প্রিয় ক্রিকেটার ছিলোনা বলে জানালেন শ্রীলঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। পদত্যাগের পর প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে এসে লঙ্কান কোচ বলেন, যখন কেউ পারফর্ম করে তখনই তাকে প্রিয় মনে করেন তিনি। সৌম্য সরকার এবং তাসকিন আহমেদ সম্পর্কে বলতে গিয়ে এমন অভিমত তুলে ধরেন বাংলাদেশের সদ্য সাবেক এই কোচ।

এ সময় তিনি টাইগারদের জন্য শুভকামনাও জানান। তিনি বলেন, ‘দেশের মাটিতে বাংলাদেশ খুব ভালো দল। গত আড়াই বছরে একটি ছাড়া আমরা আর সিরিজ হারিনি। ‘আমরা’ বলতে আমি বোঝাচ্ছি বাংলাদেশকে। ওরা ওয়ানডেতে খুব ভালো ক্রিকেট খেলছে। নিজেদের ভূমিকা ও ম্যাচ পরিকল্পনা ওরা খুব ভালো করে জানে। সেদিক থেকে প্রতিপক্ষের জন্য এখানে খেলা অনেক চ্যালেঞ্জিং।’

ত্রিদেশীয় সিরিজে শ্রীলঙ্কার প্রথম প্রতিপক্ষ অবশ্য জিম্বাবুয়ে, যাদের কাছে দেশের মাটিতেই সবশেষ সিরিজ হেরেছে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের সঙ্গে শ্রীলঙ্কার লড়াই শুক্রবার।

ধারাবাহিক ভালো খেলার টার্গেট মাশরাফির

ত্রিদেশীয় সিরিজ জিততে হলে ধারাবাহিকভাবে ভালো ক্রিকেট খেলার বিকল্প নেই বলে মনে করেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচকে সামনে রেখে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে এমনটা জানান টাইগার অধিনায়ক। অন্যদিকে, জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক গ্রায়েম ক্রেমার বলেন, টুর্নামেন্ট জয়ের সামর্থ্য তাদের রয়েছে। উদ্বোধনী ম্যাচে কাল বারোটায় মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে।

ইনজুরি থাকায় প্রথম ওয়ানডেতে ইমরুল কায়েসের দলের বাইরে থাকাটা নিশ্চিত হওয়া গিয়েছিলো আগেই। তার মানে দুই বছর পর তামিম ইকবালের সঙ্গী হচ্ছেন এনামুল হক বিজয়।

মিরপুরে একাডেমী মাঠে অনুশীলন দেখে যা মনে হয়েছে তাতে মাশরাফির পেস অ্যাটাকের সঙ্গী হিসেবে দেখা যেতে পারে রুবেল হোসেনকে। তিন পেসার খেললে জায়গা হতে পারে সাইফুদ্দিনের। তা না হলে মেহেদী হাসান মিরাজই থাকছেন প্রথম পছন্দ। তবে একাদশে যেই খেলুন না কেনো অধিনায়ক এবং টিম ডিরেক্টরের মতে মাঠে পরিকল্পনার বাস্তবায়নই মুল কথা। মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা বলেন, ‘আমাদের পরিকল্পনার যদি ৭০ থেকে ৮০ ভাগও মাঠে প্রয়োগ করতে পারি, তাহলে কোনো কিছুই বাধা নয়। আশা করি সমস্যা হবে না। আমাদের নজর এখন সেখানেই।’

আগের দিনই জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক বলেছেন ঘরের মাঠে বাংলাদেশ কঠিন প্রতিপক্ষ। তাই স্বাগতিকদের হারাতে সব বিভাগেই নিজেদের শতভাগ দিতে চান গ্রায়েম ক্রেমাররা।

এর আগে দু’দল মুখোমুখি হয়েছে ৬৭টি ওয়ানডেতে। যেখানে বাংলাদেশের জয় ৩৯ টিতে আর জিম্বাবুয়ে জিতেছে ২৮ ম্যাচে।

বোল্টে কুপোকাত পাকিস্তান

ট্রেন্ট বোল্টের কাছেই কুপোকাত হলো পাকিস্তান। তার গতির কাছে ছিন্নভিন্ন হয়ে গেলো পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপ। আজ শনিবার পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয়টিতে ২৫৮ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে মাত্র ৭৪ রানেই গুটিয়ে যায় পাকিস্তানের ইনিংস। এতে দুই ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জিতে নিল নিউজিল্যান্ড। কিউইদের কাছে পাকিস্তানের পরাজয় ১৮৩ রানে।

ডানেডিনে আজ টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে নিউজিল্যান্ড। কেন উইলিয়ামসন (৭৩) ও রস টেলরের (৫২) ফিফটিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে নিউজিল্যান্ড অলআউট হয় ২৫৭ রানে।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে পাকিস্তান ওয়ানডেতে সবচেয়ে কম রানের রেকর্ডই প্রায় গড়তে বসেছিলো। ৩২ রানে ৮ উইকেট হারায় দলটি। সেই লজ্জার হাত থেকে পাকিস্তান শেষ পর্যন্ত ২৭.২ ওভারে অলআউট হয় ৭৪ রানে। বোল্ট একাই গুঁড়িয়ে দেন পাকিস্তানকে। ১৭ রান দিয়ে ৫ উইকেট তুলে নেন তিনি। এছাড়া কলিন মুনরো ‌ও লোকি ফার্গুসন দুটি করে উইকেট তুলে নেন।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল এখন ঢাকায়

ত্রিদেশীয় ক্রিকেট সিরিজে অংশ নিতে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের অধীনে শ্রীলঙ্কা দল এখন ঢাকায়। আজ শনিবার সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছায় তারা।

স্বাগতিক বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের সঙ্গে ত্রিদশীয় সিরিজে অংশ নেবে শ্রীলঙ্কা। আগামী ১৫ জানুয়ারি বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে খেলা। তবে আগামী ১৭ জানুয়ারি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে শ্রীলঙ্কার ত্রিদেশীয় সিরিজ মিশন। আর ২৭ জানুয়ারি টুর্নামেন্টের ফাইনাল হবে।

ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট শেষে আগামী ৩১ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। এই সিরিজে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা দুটি করে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলবে। ৩১ জানুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি প্রথম টেস্ট হবে চট্টগ্রামে। এরপর ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ১২ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় ‌ও শেষ টেস্ট হবে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে। এই একই ভেন্যুতে ১৫ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। আর সিরিজের শেষ ম্যাচ, দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ১৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে সিলেটে।

জয়ে শুরু বাংলাদেশের

নিউজিল্যান্ডে নামিবিয়াকে ৮৭ রানে হারিয়ে জয় দিয়েই অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ মিশন শুরু করলো বাংলাদেশ। লিঙ্কনে, বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ে খেলা শুরু না হওয়ায় ম্যাচ কমিয়ে আনা হয় ২০ ওভারে।

এরপর টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে, দলের ৩৩ রানে পিনাক ঘোষের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। তবে দ্বিতীয় উইকেটে ৯৭ রান যোগ করে দলকে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেন মোহাম্মদ নাইম এবং সাইফ হাসান। ৬০ রানে বিদায় নেন নাইম। এরপর সাইফ হাসানের ৪৮ বলে ৮৪ রানের ঝড়ো ইনিংসে ৪ উইকেটে ১৯০ রান তোলে বাংলাদেশের তরুণরা।

জবাবে, বড় রান তাড়া করতে নেমে ১২ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় নামিবিয়া। ভ্যান উইকের ফিফটিতে তিন একশ পার হয় নামিবিয়ার সংগ্রহ। ৫২ বলে ৬টি চার আর দুটি ছক্কায় ৫৫ রান করা ভন উইককে ফিরিয়ে নিজের দ্বিতীয় উইকেট নেন হাসান মাহমুদ। আরেক পেসার কাজী অনিকও নেন দুটি উইকেট। ৬ উইকেটে ১০৩ রানে থামে নামিবিয়ার ইনিংস।

যুব বিশ্বকাপের অন্য ম্যাচে, পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে আফগানিস্তান। পাপুয়া নিউ গিনিকে ১০ উইকেটে পরাজিত করে জিম্বাবুয়ে। আগামী ১৫ জানুয়ারি দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের তরুণরা লড়বে কানাডার বিপক্ষে।

বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নামিবিয়া

রাত পোহালেই নিউজিল্যান্ডের মাটিতে শুরু হয়ে যাবে অনূর্ধ-১৯ যুব বিশ্বকাপের আসর। ১৩ জানুয়ারি টুর্নামেন্ট শুরুর দিনেই অপেক্ষাকৃত দুর্বল নামিবিয়ার মুখোমুখি হবে সাইফ হাসানের বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোর সাড়ে তিনটায় লিঙ্কন ওভালে শুরু হবে ম্যাচটি। ‘সি’ গ্রুপে বাংলাদেশের অন্য দুই প্রতিপক্ষ কানাডা এবং ইংল্যান্ড। এদিন অনুষ্ঠিত হবে আরও তিনটি ম্যাচ।

নিউজিল্যান্ডের বৈরি পরিবেশকে জয় করতে নির্ধারিত সময়ের ১০ দিন আগে দেশ ছেড়েছিল বাংলাদেশ। মূল টুর্নামেন্টের আগে চারটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা থাকলেও তিনটি ম্যাচ খেলে সাইফরা। তবে কোনো ম্যাচে জিততে পারেনি জুনিয়র টাইগাররা। বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়েছে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি।

এবার তাই নামিবিয়ার বিপক্ষে উদ্বোধনী ম্যাচটি হতে পারে জুনিয়র টাইগারদের আত্মবিশ্বাস ফেরানোর ম্যাচ। ১৬ দলের বিশ্বকাপে সেরা আটটি দল যাবে কোয়ার্টারে। বাকি আট দল প্লেট পর্বের জন্য লড়বে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড, সাউথ আফ্রিকা ও কেনিয়া রয়েছে ‘এ’ গ্রুপে। ভারত, অস্ট্রেলিয়া, জিম্বাবুয়ে ও পাপুয়া নিউগিনি রয়েছে ‘বি’ গ্রুপে। ‘ডি’ গ্রুপে পাকিস্তান, আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ড।

ব্লাইন্ড ক্রিকেটের স্বস্তি বসুন্ধরায়

সুদিনের হাওয়া বইতে শুরু করেছে ব্লাইন্ড ক্রিকেটে। ক্রিকেট পাগল দেশে তাদের পথ চলার ১৭ বছরে অভাব যেন পিছু ছাড়ছিলোনা। তবে ২০১৮ ওয়ানডে বিশ্বকাপে অনেকটাই বদলে গেছে ব্লাইন্ড ক্রিকেটারদের চেহারা। আর এই চেহারা পাল্টানোর বড় ভূমিকায় বাংলাদেশের অন্যতম সেরা প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ।

এর আগে ব্লাইন্ড ক্রিকেটের বড় কোন ইভেন্টে অংশ নেয়ার পূর্বে অভাবের কমতি ছিল না বাংলাদেশের। একসেট জার্সির বেশী কিছু দেয়ার সামর্থ্য ছিল না বাংলাদেশ ব্লাইন্ড ক্রিকেট কাউন্সিলের। তবে এবারের চিত্রটা একেবারেই ভিন্ন। ৪ সেট করে জার্সি পেয়েছে দলের ১৭ জন ক্রিকেটার। ঠান্ডার সময়ে খেলা বলে ট্র্যাকশুট এবং কেডস‌ও দেয়া হয়েছে তাদের। আর এই সব কাজ করেছে প্রধান পৃষ্ঠপোষক বসুন্ধরা গ্রুপ। তাতেই যেন স্বত্বি ফিরেছে ব্লাইন্ড ক্রিকেটে।

দলের কোচ সানোয়ার আহমেদ বলেন, “অন্যান্য সময়ের তুলনায় এবারের টুর্নামেন্টে ছেলেরা বেশ ফুরফুরে মেজাজে রয়েছে। বসুন্ধরা গ্রুপ যদি এভাবে সহযোগীতা করতে থাকে তাহলে খুব দ্রুতই ব্লাইন্ড ক্রিকেটে প্রতিপক্ষের জন্য আতঙ্কের নাম হবে বাংলাদেশ। ”

প্রধান নির্বাহী সৈয়দ কামরুল ইসলাম ও দলের ম্যানেজার মোহাম্মদ তাইজুদ্দিনের হাত ধরে শুরু হয় ব্লাইন্ড ক্রিকেটে বাংলাদেশের পথচলা। তারাও বলছেন এবারের টুর্নামেন্ট যেন একটু ভিন্ন অনুভূতিই দিচ্ছে। ঢাকা থেকে পাকিস্তানের করাচি এরপর লাহোরে পৌছে বাংলাদেশ ব্লাইন্ড ক্রিকেট দল। বিমানবন্দর থেকে হোটেলে পৌছানোর জন্য বুলেট প্রুফ বাস। সামনে পিছনে পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর গাড়িবহর। হোটেলে পৌছে লাল গালিচা, ফুলেল অভ্যর্থনা। যেন এক মর্যাদা পূর্ন জাতীয় দল। দীর্ঘদিন ধরে দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ন ক্রিকেটের মাহমদু রশিদ বলেন, পরিপূর্ন সম্মান নিয়েই এবারের টুর্নামেন্ট খেলতে পেরে আমরা সত্যিই খুব আনন্দিত।

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে বিকেএসপিতে ২০ দিনের ট্রেনিং করেছে কোচ সানোয়ার আহমেদের দল। পরিপূর্ন ট্রেনিং না পেলেও পূর্বের চেয়ে এবার অনুশীলন ক্যাম্প নিয়ে সন্তুষ্ট বাংলাদেশ ব্লাইন্ড ক্রিকেট দল। আর প্রথম বারের মত অনুশীলন শেষে আর্থিকভাবে ক্রিকেটারদের অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন বিবিসিসির পরিচালক মঈন ইকবাল। বসুন্ধরা গ্রুপের সাথে যোগাযোগের প্রধান মাধ্যমও তিনি। মঈন ইকবাল বলেন, ব্লাইন্ড ক্রিকেটের উন্নয়নের জন্য খুব দ্রুতই সহযোগীতা করতে রাজী হয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপ। তাই বিবিসিসির পক্ষ্য থেকে মাননীয় ভাইস চেয়ারম্যান জনাব সাফওয়ান সোবহান (তাসভীর)-কে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানিয়েছেন, পরিচালক মইন ইকবাল। আর সাফওয়ান সোবহান (তাসভীর)-কে বিবিসিসির নেতৃত্বের দেখতে চান দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তারা।

অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটে হারালো বাংলাদেশ

ব্লাইন্ড বিশ্বকাপ ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটে হারিয়ে টুর্নামেন্টে তিন ম্যাচে দ্বিতীয় জয় পেলো বাংলাদেশ। এতে সেমিফাইনাল খেলার আশাটা আরো উজ্জ্বল হলো বাংলাদেশ ব্লাইন্ড ক্রিকেট দলের।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আজমানে, প্রথমে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ৩২৬ রান তোলে অস্টেলিয়া। জবাবে ১৩ বল আগেই জয় নিশ্চিত করে ৭ উইকেট হাতে রেখেই বাংলাদেশের ব্লাইন্ড ক্রিকেটাররা।

বাংলাদেশ দলের বি-১ ক্যাটাগোরির খেলোয়াড় তানজিলুর রহমান ৬৯ বলে সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করার পাশাপাশি ম্যাচ সেরার পুরস্কার‌ও জেতেন। ৩৭ অভার ৫ বলে ৩৩০ রান করে ৩ উইকেট হারানো বাংলাদেশ।

আগামীকাল আজমানে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী ভারত।

বাংলাদেশ দলে অবদান রাখতে চান সানজামুল

ব্যাটিং, বোলিং এবং ফিল্ডিং সব বিভাগেই বাংলাদেশ দলে অবদান রাখতে চান সানজামুল ইসলাম। অনেকদিন পর জাতীয় দলে ফেরার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে নিয়মিত হতে চান তিনি। মিরপুরে অনুশীলন শেষে টাইগার স্পিনার আরো বলেন, ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রতিপক্ষের দুর্বলতা এবং শক্তিমত্তা বিবেচনায় রেখেই দল সাজাবে বাংলাদেশ।

গত বছর আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের দলে প্রথমবার সুযোগ পেয়েছিলেন সানজামুল ইসলাম। কিন্তু মাত্র একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সেই ম্যাচে ৫ ওভার বোলিং করে ২২ রানে তুলে নেন ২টি উইকেট। এরপর আর জাতীয় দলে খেলার সুযোগ আসেনি। সম্প্রতি জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল) ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ৫ম আসরে ভালো পারফর্ম করার সুবাদে সুযোগ পেয়েছেন জাতীয় দলের ১৬ জনের স্কোয়াডে। বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে ১১ উইকেট পেয়েছিলেন এই বামহাতি স্পিনার।

প্রায় ৮ মাস পর জাতীয় দলের স্কোয়াডে ফিরে নিজের অবস্থান শক্তপোক্ত করার কথা জানান সানজামুল। আজ বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন দলে সুযোগ না পাওয়ায় মোটেই হতাশ নন। ‘হতাশা না আসলে। আমি ওখানে একটা ম্যাচ খেলার পর আর সুযোগ পাইনি কন্ডিশনের কারণে। বাইরে বসে থেকে অনেক কিছু শেখার চেষ্টা করেছি। ওটা অ্যাপ্লাই করে এখন সুযোগ পেয়েছি সো দ্যাট, এখন যেন আমি ভালো কিছু করতে পারি। দলে এখন নিয়মিত ক্রিকেটার হতে পারি। এটাই আমার টার্গেট।’

মিরপুরের একাডেমী মাঠে নেটের এক প্রান্তে ব্যাট করছিলেন মুশফিকুর রহিম। অন্যপ্রান্তে ঘাম ঝড়াচ্ছিলেন বোলার মোস্তাফিজুর রহমান, সানজামুলরা। যাদের মুল দায়িত্ব উইকেট তুলে নেয়া হলেও, ব্যাট হাতেও যেনো জ্বলে উঠতে পারেন, সেই অনুশীলনটাই করলেন ক্রিকেটাররা। সানজামুল বললেন, আধুনিক ক্রিকেটে লোয়ার অর্ডারদেরও ব্যাটিং জানতে হয়।

আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে মূল একাদশে থাকাই সানজামুলের লক্ষ্য পাশাপাশি টাইগার দলে নিয়মিত হতে চান এই বামহাতি স্পিনার, ‘এটা তো অবশ্যই টার্গেট থাকবে। আমার লক্ষ্য যে এগারজনে থাকা এবং ওখানে থেকে ভালো খেলে দলে নিয়মিত থাকা।’ আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশ দলে সাকিব আল হাসানের পাশাপাশি দ্বিতীয় বামহাতি স্পিনার হিসেবে সুযোগ পেয়েছেন সানজামুল ইসলাম।

আগের দিন হাতে ব্যাথা পাওয়া অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। রিচার্ড হ্যালসেল সময় দিয়েছেন ফিল্ডিংয়ে, আর সবকিছুর তদারকিতে ছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

প্রতিপক্ষ দুই দলের কোচ হিথ স্ট্রিক এবং চন্ডিকা হাথুরুসিংহের বাংলাদেশের শক্তিমত্তা, এবং দুর্বলতা সবই জানা। তবু টাইগার ক্রিকেটাররা বলছেন, অভিজ্ঞতাই বাকিদের চেয়ে তাদের এগিয়ে রাখবে।

নেপালকে ৪ উইকেটে হারালো বাংলাদেশ

দ্বিতীয় ম্যাচে নেপালকে ৪ উইকেটে হারিয়ে এবারের ব্লাইন্ড ক্রিকেট বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম জয় পেলো বাংলাদেশ। পাকিস্তানের ফয়সালাবাদের আল্লামা ইকবাল স্টেডিয়ামে, ২৩৫ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই আরিফুল্লাহর উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ।

তবে মাহমুদ রশীদের অপরাজিত ৬০ রানের সাথে আশিকুর রহমানের ৪৫, আব্দুল মালিকের ৩৮ ও আব্দুল্লাহ জোবিরের ২৬ রানের সুবাদে ৬ ওভার ৩ বল বাকি থাকতে ৬ উইকেটে ২৩৫ রান তুলে জয় পায় বাংলাদেশ। এর আগে, টস হেরে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রিত নেপাল নির্ধারিত ৪০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৩৪ রান তোলে। দলের পক্ষে কিরতন সর্বোচ্চ ৬৬ রান করেন। বাংলাদেশের খোরশেদ আলম ৫৫ রানে নেন ৩ উইকেট।

আগামী ১২ জানুয়ারি আরব আমিরাতের আজমানে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।

আগামীকাল আসছে জিম্বাবুয়ে

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে আগামীকাল বৃহস্পতিবার রাত ১১ টায় ঢাকা আসছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। অবশ্য এর আগে, আজ বুধবার ঢাকায় আসার কথা ছিলো তাদের। কিন্তু আসছে না। সফর সূচিতে সামান্য পরিবর্তন এনে আগামীকাল বৃহস্পতিবার রাতে আসছে তারা ঢাকায়।

এই সফরে অবশ্য জিম্বাবুয়ে দলের সঙ্গে নেই তাদের বোলিং কোচ মাখায়া এনটিনি। দুদিন আগে তিনি জিম্বাবুয়ের বোলিং কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। প্রধান কোচ হিথ স্ট্রিকের তত্ত্বাবধানেই বাংলাদেশে আসছে 'দ্য শেভরন'রা।

ঢাকায় আসার পরদিন মিরপুর একাডেমি মাঠে অনুশীলন করবে জিম্বাবুয়ে দল। ১৩ জানুয়ারি বিকেএসপিতে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে তারা।

জিম্বাবুয়ে দল

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, সলোমন মিরে, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেলর, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, ম্যালকম ওয়ালার, গ্রায়েম ক্রেমার (অধিনায়ক), রায়ান মারে, টেন্ডাই চিসোরো, ব্রেন্ডন মাভুতা, ব্লেসিং মুজারাবানি, ক্রিস্টোফার এমপফু, টেন্ডাই চাতারা ও কাইল জার্ভিস।

ত্রিদেশীয় সিরিজের সূচি

১৫ জানুয়ারি – বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ে

১৭ জানুয়ারি – শ্রীলঙ্কা বনাম জিম্বাবুয়ে

১৯ জানুয়ারি – বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা

২১ জানুয়ারি – শ্রীলঙ্কা বনাম জিম্বাবুয়ে

২৩ জানুয়ারি – বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ে

২৫ জানুয়ারি – বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা

২৭ জানুয়ারি – ফাইনাল

আবার‌ও শ্রীলঙ্কার নেতৃত্বে ম্যাথুস

দলের ভরাডুবির দায় নিজে নিয়ে ২০১৭ সালের জুলাইয়ে তিন ফরম্যাট থেকেই শ্রীলঙ্কার অধিনায়কত্ব ছেড়েছিলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। মাত্র ছয় মাসের মধ্যেই আবার‌ও নেতৃত্বে ফিরলেন তিনি।

আজ মঙ্গলবার তাকে সীমিত ওভারের অধিনায়কের দায়িত্ব দিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট-এসএলসি। বাংলাদেশে আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য আজ ১৬ সদস্যের দলও ঘোষণা করেছে লঙ্কান বোর্ড। ওয়ানডে দলে ফিরেছেন দিনেশ চান্দিমাল, কুশল মেন্ডিস ও ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। প্রথমবারের মতো দলে ডাক পেয়েছেন পেসার শেহান মাদুশানাকা।

বাংলাদেশের সদ্য সাবেক চন্ডিকা হাথুরুসিংহে শ্রীলঙ্কার প্রধান কোচের দায়িত্ব নেওয়ার পরই দেশটির ক্রিকেটে রদবদল শুরু হয়েছে। ম্যাথুসকে আবার অধিনায়কত্বে ফেরাতেও বড় ভূমিকা রেখেছেন হাথুরু। ম্যাথুস সেটা স্বীকারও করেছেন। আবার অধিনায়কত্বে ফেরার কথা চিন্তাই করেননি বলে জানান তিনি, ‘যখন আমি সরে দাঁড়ালাম, আবার অধিনায়কত্ব নেওয়ার কথা চিন্তাই করিনি। কিন্তু যখন আমরা ভারত সফর থেকে ফিরলাম, সভাপতি আমার সঙ্গে আলোচনা করেন। হাথু (হাথুরুসিংহে) এবং নির্বাচকরাও আমাকে আবার অধিনায়কত্ব নেওয়ার কথা বিবেচনা করতে বলেন। এটা নিয়ে ভাবার জন্য আমি কয়েক দিন সময় নিয়েছি, কারণ কিছু বিষয় গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে আমাকে।’

২০০৮ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত ম্যাথুসের সঙ্গে কাজ করেছিলেন হাথুরুসিংহে। প্রথমে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলে, পরে জাতীয় দলের ছায়া কোচ হিসেবে। হাথুরুর সঙ্গে কাজ করাটা সহজ হবে বলে মনে করেন ম্যাথুস, ‘আমি দীর্ঘদিন ধরে হাথুরুকে চিনি। আমি জানি, তিনি কীভাবে পরিচালনা করেন। তার সঙ্গে কাজ করা অনেক সহজ হবে।’ শ্রীলঙ্কা দলে জায়গা পাওয়া ২২ বছর বয়সি মাদুশানাকা মাত্র তিনটি প্রথম শ্রেণির ও তিনটি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলেছেন। মূলত তার পেসের কারণেই তাকে দলে নেওয়া হয়েছে। ২০১৯ বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে তাকে দলে নিতে নির্বাচকদের পরামর্শ দিয়েছেন মূলত হাথুরুসিংহেই।

চান্দিমাল সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন গত বছরের অক্টোবরে পাকিস্তানের বিপক্ষে। ২০১৭ সালে বাজে ফর্মের কারণে তিনি ভারতের বিপক্ষে সিরিজে ছিলেন না। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ধীরগতির ব্যাটিংয়ের জন্য তাকে নিয়ে বেশ সমালোচনাও হয়েছে। আর মেন্ডিস ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফরম্যান্সের পুরস্কার পেয়েছেন। ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে কলম্বো ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ১৭৭ রানের ইনিংস খেলেন মেন্ডিস।

শ্রীলঙ্কা দল

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস (অধিনায়ক), উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলাকা, কুশল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল, কুশল পেরেরা, থিসারা পেরেরা, আসেলা গুনারত্নে, নিরোশান ডিকভেলা, সুরাঙ্গা লাকমাল, নুয়ান প্রদীপ, দুশমন্থ চামিরা, শেহান মাদুশানাকা, আকিলা ধনঞ্জয়া, লাকশান সান্দাকান, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা।

দলে স্থায়ী হ‌ওয়ার চ্যালেঞ্জ ত্রিদেশীয় সিরিজ: রাজু

ত্রিদেশীয় সিরিজকে দলে স্থায়ী জায়গা করে নেয়ার চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছেন আবুল হাসান রাজু। পেস বোলার হিসেবে দলে এসেছিলেন। তবে আবুল হাসান রাজুর প্রথম নামডাক ব্যাট হাতে। টেস্টে ১০ নম্বরে নেমে সেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়েছিলেন। কিন্তু মূল কাজ বোলিংয়ে ছিল না তেমন সাফল্য। চোট আর ফর্মহীনতায় ফিকে হতে বসেছিল তার দলে ফেরার পথ। এবার বিপিএলে কার্যকরী বোলিং দিয়ে ওয়ানডে দলে জায়গা করে নিয়েছেন। জানালেন ওয়াকারের কাছ থেকে নিয়েছেন রিভার্স স্যুয়িংয়ের তালিম।

এবার বিপিএলে সিলেট সিক্সার্সের হয়ে ১০ উইকেট নিয়েছেন। টানা স্লোয়ার দে‌ওয়ার দক্ষতায় নজর কেড়েছেন সবার। সেই দলে কোচ হিসেবে পেয়েছিলেন ওয়াকার ইউনুসকে। তার কাছ থেকেই নিয়েছেন তালিম।

মিরপুরে অনুশীলন শেষে বললেন, ‘বিপিএলে আসলে এই জায়গায় আসার জন্য চ্যালেঞ্জ ছিল আমার। ওয়াকার ভাই ছিলেন আমাদের দলে। আমার অনেক আত্মবিশ্বাস ছিল যে ওয়াকার ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করে স্কিলগুলো ডেভেলপ করতে পারব।’

রিভার্স স্যুয়িংয়ের ওস্তাদ ছিলেন ওয়াকার। তার কাছ থেকেই নাকি শিখেছেন তিনি, ‘আমার রিভার্স সুইংটা নিয়ে অনেক বেশি কাজ করেছি ওয়াকার ভাইয়ের সঙ্গে। স্লো বল নিয়েও। আমি আত্মবিশ্বাসী। এখন প্রমাণের সময় এসেছে। আমি প্রমাণ করতে পারছি। সবচেয়ে বড় জিনিস হলো আমি আত্মবিশ্বাসী।’

এর আগ ছয়টি ওয়ানডে খেলেছেন। এখন‌ও পাননি কোনো উইকেট। প্রত্যাবর্তন সিরিজে সুযোগ পেলে সেই খরা ঘোচাতে প্রস্তুত তিনি, ‘ইনশাল্লাহ, আমি আত্মবিশ্বাসী। দেখি যদি চান্স পাই তাহলে নিজেকে প্রমাণ করব।’

মিরপুরে টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন এবং বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশের অধীনে আজ মঙ্গলবার অনুশীলন করেন ক্রিকেটাররা। ১৫ জানুয়ারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে ত্রিদেশীয় সিরিজ। শ্রীলঙ্কা সিরিজের অন্য দল।

ইউসুফ পাঠান সাসপেন্ড

ডোপিংবিধি ভঙ্গ করার অভিযোগে ভারতের সাবেক অলরাউন্ডার ইউসুফ পাঠানকে পাঁচ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করেছে সেদেশের ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই। বরোদা ক্রিকেট এসোসিয়েশন প্রকাশিত এক রিপোর্টে জানায়, ইউসুফের নেয়া কাঁশির সিরাপের মধ্যে নিষিদ্ধ ঘোষিত সেই বস্তু ছিলো।

পেছনের তারিখ গত ১৫ আগস্ট থেকে ৩৫ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডারকে বিসিসিআই নিষিদ্ধ করে। যার মেয়াদ শেষ হবে আগামী ১৪ জানুয়ারি। নয়া দিল্লীতে একটি ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ম্যাচ শেষে পাঠানের মূত্র পরীক্ষা শেষে নিষিদ্ধ ঘোষিত ‘টারবুটেলাইন’ পাওয়া যায়।

উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশের পরাজয়

ব্লাইন্ড বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক পাকিস্তানের কাছে ৯ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করে, ৬ উইকেটে ২০৭ রান তোলে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৭ রান করেন আরিফুল্লাহ।

জবাবে স্বাগতিক দল, মাত্র ১৭ ‌ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান তুলে জয় পায়। পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান বদর মুনির ১৪৫ রানে অপরাজিত থাকেন। ছয় জাতির এই ব্লাইন্ড বিশ্বকাপে ফয়সালাবাদে, আগামী বুধবার দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেপাল।

শচীনের মেয়েকে হুমকি দে‌ওয়ার অপরাধে একজন গ্রেফতার

ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের কন্যা সারা টেন্ডুলকারকে `খারাপ’ বার্তা পাঠানোর জন্য মুম্বাই পুলিশের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলা থেকে দেব কুমার মৈত্রী নামের ‌৩২ বছর বয়সী ওই ব্যক্তিকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সারা টেন্ডুলকার

অভিযোগে বলা হয়, সারাকে টেন্ডুলকারের বাসার নম্বরে ‌ওই ব্যক্তি কমপক্ষে ২০ বার ফোন করে। এবং এক পর্যায়ে সারাকে অপহরণের হুমকি‌ও দেয়। তবে দেব কুমারের পরিবার জানিয়েছে যে সে মানসিক ভারসাম্যহীন।

তবে পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে যে সে কিভাবে শচীন টেন্ডুলকারের বাড়ির ফোন নাম্বার পেলো সেটা জানার। আর ‌ওই ব্যক্তি আসলেই মানসিক ভারসাম্যহীন কিনা সেটা জানতে চিকিতসকদের সঙ্গে আলোচনা করছে।

আর‌ও একটি জয় অস্ট্রেলিয়ার

সিডনীতে অ্যাশেজ সিরিজের পঞ্চম ও শেষ টেস্ট ইনিংস ও ১২৩ রানে ইংল্যান্ডকে পরাজিত করলো অস্ট্রেলিয়া। তাতে সব মিলে ৪-০ ব্যবধানে অ্যাশেজ ধরে রাখলো তারা। জো রুটের দলের বেদনাবহ অ্যাশেজ সিরিজ শেষ হলো আরেকটি বড় পরাজয়ে।

এবারের অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার চার জয়ের দুটিই ইনিংস ব্যবধানে। অস্ট্রেলিয়ায় ১৯৯৪-৯৫ সালের পর এই প্রথম অ্যাশেজের পাঁচ টেস্টই পঞ্চম দিন পর্যন্ত গেল। যেখানে আধিপত্যটা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। অস্ট্রেলিয়ায় আবার অ্যাশেজ ফিরবে ২০২১ সালে। এর আগে ২০১৯ সালে ঘরের মাঠে অ্যাশেজ ট্রফি পুনরুদ্ধারের সুযোগ পাচ্ছে ইংল্যান্ড।

চতুর্থ দিন শেষে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটে ৯৩ রান। অস্ট্রেলিয়াকে আবার ব্যাটিংয়ে নামাতে আজ শেষ দিনে ২১০ রান করতে হতো ইংলিশদের। সফরকারীদের একমাত্র আশা ছিল জো রুটকে নিয়ে। চতুর্থ দিন শেষে অধিনায়ক অপরাজিত ছিলেন ৪২ রানে। কিন্তু রুট আজ দিনের শুরুতে ব্যাটিংয়েই নামতে পারেননি। ডায়রিয়া ও বমি নিয়ে সকালে হাসপাতালে যেতে হয়েছিল রুটকে। খেলা শুরুর আগে মাঠে ফেরেন। তবে দেরি হওয়ায় ব্যাটিংয়ে নামতে পারেননি। জনি বেয়ারস্টোর সঙ্গে দিনের খেলা শুরু করেন মঈন আলী।

দুজন প্রায় এক ঘণ্টা কাটিয়ে দিয়েছিলেন। ১৩ রানে থাকা মঈনকে লেগ বিফোর করে জুটি ভাঙেন অজি স্পিনার নাথান লিয়ন। মঈনের বিদায়ের পরই উইকেটে আসেন রুট। তবে নিয়মিত বিরতিতেই পানি পান করতে হয়েছে তাকে। সিরিজে নিজের পঞ্চম ফিফটি তুলে নিয়েছিলেন। তবে লাঞ্চের পর আর ক্রিজে ফেরেননি। ৫৮ রান নিয়ে ‘রিটায়ার্ড হার্ট’ থাকতে হয় রুটকে।

অধিনায়কের অনুপস্থিতিতে ইংল্যান্ডের লোয়ার অর্ডার আসা-যাওয়ার মধ্যেই ছিল। প্যাট কামিন্সের বলে এলবিডব্লিউ হওয়ার আগে ৩৮ রান করেন বেয়ারস্টো। এরপর স্টুয়ার্ট ব্রড ও ম্যাসন ক্রেইন দ্রুতই ফেরেন।

আর অ্যান্ডারসনকে পাইনের ক্যাচ বানিয়ে ইংল্যান্ডের ইনিংসের ইতি টানেন জশ হ্যাজেলউড। অ্যান্ডারসন রিভিউ নিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ইংল্যান্ডের নির্ধারিত রিভিউ শেষ হয়ে যায় আগেই। ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয় ১৮০ রানে।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেট পেয়েছেন কামিন্স। ম্যাচে ৮ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছেন তিনিই। সিরিজ সেরা হয়েছেন স্মিথ। সিরিজে তার রান ৬৮৭। অস্ট্রেলিয়া ৭ উইকেটে ৬৪৯ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে। আর প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড তোলে ৩৪৬ রান।

ত্রিদেশীয় সিরিজের টাইটেল স্পন্সর রকেট

আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজের টাইটেল স্পন্সর ডাচ বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা রকেট। ত্রিদেশীয় এ সিরিজ দিয়েই নতুন বছরের যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। টুর্নামেন্টে টাইগারদের দুই প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে।

২০১৬ সালে দুই বছরের জন্য ইমপ্রেস-মাত্রা কনসোর্টিয়ামের কাছ থেকে স্বত্ব কিনে নেয় ডাচ-বাংলা ব্যাংক যা শেষ হয় ২০১৭ সালে। সেই মেয়াদ পার করে নতুন বছরেও বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। আজ রবিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে এক আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের টাইটেল স্পন্সরের নাম ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি।

সংবাদ সম্মেলনে বিসিবির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। ইমপ্রেস-মাত্রা কনসোর্টিয়ামের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ফরিদুর রেজা সাগর। পৃষ্ঠপোষক ডাচ-বাংলা ব্যাংকের পক্ষ থেকে ছিলেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কাশেম মোহাম্মদ শিরিন।

ত্রিদেশিয় সিরিজের জন্য বাংলাদেশ দল

ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথম দুই ওয়ানডের জন্য ১৬ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। আজ রোববার দুপুরে মিরপুরে সংবাদ সম্মেলনে দল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

দীর্ঘদিন পর দলে ফিরেছেন ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়। বিজয় সবশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৫ বিশ্বকাপে। তবে দল থেকে বাদ পড়েছেন ‌ওপেনার সৌম্য সরকার ও পেসার তাসকিন আহমেদ।

শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়েকে নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু হবে আগামী ১৫ জানুয়ারি। প্রথম দিনে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। দিবারাত্রির সবগুলো ম্যাচই হবে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে।

বাংলাদেশ দল

মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মাহমুদউল্লাহ, সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ মিথুন, এনামুল হক বিজয়, নাসির হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, আবুল হাসান রাজু, রুবেল হোসেন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও সানজামুল ইসলাম।