সন্ধ্যা ৬:০২, শুক্রবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং

এক নজরে

শুধু নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বললে ভুল বলা হবে। বিশ্ব ক্রিকেটেরই এক অমুল্য রতন তিনি। জীবন্ত কিংবদন্তী। স্যার রিচার্ড হ্যাডলি। এক সময়ে বিশ্ব কাঁপানো এই অলরাউন্ডারের মুখে বাংলাদেশের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের উচ্চসিত প্রশংসা।

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালের প্যাভিলিয়নে বসে যখন একঝাঁক বাংলাদেশি সাংবাদিকের সামনে বাংলাদেশেরেই এক ক্রিকেটারের উচ্চসিত প্রশংসা করছিলেন হ্যাডলি, তখন বাংলাদেশি হিসেবেই গর্বে বুক ফুলে উঠছিল আমাদের।

দীর্ঘ সময় র‌্যাংকিংয়ে অলরাউন্ডারের শীর্ষ আসনটা নিজের করে রেখেছিলেন সাকিব। শুধু তাই নয়, সাকিবই বিশ্বের একমাত্র ক্রিকেটার যিনি ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই এক সঙ্গে র্যাংকিংয়ের শীর্ষ আসনটি দখল করে নিয়েছিলেন। বাংলাদেশের একমাত্র ক্রিকেটার সাকিব, যিনি বিশ্বের সবগুলো ফ্রাঞ্চাইজি লিগেরই পছন্দের তালিকায় থাকেন এবং প্রায় সবগুলো লিগেই খেলেছেন তিনি।

এক সময়ের সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে স্যার রিচার্ড হ্যাডলি অবশ্যই খোঁজ-খবর রাখেন সাকিব আল হাসানের। খবর রাখলেও সাকিব সম্পর্কে নিজের মনের ভাব হয়তো সেভাবে প্রকাশ করার সুযোগ হয়নি তার কখনও। এবার সুযোগ পেলেন। হ্যাগলি ওভালে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর পরই প্যাভিলিয়নে বাংলাদেশের সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন তিনি। বললেন অনেক কথা।

সব কিছুর মধ্যে আলাদাভাবে উঠে আসলো বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটের কথা। সাকিব আল হাসান সম্পর্কে বলতে গিয়ে হ্যাডলির মুখে শুধু প্রশংসাই ভেসে উঠেছে। এক কথায় তিনি জানিয়ে দিলেন, ‘সাকিব ইজ অ্যা হিরো। তার ব্যাটিং দেখতে আমি খুব পছন্দ করি।’

ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কতটা কার্যকর সাকিব আল হাসান সে কথা স্পষ্টই উঠে এলো হ্যাডলির মুখ থেকে, ‘সাকিব ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের এক নম্বর অলরাউন্ডার হিসেবে পরিচিত এখন। আমারও মনে হয় সে অত্যন্ত ভালোমানের খেলোয়াড়। শুধু ভালোমানেরই নয়, সে সত্যিই খুব কার্যকর একজন ক্রিকেটার।’

সাকিবের ব্যাটিং নাকি স্যার রিচার্ড হ্যাডলিকে খুব টানে। তার ব্যাটিং দেখতে তিনি খুব পছন্দ করেন। হ্যাডলি বলেন, ‘সাকিব হলেন সত্যিকার নায়ক। তার ব্যাটিং দেখতে আমি খুব পছন্দ করি। তার হাতের বাহারি মার, দৃষ্টি নন্দন স্ট্রোক প্লে এবং হাত খুলে খেলা আমাকে খুব টানে।’

ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভের প্যাভিলিয়নে বসে তিনি খুব মনযোগ দিয়ে দেখেছেন সাকিবের ব্যাটিং। সেটা উল্লেখ করতেও ভুললেন না হ্যাডলি। তিনি বলেন, ‘ওয়েলিংটনে সাকিব অসাধারণ খেলেছে এবং তার অভিজ্ঞতাও অনেক। তার রেকর্ড দেখলেই বোঝা যায়, সে কত বড় মাপের ক্রিকেটার।’

সাকিবের ব্যাটিং দেখতে পছন্দ করেন রিচার্ড হ্যাডলি

শুধু নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বললে ভুল বলা হবে। বিশ্ব ক্রিকেটেরই এক অমুল্য রতন তিনি। জীবন্ত কিংবদন্তী। স্যার রিচার্ড হ্যাডলি। এক সময়ে বিশ্ব কাঁপানো এই অলরাউন্ডারের মুখে বাংলাদেশের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের উচ্চসিত প্রশংসা।

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালের প্যাভিলিয়নে বসে যখন একঝাঁক বাংলাদেশি সাংবাদিকের সামনে বাংলাদেশেরেই এক ক্রিকেটারের উচ্চসিত প্রশংসা করছিলেন হ্যাডলি, তখন বাংলাদেশি হিসেবেই গর্বে বুক ফুলে উঠছিল আমাদের।

দীর্ঘ সময় র‌্যাংকিংয়ে অলরাউন্ডারের শীর্ষ আসনটা নিজের করে রেখেছিলেন সাকিব। শুধু তাই নয়, সাকিবই বিশ্বের একমাত্র ক্রিকেটার যিনি ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই এক সঙ্গে র্যাংকিংয়ের শীর্ষ আসনটি দখল করে নিয়েছিলেন। বাংলাদেশের একমাত্র ক্রিকেটার সাকিব, যিনি বিশ্বের সবগুলো ফ্রাঞ্চাইজি লিগেরই পছন্দের তালিকায় থাকেন এবং প্রায় সবগুলো লিগেই খেলেছেন তিনি।

এক সময়ের সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে স্যার রিচার্ড হ্যাডলি অবশ্যই খোঁজ-খবর রাখেন সাকিব আল হাসানের। খবর রাখলেও সাকিব সম্পর্কে নিজের মনের ভাব হয়তো সেভাবে প্রকাশ করার সুযোগ হয়নি তার কখনও। এবার সুযোগ পেলেন। হ্যাগলি ওভালে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর পরই প্যাভিলিয়নে বাংলাদেশের সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন তিনি। বললেন অনেক কথা।

সব কিছুর মধ্যে আলাদাভাবে উঠে আসলো বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটের কথা। সাকিব আল হাসান সম্পর্কে বলতে গিয়ে হ্যাডলির মুখে শুধু প্রশংসাই ভেসে উঠেছে। এক কথায় তিনি জানিয়ে দিলেন, ‘সাকিব ইজ অ্যা হিরো। তার ব্যাটিং দেখতে আমি খুব পছন্দ করি।’

ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কতটা কার্যকর সাকিব আল হাসান সে কথা স্পষ্টই উঠে এলো হ্যাডলির মুখ থেকে, ‘সাকিব ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের এক নম্বর অলরাউন্ডার হিসেবে পরিচিত এখন। আমারও মনে হয় সে অত্যন্ত ভালোমানের খেলোয়াড়। শুধু ভালোমানেরই নয়, সে সত্যিই খুব কার্যকর একজন ক্রিকেটার।’

সাকিবের ব্যাটিং নাকি স্যার রিচার্ড হ্যাডলিকে খুব টানে। তার ব্যাটিং দেখতে তিনি খুব পছন্দ করেন। হ্যাডলি বলেন, ‘সাকিব হলেন সত্যিকার নায়ক। তার ব্যাটিং দেখতে আমি খুব পছন্দ করি। তার হাতের বাহারি মার, দৃষ্টি নন্দন স্ট্রোক প্লে এবং হাত খুলে খেলা আমাকে খুব টানে।’

ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভের প্যাভিলিয়নে বসে তিনি খুব মনযোগ দিয়ে দেখেছেন সাকিবের ব্যাটিং। সেটা উল্লেখ করতেও ভুললেন না হ্যাডলি। তিনি বলেন, ‘ওয়েলিংটনে সাকিব অসাধারণ খেলেছে এবং তার অভিজ্ঞতাও অনেক। তার রেকর্ড দেখলেই বোঝা যায়, সে কত বড় মাপের ক্রিকেটার।’

ক্রিকেট

সাকিবের ব্যাটিং দেখতে পছন্দ করেন রিচার্ড হ্যাডলি

শুধু নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বললে ভুল বলা হবে। বিশ্ব ক্রিকেটেরই এক অমুল্য রতন তিনি। জীবন্ত কিংবদন্তী। স্যার রিচার্ড হ্যাডলি। এক সময়ে বিশ্ব কাঁপানো এই অলরাউন্ডারের মুখে বাংলাদেশের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের উচ্চসিত প্রশংসা।

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালের প্যাভিলিয়নে বসে যখন একঝাঁক বাংলাদেশি সাংবাদিকের সামনে বাংলাদেশেরেই এক ক্রিকেটারের উচ্চসিত প্রশংসা করছিলেন হ্যাডলি, তখন বাংলাদেশি হিসেবেই গর্বে বুক ফুলে উঠছিল আমাদের।

দীর্ঘ সময় র‌্যাংকিংয়ে অলরাউন্ডারের শীর্ষ আসনটা নিজের করে রেখেছিলেন সাকিব। শুধু তাই নয়, সাকিবই বিশ্বের একমাত্র ক্রিকেটার যিনি ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই এক সঙ্গে র্যাংকিংয়ের শীর্ষ আসনটি দখল করে নিয়েছিলেন। বাংলাদেশের একমাত্র ক্রিকেটার সাকিব, যিনি বিশ্বের সবগুলো ফ্রাঞ্চাইজি লিগেরই পছন্দের তালিকায় থাকেন এবং প্রায় সবগুলো লিগেই খেলেছেন তিনি।

এক সময়ের সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে স্যার রিচার্ড হ্যাডলি অবশ্যই খোঁজ-খবর রাখেন সাকিব আল হাসানের। খবর রাখলেও সাকিব সম্পর্কে নিজের মনের ভাব হয়তো সেভাবে প্রকাশ করার সুযোগ হয়নি তার কখনও। এবার সুযোগ পেলেন। হ্যাগলি ওভালে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর পরই প্যাভিলিয়নে বাংলাদেশের সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন তিনি। বললেন অনেক কথা।

সব কিছুর মধ্যে আলাদাভাবে উঠে আসলো বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটের কথা। সাকিব আল হাসান সম্পর্কে বলতে গিয়ে হ্যাডলির মুখে শুধু প্রশংসাই ভেসে উঠেছে। এক কথায় তিনি জানিয়ে দিলেন, ‘সাকিব ইজ অ্যা হিরো। তার ব্যাটিং দেখতে আমি খুব পছন্দ করি।’

ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কতটা কার্যকর সাকিব আল হাসান সে কথা স্পষ্টই উঠে এলো হ্যাডলির মুখ থেকে, ‘সাকিব ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের এক নম্বর অলরাউন্ডার হিসেবে পরিচিত এখন। আমারও মনে হয় সে অত্যন্ত ভালোমানের খেলোয়াড়। শুধু ভালোমানেরই নয়, সে সত্যিই খুব কার্যকর একজন ক্রিকেটার।’

সাকিবের ব্যাটিং নাকি স্যার রিচার্ড হ্যাডলিকে খুব টানে। তার ব্যাটিং দেখতে তিনি খুব পছন্দ করেন। হ্যাডলি বলেন, ‘সাকিব হলেন সত্যিকার নায়ক। তার ব্যাটিং দেখতে আমি খুব পছন্দ করি। তার হাতের বাহারি মার, দৃষ্টি নন্দন স্ট্রোক প্লে এবং হাত খুলে খেলা আমাকে খুব টানে।’

ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভের প্যাভিলিয়নে বসে তিনি খুব মনযোগ দিয়ে দেখেছেন সাকিবের ব্যাটিং। সেটা উল্লেখ করতেও ভুললেন না হ্যাডলি। তিনি বলেন, ‘ওয়েলিংটনে সাকিব অসাধারণ খেলেছে এবং তার অভিজ্ঞতাও অনেক। তার রেকর্ড দেখলেই বোঝা যায়, সে কত বড় মাপের ক্রিকেটার।’

ফুটবল

রিয়াল মাদ্রিদের টানা দ্বিতীয় হার

সব প্রতিযোগিতায় টানা ৪০ ম্যাচে অপরাজিত থেকে আগের ম্যাচে সেভিয়ার বিপক্ষে হেরেছে রিয়াল মাদ্রিদ। স্প্যানিশ লা লিগায় ওই হারের পর কোপা দেল’রের ম্যাচে এবার সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে হেরেছে দলটি।

অপরাজিত থাকার স্প্যানিশ রেকর্ড গড়ার পর এবার শেষ দুই ম্যাচেই হারের স্বাদ পেল স্পেন তথা ইউরোপের অন্যতম সেরা ক্লাবটি।

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে গতকাল রাতে কোপা দেল’রের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে সেল্টা ভিগোকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পায় রিয়াল। কিন্তু ঘরের মাঠের ওই লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসতে পারেনি লস ব্লাঙ্কোসরা। চেনা মাঠে তাদের হারিয়ে দিয়েছে সফরকারীরা।

বার্নাব্যুতে ম্যাচের প্রথমার্ধে গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই। প্রথমার্ধে বেশ কিছু সুযোগ তৈরি করলেও গোলের দেখা পাননি রোনালদো-বেনজেমারা।ফলে গোলশূন্য থেকেই প্রথমার্ধের খেলা শেষ করতে হয়েছে তাদের।

বিশ্রাম শেষে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর দর্শকদের স্তব্ধ করে সেল্টাকে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন ল্যাগো অ্যাসপাস। তবে ম্যাচের ৬৯ মিনিটে মার্সেলোর গোলে উচ্ছ্বাস ফেরে রিয়াল শিবিরে। কিন্তু সেই উচ্ছ্বাস বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি স্বাগতিকদের। ম্যাচের ৭০ মিনিটে জনি ক্যাস্ট্রোর গোলে ফের পিছিয়ে পড়ে লস ব্লাঙ্কোসরা।

এরপর আর কোনো গোল হয়নি ম্যাচটিতে। ম্যাচের বাকি সময়ে রোনালদো-বেনজেমারা বেশ কিছু সুযোগ পেলেও সেগুলো থেকে গোল আদায় করতে পারেননি তারা। ফলে শেষ পর্যন্ত ২-১ ব্যবধানের হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে জিনেদিন জিদানের প্রশিক্ষিত দলটিকে।

 

ফেইসবুক

গলফ
দাবা
লন-টেনিস
হকি
হ্যান্ডবল
আর্ন্তজাতিক
সাক্ষাৎকার
সাঁতার
এ্যাথলেটিকস্