রাত ১:১৫, শনিবার, ২২শে জুন, ২০১৮ ইং

বিশ্বকাপ ফুটবলের নকআউট পর্বে আর্জেন্টিনার আশা বাঁচিয়ে রাখল নাইজেরিয়া। স্ট্রাইকার আহমেদ মুসার জোড়া গোলে প্রথম ম্যাচেই আর্জেন্টিনাকে ১-১ গোলে রুখে দিয়ে চমক দেখানো আইসল্যান্ডকে হারায় নাইজেরিয়া। এতে ‘সুপার ঈগল’দের‌ও সুযোগ থাকছে শেষ ১৬ তে ‌ওঠার।

আজ শুক্রবার খেলার দ্বিতীয়ার্ধে দুটি গোল করে লিস্টার সিটির স্ট্রাইকার আহমেদ মুসা বিশ্বকাপে নাইজেরিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ চারটি গোল করার কৃতিত্ব দেখালেন।

তাছাড়া আহমেদ মুসাই হলেন প্রথম কোনো নাইজেরিয়ান খেলোয়াড় যিনি আলাদা দুটো বিশ্বকাপে গোল করার কৃতিত্ব দেখান। ২০১৪ সালে ব্রাজিল বিশ্বকাপে মুসা আর্জেন্টিনার বিপক্ষে দুটো গোল করেছিলেন। দলের হয়ে ৪৯ ‌ও ৭৫ মিনিটে গোল দুটি করেন ম্যাচ সেরা আহমেদ মুসা।

আর্জেন্টিনায় শোক

গ্রুপরের দ্বিতীয ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ২-০ গোলে পরাজয়ের পর আর্জেন্টিনার একটি টেলিভিশন শোকে-দু:খে এক মিনিট নীরবতা পালন করে। তাদের সব কার্যক্রম মিউট করে দেয় এক মিনিটের জন্য।

গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে বিশ্বকাপের শুরু থেকেই বেশ বেকায়দায় আছে হোর্হে সাম্পা‌ওলির দল। পরের ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলে পরাজয়। তাতে ২০০২ সালের পর বিশ্বকাপের প্রথম পর্ব থেকেই ছিটকে পড়ার সম্ভাবনা তৈরি হয় লি‌ওনেল মেসির দলের। এই কারণে সেদেশের টেলিভিশন TyC-তে বিশ্বকাপ নিয়ে অনুষ্ঠান চলাকালে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

অবশ্য আজ শুক্রবারের ম্যাচে আইসল্যান্ড যদি নাইজেরিয়ার কাছে ২-০ গোলে না হেরে জিতে যেতো তবে মেসির দল এক ম্যাচ হাতে রেখেই টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়ে যেতো। নাইজেরিয়া জেতায় গ্রুপের শেষ ম্যাচে আফ্রিকান দলটিকে হারানোর পাশাপাশি অনেক সমীকরণ‌ও মেলাতে হবে সাম্পা‌ওলির দলের।

জয়ের পর‌ও নেইমারের কান্না

কোস্টারিকাকে ২-০ গোলে হারিয়ে ম্যাচ জিতল ব্রাজিল। গোল‌ও করলেন দলের মহাতারকা নেইমার। কিন্তু আনন্দের পরিবর্তে চোখ ভেঙে নামল জল। তা আড়াল করতেই মুখ ঢেকে বসে পড়লেন মাঠেই। কিন্তু পিছু ছাড়ল না সাংবাদিকের ক্যামেরা।

এই কান্না কেন নেইমারের। দীর্ঘদিন পর ইনজুরি থেকে ফিরে বিশ্বকাপে সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করা ম্যাচে তেমন ভালো খেলতে পারেননি। নেইমার। তাতে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হন তিনি। তাছাড়া কোস্টারিকান এক ডিফেন্ডার নিজেদের বিপদসীমায় নেইমারকে ফেলে দিলে রেফারি পেনাল্টির বাশি বাজান। নেইমার পেনাল্টি নিতে তৌরি হন। পরে ভার (ভিএআর) প্রযুক্তি সেই পেনাল্টি বাতিল করে। তাতে‌ও বিদ্রুপের শিকার হন নেইমার।

পরে কুতিনহোর পাশাপাশি নিজে‌ও এক গোল করে ব্রাজিলকে ২-০ ব্যবধানে জয় পাইয়ে দেন। সব মিলিয়ে আবেগে ভেঙে পড়েন নেইমার। তাই দল জিতলে‌ও কান্না থামেনি তার।

জিতেছে ব্রাজিল

বিশ্বকাপের ষষ্ঠ শিরোপা জয়ের মিশনে আসা ব্রাজিল গ্রুপে তাদের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে। রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে ইনজুরি টাইমে দেয়া কুতিনহো এবং নেইমারের দেয়া গােলে জয় নিশ্চিত করে সেলেসা‌ওরা। দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে‌ও ব্রাজিলের কাছ থেকে কোনো পয়েন্ট নিতে পারল না কোস্টারিকা। এর আগে ই গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছিল কোচ তিতের দল।

খেলার ১৩ মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার খুব সহজ সুযোগ নষ্ট হয় কোস্টারিকার। ডান দিক থেকে ক্রিস্তিয়ান গামবোয়ার কাছ থেকে পা‌ওয়া বল বাইরে মেরে সুযোগ নষ্ট করেন ফাঁকায় থাকা সেলসো বোর্হেস। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি তারকা খচিত দল নিয়ে রাশিয়ায় আসা ব্রাজিল ২৭ মিনিটে গোলের সুযোগ তৈরি করে। ডি-বক্সে বল পেয়ে পিএসজির ফরোয়ার্ড নেইমার গোলবারে শট নে‌ওয়ার আগেই তাকে থামান কোস্টারিকার গোলকিপার কেইলর নাভাস।

দ্বিতীয়ার্ধে নিজেদের অর্ধে আরও গুটিয়ে যায় কোস্টারিকা। তাদের রক্ষণ কৌশরে আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ‌ওঠে ব্রাজিল। ফাগনারের ক্রসে গাব্রিয়েল জেসুসের হেডে বল ক্রসবারে লাগলে গোল পায়নি সেলেসা‌ওরা। পরক্ষণেই কুতিনহোর জোরালো শট গোলের মুখে থেকে ফেরে ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে।

৫৬ মিনিটে নেইমারের খুব কাছ থেকে নেওয়া শটে গ্লাভস লাগিয়ে ক্রসবারের উপর দিয়ে পাঠান নাভাস। এরপর কুতিনহো, নেইমার কিংবা ব্রাজিলয়ানদের সব আক্রমণ এসে খেই হারায় কোস্টারিকার রক্ষণে। অভিনয় করে পেনাল্টি প্রায় পেয়ে গিয়েছিলেন নেইমার। রেফারি প্রথমে স্পটকিকের নির্দেশ দিয়েও পরে কোস্টারিকার খেলোয়াড়দের আপত্তির মুখে ভিডিও রিভিউ দেখে সিদ্ধান্ত পাল্টান।

অবশেষে যোগ করা সময়ে আসে গোল দুটি। প্রথম মিনিটে ফিরমিনোর হেড ডি-বক্সে পা দিয়ে নামিয়েছিলেন জেসুস। এগিয়ে এসে নিচু শটে নাভাসকে ফাঁকি দেন বার্সেলোনার মিডফিল্ডার কুতিনহো।

আর সপ্তম মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোলটি পান নেইমার। কাউন্টার অ্যাটাকে ডাগলাস কস্টার কাছ থেকে বল পেয়ে ফাঁকা জালে বল পাঠান বিশ্বের সবচেয়ে দামী খেলোয়াড় নেইমার। খেলা শেষ মুখ ঢাকেন তিনি গোল পাওয়ার কান্নায়।

আর্জেন্টিনার পরাজয় নকআউটে ক্রোয়েশিয়া

আর্জেন্টিনাকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ইতিহাস গড়ার পাশাপাশি নকআউট পর্বেও উঠে গেলে ক্রোয়েশিয়া। এতে দক্ষিণ আমেরিকানদের বিপক্ষে বিশ্বকাপে প্রথম জয়ও পেলো ক্রোয়েশিয়া। এই পরাজয়ে উল্টো গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায়ের শঙ্কা এখন আর্জেন্টিনা শিবিরে। নকআউটের টিকিট পেতে, গ্রুপের শেষ ম্যাচে নাইজেরিয়ার সঙ্গে জেতার পাশাপাশি অনেক সমীকরণও মেলাতে হবে এখন মেসিদের।

অভাবনীয় আর অসামান্য এক কাজই করে দেখাল ক্রোয়েশিয়া। সুযোগ সদ্ব্যবহার করার ফসল ঘরে তুললো লুকা মড্রিচরা। আর গোল মিসের মাশুল দিয়ে মাথা নিচু করে মাঠ ছাড়লো আর্জেন্টিনা।

এরআগে, নিঝনি নভোগ্রোদ স্টেডিয়ামে, ক্রোয়েশিয়ার রক্ষণে বারবার হানা দেয় দুইবারের বিশ^ চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। কিন্তু কখনো ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতা আবার কখনো ক্রোয়েশিয়ার গোলরক্ষক সুবাসিচের হার না মানার মানসিকতা দৃঢ়তায় গোল বঞ্চিত হয় মেসিরা।

তাছাড়া সবার ব্যর্থতা একার পক্ষে কাটানো সম্ভব নয় মেসির পক্ষে। পারলেন না। মাঝমাঠ দখলে রেখে প্রথমার্ধে মেসি কিংবা অ্যাগুয়েরোকে বল দেয়া বন্ধ করে দেয়ার চেষ্টায় সফল ক্রোয়েশিয়া। তাই প্রথমার্ধে আক্রমণ আর বল দখলে এগিয়ে থাকলেও গোল শূন্য অবস্থাতেই বিরতিতে যায় দু’দল।

বোকামীর মাশুল যে কতটা মারাত্মক হতে পারে, তা আর্জেন্টাইন গোলকিপার উইলি কাবায়েরো বুঝতে না পারলেও ভুগেছে পুরো দল। সারা বিশে^র আজেন্টাইন সমর্থকরা মরেছে হতাশায়। তাতে রেবিকের গোলে লিড পায় ক্রোয়েটরা।

তবে ক্রোয়েটদের নিশ্চিদ্র প্রহরা ভেঙে ম্যাচে ফেরার সুযোগও ছিল আলবিসেলেস্তেদের। দারুণ দক্ষতায় মেসি এবং মেজাকে ব্যর্থ করে দেন সুবাসিচ। সমতায় ফিরতে ব্যর্থ সাম্পাওলির দল।

আর্জেন্টিনার এই ব্যর্থতা আরো বাড়িয়ে দেন ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক লুকা মড্রিচ, খেলার ৮০ মিনিটে দলকে ২-০ তে লিড এনে দিয়ে। ম্যাচ জয়ের আনন্দ তাদের।

হিগুয়েইন-দিবালাকে নামিয়েও ম্যাচে ফেরা হলো না আর্জেন্টিনার। উল্টো খেলা শেষের ইনজুরি টাইমের প্রথম মিনিটে ইভান রাকিটিচের গোলে ৩-০ ব্যবধানে জয় নিশ্চিত করে, বাঁধভাঙা আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে ক্রোয়েশিয়া। আর পরাজয়ে ম্লান-নতমুখী আর্জেন্টিনা। এতে ১৯৫৮ সালে চেকোস্লোভাকিয়ার কাছে ৬-১ গোলে পরাজয়ের পর বিশ^কাপের গ্রুপ পর্বে এটাই সবচেয়ে বড় হার আর্জেন্টিনার।

বিশ্বকাপের নকআউটে ফ্রান্স

কিলিয়ান এমবাপের একমাত্র গোলে পেরুকে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের নক আউট পর্ব নিশ্চিত করলো ফ্রান্স। আর এক ম্যাচ হাতে রেখেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিল পেরু।

টানা দুই ম্যাচ জিতে রাশিয়া বিশ্বকাপে গ্র“প ‘ডি’ থেকে একম্যাচ বাকি থাকতে শেষ ষোলে ১৯৯৮ সালের চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। আর ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপে ফিরে টানা দুই ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়লো পেরু।

একতারিনবার্গে খেলার শুরু থেকেই পেরুর ওপর চড়াও হয় ফরাসিদের তারকা খচিত আক্রমনভাগ। সফলতা আসে ৩৪ মিনিটে।

পিএসজি তারকা এমবাপের গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্স। তাতে ফরাসিদের হয়ে সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতা বনে যান, ১৯ বছর বয়সী এমবাপে।

https://www.youtube.com/watch?v=7BFenLEofm8

পিছিয়ে পড়ে গোল শোধে চেষ্টা চালায় পেরু। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় আর ম্যাচে ফেরা হয়নি তাদের। এই জয়ে ১৯৭৮ সাল থেকে ল্যাটিন আমেরিকান দলগুলোর বিপক্ষে অপরাজিত থাকার রেকর্ডটা ধরে রাখলো ফ্রান্স।

ডেনমার্কের সাথে ড্র বিশ্বকাপে টিকে রইল অস্ট্রেলিয়া

গ্রুপ ‘সি’র খেলায় ডেনমার্কের সাথে ড্র করে বিশ্বকাপে টিকে থাকলো অস্ট্রেলিয়া। সামরায় খেলার মাত্র ৭ মিনিটে ক্রিস্টিয়ান এরিকসনের গোলে এগিয়ে যায় ডেনমার্ক। প্রথমার্ধেই পেনাল্টি গোলে সমতায় ফেরে অস্ট্রেলিয়া।

খেলায় ডেনমার্কের বিপক্ষে কিছুটা চাপ নিয়েই ম্যাচ শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপে টিকে থাকতে হলে এই ম্যাচে অন্তত পরাজয় এড়াতে হতো সকারুদের। এমন সমীকরেণর ম্যাচে, শুরুতেই পিছিয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। সামরায়, খেলার মাত্র ৭ মিনিটে ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের গোলে এগিয়ে যায় ডেনমার্ক।

বিশ্বকাপে টানা দুই ম্যাচ জয়ের রেকর্ড নেই ডেনমার্কের। দুর্ভাগ্য, এবারও টানা দুই ম্যাচে জয় না পা‌ওয়ার পুরণো সেই রেকর্ড অক্ষত থাকলো তাদের।

ভিএআর প্রযুক্তির সহযোগিতায় রেফারি নিশ্চিত করেন ডি-বক্সে হ্যান্ডবল হয়েছে ডেনমার্কের ইউসুফ পুলসেনের। ৩৭ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টি থেকে দলকে সমতায় ফেরাতে ভুল করেননি অস্ট্রেলিয়ার মিডফিল্ডার মিলে জেডিনাক।

দ্বিতীয়ার্ধে জয়ের জন্য আপ্রাণ লড়াই করে অস্ট্রেলিয়া। তবে ডেনমার্কের রক্ষণভাগকে কোনঠাসা করে দিয়েও আর কোন সাফল্য পায়নি সকারুরা। শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই মাঠ ছাড়ে দুদল।

ভাগ্যের জোরে নকআউটের পথে স্পেন

বিশ্বকাপে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার সম্ভাবনা জিইয়ে রাখতে জিততেই হবে স্পেনকে। এমন কঠিন সমীকরণকে সামনে রেখে এশিয়ার পরাশক্তি ইরানের মুখোমুখি হয় স্পেন। ২০১৪ সালের পর যে দলটি কোন প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ হারেনি তাদের বিপক্ষে ম্যাচটি যে সহজ হবে না সেটা ভালো করেই জানতো ইনিয়েস্তারা।

ইরানের শক্ত রক্ষণভাগের মোকাবেলায় ডিয়েগো কস্তার ভাগ্যপ্রসূত এক গোলে ইরানকে ১-০ গোলে হারায় স্পেন। দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার সম্ভাবনা টিকিয়ে রাখলো ২০১০ সালের চ্যাম্পিয়নরা।

বল পজেশন আর গোলে শট নেওয়ার হিসেব স্পেনের কথাই বলবে কিন্তু দুর্দান্ত খেলেও ভাগ্য আর প্রযুক্তির কাছে হেরেছে ইরান। দিয়েগো কস্তার একমাত্র গোলে নক-আউট পর্বে ওঠার লড়াইয়ে এগিয়ে থাকলো ‘লা রোজা‘রা।

বিশ্বকাপে টিকে থাকতে হলে ইরানকে হারানোর বিকল্প ছিল না ২০১০ সালের চ্যাম্পিয়নদের। কিন্তু ২০১৪ থেকে প্রতিযোগীতামূলক ম্যাচে অপরাজিত থাকা ইরানের বিপক্ষে জয় যে সহজ নয়, প্রথমার্ধেই হারে হারে টের পায় স্পেন। তবে ৫৪ মিনিটে রক্ষণভাগের অপ্রত্যাশিত ভুলে স্পেনকে এগিয়ে দেন দিয়েগো কস্তা।

৬৪ মিনিটে স্পেনের জালে বল পাঠিয়ে‌ও ছিলো ইরান। কিন্তু ভিএআরের সহযোগিতায় সেটিকে বাতিল করেন রেফারি। আক্রমন-পাল্টা আক্রমনে খেলা দারুণ জমে ওঠলেও শেষপর্যন্ত স্কোর লাইন অপরিবর্তিতই থাকে।

সৌদিকে বিদায় করে নকআউটে উরুগুয়ে

১০০ তম আন্তর্জাতিক ম্যাচে গোল উরুগুয়ের তারকা স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজের। আর এই বিরল রেকর্ডের গোলেই বিশ্বকাপের নক আউট পর্বে উঠে গেলো দু’বারের চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরে এক ম্যাচ হাতে রেখেই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিল সৌদি আরব।

রাশিয়ার বিরুদ্ধে পাঁচ গোল খাওয়ার পর অনেকে ধরেই নিয়েছিলেন উরুগুয়ের বিরুদ্ধেও প্রচুর গোল হজম করতে হবে সৌদিকে। কিন্তু বুধবার সুয়ারেজ-কাভানিদের বিরুদ্ধে তুমুল প্রতিরোধ গড়ে তোলে সৌদি আরব। বল-দখলের লড়াইয়ে প্রথমার্ধে উরুগুয়েকে টেক্কা দিয়েছিল তারা। তবে সেই প্রথমার্ধেই দু’দলের পার্থক্য গড়ে দেন সুয়ারেজ।

২৩ মিনিটে কর্নার থেকে কার্লোস সানচেজের ক্রসে সুয়ারেজের সুযোগসন্ধানী শট এগিয়ে দেয় উরুগুয়েকে। শততম ম্যাচে তাঁর গোলের স্মৃতি হিসেবে ম্যাচ বলটি নিজেরে কাছে রেখে দিলেন উরুগুয়ের মহাতারকা। সেই সঙ্গে তাঁর দখলে গেল একমাত্র উরুগুয়ে ফুটবলার হিসেবে তিনটি আলাদা আলাদা বিশ্বকাপে গোল করার বিরল রেকর্ড।

একগোলে পিছিয়ে গিয়ে প্রথমার্ধের শেষ পর্যন্ত সৌদি আরব বেশ কয়েকবার আক্রমণ শানানোর চেষ্টা করলেও জালের ঠিকানা খুজে পাননি আরবের ফরোয়ার্ডরা। দ্বিতীয়ার্ধে‌ও খেলার ছবিটা ছিল একই রকম। দু’দলই বেশ কিছু ‘হাফ চান্স’ তৈরি করলে‌ও, তাতে অবশ্য খুব একটা সুবিধা হয়নি। ১৯৫৪-র পর এই প্রথম গ্রুপ পর্বে পরপর দুটি গোল করল উরুগুয়ে।

এই হারে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিল সৌদি আরব। সেই সঙ্গে মোহম্মদ সালাহ-র মিশর‌ও। অন্যদিকে, রাশিয়ার সঙ্গে সঙ্গে নক আউটে চলে গেল উরুগুয়ে। আগামী ২৫ জুন রাশিয়া-উরুগুয়ে ম্যাচেই ঠিক হবে গ্রুপে শীর্ষস্থান দখল করছে কোন দল।

নেইমারের ইনজুরি নিয়ে আবার‌ও দু:শ্চিন্তা

এমনিতেই বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ ড্র করে চাপে ব্রাজিল। মঙ্গলবার বিকেলে তাই কোস্টারিকা ম্যাচের প্রস্তুতি চলছিল জোরেশোরে। সেলেসাওদের প্র‌্যাকটিসে সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু সুইজারল্যান্ড ম্যাচের মতোই ব্রাজিল অনুশীলনের সেই তাল কাটতে বেশি সময় লাগল না। সামান্য একটা বল এসে লাগল নেমারের ডান পায়ে। মাসকয়েক আগেই অস্ত্রোপচার করা সেই ডান পায়ে! আর তারপরই যন্ত্রণায় কুঁকড়ে যান তিনি। তাতে নেইমারের বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যা‌ওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়।

এরপর বেশ কিছুক্ষণ বসে থাকার পর বেরিয়েই যান ব্রাজিলের মহাতারকা নেইমার। সাথে ছিলেন দলের ফিজিও। ডাক্তার রডরিগো লাসমার জানান, দু’দিন আগে প্রথম ম্যাচে নেইমারের ডান পায়ের এই জায়গাতেই দশবার মেরেছে সুইসরা। তারপর এদিন প্র‌্যাকটিসে ঠিক ওখানেই বল লাগায় যত বিপত্তি! তবে আসল কথাটা বললেন ব্রাজিল দলের ফিজিওথেরাপিস্ট ব্রুনো মাজ্জিওত্তি। জানান, এই নিয়ে চিন্তার কিছু নেই। বুধবার সকালের প্র‌্যাকটিসে তাঁকে বাকি দলের সঙ্গে যেমন দেখতে পাওয়ার কথা তেমনই দেখা যাবে।

সবার আগে দ্বিতীয় রাউন্ডে রাশিয়া

প্রথমার্ধে রাশিয়াকে ঠেকিয়ে রাখতে পারল মিশর। দ্বিতীয়ার্ধে উড়ে গেল সব প্রতিরোধ। দেনিস চেরিশেভ আর আর্তেম জুবার গোলে টানা দ্বিতীয় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েছে স্বাগতিকরা।

সবার আগে বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে উঠে গেলো স্বাগতিক রাশিয়া। সেন্ট পিটার্সবার্গে, ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ৩-১ গোলে পরাজিত করেছে তারা মোহাম্মদ সালাহর মিশরকে। নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করার পর এই জয়ে শেষ ১৬-র পথেই রইলো রাশিয়া। বড় কোনো অঘটন না ঘটলে তাদের বাদ পড়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। তাছাড়া ১৯৮২ আসরের পর বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জিতল রাশিয়া।

আর টানা দুই পরাজয়ে ১৯৯০ সালের পর বিশ্বকাপে খেলতে এসে প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায়ের আশঙ্কা ফারা‌ওদের। যদি‌ও অংকের মারপ্যাচে এখনও সম্ভাবনা টিকে আছে তাদের।

রাশিয়ার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বিশ্বকাপে প্রথমবারের মত মিশর একাদশে ইনজুরি কাঁটিয়ে ফেরেন মোহামেদ সালাহ। কিন্তু তার উপস্থিতি শক্তি বাড়ালে‌ও প্রথমার্ধে গোল শূন্য থাকে খেলা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে রোমান জুভনিনের শট ঠেকাতে গিয়ে নিজেদের জালেই জড়িয়ে দেন মিশরের আহমেদ ফাতি। সেই আত্মঘাতী গোলেই পিছিয়ে পড়ে ফারা‌ওরা।

খেলায় আর ফিরতে পারেনি মিশর। ৫৯ মিনিটে ফার্নান্দেজের দুর্দান্ত ক্রসে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন চেরিশভ। টুর্নামেন্ট ৩ গোল করে যুগ্নভাবে রোনালদোর সঙ্গে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে উঠে আসলেন তিনি।

এই গোলের রেশ না কাটতেই ৬২ মিনিটে রাশিয়াকে ৩-০ গোলে এগিয়ে দেন জিউবা। প্রথম ম্যাচেও গোল করেছিলেন এই স্ট্রাইকার।

তিন গোলে পিছিয়ে থাকলে খেলায় আর কিছু করার থাকে না। মোহাম্মদ সালাহর মিশরের‌ও করার কিছুই ছিল না। তবে ৭৩ মিনিটে স্পট কিকে বিশ্বকাপে মিশরের হয়ে প্রথম গোলটি করেন মোহামেদ সালাহ। তৃতীয় মিশরীয় হিসেবে বিশ্বকাপে গোল করার কৃতিত্ব দেখান তিনি।

সেনেগালের চমক লাগানো জয়

‘এইচ’ গ্রুপের খেলায় ২-১ গোলে জিতেছে ১৬ বছর পর বিশ্বকাপে ফেরা সেনেগাল। এবারের আসরে এটাই আফ্রিকার কোনো দলের প্রথম জয়। ২০০২ আসরে শিরোপাধারী ফ্রান্সকে হারিয়ে চমকে দিয়েছিল সেনেগাল। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম আসরে দলটি খেলেছিল কোয়ার্টার-ফাইনালে। এবারের আসর শুরু করল র‌্যাঙ্কিংয়ের ৮ নম্বর দলকে হারিয়ে। স্পার্তাক স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার প্রথমার্ধে মাঝমাঠের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারেনি কোনো দলই। লেভানদোভস্কি কিংবা সাদিও মানে ভীতি ছড়াতে পারেননি প্রতিপক্ষের রক্ষণে।

৩৭তম মিনিটে এগিয়ে যায় সেনেগাল। ইদ্রিসা গেইয়ের শট ডিফেন্ডার তিয়াগো চনেকের পায়ে লেগে দিক পাল্ট জালে জড়ায়। বিশ্বকাপে পোল্যান্ডের কোনো ফুটবলারের এটাই প্রথম আত্মঘাতী গোল।

পোল্যান্ডের দুর্বলতা তার রক্ষণ। সেই দুর্বলতা কাজে লাগিয়ে ৬০ মিনিটে এমবে নিয়াংয়ের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে সেনেগাল। জেগোস ক্রিখোভিয়াকের লক্ষ্যহীন ব্যাক পাস ক্লিয়ার করতে গোল পোস্ট ছেড়ে অনেকটা এগিয়ে আসেন ভয়চেখ স্ত্রেন্সনে। বল ক্লিয়ার করতে পারেননি পোলিশ গোলরক্ষক। ফাঁকা জালে বল পাঠান কয়েক সেকেন্ড আগে বদলি নামা নিয়াং। দেশের হয়ে এটাই তরুণ এই ফরোয়ার্ডের প্রথম গোল।

এই গোলের দায় যেন ৮৬তম মিনিটে শোধ করেন ক্রিখোভিয়াক। ফ্রি কিকে দারুণ এক হেডে বল জালে পাঠান এই মিডফিল্ডার। আগামী রোববার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জাপানের বিপক্ষে খেলবে সেনেগাল। পর দিন কলম্বিয়ার মুখোমুখি হবে পোল্যান্ড।

জাপানের ইতিহাস গড়া জয়

রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম লালকার্ডের দিনে কলম্বিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে রেকর্ড করলো এশিয়ার প্রতিনিধি জাপান। এতে দক্ষিণ আমেরিকার কোনো দেশের বিপক্ষে এশিয়ার প্রথম দল হিসেবে জয়ের ইতিহাস গড়লো ‘সামুরাই ব্লু’রা। তাতে রাশিয়া বিশ্বকাপে, ছোট দলগুলোর চমক দেখানোর তালিকায় যোগ হলো জাপানের নামও।

খেলার বয়স তখন মাত্র তিন মিনিট। সারানস্ক এরেনার দর্শকদের সবাই তখনও মাঠে ঢুকতে পারেনি। সিনঝি কাগাওয়ার শট জাল ছোঁয়ার মুখে গতি রোধ করেন, কলম্বিয়ার কার্লোস সানচেজ। সাথে সাথেই রেফারির লালকার্ড। ১০ জনের দলে পরিণত হয় কলম্বিয়া। আর কাগাওয়ার পেনাল্টি গোলে এগিয়ে যাওয়া জাপানের।

১০ জন নিয়ে ১১ জনের বিপক্ষে সমতায় ফেরার লড়াই চালায়, প্যাকারম্যানের দল কলম্বিয়া। এক খেলোয়াড় বেশি থাকার সুবিধাও ধরে রাখতে পারেনি জাপানিরা। ৩৯ মিনিটে কুইনটেরো বিচক্ষণ ফ্রিকিকে ম্যাচে সমতা ফেরান। জাপানিরা আবেদন জানালেও ভিএআর প্রযুক্তি বহাল রাখে সেই গোল। ১-১ সমতায় বিরতিতে যায় দু’দল।

দ্বিতীয়ার্ধে ২০১৪ সালে গোল্ডেন বুট জয়ী হামেস রড্রিগেজ মাঠে নামলে আক্রমণের ধার আরও বাড়ে কলম্বিয়ার। জাপানও আক্রমণে একেবারে পিছিয়ে ছিলোনা। জয়ের রঙ তখন তাদের চোখে-মুখে। হোন্ডার দারুণ কর্নারে ৭৩ মিনিটে এফসি কোলনের ফরোয়ার্ড ওসাকা মাথা ছুঁইয়ে যে গোলটি করেন তাতেই এবারের বিশ^কাপে প্রথম জয় পায় জাপান।

বাকী সময়ে আর গোলের দেখা পায়নি কলম্বিয়া। এই জয়ে এইচ গ্রুপে সবচেয়ে পিছিয়ে থাকা জাপান ব্রাজিল বিশ্বকাপে কলম্বিয়ার কাছে ৪-১ গোলে পরাজয়ের প্রতিশোধও নিল। সেই সঙ্গে ফেভারিট আর নন-ফেভারিটের অচলায়তনও ভেঙে দিলো সামুরাই ব্লু’রা।

মিশর নয়, রাশিয়ার প্রতিপক্ষ সালাহ

মিশর নয়, নকআউট পর্বের টিকিট নিশ্চিত করতে আজ মঙ্গলবার রাতের ম্যাচে স্বাগতিক রাশিয়ার প্রতিপক্ষ মোহাম্মদ সালাহ। গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইনজুরি আক্রান্ত সালাহকে বিশ্রামে রাখলে‌ও রাশিয়ার বিপক্ষ তাকে খুব করে চাইছেন কোচ হেক্টর কুপার। তবে সালাহ নিজেই তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে জানান, “Ready for tomorrow. 100 million strong.”

এদিকে মিশর দলের ডাক্তার জানিয়েছেন, দলের সেরা অস্ত্র এখন মাঠে নেমে ৯০ মিনিট খেলার মতো সুস্থ। কিন্তু তাঁর কথা কেউ বিশ্বাস করছেন না। কারণ মিশরের প্রথম ম্যাচের আগেও বলা হয়েছিল সালাহ খেলবেন। অবশ্য এবার অবিশ্বাস করার উপায়‌ও নেই এবার। কারণ স্পোর্টস অ্যায়ার প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এডিডাস‌ও সালাহ একটি ভিডি‌ও পোস্ট করে টুইট বার্তায় জানায় “Tomorrow. 100 million strong.”

এই টুইট দেখার পরই মিশরের সমর্থকরা অ্যাডিডাসকে অভিনন্দিত করছেন বিভিন্নভাবে। আজ মঙ্গলবার রাত ১২টায় খেলাটি শুরু হবে সেন্ট পিটার্সবার্গে।

এদিকে প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবকে ৫-০ হারিয়ে রাশিয়ায় নকআউটের পথে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। আর সালাহ বিহীন মিশর হেরেছে উরুগুয়ের কাছে।

কেন বাঁচালেন ইংল্যান্ডকে

ভোলগোগ্রাদে নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষে অনেকেই ধরে নিয়েছিলেন হোচট খাওয়া ফেভারিটদের তালিকায় নাম জমা পড়ছে ইংল্যান্ডেরও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অধিনায়ক হ্যারি কেইনের গোলে তিউনিসিয়ার বিপক্ষে পূর্ন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইংলিশরা।

অথচ বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ আট ম্যাচে মাত্র একটি জয় পাওয়া ইংল্যান্ডের শুরুটা ছিলো বেশ দাপুটে। খেলার ১১ মিনিটেই হ্যারি কেইনেই গোলে লিড ব্রিটিশদের।

তবে সমতায় ফিরতেও বেশি সময় নেয়নি, ১৯৭৮ সালের বিশ্বকাপে একমাত্র জয় পাওয়া তিউনিসিয়া। ৩৫ মিনিটে স্পট কিক থেকে দলকে সমতায় ফেরান ফেরজানি সাসি। শেষ পর্যন্ত এই উল্লাস ধরে রাখতে পারেনি রক্ষণাত্মক কৌশলে খেলা তিউনিসিয়া।

১৯৯৮ সালের পর আবারও ইংলিশদের কাছে পরাজয়ের লজ্জা নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা।

নামের সুবিচার করল বেলজিয়াম

নামের প্রতি সুবিচার করেই রাশিয়া বিশ্বকাপে বড় জয় দিয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচ উদযাপন করলো `সোনালি প্রজন্মের দল’ বেলজিয়াম। সোচির অলিম্পিক ফিস্ট স্টেডিয়ামে, ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচ রোমেলু লুকাকুর জোড়া গোলে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে তারা বিশ্বকাপে প্রথম খেলতে আসা পানামাকে।

টানা ১৯ ম্যাচ অপরাজিত থেকে পানামার মুখোমুখি হয়েছিল বেলজিয়াম। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে খেলতে নামা পানামা প্রথমার্ধে বেলজিয়ামকে আটকেই দিয়েছিল। গোলকিপার জেমি পেনেদোর দৃঢ়তা বারবার বিপদ থেকে বাচিয়েছে পানামাকে। গোলে পেতে দেয়ননি তিনি সোনালি প্রজন্মের সেনানীদেরকে। তবে মুর্হূমূর্হু আক্রমণ ঠেকাতেই ব্যস্ত থেকেছে পানামা।

৪৭ মিনিটে চমৎকার এক ভলিতে ম্যার্টেন্স বেলজিয়ামকে এগিয়ে দ‌েওয়ার পর আর পেছনে তাকাতে হয়নি এডেন হ্যাজার্ডের দলকে। দারুণ ছন্দে থাকা লুকাকু ৬৯ মিনিটে ডি ব্রুইনের ক্রসে মাথা ছুইয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন।

বাছাই পর্বে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ১১ গোল করা লুকাকু ৭৫ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় এবং দলের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন। বাকি সময়ে আর গোল পায়নি বেলজিয়াম। আর পানামা‌ও গোল শোধ করতে পারেনি।

আগামী শনিবার তিউনিশিয়ার বিপক্ষে খেলবে বেলজিয়ামা। পরেরদিন ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে পানামা।

পেনাল্টিতে সুইডেনের জয়

১২ বছর পর বিশ্বকাপে ফিরেই জয় পেয়েছে সুইডেন। নিঝনি নভোগ্রোদে এফ গ্রুপের একপেশে ম্যাচে তারা পেনাল্টি গোলে হারিয়েছে এশিয়ার প্রতিনিধি দক্ষিণ কোরিয়াকে।

এরআগে দুই দলের চারবারের মোকাবেলায় সুইডিশরা হারেনি কখনো, আর কোরিয়ানদের জয়ের রেকর্ড‌ও নেই। দু’টি জয় আর সমান ড্রতে এগিয়েছিল সুইডেনই। তবে আক্রমণাত্মক মেজাজে থাকা সুইডিশদের প্রথমার্দে গোল বঞ্চিত রাখেন কোরিয়ার গোলকিপার চো হিয়ুন-উ একাই।

একের পর এক সুযোগ নষ্ট করা সুইডেন ৬৫ মিনিটে গ্রানক্রিস্তের পেনাল্টি গোলে এগিয়ে যায়। ডি বক্সে সুইডেনের ভিক্টর ক্লাসেন পড়ে যান কিম মিন-য়ুর স্লাইডিং ট্যাকলে। শুরুতে পেনাল্টি দেননি রেফারি, পরে ভিএআর প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্পটকিকের সিদ্ধান্ত দেন তিনি।

সেই এক গোলের জয়েরই এবারের বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করলো সুইডেন। আগামী শনিবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ জার্মানি। একই দিন মেক্সিকোর মুখোমুখি হবে দক্ষিণ কোরিয়া।

কষ্টের জয় জার্মানির

কষ্টের এক জয় দিয়ে বিশ্বকাপের নিজেদের প্রস্তুতি শেষ করল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানি। লেভারকুজেনে শুক্রবার রাতে তারা ২-১ গোলে পরাজিত করে সৌদি আরবকে। গত শনিবার অস্ট্রিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল ইওয়াখিম লুভের দল।

নিজেদের মাঠে‌ও স্বরূপে দেখা যায়নি জার্মানিকে। বল পজেশন, আক্রমণ কিংবা পাসিং সবকিছুতে এগিয়ে থাকলে‌ও জার্মানি ঠিক নিজেদের মধ্যই ছিলনা। ঠিক কোথায় যেনো ছন্দহীন জোয়াকিম লো’র দল। তবে খেলার ৮ মিনিটেই তারা এগিয়ে যায়। ডান দিক থেকে সতীর্থের লম্বা উঁচু করে বাড়ানো বল ডি-বক্সে পেয়ে মার্কো রয়েস বক্সের মুখে বাড়ান টিমো ভেরনারকে। প্রথম ছোঁয়ায় বল জালে পাঠান লাইপজিগের এই ফরোয়ার্ড।

ধীরে ধীরে গুছিয়ে ওঠা সৌদি আরব মাঝে মধ্যে পাল্টা আক্রমণে উঠতে শুরু করে। কিন্তু আক্রমণভাগের ব্যর্থতায় সাফল্য অধরাই থাকে। উল্টো ৪৩ মিনিটে দ্বিতীয় গোল হজম করতে হয় অতিথিদের। ভেরনারের নীচু ক্রস ঠেকাতে গিয়ে নিজেদের জালে ঠেলে দেন সৌদির ডিফেন্ডার ওমার।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথমভাগে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে লড়াই বেশ জমে ওঠে। গোলের সুযোগ মিস করেন মাটস হুমেলস ও ড্রাক্সলার। এবং সৌদি মিডফিল্ডার সালেম আল-দাওসারি।

৮৪ মিনিটে ঠিকই ব্যবধান কমিয়ে লড়াই জমিয়ে তোলে সৌদি আরব। তাদের মিডফিল্ডার আল-জসিমকে ডিফেন্ডার সামি খেদিরা ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। মোহাম্মদ আল-সাহলাইয়ের শট ডান দিয়ে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন মানুয়েল নয়ার। ফিরতি বল ধরে গোলটি করেন মিডফিল্ডার আল জসিম। বিশ্বকাপ শুরুর আগের প্রস্তুতিপর্বটা খুব একটা ভালো কাটলো না জার্মানির।

আগামী ১৭ জুন মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শিরোপা ধরে রাখার লড়াইয়ে নামবে জার্মানি। ‘এফ’ গ্রুপে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের অন্য দুই প্রতিপক্ষ সুইডেন ও দক্ষিণ কোরিয়া।

এদিকে, সুইজারল্যান্ডের কাছে ২-০ গোলে হেরেছে জাপান। আরেক প্রস্তুতি ম্যাচে সেনেগালকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ক্রোয়েশিয়া।

নেইমার-মড্রিচ জার্সি বিনিময়

প্রীতি ম্যাচে পরাজয়ের বেদনা ছিলই। কিন্তু যে সেরা তাকে তো স্বীকৃতি দিতেই হবে। এনফিল্ডে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে পরাজয়ের পর তেমনই এক কান্ড করলেন, ক্রোয়েশিয়া ‌ও রিয়াল মাদ্রিদের লুকা মড্রিচ। বিশ্বের সবচেয়ে দামী খেলোয়াড় নেইমারের জার্সিটা চেয়ে নিলেন। তবে নেইমার‌ও ভদ্রতা করতে ভুললেন না। তিনি‌ও চেয়ে নিলেন মড্রিচের জার্সিটি।

জার্সি বিনিময়ের সঙ্গে নিজেদের অটোগ্রাফ‌ও বিনিময় করেন দুই দেশের এই দুই তারকা। ব্রাজিলের ২-০ গোলের জয়ে নেতৃত্ব দেন, সেলেসা‌ওদের প্রাণ ভোমরা নেইমার। তিনি প্রথম গোলটি করেন।

ইনজুরি থেকে ফিরেই নেইমারের অ্যাকশন

ইনজুরি থেকে ফিরেই নেইমারের অ্যাকশন। তাতে প্রীতি ম্যাচে বিশ্বকাপের হেক্সা জয়ের মিশনে থাকা ব্রাজিলের কাছে ক্রোয়েশিয়ার পরাজয়। রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে লিভারপুলের মাঠ এনফিল্ডে ক্রোয়েশিয়াকে ২-০ গোলে পরাজিত করেছে ব্রাজিল। সেলেসা‌ওদের মহাতারকা নেইমার করেন প্রথম গোল। অন্যটি রবার্টো ফিরমিনো।

প্রথমার্ধের খেলায় ব্রাজিলকে চেনাই যায়নি। পারফরম্যান্স ছিল হতাশাজনক। উল্টো ক্রোয়েশিয়া বেশ কয়েকটি আক্রমণে কাপিয়ে দিয়েছিল সেলেসা‌ওদের রক্ষণপ্রাচীর। বল পেতেই লড়তে হচ্ছিল বাছাইপর্ব পেরিয়ে সবার আগে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকেট পা‌ওয়া দলটিকে। দূরপাল্লার শটে দুবার চেষ্টা চালান ফিলিপে কুটিনহো। কিন্তু কোনোবারই তা লক্ষ্যে থাকেনি। সাইড লাইনে বসে নিশপিস করছিলেন নেইমার সতীর্থদের ব্যর্থতা দেখে।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটেই ফের্নানদিনিয়োকে তুলে নেইমারকে নামান কোচ তিতে। আর ৬০ মিনিটে গাব্রিয়েল জেসুসের বদলি নামেন ফিরমিনো। ৬৯ মিনিটে গোলের দেখা মেলে। বার্সেলোনা তারকা কুটিনহোর বাড়ানো বল ধরে বাঁ-দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে কিছুটা এগিয়ে এক ঝটকায় দুজনের মধ্যে দিয়ে বেরিয়ে যান নেইমার। সঙ্গে থাকা আরেকজনকে কোনো সুযোগ না দিয়ে জোরালো শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার।

আন্তর্জাতিক ফুটবলে নেইমারের এটি ৫৪তম গোল। আর একটি গোল করলেই দেশের পক্ষে সর্বোচ্চ গোলের তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকা রোমারিওকে স্পর্শ করবেন ২৬ বছর বয়সী নেইমার। ইনজুরি টাইমের তৃতীয় মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফিরমিনো। অনেক দূর থেকে ক্রস বাড়ান রিয়াল মাদ্রিদের ডিফেন্ডার কাসিমেরো। আর অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ডি-বক্সে ঢুকে বুক দিয়ে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আগুয়ান গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড ফিরমিনো।

আগামী ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ যাত্রা। ‘ই’ গ্রুপে তাদের অপর প্রতিপক্ষ কোস্টারিকা ও সার্বিয়া।

প্রীতি ম্যাচে জার্মানির পরাজয়

প্রীতি ম্যাচে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে হারিয়ে চমকে দিয়েছে অস্ট্রিয়া। রাতে তারা অস্ট্রিয়ার ক্লাগেনফোর্ট স্টেডিয়ামে, ২-১ গোলে পরাজিত করে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। অবশ্য দুর্যোগপূর্ণ আবহা‌ওয়ার কারণে নির্ধারিত সময়ের ১ ঘন্টা ৩৫ মিনিট পরে শুরু হয় খেলা। গত ৩২ বছরে অস্টিয়ার কাছে জার্মানির এটি প্রথম পরাজয়।

ইনজুরি থেকে পুর্ণবাসন প্রক্রিয়ায় থাকা জার্মানির সেরা গোলকিপার ম্যানুয়েল ন্যূয়ার অধিনায়কত্ব‌ও করলেন এই বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে; এমনকি প্রথমে গোল করে এগিয়ে‌ও গিয়েছিল জার্মানরা। তবু শেষ পর্যন্ত হারতে হলো তাদেরকে বিশ্বকাপের বাছাই পর্বেই বাদ পড়া অস্ট্রিয়ার কাছে।
খেলা শুরুর ১১ মিনিটেই মেসুত ‌ওজিলের কল্যাণে লিড নেয় জোয়াকিম লো’র দল।

বিরতি থেকে ফিরেই গোল পরিশোধের চেষ্টা করতে থাকে অস্ট্রিয়া। ৫৩ মিনিটে ম্যাচে সমতা ফেরান মার্টিন হিটারেজার। ডেভিড আলাবার কর্নার থেকে বল পেয়ে দারুণ শটে তিনি জালে জড়ান। ম্যানুয়েল ন্যূয়ার ‌ও জোনাস হেক্টরের তাকিয়ে দেখা ছাড়া করার কিছুই ছিলনা।

৬৯ মিনিটে অস্ট্রিয়াকে ২-১ গোলের লিড এনে দেন আলেসান্দ্রো স্কুপফ। জার্মান সীমানায় বাম প্রান্ত থেকে জুলিয়ান বল দেন স্টেফান লাইনারকে। তার কাছ থেকে স্কুপফ বল পেয়ে দলকে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে দেন। শেষ পর্যন্ত ২-১ ব্যবধানে জয় নিয়ে ঘরে ফেরে অস্ট্রিয়া।

প্রস্তুতি ম্যাচে রাশিয়ার পরাজয়

বিশ্বকাপ ফুটবলের প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রিয়ার কাছে ১-০ গোলে হেরেছে স্বাগতিক রাশিয়া। নিজেদের মাঠ ত্রিভোলি স্টেডিয়ামে, বিশ্বকাপের স্বাগতিকদের উপর চাপিয়ে খেলতে থাকে অস্ট্রিয়া। এতে নিজেদের রক্ষণভাগ সামাল দিতেই ব্যস্ত থাকে রাশিয়া।

খেলার ২৮ মিনিটে অস্ট্রিয়াকে এগিয়ে দেন, সালকের মিডফিল্ডার আলেসান্দ্রো শোপফ। এরপর গোল সংখ্যা বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল বিশ^কাপের টিকিট না পাওয়া দলটি। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় গোল পাওয়া হয়নি। আগামী মঙ্গলবার তুরস্কের বিপক্ষে নিজেদের শেষ প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে রাশিয়া। এদিকে, আগামী ১৪ জুন সৌদি আরবের বিপক্ষে বিশ^কাপের উদ্বোধনী ম্যাচ খেলবে তারা।

টিকিট বিক্রি শুরু ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ শুরুর এক বছর আগে থেকে শুরু হলো টিকিট বিক্রি কার্যক্রম। সেই সঙ্গে শুরু হয়েছে ৩৬৫ দিনের কাউন্টডাউন‌ও। লন্ডনের বিখ্যাত ব্রিকলেনে স্ট্রিট ক্রিকেট‌ খেলার আয়োজন করা যায়।

https://www.icc-cricket.com/video/694745?utm_campaign=9524013_One%20Year%20To%20Go%20-%2030%2F05%2F18&utm_medium=email&utm_source=Email_CWC19&dm_i=1HYE,5O4RX,87620C,M24TA,1

প্রস্তুতি ম্যাচে বড় জয় আর্জেন্টিনার

আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর ম্যাচে হ্যাটট্রিক করলেন লিওনেল মেসি। অধিনায়কের দারুণ হ্যাটট্রিকে হাইতিকে ৪-০ গোলে পরাজিত করেছে আর্জেন্টিনা। এই জয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের নিজেদের আক্রমণভাগের শক্তি যাচাই করে নিলেন আর্জেন্টাইন কোচ হোর্হে সাম্পাওলি।

বুয়েনস আইরেসে আজ বুধবার ভোরে শুরু হওয়া ম্যাচের শুরু থেকেই হাইতির ‌ওপর চাপিয়ে খেলে আর্জেন্টিনা। কিন্তু মেসি আর হিগুয়েনের চেষ্টাগুলোকে বার বার ব্যর্থ করে দেন হাইতির গোলকিপার। খেলার ১৭ মিনিটে এগিয়ে যায় দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। ডি বক্সের ভেতরে জিওভানি লো সেলসো ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় আলবিসেলেস্তেরা। স্পটকিকে দলকে এগিয়ে দেন মেসি। বলের লাইনে ঝাঁপিয়ে পড়লেও মেসির শট ঠেকাতে পারেননি গোলরক্ষক।

প্রথমার্ধে আরো কয়েকবার প্রতিপক্ষের সীমানায় আক্রমণ করলে ব্যবধান বাড়তে দেননি হাইতির গোলকিপার।

দ্বিতীয়ার্ধে যেনো হাইতির জালে গোল উৎসব করে আর্জেন্টিনা। ৫৮ লি‌ওনেল মেসি ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। এই গোলের দুই মিনিট পর হিগুয়েনকে তুলে নিয়ে ম্যানচেস্টার সিটির ফরোয়ার্ড আগুয়েরোকে মাঠে নামান সাম্পাওলি। ৬৬ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন মেসি। আর্জেন্টিনার হয়ে এটি তার ৬৪তম গোল।

খেলার ৬৯ মিনিটে আগুয়েরো গোল করে আর্জেন্টিনার ৪-০ ব্যবধানে জয় নিশ্চিত করেন। আগামী ৯ জুন ইসরায়েলের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে আরেক দফা দলকে পরখ করে নেওয়ার সুযোগ পাবেন কোচ সাম্পা‌ওলি।

রাশিয়া বিশ্বকাপে ‘ই’ গ্রুপে আর্জেন্টিনার সঙ্গে আছে আইসল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া ও নাইজেরিয়া। আগামী ১৬ জুন আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে আলবিসেলেস্তেরা।

মেরিনারে ধরাশায়ী আবাহনী

গ্রীন ডেল্টা প্রিমিয়ার লিগের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলায় আবাহনীকে ৫-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মেরিনার ইয়াংস ক্লাব।

মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে, শিরোপা প্রত্যাশি আবাহনীকে কোনো পাত্তাই দেয়নি মেরিনার। বিজয়ী দলের পক্ষে মইনুল ইসলাম কৌশিক দুটি এবং জুলহাইরি, পুস্কর খীসা মিমো ও নাইম উদ্দিন একটি করে গোল করেন। আবাহনীর পক্ষে গোল বালজিৎ সিং একটি গোল শোধ করেন।

এই জয়ে ১১ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রইলো মেরিনার। আবাহনীর আছে তৃতীয় স্থানে। আর সমান ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে মোহামেডান আছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। অন্য ম্যাচে, বাংলাদেশ এসসি ৯-১ গোলে হারায় পুলিশ হকি ক্লাবকে।

দেরাদুন গেলো বাংলাদেশ

আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিনম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে ভারতের দেরাদুন গেলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রথমে দিল্লী পরে দেরাদুনে যাবে টাইগাররা।

আজ মঙ্গলবার সকালে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ‌ও ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমানকে ছাড়াই রওনা হয় গোটা দল। প্রতিটি ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে আটটা থেকে।

আইপিএল খেলে গতকালই দেশে ফেরা সাকিব দুদিন বিশ্রাম নিয়ে ৩১ মে যোগ দেবেন দলের সাথে। এছাড়া স্কোয়াডে মুস্তাফিজুর রহমানের নাম থাকলেও, শেষ মুহূর্তে পায়ের ইনজুরির কারণে ছিটকে পড়েন তিনি।

এই সিরিজে আফগানিস্তানকে ফেভারিট মেনে নিয়েও সিরিজ জয়ের লক্ষ্য টাইগারদের। ৩, ৫ ও ৭ জুন তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে টাইগাররা।

প্রস্তুতি ম্যাচে ফ্রান্সের জয়

বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে ফ্রান্স হারিয়েছে আয়ারল্যান্ডকে। প্যারিসে অলিভার জিরুদ ‌ও নাবিল ফ্যাকিরের গোলে ২-০ ব্যবধানে ম্যাচ জেতে ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স। কোচ দিদিয়ের দেশাম ২৩ জনের প্রাথমিক দল ঘোষণার পর প্রথম ম্যাচেই জয় পেলো ফ্রান্স। একচ্ছ্বত্র আধিপত্য ধরে রাখা খেলার ৪০ মিনিটে আইরিশ গোলকিপার কলিন ডোয়েলের ভুলে স্বাগতিকদের প্রথমে এগিয়ে দেন জিরুদ। প্রথমার্ধেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফ্যাকির।

২০১০ বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের ম্যাচ খেলার পর এবারই প্রথম আয়ারল্যান্ড ফ্রান্সে খেলতে যায়। তবে তারা স্বাগতিক শিবিরে কোনো গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। মুর্হূমুহু আক্রমণের বৃষ্টি বিঘ্নিত খেলার ৪০ মিনিটে জিরুদ এগিয়ে দেন ফ্রান্সকে। ফ্যাকিরের নেয়া কর্নারে হেড করে গোলের চেষ্টা করেন জিরুদ। আইরিশ গোলকিপার কলিন ডোয়েল ফিরিয়ে‌ও দেন। কিন্তু ফিরতি বল জালে পাঠিয়ে ‘লা ব্ল’দের ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন জিরুদ।

জাতীয় দলের হয়ে এটি জিরুদের ৩১ তম গোল। থিয়েরি অরি (৫১), মিশেল প্লাটিনি (৪১) এবং ডেভিড ত্রেজেগে (৩৪) শুধু জাতীয় দলের হয়ে গোল সংখ্যায় তার চেয়ে এগিয়ে আছেন।

দ্বিতীয় গোলটি‌ও হয় গোলকিপারের ব্যর্থতায়। খেলার ৪৪ মিনিটে ডি বক্সের ঠিক কাছে থেকে গোলমুখে তীব্র গতির এক শট নেন ফ্যাকির। গোলকিপার ফিস্ট করার চেষ্টা করেন। বল চলে যায় জালে। ২-০ গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্স। বাকী সময়ে আর কোন গোল না হলে বৃষ্টিস্নাত ম্যাচে ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে দেশামের শিষ্যরা।

চলতি বছরের ২৩ মার্চ কলম্বিয়ার কাছে ২-৩ গোলে পরাজয়ের পর ফ্রান্স তাদের গত ৯ ম্যাচে আর হারেনি।

দেশে ফিরেছেন সাকিব

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি টোয়েন্টি সিরিজে আফগানিস্তানকেই ফেবারিট বললেন সাকিব আল হাসান। আইপিএল খেলে দেশে ফিরে এমনটা জানান তিনি। এসময় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার আরো বলেন, রশিদ খানকে নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে নিজেদের খেলার দিকেই মনোযোগ দেয়া উচিৎ তাদের।

কোর্টনি ওয়ালশ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো সাকিব আল হাসানও মেনে নিলেন ছোটো সংস্করনের ক্রিকেটে আফগানিস্তানই ফেবারিট। পরিসংখ্যানে একটু চোখ বুলালেই তাদের বক্তব্যকে অস্বীকার করার উপায় থাকবেনা কারো। এ পর্যন্ত ৬১ টি ম্যাচ খেলেছে আফগানরা। যেখানে তাদের জয় ৪১ ম্যাচে। অন্যদিকে ৭৪ ম্যাচ খেলে টাইগারদের হার ৫১ টিতেই। অনেক বেশী ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতাতেই তাই এগিয়ে থাকছে আফগানরা।

টি টোয়েন্টি ফরম্যাটে এই মুহুতে সেরা বোলার রশিদ খান। তবে আইপিএলে একই দলে খেলার অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে বলে মনে করেন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশের এই ক্রিকেটের ফেরিওয়ালা।

আগামীকাল মঙ্গলবার সকালে দেরাদুনের উদ্দেশ্য দেশ ছাড়ছে টাইগাররা। তবে দু দিন বিশ্রাম নিয়ে পরে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন সাকিব।

আইপিএলে যতো পুরস্কার

এবারের আইপিএল আসরে বেশকিছু পুরস্কার দেয়া হয়েছে। ফাইনাল শেষে এই পুরস্কারগুলো দেয়া হয়। যারা এই পুরস্কার পেয়েছেন তাদের নাম নিচে দে‌ওয়া হলো।

স্টাইলিশ প্লেয়ার: রিশাভ প্যান্ট (দিল্লি ডেয়ারডিয়াভিলস)।

ইমাজিং প্লেয়ার: রিশাভ প্যান্ট (দিল্লি ডেয়ারডিয়াভিলস)।

মোস্ট ভ্যালুয়েবল প্লেয়ার: সুনিল নারাইন (কলকাতা নাইট রাইডার্স)।

সেরা ক্যাচ: ট্রেন্ট বোল্ড (দিল্লি ডেয়ারডিয়াভিলষ)।

সুপার স্টাইকরেট: সুনিল নারাইন (কলকাতা নাইট রাইডার্স)।

সবচেয়ে বেশি উইকেট: অ্যান্ড্রু টাই (কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব)।

সর্বোচ্চ রান: কেন উইলিয়ামসন (সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ)।

ফেয়ার প্লে: অদিত্য তাবে (মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স)।

তৃতীয়বার আইপিএল ট্রফি জিতল চেন্নাই

শেন ‌ওয়াটসেনর অপরাজিত সেঞ্চুরিতে তৃতীয়বার আইপিএল ট্রফি জিতল চেন্নাই সুপার কিংস। প্রতিযোগিতার ফাইনালে তারা ৯ বল হাতে রেখেই ৮ উইকেটে পরাজিত করে সাকিব আল হাসানের সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদকে। আর তিনবার ট্রফি জয় করে রোহিত শর্মার রেকর্ডও ছুঁয়ে ফেললেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি।

১৭৯ রানের টার্গেটে নেমে চেন্নাই দলের ১৬ রানেই হারায় ফ্যাফ ডু প্লেসিসের উইকেট। অন্য ওপেনার ওয়াটসন ১১ বলে প্রথম রান পেলে‌ও স্বমুর্তি ধারণ করতে সময় নেননি। ৫১ বলে করেন সেঞ্চুরি। এবারের আইপিএলে এটি ‌ওয়াটসেনর দ্বিতীয় শতরান। শেষ পর্যন্ত ৫৭ বলে ১১ চার আর ৮ ছক্কায় ১১৭ রানে শিরোপা জেতানো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন এই অজি ব্যাটসম্যান। সুরেশ রায়না ৩২ রান করে সাজঘরে ফেরেন। আর অম্বাতি রাইডু ১৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

https://www.iplt20.com/video/144838

মুম্বাইয়ের ‌ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে, ফাইনাল ম্যাচে টসে জিতে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠান ক্যাপ্টেন কুল মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে পরে ব্যাট করা দলের জেতার নিয়ম হয়ে গিয়েছে। ধোনিও সেই কারণেই প্রতিপক্ষকে ব্যাট করতে পাঠান।

ব্যাট করতে নেমে রান আউট হয়ে ফেরেন ফাইনালে সুযোগ পাওয়া শ্রীবৎস গোস্বামী। চোটের কারণে ঋদ্ধিমান সাহা খেলতে পারেননি। এর পর আক্রমণাত্মকভাবেই ইনিংসের হাল ধরেন শিখর ‌ও উইলিয়ামসন। উইলিয়ামসন ৪৭ রানে ফিরতেই রান রেট কিছুটা কমে যায় হায়দ্রাবাদের। আউট হয়ে যান শাকিবও(২৩)। কিন্তু ইউসুফ পঠানের মারকাটারি ৪৫ এবং কার্লোস ব্রাথওয়েটের ঝড়ো ২১ রান হায়দ্রাবাদকে ১৭৮ রানের একটি সম্মানজনক স্কোর এনে দেয়। এই রান যে শিরোপা জেতার জন্য যথেষ্ট ছিল না পরে চেন্নাইয়ের ব্যাটসম্যানরা তা প্রমান করেন।

রিয়াল মাদ্রিদের হ্যাটট্রিক শিরোপা

গ্যারেথ বেলের জোড়া গোলে লিভারপুুলকে ৩-১ গোলে হারিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের হ্যাটট্রিক শিরোপা জিতলো রিয়াল মাদ্রিদ। ২৫ মিনিটে কাঁধে চোট পেয়ে মোহাম্মদ সালাহ মাঠ ছাড়ার পর প্রথমে বেনজেমা আর পরে বেলের দুর্দান্ত দুই গোলে শিরোপা ঘরে তোলে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। আর এ নিয়ে একমাত্র ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের পাঁচ শিরোপার স্বাদ পেলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

৩০ তম মিনিটের এই ছবিটিই যেনো গোটা ম্যাচের প্রতীক। ম্যাচ শেষে যে কান্নায় ভেসেছেন লিভারপুলেরর খেলোয়াড়রা, ওই সময় সে অনুভুতি নিয়ে মাঠ ছেড়ে গেছেন, তাদের শিরোপা স্বপ্নের সবচেয়ে বড় নিয়ামক মোহাম্মদ সালাহ।

অথচ বেশ সাধারণ এক ট্যাকেলই মনে হয়েছিলো সেটিকে। এমনকি ফাউলের বাঁশিও বাজান নি রেফারি। কিন্তু তাতেই কাঁধে আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়েন সালাহ, ম্যাচ শেষে যা জানালো, বিশ্বকাপটাই শেষ হয়ে যেতে পারে এই মিশরীয়র।

কিয়েভের ফাইনালে প্রথম মিনিট পনেরো মাঠে যেনো ছিলো কেবল লিভারপুলই। কিন্তু সালাহ মাঠ ছাড়ার পর টনক নড়ে রিয়ালের। রক্ষণাত্মক ভঙ্গি ছেড়ে নিজেদের সহজাত খেলায় মন দেয় স্প্যানিশ ক্লাবটি। তবু প্রথমার্ধ গোলশূণ্য।

৫১ মিনিটে লিভারপুলের জার্মান গোলরক্ষক ক্যারিয়াস রীতিমত থালায় সাজিয়ে গোল উপহার দেন রিয়ালকে। করিম বেনজামের এক টোকাতেই এগিয়ে যায় লা ব্লাঙ্কোরা।

তবে ৪ মিনিট পরই সমতা ফেরায় লিভারপুল। সালাহ না থাকায় আক্রমণের দায়িত্ব যেনো দ্বিগুণভাবে কাঁধে তুলে নেন সাদিও মানে।

৬১ মিনিটে ইসকোর বদলি হিসেবে মাঠে নেমে তিন মিনিট পরই অবিশ্বাস্য গোল করেন গ্যারেথ বেল। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে বাইসাইকেল কিকে আবারো এগিয়ে দেন রিয়াল মাদ্রিককে।

৭০ মিনিটে সাদিও মানের শট গোল পোস্টে লেগে বেরিয়ে না গেলে সমতায় ফিরতে পারত লিভারপুল।
৮২ মিনিটে ক্যারিয়াসের আরেকটি ভয়াবহ ভুল লিভারপুলকে হারিয়ে দেয়। ২৫ গজ দূর থেকে আচমকা নেয়া গ্যারেথ বেলের শট এই জার্মানের হাত ফসকে চলে যায় জালে।

তাতে পাঁচ বছরের চতুর্থ বার আর প্রথম দল হিসেবে টানা তিনবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জয়ের নজির গড়লো রিয়াল। এই টুর্নামেন্ট তো এখন সত্যিই রিয়ালের টুর্নামেন্ট।

রিপোর্ট করেছেন ৩২ ফুটবলার

এশিয়ান গেমস ও সাফ ফুটবলের জন্য প্রাথমিকভাবে ৪৪ জন ফুটবলারকে ডাকা হয়েছিল। আজ শনিবার ছিল বাফুফেতে তাদের রিপোর্টিংয়ের দিন। আগামীকাল থেকে বিকেএসপিতে শুরু হবে তাদের আবাসিক ক্যাম্প। সেখানে খেলোয়াড়দের একনিষ্ঠ অনুশীলনের দিকে জোর দিতে বললেন বাফুফের সহ-সভাপতি ও জাতীয় দল কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ। প্রথম দিন রিপোর্টিংয়ে সবাই হাজিরা দেননি। এসেছিলেন ৩২ জন খেলোয়াড়। সাত জন আছেন লন্ডনে এবং দুজন বিকেএসপিতেই। বাকী তিন জনের মধ্যে দুই জনের পরীক্ষা ও অন্য জনের ইনজুরি।

বাফুফের বোর্ড সভায় খেলোয়াড়দের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর নাবিল সাংবাদিকদের বলেন, জাতীয় দলের আবাসিক ক্যাম্প বিকেএসপিতে হবে। জুনের প্রথম সপ্তাহের শেষে প্রধান কোচ আসবে। অন্য দুজনের নিয়োগ প্রক্রিয়াও শেষ হবে। এরপরই তারা আসবে। আগামী চার মাস খেলোয়াড়রা একই সঙ্গে থাকবেন। তাই বাফুফের এই কর্মকর্তা অনুশীলন ও খেলার প্রতি মনোযোগ দিতে বলেছেন খেলোয়াড়দের, আগামী ৪ মাস একসঙ্গে থাকতে হবে ও কাজ করতে হবে। খেলায় একাগ্রচিত্তে তাদের সব মনোযোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছি। খেলোয়াড়দের মধ্যে কোনও অঙ্গীকারের অভাব দেখছেন না নাবিল, খেলোয়াড়দের মধ্যে অঙ্গীকারবোধের কোনও অভাব নেই। আমাদের ডাকে এসে রিপোর্ট করেছে। তাদের বলেছি, সবাই দেশের ও নিজের জন্য খেলে। নিজের সুনামের জন্যও খেলে। খেলার জন্য খেলে। সবকিছু মিলিয়ে তাদের খেলতে বলা হয়েছে। শুধু দেশের জন্য তাদের খেলতে বলা হয়নি।

সাফ ফুটবল হবে দেশের মাঠে। সেটি মনে করিয়ে এই কর্মকর্তার আহ্বান, দেশে খেলব। এর আগে বাইরে এশিয়ান গেমস খেলা হবে। আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে। সেপ্টেম্বরে সাফ ফুটবলের আসরে হোম ম্যাচ খেলার সুবিধা থাকবে। সেটা মাথায় রেখে সমর্থকরা বেশি থাকবে। খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স দেখানোর সুযোগ সবার সামনে আরেও বেশি থাকবে। সেটাই ধারণা দিয়েছি তাদের।

এশিয়ান গেমস ও সাফ ফুটবলের অনুশীলন একই সঙ্গে হচ্ছে। এটাকে ইতিবাচক দিক হিসেবে দেখছেন নাবিল, আরও বেশি ভালো ও বড় টিম নিয়ে কাজ করতে পারব তত প্রতিভা আমাদের মধ্যে প্রস্ফুটিত করতে পারব। তাদের মধ্যেও সারাক্ষণ প্রতিযোগিতা বিরাজ করবে। আর আমরা প্রস্তুতির দিক দিয়ে পিছিয়ে নেই। কাতারে ও থাইল্যান্ডে ক্যাম্প হয়েছে। আমার ধারণা এগিয়ে আছি। জাতীয় দলের সাত জন খেলোয়াড়ের লন্ডন সফর নিয়ে এই কর্মকর্তার ব্যাখ্যা, আগে থেকে তাদের প্রোগ্রাম ঠিক করা ছিল। সেখানে আমরা ব্যাঘাত করতে চাইনি। এখন চলবে অ্যাসেসমেন্ট ও ফিটনেস । এখনও প্রধান কোচ যোগ দেয়নি। এখন যদি কারও ব্যক্তিগত প্রোগ্রাম থাকে, তাহলে ব্যাঘাত করা ঠিক নয়। তারা প্রোগ্রাম করে স্বতঃস্ফূর্ত মনে এসে ক্যাম্পে যোগ দিক।

ফুটবল লটারির ড্র

বাংলাদেশ ফুুটবল ফেডারেশন লটারিতে ৩০ লাখ টাকার প্রথম পুরস্কার জেতেছে চ ৬৪১৮১০ নম্বরের টিকিট। ফুটবল উন্নয়ন তহবিল সংগ্রহের জন্য তৃতীয়বারের মতো লটারি ছাড়ে বাফুফে। মোট ৫০ লাখ টাকার ৬১০টি পুরস্কার রয়েছে লটারিতে।

বাফুফে ভবনে লটারির ড্র অনুষ্ঠানে জানানো হয়, লটারির টিকিট বিক্রিতে আগেরবারের চেয়ে ভাল সাড়া পাওয়া গেছে। প্রত্যাশা অনুযায়ী টিকিটি বিক্রি হয়েছে। লটারিতে ৫ লাখ টাকার দ্বিতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত নম্বর ঙ ২৬৭৭৭৩। তৃতীয় পুরস্কার ২ লাখ টাকার নম্বর ঘ ২৬১২৯৯। লটারি বিক্রি থেকে পাওয়া অর্থ দেশের ফুটবল উন্নয়নে ব্যয় করা হবে বলে জানান, ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী।

রাশিয়া বিশ্বকাপের থিম সং

রাশিয়া বিশ্বকাপের অফিসিয়াল থিম সং প্রকাশ করেছে ফিফা। ‘লিভ ইট আপ’ শিরোনামে এই গানটি আগামী কিছুদিন মাতিয়ে রাখবে ফুটবল ভক্তদেরকে। হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ও পপ শিল্পী উইল স্মিথ, নিকি জ্যাম, ইরা ইস্ত্রোফি এবং ডিজে ডিপলোর মিলিত চেষ্টায় তৈরি হয় এই গানটি। আগামী ১৫ জুলাই বিশ্বকাপের ফাইনালে শিল্পীরা থিম সং-টি পারফর্ম করবেন।

১৯৬২ সালে চিলি বিশ্বকাপ থেকে এ পর্যন্ত যেসব থিম সং প্রকাশ করে ফিফা তারমধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা পায়, দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপে ল্যাটিন শিল্পী শাকিরার ‘ওয়াকা ওয়াকা’ গানটি। ফিফার সবকটি থিম সং-ই আলোচনার উত্তাপ ছড়ালেও এখনও পর্যন্ত জনপ্রিয়তায় সব কটিকে ছাড়িয়ে গেছে ‘ওয়াকা ওয়াকা’।

এবার রাশিয়া বিশ্বকাপের ‘লিভ ইট আপ’ গানটি ইংলিশ এবং স্প্যানিশ এই দুই ভাষায় গাওয়া হয়েছে। গানটি বিশ্বকাপ পর্যন্ত মাতিয়ে বেরাবে পৃথিবী জুড়ে। হলিউড তারকা উইল স্মিথ তো বিশ্বকাপের থিম সং করতে পারায় নিজেকে ভাগ্যবানই মনে করছেন।

তারপর ডিজে ও গীতিকার ডিপলোর স্টুডিওতে চলে সঙ্গীত শিল্পীদের গানের রিহার্সাল এবং আড্ডাবাজি। হাসি-ঠাট্টা এবং তর্কে-বিতর্কে এগিয়ে চলে সময়। এক সময় রূপ পায় ‘লিভ ইট আপ’। এবারের রাশিয়া বিশ^কাপের অফিসিয়াল থিম সং।

তবে “One life, live it up, cause you don’t live twice,” থিম সংটি রিকি মার্টিনের ওলে ওলে কিংবা শাকিরার ওয়াকা ওয়াকার জনপ্রিয়তাকে ছাড়িয়ে যেতে পারবে কিনা সেটা জানা যাবে কিছুদিনের মধ্যেই।

জিমির হ্যাটট্রিকে মোহামেডানের জয়

গ্রীন ডেল্টা প্রিমিয়ার হকি লীগে জয় পেয়েছে মোহামেডান ও এ্যাজাক্স স্পোর্টিং ক্লাব। মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে, রাসেল মাহমুদ জিমির হ্যাটট্রিকে বাংলাদেশ এসসিকে ৩-০ গোলে হারিয়ে টানা দশম জয় পেয়েছে মোহামেডান।

খেলার ১০, ১৬ ও ১৮ মিনিটে গোল করে হ্যাটট্রিক পুরণ করেন জাতীয় দলের ফরোয়ার্ড জিমি। এদিকে দিনের প্রথম খেলায়, এ্যাজাক্স স্পোর্টিং ক্লাব ৫-৩ ব্যবধানে পরাজিত করে সাধারণ বীমাকে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল ভেন্যু

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে আগামীকাল রাতে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে লিভারপুল। শিরোপা দ্বৈরথে এই দুই দলকে লড়তে হবে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের এনএসকে অলিম্পিস্কি স্টেডিয়ামে।

এই স্টেডিয়ামটিকে আবার অলিম্পিক ন্যাশনাল স্পোর্টস কমপ্লেক্সও বলা হয়। এর আগে ২০১২ সালে ইউরো চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইনাল হয়েছিল এখানে। স্টেডিয়ামের দর্শকধারণ ক্ষমতা ৫০ হাজার ৭০ জন।

অভিনেতা হবেন রোনালদো

ফুটবল থেকে অবসর নে‌ওয়ার পর অভিনেতা হবেন পর্তুগাল ‌ও রিয়াল মাদ্রিদের তারকা ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। স্পেনের টেলিভিশন জাগনসে জোসেফ পেডরেরোলের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার একথা জানান।
http://www.lasexta.com/programas/jugones/viku_201805245b06d4d90cf2748acf96ca3f.html

সেই সাক্ষাতকারে পাচবারের বিশ্বসেরা খেলোয়াড় রোনালদো ভবিষ্যত পরিকল্পনার পাশাপাশি তার মায়ের সম্পর্কে‌ও জানান। তবে রোনালদো প্রধান কোনো চরিত্রে অভিনয় করতে চাননা। তিনি বলেন, ‘ফুটবল ছাড়ার পর আমি অভিনেতা হতে চাই। আমি এ ব্যাপারে অনুশীলন‌ও করেছি, কারণ বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে ঘোষকের দায়িত্বে ছিলাম। তবে অভিনয়ের বিষয়ে আমার কোনো পড়ালেখা নেই। তাছাড়া আমি তো প্রধান কোনো চরিত্রে‌ও অভিনয় করতে চাইনা।’

আর গোল করার পর পর জার্সি খুলে উদযাপন করতে ভালবাসেন রোনালদো। কারণ হিসেবে জানান, এটা নারীরা ভালোবাসে। তিনি বলেন, ‘এটা নারীদের পছন্দ। আমার গার্লফেন্ড বলে তখন নাকি দারুণ লাগে আমাকে।’ অবশ্য যারা এমনটা বলে তারাই জানে কেন বলে, এ বিষয়ে আমার কোনো পছন্দ-অপছন্দ নেই।’

হেলিকপ্টারে করে অনুশীলনে নেইমার

অনুশীলনে নেমেছে ব্রাজিল দলও। রিও ডি জেনিরোর গ্রাঞ্জা কোমারি ট্রেনিং কমপ্লেক্সে এক সপ্তাহের অনুশীলন করবে তিতের দল। এরপরই সেলেসাওরা জুন মাসে প্রীতি ম্যাচ খেলার জন্য বিশ্ব ভ্রমণে রওনা দেবে।

বিশ্বকাপের হেক্সা জয়ের মিশনে নামা সেলেসাওদের সবাই ছিলেন অনুশীলনে। বিশ্বের সবচেয়ে দামী খেলোয়াড় নেইমার হেলিকপ্টারে করে অনুশীলন ক্যাম্পে আসেন। সঙ্গে ছিলেন ডগলাম কস্টা, রেনাতো আউগাস্তো এবং থিয়াগো সিলভা। ফিটনেস পরীক্ষার মধ্যদিয়ে অনুশীলন শুরু হয়।

তবে দলের কোচ তিতে এবং সাপোর্টিং স্টাফদের নজর ছিলো নেইমারের দিকে। গত ফেব্রুয়ারিতে পায়ের ইনজুরিতে পড়ার পর থেকে এখনও খেলতে নামেননি এই ব্রাজিলিয়ান ও প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের ফরোয়ার্ড। তবে গত সপ্তাহেই তিনি পিএসজির মাঠে বল পায়ে অনুশীলনে নেমেছিলেন।

বিশ্বকাপ দলের অনুশীলনে মেসি

আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ দলের সঙ্গে অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন অধিনায়ক ‌ও পাচবারের বিশ্বসেরা খেলোয়াড় লি‌ওনেল মেসি। বিশ্বকাপ দলের সঙ্গে বার্সেলোনার সুপারস্টারের যোগ দে‌ওয়ার বিষয়টি আর্জেন্টিনা আজ মঙ্গলবার নিশ্চিত করেছ। বুয়েন্স আইরেসে হোর্হে সাম্পা‌ওলির দল শুরু করেছে এই অনুশীলন ক্যাম্প।

নিজের ক্লাব বার্সেলোনাকে ঘরোয়া ফুটবলে দুটি শিরোপা এনে দেয়া আর্জেন্টিনার মহাতারকা মেসি ৩৪ গোল করে রেকর্ড পঞ্চমবারের মতো ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শ্যূ জেতেন। বুয়েন্স আইরেসের এজাইজাতে আগে থেকেই বিশ্বকাপ দলের ১৬ খেলোয়াড় নিয়ে অনুশীলন ক্যাম্প পরিচালনা করছিলেন কোচ সম্পাওলি। মেসি যোগ দেওয়ায় ক্যাম্প আরো প্রাণ পেলো।

আগামী ১৬ জুন গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নবাগত আইসল্যান্ডের বিপক্ষে লড়বে লি‌ওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। ডি গ্রুপে ২০১৪ সালের ফাইনালিস্টদের অন্য প্রতিপক্ষ ক্রোয়েশিয়া ‌ও নাইজেরিয়া।

রাশিয়া বিশ্বকাপে বল গার্ল

রাশিয়া বিশ্বকাপে ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরা‌ও বল বয়ের কাজ করবে। এবার উদ্বোধনী ম্যাচেই বল বয়ের মতো বল গার্লের কাজ করবে তাতারিস্তানের আগরিজের (Agryz) ফুটবল দলের মেয়েরা। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী খেলা দিয়েই প্রথমবারের মতো নারীরা, ছেলেদের মতো মাঠের বাইরে বল কুড়িয়ে ফেরত দেবে।

উদ্বোধনী ম্যাচের জন্য বাছাই করা সেই বালিকারা গত বৃহস্পতিবার কাজানে ট্রফি ট্যুরে অংশ নেয়। দেশব্যাপি এক প্রতিযোগিতার মধ্য থেকে এইসব বালিকাদের বল বয় হিসেবে বাছাই করা হয়। ১৩ থেকে ১৬ বছর বয়সী অপেশাদার নারী ফুটবল খেলোয়াড়দের মধ্য থেকে প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। আর গত সপ্তাহের শুরুতে ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

অবশ্য সাধারণ ছেলেরাই বল বয়ের কাজ করে আসে। কিন্তু এবার বিশ্বকাপ ফুটবলের উদ্বোধনী দিনে দেখা যাবে নতুন দৃশ্য। আগামী ১৪ জুন লুঝনিকি স্টেডিয়ামে, স্বাগতিক রাশিয়া এবং সৌদি আরবের মধ্যকার খেলার দিয়ে নতুন ইতিহাস রচিত হবে ফুটবলে। তা হলো, প্রথমবারের মতো নারীরা নামবে বল বয় হিসেবে।

পৃথিবীর ছয়টি মহাদেশের ৫১টি দেশের ৯১টি শহরে তিনমাসের ভ্রমণ শেষে রাশিয়ায় পৌছেছে ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি। তাছাড়া স্বাগতিক রাশিয়ার ১৬টি শহর এবং ১৬ হাজার কিলোমিটার (৯,৯০০ মাইল) ঘুরেছে বিশ্বকাপ ট্রফি। মেয়েদের বল বয়ের কাজ করার মতো স্বাগতিক দেশে দীর্ঘ ট্রফি ট্যুর করে নতুন রেকর্ড‌ও গড়ে এবারের ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি।

শিরোপা উল্লাস করছে অ্যাথলেটিকো

ফ্রান্সের লিওঁতে গত বুধবার রাতে ইউরোপা লিগের ফাইনাল ৩-০ গোলে জিতেছে দিয়েগো সিমেওনের দল অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। শেষ নয় বছরে এই নিয়ে তৃতীয়বার ইউরোপিয় ক্লাব ফুটবলের দ্বিতীয় সেরা প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হলো অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ২০০৯-১০ ও ২০১১-১২ মৌসুমে আগের শিরোপা দুটি জিতেছিল মাদ্রিদের দলটি। দেশে ফিরে গিয়ে এখন তারা শিরোপা উল্লাস করছে।

ইউরোপা চ্যাম্পিয়ন অ্যাথলেটিকো

ফ্রান্সের লিওঁতে বুধবার রাতে ইউরোপা লিগের ফাইনাল ৩-০ গোলে জিতেছে দিয়েগো সিমেওনের দল। শেষ নয় বছরে এই নিয়ে তৃতীয়বার ইউরোপিয় ক্লাব ফুটবলের দ্বিতীয় সেরা প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হলো অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ২০০৯-১০ ও ২০১১-১২ মৌসুমে আগের শিরোপা দুটি জিতেছিল মাদ্রিদের দলটি।

গ্রিজম্যান: ইউরোপা লিগ জয়ের পর স্ত্রীকে আদর করছেন

প্রতিপক্ষের ভুলে খেলার ২১ মিনিটে গোল পায় অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। নিজেদের ডি-বক্সের সামনে গোলরক্ষকের পাস মিডফিল্ডার জাম্বো আগিসা নিয়ন্ত্রণে নিতে ব্যর্থ হলে গাবি বল ধরে বাড়ান গ্রিজমানকে। দ্রুত ডি-বক্সে ঢুকে নিচু শটে দলকে এগিয়ে দেন ফরাসি এই ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের চতুর্থ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন গ্রিজমান। কোকের পাস ডি-বক্সে পেয়ে কিছুটা এগিয়ে সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারকে কোনো সুযোগ না দিয়ে আগুয়ান গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে জালে বল পাঠান তিনি। চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে গ্রিজমানের এটা ২৯তম গোল।

৮৯ মিনিটে কোকের পাস ডি-বক্সে পেয়ে নিখুঁত কোনাকুনি শটে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে শিরোপা নিশ্চিত করেন অ্যাথলেটিকোর অধিনায়ক গাবি।

নিষেধাজ্ঞার কারণে ডাগআউটে ছিলেন না দলের কোচ দিয়েগো সিমিওনে। তবে ম্যাচ শেষের সঙ্গে সঙ্গে নেমে আসেন মাঠে, যোগ দেন শিরোপা উৎসবে। ২০১২ সালে তার অধীনেই এই প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় শিরোপাটি জিতেছিল অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ।

প্রীতি ম্যাচে বার্সেলোনার জয়

প্রীতি ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার দল মামেলোডি সানডাউনকে ৩-১ গোলে পরাজিত করেছে স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। নেলসন ম্যান্ডেলার জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত এই প্রীতি ম্যাচটি খেলতে বুধবার সকালে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে পৌছায় কাতালানরা।

দারুণ নৈপুণ্যে স্বাগতিকদের মামেলোডি সানডাউনকে ধরাশায়ী করে আবার রাতেই স্পেনে ফেরে বার্সেলোনা।

এফএনবি স্টেডিয়ামে, খেলার তিন মিনিটে বার্সাকে এগিয়ে দেন উসমান দেম্বেলে। ১৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লুইস সুয়ারেজ। ৬৭ মিনিটে আন্দ্রে গোমেজ বার্সেলোনাকে ৩-০ গোলে এগিয়ে দেন।

খেলার ৭৬ মিনিটে মামেলোডি সানডাউনের পক্ষে একটি গোল শোধ করেন শিবুসিশো ভিলাকাজি। আর এই ম্যাচটি উপভোগ করার জন্য স্টেডিয়ামে উপস্থিত ছিলেন ৭৬ হাজার দর্শক।

জেমকন গলফে সেরা জামাল হোসেন মোল্লা

১১ লাখ টাকা প্রাইজমানির জেমকন প্রফেশনাল গলফ টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন জামাল হোসেন মোল্লা। তিনি পারের চেয়ে ১২ শট কম খেলে ২৭৬ স্কোর করে শিরোপা জয় করেন। ৫ আন্ডার পারে ২৮৩ স্কোর করে রানার্সআপ হন বাদল হোসেন।

চারদিনের এই প্রতিযোগিতা শেষে কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে বিজয়ীদের পুরস্কৃত করেন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বিরেন শিকদার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিপিজিএ’র সভাপতি আসিফ ইব্রাহিম ও মহাসচিব ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) কামরুল ইসলাম। এবারের প্রতিযোগিতায় ৭৮ জন প্রফেশনাল এবং ১২ জন অ্যামেচার মিলিয়ে মোট ৯০ জন গলফার অংশ নেন।

এ বছর হচ্ছেনা বিপিএল

জাতীয় নির্বাচনের কারণে এ বছর আর হচ্ছেনা বিপিএলের ষষ্ঠ আসর। রাজধানীর এক হোটেলে আনুষ্ঠানিকভাবে এ কথা জানান, বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক।

তিনি বলেন, সরকারের নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর সাথে কথা বলে আগামী বছরের জানুয়ারীতে বিপিএল আয়োজন করতে চান তারা। সেক্ষেত্রে ঐ সময়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের সূচী থাকলেও তাতে পরিবর্তন আসবে বলে‌ও জানান ইসমাইল হায়দার মল্লিক।

গর্ডন গ্রিনিজ সংবর্ধিত

খেলোয়াড়দের অদম্য ইচ্ছে শক্তি আর তাদের প্রতি দেশের মানুষের অগাধ আস্থার কারণেই ১৯৯৭ সালে আইসিসি ট্রফি জিতে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে খেলা নিশ্চিত করেছিলো বাংলাদেশ। এমনটাই মনে করেন কিংবদন্তি ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান ও সে সময়ে বাংলাদেশ দলের হেড কোচ গর্ডন গ্রিনিজ।

পাঁচ দিনের সফরে ঢাকায় আসা এই সাবেক কোচ জানালেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের খেলাটির প্রতি চরম ভালোবাসাই এদেশে ক্রিকেটের অগ্রযাত্রায় বড় বূমিকা রাখছে। তাই সমর্থকদের কাছ থেকে তার প্রত্যাশা অনেক। দুপুরে রাজধানীতে গর্ডন গ্রিনিজের সম্মানে আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান তিনি।

সুইডেনের ম্যালকম কোকোসিনস্কি চ্যাম্পিয়ন

সুইডেনের পেশাদার গলফার ম্যালকম কোকোসিনস্কি তিন লাখ ডলারের বাংলাদেশ ওপেন গলফ চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা জিতেছেন। প্রতিযোগিতার শেষে দিনে পারের চেয়ে ছয় শট কম খেলেন তিনি।

চার রাউন্ড মিলিয়ে পারের চেয়ে ১৪ শট কম খেলে ২৭০ স্কোর করে চ্যাম্পিয়ন হন, ম্যালকম। ইংল্যান্ডের জ্যাক হ্যারিসন ও নিউজিল্যান্ডের বেন ক্যাম্পবেল পারের চেয়ে ১১ শট কম খেলে যৌথভাবে দ্বিতীয় হন। বাংলাদেশের জামাল হোসেন মোল্লা ও যুক্তরাষ্ট্রের জন ক্যাটলিন পারের চেয়ে ৯ শট কম খেলে মিলিতভাবে তৃতীয় হন।

কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে খেলা শেষে বিজয়ীদের পুরস্কৃত করেন, সেনাবাহিনী প্রধান ও বাংলাদেশ গলফ ফেডারেশনের সভাপতি জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গলফ ফেডারেশনের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মেজর জেনারেল একেএম আব্দুল্লাহিল বাকী, মহাসচিব ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শামসুল ইসলাম ও অন্যান্য কর্মকর্তারা।

মিডিয়া কাপ ফুটবলে ঢাকা ট্রিবিউন চ্যাম্পিয়ন

ওয়ালটন-বিএসজেসি মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় আসরে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ঢাকা ট্রিবিউন। আজ শনিবার প্রতিযোগিতার ফাইনালে ৪-২ গোলে বিডিনিউজকে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জিতে নেয় তারা।

হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে, ম্যাচের শুরুতে কিক অফেই রিয়েলের গোলে এগিয়ে যায় ঢাকা ট্রিবিউন। প্রথম মিনিটে রিয়েল আরও একটি গোল করলে ২-০ তে পিছিয়ে পড়ে খেই হারায় বিডিনিউজ। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে হ্যাটট্রিক পুর্ন করেন রিয়েল। অবশ্য মাইদুল একটি গোল করলে ৩-১ এ এগিয়ে বিরতিতে যায় উভয় দল।

দ্বিতীয়ার্ধে মরিয়া হয়ে গোল পরিশোধের চেষ্টা করে বিডিনিউজ। কিন্তু অপ্রতিরোধ্য রিয়েল নিজের চতুর্থ গোল করলে আরো এগিয়ে যায় ঢাকা ট্রিবিউন। নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার মিনিট খানেক আগে মাইদুল তার দ্বিতীয় গোল করে শুধু ব্যবধানই কমান। শেষ পর্যন্ত ৪-২ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ঢাকা ট্রিবিউন।

চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দলকে ট্রফির পাশাপাশি ৩০ ও ২০ হাজার টাকার প্রাইজমানি দেয়া হয়। ফাইনাল সেরা ঢাকা ট্রিবিউনের রিয়েলকে ট্রফি ও ৫ হাজার টাকা এবং বিডিনিউজের মাইদুলকে টুর্নামেন্ট সেরার ট্রফি ও ৫ হাজার টাকা অর্থপুরস্কার দেয়া হয়।

খেলা শেষে বিজযী ‌ও বিজিত দলকে পুরস্কৃত করেন যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএসজেসি সভাপতি আসিফ ইকবাল, ওয়ালটনের সিনিযর অপারেটিভ ডিরেক্টর এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন, জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার ইকবাল হোসেন, জাতীয় ব্যাডমিন্টনের সাবেক চ্যাম্পিয়ন এনায়েত উল্লাহ খান ‌ও বিএসজেসির সাধারণ সম্পাদক সাকির রুবেন।

প্রীতি ম্যাচে টাঙ্গাইলের জয়

প্রীতি ফুটবল ম্যাচে টাঙ্গাইল অনূর্ধ্ব-১৪ দল ৪-০ গোলে ঠাকুরগাঁও জেলা মহিলা ফুটবল দলকে পরাজিত করেছে। আজ শুক্রবার বিকেলে টাঙ্গাইলের গোসাই জোয়াইর আজিম মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে, জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ জাতীয় নারী ফুটবল টুর্নামেন্টের দুই ফাইনালিস্ট টাঙ্গাইল জেলা নারী ফুটবল দল ও ঠাকুরগাঁও জেলা নারী ফুটবল দলকে নিয়ে প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করে ‌ওয়ালটন।

খেলার শুরুতে ওয়ালটন গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান এস.এম নূরুল আলম রেজভী, টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নেছার উদ্দিন জুয়েল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহাদুজ্জামান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম ‌ও ওয়ালটন গ্রুপের সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) উপস্থিত থেকে খেলার উদ্বোধন করেন।

এসময় আয়োজকরা বলেন, দেশের নারী ফুটবলকে আরো ছড়িয়ে দিতেই তাদের এমন আয়োজন। শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলায় মনোনিবেশ করার জন্যও তাদের এমন আয়োজন অব্যাহত থাকবে।

পুরস্কারে ভাসছেন সালাহ

পুরস্কারে ভাসছেন লিভারপুলের মিশরীয় স্ট্রাইকার মোহাম্মদ সালাহ। চলতি মৌসুমে লিভারপুলের হয়ে ৫০ ম্যাচে ৪৩ গোল করে পুরো ফুটবল বিশ্বকে অবাক করে দেন মিশরীয় কিং। পুরো মৌসুমে দারুণ খেলেছেন। অসাধারণ পারফরম্যান্সে লিভারপুলকে ইংলিশ লিগের শিরোপা জেতাতে না পারলেও সেরাদের লড়াইয়ে রেখেছেন। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে তুলেছেন। ভাগ্য সহায়তা করলে মোহাম্মদ সালাহর হাতে উঠতেও পারে চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা।

গ্যারি লিনেকারের সঙ্গে মোহাম্মদ সালাহ

চেলসির প্রাক্তন এ ফরোয়ার্ড সাফল্যের পুরস্কার পাচ্ছেন প্রতিটি মুহূর্তে। বৃহস্পতিবার রাতে তার হাতে উঠেছে তিনটি পুরস্কার। লিভারপুলের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হওয়ার পাশাপাশি, খেলোয়াড়দের ভোটে প্লেয়ার্স প্লেয়ার অব দ্য সিজনের পুরস্কার পান সালাহ।

লিভারপুলের অনুষ্ঠান শেষ করে লন্ডনে উড়াল দেন সালাহ। সেটাও প্রাইভেট জেটে। লন্ডনে তাকে পুরস্কৃত করে ফুটবল রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশন। রেকর্ড ভোট পেয়ে ফুটবল রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশনের বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন সালাহ। এ পুরস্কার পেতে সালাহ পিছনে ফেলেছেন ম্যানচেস্টার সিটির কেভিন ডি ব্রুইন এবং টটেমহ্যাম হটস্পারের হ্যারি কেনকে। এর আগে এপ্রিলে পেশাদার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও পেয়েছেন সালাহ।

চলতি মৌসুমেই রোমা থেকে ৩৬.৯৬ মিলিয়ন ইউরোতে লিভারপুলে যোগ দেন মিশরীয় কিং মোহাম্মদ সালাহ।

দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে শীর্ষে বাংলাদেশের জামাল

বাংলাদেশ ওপেন আন্তর্জাতিক গলফ টুর্নামেন্টর দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে শীর্ষে উঠে এসেছেন বাংলাদেশের গলফার জামাল হোসেন। পারের চেয়ে ৮ শট কম খেলেছেন তিনি।

দিন শেষে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন আত্মবিশ্বাস ছিল তাই ভাল করতে পেরেছেন তিনি। তৃতীয় রাউন্ডেও এই ফললাফল ধরে রাখতে চান জামাল হোসেন। ১০ নম্বর হোলে পারের সমান শট খেললেও ১১, ১২ ও ১৩ নম্বরে পারের চেয়ে এক শট কম খেলে দারুণ সূচনা করেন জামাল।

এদিকে, সুইডেনের গলফার ম্যালকম কোকোসিনস্কিও পারের চেয়ে ৮ শট কম খেলে যৌথভাবে শীর্ষে রয়েছেন। বাংলাদেশের প্রথম পেশাদার গলফার সিদ্দিকুর রহমান পারের চেয়ে দুই শট কম খেলে আছেন ২৫ নম্বরে।

স্টেফানের মিয়ামি জয়

ইউএস ‌ওপেন চ্যাম্পিয়ন স্লোয়ানি স্টেফান এবার মিয়ামি ‌ওপেন টেনিসের শিরোপা জিতলেন। প্রতিযোগিতার ফাইনালে লাটভিয়ার জেলেনা ‌ওস্তাপেঙ্কোকে ৭-৬, ‌ও ৬-১ গেমে পরাজিত করে স্ল‌োয়ানি মিয়ামি ‌ওপেনে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের স্টেফান শুরুর দিকে কিছুটা টেনসনে ছিলেন। তাতে প্রথম সেটে আটবার ‌ওস্তাপেঙ্কো এগিয়‌েও যান। তবে শেষ পর্যন্ত তিনি টাইব্রেকারে ৭-৬ গেমে প্রথম সেট জেতেন।

দ্বিতীয় সেটে পুরো ছন্দে ফেরেন স্লোয়ানি। ‌ওয়ার্ল্ড নাম্বার ‌ফাইভ ‌ওস্তাপেঙ্কোকে তিনি কোনো পাত্তাই দেননি আর। ৬-১ গেমের জয়ে শিরোপা জেতেন।

অবশ্য এই দুই গ্র্যান্ডস্ল্যাম জয়ীর এটাই প্রথম সাক্ষাত ছিল। মিয়ামি ‌ওপেন শিরোপা জেতার পথে স্লোয়ানি সাবেক তিনজন গ্র্যান্ডস্ল্যাম চ্যাম্পিয়নকে পরাস্ত করেন।

বাংলাদেশের ইব্রাহিমের প্রথম স্বর্ন জয়

তৃতীয় দক্ষিণ এশিয়ান আরচ্যারী চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ দিনে স্বাগতিক বাংলাদেশের ইব্রাহিম প্রথম স্বর্ন জিতলেন। বিকেএসপিতে, আজ মঙ্গলবার পুরুষ ব্যাক্তিগত রিকার্ভ ইভেন্টে, স্বাগতিক দলের আরেক প্রতিযোগী রুমান সানাকে ৬-২ সেট পয়েন্টে পরাজিত করে স্বর্ন পদক জেতেন, ইব্রাহিম শেখ রেজওয়ান।

সাউথ এশিয়ান আরচারী চ্যাম্পিয়নশিপে ইব্রাহিম শেখ রেজওয়ান

প্রথম স্বর্ণ জয়ের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে ইব্রাহিম বলেন, প্রতিটা তীর মারার সময় বুকের মধ্যে কাঁপ ছিলো। রুমান ভাইকে হারাতে পারবো ভাবতেও পারিনি। গতকাল থেকেই ভাবছিলাম আমি আমার মত খেলবো এবং রৌপ্য পদক পাবো। কিন্তু মাঠে ঘটনা বদলে যায়। খুব ভাল লাগছে ভাল লাগছে যে আমার হাত দিয়ে এবারের ৩য় সাউথ এশিয়ান আরচারী চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথম স্বর্ণটি পেল বাংলাদেশ।
খেলা শেষে দুজনকেই অভিনন্দন জানান ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজিব উদ্দিন আহমেদ চপল।

দক্ষিণ এশিয়ান আরচ্যারী চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ দিনে ১০টি স্বর্ণ, ১০টি রৌপ্য ও ১০ ব্রোঞ্জ পদক জয়ের লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের প্রতিযোগিতা।

প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলের জয়

১৩ মিনিটে তিন গোলে, শুক্রবার রাতে মস্কোয় প্রীতি ম্যাচে এবারের বিশ্বকাপ ফুটবলের স্বাগতিক রাশিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে পরাজিত করেছে সবার আগে বিশ্বকাপের মূল পর্বে ওঠা ব্রাজিল। গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর মিরান্দা, কুটিনহো এবং পাওলিনহোর কল্যাণে জয় পায় সেলেসা‌ওরা। চলতি বছর এটি ব্রাজিলের প্রথম জয়।

শুরুতে কিছুটা ছন্দহীন ব্রাজিল দ্রুতই নিজেদের খুঁজে পায়। একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে তারা; কিন্তু শেষটা ভালো হচ্ছিল না। প্রথমার্ধে দুই-তৃতীয়াংশের বেশি সময় বল দখলে রেখেও তাই প্রতিপক্ষের গোলরক্ষককে বড় কোনো পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি তিতের দল।

২৫ মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে কুটিনহোর জোরালো ঠেকিয়ে দিতে কোন সমস্যাই হয়নি রাশিয়ান গোলরক্ষকের। দুই মিনিট পর গোল করার সুযোগ পেয়ে ব্যর্থ হন উইলিয়ান।

বিরতির আগে সেরা সুযোগটি অবশ্য পায় স্বাগতিকরা। ৩৭ মিনিটে ১০ গজ দূর থেকে উড়িয়ে মারেন মিডফিল্ডার আলেকসেই মিরানচুক।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে থেকে পাওলিনহোর নেওয়া শট ঠেকান ইগর আকিনফিভ। চার মিনিট পর ব্রাজিলের আরেকটি প্রচেষ্টা গোলরক্ষকের মাথায় লেগে বাইরে চলে যায়।

৫৩ মিনিটে অপেক্ষা শেষ হয় ব্রাজিলের। ডান দিক থেকে উইলিয়ানের ক্রসে সিলভার হেড ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক; কিন্তু ফিরতি বল জালে জড়িয়ে ব্রাজিলকে ১-০ গোলে এগিয়ে দেন ইন্টার মিলানের ডিফেন্ডার মিরান্দা।

৬২ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বার্সেলোনার মিডফিল্ডার কুটিনহো। নিজেদের ডি-বক্সে পাওলিনহোকে রাশিয়ান খেলোয়াড় ফাউল করলে, পেনাল্টি পায় অতিথিরা। স্পট কিকে দলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেনকুটিনহো।

এই গোলের চার মিনিট পর উইলিয়ানের ক্রসে মাথা ছুইয়ে দলের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন বার্সেলোনার আরেক মিডফিল্ডার পাওলিনহো।

বিশ্বকাপ ফুটবলের পরবর্তী প্রীতি ম্যাচে আগামী মঙ্গলবার বার্লিনে, ব্রাজিল মুখোমুখি হবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানির। আর সেন্ট পিটার্সবার্গে একই দিনে রাশিয়া লড়বে ফ্রান্সের বিপক্ষে।

চেলসিকে বিদায় করে কোয়ার্টারে বার্সা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে লি‌ওনেল মেসির শততম গোলের দিনে চেলসিকে বিদায় করে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। ন্যূ কাম্পে, মেসির জোড়া গোলে ইংলিশ দল চেলসিকে হারায় তারা ৩-০ ব্যবধানে। তাতে ৪-১ গোল গড়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠলো বার্সেলোনা।

অবশ্য কোয়ার্টার ফাইনালে ‌ওঠার সমীকরণটা ছিলো খুব সোজা। চেলসির ম্যাঠে ১-১ গোলে প্রথম পর্বে ড্র করায় যে দল জিতবে সে-ই পাবে শেষ আটের টিকিট। এমন হিসেবের ম্যাচে, মাত্র তৃতীয় মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন মেসি। ডান দিক থেকে আক্রমণে ওঠা এই তারকা ফরোয়ার্ড দেম্বেলের সঙ্গে পাস দেওয়া-নেওয়ার চেষ্টায় ছিলেন; কিন্তু সতীর্থের বাড়ানো বল মার্কো আলোনসোর পায়ে লেগে চলে যায় সুয়ারেসের কাছে। উরুগুয়ে স্ট্রাইকারের ফিরতি পাস পেয়ে বাইলাইনের কাছ থেকে ডান পায়ে শট নেন মেসি। বল গোলরক্ষকের দুপায়ের মধ্যে দিয়ে জড়ায় জালে।

দ্বিতীয় গোলও নিজেদের ভুলে হজম করে চেলসি। খেলার ২০ মিনিটে মাঝমাঠে সেস ফাব্রেগাসের ভুলে বল পেয়ে যান মেসি। একজনকে কাটিয়ে, আরেক জনকে দারুণ ক্ষিপ্রতায় এড়িয়ে ডি-বক্সে ঢুকে ডান দিকে ডেম্বেলেকে পাস দেন। জোরালো শটে দূরের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। বার্সেলোনার হয়ে এটাই তার প্রথম গোল।

বিরতির ঠিক আগে ব্যবধান কমাতে পারত চেলসি। কিন্তু মার্কো আলোনসোর নেওয়া ফ্রি-কিক পোস্টে লাগলে আর ফেরা হয়নি তাদের।

উল্টো বিরতি থেকে ফিরে খেলার ৬৩ মিনিটে সুয়ারেসের কাছ থেকে বল পেয়ে কোনাকুনি শটে আবার‌ও চেলসির গোলকিপার কর্তোয়ার দুপায়ের ফাঁক দিয়ে বল জালে পাঠান পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এবারের আসরে এটা তার ষষ্ঠ ও সব মিলিয়ে ১০০তম গোল।

বার্সেলোনা ছাড়া‌ও কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠা বাকি দলগুলো হলো-গত দুবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ, গতবারের রানার্সআপ জুভেন্টাস, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটি, সেভিয়া, বায়ার্ন মিউনিখ ও রোমা।

শেষ আটে বায়ার্ন মিউনিখ

বড় জয় দিয়েই উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে পৌছে গেলো বায়ার্ন মিউনিখ। বেসিকতাসের মাঠে বুধবার রাতে, ৩-১ ব্যবধানে হারায় তারা স্বাগতিক দলকে। অবশ্য প্রথম লেগে নিজেদের মাঠ আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায়, ৫-০ গোলের জয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালের পথে এক পা দিয়েই রেখেছিলো তারা। এতে দুই লেগে ৮-১ ব্যবধানে জিতে কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করলো জার্মান জায়ান্টরা। সেই সঙ্গে চলতি মৌসুমে শত গোল করার রেকর্ড‌ও ছুইলো বায়ার্ন।

খেলার ১৮ মিনিটে টমাস মুলারের বাড়ানো ক্রস ধরে নিখুঁত শটে লক্ষ্যভেদ করেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড চিয়াগো আলকানতারা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে আত্মঘাতী গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ হয়। বিপদমুক্ত করতে গিয়ে গোখান গোনুল নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে দেন। ৫৯ মিনিটে ভাগনার লাভের গোলে ব্যবধান কমায় বেসিকতাস।

তবে খেলার ৮৪ মিনিটের গোলে জয় নিশ্চিত হয়ে যায় বায়ার্নের। সতীর্থের বাড়ানো ক্রস প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের গায়ে লাগার পর পেয়ে যান সান্ড্রো ভাগনার। ডি-বক্সের মাঝামাঝি থেকে দলকে তৃতীয় গোলটি পাইয়ে দেন জার্মানির এই ফরোয়ার্ড।

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে ‌ওঠার পাশাপাশি জার্মান জায়ান্টরা সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে শত গোলের মাইলফলক‌ও স্পর্ম করলো। ৩৯ ম্যাচে তাদের গোল সংখ্যা বেড়ে এখন হলো ১০২ টি। তারমধ্যে ৬৫টি বুন্দেস লিগায়, ১৮টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে, ১৪টি DFB Pokal কাপে, এবং DFL-Supercup ফাইনালে করেছে ২টি গোল। অবশ্য সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মোট ২৯টি গোল হজম করতে হয়েছে জাপ হেইঙ্কসের দলকে।

এবার ব্যাঙ্গালুরুর কাছে আবাহনীর হার

http://https://www.youtube.com/watch?v=NI1R7YlxlE8

ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে‌ও পারলো না আবাহনী। নিউ রেডিয়েন্টের মতো ব্যাঙ্গালুরু এফসি বিপক্ষেও পা‌ওয়া সুযোগগুলোর সঠিক ব্যবহার করতে না পারায় পরাজয় নিয়েই দেশে ফেরার টিকিট কাটতে হয় সাইফুল বারী টিটুর দলের। এএফসি কাপের ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে শ্রী কান্তেরাভা স্টেডিয়ামে ব্যাঙ্গালুরুর কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয় বাংলাদেশর দল আবাহনী।

নিজেদের মাঠ এএফসি কাপে গত নয় ম্যাচে আট জয় ও এক ড্রয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলতে নামা ব্যাঙ্গালুরু শুরু থেকে বলের নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে ছিল। কিন্তু পোস্টে শট নেওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে ছিল গত এএফসি কাপে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ভারতের দলটিকে ২-০ গোলে হারানো আবাহনী।

খেলার ১৪ মিনিটে ৪০ গজেরও বেশি দূর থেকে নেওয়া মামুন মিয়ার জোরালো শট অল্পের জন্য ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়। দুই মিনিট পর মামুনের ক্রসে জাপানি মিডফিল্ডার সেইয়া কোজিমার হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে আবাহনীর হতাশা বাড়ে।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে ওয়ালী ফয়সালের ক্রসে আবাহনীর নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এমেকা ডারলিংটনের হেড গোলের ঠিকানা খুঁজে পায়নি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে আবাহনীর রক্ষণে চাপ দিতে থাকে ব্যাঙ্গালুরু। ৪৯ মিনিটে ড্যানিয়েল লালহিলিমপুইয়ার শট ফেরান গোলরক্ষক শহিদুল ইসলাম সোহেল। ৫৩ মিনিটে ভিক্টর পেরেসের প্রচেষ্টা‌ও সফল হয়নি।

এলিসন উডোকার দুটি হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে আবাহনীর হতাশা আরও বাড়ে। ৫৮ মিনিটে ওয়ালীর ক্রসে এবং ৬৩ মিনিটে রুবেল মিয়ার বাড়ানো বলে হেড করেছিলেন নাইজেরিয়া এই ডিফেন্ডার।

৭২ মিনিটের সুযোগ কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় ব্যাঙ্গালুরু। ড্যানিয়েল সেগোভিয়ার হেড করে বাড়ানো বল ডান পায়ের শটে জালে জড়িয়ে দেন ২০ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড লালহিলিমপুইয়া। শেষ পর্যন্ত এ গোলেই এএফসি কাপে শুভসূচনা করে ব্যাঙ্গালুরু। এর আগে, মালদ্বীপের দল নিউ রেডিয়েন্টের কাছে নিজেদের প্রথম ম্যাচে‌ও ১-০ ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশের জায়ান্ট আবাহনী।

থাইল্যান্ডকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ

ওমান থেকে এস এম আশরাফ

ওমানে এশিয়ান গেমস হকির বাছাইপর্বে থাইল্যান্ডকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচের প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে ছিলো মাহবুব হারুনের দল।

যতই ফেবারিটের তকমা থাকুক না কেনো। প্রথম ম্যাচে স্নায়ুর পরীক্ষা থেকেই যায়। সেই পরীক্ষায় ম্যাচের প্রথম মিনিট থেকেই বাংলাদেশ এগিয়ে গেলো দুর্বার গতিতে। ১৪ মিনিটে সরোয়ারের স্টিকে প্রথম আর ২৭ মিনিটে নিলয় দিলেন দ্বিতীয় গোল।

একদিকে আক্রমন অন্যদিকে প্লেসিং এই দুইয়ের মিশেলে দিশেহারা থাইল্যান্ডের রক্ষলভাগ। মিলন আর রোমানের স্টিক কথা বললে ৪৭ মিনিটে চার গোলে এগিয়ে যায় লাল সবুজের দল।

প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ইমন  প্রতিপক্ষকে কাপিয়েছেন। গোল পাননি তবে যোগান দিয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন জিমি। কথা বলেছে অভিজ্ঞ চয়নের স্টিকও। গোল হতে পারতো আরো গোটা চারেক। শেষ পর্যন্ত চয়নের স্টিকে বাংলাদেশ সন্তষ্ট ৫-০ ব্যবধান নিয়েই।

বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমি

তবু প্রথম ম্যাচ জয়ে সন্তষ্ট ম্যাচ সেরা জিমি। বললেন, আমরা একটি দল হিসেবে খেলতে চেয়েছি। মাঠে সেটা করে দেখাতে পেরেছি বলেই সবচেয়ে বেশি ভাল লাগছে। আমরা আসলে এমনটাই চেযেছিলাম। আর প্রথম ম্যাচ বলেই হয়তো সবার কাছে একটু অন্যরকম লাগছিল। তবে আমরা আরো ভাল খেলার আশা রাখি।

আগামীকাল রোববার দ্বিতীয় ম্যাচে হংকংয়ের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

এজবাস্টনের বাংলাদেশের অনুশীলন

এজবাস্টনে আজ অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। কারণ বার্মিংহামের এই এজবাস্টন স্টেডিয়ামেই আগামীকাল প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ দল মুখোমুখি হবে পাকিস্তানের। আগামী ৩০ মে দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে টাইগাররা মুখোমুখি হবে ভারতের। ম্যাচটি হবে লন্ডনের কেনিংটন ওভালে। এরপর আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির উদ্বোধনী ম্যাচে কেনিংটন ওভালেই স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ খেলবে মাশরাফিরা।

*** বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ভিডিও ফুটেজ ও মাশরাফির ইন্টারভিউ সংযুক্ত করা হলো। ***